অর্থনৈতিক উন্নয়নের সব সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ়: স্পিকার
অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। বর্তমান সরকার উন্নয়নসুবিধা তৃণমূলে পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এই উন্নয়নসুবিধা সারাদেশের জনগণ ভোগ করছে। আজ সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের সব সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান সুদৃঢ়। সোমবার (২৩ জুলাই) সকালে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী রংপুর জেলা পরিষদ কমিউনিটি সেন্টারে জেলা পরিষদের নিজস্ব তহবিলের আওতায় ‘দুস্হ মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থানের জন্য সেলাই প্রশিক্ষণ শেষে বিনামূল্যে সেলাই মেশিন প্রদান’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, দেশের সামজিক উন্নয়নের জন্য নারীর ক্ষমতায়নের বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বে নারী ক্ষমতায়নে রোল মডেল। ক্ষেত্রমতো সুযোগ তৈরি করে দিলে নারীরা কাঙ্ক্ষিত অবদান রাখতে পারে। উপযুক্ত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি করে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করা সম্ভব। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ছাফিয়া খানমের সভাপতিত্বে এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহিলা এমপি এডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, আওয়ামী লীগ রংপুর জেলা শাখা সাধারণ সম্পাদক আলহাজ এড. রেজাউল করিম রাজু, জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী নাজমূল হক প্রমুখ। স্পিকার বলেন, আজ দেশে প্রায় ১০ লাখ নারীকে বিধবা ভাতা দেয়া হচ্ছে এবং এর সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে। একজন মা সন্তান প্রসবকালীন সময়ে যেন কষ্ট না পান সেজন্য স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের কর্মিরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এ কারণে বর্তমানে দেশে মাতৃ ও শিশুমৃত্যুর হার কমে এসেছে। মহিলাদের জন্য সেলাই প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে যাতে মহিলারা আত্মকর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেন। শুধু তাই নয়, যেসব মহিলা শতরঞ্জি ও খামার ব্যবসা করেন তাদেরকেও প্রশিক্ষণ প্রদানসহ অর্থ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। এর পর সোমবার দুপুরে পীরগঞ্জের কুমেদপুর ইউনিয়নের রসুলপুর মাহতাবিয়া স্কুল এন্ড কলেজে অনুষ্ঠিত পীরগঞ্জে সফরের ২য় দিনে মা সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার বলেন, সারাদেশে বর্তমান সরকার উন্নয়নের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। ভৌত ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের পাশাপাশি মানবসম্পদ ও নারীর উন্নয়নে বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার ফলে বেকারত্ব হ্রাস পেয়েছে এবং নারী শিক্ষার প্রসার ঘটেছে। নারীরা অর্থনীতিতে অসামান্য অবদান রাখছে। স্পিকার আরও বলেন, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে প্রবেশ করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনগণের সমর্থন নিয়ে অর্থনৈতিক মুক্তির মাধ্যমে ২০৪১ সালের মধ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। কুমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি চেয়ারম্যান মোশফাক হোসেন ফুয়াদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা ও জয়পুরহাট জেলার সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি উম্মে কুলসুম স্মৃতি, পীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম, পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোনায়েম হোসেন সরকার মানু, রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান রণি, কুমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, রসুলপুর মাহতাবিয়া স্কুল এন্ড কলেজের সভাপতি এড. মোস্তফা জামান দোলন প্রমুখ। বিকেলে স্পিকার বড়আলমপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপস্থিত থেকে অপর এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শীলাবৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও প্রতিষ্ঠানের মাঝে ঢেউটিন ও নগদ অর্থ বিতরণ করেন। অালোকিত বাংলাদেশ
নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার
অনলাইন ডেস্ক: নিখোঁজ হওয়ার একদিন পর ঢাকার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের লাশ মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (২৩ জুলাই) সকাল সাড়ে আটটায় গজারিয়া থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। রোববার ভোররাত থেকে ওই ছাত্র নিখোঁজ ছিলেন। নিখোঁজ ছাত্রের নাম মো. সাইদুর রহমান ওরফে পায়েল (২১)। তিনি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ পঞ্চম সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। বাড়ি চট্টগ্রাম নগরের হালিশহর এলাকার আই ব্লকে। সাইদুরের বাবা গোলাম মাওলা ও একমাত্র ভাই গোলাম মোস্তফা কাতারপ্রবাসী। চট্টগ্রাম সাইদুরের মা কোহিনুর বেগম থাকেন। একমাত্র বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সাইদুর গত শনিবার রাত ১০টার দিকে হালিশহরের বাসা থেকে বের হন। এক ঘণ্টা পর নগরের এ কে খান গেট এলাকায় হানিফ পরিবহনের কাউন্টার থেকে টিকিট কিনে তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওনা হন। তার টিকিট নম্বর এ-৩। তার এক সহপাঠীও ওই বাসের যাত্রী ছিলেন। গতকাল ভোররাত সাড়ে চারটায় বাসটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে মদনপুর ক্যাসেল হোটেলের সামনে যানজটে পড়ে। তখন টয়লেটের প্রয়োজনে সাইদুর বাস থেকে নামেন। তবে যানজট কেটে গেলে হানিফ পরিবহনের বাসের চালক সাইদুরকে না উঠিয়েই দ্রুত গাড়ি চালিয়ে চলে যান। ওই সময় সাইদুরের সহপাঠী ঘুমিয়ে ছিলেন। সাইদুরের মামা কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘ভোরে গাড়ি থেকে নেমে যাওয়ার পর সাইদুরের সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। ওই দিন সকাল ছয়টায় আমার বোন কোহিনুর বেগম সাইদুরের মোবাইলে কল দেন। ফোন ধরেন বাসে থাকা তার বন্ধু। এরপর আমার ভাই মো. গোলাম সরওয়ার্দী নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।’ কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, ‘বাসচালকের ভুলে আমার ভাগনে গাড়িতে উঠতে ব্যর্থ হন। মুন্সিগঞ্জের এক পুলিশ কর্মকর্তা আমার ভাগ্নের মরদেহ পাওয়ার সংবাদটি জানান।’ গজারিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আসাদুজ্জামান তালুকদার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সোমবার সকাল সাড়ে আটটায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বাপের চর সেতুর নিচে ফুলদী নদীতে ভাসমান অবস্থায় এক তরুণের মৃতদেহ পাওয়া যায়। মৃত যুবকের পকেটে একটি মানিব্যাগ ছিল। এতে লন্ড্রির রসিদ এবং জন্ম নিবন্ধন নম্বর ছিল। এগুলোর ভিত্তিতে নিহত যুবকের আত্মীয়ের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। আসাদুজ্জামান বলেন, মৃত ব্যক্তির নাক ও মুখে রক্ত ছিল। আর গলার ডান পাশ ও পেটের দুই পাশে কালো দাগ ও ক্ষত রয়েছে। সুরতহাল করে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।
ভুটানে ২০ কোটি টাকার ওষুধ দিচ্ছে বাংলাদেশ
অনলাইন ডেস্ক: ভুটানের জনগণের জন্য এক বছরের প্রয়োজনীয় ওষুধ পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ। আগামী সেপ্টেম্বর থেকে তিন মাসে ২০ কোটি টাকার ২৫৮ প্রকার ওষুধ সে দেশে পাঠানো হবে। সোমবার (২৩ জুলাই) সচিবালয়ে এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম আনুষ্ঠানিকভাবে ঢাকায় নিযুক্ত ভুটানের রাষ্ট্রদূত সোনাম টোবডেন রাবগির কাছে এই ওষুধের টোকেন হস্তান্তর করেন। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভুটান সফরের সময় সে দেশে ওষুধের প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করে এক বছরের প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর সেই প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আগামী সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর- এই তিন মাসে এই ওষুধগুলো পাঠানো হবে। সড়কপথে বাংলাদেশ বুড়িমারি পর্যন্ত ট্রাকে করে ওষুধ পৌঁছে দেবে। এর পর ভুটান বুড়িমারি থেকে ওষধুগুলো নিয়ে যাবে। বাংলাদেশ ওষুধ শিল্প মালিক সমিতির তত্ত্বাবধানে ৭১টি কোম্পানি এই ওষুধগুলো সরবরাহ করেছে। ওষুধের টোকেন হস্তান্তর অনুষ্ঠানে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বন্ধুপ্রতিম রাষ্ট্র ভুটান সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের দেশে ওষুধের প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করে এক বছরের ওষুধ অনুদান হিসেবে সরবরাহ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, এই ওষুধ সরবরাহের মধ্যদিয়ে দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে। ভুটান হচ্ছে সেই দেশ যে দেশ আমাদের স্বাধীনতার স্বীকৃতি প্রদানকারী প্রথম দেশ। ভুটানের জনগণের জন্য এটা আমাদের দেশের জনগণের শুভেচ্ছা। এ অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জিএম সালেহ উদ্দিন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অালোকিত বাংলাদেশ
ঢাকায় ডিসি সম্মেলন শুরু হচ্ছে মঙ্গলবার
অনলাইন ডেস্ক: জেলা প্রশাসক সম্মেলন (ডিসি সম্মেলন) আগামীকাল মঙ্গলবার ঢাকায় শুরু হচ্ছে। তিন দিনব্যাপী এই সম্মেলন ২৬ জুলাই শেষ হবে। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে সাড়ে ১১টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের করবী হলে মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে। আজ সোমবার দুপুরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সভাকক্ষে এ উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) এন এম জিয়াউল আলম এ কথা জানান। তিনি জানান, আগামী ২৪ থেকে ২৬ জুলাই ঢাকায় তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৪ জুলাই সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে এই সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। তিনি বলেন, ডিসি সম্মেলনে মোট ২২টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়সহ অংশগ্রহণকারী ৫২টি মন্ত্রণালয়ের ১৮টি কার্য অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও ডিসিদের পাঠানো ৩৪৭টি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করা হবে। এবারও সম্মেলনে মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সিনিয়র সচিব ও সচিবরা অংশ নেবেন। কার্য অধিবেশনগুলোতে সভাপতিত্ব করবেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। মাঠ প্রশাসনকে চাঙ্গা রাখা, উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নে গতি আনা, তৃণমূল পর্যায়ে সরকারের নীতি ও দর্শনের বাস্তবায়ন এবং পর্যালোচনা, সরকারের নীতিনির্ধারক ও জেলা প্রশাসকদের মধ্যে সরাসরি মতবিনিময় এবং প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেয়ার জন্য প্রতি বছর জেলা প্রশাসক সম্মেলনের আয়োজন করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এ বছর ডিসি সম্মেলনের আলোচ্য বিষয় প্রসঙ্গে জিয়াউল আলম বলেন, এ বছর ডিসি সম্মেলনের প্রধান প্রধান অলোচ্য বিষয়ের মধ্যে রয়েছে- ভূমি ব্যবস্থাপনা, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যক্রম জোরদারকরণ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচি বাস্তবায়ন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যবহার এবং ই-গভর্নেন্স, শিক্ষার মান উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ, স্বাস্থ্যসেবা ও পরিবার কল্যাণ, পরিবেশ সংরক্ষণ ও দুষণরোধ, ভৌত অবকাঠামোর উন্নয়ন এবং উন্নয়নমূলক কার্যক্রমের বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও সমন্বয়। এর আগে ২০১৭ সালের সম্মেলনে জেলা প্রশাসকদের কাছ থেকে ৫২টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগ সম্পর্কিত ৩৪৯টি প্রস্তাব দিয়েছিলেন ডিসিরা। এর মধ্যে ১৫০টি স্বল্পমেয়াদি, ১৩২টি মধ্যমেয়াদি এবং ১৪৭টি দীর্ঘমেয়াদি মোট ৪২৯টি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
সরকারি কর্মকর্তাদের জনগণের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
অনলাইন ডেস্ক: দেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করার লক্ষ্যে সরকারি কর্মকর্তাদের জনগণের কল্যাণে কাজ করতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত জনপ্রশাসন পদক-২০১৮ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিম্ন আয়ের দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে আমাদের দেশ। আর এটা সম্ভব হয়েছে সরকারের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রচেষ্টার ফলে। দেশকে দারিদ্র্যমুক্ত সরকার করার লক্ষ্য সরকারের যে পদক্ষেপ, তা বাস্তবায়নে সরকারি কর্মকর্তাদেরও জনগণের কল্যাণে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সরকার তৃণমূল মানুষের উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করছে বলেই দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হচ্ছে। গণতন্ত্রের ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে দেশের উন্নয়ন হয়। আমরা এগিয়ে যেতে চাই, সমৃদ্ধ হতে চাই। এই অগ্রযাত্রা যেন আর থেমে না যায়। আর তাই সরকারী কর্মকর্তাদের উদ্ভাবনী শক্তি নিয়ে নিজ নিজ ক্ষেত্রে অবদান রাখতে হবে। প্রসঙ্গত, জনসেবায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সরকারের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও প্রতিষ্ঠান জনপ্রশাসক পদক প্রদান অনুষ্ঠানে ৩৯ ব্যক্তি ও ৩ প্রতিষ্ঠানকে পদক প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী।
সোয়া কোটি গবাদি পশু কোরবানিযোগ্য
অনলাইন ডেস্ক: গরু, মহিষ, ছাগল, ভেড়া মিলিয়ে দেশে এখন এক কোটি ১৬ লাখ কোরবানিযোগ্য গবাদি পশু রয়েছে বলে জানিয়েছে সরকার। প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় রবিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, কোরবানিযোগ্য এসব গবাদিপশুর মধ্যে ৪৪ লাখ ৫৭ হাজার গরু ও মহিষ এবং ৭১ লাখ ছাগল ও ভেড়া রয়েছে। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের হিসাবে, সারা বছরে দেশে প্রায় দুই কোটি ৩১ লাখ ১৩ হাজার গরু, মহিষ, ছাগল ও ভেড়া জবাই হয়। এর অর্ধেকই জবাই হয় কোরবানির ঈদের সময়। গত বছর ঈদের আগে দেশে কোরবানিযোগ্য গবাদিপশু ছিল এক কোটি চার লাখ ২২ হাজার। সরকার গত কয়েক বছর ধরে বলে আসছে, দেশি গরু-ছাগলেই কোরবানির মওসুমের চাহিদা মেটানোর সক্ষমতা বাংলাদেশের তৈরি হয়েছে। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে সরকার এবার কোরবানির ঈদের ছুটি রেখেছে ২১ থেকে ২৩ আগস্ট। অর্থাৎ, ১২ আগস্ট জিলহজ মাসের চাঁদ উঠলে ২২ আগস্ট বাংলাদেশের মুসলমানরা কোরবানির ঈদ উদযাপন করবে। প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঈদ সামনে রেখে সম্প্রতি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিবের সভাপতিত্বে কোরবানির হাটে ভেটেরিনারি সেবাসংক্রান্ত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এবারের সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে অবহিত করা হয়। সভায় জানানো হয়, কোরবানির পশুর প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য প্রতিটি ছোট হাটে একটি এবং বড় হাটে দুটি করে এবং ঢাকার গাবতলী হাটে চারটি মেডিকেল টিম থাকবে। প্রতিটি টিমে একজন ভেটেরিনারি সার্জন, একজন টেকনিক্যাল কর্মী (ভেটেরিনারি ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট বা উপজেলা প্রাণিসম্পদ সহকারী (ইউএলএ) এবং শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন করে ইন্টার্ন ভেটেরিনারি সার্জন থাকবেন। গত বছর সারাদেশে দুই হাজার ৩৬২টি কোরবানির হাটে এক হাজার ১৯৩টি মেডিকেল টিম কাজ করে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গবাদিপশুর খামারগুলোতে স্বাস্থ্যহানিকর রাসায়নিক দ্রব্যের’ ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে এবারও পদক্ষেপ নেবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। প্রাণিস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর স্টেরয়েড ও হরমোন জাতীয় ওষুধের বিক্রি, সরবরাহ, নিয়ন্ত্রণ, সীমান্তবর্তী এলাকায় এসব দ্রব্য চোরাইপথে প্রবেশ বন্ধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তদারকি ছাড়াও জেলা ও উপজেলা প্রশাসন পদক্ষেপ নেবে। নির্দিষ্ট স্থানে কোরবানি করা, পশুবর্জ্য যত্রতত্র না ফেলা এবং কোরবানির আগে-পরে ঢাকা মহানগরীর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সহযোগিতায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেবে বলেও জানানো হয় সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।
তাজউদ্দীনের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী আজ
অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় নেতা, স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর বঙ্গতাজ তাজউদ্দীন আহমদের ৯৩তম জন্মবার্ষিকী সোমবার। তিনি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার দরদরিয়া (দারদরিয়া) গ্রামে ১৯২৫ সালের ২৩ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মৌলভী মো. ইয়াসিন খান ও মায়ের নাম মেহেরুন্নেছা খানম। তাজউদ্দীন আহমদ বাংলাদেশের রাজনীতিতে মেধা, দক্ষতা, যোগ্যতা, সততা ও আদর্শের অনন্য এক প্রতীক। মুসলিম লীগের কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার মাধ্যমে তার সক্রিয় রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়। ১৯৬৪ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৬৬ সালে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ক্ষমতা দখলকারী ঘাতকচক্র সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে। সেদিন তাজউদ্দীন আহমদকে গৃহবন্দি করা হয়। পরে তাকে জেলখানায় বন্দি করে রাখা হয়। একই বছরের ৩ নভেম্বর কারাগারে আটক অবস্থায় ঘাতকচক্র তাজউদ্দীনসহ আরও তিন জাতীয় নেতাকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করে। দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মাধ্যমে তাজউদ্দীন আহমদের জন্মবার্ষিকী পালন করবে কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ। এদিকে, তাজউদ্দীন আহমদের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে বিকেলে তাজউদ্দীন আহমদ: কর্ম ও জীবন শীর্ষক সপ্তাহব্যাপী (২৩-৩০ জুলাই) প্রদর্শনী শুরু হতে যাচ্ছে। পাশাপাশি থাকছে মেধাবী ও গণমনস্ক এই নেতার রাজনৈতিক ব্যক্তি সত্তা নিয়ে আলোচনা, তার স্বকণ্ঠের ভাষণ, ভাষণ থেকে পাঠ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আলোচনা করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। তাজউদ্দীন আহমদের ভাষণ থেকে পাঠ করবেন আবৃত্তিশিল্পী সৈয়দ শহীদুল ইসলাম নাজু। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবে ইউনিভার্সিটি অব লিবারাল আর্টস (ইউল্যাব) ও ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা। উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২০ ডিসেম্বর তাজউদ্দীন আহমদের স্ত্রী জোহরা তাজউদ্দিন মারা যান। তিনি আমৃত্যু আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ছিলেন। ১৯৭৮-৮১ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব নিয়ে দলকে সুসংগঠিত ও ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন জোহরা তাজ। এই দম্পতির তিন সন্তানের মধ্যে সর্বকনিষ্ঠ সাবেক স্বরাষ্ট্র পতিমন্ত্রী তানজীম আহমেদ সোহেল তাজ। আর এক মেয়ে সিমিন হোসেন রিমি আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি, আরেক মেয়ে শারমিন আহমদ লেখালেখির সঙ্গে জড়িত।
দুর্যোগ সহনশীল ফসলের জাত উদ্ভাবনে রাষ্ট্রপতির গুরুত্বারোপ
অনলাইন ডেস্ক: রাষ্ট্রপতি এম আবদুল হামিদ কৃষিতে জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাব মোকাবেলায় জীববৈচিত্র্য রক্ষা এবং দুর্যোগ সহনশীল ফসলের বিভিন্ন জাত উদ্ভাবনে অগ্রাধিকার দিতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। রোববার (২২ জুলাই) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ৫৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনাদেরকে প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা এবং ফসলের বিভিন্ন জাত উদ্ভাবনে যুৎসই কৌশল নির্ধারণ করতে হবে। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব বর্তমানের এক বাস্তবতা। এজন্য কৃষিতে আমাদের অর্জিত সাফল্য ধরে রাখার পাশাপাশি একে এগিয়ে নিতে হলে জলবায়ু পরিবর্তনে সৃষ্ট সমস্যা সমাধানে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হবে। হামিদ বলেন, ‘হাওড় এলাকার কৃষকরা বছরে একটি মাত্র ফসলের ওপর নির্ভরশীল। তাদের এই এক ফসলি নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনতে কৃষিবিদ ও কৃষি সম্প্রসারণ বিদসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। কৃষির সাফল্য অব্যাহত রাখতে উৎপাদন বৃদ্ধির সঙ্গে কৃষি পণ্যের ন্যায্যমূল্য প্রাপ্তিও নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের দেশে মৌসুমী ফল ও কৃষিপণ্য সংরক্ষণের অভাবে নষ্ট হয়ে যায়। এসব পণ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে সরকারের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।’ তিনি বর্তমান সরকারের কৃষি নীতিমালার সুষ্ঠু বাস্তবায়নে দক্ষ কৃষিবিদ ও কৃষি বিজ্ঞানী তৈরিতে আরো যত্নবান হওয়ার আহ্বান জানান। রাষ্ট্রপতি ও বাকৃবি’র আচার্য ১৯৬১ সালের ১৮ আগস্ট প্রতিষ্ঠিত এই প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন গবেষণা ও একাডেমিক কর্মকা-ের প্রশংসা করে বলেন, ‘আধুনিক বিশ্বায়ন ও জ্ঞান অর্থনীতির তীব্র প্রতিযোগিতার এই যুগে একটি বিশ্ববিদ্যালয়কে আপন বৈশিষ্ট্যে টিকে থাকতে হলে তার স্থানিক, জাতিক ও বৈশ্বিক অবস্থান স্পষ্ট করতে হবে। এটি প্রাতিষ্ঠানিক উপযোগিতা, মান ও আন্তর্জাতিক চরিত্র নিশ্চিত করার মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট করা সম্ভব। আমি জেনে আনন্দিত যে উচ্চতর কৃষি শিক্ষার পথিকৃৎ ও প্রধান বিদ্যাপীট হিসেবে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় তার লক্ষ্যের প্রতি অবিচল থেকে শিক্ষা ও গবেষণায় বিশেষ যত্নবান।’ বাংলাদেশ আজ বিশ্বে একটি বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে যাচ্ছে—একথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ সমুন্নত রেখে দেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে অসামান্য উন্নয়ন করে চলছে। এর ধারাবাহিকতায় রূপকল্প-২০২১ ও রূপকল্প-২০৪১ অনুসরণ করে বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে তার অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখেছে। রাষ্ট্রপতি হাওড় ও চর উন্নয়ন ইন্সটিটিউটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত প্রযুক্তি মেলা পরিদর্শন করেন। বাকৃবি’র উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আলীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক উপাচার্য ড. এম এ সাত্তার মন্ডল। ধর্ম মন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েট প্রেসিডেন্ট কৃষিবিদ ড. মোহাম্মাদ আবদুর রাজ্জাক এমপি, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. জসিম উদ্দিন খান ও কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা অন্যান্যের মধ্যে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।
মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা
অনলাইন ডেস্ক: আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা হয়েছে। রোববার (২২ জুলাই) কুষ্টিয়ায় আদালত চত্বরে তার ওপর হামলা চালানো হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রীর ভাগনি টিউলিপ সিদ্দিক সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়ায় মামলা হয়। ওই মামলায় জামিন পেতে কুষ্টিয়া আদালতে গিয়েছিলেন তিনি। সেই মামলায় আদালত আজ তাকে জামিন দিয়েছেন। আদালত এলাকা থেকে বের হওয়ার সময় তার ওপর হামলা চালানো হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আদালত মাহমুদুর রহমানের জামিন মঞ্জুর করার কিছুক্ষণের মধ্যেই তার ওপর হামলা চালানো হয়। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আগে থেকে আদালত চত্বরে অবস্থান নেন। জামিন মঞ্জুরের পর তারা মাহমুদুর রহমানকে আদালতের একটি কক্ষে অবরুদ্ধ করে ফেলেন। একপর্যায়ে সেখান থেকে বেরিয়ে তিনি নিজের গাড়িতে ওঠার চেষ্টা করেন। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাকে লক্ষ করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। এতে একটি ইটের টুকরা লেগে রক্তাক্ত হন মাহমুদুর রহমান। পরে পুলিশ মাহমুদুর রহমানকে উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সযোগে যশোর হাসপাতালে পাঠায়। আলোকিত বাংলাদেশ

জাতীয় পাতার আরো খবর