মঙ্গলবার, আগস্ট ৪, ২০২০

ক্যালিফোর্নিয়ায় উপকূলে ৭জন মেরিন সেনা নিখোঁজ

০৩আগস্ট,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়ার উপকূলে যুক্তরাষ্ট্রের মেরিন বাহিনীর ৭ সদস্য ও ১ জন নাবিক নিখোঁজ হয়েছেন। তারা সকলেই নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করে তল্লাশি তৎপরতা বন্ধ করা হয়েছে। খবর ভয়েস অব আমেরিকার। জানা যায়, এসব মেরিন সেনারা একটি উভচর যানে প্রশিক্ষণে ছিলেন। যানটিতে পানি ঢকে ডুবে গেলে প্রশিক্ষণরত ১৫জনের মধ্যে ৮জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়। কমান্ডিং অফিসার ক্রিস্টোফার ব্রনজি এক বিবৃতিতে জানান, দুঃখ ভারাক্রান্ত মনে আমাকে এই উদ্ধার মিশনের সমাপ্তি টানতে হচ্ছে। আমাদের মেরিন ও কোস্ট গার্ড সদস্যরা অভাবনীয় উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছিলেন। তবে আমরা এদেরকে রক্ষা করতে পারিনি। ...

আরব বিশ্বে প্রথম পরমাণু বিদ্যুৎ স্থাপনা চালু করলো আমিরাত

০২আগস্ট,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সংযুক্ত আরব আমিরাত বারাকা পরমাণু বিদ্যুৎ স্থাপনা চালু করেছে। আরব বিশ্বে এটি প্রথম পরমাণু বিদ্যুৎ স্থাপনা। আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থায় (আইএইএ) নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিনিধি হামাদ আলকাবি টুইট বার্তায় জানান, শনিবার (০১ আগস্ট) সংযুক্ত আরব আমিরাতের বারাকা পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রথম পরমাণু চুল্লি সফলতার সঙ্গে চালু হয়েছে। ওই টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, নতুন ধরনের পরিস্কার জ্বালানি পাওয়ার ক্ষেত্রে জাতির জন্য এটি একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রধানমন্ত্রী এবং দুবাইয়ের শাসক শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাখতুম অন্য এক টুইটার বার্তায় বলেন, বারাকা বিদ্যুৎ স্থাপনার কাজ সফলতা সঙ্গে শেষ হয়েছে। জ্বালানি এবং টেকসই উন্নয়নের ক্ষেত্রে ঐতিহাসিক এই অর্জনের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সবাইকে অভিনন্দন জানান। গত ফেব্রুয়ারি মাসে বারাকা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের চুল্লিতে পরমাণু রড ভরার কাজ শুরু করেছিল আমিরাত। এর মধ্যদিয়েই সংযুক্ত আরব আমিরাতের জন্য বাণিজ্যিকভাবে পরমাণু বিদ্যুৎ ব্যবহারের পথ উন্মুক্ত হয়ে যায়। ...

চীনের জে ২০ যুদ্ধবিমানের সামনে দাঁড়াতেই পারবে না ভারতের রাফাল

০১আগস্ট,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বুধবারই ভারতে এসে পৌঁছেছে পাঁচটি রাফাল যুদ্ধবিমান৷ এর ফলে ভারতীয় বিমান বাহিনীর শক্তি অনেকটাই বৃদ্ধি পাবে বলে দাবি করা হচ্ছে৷ যথারীতি এই দাবি মানতে নারাজ চীন৷ তাদের সরকারি মুখপত্র গ্লোবাল টাইমসে দাবি করা হয়েছে, চীনের জে ২০ যুদ্ধবিমানের সামনে দাঁড়াতেই পারবে না ভারতের রাফাল৷ ঝাং জিউফাং নামে এক প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞকে উদ্ধৃত করে দাবি করা হয়েছে ভারতের হাতে থাকা সুখোই ৩০ যুদ্ধবিমানের তুলনায় রাফাল অবশ্যই উন্নত প্রযুক্তির৷ কিন্তু আকাশে যুদ্ধের সময় কোনওভাবেই রাফাল চীনের ফোর্থ জেনারেশন জে ২০-র সামনে দাঁড়াতেই পারবে না৷ ভারতের প্রাক্তন বিমান বাহিনীর প্রধান বি এস ধানোয়া দাবি করেছিলেন, রাফাল আসায় ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তিতে আমূল পরিবর্তন আসবে৷ চীনের জে ২০ রাফালের ধারেপাশে আসেনা বলেও দাবি করেন তিনি৷ রাফালকে ৪.৫ জেনারেশনের যুদ্ধবিমান বলেও দাবি করেছিলেন ধানোয়া৷ ভারতের প্রাক্তন বিমান বাহিনীর প্রধানের এই দাবি খারিজ করে পাল্টা চীনা মুখপত্র রাফালকে তৃতীয় প্রজন্মের যুদ্ধবিমান বলে কটাক্ষ করা হয়েছে৷ ৭০০০ নয়, ফ্রান্স থেকে ৮৫০০ কিলোমিটার পেরিয়ে ফ্রান্স থেকে ভারতের আম্বালা এয়ারবেসে পৌঁছেছে যদিও ভারতের প্রাক্তন বিমান বাহিনীর প্রধান এখনও নিজের বক্তব্যেই অনড়৷ নিজেদের দাবি প্রমাণ করতে চীনকে পাল্টা দু'টি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন ধানোয়া৷ তিনি প্রশ্ন করেন, জে ২০ যদি সত্যিই চীনা দাবি অনুযায়ী ফিফথ জেনারেশন যুদ্ধবিমান হয়, তাহলে কেন এই যুদ্ধবিমানগুলোতে কানার্ড থাকে? ধানোয়ার দাবি, আমেরিকার জে ২২, রাশিয়ার এসইউ ৫৭-এর মতো প্রকৃত পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমানগুলোতে কানার্ড থাকে না৷ বিমানের নিয়ন্ত্রণ উন্নত করার লক্ষ্যে মূল দু'টি ডানার সামনে যে ছোট ডানাগুলি থাকে, সেগুলোকেই কানার্ড বলা হয়৷ ধানোয়ার দাবি এই ধরনের কানার্ড বিমানে থাকলে তা সহজে প্রতিপক্ষের রাডারে ধরা পড়ে যায়৷ প্রাক্তন বিমান বাহিনীর প্রধানের আরও প্রশ্ন, চীনের জে ২০ যুদ্ধবিমানগুলোতে কেন 'সুপারক্রজিং'-এর সুবিধা নেই? যে যু্দ্ধবিমানগুলো আফটারবার্নারের বা অতিরিক্ত জ্বালানি না পুড়িয়েই মাখ ১ বা শব্দের থেকেও বেশি গতিবেগ তুলতে সক্ষম, সেগুলোকে এই গোত্রে ফেলা হয়৷ ধানোয়ার দাবি, রাফালে এই সুবিধা রয়েছে এবং ফ্রান্সে তৈরি এই যুদ্ধবিমানগুলোর রাডারও অন্যতম সেরা৷ সূত্র: নিউজ এইট্টিন ...

৭ দেশের প্রবাসীরা যেতে পারবেন না কুয়েতে

৩১জুলাই,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশসহ সাতটি দেশের নাগরিকরা কুয়েতে যেতে পারবেন না বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। বাকি ছয়টি দেশ হলো: পাকিস্তান, ইরান, নেপাল, ভারত, শ্রীলংকা ও ফিলিপাইন। এদিকে অন্য দেশের নাগরিকরা চলতি বছরের পহেলা আগস্ট (শনিবার) থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল শুরু হলে কুয়েতে ফিরতে বাধা নেই। তাদের অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে ও পিসিআর সনদপত্র বাধ্যতামূলক থাকতে হবে। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) স্থানীয় আরবী দৈনিক আল রাই, আল কাবাসসহ একাধিক গণমাধ্যম বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এর আগে বলা হয়েছিলো, যারা মহামারি করোনা ভাইরাস আসার আগে ছুটিতে গিয়েছিলেন। ভাইরাসের কারণে এবং প্লেন চলাচল বন্ধ থাকার কারণে আসতে পারেনি। যাদের আকামার মেয়াদ সম্পন্ন কিন্তু তাদের কোম্পানি তাদের আকামা অনলাইনের মাধ্যমে নবায়ন করছে না। এমন এক হাজার প্রবাসীর আকামা বাতিল হচ্ছে প্রতিদিন। এছাড়াও ছুটিতে থাকা ৬০ বছরের ওপরের প্রবাসীদের আকামা বাতিল। তবে যারা শিক্ষক, চিকিৎসক ও প্রকৌশলী তাদের কোম্পানি চাইলে ভিজিট ভিসায় এসে আকামা পরিবর্তন করতে পারবে। কুয়েতি নাগরিক ১৪ লাখ এবং দেশটিতে বিভিন্ন দেশে বসবাসকারী অভিবাসীদের সংখ্যা ৩৪ লাখ। অভিবাসীদের সংখ্যা কমাতে কুয়েতের মন্ত্রিপরিষদ বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাব ও উদ্যোগ নিয়েছে। এক্ষেত্রে দেশটিতে বাংলাদেশি শ্রমবাজার ধরে রাখতে কূটনীতিক প্রচেষ্টা বাড়ানো প্রয়োজন। যেসব প্রবাসী দেশে থাকা অবস্থায় তাদের আকামা নবায়নে ব্যর্থ হয়েছেন তারা নতুন ভিসা ব্যতিত কুয়েতে যেতে পারবেন না। কিন্তু যাদের আকামার মেয়াদ আছে তাদের ছুটির মেয়াদ ছয়মাসের পরির্বতে ১২ মাস করা হয়েছে। ফ্লাইট চালু শুরু হলে তারা কুয়েতে যেতে পারবেন। ...

চট্টগ্রামে করোনায় নতুন শনাক্ত ৯ জন

০৩আগস্ট,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের দুটি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৯ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এই দিনও কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি চট্টগ্রামে। রোববার (২ আগস্ট) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এইদিন ১০৭ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৮৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ জন এবং চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ২১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জন শনাক্ত হয়। এইদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাব, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাব, বেসরকারি শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে এবং ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবেও পরীক্ষা বন্ধ ছিল। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় মাত্র ৯ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এইদিন নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১০৭টি। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৬ জন এবং উপজেলায় ৩জন। এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৭৮ জন। ...

শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে স্ত্রীর ওপর অভিমান করে ধরলায় ঝাঁপ দিয়ে তরুণের আত্মহত্যা

০৩আগস্ট,সোমবার,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঈদের দাওয়াত খেতে শ্বশুর বাড়ী যাওয়ার পথে স্ত্রীর সাথে অভিমান করে সেতুর ওপর থেকে ধরলা নদীতে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক তরুণ। রোববার দুপুরে এ ঘটনাটি ঘটে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় শেখ হাসিনা ধরলা সেতুতে। ওই তরুণের নাম জোবায়ের আলম জয় (২২)। তিনি ফুলবাড়ী আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও চন্দ্রখানা কলেজপাড়ার বসবাসকারী আমীর হোসেনের ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলা হারাটি এলাকায় দুপুরে স্ত্রীসহ অটোবাইক যোগে শ্বশুড়বাড়ি যাচ্ছিলেন। অটোবাইকটি ধরলা সেতুর মধ্যবর্তী স্থানে পৌঁছিলে স্ত্রীর সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আকস্মিকভাবে অটো থেকে নেমে দৌড় দেন জয়। এ সময় স্ত্রী তাকে আটকানোর জন্য চিৎকার করেন। লোকজন বুঝে ওঠার আগেই সেতুর রেলিংয়ের উপর উঠে যান জয় । চোখের সামনে লাফ দিয়ে ধরলার গভীর পানিতে ডুবে যান জয়। তীব্র স্রোতের কারণে সঙ্গে সঙ্গে তিনি তলিয়ে যান। এই দৃশ্য দেখে অজ্ঞান হয়ে পড়েন স্ত্রী শিউলি বেগম। পরে পরিবারের লোকজন এসে তাকে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ও নাগেশ্বরী ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার তৎপরতা চালায়। দীর্ঘক্ষণ অভিযান চালিয়ে বেলা ৩টার দিকে জয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয় । ফুলবাড়ী থানার এসআই হাবিবুর রহমান জানান, যদিও নদীর গভীরতা ও স্রোত বেশি তারপরও পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের যৌথ প্রচেষ্টায় খুব দ্রুত মরদেহ উদ্ধার করা গেছে। ...

টেকনাফ চেকপোস্টের সকল পুলিশ সদস্য প্রত্যাহার

০২আগস্ট,রবিবার,কক্সবাজার প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজারের টেকনাফে শামলাপুর চেকপোস্ট পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা নিহত হওয়ার ঘটনায় বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জসহ সকল পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় তাদের প্রত্যাহার করে কক্সবাজার পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। কক্সবাজার পুলিশ সুপার এবি এম মাসুদ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ শাজাহান আলিকে আহ্বায়ক করে গঠিত তিন সদস্যের তদন্ত কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ। এ কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন কক্সবাজার জেলার একজন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সেনাবাহিনীর ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এবং কক্সবাজার এরিয়া কমান্ডারের একজন উপযুক্ত প্রতিনিধি। পুলিশ সুপার এবি এম মাসুদ হোসেন জানান, অবসরপ্রাপ্ত একজন সেনা কর্মকর্তা নিহতের ঘটনায় ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। ঘটনার তদন্তের স্বার্থে টেকনাফের বাহারছড়া কেন্দ্রের ইনচার্জ লিয়াকত আলিসহ ২০ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। প্রত্যাহার করা পুলিশ সদস্যদের ইতিমধ্যে কক্সবাজার পুলিশ লাইনে নিয়ে আসা হয়েছে। তিনি আরও জানান, নতুন করে আরও ২০ পুলিশ সদস্যকে বাহারছড়া তদন্তকেন্দ্রে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ...

টাঙ্গাইলে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ৫ নৌকা আরোহী নিহত

৩১জুলাই,শুক্রবার,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ৫ নৌকা আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে উপজেলার গিলা বাড়িতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় ইউপি সদস্য রুবেল মিয়া এ তথ্যটি নিশ্চিত করে জানান, শুক্রবার বিকেলে উপজেলার গিলাবাড়ী বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, উপজেলার গিলাবাড়ী গ্রামের নৌকার মাঝি তাইজ উদ্দিন (৫০), একই এলাকার মিঞ্জু মিয়ার স্ত্রী জমেলা বেগম (৬০) ও তার ছেলে হামিদুর রহমান রনো (৩৫), একই এলাকার আতা মিয়ার ছেলের বউ (৩২), সখীপুর উপজেলার কৈয়ামধু গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে শাহ আলম ( ২৫)। রুবেল মিয়া বলেন, নৌকাটি দাঁড়িয়াপুর থেকে গিলাবাড়ীতে আসতেছিল। নৌকাটি গিলাবাড়ী বাজার এলাকায় পৌঁছালে বিলের মধ্যে থাকা বিদ্যুতের তারের সঙ্গে নৌকার মাঝির স্পর্শ লাগে। এ সময় নৌকাটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে পাঁচজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও কয়জন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানান তিনি। এদিকে বাসাইল ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ফায়ার ম্যান শফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি জানতে পেরে ঘটনাস্থলে ডুবুরি পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল অনেক দূরে বিধায় পরে বিস্তারিত জানা যাবে। ...

লোহাগাড়ায় বাস-ট্রাক সংঘর্ষে ২ জন নিহত

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,মো.রুবায়েত,লোহাগাড়া প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: লোহাগাড়ায় সৌদিয়া পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে সিমেন্ট বোঝাই ট্রাকের ধাক্কায় দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) সকাল সাড়ে আটটার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে বার আউলিয়া কলেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজনের নাম মো. শওকত (২৪)। তার বাড়ি চন্দনাইশ উপজেলায়। দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি মোহাম্মদ ইয়াছির আরাফাত নিউজ একাত্তরকে বলেন, চট্টগ্রামগামী সৌদিয়া বাসের সঙ্গে কক্সবাজারগামী ট্রাকের পাশাপাশি ধাক্কা লাগে। এতে সৌদিয়া বাসটি উল্টে যায় এবং ট্রাকটি রাস্তার পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই দুইজন নিহত হয়। এছাড়া বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। আহতদের লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ...

জুলাইয়ে ২.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা

০৩আগস্ট,সোমবার,অর্থনীতি ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসের প্রকোপের মধ্যেও শুধু জুলাই মাসে ২ দশমিক ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা । বিশ্বজুড়ে ইতিহাসে একক মাসে এর আগে কখনো এত পরিমাণ রেমিট্যান্স আসেনি। গত জুন মাসের পুরো সময়ে রেমিট্যান্স এসেছিল ১ দশমিক ৮৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। প্রবাসী আয়ের এ ঊর্ধ্বমুখী ধারা অব্যাহত থাকার জন্য সরকারের সময়োপযোগী ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে। পাশাপাশি বাংলাদেশের ইতিহাসে এযাবতকালের মধ্যে সর্ব্বোচ্চ বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩৭ দশমিক ২৮৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। গত ৩০ জুন ২০২০ তারিখে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ৩৬ দশমিক ০১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তখন পর্যন্ত বাংলাদেশের ইতিহাসে যেটি ছিল সর্বোচ্চ। মাত্র এক মাসের ব্যবধানে সেটি পৌছেছে ৩৭ দশমিক ২৮৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রেকর্ডে। রিজার্ভের উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধিতে গুরূত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে রেমিট্যান্সের আন্তঃপ্রবাহ। করোনার মধ্যে প্রতিকূল পরিবেশে থেকেও নিয়মিত রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। কঠিন সময়ে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভকে শক্তিশালী করেছে। এক্ষেত্রে দেশ ও পরিবারের প্রতি তাদের ভালোবাসা এবং দায়বদ্ধতার বহি:প্রকাশ ঘটেছে। অর্থনীতির চাকাকে বেগবান রাখতে বড় অবদান রাখছে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স। রেমিট্যান্সে দেশের এ অনন্য রেকর্ডে প্রবাসীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় গত অর্থবছরের শুরু থেকে প্রবাসীদের প্রেরিত আয়ের উপর ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা প্রদান অব্যাহত আছে যার ফলে গতবছর ১৮ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স এসেছে। চলতি অর্থবছরে ৩-৫ বিলিয়ন ডলার বাড়তি অর্জনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা কাজ করছি। সামনের দিনে রেমিট্যান্স বৈধ পথে আনতে যত কৌশল অবলম্বন করতে হয় সেটা আমরা নেব। তিনি বলেন, প্রবাসীদের রয়েছে দেশের প্রতি অকৃতিম ভালোবাসা আর মমত্ববোধ। তাদের টাকা প্রেরণে যত বাধা রয়েছে সেগুলো দূর করা হবে। উল্লেখ্য, চিকিৎসার ফলোআপের পরে লন্ডন থেকে আজ সকালে অর্থমন্ত্রী ঢাকায় ফিরে নিয়মিত দাপ্তরিক কাজকর্ম শুরু করেছেন। ...

পানির দামে চামড়া বিক্রি

০৩আগস্ট,সোমবার,অর্থনীতি ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ও রপ্তানির ঘোষণা দেয়ার পরও রাজধানীসহ সারা দেশে পানির দামে বিক্রি হয়েছে চামড়া, ঠেকানো যায়নি বিপর্যয়। অনেকে চামড়া বেচতে না পেরে শেষ পর্যন্ত এতিমখানায় দিতে বাধ্য হয়েছেন। পথে বসেছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীতে গরুর চামড়া বিক্রি হয়েছে প্রকারভেদে ১০০ টাকা থেকে ৬০০ টাকা পর্যন্ত। আর ছাগলের ২ থেকে ১০ টাকা। রাজধানীর বাহিরে আরও ভয়াবহ অবস্থা। অনেক স্থানে গত বছরের চেয়েও নাজুক পরিস্থিতি। যেখানে মৌসুমী ব্যবসায়ী না থাকার পাশাপাশি, সাড়া নেই পাইকারদেরও। রাজধানীর জিগাতলা, পোস্তগলা, বাড্ডা এলাকা ঘুরে এমন চিত্রই উঠে এসেছে। অথচ গতবারের চেয়ে এ বছর ২০-২৯ শতাংশ কমে চামড়ার দাম নির্ধারণ করা হয়। যাতে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে কাঁচা চামড়া ব্যবসায়ীরাও। যদিও, চলমান করোনা মহামারির কথা চিন্তা করে আগেই চামড়া বিক্রি কম বলে আশঙ্কা করেছিলেন অর্থনীতিবিদরা। দেশের আড়তদার ও ট্যানারির মালিকরা বলছেন, এ বছর গতবারের চেয়ে ৩০-৩৫ শতাংশ কম চামড়া আসবে। তাই চামড়ার বেশি চাহিদা রয়েছে। তারপরও দাম কমার সেই পুরনো অজুহাতই দেখাচ্ছেন তারা। এদিকে, ঢাকার বাহিরে চট্টগ্রাম, রাজশাহী, রংপুর ও বরিশালে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রতিবছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নির্ধারিত মূল্যের হেরফের করে চামড়া কিনলেও এবার যেন সম্পূর্ণই নিরব ভূমিকায় স্থানীয় মৌসুমী ব্যবসায়ী ও পাইকাররা। তাই কোরবানির পশুর চামড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ বিক্রেতারা। অনেক স্থানে খুচরা ও মৌসুমী ব্যবসাীয় না থাকায় কোরবানির পশুর চামড়া কেটে ভাগীদারদের মাঝে বন্টন করতেও দেখা গেছে। প্রসঙ্গত, চলতি বছর ঢাকায় লবণযুক্ত গরুর চামড়া নির্ধারণ করা হয় প্রতি বর্গফুট ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে, যা গতবার ছিল প্রতি বর্গফুট ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। সে হিসেবে দাম কমানো হয়েছে ২৯ শতাংশ। আর ঢাকার বাইরে ধরা হয় প্রতি বর্গফুট ২৮ থেকে ৩২ টাকা, যা গত বছর ছিল ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। এক্ষেত্রে গতবছরের চেয়ে দাম কমানো হয় প্রায় ২০ শতাংশ। এ ছাড়া সারাদেশে খাসির চামড়া গত বছরের প্রতি বর্গফুট ১৮ থেকে ২০ টাকা থেকে ২৭ শতাংশ কমিয়ে ১৩ থেকে ১৫ টাকা করা হয়। আর বকরির চামড়া গত বছরের ১৩ থেকে ১৫ টাকা বর্গফুটের দর থেকে কমিয়ে এবার ১০ থেকে ১২ টাকা করা হয়।- একুশে টেলিভিশন ...

শিক্ষা ক্যাডারের ৬০৯ জনকে অধ্যাপক পদে পদোন্নতি

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,শিক্ষা ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডারের সহযোগী অধ্যাপক পর্যায়ের ৬০৯ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিয়েছে সরকার। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেলে ৫০,০০০-৭১,২০০ টাকা বেতনক্রমে তাদের পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে অর্থনীতির ৪৪ জন, আরবির ৫ জন, ইসলামী শিক্ষার ১৭ জন, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতির ৫৩ জন, ইংরেজির ৪৩ জন, ইতিহাসের ৪৫ জন, উদ্ভিদবিদ্যায় ৪৬ জন, কৃষি বিজ্ঞানে ৩ জন, গার্হস্থ্য অর্থনীতির ৪ জন, গণিতের ৩৪ জন, দর্শনের ৫০ জন রয়েছেন। এছাড়াও পদার্থবিদ্যার ২৯ জন, পরিসংখ্যানের ১ জন, প্রাণিবিদ্যার ৩৬ জন, বাংলার ২১ জন, ব্যবস্থাপনায় ৩৯ জন, ভূগোলের ৪ জন, মৃত্তিকা বিজ্ঞানের ১ জন, মনোবিজ্ঞানের ৩ জন, রসায়নের ২২ জন, রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ৪৬ জন, সমাজকল্যাণের ১৬ জন, সমাজবিজ্ঞানের ৬ জন, সংস্কৃতির ১ জন, হিসাববিজ্ঞানের ৩৩ জন এবং শিক্ষায় ৫ জন। আদেশে বলা হয়, পদোন্নতিপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) হিসেবে যোগদান করবেন। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর প্রকাশিত নির্দেশনাবলী অনুযায়ী পদোন্নতিপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের বিমুক্তি ও যোগদান প্রক্রিয়া অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের জানান, ৬০৯ জনের মধ্যে দু জন বিদেশে লিয়েনে রয়েছেন। তারা এসে যোগদান করবেন। ...

বাইসাইকেল পেল মাগুরার ৩০ শিক্ষার্থী

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,শিক্ষা ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার ২০ জন ছাত্রী ও ১০ জন স্কুলছাত্রকে বাইসাইকেল দেওয়া হয়েছে। শ্রীপুর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বুধবার (২৯ জুলাই) দুপুরে মসজিদ-মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের আওতাভুক্ত ৮০২ শিশুকে প্রধানমন্ত্রীর শিশু খাদ্য উপহার, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ১০০ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে বাইসাইকেল ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠান হয়। মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট সাইফুজ্জামান শিখর প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এসব উপহার সামগ্রী বিতরণ করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ইয়াছিন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিয়া মাহমুদুল গণি শাহিন। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহমেদ মাসুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক ও নাকোল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হুমাউনুর রশিদ মুহিত, সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মশিয়ার রহমান, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার ইকরাম আলী বিশ্বাস প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপজেলার আটটি ইউনিয়নের মসজিদ-মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের আওতাভুক্ত ৮০২ শিশুকে প্রধানমন্ত্রীর শিশু খাদ্য উপহার এবং ২০ ছাত্রী ও ১০ স্কুলছাত্রকে বাইসাইকেল, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া ৪০ জন শিক্ষার্থীকে ২ হাজার ৪০০শ করে টাকা এবং কলেজ ও মাধ্যমিক পর্যায়ে ৩০ জনকে ৬ হাজার করে মোট ৩ লাখ টাকা ও ৫০ জনের মধ্যে ১ লাখ ২৫ হাজার টাকার শিক্ষা উপকরণ এবং শ্রীপুর আদিবাসী কল্যাণ সমিতি ও আমলসার আদিবাসী কল্যাণ সমিতিকে সাংস্কৃতিক উপকরণ ও ক্রীড়া সামগ্রীসহ সব মিলিয়ে ৭ লাখ ৫০ হাজার টাকার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাইফুজ্জামান শিখর বলেন, মসজিদ ও মন্দির ভিত্তিক শিশুশিক্ষা কার্যক্রমের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খুবই আন্তরিক। এজন্য তিনি অনেক প্রকল্প বাদ দিলেও এ দুটি প্রকল্প বাদ দেননি। তিনি সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সমান্তরালে নিয়ে আসার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন, যার সুফল আপনারা এরই মধ্যে পেতে শুরু করেছেন। আপনারা দয়া করে প্রধানমন্ত্রীর জন্য প্রাণখুলে দোয়া করবেন। আপনারা নিজেরা যে সমিতি গঠন করেছেন, সে সমিতির মাধ্যমে নিজেরা স্বাবলম্বী হওয়ার জন্য কুটির শিল্প প্রতিষ্ঠা করে যদি ইউএনওর কাছে জমা দেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী আপনাদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করবেন, যোগ করেন শিখর।...

আইরিশদের বিপক্ষে ইংলিশদের সিরিজ জয়

০২আগস্ট,রবিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তিন ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কোনো প্রতিরোধ করতে পারেনি আয়ারল্যান্ড। আইরিশদের ৪ উইকেটে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে স্বাগতিক ইংলিশরা। সাউদ্যাম্পটনের রোজ বোলে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে বিপর্যয়ে পড়া আয়ারল্যান্ড ৯ উইকেটে ৫০ ওভারে করে ২১২ রান। আইরিশদের হয়ে সবোর্চ্চ ৬৮ রান করেন কার্টিস কাম্পার। ১০ ওভারে ৩৫ রান খরচ করে ৩ উইকেট নিয়েছেন আদিল রশিদ। এছাড়া দুটি করে উইকেট নিয়েছেন ডেভিড উইলি ও সাকিব মাহমুদ। জবাব দিতে নেমে সহজে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড। ৩২.৩ ওভারে ৬ উইকেটে ২১৬ রান করে তারা। প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে স্কোরবোর্ড শূন্য রেখে জেসন রয় (০) সাজঘরে ফিরলেও আইরিশ বোলারদের তুলোধুনো করেছেন আরেক ওপেনার জনি বেয়ারস্টো। এই ইংলিশ উইকেটরক্ষক ৪১ বলে ১৪ চার ও ২ ছক্কায় করেছেন ৮২ রান। পরে দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান স্যাম বিলিংস (৪৬) ও ডেভিড উইলির (৪৭) ব্যাটে ভর করে ইংল্যান্ডকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। ম্যান সেরা হয়েছেন বেয়ারস্টো। ...

পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের অপরিবর্তিত টেস্ট দল ঘোষণা

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,স্পোর্টস ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পিছিয়ে পড়েও সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন টেস্ট সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জিতেছে ইংল্যান্ড। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের আনন্দ তরতাজা থাকতেই আরেক সফরকারী দল পাকিস্তানের বিপক্ষে অপরিবর্তিত ১৪ সদস্যের টেস্ট দল ঘোষণা করেছে ইংলিশরা। উইন্ডিজের বিপক্ষে যে দল ছিল সে স্কোয়াডই থাকছে মিসবাহ-উল-হকের দলের বিপক্ষে। তিনটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলতে গত মাস থেকে ইংল্যান্ড সফরে আছে পাকিস্তান। দু দলের প্রথম টেস্ট শুরু হবে ০৫ আগস্ট (বুধবার), ম্যানচেস্টারের এমিরেটস ওল্ড ট্রাফোর্ডে। এই ম্যানচেস্টারে অলরাউন্ডার বেন স্টোকস ও পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডের নৈপুণ্যে পরপর দুই টেস্ট জিতে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সিরিজ জিতে নেয় জো রুটের দল। অথচ সাউদ্যাম্পটনে সিরিজে প্রথম ম্যাচ জিতে এগিয়ে গিয়েছিল জেসন হোল্ডাররা। তবে পরের দুই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারেনি উইন্ডিজ। ব্রড ছাড়াও ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সিরিজ জিততে সাহায্য করেছেন স্কোয়াডের ছয় পেসারই। তারাও আছেন দলে। এছাড়া আছেন স্পিনার ডম বেস। তবে জায়গা মূল দলে জায়গা হয়নি তার কাউন্টি সতীর্থ জ্যাক লিচের। ২৯ বছর বয়সী স্পিনারকে রাখা হয়েছে রিজার্ভ প্লেয়ার হিসেবে। ১৪ সদস্যের স্কোয়াডে জায়গা হয়নি জো ডেনলিরও। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে অনুজ্জ্বল পারফর্ম্যান্সের কারণে সিরিজের শেষ দুই টেস্টে জায়গা হারান তিনি। এবার বাদ পড়লেন পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজেও। ইংল্যান্ড টেস্ট স্কোয়াড: জো রুট (অধিনায়ক), জেমস অ্যান্ডাসন, জোফরা আর্চার, ডমিনিক বেস, স্টুয়ার্ট ব্রড, রোরি বার্নস, জস বাটলার, জ্যাক ক্রলি, স্যাম কারেন, ওলি পোপ, ডম সিবলি, বেন স্টোকস, ক্রিস ওকস, মার্ক উড। রিজার্ভ খেলোয়াড়: জেমস ব্রাসি, বেন ফোকস, জ্যাক লিচ ও ড্যান লরেন্স।...

৪ আগস্ট ইউটিউবে রিলিজ হচ্ছে নবনীতা-গৌরবের বন্ধু দয়াময়

০৩আগস্ট,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: (৪ আগস্ট) মঙ্গলবার জি সিরিজ প্রকাশ করতে যাচ্ছে নবনীতা চৌধুরী ও লাবিক কামাল গৌরবের দ্বৈত কণ্ঠে গাওয়া রাধারমন দত্তের গান- বন্ধু দয়াময়। সন্ধ্যা ৭টা থেকে জি সিরিজের ইউটিউব পেজে বন্ধু দয়াময় গানের মিউজিক ভিডিও দেখা যাবে। বন্ধু দয়াময়- গানটির সঙ্গীতায়োজন করেছেন লাবিক কামাল গৌরব। গৌরবের সঙ্গীতায়োজনে নবনীতার কন্ঠে- সোনালী বন্ধু, রূপ দেখিলাম রে, বল গো সখী- গানগুলো জনপ্রিয় হলেও এই প্রথম এই সঙ্গীতজুটি একসাথে গান করলেন। নবনীতা বলেন, মঞ্চে বা টেলিভিশনে আমি আর গৌরব নিয়মিত একসঙ্গে গাইলেও এটাই আমাদের প্রথম একসঙ্গে গাওয়া বা ডুয়েট গান। সবসময় কোথাও গাইতে গেলেই ডুয়েট গানের অনুরোধ থাকে দর্শক, শ্রোতার কাছ থেকে। অবশেষে আমরা রাধারমনের দারুণ সুন্দর এই গানটি করলাম একসঙ্গে। গৌরব বলেন, আমাদের দুইজনের স্কেলটা একসঙ্গে গাওয়ার জন্য মেলানো কঠিন তাই অনেক গানে হারমোনাইজ করলেও ডুয়েট গাওয়া হয় নাই। কিন্তু এই গানটা দুজনে মিলে গাইতে এবং মিউজিক করতে এত এনজয় করলাম যে মনে হল গানটা রিলিজ হলে সবাই হয়তো পছন্দ করবেন। জি সিরিজের খালেদ ভাইও গান শোনামাত্র খুব আগ্রহ দেখালেন এবং মিউজিক ভিডিও করে এই ঈদেই প্রকাশ করতে চাইলেন। গৌরব এবং নবনীতার গাওয়া- বন্ধু দয়াময় গানটি এরই মধ্যে বাংলাদেশ টেলিভিশনের ঈদ আনন্দমেলাতে প্রচারিত এবং প্রশংসিত হয়েছে। জি সিরিজ থেকে প্রকাশিতব্য মিউজিক ভিডিওটি পরিচালনা করেছেন মঞ্জু আহমেদ। গানটি মিক্স করেছেন এবং বেইজ বাজিয়েছেন ফায়জান আহমেদ বুনো এবং গিটার বাজিয়েছেন রাফসান। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই গানের মিউজিক ভিডিও শুটিংয়ে শিল্পীরা অংশ নিয়েছেন। ...

করোনা জয় করে বাড়ি ফিরলেন অমিতাভ বচ্চন

০২আগস্ট,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অমিতাভ বচ্চন ভক্তদের জন্য আনন্দের খবর- প্রিয় অভিনেতার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। হ্যাঁ, হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাসায় ফিরেছেন অভিনেতা। রোববার (০২ আগস্ট) টুইটারে এ কথা জানিয়েছেন বিগ বির ছেলে অভিষেক বচ্চন। এদিকে, গত ১১ জুলাই অমিতাভের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল। সেদিনই ছেলে অভিষেকের শরীরেও পাওয়া গেছে করোনার অস্তিত্ব। তাই দু জনকেই মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল। করোনাবিধি মতো জয়া বচ্চন, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন এবং তার মেয়ে আরাধ্যরও নমুনা সংগ্রহ করেছিলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। সিনিয়র বচ্চনের স্ত্রীর রিপোর্ট নেগেটিভ এলেও ঐশ্বরিয়া এবং আরাধ্যর শরীরে করোনার নমুনা মিলেছিল। প্রাথমিকভাবে বাড়িতে চিকিৎসা চললেও শ্বাসকষ্ট হওয়ায় গত ১৭ জুলাই তাদের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১১ দিন পর করোনা মুক্ত হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান ঐশ্বরিয়া ও তার কন্যা। তবে, চিকিৎসা চলছিল সিনিয়র বচ্চনের। তারই মধ্যে গুজব ছড়িয়ে পড়েছিল- করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে সিনিয়র বচ্চনের। যদিও পরে একটি টুইটবার্তায় বিগ বি বলেন, এই খবর অসত্য, দায়িত্বজ্ঞানহীন, ভিত্তিহীন এবং অমার্জনীয় মিথ্যা ! তবে সেই সময়ের গুজব খানিক দেরিতে হলেও এখন তা বাস্তব সত্য। হ্যাঁ, করোনাকে পরাস্ত করে বাসায় ফিরেছেন সিনিয়র বচ্চন।...

অনিয়মের অভিযোগে চেয়ারম্যান কাউন্সিলর ও ইউপি সদস্যসহ ১১ জন বরখাস্ত

২জুন,মঙ্গলবার,ক্রাইম সোর্স প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ত্রাণ বিতরণসহ নানা অনিয়মের অভিযোগে একদিনেই ১১ জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। আজ মঙ্গলবার এ বিষয়ে পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বিভাগটি। যাদের বরখাস্ত করা হয়েছে তাদের মধ্যে ৪জন ইউপি চেয়ারম্যান, একজন পৌরসভার কাউন্সিলর ও ৬জন ইউপি সদস্য রয়েছেন। কর্মস্থলে অনুপস্থিতি, দরিদ্র মানুষকে নগদ অর্থ সহায়তা ও ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগে আরও ১১ জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। তাঁদের মধ্যে চারজন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ছয়জন ইউপি সদস্য এবং একজন পৌর কাউন্সিলর রয়েছেন। বরখাস্ত হওয়া চেয়ারম্যানেরা হলেন কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার সিংপুর ইউপির মো. আনোয়ারুল হক, একই জেলার বাজিতপুর উপজেলার হালিমপুর ইউপির হাজী মো. কাজল ভূইয়া, বরগুনা সদর উপজেলার এম বালিয়াতলী ইউপির মো. শাহনেওয়াজ এবং নলটোনা ইউপির হুমায়ুন কবীর। বরখাস্তের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সিংপুর ইউপির চেয়ারম্যান করোনোভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের সময় ত্রাণকাজে সহায়তা না করে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কর্মস্থলে অনুপস্থিত আছেন। বাজিতপুরের হালিমপুর ইউপি চেয়ারম্যানও দীর্ঘদিন ধরে কর্মস্থলে অনুপস্থিত। এ ছাড়া করোনোভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়নে বিঘ্ন সৃষ্টি, এপ্রিল মাসের ভিজিডি খাদ্যশস্য বিতরণ না করা, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে দেওয়া নগদ অর্থ সহায়তা কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের তালিকা প্রণয়নে ব্যর্থ হওয়া এবং কারণ দর্শানোর পরিপ্রেক্ষিতে নিজে জবাব প্রদান না দিয়ে অন্যের মাধ্যমে জবাব দেওয়া। বরগুনার এম বালিয়াতলী ইউপির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নিয়মবহির্ভূতভাবে মৎস্য ভিজিএফের চাল ৮০ কেজির জায়গায় ৬০ কেজি দেওয়া এবং তালিকার বাইরেও অন্যদের চাল দেওয়ার অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। নলটোনা ইউপির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে জেলেদের তালিকা প্রণয়নে অনিয়ম, ভুয়া টিপসইয়ের মাধ্যমে চাল উত্তোলন করে আত্মসাৎ এবং ওজনে কম দেওয়ার অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। অন্যদিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত হওয়া ইউপি সদস্যরা হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উপজেলার মজলিশপুর ইউপির ২ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হারিছ মিয়া এবং ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হাছান মিয়া, বরগুনা জেলার সদর উপজেলাধীন নলটোনা ইউপির ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. হারুন মিয়া, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মো. হানিফ, ১, ২ ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য মোসা. রানী এবং ৭, ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য মোসা. ছাবিনা ইয়াসমিন। বরখাস্ত হওয়া পৌরসভার কাউন্সিলর হলেন চট্টগ্রাম জেলার বোয়ালখালী পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. সোলাইমান বাবুল।...

প্রায় ৪শ লোককে অবৈধভাবে বিদেশে পাঠায় চক্রের অন্যতম হোতা কামাল

১জুন,সোমবার,ক্রাইম সোর্স প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: লিবিয়ায় ২৬ জন বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় মানব পাচারকারী চক্রের অন্যতম হোতা কামাল হোসেন ওরফে হাজী কামালকে গ্রেফতার করেছে RAB। প্রায় ৪শ লোককে অবৈধভাবে তিনি বিদেশে পাঠায়। RAB বলছে, তিনিই বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে মানবপাচারকারীর মূল হোতা। এরসঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিষয়ে অনুসন্ধান করছে RAB। বাংলাদেশ থেকে লিবিয়া হয়ে অবৈধ ভাবে ইতালিতে যাওয়া। তারা বিভিন্ন শ্রমিকদের যাওয়ার জন্য বিভিন্ন ভাবে প্রলোভন দেখানো হয়। এবং তাদের বিদেশে যাওয়ার পরই বাকি টাকা দেবে। এ ধরনের আশ্বাস দেয়া হয়। আমারা একাধিক দালাল পেয়েছি। তারা মাদারীপুর, শরিয়রতপুরসহ বিভিন্ন জেলার লোক রয়েছে। তারা প্রথমে বাইরুটে ঢাকা থেকে কলকাতা নেয়া হয়। এই হাজী কামালই সবার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তারা বাংলাদেশ থেকে ১০-১৫ দিন লাগে বেনগাজীতে যাওয়ার। এ চক্রটি লিবিয়াতে যাওয়ার পরই তারা টাকার জন্য পেশার দেয়া শুরু হয়। RAB জানায়, লিবিয়ার ত্রিপোলিতে কিছু কাজ করার সুযোগ রয়েছে। এই বেনগাজীতে পৌঁছানোর পরই তাদের পরিবারের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায় করা হয়। এরপর তাদের ত্রিপোলিতে নিয়ে যাওয়া হয়। ত্রিপোলিতে নিয়ে যাওয়ার জন্য আবারও পরিবারের কাছে ২ থেকে তিন লাখ টাকা দাবি করা হয়। সেখানে তাদের শুরুতে ভূমধ্যসাগরে বোট চালানোর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। তিনি গত ১০-১২ বছরে ৪শ লোককে পাঠিয়েছেন। তার সঙ্গে যুক্ত আছেন ১৫-১৬ জন। আমরা পুরো সার্কিটের তথ্য পেয়েছি। তাদের বিরুদ্ধে এ অভিযান চলতে থাকবে। গত ২৮ মে লিবিয়ার মিজদা শহরে ২৬ জন বাংলাদেশি অভিবাসীকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। মারা যাওয়া ২৬ জনসহ ৩৮ বাংলাদেশি ও কিছু সুদানি নাগরিক প্রায় ১৫ দিন ধরে ওই অপহরণকারী চক্রের হাতে আটক ছিলেন। ইতালিতে অভিবাসনের উদ্দেশে ওই ৩৮ জন বাংলাদেশ থেকে অবৈধ পথে লিবিয়ায় যান।...

নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস সাময়িক বন্ধের বিজ্ঞপ্তি

২০জুন,শনিবার,বিশেষ প্রতিবেদন,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা মহামারীর কারণে সারাদেশে সাধারন ছুটির আওতায় সকল মার্কেট বন্ধ থাকার কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে উক্ত অফিসের দুজন কর্মচারীর করোনা উপসর্গ নিয়ে বাসায় চিকিৎসাধীন থাকার কারণে এবং সরকারের ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি ও আদেশের প্রতি সম্মান জানিয়ে আগামী ০১ লা জুন ২০২০ হইতে ৩১শে আগস্ট ২০২০ পর্যস্ত নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস বন্ধ থাকবে তবে যথারিতি অনলাইন চালু থাকবে। সাময়ীক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত। আদেশক্রমে-কতৃপক্ষ। ...

ঈদুল আজহা উপলক্ষে বিরোধীদলীয় নেতার শুভেচ্ছা

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দেশবাসীসহ বিশ্বের সব মুসলিমদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে তিনি এ শুভেচ্ছা জানান। শুভেচ্ছা বাণীতে বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, আল্লাহর প্রতি গভীর আনুগত্য ও সর্বোচ্চ ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর পবিত্র ঈদুল আজহা। মহান আল্লাহর নির্দেশে স্বীয় পুত্র ইসমাইল (আ.)কে কোরবানি করতে উদ্যত হয়ে হযরত ইব্রাহিম (আ.) আল্লাহর প্রতি অগাধ ভালবাসা, অবিচল আনুগত্য ও আকুণ্ঠ আত্মত্যাগের যে সুমহান দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা অতুলনীয়। তিনি আরও বলেন, ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে কোরবানির শিক্ষা সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে জাতীয় উন্নয়ন ত্বারন্বিত হবে। রওশন এরশাদ বলেন, ঈদুল আজহা এবার একটু ভিন্নভাবে পালিত হচ্ছে। করোনা ভাইরাস আমাদের মধ্যে মহাবিপর্যয় হিসেবে দেখা দিয়েছে। মহান ত্যাগের মহিমায় সবাইকে মহামারি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে নির্দেশনাগুলো মেনে নিজে সুস্থ থাকতে এবং সবাইকে সুস্থ রাখতে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদুল আজহা উদযাপনের আহ্বান জানান তিনি।...

গলাবাজির রাজনীতি করছে বিএনপি: কাদের

২৪,জুলাই,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নির্বাচন ও আন্দোলনে জনগণ থেকে প্রত্যাখ্যাত বিএনপির নেতারা অপরাজনীতির অন্ধকার গিরিখাদে দিকভ্রান্ত পথহারা পথিকের মতো প্রলাপ করছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। নিজেদের দুর্বলতা ঢাকতে বিএনপি প্রেস ব্রিফিং নির্ভর গলাবাজির রাজনীতি করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। শুক্রবার (২৪ জুলাই) ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত করোনা প্রতিরোধ সামগ্রী ও বন্যাকবলিত জেলাগুলোতে ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এ মন্তব্য করেন মন্ত্রী। নিজের সরকারি বাসভবন থেকে ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটি আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, নিজেদের দুর্বলতা ঢাকতে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার ও চাতুর্যপূর্ণ কথামালা ব্যবহার করে প্রেস ব্রিফিং নির্ভর গলাবাজির রাজনীতি করছে বিএনপি। তিনি বলেন, গলাবাজির দিনশেষ, ডিজিটাল বাংলাদেশে জনগণ এখন অনেক সচেতন। জনগণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল। জনগণ জানে বৈশ্বিক মহামারি ও দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবিলা ও পরবর্তী অর্থনৈতিক গতিশীলতা পুনরুদ্ধারে শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। করোনার এ সঙ্কটে মানুষের জীবন জীবিকা সচল রাখতে খাদ্যের অভাবে মানুষের যেনো কষ্ট না হয় সেজন্য প্রধানমন্ত্রী একের পর এক জনকল্যাণমুখী পদক্ষেপ নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দুর্যোগ মোকাবিলায় অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে বাংলাদেশ এখন অনেক শক্তিশালী। সেতুমন্ত্রী বলেন, বিদেশগামী নাগরিকদের জন্য নমুনা পরীক্ষা করে করোনার সনদ সংগ্রহ বাধ্যতামূলক। এজন্য সরকার নমুনা পরীক্ষার কেন্দ্র সুনির্দিষ্ট করে দিয়েছে। এক্ষেত্রে ৭২ ঘণ্টা আগে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এসময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকুক আর না থাকুক দেশের যেকোনো সঙ্কট ও দুর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে থাকে। আর এটাই আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য। কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দেশের এ সঙ্কটে বিএনপির কোনো কার্যক্রমে নেই। প্রেস ব্রিফিং করা ছাড়া তাদের আর কিছুই করার নেই। এসময় অনুষ্ঠানে ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ ও উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান উপস্থিত ছিলেন।- বাংলা নিউজ ...

লাব্বাইক ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাত ময়দান

৩০জুলাই,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সৌদি আরবে সীমিত পরিসরে পালিত হচ্ছে পবিত্র হজ। পবিত্র মক্কা-মদিনায় হাজির হওয়া বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ধর্মপ্রাণ মুসলমান বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) আরাফাতের ময়দানে সমবেত হয়েছেন। লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইক লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়াননি মাতা লাকা ওয়ালমুলক লা শারিকা লাকা ধ্বনিতে তারা জানান দিচ্ছেন তাদের উপস্থিতির কথা। সঙ্গে পাপমুক্তির বাসনায় মহান আল্লাহর স্তুতি গাইছেন, হে আল্লাহ তোমার কোনো শরিক নেই। ইসলামের পাঁচ স্তম্ভের অন্যতম হজ পালনের এ দিনে হাজিরা সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত আরাফাতের ময়দানে থাকবেন। দিনভর চলবে তাদের ইবাদত বসে ইবাদত করবেন। মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা দেন শেখ আবদুল্লাহ বিন সুলাইমান আল-মানিয়া। প্রতিবছর ৯ জিলহজ আরাফাতের ময়দানে হজের খুতবা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণত আরবি ভাষাতেই এ খুতবা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। তবে গত বছর পাঁচটি ভাষায় এ খুতবার অনুবাদ প্রচারিত হয়েছিলো। কিন্তু এবার আরবি ছাড়াও ১০টি ভাষায় খুতবা প্রচার হচ্ছে। যার মধ্যে বাংলাও রয়েছে। অন্য ভাষাগুলো হচ্ছে- ইংরেজি, মালে, উর্দু, ফার্সি, ফ্রেঞ্চ, মান্দারিন, তুর্কি, রাশিয়ান এবং হাওসাবি। এদিন দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যাণ, রহমত প্রাপ্তি ও নিজেদের গোনাহ মাফের জন্য আল্লাহতাআলার দরবারে অশ্রুসিক্ত নয়নে ফরিয়াদ জানান সমবেত ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা।...

জুমার দিনের জানা-অজানা আমল

২৪,জুলাই,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শুক্রবার মুসলমানদের জন্য বরকতময় একটি দিন। দিনটিকে মহান আল্লাহ তাআলা ইহুদি ও নাছারাদের ওপর ফরজ করেছিলেন। কিন্তু তারা মতবিরোধ করে দিনটিকে প্রত্যাখ্যান করে। পরে ইহুদিরা শনিবার এবং খ্রিস্টানরা রোববারকে তাদের ইবাদতের দিন বানায়। অবশেষে আল্লাহ তাআলা উম্মতে মুহাম্মদির জন্য এক মহান ও ফজিলতের দিন হিসেবে শুক্রবার দিনটিকে দান করেন। যা উম্মতে মুহাম্মদি সাদরে গ্রহণ করে (বুখারী, হাদিস নং: ৮৭৬, মুসলিম, হাদিস নং: ৮৫৫)। অথচ কিছু অজ্ঞতা এবং অতি ধর্মীয় কিছু অনুভূতি থেকে আমরা এ দিনে এমন কিছু আমল করি বা দিনটিকে নিয়ে আমরা এমন কিছু ভাবি যার সমর্থনে পবিত্র কোরআন এবং হাদিসে কোনো দলিল খুঁজে পাওয়া যায় না। এমন কিছু বিষয় নিয়ে নিচে আলোচনা করা হলো। ক. শুক্রবারে কবর জিয়ারত করা: কবর জিয়ারত করা সুন্নত। রাসূল (সা.) এ ব্যাপারে আমাদের উৎসাহ দিয়েছেন। হাদিসে এসেছে, বুরাইদা আসলামী মহানবী (সা.) হতে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমি তোমাদের কবর জিয়ারত করতে নিষেধ করেছিলাম। কিন্তু আমাকে আমার মাতার কবর জিয়ারতের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সুতরাং তোমরা তোমাদের মৃতদের কবর জিয়ারত কর। কেননা, তা তোমাদের আখেরাতের কথা স্মরণ করিয়ে দেয় (সহিহ মুসলিম, হাদিস নং: ১০৭)। সাধারণত শুক্রবার জুমার নামাজের পর মুসল্লিরা গোরস্থানে কবর জিয়ারত করতে যান এবং সেখানে যথেষ্ট ভিড় সৃষ্টি করেন দেখা যায়। এ থেকে প্রশ্ন এসে যায়, শুক্রবারে কবর জিয়ারত করা কি আবশ্যক এবং অধিক সোওয়াবের কাজ। এ সম্পর্কে শায়খ আহমাদুল্লাহ বলেন, শুক্রবার জুমার সালাতের পর অবসর রয়েছে। সুতরাং এ সময় কোনো ব্যক্তি কখনও কখনও কবর জিয়ারত করতে পারেন। কিন্তু এটাকে শুক্রবারের অবশ্য করণীয় কাজ বা এটাকে সুন্নত বানিয়ে ফেলার কোনো সুযোগ নেই। কেননা কোরআন এবং হাদিসে কবর জিয়ারতের জন্য শুক্রবারকে নির্ধারণ করা বা শুক্রবারের নির্দেশিত আমলগুলোর মধ্যে এ কথা কোথাও উল্লেখ নেই। এছাড়া শুধু শুক্রবার কবর জিয়ারত করা সম্পর্কে যে হাদীস বর্ণিত হয়েছে, তা সঠিক নয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে। বলা হয়েছে, উক্ত হাদিসের সনদে মুহাম্মদ ইবনু নু মান নামের যে রাবী রয়েছেন, তিনি অপরিচিত এবং ইয়াহইয়া নামের রাবী মিথ্যুক (সিলসিলা যঈফাহ, হাদিস নং: ৫৬০৫, মিশকাত, হাদিস নং: ১৬৭৬)। খ. শুক্রবারে নফল রোজা রাখা: শুক্রবার হলো সাপ্তাহিক ঈদের দিন (ইবনে মাজাহ, হাদিস নং: ১০৯৮)। নফল রোজা রাখার জন্য শুক্রবারকে নির্ধারণ বা নিদিষ্ট করে নেওয়া নিষেধ। তবে কেউ যদি বৃহস্পতি এবং শুক্রবার অথবা শুক্র ও শনিবার রোজা রাখেন অথবা আইয়ামুল বিজের অর্থাৎ প্রত্যেক আরবি মাসের ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখে যদি রোজা পালন করেন, আর সেটা করতে গিয়ে যদি শুক্রবারে পড়ে যায়, তবে তা জায়েজ। এ সম্পর্কে হাদিসে এসেছে, হযরত আবু হুরায়রা (রা.) কর্তৃক বর্ণিত রাসূল (সা.) ইরশাদ করেন, তোমাদের কেউ জুমার আগে বা পরে একদিন মেলানো ব্যতিত শুধু জুমার দিন রোজা রেখো না (সহীহ বুখারী, হাদিস নং: ১৮৮৪, মুসলিম, হাদিস নং: ২৫৪৫)। গ. শুক্রবারে মৃত্যু হলে জান্নাত: অনেকেই এ কথা বলে থাকেন যে, শুক্রবারে জান্নাতের দরজা খুলে দেওয়া হয় সুতরাং এ দিন কেউ মৃত্যুবরণ করলেই বিনা হিসেবে জান্নাতে চলে যাবেন। কিন্তু এ মর্মে কোনো দলিল কোরআন বা হাদিস কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না। বরং হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর (রা.) বর্ণনা করেন, রাসূলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, যেকোনো মুসলমান জুমার দিনে কিংবা জুমার রাতে মৃত্যুবরণ করবে। নিশ্চয় আল্লাহ তাআলা তাকে কবরের ফেতনা থেকে বাঁচিয়ে রাখবেন (তিরমিজী, হাদিস নং: ১০৯৫, মিশকাত, হাদিস নং:১৩৬৭)। উপর্যুক্ত হাদিসের আলোকে ইসলামি স্কলারগণ বলে থাকেন যে, শুক্রবারে মৃত্যুবরণ করলে বিনা হিসেবে জান্নাত বা কিয়ামত পর্যন্ত কবরের আজাব মাফ এ কথা বলার কোনো সুযোগ নেই। এ সম্পর্কে মুল্লা আলী কারী (রহ.) তার মিনাহুর রওদিল আযহার ফি শরহে ফিকহুল আকবার (পৃষ্ঠা: ২৯৫-২৯৬) এ বলেন, জুমার দিনে বা রাতে যে মারা যাবে, তার থেকে কবরের আজাব উঠিয়ে নেওয়া হবে এটা মোটামুটি প্রমাণিত। তবে কিয়ামত পর্যন্ত আজাব আর ফিরে আসবে না এ কথার কোনো ভিত্তি আমার জানা নেই। ঘ. জুমার পরে জোহরের সালাত: অনেকেই এ কথা বলে থাকেন যে, বাড়িতে মহিলাদের জোহরের সালাত জুমার পরে পড়তে হবে। কিন্তু এনটিভিতে প্রচারিত আপনার জিজ্ঞাসা প্রশ্নোত্তর পর্বে ড. মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ বলেন, যেহেতু মহিলাদের জন্য জুমার সালাত ওয়াজিব নয় সুতরাং ওয়াক্ত হলেই তারা বাড়িতে জোহরের সালাত আদায় করতে পারবেন। এর জন্য তাদের জুমার খুতবা বা সালাত শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করার কোনো প্রয়োজন নেই। একইসঙ্গে মহিলাদের জোহরের সালাত জুমার পর পড়তে হবে মর্মে কোনো দলিল কোরআন বা হাদিসে কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না। মহান আল্লাহ তাআলা আমাদের প্রত্যেকটি আমল জেনে-বুঝে করার তৌফিক দান করুন। আমিন। ...

জামাল খানের উন্নয়নই আমার একমাত্র চাওয়া: কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন

০১মার্চ,রবিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন এলাকার উন্নয়ন ভাবনা ও আগামী নির্বাচন নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা নিউজ একাত্তর এর কাছে তুলে ধরেন। শনিবার ২৯শে ফেব্রুয়ারি বিকালে তার নিজ কার্যালয়ে নিউজ একাত্তরকে দেয়া একান্ত এক সাক্ষাৎকারে তিনি তার নানা কর্মকাণ্ড ও এলাকার উন্নয়ন নিয়ে তার চিন্তা ধারার কথা তথা আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি এলাকার জন্য কি কি কাজ করবেন তা সবিস্তর ব্যক্ত করেছেন। দলীয় মনোনয়ন পেয়ে তিনি তার অনুভুতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, তিনি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে অনেক খুশী যে তাকে আবারও মুল্যায়ন করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানান তাকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য। তার উপর আস্থা রাখার জন্য। তিনি প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিবেন। তিনি মনে করেন এই মনোনয়ন এর মধ্য দিয়ে তার দায়বদ্ধতা আরও বেড়ে গেলো এবং কাজের গতি দ্বিগুন বেড়ে গেছে। কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন জানান, আজকের এই নান্দনিক জামাল খানের রুপান্তর সম্ভব হয়েছে মানুষের সহযোগিতার জন্য। ওয়ার্ডবাসী তাদের মুল্যবান রায় দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করেছে এবং আমার উপর আস্থা রেখেছেন। যার ফলে তিনি বিগত পাঁচ বছরে নগরীর জামাল খান ওয়ার্ডকে একটি নান্দনিক জামাল খানে রুপান্তর করতে সক্ষম হয়েছেন। এক সময় যে জামাল খানে একটু রাত হলেই ঘনিয়ে আসতো অন্ধকার, স্ট্রিট লাইট গুলো জ্বলত মিট মিট করে। গনি ব্যাকারী থেকে জামাল খান পর্যন্ত নেমে আসা নিরবতার কারনে বেড়ে যেত ছিনতাই আর নেশা খোরদের আনাগোনা। সেই জামাল খান আজ চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশের একটি আদর্শ ওয়ার্ডে রূপান্তরিত হয়েছে। ৪১ টি ওয়ার্ডের মধ্যে একটি অন্যতম ওয়ার্ড হিসাবে পরিচিত। চারিদিকে সবুজের সমারোহ তিরি করা হয়েছে, লাগানো হয়েছে বিচিত্র গাছ গাছালি ও ফুলের বাগান। সেই সাথে রয়েছে দর্শনার্থীদের জন্য বসার স্থান। সড়ক জুড়ে স্থাপন করা হয়েছে এলডি বাল্ব।পথচারীদের বিশ্রামের জন্য বসানো হয়েছে ছাউনি। জামাল খানের প্রতিটি দেয়ালে দেয়ালে বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সুনিপুণ কারুকাজ করা হয়েছে। যা ইতিহাস ঐতিহ্যের সাথে মানুষকে পরিচয় করিয়ে দেয়। গোল চক্করে স্থাপন করা হয়েছে রঙ্গিন ফোয়ারা যা জামাল খানের সৌন্দর্যকে অনেক খানি বাড়িয়ে দিয়েছে। বসানো হয়েছে লাইভ ফিশ একুরিয়াম( স্ট্রিট একুরিয়াম)। অতি সম্প্রতি দেয়ালে স্থাপন করা হয়েছে বাংলাদেশের প্রথম কাঁচের তৈরি বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল। তিনি এলাকার মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। মাদক, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবেন। যুবক সমাজকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত রাখতে কাজ করবেন। তার এলাকায় জলজট নেই তবে কিছুটা জলাবদ্ধতা আছে। তিনি আশা বাদী সিডিএ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর যৌথ ভাবে জলাবদ্ধতা নিরসনে একটি প্রকল্পের কাজ করছে। এটির বাস্তবায়ন হলে জলাবদ্ধতা পুরোপুরি নিরসন করা যাবে। আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে এই জামাল খানকে বিশ্বের একটি আধুনিক ওয়ার্ডে রুপান্তর করবেন। পার্কের আদলে গড়ে তুলবেন পুরো জামাল খানকে। জামাল খানে গড়ে তুলবেন একটি সমন্বিত বার্ড জোন ও একটি পাঠাগার। জামালখান কে তামাক মুক্ত ও ফুটপাত হকার মুক্ত রাখতে কাজ করে যাচ্ছেন। তাছাড়া এর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আনসার নিয়োগের পরিকল্পনা ও রয়েছে। তিনি ২১ নং জালাল খানের ওয়ার্ড বাসীর কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন, তার শৈশব কৈশোর কেটেছে এই জামাল খানে। এই এলাকার সাথে তার আত্মার সম্পর্ক। আপনারা আমার পরম আত্মীয়। তাকে আবারও নির্বাচিত করে আরও একটিবার সুযোগ দেওয়ার জন্য যাতে এলাকাবাসীর সেবা করতে পারেন। সেই সাথে দলীয় নেতা কর্মীদের কাছে উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন তাকে সহযোগিতা করার জন্য। তিনি নির্বাচিত হলে সব সময় সুখে দুঃখে এলাকাবাসীর পাশে থাকবেন। অতীতের মত নিরলস ভাবে কাজ করে যাবেন এবং জনগনের ভালোবাসার প্রতিদান দিবেন। জামালখান বাসী আমরা সবাই একটা পরিবার। আপনারা যদি মনে করেন আমাকে বিগত পাঁচ বছরে আপনাদের কাছে পেয়েছেন তাহলে আমাকে আবার সেবা করার সুযোগ দিবেন। ...

জলাবদ্ধতা নিরসন,মহিলাদের আত্ম কর্মসংস্থান ও প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাবো

২৭ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সংরক্ষিত মহিলা আসন ২২, ৩০ ও ৩১ এর মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ এলাকার উন্নয়ন ভাবনা ও আগামী নির্বাচন নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা নিউজ একাত্তর এর কাছে তুলে ধরেন। সোমবার ২৪শে ফেব্রুয়ারি্ বিকালে তার নিজ কার্যালয়ে নিউজ একাত্তরকে দেয়া একান্ত এক সাক্ষাৎকারে তিনি তার নানা কর্মকাণ্ড ও এলাকার উন্নয়ন নিয়ে তার চিন্তা ধারার কথা তথা আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি এলাকার জন্য কি কি কাজ করবেন তা সবিস্তর ব্যক্ত করেছেন। মহিলা কাউন্সিলর নিলু নাগ জানিয়েছেন, তিনি চলতি মেয়াদে(২০১৬-২০২০ইং) ২২,৩০ ও ৩১ নং ওয়ার্ডের এর মহিলা কাউন্সিলর হিসাবে আছেন। বর্তমানে তিনি কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের মহিলা সম্পাদিকা। সেই সাথে তিনি বেশ কিছু সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে ও যুক্ত আছেন, একাধারে মহানগর মহিলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদিকা, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট যুগ্ম সাধারন সম্পাদিকা বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ মহিলা শাখার মহানগর সাধারন সম্পাদিকা। তিনি বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে যুক্ত থেকে মানুষের কল্যানে কাজ করে যাচ্ছেন। সেই সাথে তার তিন ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা নিরসন ও মহিলাদের আত্ম কর্মসংস্থান ও স্বাবলম্ভি করার জন্য কাজ করে যাবেন। দলীয় মনোনয়ন পেয়ে তিনি তার অনুভুতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন,তিনি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে অনেক খুশী যে তাকে আবারও মুল্যায়ন করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানান তাকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য। তার উপর আস্থা রাখার জন্য।তিনি প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিবেন। তিনি গর্বিত প্রধানমন্ত্রীর একজন কর্মী হিসাবে। তিনি এলাকার মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। মাদক, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবেন। তিনি তার ওয়ার্ডের পুরুষ কমিশনার, মেয়র ও এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে তার তিন ওয়ার্ডের উন্নয়নে কাজ করে যাবেন। এলাকার বিশেষ বিশেষ সমস্যা গুলো চিহ্নিত করে দ্রুত সমাধানের জন্য কাজ করে যাবেন। প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়নে কাজ করে যাবেন। যেহেতু মহিলা কাউন্সিলরদের তেমন কাজ থাকে না তবুও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন এবং আগামীতেও সেই ধারা অব্যাহত রাখবেন। তিনি জানান, তার তিন ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা। তার তিন ওয়ার্ডই জলাবদ্ধ প্রবন এলাকা তাই মেয়র ও সাধারন(পুরুষ)কাউন্সিলরের সহযোগিতা নিয়ে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করে যাবেন। তিনি বিগত পাঁচ বছরে মেয়রের সহযোগিতায় জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করেছেন। তিনি জানান, আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে এলাকার উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সহযোগিতা করে যাবেন। তার ওয়ার্ডের সাধারন(পুরুষ) কমিশনার, মেয়র এর যৌথ সমন্বয়ে এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করে যাবেন। বিশেষ করে আমাকে মনোনয়ন দেয়া তিন ওয়ার্ডের নারীদের কে বিভিন্ন সহযোগিতা দিয়ে স্বাবলম্ভি করে গড়ে তোলা। আমি এদের জীবন মান উন্নয়ন ও কল্যানে সাধ্যমত কাজ করে যাব। তিনি ২২,৩০ ও ৩১ ওয়ার্ডের জনগনের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন, তাকে আবারও নির্বাচিত করে আরও একটিবার সুযোগ দেওয়ার জন্য যাতে এলাকাবাসীর সেবা করতে পারেন। সেই সাথে দলীয় নেতা কর্মীদের কাছে উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন তাকে সহযোগিতা করার জন্য। তিনি নির্বাচিত হলে সব সময় সুখে দুঃখে এলাকাবাসীর পাশে থাকবেন। অতীতের মত নিরলস ভাবে কাজ করে যাবেন এবং জনগনের আস্থার প্রতিফলন ঘটাবেন। ...

নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস সাময়িক বন্ধের বিজ্ঞপ্তি

২০জুন,শনিবার,বিশেষ প্রতিবেদন,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা মহামারীর কারণে সারাদেশে সাধারন ছুটির আওতায় সকল মার্কেট বন্ধ থাকার কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে উক্ত অফিসের দুজন কর্মচারীর করোনা উপসর্গ নিয়ে বাসায় চিকিৎসাধীন থাকার কারণে এবং সরকারের ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি ও আদেশের প্রতি সম্মান জানিয়ে আগামী ০১ লা জুন ২০২০ হইতে ৩১শে আগস্ট ২০২০ পর্যস্ত নিউজ একাত্তরের চট্টগ্রাম অফিস বন্ধ থাকবে তবে যথারিতি অনলাইন চালু থাকবে। সাময়ীক অসুবিধার জন্য আমরা দু:খিত। আদেশক্রমে-কতৃপক্ষ।


জামাল খানের উন্নয়নই আমার একমাত্র চাওয়া: কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন

০১মার্চ,রবিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন এলাকার উন্নয়ন ভাবনা ও আগামী নির্বাচন নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা নিউজ একাত্তর এর কাছে তুলে ধরেন। শনিবার ২৯শে ফেব্রুয়ারি বিকালে তার নিজ কার্যালয়ে নিউজ একাত্তরকে দেয়া একান্ত এক সাক্ষাৎকারে তিনি তার নানা কর্মকাণ্ড ও এলাকার উন্নয়ন নিয়ে তার চিন্তা ধারার কথা তথা আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি এলাকার জন্য কি কি কাজ করবেন তা সবিস্তর ব্যক্ত করেছেন। দলীয় মনোনয়ন পেয়ে তিনি তার অনুভুতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, তিনি দলীয় মনোনয়ন পেয়ে অনেক খুশী যে তাকে আবারও মুল্যায়ন করেছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানান তাকে মনোনয়ন দেওয়ার জন্য। তার উপর আস্থা রাখার জন্য। তিনি প্রধানমন্ত্রীর আস্থার প্রতিদান দিবেন। তিনি মনে করেন এই মনোনয়ন এর মধ্য দিয়ে তার দায়বদ্ধতা আরও বেড়ে গেলো এবং কাজের গতি দ্বিগুন বেড়ে গেছে। কাউন্সিলর প্রার্থী শৈবাল দাশ সুমন জানান, আজকের এই নান্দনিক জামাল খানের রুপান্তর সম্ভব হয়েছে মানুষের সহযোগিতার জন্য। ওয়ার্ডবাসী তাদের মুল্যবান রায় দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করেছে এবং আমার উপর আস্থা রেখেছেন। যার ফলে তিনি বিগত পাঁচ বছরে নগরীর জামাল খান ওয়ার্ডকে একটি নান্দনিক জামাল খানে রুপান্তর করতে সক্ষম হয়েছেন। এক সময় যে জামাল খানে একটু রাত হলেই ঘনিয়ে আসতো অন্ধকার, স্ট্রিট লাইট গুলো জ্বলত মিট মিট করে। গনি ব্যাকারী থেকে জামাল খান পর্যন্ত নেমে আসা নিরবতার কারনে বেড়ে যেত ছিনতাই আর নেশা খোরদের আনাগোনা। সেই জামাল খান আজ চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশের একটি আদর্শ ওয়ার্ডে রূপান্তরিত হয়েছে। ৪১ টি ওয়ার্ডের মধ্যে একটি অন্যতম ওয়ার্ড হিসাবে পরিচিত। চারিদিকে সবুজের সমারোহ তিরি করা হয়েছে, লাগানো হয়েছে বিচিত্র গাছ গাছালি ও ফুলের বাগান। সেই সাথে রয়েছে দর্শনার্থীদের জন্য বসার স্থান। সড়ক জুড়ে স্থাপন করা হয়েছে এলডি বাল্ব।পথচারীদের বিশ্রামের জন্য বসানো হয়েছে ছাউনি। জামাল খানের প্রতিটি দেয়ালে দেয়ালে বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সুনিপুণ কারুকাজ করা হয়েছে। যা ইতিহাস ঐতিহ্যের সাথে মানুষকে পরিচয় করিয়ে দেয়। গোল চক্করে স্থাপন করা হয়েছে রঙ্গিন ফোয়ারা যা জামাল খানের সৌন্দর্যকে অনেক খানি বাড়িয়ে দিয়েছে। বসানো হয়েছে লাইভ ফিশ একুরিয়াম( স্ট্রিট একুরিয়াম)। অতি সম্প্রতি দেয়ালে স্থাপন করা হয়েছে বাংলাদেশের প্রথম কাঁচের তৈরি বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল। তিনি এলাকার মাদক, সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। মাদক, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবেন। যুবক সমাজকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত রাখতে কাজ করবেন। তার এলাকায় জলজট নেই তবে কিছুটা জলাবদ্ধতা আছে। তিনি আশা বাদী সিডিএ ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর যৌথ ভাবে জলাবদ্ধতা নিরসনে একটি প্রকল্পের কাজ করছে। এটির বাস্তবায়ন হলে জলাবদ্ধতা পুরোপুরি নিরসন করা যাবে। আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে এই জামাল খানকে বিশ্বের একটি আধুনিক ওয়ার্ডে রুপান্তর করবেন। পার্কের আদলে গড়ে তুলবেন পুরো জামাল খানকে। জামাল খানে গড়ে তুলবেন একটি সমন্বিত বার্ড জোন ও একটি পাঠাগার। জামালখান কে তামাক মুক্ত ও ফুটপাত হকার মুক্ত রাখতে কাজ করে যাচ্ছেন। তাছাড়া এর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য আনসার নিয়োগের পরিকল্পনা ও রয়েছে। তিনি ২১ নং জালাল খানের ওয়ার্ড বাসীর কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন, তার শৈশব কৈশোর কেটেছে এই জামাল খানে। এই এলাকার সাথে তার আত্মার সম্পর্ক। আপনারা আমার পরম আত্মীয়। তাকে আবারও নির্বাচিত করে আরও একটিবার সুযোগ দেওয়ার জন্য যাতে এলাকাবাসীর সেবা করতে পারেন। সেই সাথে দলীয় নেতা কর্মীদের কাছে উদাত্ত আহ্বান জানিয়েছেন তাকে সহযোগিতা করার জন্য। তিনি নির্বাচিত হলে সব সময় সুখে দুঃখে এলাকাবাসীর পাশে থাকবেন। অতীতের মত নিরলস ভাবে কাজ করে যাবেন এবং জনগনের ভালোবাসার প্রতিদান দিবেন। জামালখান বাসী আমরা সবাই একটা পরিবার। আপনারা যদি মনে করেন আমাকে বিগত পাঁচ বছরে আপনাদের কাছে পেয়েছেন তাহলে আমাকে আবার সেবা করার সুযোগ দিবেন।

পরিবর্তনের মানসিকতা ছাড়া মানবিকতা প্রতিষ্ঠিত হবে না

১৯,জুলাই,রবিবার,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেসবুকে চট্রগ্রামের পুলিশ কর্মকর্তা ওসি মোহসীনের আবেগঘন পোস্টটি অনেকেরই হয়ত নজরে পড়েছে। সিনেমা নাটক আর বাস্তবের পুলিশ চরিত্রের বৈষম্যতা দেখে তিনি নিজের অনুভূতি আর অভিজ্ঞতা থেকে লিখেছিলেন- টিভিতে একটা নাটক দেখছিলাম। কাকতালীয়ভাবে বাসায় আমার সন্তানেরাও একই নাটকই দেখছিল। ছবির মতো সুন্দর একটি গ্রাম। সহজ সরল সে গ্রামের মানুষের জীবন। হাসি, আনন্দ, প্রেম, ভালবাসায় মুখর থাকে সে গ্রাম। কিন্তু হঠাৎই গ্রামের এমন মায়াময় পরিবেশে ছন্দপতন হয়। আর এর নেপথ্যে একজন পুলিশ অফিসার! গ্রামে মাদক ছড়ায়, ইভটিজিং বাড়ে, গরীবের উপর শোষণ বাড়ে, হাতে-পায়ে ধরেও ওই পুলিশের অনিষ্ট থেকে বাঁচতে পারে না আবাল বৃদ্ধ বনিতা... এরপর টিভি বন্ধ করে দিলাম। আর দেখলাম না। কিন্তু হঠাৎই মনে হল, আমার সন্তানরাও তো এটাই দেখছে! বাসায় গিয়ে যদি তারা জিজ্ঞেস করে, 'বাবা, পুলিশ এমন পঁচা কেন?' আমি কী উত্তর দিব? এরপর সিদ্ধান্ত নিলাম। আজ বাসায়ই যাব না। এরপর কাজে ডুব দিলাম। হঠাৎ দেখি ১৩-১৪ বছরের এক ছেলে আসল। এক হাতে বাবার তর্জনি ধরা, অন্য হাতে একটা বোর্ড সদৃশ কিছু। বোর্ডটা আমার জন্য সে উপহার এনেছে। বোর্ড উল্টে দেখি, এ তো আমি! আমাকেই এঁকেছে সপ্তম শ্রেণির আদর!! আমাকে দিয়ে বলল, আঙ্কেল আপনাকে আমার খুব ভাল লাগে। আমি বড় হয়ে আপনার মতো পুলিশ হবে। হঠাৎই আমার নাটকের কথা মনে হল। তাকে ওই নাটকের কথা জিজ্ঞেস করলাম, পুলিশ তো পঁচা। তবুও পুলিশ ভাল লাগে? সে বলে, নাটক তো মিথ্যা দেখায়। এই নাটকে যে নায়ক ছিল। আরেক নাটকে সে গুণ্ডা! নায়ক কি কখনো গুণ্ডা হয়? নাটকই পঁচা। ভালকে তারা পঁচা দেখায়। তার এমন উত্তরে সত্যিই চমকে উঠলাম। নাটক, সিনেমায় আমাদের যেভাবে চিত্রায়িত করা হয় তাতে অন্তত শিশুদের সামনে নিজেদের ক্ষতিকারক মনে হয়। কিন্তু আদরদের মনে যে পুলিশের এমন ছবি আছে তা জেনে আবারও নিজেকে নিয়ে গর্ব হল। সিদ্ধান্ত আবারও পাল্টালাম, আদরের সাথে ছবি তুলেই বাসায় যাচ্ছি আদরের দেওয়া এই ছবি নিয়ে। আমার সন্তানেরা যদি জিজ্ঞেস করে পুলিশ কেন পঁচা আদরের উত্তরটাই তাদের দিব। জোর গলায়ই বলব, তোমাদের বাবা পঁচা না। আমরা পঁচা না। পুলিশ পঁচা না। আদরমাখা ভালবাসা আদরের জন্য। ছোট শিশু আদরের দেখা ওসি মহসীনের মত চিন্তার পুলিশকে সমাজের সবাই দেখতে চায়। কোভিড-১৯ এর মহামারীতে বাংলাদেশের পুলিশ বাহিনী মানবিকতার যে পরিচয় দিয়েছে তা অনেকটাই 'স্বপ্ন জাগানিয়া বাঁশি' হয়ে বেজেছিল মানুষের মনে। দেশের প্রতিটি পর্যায়ে পুলিশের মতো মানবিকতার প্রত্যাশা ছিল সকলের। কিন্তু তেমনটা দেখা যায়নি। কারণ অনিয়ম আর দুর্নীতির কাছে নতজানু মানুষ নিজেদের পরিবর্তন করতে পারেনি। বরং কোভিড-১৯ কে হাতিয়ার করে মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে অর্থলোভী ব্যক্তিরা। করোনাভাইরাস সমাজ ও দেশের তথা বিশ্বের চিত্র বদলে দেবে এ প্রত্যাশা ক্রমশ মিথ্যা প্রমাণিত হচ্ছে। কারণ একটি প্রতিষ্ঠানের মুষ্ঠিমেয় ব্যক্তির চিন্তাচেতনা সবাই ধারণা করবে- সে আশা পোষণ করা ভুল। বিশেষ করে আমাদের দেশে সামাজিক রাজনৈতিক ও প্রশাসনিকভাবে দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার করা অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তাই করোনাকালের মানবিকতা কেবল উদাহরণে সীমাবদ্ধ হয়েছে। যদি ওসি মহসীনের পজিটিভ চিন্তাটা পুলিশের ছোট বড় সকল সদস্যেদের মনে গ্রোথিত হত, তাহলে পুলিশ বাহিনীর পরিবর্তনের মানসিকতা সত্যিকারভাবে মানবিকতাকে প্রতিষ্ঠিত করতো। বদলে যাওয়া এ সমাজে খুব সহজ কাজ নয়। লোভাতুর মন দুর্নীতির হাতছানিকে রুখতে পারে না। একই পেশায় থেকে জীবনযাপনের বৈষম্যতা থেকে কেউ দুর্নীতির পথে পা বাড়ায়। আবার কেউ যে কোন পন্থায় অর্থ উপার্জন করতে ঘুষ, চাঁদাবাজিকে অন্যায় মনে করে না। এসবের বাইরে যে বিষয়টি বিশেষভাবে উল্লেখ তা হলো 'দুর্নীতির সিস্টেম। এ দুর্নীতির সিস্টেমকে পরিবর্তন করতে না পারলে বাস্তব জীবন থেকে অন্যায় অনিয়ম দুর্নীতি দূর করা সম্ভব হবে না। একটা প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তিকে রাতারাতি বদলে দেয়া যায় না। নাটকের চরিত্রের পঁচা পুলিশ কেন পঁচা হলো তা খুঁজে বের করতে হবে। তা না হলে এ সমাজের কোন একক প্রতিষ্ঠান পরিবর্তনের মানসিকতা তৈরি করতে পারবে না। আর মানবিকতা হবে প্রশ্নের সম্মুখীন। লেখক : হাসিনা আকতার নিগার, কলামিস্ট।- বিডি-প্রতিদিন

আজকের মোট পাঠক

32745
O relaxamento vascular leva a um aumento na perfusão sanguínea, após o que os sintomas da hiperplasia prostática benigna são reduzidos.cialis tadalafil buy online White or white with a slightly yellowish tinge with a characteristic odor.cost of cephalexinIt is difficult and slow to dissolve in water, almost insoluble in alcohol. Cialis super active aumenta la producción de esperma, aumenta el deseo sexual.Cialis super active Sin Receta En EspañaCialis Super Asset lo ayudará en una situación difícil. Complications with prolonged use: rarely - psychoses that resemble alcoholic ones; hepatitis, gastritisCheap no Prescription disulfiramdetoxification therapy, administration of analeptics, and symptomatic therapy are necessary Nolvadex helps reduce the level of sex hormones in the blood of men and women Nolvadex online which ensures its therapeutic effect in this pathology.

নিউজ একাত্তর ডট কম

সম্পাদক : মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন চৌধুরী

নির্বাহী সম্পাদক : আহাম্মদ হোসেন ভুইয়া

একটি পপুলার মিডিয়া পাবলিকেশন এর প্রকাশনা | রেজি নং: চ-১২৪২৭/১৭

সম্পাদকীয় ও বানিজ্যিক কার্যালয় : ৪১৬/সি,খিলগাও ঢাকা ০২৪৩১৫০৪৮৮, ০১৮২৪২৪৫৫০৪, ০১৭৭৮৮৮৮৪৭২

চট্টগ্রাম কার্যালয় : ১৯/২০/২১ বি ৩য় তলা, হানিমুন টাওয়ার,পাহাড়তলী,চট্টগ্রাম।

ই-মেইল : newsekattor@gmail.com, editorekattor@gmail.com, কপিরাইট ©newsekattor.com কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত