আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেয়া উচিত
আন্দোলনের অলীক স্বপ্ন না দেখে, আগামী জাতীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বিএনপি নেতাদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেন, ‘আন্দোলনের খেলা না খেলে নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হন। এটা আপনাদের (বিএনপি) প্রতি আমার অনুরোধ থাকবে। যে কোন পরিস্থিতিতেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশ নেয়া উচিত এবং তারা নির্বাচনে আসবে।’ মোহাম্মদ নাসিম আজ মঙ্গলবার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন কেন্দ্র (নিটোর) হাসপাতালের বর্ধিত ভবনের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, নির্বাচনে অংশগ্রহণ ছাড়া একটি রাজনৈতিক দল বাঁচতে পারে না। বিএনপি নির্বাচনে না এসে অনেক দুর্বল হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার জন্য দেশের সর্বোচ্চ উন্নতমানের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু তিনি তা গ্রহণ করেন নি। এক্ষেত্রে আমাদের করার কিছু নেই। জনসংখ্যা ও দুর্ঘটনার কারণে নিটোর হাসপাতালে শয্যা সংখ্যার তুলনায় রোগীর চাপ কয়েকগুণ বেশি উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, রোগীর চাপ সামলাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে অর্থোপেডিক হাসপাতালের নতুন ১৪ তলা ভবন নির্মাণ কাজ প্রায় কাজ শেষ পর্যায়ে। আর এশিয়ার বৃহত্তম এই হাসপাতাল আগামী সেপ্টেম্বর মাসে উদ্বোধন করা হবে। মোহাম্মদ নাসিম বলেন, হাসপাতালের কাজ প্রায় শেষের দিকে। আশা করছি, এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর জন্মের মাসেই আমরা এই সম্প্রসারিত ভবনের উদ্বোধন বা এখানকার স্বাস্থ্যসেবা চালু করতে পারব। তিনি বলেন, এই হাসপাতাল আগে থেকেই ৫০০ শয্যাবিশিষ্ট ছিলো। এখন বর্ধিত হয়ে তা এক হাজার শয্যায় উন্নীত করা হচ্ছে। এখানে উন্নত প্রযুক্তিসম্পন্ন যন্ত্রপাতি থাকবে যার মাধ্যমে আরও উন্নতমানের চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হবে। এছাড়া এই হাসপাতালে ব্যবহৃত পানি পুনরায় ব্যবহারে (রিসাইক্লিং) ব্যবস্থা থাকছে। যে পানি খাওয়া ছাড়া অন্যান্য কাজে ব্যবহার করা যাবে। হাসপাতাল ভবন পরিদর্শনকালে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন,স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব মোঃ শহীদ উল্লা খন্দকার, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব সিরাজুল হক খান, নিটোরের পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. আব্দুল গণি মোল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এরআগে মন্ত্রী বর্ধিত ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটির নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন এবং সংশ্লিষ্টদের দ্রুত উদ্বোধনের জন্য প্রস্তুত করার নির্দেশ দেন। এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মহাখালীতে নির্মাণাধীন ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ডাইজেস্টিভ ডিজিজেস রিসার্চ ও হাসপাতালের নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন।বাসস
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের প্রতিটি মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন
প্রধান তথ্য কমিশনার মরতুজা আহমেদ বলেছেন, তথ্য অধিকার আইন-২০০৯ জনগণের অধিকার প্রয়োগের সুযোগ করে দিয়েছে। এর মাধ্যমে সকল ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা, জবাবদিহি ও সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। তথ্য অধিকার আইনকে একটি সামগ্রিক আইন হিসাবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এ আইন অন্য কোন আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক নয়। জনস্বার্থে এ আইনের প্রয়োগ ও বাস্তবায়নে গণমাধ্যম কর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে।’ আজ মঙ্গলবার দুপুরে সিলেটে বাংলাদেশ বেতারের সভাকক্ষে ‘তথ্য অধিকার আইন-২০০৯’ বিষয়ে বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস), বিভাগীয় তথ্য অফিস ও স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধান তথ্য কমিশনার বলেন, আগে তথ্য গোপনের একটা প্রবণতা ছিল। এখন আর সেটা নেই। তথ্য অধিকার আইনের ফলে সরকারি ও বেসরকারি দফতরের কর্মকর্তাগণ তথ্য প্রদানে বাধ্য। তিনি বলেন, ‘তথ্য অধিকার আইন একমাত্র আইন যা প্রজাতন্ত্রের মালিক হিসেবে জনগণ সকল কর্তৃপক্ষের উপর প্রয়োগ করতে পারে। তাই তথ্য অধিকার আইন সম্বন্ধে জনগণকে এবং তথ্য প্রদানকারি কর্মকর্তাদের ভালভাবে জানতে হবে।’ তথ্য অধিকার আইনের প্রয়োগ যত বাড়বে স্বচ্ছতা তত নিশ্চিত হবে, দুর্নীতি রোধ হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। মরতুজা আহমেদ বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত ও বৈষম্যহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন। জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে রূপকল্প-২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের প্রতিটি মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি জনগণের কল্যাণে কাজ করেন সেটা বিশ^ব্যাপি স্বীকৃত।’ বাংলাদেশ বেতার, সিলেট-এর আঞ্চলিক পরিচালক মো. ফখরুল আলমের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপ-পরিচালক জুলিয়া জেসমিন মিলি, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সিলেট প্রতিনিধি আজিজ আহমদ সেলিম, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) সিলেট প্রতিনিধি মকসুদ আহমদ মকসুদ, সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি হাবিবুর রহমান তালুকদার, সিলেট জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্ত, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর প্রমুখ।বাসস
এ দেশে কোনো ষড়যন্ত্র টিকবে না
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পর্দার আড়ালে বিএনপি কী করছে, এর সবই সরকারের জানা আছে। এ দেশে কোনো ষড়যন্ত্র টিকবে না। মঙ্গলবার দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে যৌথ সভা শেষে তিনি এ কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, ইল্যান্ডের বৈঠক। আরো অনেক জায়গায় তারা ঘুরে বেড়াচ্ছে। ঢাকাতেও এখানে ওখানে গভীর রাতে বৈঠক চলছে। তারা মনে করছে, আমরা জানি না। সব খবরই জানা আছে। এবার কোনো ষড়যন্ত্র টিকবে না। দেশের জনগণ প্রতিহত করবে। সম্প্রতি বিএনপির একটি প্রতিনিধিদল অনেকটাই গোপনে ভারত সফর করে এসেছে। সে দেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর নেতারা বলে এসেছেন, তারা ভারতের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক চান। সেইসঙ্গে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানে ভারতের সহযোগিতাও চেয়েছে দলটি। বিএনপির প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি দেশ ছেড়েছিলেন ব্যাংকক যাওয়ার কথা বলে। তার সঙ্গে গিয়েছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কথা ছিল, তিনি থাইল্যান্ডে চিকিৎসা করাবেন। তবে পরে সেখান থেকে ফখরুল যান যুক্তরাজ্যে, নানা বিষয়ে আলোচনা করেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানের সঙ্গে। আর খসরু যান ভারতে। বিএনপি নেতাদের এই সফর নিয়ে কাদের বলেন, নির্বাচনী এলাকায় না গিয়ে বিদেশে গিয়ে ধর্ণা দিচ্ছে, নালিশ করছে, কূটনীতিকদের কাছে যাচ্ছে। এটা তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব। গত নির্বাচনে বিএনপির অংশ না নেয়ার বিষয়ে এক প্রশ্নে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, এটা কি আওয়ামী লীগের দোষ? শেখ হাসিনার দোষ? তারা নিজেরা সবকিছু উপেক্ষা করে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছে। তারা সরে গেলে দেশের সাংবিধানিক ধারাকে আমরা জলাঞ্জলি দিতে পারি না। এটা হচ্ছে বাস্তবতা। সেতুমন্ত্রী জানান, আগামী নির্বাচনেও বিএনপি অংশ নেবে কিনা এটা নিয়ে তাদের মাথাব্যথা নেই। আর আওয়ামী লীগ তাদের নির্বাচনে আসার পথে বাধা নয়।
বিশ্বের সেরা ১০ পোশাক কারখানার ৭টি বাংলাদেশে: তোফায়েল
ইউনাইটেড স্টেটস গ্রিন বিল্ডিং কাউন্সিল (ইউএসজিবিসি) কর্তৃক প্রত্যায়িত বিশ্বের সেরা ১০ পোশাক কারখানার মধ্যে ৭টি বাংলাদেশে অবস্থিত। এ পর্যন্ত ৬৭টি কারখানাকে ইউএসজিবিসি কর্তৃক সবুজ কারখানা হিসেবে প্রত্যয়ন করা হয়েছে। আরও প্রায় ৩০০টি সবুজ পোশাক কারখানা নির্মাণাধীন রয়েছে। বললেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। সোমবার (১৮ জুন) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকার দলীয় সংসদ সদস্য এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের লিখিত জবাবে এ তথ্য জানান তিনি। তোফায়েল আহমেদ বলেন, শ্রম আইন ও শ্রম বিধিমালা অনুসারে গ্রিন ফ্যাক্টরি সম্পর্কিত প্রত্যক্ষ কোন বিধান নেই। তবে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের জানুয়ারি, ২০১৭ থেকে ডিসেম্বর, ২০১৭ পর্যন্ত কমপ্লায়েন্স প্রতিবেদন অনুসারে ‘এ’ গ্রেডভুক্ত তৈরি পোশাক কারখানা ৪৩৬ এবং ‘বি’ গ্রেডভুক্ত তৈরি পোশাক কারখানার সংখ্যা ২২৮টি। তিনি বলেন, তৈরি পোশাক কারখানাসমূহ পরিবেশবান্ধব ও পর্যায়ক্রমে গ্রিন ফ্যাক্টরির ধারণাভুক্ত করে কমপ্লায়েন্স নিশ্চিতকরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্বের ২১টি মিশনে বাণিজ্যিক উইং রয়েছে। এর মধ্যে ৯টি মিশন চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম চার মাসের লক্ষ্য অর্জন করতে ব্যর্থ হয়েছে। রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো হতে উক্ত মিশনসমূহের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা তথা কমার্শিয়াল কাউন্সিলর/প্রথম সচিব/ইকোনোমিক কাউন্সিলরদেরকে স্ব স্ব বাজার বিশ্লেষণ করে ব্যর্থতার কারণ জানানোর জন্য লেখা হয়েছে, যাতে আমরা পরবর্তীতে উপযুক্ত পদক্ষেপ নিতে করতে পারি। এর মধ্যে কিছু জবাব পাওয়া গেছে এবং সে অনুযায়ী সরকারের প্রয়োজনীয় কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ঝুঁকি মোকাবেলায় ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সচেতন করতে সরকারের নানাবিধ পরিকল্পনা রয়েছে। ডব্লিউটিও সেল কর্তৃক প্রতি বছর ঝুঁকি মোকাবেলা বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে। চলতি অর্থবছরে ব্যবসায়ী, বাণিজ্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের ঝুঁকি মোকাবেলার জন্য ৬টি প্রশিক্ষণ কর্মসূচি এবং একাধিক কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।
ছুটি শেষে জনস্রোত এখন ঢাকামুখী
ডেস্ক রিপোর্ট :এবারের ঈদে সাপ্তাহিক ছুটির দুইদিনের সঙ্গে ঈদের ছুটি যুক্ত ছিল মাত্র একদিন। অর্থাৎ শুক্রবার (১৫ জুন) ও শনিবার (১৬ জুন) সাপ্তাহিক ছুটির মধ্যে ঈদের ছুটি পড়ায় রোববার (১৭ জুন) কেবল যুক্ত হয়েছিল ঈদুল ফিতরের তিনদিনের ছুটির সঙ্গে। ফলে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বাড়তি দুই দিনের ছুটি ভোগ করতে পারেননি। তাই ঈদের তৃতীয় দিনে অনেক সরকারি কর্মজীবী কর্মস্থলে ফিরেছেন। আর ঈদের আগের দিন বৃহস্পতিবার (১৪ জুন) যারা বাড়ি গিয়েছিলেন তারাও ফিরতে শুরু করেছেন। সব মিলিয়ে ছুটির আমেজের মধ্যেই সোমবার (১৮ জুন) থেকে শুরু হয়েছে কর্মস্থলে ফেরা। সে কারণেই ঈদের আমেজের মধ্যে জনস্রোত এখন কর্মস্থমুখী। বাস ও ট্রেনে মানুষ রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশে রাজশাহী ছেড়ে যাচ্ছেন। তবে বাস বা ট্রেনের কোথাও টিকিট নেই। যারা ফিরতি টিকিট কেটে রেখেছিলেন তারাই কেবল স্বস্তিতে ফিরতে পারছেন। অন্যরা বাস-ট্রেনের ছাদে বা ভেতরে দাঁড়িয়ে রওনা দিচ্ছেন নিজ নিজ কর্মস্থলের উদ্দেশে।
প্রবীণ সাংবাদিক মঈনুল আলম আর নেই
ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রামের এক সময়ের জনপ্রিয় সাংবাদিক মঈনুল আলম (৮১) আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজেউন)। সোমবার টরন্টোর সময় বিকাল ৫ টা ২৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৩টা) স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠা ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের শুরুর দিকে যাত্রা পথে অনন্য ভূমিকা ছিল এই প্রবীণ সাংবাদিকের। প্রায় পাঁচ দশক দাপটের সাথে লেখা লেখি ও সাংবাদিকতায় যুক্ত ছিলেন তিনি। পেশাগত কারণে ঘুরেছেন দেশ-বিদেশে। লিখে গেছেন সাংবাদিকতায় নিজের অভিজ্ঞতার কথামালাও। সাংবাদিকতায় তৃণমূল থেকে আন্তর্জাতিক পরিসরে কাজ করেন তিনি। মঈনুল আলমই বাংলাদেশের এক মাত্র সাংবাদিক যিনি Reagan- Gorbachev শীর্ষ বৈঠক কভার করেন। দারুণ শিল্পবোধ সম্পন্ন এই সাংবাদিক ছিলেন সুবক্তাও। দেশের প্রাচীনতম দৈনিক ইত্তেফাকের চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান ছিলেন দুইযুগেরও বেশি সময়। বাংলাদেশ প্রতিদিন
গাজীপুরে নির্বাচনী প্রচার শুরু
ঈদের আমেজ না কাটতেই সোমবার হতে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা। দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনী প্রচারণার প্রথমদিনে প্রার্থীরা কর্মী সমর্থকদের নিয়ে এলাকায় ঘুরে ঘুরে আনুষ্ঠাণিকভাবে নির্বাচনী প্রচার ও গণসংযোগ শুরু করেছেন। দিনভর পথসভা, বৈঠক ও গনসংযোগের মধ্য দিয়ে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। সকাল হতেই শুরু হয়েছে প্রার্থীদের সমর্থনে মাইকিং। গত ১৫ মে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও আদালতের নির্দেশে নির্বাচনী কার্যক্রম স্থগিত হয়ে যায়। পরবর্তীতে উচ্চ আদালত স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করায় প্রায় এক মাস ১২ দিন পর সোমবার থেকে শুরু হয় দ্বিতীয় দফায় আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা। তবে ভেঙ্গে যাওয়া নির্বাচনের মাঠ এখনো জমাতে পারছেন না প্রার্থীরা। শিল্পাঞ্চল হওয়ার কারণে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল হতে লোকজন গাজীপুরে এসে অস্থায়ীভাবে বসবাস করেন এবং এখানকার বিভিন্ন মিল কারখানায় চাকুরি করেন। এদের মধ্যে উল্লেখ যোগ্য সংখ্যক লোকজন এ সিটি কর্পোরেশনের ভোটার। রবিবার সরকারী ছুটি শেষ হলেও সোমবার পর্যন্ত প্রায় সবক’টি মিল কারখানা বন্ধ রয়েছে। এসব কারখানা প্রতিষ্ঠাণের কর্মী ও তাদের পরিবারের সদস্যরা ঈদের ছুটি কাটাতে গ্রামের বাড়িতে গিয়েছেন। তারা ছুটি কাটিয়ে ফিরে না আসায় এখনও পর্যন্ত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বিরাজ করছে ঈদের ছুটির আমেজ। ফলে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন এলাকা এখন অনেকটাই ফাঁকা ও নির্জীব। তাই অনেকটা খালি মাঠেই শুরু হয়েছে নির্বাচনী প্রচারণা। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী প্রার্থীদের প্রচারণা কার্যক্রম বন্ধ থাকায় প্রার্থীরা পবিত্র রমজান মাসে ইফতার মাহফিল আয়োজন করে ঝিমিয়ে পড়তে থাকা কর্মী, সমর্থক ও ভোটারদের চাঙ্গা রাখার চেষ্টা করেছেন। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে প্রচারণার প্রথমদিনেই সোমবার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দুই মেয়র প্রার্থী ১৪ দলীয় জোটের আওয়ামীলীগ মনোনীত (নৌকা) মোঃ জাহাঙ্গীর আলম ও ২০ দলীয় জোটের বিএনপি মনোনীত (ধানের শীষ) হাসান উদ্দিন সরকার নির্বাচনী প্রচারণা ও জনসংযোগে জোরেসোরে নেমে পড়েন। নির্বাচনে সমান পাল্লা দিয়ে অন্য প্রার্থীরাও তাদের কার্যক্রম শুরু করেছেন। প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকদের পদচারণায় সরব হয়ে উঠছে গাজীপুর।
নতুন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ১৫তম প্রধান হিসেবে তিন বছরের জন্য নিয়োগ পেয়েছেন লে. জে. অাজিজ অাহমেদ। তিনি জেনারেল হিসাবে জেনারেল অাবু বেলাল শফিউল হকের স্থলাভিষিক্ত হবেন অাগামী ২৫ জুন। আজ সোমবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. আবু বক্কর সিদ্দিক স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিএ-২৪২৪ লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ আহমেদ, বিজিবিএম, পিবিজিএম, বিজিবিএমএস, পিএসসি, জি কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেলকে ২৫ জুন অপরাহ্ন থেকে জেনারেল পদে পদোন্নতি দিয়ে প্রতিরক্ষা বাহিনীর সমূহের প্রধানদের আইন, ২০১৮ অনুসারে তিন বছরের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রধান পদে নিয়োগ প্রদান করা হলো। অাইএসপিআর পরিচালক লে. কর্নেল অালমগীর কবীর নিশ্চিত করেছেন যে, ২৫ জুন অপরাহ্ন থেকে সেনা প্রধান হবেন জেনারেল অাজিজ অাহমেদ। লে. জে. অাজিজ অাহমেদ এর আগে ২০০৯ সালে বিজিবিতে ঢাকা সেক্টরে প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে ব্রিগেডিয়ার পদে পদোন্নতি নিয়ে কুমিল্লা সেনানিবাসে স্থলাভিষিক্ত হন। সেখানে তিনি মেজর জেনারেল পদোন্নতি প্রাপ্ত হয়ে কুমিল্লা সেনানিবাসে জিওসি দায়িত্ব পালন করেন। ২০১২ সালে তিনি বিজিবির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালে লে. জে. পদে পদোন্নতি পান। এরপর তিনি আরডকের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সেখান থেকে তিন মাস আগে সেনাবাহিনীর কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল হিসেবে নিযুক্ত হন তিনি। রাজধানীর মোহাম্মদপুরে নুরজাহান রোডে তার বাড়ি। তার বাবা আবদুল ওয়াদুদ ছিলেন বিমান বাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা।

জাতীয় পাতার আরো খবর