রাষ্ট্রপতির ইফতারে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, প্রধান বিচারপতি
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আজ রোববার বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, সংসদ সদস্য ও বিদেশী কূটনীতিক, বিশিষ্ট নাগরিক এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্তকর্তাদর সম্মানে ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। রাষ্ট্রপতি ভবনের দরবার হলে আয়োজিত ইফতার পার্টিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদ এবং সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ যোগ দেন। রাষ্ট্রপতির সহধর্মিনী রাশিদা খানম এবং পরিবারের সদস্যরাও ইফতারে অংশ নেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গভবনে পৌঁছলে রাষ্ট্রপতি তাঁকে স্বাগত জানান। মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, ডেপুটি স্পিকার, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, বিদেশী কূটনীতিক, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, সুপ্রিম কোর্টের বিচারক, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্য, অ্যাটর্নি জেনারেল, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, আইনজীবী, সম্পাদক ও সিনিয়র সাংবাদিক, উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বিশিষ্ট নাগরিক এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ এতে যোগ দেন। রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন। ইফতারের পূর্বে দেশ ও জনগণের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যবৃন্দ এবং ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। বঙ্গভবন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ সাইফুল কবির মোনাজাত পরিচালনা করেন।-বাসস
পোশাক শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের অনুরোধ ১০ জুনের মধ্যে
পোশাক শ্রমিকদের বেতন ও বোনাস আগামী ১০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে পোশাক কারখানা মালিক ও তাদের সংগঠন বিজিএমইএর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠক থেকে এ অনুরোধ জানানো হয়। বৈঠক শেষে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ৭ জুনের মধ্যে বেতন পরিশোধ করার জন্য আমরা সরকারের পক্ষ থেকে পোশাক কারখানা মালিক ও তাদের সংগঠন বিজিএমইএর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছি। একই সঙ্গে আগামী ১০ জুনের মধ্যে বোনাস পরিশোধ করতে অনুরোধ জানিয়েছি। আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সারা দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ছাড়াও বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১৬ বা ১৭ জুন দেশে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হবে। পোশাক কারখানায় ১৩, ১৪ ও ১৫ জুন পর্যায়ক্রমে ছুটি দেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মহাসড়কে যানজটের তীব্রতা কমানোর জন্য আমরা এই রিকোয়েস্টটা করেছি। বিজেএমইএ ও বিকেএমইএ আমাদের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন। যদিও তারা বলেছেন, জুন-জুলাই মাসটা হলো তাদের সিজন। তারপরও চেষ্টা করবেন যাতে ছুটিটা ভাগে ভাগে দেয়া যায়। তিনি বলেন, গার্মেন্টের বিভিন্ন অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা সমাধানের জন্য বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, শ্রম মন্ত্রণালয়, জেলা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের সমন্বয়ে একটি কমিটি করে বিশেষ আলোচনা হয়েছে। এটা ক্রাইসিস মোমেন্টের জন্য, ঈদের আগের কয়েক দিনের জন্য। আসাদুজ্জামান খান বলেন, রাজধানীসহ সারাদেশের বড় ঈদের জামাতগুলো সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসব। আর্চওয়ে মেটাল ডিটেক্টর ও চেকপোস্টের ব্যবস্থা থাকবে। মার্কেটগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বিশেষ করে স্বর্ণের দোকানে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বড় মার্কেটগুলোতে যাতে জাল টাকা লেনদেন না হয় সেজন্য মেশিন সরবরাহ করা হচ্ছে। অজ্ঞান বা মলম পার্টি, ছিনতাই প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, পহেলা রমজান থেকে ৭২ জন অজ্ঞান পার্টির সদস্য ও ৩৬ জন ছিনতাইকারী ধরা হয়েছে। ঢাকার প্রবেশ ও বহির্গমন পথে যানজট রোধে প্রচেষ্টা থাকবে। মহাসড়কেও যানজট নিরসনে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাঁচপুর ও চন্দ্রা এলাকায় পুলিশ কন্ট্রোল রুম থাহাসড়কে নির্দিষ্ট কিছু স্থানে আনসার নিয়োগ করা হবে। পবিত্র ঈদে নাশকতা রোধে গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করা হবে। বাস, লঞ্চ ও ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা যাবে না জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, টিকিট কালোবাজারি নিয়ন্ত্রণে গোয়েন্দা তৎপরতা থাকবে। রাস্তায় চাঁদাবাজি রোধে হাইওয়ে পুলিশের সঙ্গে জেলা পুলিশ ও রযাবের টহল থাকবে। মন্ত্রী বলেন, ১৪ জুন সরকারি ছুটির দিন। ওই দিন যাতে শিল্প এলাকাগুলোতে যেখানে গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রি ও অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রি রয়েছে ও মার্কেট রয়েছে সেসব এলাকায় ব্যাংক খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হবে। সভায় জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, পুলিশের মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ জাবেদ পটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, বিজিএমইএর (তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতি) সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত মধ্য আফ্রিকায়
মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে (সিএআর) জাতিসংঘ মিশনে থাকা দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুজন। আভিযানিক দায়িত্ব পালনকালে শনিবার (২৬ মে) দেশটির ইয়ালোক নামক স্থানে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিট এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সৈনিক আরজান হাওলাদার (৩৪ ই বেঙ্গল-ফরিদপুর) ও সৈনিক (টিএ) মো. রিপুল মিয়া (৩৫ ডিভ লোকেটিং ব্যাটারি আর্টিলারি (রংপুর)। আহতরা হলেন- সৈনিক মো. জামাল উদ্দিন মোল্লাহ (৩৪ ই বেঙ্গল-ফরিদপুর) ও সৈনিক মো. মজাহিদুল ইসলাম (৩৬ এডি রেজিমেন্ট আর্টিলারি-নওগাঁ)। রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)। এতে বলা হয়, বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা সামরিক ও অসামরিক যানবাহনের একটি কনভয়ের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন। পথিমধ্যে দেশটির ইয়ালোক নামক স্থানে কনভয়ের কাঠ বহনকারী একটি ভারী যানবাহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে দুর্ঘটনাটি হয়। নিহত এবং আহতদের সবাই জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োজিত বাংলাদেশ ব্যাটালিয়ন-৪ (ব্যানব্যাট-৪) এর সদস্য। উল্লেখ্য বাংলাদেশ ব্যাটালিয়ন ২০১৪ সালের অক্টোবর থেকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিয়োজিত রয়েছেন। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য মধ্য অফ্রিকান প্রজাতন্ত্রের রাজধানী বাঙ্গুইতে স্থানান্তর করা হয়েছে। ওই দেশে নিয়োজিত অন্য বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা নিরাপদে আছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
মহাসড়কে রং সাইড দিয়ে যদি মন্ত্রীও গাড়ি চালান,তাকেও জরিমানা করা হবে: কাদের
মহাসড়কে রং সাইড দিয়ে যদি মন্ত্রীও গাড়ি চালান, তাহলে তাকেও জরিমানা করা হবে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রোববার (২৭ মে) সকালে ফেনী সার্কিট হাউজে মহাসড়কে যানজট নিরসনে করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভায় পুলিশকে উদ্দেশ্য করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। সেতুমন্ত্রী বলেন, মহাসড়কে যানজট কমাতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। আপনারা জানেন ফেনীর ফতেহপুর অংশে যে তীব্র যানজট সৃষ্টি হতো তা এখন নেই। তিনি বলেন, ফতেহপুর ওভারপাসের ঢাকামুখী দুই লেন খুলে দেয়া হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যে পুরোটা যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। এখন কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। সেটিও দ্রুত সমাধানের চেষ্টা চলছে। ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চার লেন রাস্তার মেঘনা, গোমতী ও কাঁচপুরে এক লেন হয়ে যায়। ঢাকা থেকে আট লেন হয়ে আসলেও এখানে এক লেন।
বিশেষ অভিযান বলে কোনো কিছু নেই:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
সরকার মাদকের বিরুদ্ধে অলআউট যুদ্ধে নেমেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেছেন,মাদকের বিরুদ্ধে আমরা অলআউট যুদ্ধে নেমেছি। এই যুদ্ধে আমাদের জয়ী হতেই হবে। সচিবালয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রোববার দুপুরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা সভা শেষে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,বিশেষ অভিযান বলে কোনো কিছু নেই। যে পর্যন্ত আমরা মাদক নির্মূল করতে না পারব, সে পর্যন্তই অভিযান চলবে। নির্দিষ্ট সময়সীমা এটার মধ্যে নেই। সভায় ঈদুল ফিতরে পোশাক শ্রমিকদের ছুটি নিয়ে আলোচনা হয়। গার্মেন্টস খাতে অসন্তোষ যাতে দেখা না দেয় সেজন্য পোশাক শ্রমিকদের বেতন ৭ জুনের মধ্যে এবং বোনাস ১০ জুনের মধ্যে পরিশোধের জন্য পোশাক কারখানার মালিকদের বৃহৎ দুই সংস্থা বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএর প্রতি আহ্বান জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। একই সঙ্গে ঈদে যাতে পথে যানজট সৃষ্টি না হয় সেজন্য আগামী ১২, ১৩ ও ১৪ জুন পর্যায়ক্রমে গার্মেন্টস শ্রমিকদের ঈদের ছুটি দেওয়ার অনুরোধ করেন তিনি। বৈঠকে বিজিএমইএর সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, বিকেএমইএর সভাপতি সেলিম ওসমান, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারীসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীগুলোর তথ্য অনুযায়ী, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান শুরুর পর রোববার পর্যন্ত বন্দুকযুদ্ধে ৯০ জন নিহত হয়েছে।
নিরিহদের ফাঁসানোর চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা
ফেনীতে সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন-কেউ যদি মাদক ব্যবসায়ীর অজুহাত দিয়ে নিরিহদের ফাঁসানোর চেষ্টা করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। মাদক ব্যবসায়ীরা অস্ত্র ব্যবহার করে , অভিযানের সময় পুলিশ –র্যাবের উপর গুলি করে হামলা চালায়, তখন আইন শৃংখলা বাহিনী বসে থাকতে পারেনা। তারও যানমাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। রবিবার দুপুরে ফেনী সার্কিট হাউজে ঢাকা-চট্রগাম জাতীয় মহাসড়কে যানজট নিরসনে করনীয় নির্ধারন বিষয়ক সভায় মন্ত্রী এ সব কথা বলেন। সভায় চট্রগ্রাম, কুমিল্লা, নোয়খালী, ফেনী লক্ষীপুর কস্কবাজার জেলার ডিসি, এসপি পরিবহন মালিক শ্রমিক নেতারা উপস্থিত ছিলেন ফেনী -২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী, সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য জাহান আরা বেগম সুরমা, চট্রগাম রেন্জ ডিআইজি, বন্দর , বিএরটিএ সহ বিভিন্ন বিভাগের কমকতাগন উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রী বলেন- ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের ফতেপুর রেলওয়ে ওভারপাসের একটি লেইন আগামী ৫ জুন আরেকটি লেইন ১৫ জুন খুলে দেয়া হবে। তখন আর মহাসড়কে যানজট থাকবেনা। যানজট নিরসনের জন্য উল্টোপথে অথাৎ রং সাইট দিয়ে যে গাড়ী প্রবেশ করে তাদের ২ থেকে ৩ গুন জরিমানা করার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন। মন্ত্রী বলেন - টোল আদায়ের সিস্টেম ক্রুটি পুন। মন্ত্রী যানবাহন চালকদের অনুরোধ করে বলেন নির্ধারিত টোলের টাকা ভাংতি রাখতে হবে যাতে ভাংতি টাকা নিয়ে টোলের সামনে সময় নষ্ট না হয়। মালিকদের উদ্দেশে বলেন- ফিটনেস বিহীন কোন গাড়ী রাস্তায় বের করবেনা। এর আগে মন্ত্রী ফতেপুরে নির্মানাধীন রেলওয়ে ওভারপাসের কাজ পরিদর্শন করেন।
ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে ভারতে দুই দিনের সরকারি সফর শেষে শনিবার দিবাগত রাতে দেশে ফিরেছেন। প্রধানমন্ত্রী এবং তার সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট গতকাল রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে। সফরে প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার সম্মানিত অতিথি হিসেবে শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দেন এবং শনিবার পশ্চিমবঙ্গের আসানসোলের কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রি গ্রহণ করেন। শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি শান্তিনিকেতনে সদ্য নির্মিত বাংলাদেশ ভবনের যৌথভাবে উদ্বোধন করেন এবং সেখানে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন। বাংলাদেশ ভবন উদ্বোধনের পর শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি সেখানে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করেন এবং দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। শেখ হাসিনা গতকাল কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বাসভবন জোড়াসাঁকো ঠাকুর বাড়ি পরিদর্শন করেন। কলকাতা চেম্বার নেতারা তার সঙ্গে হোটেলকক্ষে সাক্ষাৎ করেন। এছাড়া ভারতের মহান জাতীয়তাবাদী নেতা নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসুর জাদুঘর পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।
ঢাবির নতুন উপ-উপাচার্য ড. মুহাম্মদ সামাদ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালরের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ড. মুহাম্মদ সামাদ। আজ রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষরিত নিয়োগের কপি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এসে পৌঁছেছে। এ বিষয়ে আজই আদেশ জারি করা হবে। নতুন দায়িত্ব সম্পর্কে ৬০ বছর বয়সী এই অধ্যাপক বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানিয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি অতি দ্রুত চলে আসবে। ড. মুহাম্মদ সামাদ ঢাবি সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্য। জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি ছিলেন অধ্যাপক সামাদ। অধ্যাপক সামাদ এর আগে ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সায়েন্সেসের (২০১২- ২০১৬) উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর তৎকালীন উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পেলে দীর্ঘ আট মাস প্রশাসনের এই গুরুত্বপূর্ণ পদটি শূন্য থাকে।
বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ নয়
পাইকারি ও খুচরা বাজারে বিদ্যুতের দাম বাড়াতে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বিইআরসি চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্টদের উক্ত রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। রবিবার এক রিট আবেদনের শুনানিতে হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু। ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, গত বছরের ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৫ অক্টোবর বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে বিইআরসি গণশুনানি করে। আইন অনুযায়ী শুনানি করার ৯০ দিনের মধ্যে একটি লিখিত আদেশ দেয়ার কথা। কিন্তু কোনো আদেশ প্রদান না করে একই বছরের ২৩ নভেম্বর পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করা হয়। বিইআরসির ওই সিদ্ধান্ত আইন অনুযায়ী না হওয়ায় তা চ্যালেঞ্জ করে কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষে এর আহ্বায়ক স্থপতি মোবাশ্বের হাসান এ রিট দায়ের করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এই রুল জারি করেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর