বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ
অনলাইন ডেস্ক: উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপ অবস্থান করছে। এর বর্ধিতাংশ উত্তরপূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। সোমবার আবহাওয়া অধিদপ্তরের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, লঘুচাপটি আরও ঘনীভূত হতে পারে। উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। লঘুচাপের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের পূর্বাঞ্চল ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। আজ সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯১ শতাংশ। আজ ঢাকায় সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৫টা ২৭ মিনিটে এবং আগামীকাল সূর্যোদয় ভোর ৫টা ৫৯ মিনিটে।
ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট ফোরামে যোগ দিতে আজ জেনেভা যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি
অনলাইন ডেস্ক: ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট ফোরামে যোগ দিতে আজ রবিবার জেনেভা যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। পাঁচ দিনব্যাপী এ সম্মেলনে যোগ দিতে রাতে রওনা দেবেন তিনি। রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিনিয়োগ বিষয়ে বিশ্ব নেতাদের এবং হোমল্যান্ড অ্যান্ড গ্লোবাল সিকিউরিটি বিষয়ক ২০তম বার্ষিক অধিবেশন আগামী ২২ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর জেনেভায় জাতিসংঘ দফতরে অনুষ্ঠিত হবে। প্রেস সচিব বলেন, সম্মেলনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরাসহ মন্ত্রী এবং বিশ্বের বড় বড় কোম্পানিগুলোর সিইওরা যোগ দেবেন। তারা তাদের ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে মতবিনিময় করবেন। ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট ফোরামের দ্বিবার্ষিক এই সম্মেলনে বিশ্বের ১৬০টি দেশের ৪ হাজারের বেশি বিনিয়োগ স্টেকহোল্ডার অংশ নেবেন। সম্মেলনে বিশ্বায়ন ও শিল্পায়নের নতুন যুগে আন্তর্জাতিক বিনিয়োগের জন্য বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার ব্যাপারে গুরুত্ব দেওয়া হবে। এই সম্মেলনে প্রতিপাদ্য হচ্ছে টেকসই উন্নয়নের জন্য বিনিয়োগ। ফোরামের ২০১৮ সম্মেলনের মূল অধিবেশনের উদ্বোধনসহ ৫০টির বেশি ইভেন্ট থাকবে। রাষ্ট্রপতি জেনেভায় তাঁর ৫ দিনের সফর সমাপ্ত করে ২৬ অক্টোবর দেশে ফিরবেন। -বাসস।
দশম জাতীয় সংসদের শেষ অধিবেশন বসছে আজ
অনলাইন ডেস্ক: দশম জাতীয় সংসদের শেষ অধিবেশন বসছে আজ । আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৪টায় অধিবেশন শুরু হবে। এর আগে কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের সময়সূচি নির্ধারণ করা হবে। তবে এ অধিবেশন সর্বোচ্চ পাঁচ দিনের হতে পারে বলে জানায় সংসদ সচিবালয় সূত্র। আজ শুরু হতে যাওয়া অধিবেশনে ১৩টি বিল কার্যতালিকায় রয়েছে। এর মধ্যে পাঁচটি নতুন বিল উত্থাপিত হবে এবং আটটি বিল পাসের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর ২২তম অধিবেশন শেষ হয়। সংবিধান অনুযায়ী এক অধিবেশন শেষ হওয়ার পর পরবর্তী ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে পরবর্তী অধিবেশন বসার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ক্ষণগণনা শুরু হতে যাচ্ছে। ২৮ জানুয়ারির মধ্যে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে আর সংসদ অধিবেশন বসবে না। তবে বিশেষ প্রয়োজনে রাষ্ট্রপতি যে কোনো সময় অধিবেশন আহ্বান করতে পারেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। দশম সংসদের প্রথম অধিবেশন শুরু হয়েছিল একই বছরের ২৮ জানুয়ারি। দশম সংসদের মেয়াদকালে ২৩টি অধিবেশন বসে। এর আগে নবম সংসদে ১৯টি অধিবেশন বসেছিল। আগামী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে একাদশ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করতে যাচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ভোটগ্রহণ হতে পারে ডিসেম্বরের শেষভাগে অথবা জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে।
মাহবুব তালুকদারের অনুপস্থিতিতেই ৩৭তম ইসির কমিশন সভা আজ
অনলাইন ডেস্ক: নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ৩৭তম কমিশন সভা ডাকা হয়েছে আজ রবিবার। কিন্তু ব্যক্তিগত সফরে যুক্তরাষ্ট্রে থাকা নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদারের অনুপস্থিতিতেই সভাটি অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে অন্য তিন নির্বাচন কমিশনার উপস্থিত থাকবেন। বিকাল ৩টায় রাজধানীর আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত হবে ইসির ৩৭তম কমিশন সভা। এই সভায় সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা-২০১৮ সংশোধন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে সমর্থন যাচাই বিধিমালা ২০১১ সংশোধন, বিদেশি পর্যবেক্ষকদের জন্য নীতিমালাসহ বিভিন্ন বিষয় আলোচনা হবে বলে ইসি সূত্র জানিয়েছে। এ ছাড়াও এ সভায় আগামী নির্বাচনের তফসিলের তারিখ চূড়ান্ত হতে পারে। সভায় না থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে মাহবুব তালুকদার বলেন, সে সময়তো আমি দেশের বাইরে থাকব। এটা কোনো বিষয় নয়। নোট অব ডিসেন্ট দিয়ে ৩৫ ও ৩৬তম কমিশন সভা বর্জন করেছিলেন মাহবুব তালুকদার। বাকস্বাধীনতা কেড়ে নেয়ার অভিযোগ তুলে ৩৬তম কমিশন সভা বর্জন করেছিলেন মাহবুব তালুকদার। এর আগে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের বিপক্ষে মত দিয়ে গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ (আরপিও) সংশোধন নিয়ে ৩৫তম কমিশন সভা চলাকালে বৈঠক বর্জন করেছিলেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেছিলেন, &আমি মনে করি, একাদশ সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা ঠিক হবে না। কারণ, অধিকাংশ রাজনৈতিক দল ইভিএম চায় না। গত মঙ্গলবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধিতে কিছু কিছু পরিবর্তনের উদ্যোগ নেব। সামনের কমিশন সভায় এটি দেখা হবে। আচরণবিধিতে কী পরিবর্তন আসতে পারে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম বলেন, বিদ্যমান আচরণবিধি খুব বেশি পরিবর্তন করার প্রয়োজন নেই। তবে জীবন্ত প্রাণী নিয়ে যেন কেউ প্রচারণা চালাতে না পারে, সে বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে। একইসঙ্গে অনলাইনে মনোনয়নপত্র দাখিল করার বিধানটি অন্তর্ভুক্ত করার সম্ভাবনা রয়েছে। কমিশন সভায় জাতীয় নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি, তফসিল ঘোষণার সম্ভাব্য তারিখ এবং আগামী সপ্তাহে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সাক্ষাতের বিষয়গুলো আলোচিত হবে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে। সূত্র আরও জানায়, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদে থাকলে কেউ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে পারবেন না এমন- ধারা যুক্ত হচ্ছে সংশোধনী আচরণবিধিতে। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার ক্ষেত্রে ১ শতাংশ ভোটারের সইয়ের বাধ্যবাধকতা শিথিল করা, ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস ব্যবহার করে প্রচারণায় অংশ নেয়ার ক্ষেত্রেও কিছু ধারা সংযোজন হচ্ছে আচরণবিধিতে। এদিকে নির্বাচন কমিশন সূত্র জানা গেছে, ৩৭ কমিশন সভার পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদার নেতৃত্বে সব কমিশনাররা রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এ লক্ষ্যে আগামী ২৮, ২৯ কিংবা ৩০ অক্টোবর, তিন দিনের যেকোনো একদিন সাক্ষাতের সময় চেয়ে রাষ্ট্রপতি বরাবর চিঠি পাঠানো হয়েছে। ব্যক্তিগত সফরে গতকাল আমেরিকায় রওনা দেয়ায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতেও যেতে পারবেন না মাহবুব তালুকদার। তিনি আমেরিকায় ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত থাকতে পারেন বলে নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়েছে। রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে সাংবাদিকদের মাহবুব তালুকদার বলেন, আমি রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎটা মিস করব। তবে দেশে এসে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আবার দেখা করার চেষ্টা করব। নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সম্প্রতি সাংবাদিকদের জানান, আগামী নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা করে ডিসেম্বরে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।
চার দিনের সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক: সৌদি আরবে চার দিনের সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার দিবাগত রাত ১টা ২০ মিনিটে তিনি বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান। এর আগে শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকার উদ্দেশে জেদ্দার কিং আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী। সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ, জেদ্দায় বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল এফএম বোরহানউদ্দিন এবং সৌদি সরকারের প্রতিনিধিরা প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে বিদায় জানান। সৌদি আরব সফরকালে প্রধানমন্ত্রী রাজপ্রাসাদে সৌদি বাদশাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন এবং তার সম্মানে বাদশাহর দেয়া মধ্যাহ্ন ভোজে যোগ দেন। তিনি সৌদি আরবের যুবরাজ, উপ-প্রধানমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান বিন আবদুল আজিজের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বার এবং রিয়াদ চেম্বার অব কমার্স নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকের পর ঢাকা ও রিয়াদের মধ্যে প্রতিরক্ষা এবং শিল্প ও বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত পাঁচটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়। শেখ হাসিনা সৌদি রাজধানী রিয়াদের কূটনৈতিক এলাকায় বাংলাদেশ চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন এবং জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মদিনায় মসজিদে নববীতে মহানবী হজরত মোহাম্মদ (সা.)-এর রওজা জিয়ারত করেন এবং মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন করেন।
মুহাম্মদ (সা.) এর রওজা জিয়ারত করলেন প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক: সৌদি আরব সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মদিনা নগরীর পবিত্র মসজিদে নববীতে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর রওজা মুবারক জিয়ারত করেছেন। বুধবার (১৭ অক্টোবর) রাতে তিনি মহানবীর (সা.) রওজা জিয়ারতের পাশাপাশি মসজিদে নববীতে পবিত্র এশার নামাজ আদায় করেন। এরপর বাংলাদেশের অব্যাহত শান্তি এবং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর উন্নতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে মোনাজাত করেন। সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে চার দিনের সফরে গত মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) রিয়াদে গেছেন প্রধানমন্ত্রী। বুধবার তার সঙ্গে বাদশাহ সালমানের বৈঠক হয়। সেখানে দু-দেশের পারস্পরিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন দুই নেতা। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রী রিয়াদ থেকে সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইটে মদিনার যুবরাজ মোহাম্মদ বিন আব্দুল আজিজ বিমাবন্দরে পৌঁছান। এরপর মসজিদে নববীতে যান তিনি। মদিনা থেকে প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) সকালে জেদ্দা যাবেন। সেখানে তিনি দুপুরে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের চ্যান্সেরি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এরপর শেখ হাসিনা মক্কায় গিয়ে পবিত্র ক্বাবা শরিফে এশার নামাজ আদায়ের পর ওমরাহ পালন করবেন। আগামীকাল শুক্রবারই (১৯ অক্টোবর) জেদ্দা থেকে দেশের উদ্দেশে রওয়ানা হবেন প্রধানমন্ত্রী।
বাংলাদেশে আরও সৌদি বিনিয়োগ চান প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগ করতে সৌদি আরবের ব্যবসায়ীদের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন,কৌশলগত অবস্থান আঞ্চলিক সংযোগ, বিদেশি বিনিয়োগ ও গ্লোবাল আউটসোর্সিংয়ের জন্য বাংলাদেশকে একটি উদীয়মান কেন্দ্রে পরিণত করছে। বাংলাদেশে পূর্ণাঙ্গভাবে চলমান আটটি শতভাগ রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ কেন্দ্র রয়েছে। সৌদি আরব সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার সকালে রিয়াদে কিং সৌদ প্যালেসে সেদেশের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক বৈঠকে এ আহ্বান জানান। এসময় কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বারের (সিএসসি) নেতৃবৃন্দ, রিয়াদ চেম্বার অব কমার্সের নেতৃবৃন্দ ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলের সদস্যরা ছিলেন। তার বক্তব্যের শুরুতেই বাংলাদেশে ব্যবসার সুযোগ সম্পর্কে বিশদভাবে তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। দুই দেশের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ককে অসাধারণ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা সাধারণ বিশ্বাস, সংস্কৃতি, মান এবং আকাঙ্ক্ষার উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য এক বিলিয়ন ডলার অতিক্রম করেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন,আমরা বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সুযোগগুলিকে পুরোপুরি কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে অনেক পিছিয়ে আছি। বাংলাদেশে ২৫টি প্রকল্পে পাঁচ বিলিয়ন ডলার সৌদি বিনিয়োগের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মূলত কৃষিভিত্তিক শিল্প, খাদ্যও প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, বস্ত্র ও পোশাক, চামড়া, পেট্রো-রাসায়নিক, প্রকৌশল ও সেবা খাতে সৌদি বিনিয়োগ আসছে। ২০১৮ সালের মার্চে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পদার্পন করার কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা ২০২১ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশ হব এবং ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশ হব। তথ্য-প্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, প্রযুক্তি ও উদ্ভাবন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক রূপান্তরকে দ্রুততর করছে। বর্তমানে বাংলাদেশ বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তর তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক দেশ। গত অর্থবছরে ৩০ দশমিক ৬৫১ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছে। বাংলাদেশ এখন সবজি উৎপাদনে তৃতীয় বৃহত্তম এবং ধান উত্পাদনে চতুর্থ বৃহত্তম এবং মৎস্য উৎপাদনকারী বিশ্বে তৃতীয় উৎপাদনকারী দেশ। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন বাস্তবতা। ইন্টারনেটভিত্তিক পাবলিক সার্ভিস ডেলিভারি ব্যাপক অবদানের জন্য তৃণমূল পর্যায়ে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় দ্রুত ও সহজে সেবা দেওয়ার জন্য আমরা তথ্য-প্রযুক্তি অবকাঠামো তৈরি করেছি। দেশে ১৫ কোটিরও বেশি সিম ব্যবহার এবং ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সংখ্যা নয় কোটি ছাড়িয়ে গেছে বলেও প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন। বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কথাও বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে সিএসসির চেয়ারম্যান সামি এ আলাবাদি, সিএসসির মহাসচিব সৌদ এ আলমাসারি এবং বাংলাদেশে সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ এইচ এম আল-মুতাইরি উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী, শেখ হাসিনার বেসরকারি খাতবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক এবং সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহও উপস্থিত ছিলেন।
রিয়াদে ব্যস্ত দিন কাটবে প্রধানমন্ত্রীর আজ
অনলাইন ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সউদের আমন্ত্রণে দ্বিপক্ষীয় সফরের অংশ হিসেবে চার দিনের সফরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজধানী রিয়াদে পৌঁছেছেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৫০ মিনিটে বাদশাহ খালেদ আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে অবতরণ করে। সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মশি, রিয়াদের গভর্নর ফয়সাল বিন বন্দর আল সউদ এবং দূতাবাস কর্মকর্তারা বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রী আজ বুধভার তার স্যুটে কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বার (সিএসসি) এবং রিয়াদ চেম্বার অব কমার্সের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। দুপুরে শেখ হাসিনা সৌদি রাজ প্রাসাদে বাদশাহ সালমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন এবং পরে মধ্যাহ্ন ভোজে যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রী সৌদি যুবরাজ ও উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান বিন আবদুল আজিজের সঙ্গে বৈঠক করবেন। পরে তিনি সৌদি রাজধানী রিয়াদের কূটনৈতিক এলাকায় বাংলাদেশ চ্যান্সেরি ভবনের উদ্বোধন করবেন। সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী বিমানযোগে পবিত্র নগরী মদিনার উদ্দেশে রিয়াদ ত্যাগ করবেন এবং মসজিদে নববীতে মহানবী হজরত মোহম্মদ (সা.) এর রওজা জিয়ারত করবেন। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী জেদ্দা পৌঁছাবেন এবং সেখানে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের চ্যান্সেরি ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন। শেখ হাসিনা এশার নামাজের পর মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন করবেন। প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার সকালে দেশের উদ্দেশে রওয়ানা হবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী সোমবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, প্রধানমন্ত্রীর সৌদি আরব সফরকালে দুটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে। এগুলো হলো- প্রতিরক্ষা সহযোগিতা সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) এবং আইসিটি খাতে সহযোগিতা সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক (এমওইউ)। -বাসস
চার দিনের সফরে সৌদি রিয়াদে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক: চার দিনের সফরে রিয়াদে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সৌদি বাদশাহ এবং দুটি পবিত্র মসজিদের খাদেম সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সউদের আমন্ত্রণে দ্বিপক্ষীয় সফরের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রী সৌদি গেলেন। প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট মঙ্গলবার স্থানীয় সময় ৬টা ৫১ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় রাত ৯টা ৫১ মিনিটে) রিয়াদের বাদশাহ খালেদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়। এর আগে মঙ্গলবার বিকাল পৌনে ৪টায় প্রধানমন্ত্রী সৌদি রাজধানী রিয়াদের উদ্দেশে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। সে সময় বিমানবন্দরে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এস এম শাহজাহান কামাল, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী এবং পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান। মন্ত্রীপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধানরা, কূটনৈতিক কোরের ডিন এবং পদস্থ বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। আগামীকাল (বুধবার) সকালে প্রধানমন্ত্রী তার স্যুটে কাউন্সিল অব সৌদি চেম্বার (সিএসসি) এবং রিয়াদ চেম্বার অব কমার্সের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন। একইদিন বিকেলে প্রধানমন্ত্রী সৌদি রাজপ্রাসাদে সেদেশের বাদশাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ও তার সম্মানে দেওয়া মধ্যাহ্নভোজে অংশ নেবেন। প্রধানমন্ত্রী সৌদি যুবরাজ ও উপপ্রধানমন্ত্রী এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান বিন আবদুল আজিজের সঙ্গে বৈঠক করবেন। পরে তিনি সৌদি রাজধানী রিয়াদের কূটনৈতিক এলাকায় বাংলাদেশ চ্যান্সেরি ভবনের উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রী বুধবার সন্ধ্যায় বিমানযোগে পবিত্র নগরী মদিনার উদ্দেশে রিয়াদ ত্যাগ করবেন এবং মসজিদে নববীতে মহানবী হজরত মোহাম্মদ (স.) এর রওজা জিয়ারত করবেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর