শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে দ্য গার্ডিয়ানের রিপোর্ট
বাংলাদেশের মাদক বিরোধী অভিযানকে ফিলিপাইনের মতো বলে বর্ণনা করেছে বৃটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। অনলাইন দ্য গার্ডিয়ানের রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যেই মাদকবিরোধী অভিযানে নিহত কয়েকজনকে নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। একজনের পরিবার দাবি করেছেন, তার নিহত স্বজন বিরোধীদলের কর্মী ছিলেন। তিনি কখনোই মাদক ছুঁয়ে দেখেন নি। এই পরিবারসহ আরো কয়েকটি পরিবার বলেছে, মৃতদেহ উদ্ধারের কয়েক ঘণ্টা আগে এসব মানুষকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। এরপর যা ঘটে, কর্তৃপক্ষ তাকে রাত্রিকালীন বন্দুকযুদ্ধ বলে উল্লেখ করছে। অবৈধ মাদকের রমরমা ব্যবসা, বিশেষত মেথামফেটামাইন বা ইয়াবার ব্যবসা বন্ধ করতে গত সপ্তাহে বাংলাদেশ এই অভিযান শুরু করে। উত্তেজনা সৃষ্টিকারী এই মাদক সাধারণত প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। কর্তৃপক্ষের হিসাব অনুযায়ী, গত বছরে ৩০ কোটি ইয়াবার পিল বাংলাদেশে পাচার করা হয়েছে। এর জন্য রাখাইনে সেনাবাহিনীর নির্যাতনে পলায়নপর রোহিঙ্গা শরণার্থী ও তাদের বহন করে বাংলাদেশে নিয়ে আসা জেলেদের দায়ী করা হয়েছে। গত সপ্তাহে মাদকবিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকেই প্রতিদিন মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বৃহস্পতিবার সকালে ৯ মাদক ব্যবসায়ীকে হত্যা করা হয়। এতে ১০ দিনে মৃতের সংখ্যা ৫২ জনে পৌঁছায়। নিহতদের মধ্যে একজনের নাম আমজাদ হোসেন। পুলিশ বলছে, তাকে নিয়ে পুলিশ নেত্রোকোনার একটি মাদকের আস্তানায় অভিযান চালায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশ কর্মকর্তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। উভয় পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময় হলে আমজাদ গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন। নেত্রকোনা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম বলেন, তার বিরুদ্ধে হত্যা, সহিংসতা ও মাদক সংক্রান্ত ১৪টি মামলা রয়েছে। সম্প্রতি গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করি। পরে তার সহযোগীরা আমাদের ওপর গুলিবর্ষণ করে। এসময় সে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। তবে আমজাদের ভাই মাহিদ আহমেদ আনসারি বলেন, আমজাদ মাদক ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন না। তথাকথিত বন্দুকযুদ্ধের কয়েক ঘণ্টা আগে পুলিশ তাদের বাড়িতে অভিযান চালায়। হঠাৎ চালানো এই অভিযানে আমার ভাইকে ব্যাপক মারধর করা হয়। তার বিরুদ্ধে মাদক বিক্রির অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন। তাকে হত্যা করা হয়েছে শুধু এ কারণে যে, সে বিরোধী দলের ছাত্র সংগঠনের একজন জনপ্রিয় কর্মী ছিল। তিনি বলেন, আমজাদের বিরুদ্ধে করা মামলাগুলো এ বছরের শেষের দিকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া নির্বাচন উপলক্ষে বিরোধীদলীয় রাজনৈতিক কর্মীদের উদ্দেশ্যমূলক হয়রানির অংশ। গার্ডিয়ান আরো লিখেছে, অনেক অভিযান র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটলিয়ান (র‌্যাব) দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। র‌্যাবের অভিযানে শুক্কুর আলী নিহত হয়। র‌্যাবের দাবি, শুকুর কুখ্যাত ইয়াবা ও ভাং ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে অন্তত ১০টি মামলা রয়েছে। র‌্যাবের বিবৃতি অনুযায়ী, র‌্যাব কর্মকর্তারা চট্টগ্রামের একটি মাদকের আস্তানায় অভিযান চালায়। এ সময় তারা সশস্ত্র প্রতিরোধের সম্মুখীন হন। উভয়পক্ষের গুলিবিনিময় শেষে ঘটনাস্থল থেকে শুকুরকে মৃত উদ্ধার করা হয়। তার অন্য সহযোগীরা পালিয়ে যায়। কিন্তু শুকুরের স্বজনরা বলছেন, সোমবার মধ্যরাতের পর সাদা পোশাকে কয়েকজন ব্যক্তি তার বাড়িতে এসে তাকে তুলে নিয়ে যায়। নিহতের জামাই মোহাম্মদ সোহেল বলেন, কিছুক্ষণ পরই আমরা গুলির শব্দ শুনতে পাই। বাইরে এসে কিছুটা দূরে শ্বশুরকে পড়ে থাকতে দেখি। এটা পরিষ্কার যে, যারা তুলে নিয়ে গেছে, তারাই তাকে গুলি করে হত্যা করেছে। এটা সত্য না যে, তিনি মাদকের আস্তানায় ছিলেন। সেখানে গুলিবিদ্ধ হন। তিনি মাদক নিতেন। কিন্তু এটা সত্য না যে তিনি মাদক বিক্রি করতেন। ঢাকাভিত্তিক মানবাধিকার কর্মী পিনাকি ভট্টাচার্য বলেন, পুলিশের গুলি করে হত্যা করার উন্মত্ততা দেশজুড়ে আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। এগুলো পরিষ্কারভাবে বিচারবহির্ভূত হত্যা। যা মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন। এসব বাহিনীর অবাধ ক্ষমতা আছে। তারা বিচারক ও জল্লাদের ভূমিকা পালন করছে। এ ছাড়া মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে, এসব হত্যাকাণ্ডের তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। সংস্থাটির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক পরিচালক মীনাক্ষী গাঙ্গুলি বলেছেন, একজন মন্ত্রী তো মাদকাসক্তদের গুলি করার কথা বলেছেন। আর প্রধানমন্ত্রী এটাকে ইসলামী উগ্রপন্থিদের নিধনের প্রচেষ্টার সঙ্গে তুলনা করেছেন। নিরাপত্তা রক্ষাকারীরা যথাযথ জবাবদিহিতা ও নজরদারি ছাড়াই আরো একবার তাদের কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে, যা উদ্বেগের বিষয়। সূত্র: মানবজমিন
কেবিন বুকিংয়ের আবেদন শুরু ঢাকা-বরিশাল নৌরুটে
আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঢাকা-বরিশাল নৌরুটের বেসরকারি লঞ্চের স্পেশাল সার্ভিসের কেবিন বুকিংয়ের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। সরকারিভাবে এখনো কোনো ঘোষণা না আসলেও বরিশালের লঞ্চ মালিকরা এরই মধ্যে ঘরমুখো মানুষের জন্য কেবিন বুকিংয়ের এর কার্যক্রম শুরু করেছেন। লঞ্চ মালিকরা জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার (২৪ মে) সপ্তম রমজান থেকে ১৫ রমজান পর্যন্ত এ কেবিন বুকিং এর আবেদন গ্রহণ করা হবে। এদিকে, স্বচ্ছতার দোহাই দিয়ে গতবছর থেকে অনেকটা আগেভাগেই কেবিন বুকিংয়ের চাহিদাপত্র নেওয়া হলেও যাত্রীরা কবে নাগাদ হাতে টিকিট পাচ্ছেন সে বিষয়ে এখনো কিছু নিশ্চিত করেনি লঞ্চ মালিকরা। যদিও এর বাহিরে আগে আসলে আগে পাবেন এ ভিত্তিতেই কিছু লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রীদের হাতে সরাসরি টিকিট তুলে দিবেন এবারও, তবে সেই টিকেটের জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরও বেশ কয়েকদিন। বরিশালের লঞ্চ কাউন্টারগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ঘরমুখো যাত্রীদের জন্য বৃহস্পতিবার (২৪ মে) থেকে কেবিন বুকিং স্লিপ জমা নেওয়া শুরু করেছে ক্রিসেন্ট শিপিং লাইন্সের সুরভী লঞ্চ কর্তৃপক্ষ। যা চলবে ১০ রমজান পর্যন্ত। এদিকে, রোববার (২৭ মে) থেকে শুক্রবার (১ জুন) পর্যন্ত প্রাইম নেভিগেশনের সুন্দরবন লঞ্চ কর্তৃপক্ষ কেবিন বুকিংয়ের জন্য আবেদনপত্র গ্রহণ করবেন। একই সময়ে নিজাম শিপিং লাইন্সের অ্যাডভেঞ্চার লঞ্চ কর্তৃপক্ষ কেবিন বুকিংয়ের আবেদন গ্রহণ করবেন এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি লঞ্চ গুলোর কাউন্টারে টাঙিয়েছে। আবেদনগুলো বরিশাল ও ঢাকার স্ব-স্ব লঞ্চের কাউন্টারে জমা দিতে হবে, আবার ভাগ্যে যদি মেলে তবে কাউন্টার থেকেই টিকিট বুঝে নিতে হবে। এছাড়া কীর্তনখোলা, পারাবাত, টিপু, কালাম খান, কামাল, ফারহানসহ বরিশাল-ঢাকা রুটের বাকি লঞ্চ গুলোর টিকিট আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে সরাসরি যাত্রীদের মধ্যে বিক্রি করা হবে। তবে লঞ্চের টিকিট বিক্রি শুরু কবে থেকে সে বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। ধরাবাধা কোনো নিয়ম না থাকলেও সরাসরি টিকিট নিতে হলে যাত্রীদের সরাসরি বরিশাল ও ঢাকার স্ব-স্ব লঞ্চের কাউন্টার যেতে হবে। এছাড়া কোন কোন ক্ষেত্রে লঞ্চে হাজির হয়ে নিজেদের মোবাইল নম্বর দিয়ে কেবিন নেওয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন মালিকরা। সুরভী লঞ্চের বরিশাল কাউন্টারের ইনচার্জ নাইমুল ইসলাম জানান, ঈদে ঢাকা থেকে আসা ও বরিশাল থেকে যাওয়ার কেবিনের টিকিটের জন্য আবেদন গ্রহণ শুরু করেছেন তারা। আবেদন যাচাই-বাছাই করে যাত্রী সাধারণের মধ্যে টিকিট বিতরণ করা হবে। টিকিট বিতরণের তারিখ নির্ধারণ না হলেও যারা টিকিট পাবেন তাদের ফোনে জানিয়ে দেওয়া হবে। পারাবাত লঞ্চ কোম্পানির বরিশালের ইনচার্জ মো. সেলিম আহমেদ জানান, তাদের লঞ্চে কেবিনের জন্য আবেদন গ্রহণ করা হবে না। তবে নৌ-মন্ত্রণালয়, মালিক সমিতির ও বিআইডব্লিউটিএ এর যৌথ সভার পরে আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে টিকিট বিক্রি শুরু হবে। ১০ রমজান থেকে ১৫ রমজান পর্যন্ত তাদের লঞ্চের কেবিন বুকিংয়ের আবেদন গ্রহণ করা হবে এবং যাচাই-বাছাই শেষে মঙ্গলবার (৫ জুন) থেকে যাত্রীদের মধ্যে টিকিট বিতরণ শুরু করা হবে বলে জানান সুন্দরবন নেভিগেশনের পরিচালক আকিদুল ইসলাম আকেজ। আকেজ বলেন, কেবিনের চাইতে চাহিদা কয়েকগুণ বেশি থাকায় লটারির মাধ্যমে যাত্রীদের টিকিট দিতে হয়। এজন্য সবাই যে টিকিট পান এমনটাও নয়, তবে আমরা চাই সবাই যেন টিকিট পায়।
পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতার সঙ্গে আলাদা বৈঠক হবে শেখ হাসিনার
ভারত সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে আলাদা বৈঠক হবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এমনকি শুক্রবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনের পরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর যে বৈঠক হবে তাতেও যোগ দিতে পারেন মমতা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শান্তিনিকেতনে মমতা বলেছেন, বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন আছে। বাংলাদেশ থেকে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। দুই প্রধানমন্ত্রী থাকবেন। আমিও থাকব। কথা হবে। ওঁদের বিদায়ও জানাব। পরের দিন শেখ হাসিনার সঙ্গে আলাদা করেও কথা হবে। শুক্রবার প্রথমে সমাবর্তন, তারপর বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন সেরে বৈঠকে বসার কথা হাসিনা-মোদির। এক ঘণ্টার সেই বৈঠক একেবারেই একান্ত হবে বলে নির্ধারিত আছে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, বৈঠকে দু’দেশের কর্মকর্তারাও থাকবেন না। কিন্তু দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট নানা বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ এতটাই জড়িত যে, ছকের বাইরে হেঁটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডেকে নেওয়া হতে পারে বলে মনে করছিলেন কূটনীতিকদের একাংশ। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পৃথক বৈঠকে তিস্তা প্রসঙ্গ উঠবে না জানিয়ে মমতা বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে আমার সম্পর্ক সব সময় ভাল। হাসিনা যখন বিরোধী নেত্রী, তখন থেকে যোগাযোগ। দেখা হবে, ভাল লাগছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় তিস্তার পানিবণ্টন নিয়ে কথা হবে কিনা জানতে চাইলে মমতার জবাব, মনে হয় সে প্রসঙ্গ উঠবে না।
সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা জাতীয় কবির সমাধিতে
১১৯তম জন্মবার্ষিকীতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সর্বস্তরের মানুষ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত জাতীয় কবির সমাধিতে শুক্রবার (২৫ মে) সকালে রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ শ্রদ্ধা জানান। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানকের নেতৃত্বে কবির সমাধিতে শ্রদ্ধা জানায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। শ্রদ্ধা জানানো শেষে নানক বলেন, কাজী নজরুল ইসলামকে এদেশে এনেছিলেন বঙ্গবন্ধু, নাগরিকত্ব দিয়েছিলেন। কবি সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সবসময় জয়গান গেয়েছেন। এরপর পর্যায়ক্রমে জাতীয় কবির সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এরপর দলেরর মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে জাতীয় কবির সমাধিতে শ্রদ্ধা জানায় বিএনপি। এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে নজরুল প্রাসঙ্গিক। জাতীয় কবি আমাদের শিখিয়েছেন বিদ্রোহ, শিখিয়েছেন সাম্য। বর্তমান সরকার আজ দেশকে কারাগার বানিয়েছে। সকাল সাড়ে ৬টায় ঢাবি ভিসির পক্ষে কবির সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক কামাল উদ্দিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক আবদুস সামাদ, অধ্যাপক সৌমিত্র শেখর, রেজিস্টার এনামুজ্জামান, প্রক্টর একেএম গোলাম রাব্বানিসহ সব হল প্রভোস্টরা। সকাল ৭টায় কবিকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় তার পরিবারের সদস্যরা। এসময় উপস্থিত ছিলেন- কবির পুত্রবধূ উমা কাজী, উমা কাজীর নাতি দুর্জয় কাজী, জয়া কাজী ও দুর্জয় কাজীর স্ত্রী রাখসিনদা। এছাড়াও কবির সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় জাকের পার্টি। দলটির যুব ওলামা বিষয়ক সম্পাদক শরিফুল ইসলাম সাইফুল ও প্রেস সেক্রেটারি শামীম হায়দারের নেতৃত্বে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়।
অর্ধ শতাধিক নিহত ছয়দিনে কথিত বন্দুকযুদ্ধে
আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আজসহ ছয়দিনে অর্ধ শতাধিক মানুষ সন্দেহভাজন মাদক ব্যবসায়ী নিহত হলো। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ঢাকা, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, কক্সবাজার, ঝিনাইদহ, কুমিল্লা ও শেরপুরে আটজন নিহত হয়েছেন। তারা মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর: ঢাকা: রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাধীন বিজি প্রেস হাইস্কুল মাঠ এলাকায় র‍্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কামরুল ইসলাম (৪০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার এসআই মো. মিজানুর রহমান জানান, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় কামরুল ইসলামকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে রাত পৌনে ২টায় চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি আরো জানান, নিহত কামরুল মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। মহাখালীর দক্ষিণ পাড়া এলাকার বাসিন্দা নিহত কামরুলের মৃতদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। র‍্যাব জানায়, নিহত কামরুল ইসলাম তেজগাঁও রেললাইন বস্তি এবং মহাখালী সাততলা বস্তি এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। তার নামে বিভিন্ন থানায় ১৫টির বেশি মাদক ও অস্ত্র মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও বিপুল পরিমাণ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের সময় র‍্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন বলেও সূত্র জানায়। নেত্রকোনা: চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে নেত্রকোনায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে সন্দেহভাজন দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। গতকাল দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জেলা সদরের মদনপুর ইউনিয়নের মনাং বাজার বাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ময়মনসিংহ: শহরের পুরোহিতপাড়া রেল কলোনি এলাকায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রাজন নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল তল্লাশি করে ৪০০টি ইয়াবা, তিনটি গুলির খোসা, দুটি ধারাল অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত রাজন ময়মনসিংহের শীর্ষ মাদক সম্রাট। তার বিরুদ্ধে ময়মনসিংহ কোতুয়ালী মডেল থানায় মাদকসহ ৯টি মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ। কক্সবাজার: মহেশখালীতে সন্দেহভাজন ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে মোস্তাক আহামদ (৩৭) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রাত ১০টার দিকে বড়মহেশখালী ইউনিয়নের দেবেঙ্গাপাড়া পাহাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মোস্তাক আহামদ মুন্সিরডেইল গ্রামের বাসিন্দা। আগে ভোরে কক্সবাজার শহরের কলাতলী থেকে ইয়াবা ও অস্ত্রসহ গুলিবিদ্ধ মোহাম্মদ হাসান নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাছাড়া, গতকাল রাত ৯টার দিকে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আকতার কামালকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোক পরিচয়ে আটক করেছে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। টেকনাফ থানার পুলিশ জানিয়েছে, আকতার কামাল ইয়াবা ব্যবসায়ী ও মানব পাচারকারী চক্রের সদস্য। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। ঝিনাইদহ: জেলার কালীগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। তার নাম জাহাঙ্গীর আলম ওরফে শামিম (৪৫)। গতকাল রাত ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ দাবি করেছে, নিহত ব্যক্তি এলাকার শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। কুমিল্লা: বুড়িচংয়ে ডিবি পুলিশ ও থানা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কামাল নামের এক সন্দেহভাজন মাদকব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। নিহত কামাল আদর্শ সদর উপজেলার রাজমঙ্গলপুর গ্রামের বাসিন্দা। শেরপুর: পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে শেরপুরে একজন নিহত হয়েছেন। তার নাম আজাদ। তিনি মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। গতকাল দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে জেলা সদরের সাতপাকিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আজাদ ওরফে কালু ডাকাত শেরপুর-জামালপুর সড়কে সংঘটিত ডাকাতির সঙ্গেও জড়িত ছিলেন বলে জানায় পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মাদকসহ ডাকাতির বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। পুলিশ আজাদের লাশ উদ্ধার করে শেরপুর সদর থানায় নিয়ে এসেছে।
কলকাতা গেলেন দুদিনের সফরে প্রধানমন্ত্রী
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে দুদিনের সরকারি সফরে কলকাতা গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার (২৫ মে) সকালে বাংলাদেশ বিমানের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে শাহজালাল বিমানবন্দর ছেড়ে গেছে। কলকাতায় নেতাজী সুবাস চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হেলিকপ্টারে কলকাতা থেকে প্রায় ১৮০ কিলোমিটার উত্তরে বীরভূম জেলার বোলপুর শান্তিনিকেতনে যাবেন। সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন এবং আসানসোলে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানসূচক ডক্টরেট অব লিটারেচার (ডিলিট) গ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সফরে শান্তিনিকেতনে নবনির্মিত বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন করবেন। অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উপস্থিত থাকবেন। এরপর সেখানে দুই প্রধানমন্ত্রীর দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্বভারতীর উপাচার্য প্রফেসর সবুজ কলি সেন শান্তিনিকেতনে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাবেন এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্র ভবনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাবেন। এরপর শেখ হাসিনা সমাবর্তনে যোগ দেবেন। অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়টির আচার্য ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি উপস্থিত থাকবেন। এরপর দুই প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ ভবন উদ্বোধন করবেন। এ ভবনে নির্মিত হয়েছে আধুনিক থিয়েটার, প্রদর্শনী কক্ষ ও বিশাল লাইব্রেরি। সেই লাইব্রেরিতে রয়েছে সাহিত্য, সংস্কৃতি, ইতিহাস, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও ভারতের স্বাধীনতার ইতিহাস এবং বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সম্পর্ক সম্পর্কিত গ্রন্থ। তাছাড়া ভবনের প্রবেশ দ্বারের দুই প্রান্তে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ম্যুরাল স্থাপন করা হয়েছে। ওই ভবন উদ্বোধনের পর এরপর শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদীর মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এখান থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কলকাতা ফিরে এসে জোড়াসাকো ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন করবেন। সন্ধ্যায় হোটেল তাজ বেঙ্গলে কলকাতা চেম্বার নেতারা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। শনিবার প্রধানমন্ত্রী আসানসোলে যাবেন। সেখানে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় বিশেষ সমাবর্তনে শেখ হাসিনাকে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রি প্রদান করবে। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভাষণ দেবেন। পরে মেধাবী শিক্ষার্থীদের হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেবেন। ​ অনুষ্ঠানে পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ও শিক্ষামন্ত্রী বক্তৃতা করবেন। এরপর তিনি কলকাতায় ফিরে নেতাজী সুবাস বসু জাদুঘর পরিদর্শন করবেন। প্রধানমন্ত্রী শনিবার রাতে দেশে ফিরবেন।
এমপিদের সক্ষমতা বাড়াতে সহযোগিতার আশ্বাস
সংসদ সদস্য এবং সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের সক্ষমতা বাড়াতে সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছে ওয়েস্টমিনিস্টার ফাউন্ডেশন ফর ডেমোক্রেসি (ডব্লিউএফডি)। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে বৃহস্পতিবার তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করে এই আগ্রহের কথা জানান সংস্থাটির এশিয়া ও লাতিন আমেরিকার সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডেভিড এ ট্রিবলি। সাক্ষাৎকালে তারা সংসদীয় গণতন্ত্র, সংসদীয় কার্যক্রম ও উন্নয়ন, সংসদ সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ প্রভৃতি বিষয়ে আলোচনা করেন। এ সময় ওয়েস্টমিনিস্টার ফাউন্ডেশন ফর ডেমোক্রেসির প্রকল্প সমন্বয়ক কাজী শহীদুল হক ও সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ডেভিড এ ট্রিবলির আগ্রহ প্রকাশে ধন্যবাদ জানিয়ে স্পিকার বলেন, সংসদ সদস্য ও সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ সংসদীয় গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে পারে। ডব্লিউএফডি সংসদীয় চর্চা উন্নয়নের মাধ্যমে গণতন্ত্রকে সুসংহত করার লক্ষ্যে কার্যক্রম পরিচালনা করছে যা সত্যিই প্রশংসনীয়। এ সময় তিনি সংসদীয় গবেষণা, নারী সংসদ সদস্যদের উন্নয়ন ও জলবায়ুর পরিবর্তনে কাজ করার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে এগিয়ে যাচ্ছে এবং স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে প্রবেশ করেছে। তিনি বলেন, সরকার ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। সকল সূচকে বাংলাদেশ এখন শক্ত ভীতের ওপর অবস্থান করছে। অসমতা দূরীকরণ, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী ও নারীর ক্ষমতায়নে অর্থ বছরের বাজেটে বিশেষ বরাদ্দ থাকছে।
মুক্ত করতে হবে দেশকে তামাকের অভিশাপ থেকে
স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, তামাক জাতীয় জীবনের অভিশাপ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অর্জন এবং তা ধরে রাখতে হলে দেশকে তামাক নামক অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হবে। তামাকের ব্যবহার হ্রাস করার জন্য মানবিক মূল্যবোধ জাগ্রত করে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা অপরিহার্য। বৃহস্পতিবার পল্লী উন্নয়ন কর্মসহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) মিলনায়তনে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম তামাক নিয়ন্ত্রণ পদক ২০১৮ প্রদান শীর্ষক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অবঃ) আব্দুল মালিক। সভাপতিত্ব করেন পিকেএসএফ-এর সভাপতি ও জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম-এর আহ্বায়ক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। জাহিদ মালেক বলেন, দেশে প্রতি বছর বহু মানুষ তামাকজনিত কারণে মারা যায়। বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃত। তবে এই সফলতা ধরে রাখা সম্ভব হবে না যদি তামাক ও তামাকজাত পণ্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা না যায়। তিনি বলেন, সরকার মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে, সেই কথা উল্লেখ করে তামাকের বিরুদ্ধেও একই ধরনের উদ্যোগ নেয়ার আহ্বান জানান তিনি। বিশেষ অতিথি ব্রিগেডিয়ার (অবঃ) আব্দুল মালিক বলেন, তামাক জাতীয় জীবনে অভিশাপ। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতি অর্জন এবং তা ধরে রাখতে হলে দেশকে তামাক নামক অভিশাপ থেকে মুক্ত করতে হবে। ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, তামাকের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করা, মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি করা, তামাক নিয়ন্ত্রণে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে অ্যাডভোকেসি করা এই তিনটি উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে কাজ করে যাচ্ছে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম। তামাক ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে দল মত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। স্বাগত বক্তব্যে পিকেএসএফ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল করিম বলেন, টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ট-৩ অর্জন, অর্থাৎ বাংলাদেশের সকলের সুস্বাস্থ্য ও সুস্থ জীবন নিশ্চিত করার জন্য তামাকের ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি। অনুষ্ঠানে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম-এর সমন্বয়কারী ড. মাহফুজুর রহমান ভূঞা প্ল্যাটফর্মের কার্যক্রম ও গঠনের ওপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন। এছাড়া তামাক চাষ নিয়ন্ত্রণে পিকেএসএফ কর্তৃক গৃহীত কার্যক্রমের ওপর একটি উপস্থাপনা প্রদান করা হয়। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে তামাক নিয়ন্ত্রণে কাজ করার লক্ষ্যে একটি অভিন্ন প্ল্যাটফর্ম জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্ম গঠন করা হয়। তামাক নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে এমন সংগঠনসমূহের সমন্বিত উদ্যোগে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ, সভাপতি, পিকেএসএফ-কে জাতীয় তামাক বিরোধী প্ল্যাটফর্মের আহ্বায়ক এবং ডা. মাহফুজুর রহমান ভূঁঞা, গ্রান্টস ম্যানেজার, ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিড্স, বাংলাদেশ ও ভাইস চেয়ারপার্সন, অধীর ফাউন্ডেশনকে প্ল্যাটফর্মের সমন্বয়কারী হিসেবে নির্বাচন করা হয়।

জাতীয় পাতার আরো খবর