জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠিত আওয়ামী লীগের
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। সোমবার (১৬ এপ্রিল) আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা চেয়ারম্যান, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হোসেন তওফিক ইমাম (এইচটি ইমাম) কো-চেয়ারম্যান এবং সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সদস্য সচিব মনোনীত হয়েছেন। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- উপদেষ্টা পরিষদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ও আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকরা।
গাল্ফ শিল্ড-১,শীর্ষক কুচকাওয়াজে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
সৌদি বাদশা ও দুই পবিত্র মসজিদের হেফাজতকারী সালমান বিন আবদুল আজিজ আল-সৌদের আমন্ত্রণে সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন এক বিশাল যৌথ সামরিক মহড়ার সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নিতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ আল-জুবাইলে আজ সোমবার গাল্ফ শিল্ড-১ শীর্ষক এই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হবে। এই কুচকাওয়াজে বাংলাদেশসহ ২৪টি দেশের সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা অংশ নিচ্ছে। এই কুচকাওয়াজে অংশ নিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী দুই দিনের সরকারি সফরে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় দাম্মাম পৌঁছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা স্থানীয় সময় ৭টা ৩৫ মিনিটে দাম্মাম বাদশাহ ফাহাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। এ সময় সৌদি প্রতিমন্ত্রী ও মজলিশ আল শুরা বিষয়ক কেবিনেট সদস্য মোহাম্মদ বিন ফয়সাল আবু সাক এবং সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ও শান্তি রক্ষায় বন্ধু দেশগুলোর প্রতিরক্ষা সমন্বয় ও সহযোগিতায় সৌদি আরব মাসব্যাপী এ সামরিক মহড়ার আয়োজন করে। দেশটির সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, বাদশাহ সালমান বন্ধু দেশগুলোর বেশ কয়েকজন নেতাকে নিয়ে মাসব্যাপী অনুষ্ঠিত এই সামরিক মহড়ার সমাপনী অনুষ্ঠান প্রত্যক্ষ করবেন। শনিবার এই সামরিক মহড়ার মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল সুবাইয়ে বলেছেন, ২৪টি দেশের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর অংশগ্রহণে সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এই মহড়ার আয়োজন করেছে। গাল্ফ শিল্ড-১ শীর্ষক এই কুচকাওয়াজে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, বাংলাদেশ, বাহরাইন, কাতার, কুয়েত, মিশর, জর্ডান, সুদান, মৌরিতানিয়া, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, শাদ, জিবুতি, নাইজার, কমরোস, আফগানিস্তান, ওমান, গায়ানা, তুরস্ক ও বারকিনাফেশো যোগ দিয়েছে। গত ১৮ মার্চ এই মহড়া শুরু হয়। এতে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর ১৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল অংশ নিয়েছে। কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বিকেলে লন্ডনের উদ্দেশে দাম্মাম ত্যাগ করবেন।
বাংলাদেশের মানুষ এখন পুরোপুরি নির্বাচনের মুডে :ওবায়দুল কাদের
দেশের মানুষ আন্দোলনের মুডে নেই দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন,মানুষ এখন সিটি নির্বাচনের দিকে জড়িয়ে গেছেন। বাংলাদেশের মানুষ এখন পুরোপুরি নির্বাচনের মুডে। দুটি সিটি করপোরেশনে নির্বাচন হচ্ছে। মানে দুই বিভাগের ভোটাররা এর সঙ্গে জড়িয়ে গেছেন। এরপরে আরও পাঁচটি সিটি করপোরেশন নির্বাচন, সেমিফাইনাল চলছে এখন আর আন্দোলনে কাজ হবে না। সোমবার রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনে গিয়ে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের জোটসঙ্গী জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যন রোববার রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে জাতীয় নির্বাচনে দলের আসন বাড়ানোর বিষয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন তারও জবাব দেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন,কে কত আসন পাবে, সেটি বৈঠকে আলাপ-আলোচনা হবে। এসব বিষয় প্রকাশ্যে না বলাই ভালো। জোটের শরিক বলে ইচ্ছা মতো আসন চাইবে, এটা হতে পারে না। যেখানে যেখানে জাতীয় পার্টির প্রার্থীরা জয়ী হওয়ার মতো থাকবেন, সেখানে অবশ্যই মনোনয়ন পাবেন। এ ছাড়া আওয়ামী লীগসহ জোটের সবার ক্ষেত্রে জয়ী হওয়ার মতো প্রার্থী ছাড়া কাউকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। আগামী নির্বাচনে জাতীয় পার্টির সঙ্গে জোট থাকবে কিনা এই প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন,জোট হবে কিনা সেটি এই মুহূর্তে বলতে পারছি না। বসাবসি শুরু হয়ে যাবে। জেতার মতো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। আর সরকার গঠনের সময় মন্ত্রী দেওয়া না দেওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিদ্ধান্ত দেবেন। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিদর্শনের সময় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের রাস্তায় দাঁড়িয়ে বাস, সিএনজি চালিত অটোরিকশা এবং মোটরসাইকেল থামিয়ে চালক ও যাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় বিকাশ পরিবহন নামের একটি বাসের যাত্রীরা মন্ত্রীর কাছে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ করেন। এসময় যাত্রীরা ওবায়দুল কাদেরকে অভিযোগ করে বলেন, বাসটি সরকার নির্ধারিত ৩২ টাকার ভাড়া নিচ্ছে ৫০ টাকা। এ সময় মন্ত্রী বাসটি আটকের জন্য বিআরটিএর লোকজনকে নির্দেশ দেন। যদিও যাত্রী থাকার কারণে বাসটি ছেড়ে দেওয়া হয়। বাসের নম্বরের সাহায্যে বিআরটিএ পরবর্তীতে বাস মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করবে । সকাল সাড়ে সাতটা থেকে মানিক মিয়া অ্যাভিনিউয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিআরটিএর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট-২ মো. মাজহারুল ইসলাম জানান,সকাল থেকে বিভিন্ন ধরনের ৪০টি গাড়িকে জরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে সিএনজিচালিত অটোরিকশা, বাস এবং মোটরসাইকেল আছে। ৪০টি গাড়িকে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
পুলিশই সবার নিরাপত্তার জন্য জীবন দিয়েছে :স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
মন্ত্রী হবার পর তার কাছে সব ক্রিস্টাল ক্লিয়ার হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেছেন,মন্ত্রী হবার পর আমার কাছে সব ক্রিস্টাল ক্লিয়ার হয়ে গেছে। কিছু পুলিশ সদস্য যে চাঁদাবাজি করে এটি আমি অস্বীকার করব না। এর বিরুদ্ধে আপনাদেরকে বলতে হবে, তবেই অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রোববার (১৫ এপ্রিল) রাজধানীর মতিঝিলে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি মিলনায়তনে সংগঠনটির আয়োজনে আসন্ন পবিত্র রমজান মাসে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখার পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে এলাকাভিত্তিক ও বিশেষায়িত ব্যবসায়ী সমিতিগুলোর সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। পুলিশ চাঁদাবাজি করে আবার এই পুলিশই সবার নিরাপত্তার জন্য জীবনও দিয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,আমরা যারা গাড়ি চালাই, আমরাই পুলিশকে চাঁদাবাজির সুযোগ করে দিচ্ছি। দেখা যায় যিনি গাড়ি চালাচ্ছেন, তার গাড়ির ফিটনেস, লাইসেন্স বা গাড়ির অন্য কাগজপত্র নেই। অথবা ওভারলোড। সব ঠিক থাকলে চাঁদাবাজির প্রশ্নই আসে না। সভা শেষে কোটা সংস্কার আন্দোলন প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,ছাত্ররা কোনো কিছুর দাবি করতেই পারে। কিন্তু ঢাবির ভিসির বাসভবনে যে হামলা হয়েছে এটিসহ ফেসবুকে মিথ্যা, গুজব ও উস্কানিমূলক তথ্য প্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইসিটি আইনে একটি মামলাসহ ৫টি মামলা করা হয়েছে। মামলাগুলোর তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে বলা যাবে। মিয়ানমারের পক্ষ থেকে একটি রোহিঙ্গা পরিবার ফেরত নেওয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, যেখানে ১১ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে রয়ে গেছে, তাদের মধ্যে একটি পরিবার ফেরত নেওয়ার বিষয়টি হাস্যকর। মিয়ানমারের সীমানায় নো ম্যান্স ল্যান্ডে ৬ হাজার রোহিঙ্গা রয়েছে। তাদের ফেরত নেওয়ার জন্য আমরা বারবার বলার পরেও তারা নিচ্ছেন না। সভায় ডিসিসিআই সভাপতি বলেন,প্রতি বছর রমজান মাসের পূর্বে দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি জনসাধারণের নিরবিচ্ছিন্ন সিয়াম পালনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তথ্যানুযায়ী বলা যায়, গত বছর ২০১৭ এর এপ্রিল থেকে মে মাসের ব্যবধানে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম গড়ে ১৭ দশমিক ৫১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল। এই মূল্যবৃদ্ধির মূলে রয়েছে প্রথাগত বাজার সরবরাহ প্রক্রিয়া, অতিরিক্ত মজুদকরণের মাধ্যমে বাজারে পণ্যদ্রব্যের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি, অপর্যাপ্ত ও সমন্বয়হীন বাজার মনিটরিং, পরিবহন খাতে চাঁদাবাজি, দুর্বিষহ যানজট এবং অতিরিক্ত পরিবহন ব্যয়। তিনি বলেন, অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৭ এর তথ্য অনুযায়ী দেশে প্রায় ২৩ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্যসীমায় এবং ১২ শতাংশ মানুষ চরম দারিদ্র্যসীমার নিচে বাস করে। এ অবস্থায় রমজানে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি মানুষের ক্রয় ক্ষমতা হ্রাস করে এবং সামাজিকভাবে ধনী-গরীবের অর্থনৈতিক বৈষম্য বৃদ্ধি করবে। তাছাড়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে ২০১৮ সালে দেশে গড় মূদ্রাস্ফীতি ৫ দশমিক ৮২ শতাংশ এবং খাদ্যদ্রব্যের গড় মূদ্রাস্ফীতি ৭ দশমিক ১৩ শতাংশ। এ পরিস্থিতে আসন্ন রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্যের দাম আরো বাড়লে মধ্যবিত্ত আয়-ব্যয়ে সমন্বয় করতে হিমশিম খাবে। তাই আসন্ন রমজানে বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল ও জনগণের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার প্রথম থেকেই ডিসিসিআই ও অন্য ব্যবসায়ী সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে বাজার নিয়ন্ত্রণের বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিদের সম্পৃক্ত করে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারে বলেও মত প্রকাশ করেন তিনি। এছাড়া মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি বাজারে একটি করে বাজার তদারকি কমিটি এবং মূল্য নির্দেশক সাইনবোর্ড রাখা এবং উল্লিখিত মূল্যের চেয়ে বেশি দামে বিক্রি করলে বাজার কমিটির আওতায় ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে বলেও জানান ডিসিসিআই সভাপতি। আবুল কাসেম আরও বলেন,রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্যের চাহিদা বাড়ে। কিন্তু রমজানের পূর্বে বিগত বছরের চাহিদা অনুপাতে নিত্য প্রয়োজনীয় সম্ভাব্য পণ্য পর্যাপ্ত সরবরাহের ব্যবস্থা করলে মূল্যবৃদ্ধি রোধ করা যায়। অনেক ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাজারের দাম বৃদ্ধির অজুহাতে দ্রব্যের দাম বাড়ানো হয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমানে ডলারের বিপরীতে টাকার অবমূল্যায়ন পরিস্থিতি জটিল করে তুলতে পারে। অন্যদিকে বর্তমানে ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলো দুই অঙ্কের উচ্চ সুদের হার এবং কোনো কোনো ব্যাংকের ১৬ শতাংশ থেকে ১৭ শতাংশ সুদ হার উৎপাদন খরচ বাড়াতে পারে। পাশাপাশি রয়েছে ঋণ পাওয়ার জটিলতা ও অপ্রয়োজনীয় সময়ক্ষেপণ। এসব কিছুর চাপ শেষ পর্যন্ত গিয়ে উৎপাদন খরচের সাথে যোগ হয় এবং ভোক্তাকেই তা বহন করতে হয়। এদিকে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাজধানীসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসন, ব্যবসায়ী এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কমিটির প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে গঠিত বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা, সারা দেশে টিসিবির পণ্যসামগ্রী ভোক্তা পর্যায়ে ন্যায্য মূল্যে বিক্রির কার্যক্রম জোরদার করা খুবই জরুরি। রমজানের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য যেমন-ছোলা, চিনি, চাল, দুধ, ভোজ্য তেল, খেজুর, খেসারি প্রভৃতি বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এবং রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের মাধ্যমে রোজার মাসখানেক আগে এলসি খুলে বিভিন্ন শাখার মাধ্যমে বিতরণ করা যেতে পারে। এ সময় তিনি রমজান উপলক্ষে দ্রব্যমূল্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে করেকটি পদক্ষেপ গ্রহণেরও আহ্বান জানান। এগুলো হল-রমজানে আমদানি নির্ভর ভোগ্যপণ্য বন্দর থেকে কাস্টম হাউজ ও বন্দর কর্তৃপক্ষের সহায়তায় দ্রুত খালাসকরন, ঢাকায় পণ্যবাহী ট্রাক ও কার্ভাডভ্যান প্রবেশের ক্ষেত্রে সেতু অতিক্রম ও ফেরি পারাপারে টোল প্রদানে বিলম্ব হ্রাস করা, জাল টাকা সরবরাহকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও এটিএম বুথে ছেঁড়া বা জালটাকার নোট সরবরাহ বন্ধ করা, পরিবহন খাতে চাঁদাবাজি ও যানজট নিয়ন্ত্রণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ, পণ্যদ্রব্যের অনিয়ন্ত্রিত মজুদ চিহ্নিত ও বন্ধকরনে বাজার তদারককারী সংস্থাকে সহায়তা প্রদান, দেশের সব বাজারে নিয়মিত মূল্য তালিকা হালনাগাদ করা এবং মূল্য তালিকা কার্যকর করা এবং দক্ষ ও পর্যাপ্ত বাজার মনিটরিং এর ব্যবস্থা করা, বন্দর এলাকা, পাইকারি বাজার ও বাস্ততম পাইকারি বাণিজ্যিক এলাকায় সাপ্তাহিক ছুটির দিন ও সান্ধ্যকালীন ব্যাংকিক সেবা প্রদান করা। সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. জিয়া রহমান। ডিসিসিআইয়ের সভাপতি আবুল কাসেম খানের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন-কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর সভাপতি গোলাম রহমান ও ডিসিসিআই এর ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি কামরুল ইসলামসহ ব্যবসায়ী নেতারা।
প্রযুক্তিগত উন্নয়নে এখন আমরা গ্লোবাল লিডারে পরিণত হয়েছি :জয়
দেশের আইটি সেক্টর (তথ্য প্রযুক্তি খাত) যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে যুবসমাজ চাকরির জন্য সরকারের দিকে তাকিয়ে থাকবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য-যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ও ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, তথ্য প্রযুক্তির প্রথম দশকে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিযোগিতা করেছে। প্রযুক্তিগত উন্নয়নে এখন আমরা গ্লোবাল লিডারে পরিণত হয়েছি। বিশ্ব থেকে অর্জন করেছি পুরস্কারের পর পুরস্কার। রোববার (১৫ এপ্রিল) দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বিপিও সম্মেলন বাংলাদেশ-২০১৮ উদ্বোধন করতে এসে এসব কথা বলেন সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আইটি সেক্টরকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতেই এ বিপিও সামিট আয়োজন করা হয়েছে। আমি আশা করছি আইসিটি খাতের আয় গার্মেন্টস খাতকে ছাড়িয়ে যাবে। একটি চিত্র তুলে ধরে জয় বলেন, ২০০৯ সালে বাংলাদেশে এই খাতে মাত্র ৩০০ কর্মী ছিল, এখন তা ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে। আশা করছি আগামী ২০২১ সালের মধ্যে এ খাতে এক লাখ কর্মসংস্থান হবে। অনুষ্ঠানে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ, প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া দেশি-বিদেশি তথ্যপ্রযুক্তিবিদ, সরকারের নীতিনির্ধারক, গবেষক, শিক্ষার্থী এবং বিপিও খাতের সঙ্গে জড়িতরা এতে অংশ নিয়েছেন। সরকারের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি অধিদফতর এবং বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কলসেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিংয়ের (বাক্য) যৌথ উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে।
গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ফেসবুকের ৩০টি অ্যাকাউন্ট শনাক্ত
সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনের সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে অজ্ঞাত সংখ্যক লোকজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, মৃত্যু ও রগ কাটার মতো মিথ্যা তথ্য প্রচার করে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে যারা সহিংস করে তুলেছে তাদেরকে খুঁজে বের করার কাজ চলছে। পুলিশ বলছে, এজন্যে তারা প্রাথমিকভাবে ফেসবুকের দুশোটির মতো অ্যাকাউন্টকে সন্দেহ করেছিলেন। কিন্তু গত দু দিনের তদন্তের পর এখন এই সংখ্যা এখন প্রায় ৩০টিতে নেমে এসেছে। কর্মকর্তারা বলছেন, এই অ্যাকাউন্টগুলো পর্যালোচনা করে তারা এখন উসকানিমূলক তথ্য প্রচারকারী ও গুজব রটনাকারীদের খুঁজে বের করবেন। এসবের মধ্যে রয়েছে ফেসবুক পেইজ, ফেসবুকে ও টুইটারে ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট এবং কিছু অনলাইন পোর্টাল। গত বৃহস্পতিবার ঢাকার রমনা থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে এই মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের পক্ষ থেকে মামলাটি করা হয়েছে। মামলার এজাহারে কারও নাম ঠিকানা উল্লেখ করা হয়নি। এর সাথে বিভিন্ন ফেসবুক আইডির নাম এবং পোস্টও যুক্ত করা হয়েছে। সাইবার ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম বলেন,সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে আন্দোলনের ডাক দেওয়া একটি গণতান্ত্রিক বিষয়। কিন্তু কিছু লোক যখন মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে ফেসবুকের অপব্যবহার করে সহিংসতায় প্ররোচনা দেয় তখন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। সোশাল মিডিয়ায় যেসব কনটেন্ট শেয়ার হচ্ছে, আপলোড করা হচ্ছে কিম্বা সেখানে যেসব মন্তব্য করা হচ্ছে সেগুলোর উপর নজর রাখার জন্যে এই ইউনিটের রয়েছে বিশেষ একটি বিভাগ। এই বিভাগের কর্মকর্তারা এরকম দুটো ঘটনার কথা উল্লেখ করেছেন। তারা বলছেন, পুলিশের গুলিতে আবু বকর নামে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রের মৃত্যু এবং আন্দোলনের বিরোধিতা করায় এক ছাত্রীর পায়ের রগ কেটে ফেলা হয়েছে এরকম মিথ্যা খবর রটিয়ে উদ্দেশ্যমূলকভাবে কোটা সংস্কারের আন্দোলনকে সহিংস করে তোলা হয়েছিলো। আবু বকরের মৃত্যু হয়েছে বলে ফেসবুকে গুজব ছড়ানো হয়েছে কিন্তু এই খবরের কোন সত্যতা নেই। তিনি শুধু তার চোখের কোণে সামান্য আঘাত পেয়েছেন,বলেন নাজমুল ইসলাম। তিনি বলেন,এছাড়াও আন্দোলনের বিরুদ্ধে কথা বলায় একজন ছাত্রীর পায়ের রগ কেটে ফেলা হয়েছে বলে একটি ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। কিন্তু এই খবরেরও কোন ভিত্তি নেই। যার পায়ের রগ কেটে ফেলা হয়েছে বলে রটানো হয়েছে, সেই ছাত্রীই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বলেছেন, রাগ উঠে যাওয়ায় তিনি লাথি মেরেছিলেন এবং তখন তার পা কেটে যায়,বলেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। পুলিশ বলছে, আবু বকরের মৃত্যুর মিথ্যা সংবাদ ছড়ানোর পরেই আন্দোলনকারীরা সহিংস হয়ে উঠে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের ভেতরে ঢুকে সেখানে ভাঙচুর চালায়। নাজমুল ইসলাম বলেন,এসব মিথ্যা খবর রটিয়ে যারা হিংসাত্মক কার্যকলাপে প্ররোচনা যুগিয়েছে তাদেরকে খুঁজে বের করারই কাজ চলছে। তিনি জানান, গুজব রটানোর অভিযোগে প্রথমে তারা ফেসবুকের ২০০টির মতো অ্যাকাউন্টকে সন্দেহ করেছিলেন। সেসব প্রোফাইল তারা খতিয়ে দেখেছেন। দেখার চেষ্টা করেছেন, অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার লক্ষ্যে কারা কারা উদ্দেশ্যমূলকভাবে এসব মিথ্যা সংবাদ রটিয়েছে। এখন এই অ্যাকাউন্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ থেকে ৩০টির মতো। আমরা এখন এই আইডিগুলো নিয়ে কাজ করছি। এসবের পেছনে আসলেই যারা আছে তাদেরকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে, বলেছেন সাইবার ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নাজমুল ইসলাম। কিন্তু ফেসবুকে তো বহু মানুষ এসব ভিডিও ও খবর শেয়ার করেছে, যাদের অনেকেই না বুঝে সেটা করেছেন, তাদের মধ্য থেকে কিভাবে অভিযুক্তদের খুঁজে বের করা হবে এই প্রশ্নের জবাবে নাজমুল ইসলাম বলেন, অনেকেই শেয়ার করেছেন স্বাভাবিকভাবে যেরকমটা ফেসবুক ব্যবহারকারীরা করে থাকেন। কিন্তু যারা একটা উদ্দেশ্য নিয়ে এই কাজটা করেছে তাদেরকে আমরা খুঁজছি। এসব ভিডিও বা খবর যারা প্রথম দিয়েছে অর্থাৎ এসবের উৎস খুঁজে বের করে তাদেরকে চিহ্নিত করার কাজ চলছে। পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, এই কাজটি তাদেরকে অনেক সতর্কতার সাথে করতে হচ্ছে। কারণ ফেক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে একজন আরেকজনের নাম ব্যবহার করেও এটা করতে পারেন। সেকারণে এর পেছনের প্রকৃত লোকগুলোকেই তারা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন।
ঢাকার সঙ্গে সারা দেশের ট্রেন চলাচল শুরু ৫ ঘণ্টা পর
টঙ্গীর নতুনবাজার এলাকায় দুর্ঘটনার কারণে পাঁচ ঘণ্টা রেলপথ বন্ধ থাকার পর ঢাকা থেকে সারা দেশের ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, রবিবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে ঢাকাগামী জামালপুর কমিউটার ট্রেনটি টঙ্গীর নতুনবাজার এলাকায় পৌঁছলে ট্রেনের চারটি বগি লাইনচ্যুত হয়। এ দুর্ঘটনার পর থেকে রেললাইন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, ময়মনসিংহ এবং বঙ্গবন্ধু সেতু হয়ে উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের সঙ্গে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে রিলিফ ট্রেন এসে আপ লাইন(ঢাকা থেকে আসা রেললাইন) ক্লিয়ার করলে সেই পথে ফের ট্রেন চলাচল শুরু হয় বলে জানান টঙ্গীর স্টেশন মাস্টার হালিমুজ্জামান। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. মিয়া জাহান জানান, বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ঈশাখা এক্সপ্রেস ওই দুর্ঘটনার কারণে আটকে ছিল। লাইন ক্লিয়ার হওয়ার পর বিকেল সাড়ে ৫টায় ট্রেনটি টঙ্গী অতিক্রম করে।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম। রোববার জাতীয় সংসদ ভবনে স্পিকারের কার্যালয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন নির্বাচন কমিশনার। সাক্ষাৎকালে নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম আগামী ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর রেডিসন ব্লু হোটেলে অনুষ্ঠিতব্য ‘ফোরাম ফর ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট বডিস অব সাউথ এশিয়া (এফইএমবিওএসএ)’ এর সম্মেলন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার পাঠানো একটি আমন্ত্রণপত্র স্পিকারের কাছে হস্তান্তর করেন। স্পিকার নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানমকে আমন্ত্রণপত্রের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে সম্মতি জানান। ফোরাম ফর ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট বডিস অব সাউথ এশিয়া ২০১০ সালে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে সার্ক অঞ্চলের নির্বাচন কমিশনের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়। এর প্রথম সম্মেলন ঢাকাতেই হয়। আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল, পাকিস্তান এবং শ্রীলঙ্কার নির্বাচন কমিশন এফইএমবিওএসএর সদস্য। প্রতিবছর সদস্য দেশগুলো ইংরেজি বর্ণমালার ক্রমানুসারে এফইএমবিওএসএ সম্মেলন আয়োজন করে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৮ সালে দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশে এ সংগঠনের নবম সম্মেলনের প্রস্তুতি চূড়ান্ত করা হয়েছে।
জনগণ পুলিশকে ভালোভাবে নিয়েছে: আইজিপি
সবাই সহযোগিতা করায় পয়লা বৈশাখ উদযাপন শান্তিপূর্ণভাবে শেষ করা সম্ভব হয়েছে বলে মনে করেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি। রোববার রাজারবাগের এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, পুলিশকে ভালোভাবে নিয়েছে জনগণ। পুলিশের কল্যাণ সভায় আইজিপি বলেন, ‘পয়লা বৈশাখের প্রতিটি অনুষ্ঠান সুন্দর ও নিরাপদ পরিবেশে হয়েছে। ঢাকা শহরের অনেক জায়গায় ঘুরে দেখেছি। মানুষের ঢল নেমেছিল পুরো শহরজুড়ে। একই সঙ্গে বৈশাখে পুলিশের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ছিল পুরো দেশজুড়ে। পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা ও বন্ধুসুলভ আচরণের জন্য মানুষ পুলিশকে ভালোভাবে নিয়েছে। সাধারণ মানুষ প্রতিটি ক্ষেত্রে পুলিশকে সহযোগিতা করেছে। সবার আন্তরিকতায় সুন্দরভাবে পয়লা বৈশাখ উদযাপন হয়েছে।’ পুলিশ প্রধান বলেন, ‘এ পদে দায়িত্ব নেওয়ার পর ফেব্রুয়ারি মাসে রাজারবাগে কল্যাণ ঝুঁকিভাতার সমস্যার কথা শুনি। তবে দুই মাসের ব্যবধানে ১১ এপ্রিল প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তা বাস্তবে রূপ নিয়েছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা ছাড়া আমার ভাষা নেই।’ সভায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর