শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৬, ২০২১
মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক,না মানলে ৬ মাসের জেল অথবা এক লাখ টাকা জরিমানা
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জীবনযাত্রা স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরানোর পর সবার জন্য মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে এ ব্যাপারে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। মাস্ক ছাড়া কেউ বাইরে বের হলে ৬ মাসের জেল অথবা এক লাখ টাকা জরিমানা করা হবে। বাইরে লোকজনের চলাচল বেড়ে যাওয়ায় এই পদক্ষেপ নিলো সরকার। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন- করোনা থেকে নিরাপদ থাকতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এখন নাগরিক দায়িত্ব। ঈদের পর সরকার সাধারণ ছুটি আর না বাড়ানোয় সাধারণ ছন্দে ফেরে দেশ। কাজে যোগ দেয়ায় বাইরে লোকজনের চলাচলও বেড়েছে। করোনা সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকি থাকলেও জীবিকার তাগিদে বাইরে বের হয়েছে মানুষ। স্বাস্থ্যবিধি মানার কথা বলা হলেও, অনেককে দেখা গেছে মাস্ক ছাড়াই বাইরে চলাফেরা করতে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা কম থাকায় মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব। তবে সংক্রমণ থেকে বাঁচতে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তাগিদ দেন বিশেষজ্ঞরা। এ অবস্থায়, স্বাস্থ্যবিধি মানতে নতুন করে কিছু কড়াকড়ি আরোপ করেছে সরকার। বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। নির্দেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে সংক্রমণ রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল আইনে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা জরিমানা বা ৬ মাসের জেল হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সবকিছু খুলে দেয়ায় সংক্রমণ ঝুকি বেড়ে গেছে। তাই স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার জন্য কঠোর মনিটরিং দরকার। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কঠোর হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।
অত্যন্ত কম সংখ্যক কর্মকর্তা নিয়ে স্বল্প পরিসরের সরকারি অফিস খুলেছি
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ২৫ শতাংশের বেশি কর্মকর্তা অফিস করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। বলেছেন, আমরা নিষেধাজ্ঞাসহ স্বল্প পরিসরের সরকারি অফিস খুলেছি। অনেক বেসরকারি আধা-সরকারি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। আমাদের ১৮টি মন্ত্রণালয় স্বল্পপরিসরে এতদিন চালু ছিল। রোববার প্রথম দিন আমরা সচিবালয়ে যে চিত্র দেখেছি অধিকাংশ মন্ত্রণালয়, যেভাবে আমরা বলেছি যে, বয়স্ক কর্মকর্তারা আসবেন না, অসুস্থ এবং সন্তানসম্ভবা নারী কর্মকর্তারা আসবেন না, সেটা আমরা মেইনটেইন করেছি। একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সঙ্গে ভিডিওকলে যুক্ত হয়ে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, রোববার ছিল প্রথম দিন, অনেকগুলো মন্ত্রণালয় অত্যন্ত কম সংখ্যক কর্মকর্তা নিয়ে, যারা বিভিন্ন জায়গায় ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে বসবাস করছেন, তাদের আমরা আসতে বারণ করেছি, তারা আসেননি। দর্শনার্থী যাতে সচিবালয়ে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য ১৫ দিনে কোনো পাস ইস্যু করা হবে না। প্রতিমন্ত্রী বলেন, তারপরও আমার কাছে তথ্য আসছে যে, কিছু কিছু মন্ত্রণালয়ে হয়তো প্রয়োজনের তুলনায়,আমরা কেবল শুরু করছি, অল্প প্রয়োজনে স্বল্প পরিসরে অফিসে আসার জন্য বলা হয়েছে। ফরহাদ হোসেন বলেন, মন্ত্রণালয়গুলোকে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, অত্যাবশ্যকীয় যে কাজগুলো আছে এখন আমরা সেই কাজগুলো করতে চাই। সেক্ষেত্রে চার ভাগের এক ভাগ (২৫ শতাংশ) বা পাঁচ ভাগের এক ভাগ (২০ শতাংশ) কর্মকর্তা উপস্থিত থাকবেন। যারা অসুস্থ আছেন, তারা ঘরে বসে কাজ করবেন তারা অফিসে আসবেন না, এভাবে আমরা সাজিয়েছি। যাতে কেউ এখানে ইনফেক্টেড না হন। যারা একটু দূরে থাকে যারা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় থাকে আমরা তাদের আমরা শনাক্ত করেছি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা লক্ষ করেছি কিছু কিছু মন্ত্রণালয়ে কোনো কোনো কর্মকর্তার প্রয়োজন ছিল না তারপরও তারা এসেছে। তাদের কোনো কাজ ছিল না। তাদের কাছে বার্তা ঠিকমতো পৌঁছায়নি। করানোর সংক্রমণ এখন সর্বোচ্চ একটি অবস্থায় আছে জানিয়ে ফরহাদে হোসেন বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আমাদের কাজগুলো করতে হবে। প্রথম দিন আমরা দেখলাম আমাদের অবজারভেশনে কিছু ত্রুটি পেয়েছি। তিনি বলেন, এই ১৫ দিনে আমরা ট্রায়াল অ্যান্ড এরর বেসিসে কাজ করবো। আজ যে ভুলগুলো হয়েছে কাল যাতে সেই ভুলগুলো না হয় সেটাই আমরা করতে চাই। উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে গত ২৬ মার্চ থেকে টানা ৬৬ দিনের ছুটি শেষে গতকাল রোববার প্রথম অফিস চালু হয়। আপাতত: আগামী ১৫ জুন পর্যন্ত অফিস খুলে দিয়েছে সরকার।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কাজে যোগ দিলেন
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা ও আইসোলেশন পর্ব শেষ করে কাজে যোগ দিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। আজ সোমবার (১ জুন) সকালে কাজে যোগ দেন তিনি। সুস্থ হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন আবুল কালাম আজাদ। সেইসঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সবাইকে নিয়ে আরো জোরালো গতিতে কাজ এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন তিনি কালের কণ্ঠের কাছে। এ ছাড়া করোনায় যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের আত্মার শান্তি কামনা ও আক্রান্তদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন তিনি।
করোনা আক্রান্ত মন্ত্রিপরিষদের উপসচিব
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ আব্দুল ওয়াদুদ চৌধুরী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মাঠ প্রশাসন সমন্বয় অধিশাখায় দায়িত্বরত অবস্থায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। মাঠ প্রশাসনের সঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ যোগাযোগে যে কয়টি অধিশাখা মূল দায়িত্ব পালন করে থাকে, সমন্বয় অধিশাখা তার মধ্যে অন্যতম। এ কারণে দেশব্যাপী লকডাউন পরিস্থিতি চলাকালে মাঠ প্রশাসনের সঙ্গে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কাজে যুক্ত ছিলেন ওয়াদুদ চৌধুরী। বাসা এবং অফিস দুই জায়গা থেকেই সক্রিয় ছিলেন তিনি। করোনা শনাক্ত হওয়ার পর থেকেই ছুটিতে রয়েছেন আব্দুল ওয়াদুদ। ওয়াদুদ চৌধুরী আজ সোমবার সকালের কালের কণ্ঠকে বলেন, করোনাভাইরাস পজেটিভ হলেও আমি আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। আপাতত তেমন কোনো সমস্যা নেই। তিনি বলেন, আমার মতো আরো যাঁরা আক্রান্ত আছেন তাঁদের সবাই দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন এই কামনা করি। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। বিশেষ করে মাঠ প্রশাসনের যারা দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন তাঁদের জন্যও সবার কাছে দোয়া চান তিনি। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এ বিভাগের একজন লিফটম্যানও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁর নাম রেজাউল ইসলাম। রেজাউলের করোনা শনাক্ত হলেও তেমন কোনো লক্ষণ নেই। তিনিও ছুটিতে আছেন। জানা গেছে, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যারা লকডাউন চলাকালে নিয়মিত অফিস করেছেন তাঁদের প্রায় সবাইরই করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে উল্লিখিত দুইজন শনাক্ত হয়েছেন।
আজ থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল শুরু
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল শুরু হয়েছে। করোনা মহামারির জন্য ২ মাসের বেশি সময় বন্ধ থাকার পর আজ সোমবার সকাল থেকে দেশের ৪টি এয়ারলাইন্স কোম্পানি তাদের ফ্লাইট চালু করে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মফিদুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বর্তমানে দেশের চারটি এয়ারলাইন্স কোম্পানি দেশের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট পরিচালনা করে। যার গড় হিসাব করলে অভ্যন্তরীণ রুটে প্রতিদিন আগে ১৪০টির মতো ফ্লাইট চলাচল করতো। তবে গত ২০শে মার্চ তিন মাসের জন্য ফ্লাইট চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে রিজেন্ট এয়ারওয়েজ। তাই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, নভোএয়ার এবং ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। মফিদুর রহমান জানান, আজ অভ্যন্তরীণ রুটে মোট ২৪টি ফ্লাইট ছিলো। যার মধ্যে ইউএসবাংলা এয়ারলাইন্সের ১০টি, বাংলাদেশ বিমানের ৬টি ও নভোএয়ারের ৮টি। কিন্তু বাংলাদেশ বিমান যাত্রী না পাওয়ায় ইতিমধ্যে ৪টি ফ্লাইট বাতিল করেছে। এছাড়া হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে প্রথম ফ্লাইট যায় চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে ২৮ জন যাত্রী নিয়ে। ফ্লাইট চালুর বিষয়ে বাংলাদেশ বিমানের ডিজিএম তাহেরা খন্দকার বলেন, আমাদের ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সৈয়দপুর রুটে অর্থাৎ ৩টি রুটে ৬টি ফ্লাইট ছিলো। কিন্তু যাত্রী না পাওয়ায় চট্টগ্রাম ও সিলেট রুটের ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। অর্থাৎ ৪টি ফ্লাইট বাতিল হয়েছে। তবে সকালে সৈয়দপুর রুটে ফ্লাইট গিয়েছে, বিকেলের ফ্লাইটও যাবে।
প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব খোকনের বাবা আর নেই
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকনের বাবা আনোয়ার হোসেন (৭৯) মারা গেছেন। সোমবার (১ জুন) গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার তারাগঞ্জ গ্রামে নিজ বাড়িতে বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে দুই ছেলে, দুই মেয়েসহ অসংখ্য-গুণগ্রাহী রেখে গেছেন আনোয়ার হোসেন। আশরাফুল আলম খোকনের বাবার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান প্রধানমন্ত্রী।
গণপরিবহনে ভাড়া বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে গণপরিবহনের ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপন স্থগিত চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় (সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ) সচিব ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যানকে নোটিশটি পাঠানো হয়েছে। সোমবার (১ জুন) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মনিরুজ্জামান লিংকন জনস্বার্থে এ নোটিশটি পাঠিয়েছেন। নোটিশে বলা হয়েছে, করোনার কারণে মানুষের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। নিম্ন ও মধ্যম আয়ের অধিকাংশ মানুষ কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। আর সরকার সামর্থ্যের সবটুকু দিয়ে অসহায় এবং দুস্থ মানুষের করোনাকালীন বিপর্যয় রোধের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং এই লক্ষ্যে বিভিন্নভাবে খাদ্য সহায়তা এবং নগদ অর্থ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। কর্মহীন এবং বেকার নিম্ন-মধ্যম আয়ের মানুষ এবং অর্থনৈতিকভাবে অসচ্ছল মানুষের জীবন ও জীবিকার বিষয়টি বিবেচনা করে এবং অর্থনীতিকে সচল রাখতে সরকার সীমিত পরিসরে সরকারি, বেসরকারি অফিস সাময়িকভাবে খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। অথচ সেই করোনা পরিস্থিতিতে এসে সরকারের জাতীয় সড়ক এবং মহাসড়ক বিভাগ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি বাস-মিনিবাসের ক্ষেত্রে ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। যা লোকজনকে আরও বেশি বিপর্যস্থ ও হতাশাগ্রস্থ করেছে। এতে আরও বলা হয়, যেহেতু বর্তমানে বিশ্ব বাজারে তেলের দাম সর্বনিম্ন সেহেতু অতিরিক্ত ভাড়া না বাড়িয়ে বিশ্ববাজারে থেকে কম মূল্যে তেল সংগ্রহ করে বিষয়টি সমন্বয় করতে ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে। নোটিশ পাওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে গণপরিবহনের ভাড়া বৃদ্ধির প্রজ্ঞাপন স্থগিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় জনস্বার্থে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রসঙ্গত,রোববার (৩১ মে) করোনাকালীন সময়ে গণপরিবহনের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) ৮০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর প্রস্তাব করলেও তা কমিয়ে ৬০ শতাংশ করে মন্ত্রণালয়।
শুরু হয়েছে বাস চলাচল
১জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিলো গণপরিবহন। লকডাউন তুলে দেয়ায় আজ থেকে শুরু হয়েছে বাস চলাচল। ইতিমধ্যে সরকার ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। কিন্তু সরকার নির্ধারিত এ ভাড়াও মানছেন না কাউন্টারগুলো। স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে রংপুর থেকে ঢাকায় বাসভাড়া ৫০০ টাকা। করোনা পরিস্থিতির কারণে সরকার নির্ধারিত অতিরিক্ত ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করলে বর্মান ভাড়া দাঁড়ায় ৮০০ টাকায়। কিন্তু তারা এ নিয়মও মানছেন না। জনপ্রতি ভাড়া রাখছেন ১০০০ হাজার টাকা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কাউন্টার থেকে দেয়া টিকিটে ৯০০ টাকা লেখা থাকলেও আরো ১০০ টাকা অতিরিক্ত নেয়া হচ্ছে। জানতে চাইলে কাউন্টারগুলো থেকে বলা হয়, দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় ১০০ টাকা বেশি নিচ্ছেন তারা। এছাড়াও টিকিটের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে জটলা পাকিয়ে টিকিট সংগ্রহ করতে দেখা যায়। তবে নিয়ম অনুযায়ী একসিট পরপর যাত্রী নিচ্ছেন তারা।
চাল আত্মসাতের অভিযোগে আরো ২ জনপ্রতিনিধি বরখাস্ত
৩১মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম ও চাল আত্মসাতের অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার ১২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম নেহার এবং শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শামসুদ্দোহা (ড. রতন)-কে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। রোববার (৩১ মে) স্থানীয় সরকার বিভাগ হতে এ সংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হবার পর এ নিয়ে মোট ৭৪ জন জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। এদের মধ্যে ২৪ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ৪৫ জন ইউপি সদস্য, ১ জন জেলা পরিষদ সদস্য, ৩ জন পৌর কাউন্সিলর এবং ১ জন উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার কাউন্সিলর রফিকুল ইসলাম নেহার এর বিরুদ্ধে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের কারণে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে কর্মহীন হয়ে পড়া দরিদ্র-নিম্নআয়ের মানুষের মধ্যে বিশেষ ওএমএস কার্যক্রমের আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিতরণে অনিয়ম করে নিজের পরিবারের স্বচ্ছল সদস্য ও আত্মীয়-স্বজনসহ ১৬ ব্যক্তির নাম ওএমএসের ভোক্তা তালিকায় অন্তর্ভুক্তকরণ এর অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। কাজেই স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩১(১) অনুযায়ী তাকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। পৃথক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শামসুদ্দোহা (ড. রতন) মৎস্যজীবীদের ভিজিএফের ৩৫ বস্তা চাল আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে রয়েছেন এবং শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেছেন। কাজেই স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী তাকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। একই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শরীয়তপুর জেলার ভেদরগঞ্জ উপজেলার আরশীনগর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সচিব মো. জাহাঙ্গীর আলম এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য শরীয়তপুর জেলা প্রশাসনকে অনুরোধ করা হয়েছে। এছাড়া করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পূর্বে এ বছরের ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসে চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় সাতক্ষীরা জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মৌতলা ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মীর সালমান রহমান ডালিম এবং দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলাধীন ধর্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মতিউর রহমান (মতি)-কে সাময়িকভাবে বরখাস্তকরণের প্রজ্ঞাপনও আজ রোববার জারি করা হয়েছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর