আপনাদের জুলিশিয়াল মাইন্ড অ্যাপ্লাই করতে হবে: ইসি শাহাদাত
অনলাইন ডেস্ক: নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের বলেছেন,আপনাদের আদেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে গুলি চালানো বা এই ধরনের কোনো কাজের ক্ষেত্রে আপনাদের জুলিশিয়াল মাইন্ড অ্যাপ্লাই করতে হবে। পরিবেশ পরিস্থিতি দেখে গুলি করার আদেশ দেবেন। রোবাবার আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের দ্বিতীয় দিনের ব্রিফিংয়ের এসব কথা বলেন তিনি। শাহাদাত হোসেন বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা যারা নিয়োজিত থাকবেন- তারা আপনাদের আদেশেই যদি গুলি চালানোর প্রয়োজন হয়, সেটি করবেন। সুতরাং আপনারা পরিস্থিতি বিবেচনা করে মতামত দেবেন বা যারা আপনাদের আদেশে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ আনতে গুলি চালানো বা এই ধরনের কোনো কাজ করবেন সেক্ষেত্রে আপনাদের জুলিশিয়াল মাইন্ড অ্যাপ্লাই করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা চাই প্রতিটি ভোটার যেন নির্বিঘ্নে ভোটকেন্দ্রে যেতে পারেন এবং ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়িতে ফিরতে পারেন। এ নির্বাচন কমিশনার বলেন, এমন এক মুহূর্তে আমরা এখানে একত্রিত হয়েছি যখন সারাদেশ, জাতি আসন্ন এই নির্বাচনটির দিকে তাকিয়ে আছে। শুধু জাতি নয়, সারাবিশ্ব আমাদের এই নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আছে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন হয়। সেই অর্থে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন চায়- আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন যেনো একটি সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ এবং আইনানুগ একটা নির্বাচন যেন আমরা অনুষ্ঠান করতে পারি। এরকম নির্বাচন অনুষ্ঠান করার ক্ষেত্রে আপনাদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আপনাদের পেশাগত যোগ্যতার মাধ্যমে প্রমাণ করতে হবে যে, আপনারা নিরপেক্ষ এবং অত্যন্ত যোগ্য আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে । তিনি বলেন, আচরণবিধি যেন যথাযথভাবে পালিত হয়, সকল প্রার্থী যেন সমান সুযোগ পায় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এই নির্বাচন কর্মকাণ্ড পরিচালনায় আপনাদের একদমই নিরপেক্ষ থাকতে হবে। নির্বাচনটা হতে হবে আইনানুগ। তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন যে, এই নির্বাচনে সকল দল অংশগ্রহণ করছে। যেহেতু সকল দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, আমার দৃঢ় বিশ্বাস এই নির্বাচন অত্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ একটা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। আমাদেরকে লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে এখানে কোনো রকম প্রতিহিংসার কোনো রকম সুযোগ না থাকে। আপনারা আপনাদের ওপর অর্পিত যে দায়িত্ব, কর্তব্য- সেটা পালনের ক্ষেত্রে এই প্রতিহিংসাটাকে বন্ধ করতে হবে। আপনারা আপনাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব সাহসিকতার সাথে পালন করতে হবে। কর্তব্য পালনে সবসময় আমরা আপনাদের পাশে আছি। আমরা পাশে থাকবো। সুতরাং নির্ভিকভাবেই আপনাদের দায়িত্ব পালন করতে হবে যোগ করেন তিনি। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ ডিসেম্বর ভোট হবে। এর আগে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা, ২ ডিসেম্বর বাছাই ও ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় রয়েছে।
২৬ নভেম্বর জোটগতভাবে মনোনীতদের তালিকা ঘোষণা করা হবে: ওবায়দুল কাদের
অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্তদের চিঠি দিতে শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। রোববার(২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হওয়া এই কার্যক্রমে দেওয়া হচ্ছে ২৩০টি আসনের প্রার্থীদের চিঠি। কাল সোমবার(২৬ নভেম্বর) জোটগতভাবে মনোনীতদের তালিকা ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এছাড়া, প্রয়োজনে মনোনীত প্রার্থীদের পরিবর্তন আসতে পারে বলেও জানান তিনি। নির্বাচনে দলীয় টিকিট হাতে পেয়ে এভাবেই আনন্দ আর উচ্ছ্বাসে মাতেন নেতাকর্মীরা। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে সৃষ্টি হয় উৎসবমুখর পরিবেশ। এর আগে রোববার সকাল সাড়ে দশটা থেকে শুরু হয় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রাপ্তদের চিঠি দেয়া। চিঠি নিয়ে হাসিমুখে একে একে বেরিয়ে আসেন মনোনয়ন প্রাপ্তরা। বাইরে অপেক্ষারত নেতাকর্মীদের মাঝে তখন উচ্ছ্বাস আর স্লোগান। এবার গোপালগঞ্জ ৩ ও রংপুর ৬ আসন থেকে নির্বাচনে লড়বেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের মনোনয়ন পেয়েছেন নোয়াখালী ৫ আসনের। এছাড়া, ঢাকা ২ আসন থেকে অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, নড়াইল ২ থেকে ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা, কুষ্টিয়া ৩ থেকে মাহবুব উল আলম হানিফ। মনোনয়নের এই চিঠিকে দলের জন্য দীর্ঘদিনের ত্যাগ আর শ্রমের পুরস্কার হিসেবেই দেখছেন মনোনয়নের দৌড়ে উত্তীর্ণরা। মনোনয়নের চিঠি নিয়ে নিজ আসনে ফিরে গিয়ে নির্বাচনী কাজে নেমে পড়ার কথাও জানান অনেকে। এদিকে, রাজধানীর ধানমন্ডিতে দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, সোমবার জোটের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হবে। গত ৯ নভেম্বর থেকে শুরু হয় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি। এবার মনোনয়ন ফরম কিনেন প্রায় সাড়ে চার হাজার প্রার্থী।
যে ২ আসনে লড়বেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুইটি আসন থেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী দলের সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি গোপালগঞ্জ-৩ ও রংপুর-৬ আসনে দলটির প্রার্থী হবেন। রোববার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন প্রাপ্তদের চিঠি দেয়া শুরু হয়। দলের নেতারা জানিয়েছেন, শনিবার (২৪ নভেম্বর) তাদের ফোন করে আওয়ামী লীগ অফিস থেকে চিঠি নিতে বলা হয়। মনোনয়ন নিশ্চিতের চিঠি নিতে আজ সকাল থেকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আসতে থাকেন দলের মনোনীত প্রার্থী ও সমর্থকরা। নেতাকর্মীদের পদচারণায় আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ের সামনে এখন উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।
সৎ থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে : সিইসি
অনলাইন ডেস্ক: রাজনৈতিকভাবে সৎ থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আজ রোববার সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দেশে নির্বাচনী আচরণবিধিমালা সংক্রান্ত ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন সিইসি। অনুষ্ঠানে সিলেট, চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা উপস্থিত ছিলেন। সিইসি কে এম নুরুল হুদা বলেন, নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালনের ব্যাপারে আপনাদের সবাই বলেছেন। আমি আবারও বলি, আপনাদের দায়িত্ব হবে রাজনৈতিকভাবে সৎ। সবাইকে সমান চোখে দেখা, কারো জন্য বেশি দেখা, কারো জন্য কম দেখাএ ধরনের আচরণ কখনো আপনারা করবেন না। কথায় আছে, হাকিম নড়ে কিন্তু হুকুম নড়ে না। এ রকম যেন হুকুম হয়, যেটা নড়বে না কখনো। এই জিনিসগুলো আপনাদের দেখতে হবে। সিইসি বলেন,কঠোরভাবে যেটা দেখবেন, প্রিসাইডিং অফিসার যেন নিরাপদে থাকে। প্রিসাইডিং অফিসারের ওপর প্রচুর চাপ থাকে। তার ওপরে সব দায়িত্ব থাকে ওই এলাকার। তাদের সহযোগিতা করা আপনাদের দায়িত্ব, তাদের কখনো পরিচালনা করতে যাবেন না। তাহলে ভুল হয়ে যাবে। তারা যখন যে সহযোগিতা চাইবে, সেটা করবেন। সহযোগিতা চাওয়ার পরিস্থিতি না থাকলে সেখানে আপনাদের বিবেক-বিবেচনার প্রয়োগ করবেন।
সংসদ নির্বাচনে এমপি প্রার্থী হতে চাইলে ছাড়তে হবে স্থানীয় সরকারের শীর্ষ পদ
অনলাইন ডেস্ক: সিটি করপোরেশন মেয়র, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি প্রার্থী হতে চাইলে তাদের পদ ছেড়ে নির্বাচন করতে হবে। স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ এই জনপ্রতিনিধিরা স্বপদে থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। শিগগিরই এ সংক্রান্ত বিশেষ পরিপত্র জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন ইসি কর্মকর্তারা। শনিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত ৪০তম কমিশন সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। ১৯ নভেম্বর বিএনপির পক্ষ থেকেও প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে এ সংক্রান্ত বিষয়ে নির্দেশনা জারির অনুরোধ করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এজন্য বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে কমিশন। জানতে চাইলে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন,শনিবার কমিশন সভায় সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা হয়েছে। রোববার এ বিষয়ে আইনের ব্যাখ্যাগুলো তুলে ধরে বিস্তারিত জানাবো। নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম জানান, রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে সার্বিক বিষয়ে ইসি আইনি ব্যাখ্যাগুলো তুলে ধরবে। তারা মনোনয়নপত্র বাছাইয়ে তা মেনে সিদ্ধান্ত দেবে। এরপরও কোনো বিষয়ে আপিল হলে তা নির্বাচন কমিশনে আসবে। কমিশন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবে। নির্বাচন পরিচালনা শাখার কর্মকর্তারা জানান, আদালতের পর্যবেক্ষণে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদকে লাভজনক হিসেবে বলা হয়েছে। এজন্য স্বপদে বহাল থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ নেই। একইসঙ্গে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি পৌরসভা ও ইউপি চেয়ারম্যানের বিষয়েও একই ধরনের নির্দেশনা থাকবে ইসির। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের ১২ অনুচ্ছেদের প্রার্থীর অযোগ্যতায় বলা হয়েছে- (গ) প্রজাতন্ত্রের বা কোন সংবিধিবদ্ধ সরকারি কর্তৃপক্ষের কোন লাভজনক পদে অধিষ্ঠিত থাকলে তিনি প্রার্থী হতে পরবেন না। উল্লেখ্য যে লাভজনক পদ (office of profit)) অর্থ প্রজাতন্ত্র কিংবা সরকারি সংবিধিবদ্ধ কর্তৃপক্ষ কিংবা সরকারের ৫০% এর অধিক অংশীদারিত্ব সম্পন্ন কোম্পানিতে সার্বক্ষণিকভাবে নিয়োজিত কোন পদ বা অবস্থান। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ৩০ ডিসেম্বর ভোট হবে। এর আগে ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা, ২ ডিসেম্বর বাছাই ও ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় রয়েছে।
আওয়ামী লীগের এখন পর্যন্ত যাঁরা মনোনয়ন চিঠি পেয়েছেন
অনলাইন ডেস্ক: আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্তদের মধ্যে চিঠি দেওয়া শুরু হয়েছে। আজ রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউর কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নের চিঠি তুলে দেওয়া হচ্ছে। এখন পর্যন্ত যাঁরা চিঠি পেয়েছেন তাঁরা হলেন গোপালগঞ্জ-৩ ও রংপুর-৬ আসনে শেখ হাসিনা, নোয়াখালী-৫ ওবায়দুল কাদের, নড়াইল-২ মাশরাফি বিন মুর্তজা, ঢাকা-২ অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা-৩ নসরুল হামিদ বিপু, ঢাকা-১০ শেখ ফজলে নূর তাপস, ঢাকা-১২ আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, ঢাকা-১৩ সাদেক খান, ঢাকা-১৪ আসলামুল হক, গাজীপুর-৩ ইকবাল হোসেন সবুজ, গাজীপুর-৪ সিমিন হোসেন রিমি, গোপালগঞ্জ-২ শেখ সেলিম, পিরোজপুর-১ শ ম রেজাউল করিম, শরীয়তপুর-২ এনামুল হক শামীম, দিনাজপুর-১ মনোরঞ্জন শীল গোপাল, দিনাজপুর-২ খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, ময়মনসিংহ-১০ ফাহমি গোলন্দাজ বাবেল, কুষ্টিয়া-৩ মাহবুবউল আলম হানিফ, চাঁদপুর-৩ ডা. দীপু মনি, বাগেরহাট-১ শেখ হেলাল, মাদারীপুর-২ শাজাহান খান, মাদারীপুর-৩ আবদুস সোবহান গোলাপ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ বি এম ফরহাদ হোসেন সংগ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আনিসুল হক, মুন্সীগঞ্জ-৩ মৃণাল কান্তি দাস, ভোলা-৩ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন, মাগুরা-১ সাইফুজ্জামান শিখর, টাঙ্গাইল-১ আবদুর রাজ্জাক, সিরাজগঞ্জ-১ মোহাম্মদ নাসিম, নারায়ণগঞ্জ-১ গোলাম গাজী দস্তগীর, খুলনা-২ শেখ জুয়েল, খুলনা-৫ নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, কুমিল্লা-১১ মুজিবুল হক, যশোর-১ শেখ আফিলউদ্দিন, চট্টগ্রাম-৯ মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম-১২ সামশুল হক চৌধুরী, ফেনী-২ নিজামউদ্দিন হাজারী, রাজশাহী-৪ এনামুল হক, নাটোর-৪ মো. আবদুল কুদ্দুস, পঞ্চগড়-২ মো. নুরুল ইসলাম সুজন, সিলেট-৩ মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী ও ফরিদপুর-৪ কাজী জাফর উল্যাহ। এদিকে আজ সকাল থেকেই দলীয় কার্যালয়ে মনোনয়নপ্রত্যাশী ও তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের ভিড় রয়েছে। মনোনয়নের চিঠি নিয়ে বেরিয়ে এসে অনেকে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তাঁদের কর্মী-সমর্থকদের স্লোগানে স্লোগানে মুখর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ।
বিনা কারণে কাউকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না :সিইসি
অনলাইন ডেস্ক :আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। পুলিশ ইসির নির্দেশে কাজ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিনা কারণে কাউকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। শনিবার ২৪ নভেম্বর সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের ব্রিফিং শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন সিইসি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন ভবনে সকাল সাড়ে দশটায় শুরু হয় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে নির্বাচনের আচরণবিধি নিয়ে কমিশনের ব্রিফিং। তিন ধাপের প্রথম ধাপে আজ ব্রিফিং এ অংশ নিয়েছেন, ঢাকা ও ময়মানসিংহ বিভাগের পাশাপাশি কুমিল্লা জেলার ২'শ ২২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ অন্য চার কমিশনার ও ইসি সচিব এসময় উপস্থিত ছিলেন। সিইসি তার ব্রিফিংয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে প্রিজাইডিং অফিসার ও সহকারি প্রিজাইডিং অফিসারদের সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন।
আগামী মঙ্গলবার ঢাকা আসবেন ইইউর বিশেষজ্ঞ দল
অনলাইন ডেস্ক :একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দুই সদস্যবিশিষ্ট একটি বিশেষজ্ঞ দল ঢাকা আসছে। কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, আগামী মঙ্গলবার তারা ঢাকা আসবেন। প্রতিনিধিদলের সদস্যরা প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা এবং প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। তাছাড়া পুলিশ মহাপরিদর্শক মোহাম্মাদ জাভেদ পাটোয়ারী, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা এবং জ্যেষ্ঠ রাজনীতিকদের সঙ্গে তারা বৈঠক করবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে। জানা গেছে, এবারের নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করতে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে কোনো পর্যবেক্ষক আসছেন না। বরং এই দুই বিশেষজ্ঞই ব্রাসেলসে ইইউর সদর দপ্তরে তাদের রিপোর্ট জমা দেবেন। এ বিষয়ে সরকারের একজন কর্মকর্তা বলেন, তাদের এই সফরটি গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তাদের দেওয়া রিপোর্ট বাংলাদেশের সঙ্গে ইইউর ভবিষ্যৎ সম্পর্কের ওপরে কিছুটা হলেও প্রভাব রাখবে। সরকারের এই কর্মকর্তা আরো জানান, এই বিশেষজ্ঞরা জাতীয় নির্বাচনে নাক গলাবেন না এবং তারা জনসমক্ষে কোনো মন্তব্য করা থেকেও বিরত থাকবেন বলে আমাদের জানানো হয়েছে। ইইউ দলটি আগামী জানুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশে থাকবে। এদিকে, নির্বাচন উপলক্ষে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা তাদের পর্যবেক্ষক পাঠানোর বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এ ছাড়া কয়েকটি দেশের দূতাবাস পর্যবেক্ষক হিসেবে তাদেরকে নিবন্ধনের জন্য নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এ পর্যন্ত কমনওয়েলথ, সার্ক এবং পশ্চিমা কয়েকটি দেশ নির্বাচন পর্যবেক্ষণের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী ঢাকার কূটনীতিকদের পর্যবেক্ষক নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবহিত করেন। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষক নীতিমালায় বলা হয়েছে, তারা কমিশনে ই-মেইল বা ফ্যাক্সের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবে। এ ছাড়া ঢাকার দূতাবাসগুলো ইমেইল, ফ্যাক্স বা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবে। পর্যবেক্ষকদেরকে তিন সপ্তাহ থেকে দুই মাসের জন্য টুরিস্ট ভিসা প্রদান করা হবে।

জাতীয় পাতার আরো খবর