কুমিল্লা আদালতে হত্যা,পুলিশের ব্যর্থতায় কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে: হাইকোর্ট
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের প্রতিটি আদালতে আইনজীবী, বিচারক ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তায় কী কী ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে কুমিল্লার ঘটনায় যারা নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তাও জানাতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বুধবার (১৭ জুলাই) আদালত চত্ত্বরে বিচারকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দায়ের করা রিটের শুনানি করে বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী ইশরাত হাসান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। শুনানির সময় আদালত বলেন, কুমিল্লার পর গতকাল সুপ্রিমকোর্ট বারেও ঘটনা (বিবাদী ও তার আইনজীবীর ওপর হামলা) ঘটেছে। এ অবস্থায় কোর্টে আইনজীবী, জাজ ও কর্মকর্তাদের সিকিউরিটির জন্য কী পদক্ষেপ নিলেন? তখন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, কুমিল্লা এবং সুপ্রিমকোর্ট বারের ২টি ঘটনাই ব্যক্তিগত। এ সময় আদালত বলেন, ব্যক্তিগত হোক, যাই হোক। কোর্টের ভেতরে ছুরি নিয়ে কিভাবে যায়? পুলিশ কি করে? অবশ্যই এটা পুলিশের দায়িত্বহীনতা। তখন রিটকারী আইনজীবী বলেন, নিরাপত্তা তো সবার জন্য। উনিও (রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী) এমন পরিস্থিতিতে পড়তে পারেন। তাই আইনজীবী, বিচারকসহ সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।
শত বছরের পুরানো ভবন ধস
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর পুরান ঢাকায় একটি দোতলা পুরনো ভবন ধসে পড়ার ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুর দেড়টার দিকে পুরান ঢাকার পাটুয়াটুলীতে সদরঘাটের কাছে সুমনা হাসপাতালের পাশের ছয় নম্বর লেইনে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়েই সেখানে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে ফায়ার সার্ভিস। এর ভেতরে দুজন আটকা পড়েছে বলে স্থানীয়রা সন্দেহ করলেও পুলিশ নিশ্চিত করতে পারেনি। এদিকে দোতলা ভবনের পুরোটাই ধসে পড়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ফায়ার ব্রিগেডের জ্যেষ্ঠ স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ আলী। তিনি বলেন, দুজন ভেতরে আটকা পড়েছেন, এমন খবরের ভিত্তিতে আমরা তল্লাশি চালাচ্ছি। আমরা চেষ্টা করছি। দেখা যাক কী হয়। স্থানীয়রা জানায়, শত বছরের পুরানো এই ভবনটি এক রকম পরিত্যক্তই ছিল। তবে ফুটপাতের ফলের কয়েকজন হকার সেখানে থাকতেন।
তিন বাহিনী প্রস্তুত,বন্যা মোকাবিলায়: সেনাপ্রধান
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় নৌ, বিমান ও সেনাবাহিনী প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। বুধবার (১৭ জুলাই) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের চতুর্থ দিনের প্রথম অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। তিনি বলেন, দেশের বন্যা পরিস্থিতি যদি আরও অবনতি হয়, তবে তা মোকাবিলায় কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হলে নৌ, বিমান ও সেনাবাহিনী প্রস্তুত রয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে সেনাপ্রধান বলেন, নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া কিভাবে আরও ভালো করা যায় সে বিষয়েও ডিসিদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। দেশের বেশির ভাগ নদ-নদীতে বন্যার পানি বাড়ছে। অনেক এলাকার ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট বন্যার পানিতে ডুবে গেছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। বন্যার ফলে খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি ও আশ্রয়ের সংকটে ভুগছেন পানিবন্দী মানুষ। সারাদিন পানিতে চলাফেরা করায় বানভানিরা পানিবাহিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। বন্যার পানিতে ডুবে কুড়িগ্রামে গত দুদিনে শিশুসহ মোট ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রতিবেশী দেশ ভারত, চীন ও নেপালে আরও বৃষ্টিপাত হলে এবং ব্রহ্মপুত্র ও যমুনার পানি বৃদ্ধি পেলে দেশে বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হতে পারে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা.এনামুর রহমান। তিনি জানান, বন্যায় এখন পর্যন্ত ২০ জেলা আক্রান্ত হয়েছে।
পাঁচ দিনের রিমান্ডে মিন্নি
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরগুনার রিফাত শরিফ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে ৫ দিনের রিমান্ড দিয়েছে বরগুনা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। আজ বুধবার বিকেল ৩টার পর মিন্নিকে আদালতে তোলা হলে পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে বিচারক তা ৫ দিন মঞ্জুর করেন। এদিকে, মিন্নিকে আদালতে তোলার আগে তার বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, ‘আমার মেয়ে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি খুবই অসুস্থ। যদি তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়, তাহলে সে আরও অসুস্থ হয়ে পড়বে।’ এ সময় তিনি সাংবাদিকদের মিন্নির অসুস্থতার প্রমাণ হিসেবে কাগজপত্রও দেখান। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে সদর উপজেলার নয়াকাটা গ্রামের বাড়ি থেকে মিন্নিকে বরগুনা পুলিশ লাইন্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সঙ্গে তার বাবাকেও নিয়ে যায় পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের ঘটনার সঙ্গে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় তাকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সেইসঙ্গে তার বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোরকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। বেলা তিনটার দিকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রিফাতের মৃত্যু হয়। পরের দিন ওই ঘটনায় রিফাতের বাবা আবদুল হালিম শরীফ বাদী হয়ে বরগুনা থানায় ১২ জনের নামে এবং চার-পাঁচজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে হত্যা মামলা করেন। এ মামলায় পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে এখন পর্যন্ত এজাহারভুক্ত সাতজন (ছয়জন জীবিত) ও সন্দেহজনক সাতজন আসামিসহ মোট ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করে। এজাহারভুক্ত গ্রেপ্তার চারজন এবং সন্দেহজনক ছয়জন আসামিসহ মোট ১০ জনকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া এজাহারভুক্ত দুজন এবং সন্দেহজনক একজনসহ মোট তিন আসামিকে আদালতের অনুমতিক্রমে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে এনে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে। এ ছাড়া এই মামলায় পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা করছে পুলিশ।
আগামীতে দেশে বিদ্যুৎচালিত দ্রুতগতির ট্রেন চলাচল শুরু হবে: প্রধানমন্ত্রী
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বেনাপোল-ঢাকা-বেনাপোল রুটে আন্তঃনগর বেনাপোল এক্সপ্রেস ও রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে বর্ধিত বিরতিহীন আন্তঃনগর বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেন উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাঁশিতে ফু দিয়ে এবং সবুজ পতাকা উড়িয়ে ট্রেন দুটির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামীতে আমাদের দেশে রেল যোগাযোগ খাতে বিদ্যুৎচালিত ট্রেন চলবে বলে আশা করি। আমরা ১৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলাম। এখন আমাদের বিদ্যুৎ ১৬০০০ হাজার মেগাওয়াট। দেশে বিদ্যুৎচালিত দ্রুতগতির ট্রেন চলাচল শুরু হবে। এর মাধ্যমে যোগাযোগ বাড়বে, পণ্য পরিবহনের সুযোগ তৈরি হবে। অর্থনৈতিকভাবে উন্নতি হবে। মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের আকাঙ্ক্ষা পূরণ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, রেল যোগাযোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হলেও বিএনপি এই খাতটিকে ধ্বংস করে দিয়েছিল। ক্ষমতায় আসার পর আমরা আলাদা মন্ত্রণালয় করে দিলাম। যাতে মানুষ রেলের সেবা পেতে পারে। রেল যোগাযোগ ব্যবস্থাকে মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া আমাদের লক্ষ্য।
রিফাত হত্যায় মিন্নি জড়িত: পুলিশ
১৭জুলাই২০১৯,বুধবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরগুনায় প্রকাশ্যে খুন হওয়া রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ দিনে তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর রাতে গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকালে বরগুনার বাসা থেকে মিন্নি ও তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডে সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় রাতে মিন্নিকে গ্রেফতার দেখানো হয়। শনিবার বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলার বাদি নিহত রিফাত শরীফের বাবা দুলাল শরীফ সংবাদ সম্মেলন করে মিন্নির দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেন এবং তাকে গ্রেফতারের দাবি জানান। পরে মিন্নিকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেন এলাকাবাসী। এর পরদিন সাংবাদিকদের ডেকে সব অভিযোগ অস্বীকার করে মিন্নি দাবি করেন তার শ্বশুরের কথার কোনো ঠিক নাই। তিনি অসুস্থ। এর আগে, হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামি বন্দুকযদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের মা শাহিদা বেগমও মিন্নিকে জড়িয়ে বিবৃতি দেন। এদিকে গ্রেফতারের পর জেলা পুলিশ সুপার (এসবি) একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি গণমাধ্যমে পাঠান। বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ জানায়, গত ২৬ জুন রিফাত শরীফকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার পর এখন পর্যন্ত বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত ৭ আসামিকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। এছাড়া আরো ৭ জনকে সন্দেভাজন হিসেবে গ্রেফতার করা হয়। মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও সুষ্ঠু তদন্তের জন্য এ মামলার ১ নং সাক্ষী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি (২০)কে ডেকে এনে মামলার ঘটনা সংক্রান্তে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা কর্তৃক প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও সুদীর্ঘ সময় যাবৎ প্রাপ্ত তথ্যাদি পর্যালোচনা ও বিশ্লেষণ পূর্বক হত্যাকাণ্ডের সাথে তাদের সংশ্লিষ্টতা প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হওয়ায় মামলার মূল রহস্য উদঘাটন এবং সুষ্ঠু তদন্তের নিমিত্তে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি রাত ৯টায় গ্রেফতার করা হয়।
সহিংস উগ্রবাদ রুখে দিতে পারলে, দেশে জঙ্গিবাদ হবে না- মনিরুল ইসলাম
১৬জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ একদিনে হয়ে ওঠেনি। দীর্ঘ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তারা এ সহিংস উগ্রবাদের পথে এসেছে বিধায় একদিনেই বা দ্রুত সময়ে এটা দমন করা সম্ভব না। সহিংস উগ্রবাদ রুখে দিতে পারলে, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ হবে না বলে জানান ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সিটিটিসির প্রধান মোঃ মনিরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম(বার)। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকাল ১১টায় লালমাটিয়া মহিলা কলেজ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত জঙ্গিবাদ বিরোধী শপথ বাক্য পাঠ ও সহিংস উগ্রবাদ বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলসমূহের সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি। ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির আয়োজনে উক্ত অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। লালমাটিয়া মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মোঃ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।ডিএমপি নিউজ । অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে শিক্ষক-শিক্ষার্থী সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে জঙ্গিবাদ বিরোধী শপথ বাক্য পাঠ করান ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির আয়োজনে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় আটশত শিক্ষক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। ডিবেট ফর ডেমোক্রেসিকে ধন্যবাদ জানিয়ে সিটিটিসি প্রধান বলেন, আমরা গবেষণা করে দেখেছি ১৫-৩০ বছর বয়সের তরুণ-তরুণী উগ্রবাদের সাথে যুক্ত হচ্ছে। উগ্রবাদ শুধুমাত্র ধর্মের কারণে হয় না। ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা দিয়ে সহিংস উগ্রবাদ রুখে দেয়ার জন্য মননশীল মানুষ তৈরি করতে হবে। স্কুল কলেজে পর্যাপ্ত খেলাধুলার ব্যবস্থা করতে হবে। যুক্তি মনস্ক মানুষ হিসেবে শিক্ষার্থীরা যাতে গড়ে উঠতে পারে সেজন্য বিতর্ক অনুষ্ঠানসহ অন্যান্য সাংস্কৃতিক কার্যক্রম আরো বেশি বেশি করে করতে হবে। যার মধ্যে যুক্তিবাদী মন আছে, সহমর্মিতা ও সহিষ্ণুতা আছে এবং অপরকে ভালোবাসতে জানে সেইতো মানুষ। সোশ্যাল মিডিয়া পুরোপুরি নিরপেক্ষ। এটা ভালো ও খারাপ দুই কাজেই ব্যবহার করা যায়। এটা নির্ভর করে ব্যবহারকারীর উপর। অন্য ধর্ম-বর্ণের মানুষের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে। মনে রাখতে হবে ইসলাম কখনো হত্যা বা সহিংসতাকে সমর্থন করে না। আমাদেরকে প্রিয় নবীর মত সহনশীল ও পরমত সহিষ্ণু হতে হবে। ধর্মের প্রকৃত শিক্ষা সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, সহিংস উগ্রবাদ প্রতিরোধে সমাজে এন্টিবডি তৈরি করতে হবে। এন্টিবডি বলতে ধর্মীয় সঠিক জ্ঞান সকলের মাঝে ছড়িয়ে দেয়া, প্রথমত পরিবার থেকে শিক্ষা নেয়া, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক শুধু পাঠদান করেন না, তিনি মানুষ গড়া কারিগর। উগ্রবাদ সম্পর্কিত সংবাদ প্রচারে মিডিয়াকে দায়িত্বশীল ও সচেতন হতে হবে, সিভিল সোসাইটি ও কমিউনিটির রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। প্রকৃত ইসলামের শিক্ষা দিয়ে সকলের মাঝে এন্টিবডি তৈরিতে মসজিদের ঈমামের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা খেলাধুলা ও সংস্কৃতি চর্চা মাধ্যমে সহিংস উগ্রবাদ বিরোধী এন্টিবডি তৈরি করতে পারি। সহিংস উগ্রবাদ বিরোধী প্রধান এন্টিবডি হতে পারে ডিবেট বা বিতর্ক। যুক্তিতর্ক দিয়ে যেকোন বিষয়ের খারাপ ও ভালো দিকের বিচার করা সম্ভব। তরুণদের উদ্দেশ্যে সিটিটিসি প্রধান বলেন, এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তোমাদের মধ্যে যে এন্টিবডি তৈরি হলো তা শুধু তোমরা নিজেরাই অনুসরণ করবে তা নয়, অন্যদেরও পথ দেখাতে হবে। আমি বিশ্বাস করি তরুণরাই আমাদের পথ দেখাবে। প্রধান বক্তার বক্তব্যে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ বিস্তারে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র থাকলেও তা মোকাবেলায় আমাদের আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী সর্বদা সচেষ্ট রয়েছে। এখানেই সব ধর্মের-বর্ণের মানুষের এক অপূর্ব মিল-বন্ধন রয়েছে। বিচ্ছিন্ন দু-একটি ঘটনা ছাড়া মুসলমান, হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রীস্টান প্রত্যেকেই যার যার ধর্ম শান্তিপূর্ণভাবে পালন করছে। তবে যখন আমরা দেখি নিউজিল্যান্ডে মসজিদে নামাজরত অবস্থায় মুসলমানদের উপর হামলা করে মানুষ হত্যার করা হয় এবং এর কিছুদিন পর শ্রীলংকায় গীর্জায় প্রার্থনারত অবস্থায় খ্রীস্টান সম্প্রদায়ের উপর হামলা করে মানুষ মারা হয় তখনই আমরা শংকিত হই। এ কারনে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। তিনি দুঃখ করে বলেন, কোথাও কোন উগ্রবাদী মুসলমান কাউকে হামলা করলে ফলাও করে ইসলামিক টেরোরিস্ট হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়। কিন্তু যখন মুসলমানদের উপর কেহ হামলা করে তখন কোন বিশ্ব নেতৃবৃন্দকে বলতে শুনিনা কোন শ্বেতাঙ্গ টেরোরিস্ট সেখানে হামলা করেছে। এখানে উল্লেখ্য দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত সহিংস উগ্রবাদ বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, রানারআপ হয় তামীরুল মিল্লাত কামিল মাদ্রাসা, যাত্রাবাড়ি ও তৃতীয় স্থান অধিকার করে সরকারি বাঙলা কলেজ মিরপুর। প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলসমূহকে ট্রফি ও সনদ প্রদান সহ ফুলের মালা পরিয়ে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের আহবায়ক ড. তাজুল ইসলাম চৌধুরী তুহিন, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার মো. মনিরুজ্জামান মুকুল ও লালমাটিয়া মহিলা কলেজ ডিবেটিং ক্লাবের মডারেটর ড. ফেরদৌস আরা খানম।
একনেকে ৮ প্রকল্পের অনুমোদন
১৬জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:৫ হাজার ১৪২ কোটি ৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ৮টি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় প্রকল্পগুলোর অনুমোদন দেওয়া হয়। একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো নূরুল আমিন। পরিকল্পনা সচিব জানান, এই ৮ টি (নতুন ও সংশোধীত) প্রকল্পে সরকারি অর্থায়ন করা হবে ৪ হাজার ১২৯ কোটি ৮১ লাখ টাকা, এবং প্রকল্প সাহায্য ১ হাজার ১২ কোটি ২৫ লাখ টাকা।

জাতীয় পাতার আরো খবর