লেবানন সফররত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাত লেবানিজ নৌ বাহিনীর প্রধানরে
বাংলাদেশ থেকে সামরিক সরঞ্জাম কিনতে চায় লেবানন। লেবানন সফররত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সাক্ষাতকালে এ ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন লেবানিজ নৌ বাহিনীর প্রধান। বিষয়টিকে নৌ কূটনৈতিক তৎপরতার ইতিবাচক নমুনা হিসেবেই দেখছে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী। বিশ্বের একমাত্র মেরিটাইম টাস্কফোর্সের অধীনে ভূ-মধ্য সাগরে লেবাননের জলসীমায় শান্তি রক্ষায় আরো ৫ টি দেশের ৭ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছে বাংলাদেশ নৌ বাহিনী। দক্ষতা যোগ্যতা আর কর্মতৎপরতায় ইতোমধ্যেই জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক মহলের দৃষ্টি কেড়েছে এই বাহিনী। এরই প্রতিফলন দেখা যায় বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে লেবানিজ নৌ বাহিনী প্রধানের বৈঠকে। শুক্রবার বৈরুতে লেবানন নৌ সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে সামরিক সরঞ্জাম কেনার আগ্রহ প্রকাশ করেন দেশটির নেভাল চিফ। লেবানন নৌ বাহিনীর কমান্ডার ইন চীফ আর এ হোসনী দাহের বলেন, 'বাংলাদেশ নৌবাহিনী অন্যদের চেয়ে আলাদা। লেবানিজ এবং বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর মধ্যে সুসম্পর্ক বিরাজ করছে। আশা করি, প্রশিক্ষণসহ অন্যান্য সহযোগিতা অব্যাহত রেখে সম্পর্ক আরও দৃঢ় করবে বাংলাদেশ।' লেবানন নৌ বাহিনীকে সাধ্যমতো সব ধরনের সহায়তা করার আশ্বাস দেন বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর কমোডর এম নাজমুল করিম কিসলু বলেন, 'বাংলাদেশ নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে লেবাননের নৌবাহিনীর উন্নতির জন্য বিভিন্ন প্রকার প্রশিক্ষণ কোর্সের প্রস্তাব আমরা করেছি। তারাও এই ধরণের প্রশিক্ষণ নিতে আগ্রহী। একই সঙ্গে তারা হয়তো আমাদের কাছ থেকে ভবিষ্যতে বিভিন্ন ধরণের সরঞ্জাম, যন্ত্রপাতি কেনা এবং এগুলোর রক্ষণাবেক্ষণের জন্য প্রশিক্ষণ নেবে।' দক্ষতা বাড়াতে লেবানিজ নৌ বাহিনীকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দেয়ারও আশ্বাস দেন তারা। বাংলাদেশ থেকে সামরিক সরঞ্জাম কিনে নিজেদের শক্তি বাড়াতে চায় লেবানিজ নৌবাহিনী। এতেকরে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের সামরিক সরঞ্জামের বাজার তৈরির হাতছানি দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।
আজ রবিবার সকালে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের বিরুদ্ধে রিভিউ রাষ্ট্রপক্ষে
সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা বহাল রেখে সর্বোচ্চ আদালতের দেওয়া রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করছে রাষ্ট্রপক্ষ। আজ রবিবার সকালে আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিভিউ আবেদনটি দায়ের করা হয়। অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ের একটি সূত্র জানায়, ৯৩৮টি রিভিউ আবেদনে ৯০ টির বেশি যুক্তি রয়েছে।বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে ২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বর্তমান সরকারের আমলে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী জাতীয় সংসদে পাস হয়। এই সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একই বছরের ৫ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের নয়জন আইনজীবী হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন।গত বছরের ৫ মে হাইকোর্টের তিন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত বিশেষ বেঞ্চ সংখ্যাগরিষ্ঠ মতামতের ভিত্তিতে ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন। এ রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ গত ৪ জানুয়ারি আপিল করে। শুনানি শেষে ১৩ জুলাই আপিল বিভাগ সর্বসম্মতিতে ওই আপিল খারিজ করে রায় দেন। পূর্ণাঙ্গ রায় গত ১ আগস্ট প্রকাশিত হয়।
চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় যাচ্ছেন প্রধানমন্
সদ্যপ্রয়াত চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে আজ রবিবার বিকেল ৩টায় চশমা হিলের বাসায় যাচ্ছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে নির্দেশনা পাওয়ার পর শনিবার বিকেল থেকে মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসার আশপাশ ঘিরে অবস্থান নিতে শুরু করেন বিভিন্ন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। শনিবার রাত ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর সফর নিয়ে নিরাপত্তা সংক্রান্ত চূড়ান্ত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী। গণভবন থেকে দলের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বে থাকা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম জানান, প্রধানমন্ত্রী রবিবার বিকেল ৩টায় প্রয়াত নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় যাবেন। এ ব্যাপারে তাঁর সফরসূচি চূড়ান্ত হয়েছে। এর আগে সকালে নৌবাহিনীর বার্ষিক কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী। এদিকে নৌবাহিনীর কর্মকর্তারা জানান, প্রধানমন্ত্রী রবিবার সকালে নৌবাহিনীর বার্ষিক রাষ্ট্রপতির কুচকাওয়াজে যোগ দেবেন। সকাল ১০টা ১০ মিনিটে পতেঙ্গা নেভাল একাডেমিতে পৌঁছাবেন তিনি। সেখানে বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর কর্মসূচি নির্ধারিত রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নৌবাহিনীর কর্মসূচি শেষে মহিউদ্দিনের বাসায় যাবেন-বিষয়টি চট্টগ্রামের প্রশাসনকে জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি-উত্তর) মো. আব্দুল ওয়ারিশ খান। শনিবার সন্ধ্যায় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আসবেন। নিরাপত্তার মহড়া দেওয়া হচ্ছে। আমরা চশমা হিল এলাকায় আছি। পুরো এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 'মহিউদ্দিন চৌধুরীর বড় ছেলে ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল শনিবার সন্ধ্যায় বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাদের বাসায় আসবেন বলে জানানো হয়েছে। প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও বাসায় এসেছেন। ' জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী বলেন, 'চশমা হিলের প্রবেশপথ খুবই সরু। সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়টিকে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছি। ' প্রসঙ্গত, গত ১৪ ডিসেম্বর গভীর রাতে চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সাবেক মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। মহিউদ্দিনের শোকসভা সেই লালদিঘি ময়দানে : যে লালদিঘির মাঠে বজ্রকণ্ঠে চট্টগ্রামের কথা বলতেন মহিউদ্দিন, সেই মাঠে শেষযাত্রায়ও গিয়েছিলেন চট্টগ্রামবাসীর এই অভিভাবক। সেদিন লাখ লাখ জনতা চোখের জলে বিদায় দিয়েছিলেন তাঁদের প্রিয় নেতাকে। সেই ময়দানে এবার হতে যাচ্ছে তাঁর শোকসভা। চট্টগ্রাম উত্তর, দক্ষিণ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ যৌথভাবে আগামী ১৪ জানুয়ারি দুপুরে এ শোকসভার আয়োজন করেছে। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার নগরীর চশমা হিলে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রয়াত মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসভবনে অনুষ্ঠিত সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল আলম চৌধুরী। নগর আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক বলেন, লালদিঘি ময়দান থেকেই মহিউদ্দিন ভাইয়ের উত্থান। স্মৃতিবিজড়িত সেই মাঠে আমরা মহিউদ্দিন ভাইয়ের শোকসভা করব। আশা করছি, জানাজার মতো লাখ লাখ মানুষ শোকসভায়ও শরীক হবেন। ' নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন দেশে ফেরার পর শোকসভা নিয়ে জোরালো প্রস্তুতি শুরু হবে বলে তিনি জানান। মেজবানে নিহতদের পরিবারকে হিন্দু ফাউন্ডেশনের অনুদান : নগরীর রীমা কমিউনিটি সেন্টারে মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানির মেজবানে পদদলিত হয়ে নিহত ১০ জনের পরিবারকে ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু ফাউন্ডেশন। শুক্রবার ফাউন্ডেশনের কার্যকরী সংসদের সভায় ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান দুলাল কান্তি মজুমদার। মহাসচিব শ্যামল কুমার পালিত বলেন, প্রয়াত নেতা মহিউদ্দিন চৌধুরীর কুলখানিতে অমুসলিমদের জন্য ভোজের আয়োজনে যাঁরা মারা গেছেন, তাঁদের পরিবারকে আমরা ১০ হাজার টাকা করে দেব। অসহায় পরিবারগুলোর যেকোনো বিপদে-আপদে পাশে থাকব।
বেসরকারি ফলাফলে রংপুর সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টি জয়ী
রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। বেসরকারি ফলাফলে দেখা গেছে, লাঙল প্রতীক নিয়ে মোস্তাফিজার রহমান পেয়েছেন ১ লাখ ৬০ হাজার ৪৮৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দীন আহম্মেদ নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৬২ হাজার ৪০০ভোট। বিএনপি প্রার্থী কাওসার জামান বাবলা ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ৩৫ হাজার ১৩৬ ভোট পেয়ে তৃতীয় হয়েছেন। রংপুর সিটি করপোরেশনের মোট ভোটার ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৮৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৬ হাজার ২৫৬ এবং নারী ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন। রসিকের ১৯৩টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ হয়েছে। মেয়র পদে দলীয় প্রতীকে সাত প্রার্থীর সঙ্গে ৩৩ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ২৭৬ জন। বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ করা হয়। এরমধ্যে একটি কেন্দ্রে ইভিএমে পরীক্ষামূলকভাবে ভোটগ্রহণ করা হয়। রংপুরে এটি দ্বিতীয় সিটি করপোরেশন নির্বাচন। এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে মেয়র পদে এখানে নির্বাচন হলো। এর আগে রংপুর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান ছিলেন মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। রংপুর সিটি করপোরেশনের প্রথম নির্বাচনেও দ্বিতীয় অবস্থানে ছিলেন তিনি।
ভোট দিলেন এরশাদ
রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে তিনি নগরীর শিশুমঙ্গল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন। এসময় একই কেন্দ্রে ভোট দেন দলের কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের।ভোটকেন্দ্র থেকে বের হয়ে এরশাদ বলেন, এখানে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না। আশা করছি লাখো ভোটের ব্যাবধানে আমরা জিতব। এটা নির্বাচন কমিশনের জন্য একটা পরীক্ষা। তাই নিজেদেরকে প্রমাণ করার জন্যই এই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে।এরআগে সকাল ৯টা ২০ মিনিটে নগরীর আলমনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।আজ সকাল ৮টা থেকে ১৯৩টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ ভোটগ্রহণ চলবে।এ সিটি কর্পোরেশনে বর্তমানে ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৩ হাজার ৯৯৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৯৬ হাজার ৩৫৬ ও মহিলা ১ লাখ ৯৭ হাজার ৬৩৮ জন। সাতজন মেয়র প্রার্থীসহ সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৬৫টি জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
আগামী ২৩ ডিসেম্বর শনিবারসারাদেশে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন
আগামী ২৩ ডিসেম্বর শনিবার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত সারাদেশে জাতীয় ভিটামিন প্লাস ক্যাম্পেইন (প্রথম রাউন্ড) পালন করা হবে। আজ এক তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, এদিন ৬ থেকে ১১ মাস বয়সি শিশুদের ১টি নীল রঙের এবং ১২ থেকে ১৫ মাস বয়সি শিশুদের ১টি লাল রঙের উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ভিটামিন ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান ১৯৭৩ সাল থেকে জাতীয়ভাবে শিশুদের ভিটামিন ক্যাপসুল খাওয়ানোর কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। জাতীয় ভিটামিন প্লাস ক্যাম্পেইন কে সর্বাত্মকভাবে সফল করার লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে বলে তথ্য বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়।
দুর্ঘটনার হাত থেকে ট্রেনকে রক্ষাকারী দুই শিশুকে বুধবার সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি স্টেশনে ভাঙা রেললাইনে দুর্ঘটনার হাত থেকে ট্রেনকে রক্ষাকারী দুই শিশুকে বুধবার পাবনার ঈশ্বরদীর পাকশীতে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। পাকশী রেলওয়ে বিভাগীয় ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) এ সংবর্ধনার আয়োজন করে। এই দুই শিশু হলো ঝিনা গ্রামের সুমন আলীর ছেলে শিহাবুর রহমান (৬) ও শহিদুল ইসলামের ছেলে লিটন আলী (৭)। ক্রেস্টে ভুলবশত টিটোন লেখা হয়েছে। সোমবার সকালে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানি স্টেশনের অদূরে ঝিনা রেলগেট এলাকায় রেললাইন দিয়ে একটি ট্রেন চলে যাওয়ার পর বিকট শব্দ হয়। এ শব্দ শুনে লাইনের কাছে এগিয়ে যায় দুই শিশু। দেখতে পায় ট্রেন চলে যাওয়ার পরই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে লাইন। এমন সময় লাইন দিয়ে আরেকটি ট্রেন আসতে দেখে তারা গলায় থাকা মাফলার তুলে ধরে ওড়াতে থাকে। তাদের সংকেত পেয়ে ব্রেক চাপেন ট্রেনের চালক। এতে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায় ট্রেনটি। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে আড়ানি থেকে ট্রেনে চেপে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে এসে নামে এই দুই শিশু। সঙ্গে আড়ানি সহকারী স্টেশন মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান ও তাদের মা-বাবাও ছিলেন। এই দুই শিশুকে দেখতে এ সময় স্টেশনে প্রচুর মানুষ ভিড় করে। সেখান থেকে তাদের পাকশী বিভাগীয় কার্যালয়ের সামনে আনা হয়। এখানেও প্রচুর মানুষ তাদের দেখার জন্য ভিড় করে। পাকশী ডিআরএম কার্যালয়ের সামনে আয়োজন করা হয় সংবর্ধনার। সংবর্ধনার শুরুতে ডিআরএম অসীম কুমার তালুকদার দুই শিশুকে ফুলের মালা ও ফুলের তোড়া উপহার দেন। এরপর পাকশী রেলওয়ে বিভাগীয় কর্মকর্তারাও ফুল দিয়ে শিশু ও তাদের পরিবারকে অভ্যর্থনা জানান। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সাবেক পাকশী ইউপি চেয়ারম্যান হবিবুল ইসলাম ও ঠিকাদার আনোয়ারুল ইসলাম দুই শিশুকে দুই হাজার করে চার হাজার টাকা, মীর আখতার হোসেন লিমিটেড নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দুই শিশুকে নগদ ৫ হাজার টাকা এবং পাকশী রেলের পক্ষ থেকে দুই শিশুর প্রত্যেককে ১৩ হাজার করে মোট ২৬ হাজার টাকা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন অসীম কুমার তালুকদার, আড়ানি সহকারী স্টেশন মাস্টার মোস্তাফিজুর রহমান (নয়ন), প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বাতেন, পাকশী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হবিবুল ইসলাম, পাকশী রেলওয়ে শ্রমিক লীগ সভাপতি ইকবাল হায়দার, শিশু শিহাবের মা রিতা খাতুন, টিটোনের নানি শুকুর জাহান প্রমুখ। শিহাবের মা রিতা খাতুন বক্তব্যে বলেন, আমি ভাবতে পারিনি আমার ছেলি দ্যাশের জন্যি এতো সাহসের কাজ করবি। আপনেরা ত্যার জন্যে যে সুম্মান দেখালেন তা দ্যাখি আমি খুব খুশি হইছি।
শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে বিজিবি দিবসের কর্মসূচির সূচনা
বিজিবি দিবস আজ। দিবসটি উপলক্ষে আজ বুধবার রাজধানীর পিলখানা বিজিবির সদরদপ্তর এবং সকল রিজিয়ন, বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড কলেজ, সকল সেক্টর ও ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন আগামীকাল সকাল ৮টায় বাহিনীর রেজিমেন্টাল পতাকা উত্তোলন এবং সকাল সোয়া ৮টায় সীমান্ত গৌরবএ মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুুষ্পস্তবক অর্র্পণের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচির সূচনা করবেন। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। আগামীকাল সকাল ১০টায় বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন এবং অভিবাদন গ্রহণ করার কথা রয়েছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বিজিবিতে বীরত্বপূর্ণ ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য কর্মকর্তা ও সদস্যদের পদক প্রদান করবেন। দুপুর ১২ টা ২৫ মিনিটে বীর উত্তম ফজলুর রহমান খন্দকার মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী বিজিবি সদস্যদের দরবার গ্রহণ করবেন এবং বক্তব্য রাখবেন। বিজিবির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ বলা হয়, বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে মন্ত্রীপরিষদের সদস্য, উপদেষ্টাবৃন্দ, উচ্চ পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা এবং কূটনৈতিক কোরের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। ভারত ও মায়ানমারের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর সাথে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের অব্যাহত বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্ক ও পারস্পরিক সহযোগিতা উন্নয়নের নিদর্শন স্বরূপ প্রথমবারের মতো এবার ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ) এর মহাপরিচালক কৃষান কুমার শর্মার নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের প্রতিনিধিদল এবং মিয়ানমারের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) এর কমান্ডার পুলিশ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মায়ইন্ট তোয়ের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের প্রতিনিধিদল বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ টেলিভিশনসহ অন্যান্য বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। দিবসটি উপলক্ষে পিলখানা ছাড়াও ঢাকার বাইরে বিজিবির সকল রিজিয়ন, বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড কলেজ, সকল সেক্টর ও ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে মিলাদ ও বিশেষ দোয়া, আনুষ্ঠানিকভাবে রেজিমেন্টাল পতাকা উত্তোলন, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উপস্থিতিতে বিশেষ দরবার, অত্র বাহিনীর খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, প্রীতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে। বিজিবি দিবস উদ্যাপনের অংশ হিসেবে আগামী ২১ ডিসেম্বর পিলখানাস্থ বীর উত্তম ফজলুর রহমান খন্দকার মিলনায়তনে বিজিবি মহাপরিচালকের বিশেষ দরবার অনুষ্ঠিত হবে। দরবার শেষে অনারারি সহকারী পরিচালক হতে অনারারি উপ-পরিচালক পদে পদোন্নতিপ্রাপ্তদের র্যাংক ব্যাজ পরিধান, অপারেশনাল কার্যক্রম, চোরাচালান নিরোধ এবং মাদকদ্রব্য আটকের ক্ষেত্রে কৃতিত্বপূর্ণ কাজের জন্য পুরস্কার প্রদান, মহাপরিচালকের অপারেশনাল ও প্রশাসনিক ইনসিগনিয়াসহ প্রশংসাপত্র প্রদান এবং বিজিবির খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা অথবা উত্তরাধিকারীগণের সংবর্ধনা প্রদান করা হবে। ওইদিন সন্ধ্যায় পিলখানায় বিজিবির নিজস্ব অর্কেস্ট্রা ও শিল্পীসহ দেশের বরেণ্য শিল্পীদের সমন্বয়ে সাংস্কুতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।
ব্যক্তিগত বিমানে কক্সবাজারের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলিদিরিম
বাংলাদেশ সফরের শেষদিন বুধবার সকালে রোহিঙ্গাদের অবস্থা সরেজমিন দেখতে কক্সবাজারের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলিদিরিম। সকাল পৌনে দশটার দিকে ব্যক্তিগত বিমানে কক্সবাজারের উদ্দেশে যাত্রা করেন তিনি। সেখান থেকেই তিনি বাংলাদেশ থেকে বিদায় নেবেন। কক্সবাজারে তাকে বিদায় জানাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। এর আগে তিনদিনের সফরে সোমবার রাতে ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন। মঙ্গলবার সকালে তিনি সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তিনি এ সময় পরিদর্শক বইয়ে স্বাক্ষর করেন এবং তার সফরের স্মারক হিসেবে একটি চারাগাছ রোপণ করেন। এছাড়া তিনি ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেন এবং শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তিনি এ সময় জাদুঘরের বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখেন এবং পরিদর্শক বইয়ে স্বাক্ষর করেন। তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী শের-ই-বাংলা নগরে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যান্সার ইউনিট উদ্বোধন করেন। মঙ্গলবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি এলদেরিম রোহিঙ্গাসহ আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক বিভিন্ন দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদের সঙ্গে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি এলদেরিম স্বাক্ষাৎ করেন।