রবিবার, জানুয়ারী ১৭, ২০২১
কৃষি জমি ফেলে রাখলে সরকার নিয়ে নেবে, গণবিজ্ঞপ্তি
৪জুন,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কোন জমি পতিত রাখা যাবেনা। কৃষি জমি পতিত রাখা আইনের চোখেও একটি অপরাধ। এরপরেও যদি কোনো ব্যক্তি তার জমি কৃষিকাজে ব্যবহার না করে পতিত রাখেন, তাহলে উক্ত জমি রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ত আইন ১৯৫০ এর ৯২(১) ধারা মোতাবেক খাসকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। জানা গেছে, সম্প্রতি করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলায় মাঠ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিত কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ধরনের অনুষ্ঠানে তিনি কৃষি জমির সর্বোচ্চ ব্যবহারের নির্দেশনাও দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে আমলে নিয়ে কয়েকটি জেলা প্রশাসন নিজ এলাকায় গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে বলেছে, আবাদী জমি ফেলে রাখলে তা খাসজমি হিসেবে খতিয়ানভুক্ত করার পদক্ষেপ নেয়া হবে। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় জেলা কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক জেলার সব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি)সহ বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের একটি চিঠি পাঠিয়েছেন গত মাসের শুরুতে। ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, ...যে সমস্ত ভূমি মালিকগণ তাদের জমি অনাবাদী/পতিত ফেলে রাখছেন বা রেখেছেন তাদের জমি ১৯৫০ সালের রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ত আইনের ৯২ ধারা মোতাবেক ১নং খাস খতিয়ানভুক্ত করার আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। একই ধরনের একটি 'গণবিজ্ঞপ্তি' প্রকাশ করেছেন পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকও। এতে বলা হয়েছে, ...কোন জমি পতিত রাখা যাবেনা। কৃষি জমি পতিত রাখা আইনের চোখেও একটি অপরাধ। এরপরেও যদি কোনো ব্যক্তি তার জমি কৃষিকাজে ব্যবহার না করে পতিত রাখেন, তাহলে উক্ত জমি রাষ্ট্রীয় অধিগ্রহণ ও প্রজাস্বত্ত আইন ১৯৫০ এর ৯২(১) ধারা মোতাবেক খাসকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। এ সম্পর্কে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মো: আসলাম হোসেন বলছেন, তাদের মূল বিষয় হলো প্রত্যেকটি জায়গা যেন আবাদের আওতায় চলে আসে। মানুষের জমি কেড়ে নেয়া সরকারের উদ্দেশ্য না, উদ্দেশ্য হলো প্রত্যেকটি জমি যেন ফসলের আওতায় চলে আসে। কারণ এ মূহুর্তে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কি প্রক্রিয়ায় জমি সরকার নেবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগে তার বক্তব্য শোনা হবে যে, কেন তিনি জমি ফেলে রেখেছেন। তার বক্তব্য শুনে বিবেচনায় নেয়ার মতো হলে সেটি গ্রহণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, সরকার জমি এভাবে নিলেও পরে তা ভূমিহীনদের মধ্যেই বিতরণ করে থাকে। পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, কৃষি জমি দীর্ঘদিন ফেলে রাখার অধিকার জমির মালিকের থাকে না। কেউ যদি কৃষিজমি অনাবাদী রাখে একটি নির্দিষ্ট সময়ের পর তা খাস খতিয়ানভুক্ত হবার আইন আছে। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা নানাভাবে সহায়তা করছি। এরপরেও মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে আইনের কথা উল্লেখ করে সচেতন করছি। এটা চলমান প্রক্রিয়া, কৃষিজমি অনাবাদী রাখা বা ওয়ারিশবিহীন অবস্থায় মৃত্যু হলে জমি খাস করা হয়। এরপর তা ভূমিহীনদের মাঝে বিতরণ করা হয়। এদিকে কৃষি মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং সেলের গত ২০শে মে দেয়া এক অফিস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সারা দেশে ১৪ জন পদস্থ সরকারি কর্মকর্তা ১৪টি অঞ্চলে এ কার্যক্রম মনিটর করবেন। এদের প্রধান কাজ হবে অধিক ফসল উৎপাদন ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কোনো জমি যেনো পতিত না থাকে, সে বিষয়ে কি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে তা দেখভাল করা। আর ভূমি মন্ত্রণালয় বলছে, এমন কোনো নির্দেশনা তারাও দেননি। যদিও উচ্চপর্যায়ের এক সভায় বিষয়টি আলোচনায় এসেছিলো। অর্থাৎ কৃষি জমি ফেলে রাখলে সরকার নিয়ে নেবে, এমন সিদ্ধান্তটি কেন্দ্রীয়ভাবে কোথা থেকে এসেছে সেটি কেউ নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি। সূত্র: বিবিসি বাংলা
বসুন্ধরার ২০০০ শয্যার করোনা হাসপাতালে সেবা প্রদান শুরু
৪জুন,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরাকে ২০০০ শয্যার করোনা হাসপাতালে রূপান্তর করা হয়েছে। এ হাসপাতালে সেবা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বুধবার (৩ জুন) দুপুরে করোনা ভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি বলেন, বসুন্ধরা কনভেনশন সিটিকে হাসপাতালে রূপান্তর করা হয়েছে। এ হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এখানে দুই হাজার শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে। এ সময় গত ২৪ ঘণ্টার করোনার চিত্র তুলে ধরেন নাসিমা সুলতানা।
ইউনাইটেডে আগুনে রোগী মৃত্যুর ঘটনায় স্বজনের মামলা
৪জুন,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় অবহেলার অভিযোগে ইউনাইটেডের চেয়ারম্যান, এমডি এবং সিইও’সহ পুরো হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে নিহত ভেরন অ্যান্থনি পলের মেয়ের জামাই রোনাল্ড রিকি গোমেজ মোটট বাদী হয়ে বুধবার (৩ জুন) রাতে গুলশান থানায় মামলাটি দায়ের করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে গুলশান থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান জানান, তারা শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নামবেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, দুইবার করোনা টেস্ট নেগেটিভ আসার পরও তার স্বজনকে ইচ্ছাকৃতভাবে রাখা হয় আইসোলেশন ইউনিটে। চিকিৎসক ও প্রশাসকদের স্বেচ্ছাচারিতায় আরও কয়েকজন নন-কোভিড রোগীকে সেখানে রাখা হয়েছিল। অথচ তারা করোনা নেগেটিভ ছিলেন। তাই এই ঘটনায় পাঁচজন নিহতের পেছনে পুরো দায় ইউনাইটেড হাসপাতালের। এ বিষয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালের কমিউনিকেশন অ্যান্ড বিজনেস ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান ডা. সাগুফা আনোয়ার জানিয়েছেন, আইনিভাবেই বিষয়টি মোকাবিলা করা হবে। প্রসঙ্গত, গত ২৭ মে ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটের অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ রোগী প্রাণ হারান। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করে ইউনাইটেড হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অগ্নিকাণ্ডের পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ফায়ার সার্ভিস হাসপাতালের ত্রুটিপূর্ণ ও দুর্বল অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থার কথা গণমাধ্যমে জানায়।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের মায়ের ইন্তেকাল
৪জুন,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিনের রত্নগর্ভা মা ও বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের সিইও নঈম নিজামের শাশুড়ি জাহানারা হোসেন (৭৬) আর নেই (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)। বুধবার (৩ জুন) রাত ১২টা ৩০ মিনিটে রাজধানীর পপুলার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি ৫ মেয়ে, ৪ ছেলে, নাতি-নাতনি ও অসংখ্য আত্মীয়-স্বজনদের রেখে গেছেন। তিনি তার নয় ছেলেমেয়েকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করেছেন। তারা সবাই স্ব-স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত। গত বছর রত্নগর্ভা মা হিসেবে সম্মাননা পেয়েছেন। রত্নগর্ভা এই মায়ের মৃত্যুতে নিউজ একাত্তর পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন সম্পাদক মো.নাছির উদ্দিন চৌধুরী। তিনি মরহুমার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।
বিজিবিতে অত্যাধুনিক দ্রুত গতিসম্পন ইন্টারস্পেটোর জলযান সংযোজিত
৩জুন,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)কে আধুনিকায়নের লক্ষ্যে এ বাহিনীতে ৪টি অত্যাধুনিক দ্রুত গতিসম্পন্ন ইন্টারস্পেটোর জলযান সংযোজন করা হয়েছে। এই জলযান সমূহ নিজস্ব অবস্থান হতে ৫০ কিলোমিটার দূরত্বে শত্রুর অবস্থান নিশ্চিত করতে পারে। এতে দুজন মুমূর্ষু রোগী পরিবহনেরও ব্যবস্থা রয়েছে। বিজিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক ইচ্ছা ও প্রত্যক্ষ নির্দেশনায় বিজিবিতে এসব জলযান সংযোজিত হয়েছে। দেশের জলসীমান্তে অপরাধ দমন, অবৈধ অনুপ্রবেশ, মানবপাচার, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক পাচার রোধ ও চোরাচালান বন্ধে এবং প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর সাথে শক্তির ভারসাম্য বজায় রাখতে আগ্নেয়াস্ত্রে সজ্জিত, অধিক সৈন্য বহনে সক্ষম এসব জলযান বিজিবির সক্ষমতা বহুলাংশে বৃদ্ধি করবে। দেশের নৌ সীমান্তে বিশেষ করে মায়ানমার সীমান্তের সেন্টমার্টিন দ্বীপ, নাফ নদী এবং ভারত সীমান্তের নীলডুমুরে ও সুন্দরবনের গহীন অরণ্যের জলসীমান্তে আন্তরাষ্ট্রীয় অপরাধ দমন, অবৈধ অনুপ্রবেশ, মানবপাচার, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদক পাচার রোধ ও চোরাচালান বন্ধে এসব জলযান কার্যকর ভূমিকা রাখবে। সিলভারক্রাফট ৪০ মডেলের রিইনফোর্সড পলিমারের তৈরি ৪০ ফুট দীর্ঘ ৭৫০ হর্সপাওয়ারের তিন ইঞ্জিনের প্রতিটি জলযান ৩৩ জন সৈন্য ধারণে সক্ষম এবং এর গতিবেগ ঘণ্টায় ৫৫ নটিকাল মাইল বা ১০১ কিলোমিটার। এই জলযান সমূহ যেকোন দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় চলাচলে সক্ষম এবং এতে সংযোজিত আছে স্বয়ংক্রিয় মেশিনগান সংযুক্তির সুবিধাসহ উন্নত প্রযুক্তির স্যাটেলাইট ন্যাভিগেশন সিস্টেম, চতুর্থ প্রজম্মের জিপিএস, আধুনিক সোনার সিস্টেম এবং আরও অনেক অত্যাধুনিক সরঞ্জাম। বাংলাদেশের ৪ হাজার ১৮৪ কিলোমিটার স্থল সীমান্তের পাশাপাশি ভারতের সাথে ১৮০ কিলোমিটার নৌ সীমান্ত এবং মায়ানমারের সাথে ৬৩ কিলোমিটার নৌ সীমান্তে এই জলযানের মাধ্যমে টহল জোরদার করা হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।
উপজেলা পর্যায়ে টিসিবি পণ্য বিক্রির ব্যবস্থা গ্রহণে হাইকোর্টের নির্দেশ
৩জুন,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) পণ্য উপজেলা পর্যায়ে সাতদিনের মধ্যে বিক্রির ব্যবস্থা করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এ বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, তা ১১ জুনের মধ্যে আদালতকে জানাতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ সংক্রান্ত এক রিটের ওপর শুনানি নিয়ে বিচারপতি জে বি এম হাসানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেন। আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মো. হুমায়ুন কবির পল্লব । রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস। আইনজীবী হুমায়ুন কবির পল্লব বলেন, আদালত আজ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও টিসিবির চেয়ারম্যানকে সাতদিনের মধ্যে টিসিবির পণ্য সামগ্রী, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী সাশ্রয়ী মূল্যে বাংলাদেশের সব উপজেলায় বিক্রির জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে নির্দেশ দিয়েছেন। এ বিষয়ে কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে, তা আগামী ১১ জুন আদালতকে জানাতে বলা হয়েছে। ডেপুটি এটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্র নাথ বিশ্বাস বলেন, উপজেলা পর্যায়ে টিসিবি পণ্য বিক্রিতে পদক্ষেপ নিতে বলেছেন আদালত। টিসিবির পণ্য বিক্রির ক্ষেত্র শুধু সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে বাংলাদেশের প্রত্যেক উপজেলা পর্যায়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্রির ব্যবস্থা করার নির্দেশনা চেয়ে গত ১৬ মে ল অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশনের পক্ষে রিট দায়ের করেন এ আইনজীবী। আইনজীবী পল্লব বলেন, টিসিবি পণ্য বিক্রি শুধুমাত্র সিটি কর্পোরেশন এবং কিছু কিছু পৌরসভা এলাকায় সীমাবদ্ধ। যে কারণে এর সুফল সারাদেশের নিম্নবিত্ত এবং নিম্ন মধ্যবিত্ত সাধারণ মানুষ ভোগ করতে পারছেন না। প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। কিন্তু কম দামে খাদ্যদ্রব্য কেনার অধিকার বাংলাদেশের শুধুমাত্র সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভা এলাকার মানুষের নয় বরং বাংলাদেশের যে কোনো প্রান্তে বসবাসকারী একজন সাধারণ মানুষের অধিকার রয়েছে। এ কারণে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে রিটটি করা হয়েছে। এর আগে গত ৩০ এপ্রিল এ বিষয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। নোটিশের জবাব না পাওয়ায় হাইকোর্টে এ বিষয়ে রিটটি দায়ের করা হয়।
আরও ২৬৯৫ করোনা রোগী শনাক্ত, নতুন মৃত্যু ৩৭
৩জুন,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশে গত একদিনে অর্থাৎ শেষ ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৬৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে। একইসঙ্গে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৩৭ জন। বুধবার (০৩ জুন) দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে সবাইকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লকডাউন পরবর্তী সংশ্লিষ্ট দিকনির্দেশনা বিশেষ করে মাস্ক ব্যবহার এবং শারীরিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

জাতীয় পাতার আরো খবর