বিএফইউজের মহাসচিব শাবান মাহমুদ
অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) নির্বাচনে ১৯৬০ ভোট পেয়ে মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন শাবান মাহমুদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাকারিয়া কাজল পেয়েছেন ৭০০ ভোট। তবে সভাপতি পদের ফল ঘোষণা স্থগিত রাখা হয়েছে। এছাড়া ১১০৩ ভোট পেয়ে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ড. উৎপল কুমার সরকার পেয়েছেন ৭৫৫ ভোট। যুগ্ম-মহাসচিব পদে আবদুল মজিদ, কোষাধ্যক্ষ দীপ আজাদ এবং দফতর সম্পাদক পদে বরুণ ভৌমিক নয়ন নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া নির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচিত হয়েছেন শেখ মামুনূর রশিদ (৮৬৬), নূরে জান্নাত সীমা (৭১০), সেবিকা রানী (৬২১), খায়রুজ্জামান কামাল (৬১৮)। প্রধান নির্বাচন কমিশনার আলমগীর হোসেনের পক্ষে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম রতন এ ফল ঘোষণা করেন। এর আগে শুক্রবার (১৩ জুলাই) সকাল ৯টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৫টায় শেষ হয়। ঢাকায় তিন হাজার ২৪৯ ভোটারের মধ্যে এক হাজার ৯১৮ জন তাদের ভোটা দেন। ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, যশোর, ময়মনসিংহ, নারায়ণগঞ্জ, কক্সবাজার, কুষ্টিয়া ও বগুড়ার ভোটাররাও তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। উল্লেখ্য, গত ৬ জুলাই এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও শ্রম আদালতের নির্দেশে নির্বাচনের ঠিক আগের দিন অর্থাৎ ৫ জুলাই নির্বাচন স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন। পরবর্তীতে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হলে ১৩ জুলাই নির্বাচনের দিন ঘোষণা করা হয়। আমাদের চট্টগ্রাম প্রতিনিধি জানান, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত ভোটে রিয়াজ হায়দার চৌধুরী ১৮৪ভোট পেয়ে সহ সভাপতি,মহসিন কাজী ১৬০ভোট পেয়ে যুগ্ম মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া রুবেল খান চট্টগ্রামে সর্বোচ্চ ২৮৭ ভোট এবং আজহার মাহমুদ ১৩০ভোট পেয়ে নির্বাহী সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।
যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টার উদ্বোধন
অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা সংলগ্ন যমুনা ফিউচার পার্কে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধাসম্পন্ন ভারতীয় ভিসা সেন্টার উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ সফররত ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। শনিবার (১৪ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় ভিসা সেন্টারটি উদ্বোধনের সময় উভয় দেশের শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে ঢাকায় বিদ্যমান সব ভিসা আবেদন কেন্দ্র (মতিঝিল, উত্তরা, গুলশান ও মিরপুর রোড) প্রতিস্থাপিত হবে। একই সঙ্গে ভারতীয় ভিসা আবেদন জমা দেওয়ার জন্য বিদ্যমান ই-টোকেন (সাক্ষাৎকার) ব্যবস্থাও থাকবে না। মতিঝিল ও উত্তরায় অবস্থিত ভিসা আবেদন কেন্দ্রগুলো ১৫ জুলাই ২০১৮ থেকে যমুনা ফিউচার পার্কের নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে প্রতিস্থাপিত হবে। বাকি দু’টি ভিসা আবেদন কেন্দ্রও (গুলশান ও মিরপুর রোড) ৩১ আগস্ট ২০১৮ এর মধ্যে নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্রে স্থানান্তরিত হবে। এখন থেকে ঢাকায় এটিই হবে পূর্ব নির্ধারিত সাক্ষাৎকারসূচি ছাড়াই সব শ্রেণীর ভিসা আবেদনের জন্য একমাত্র ভিসা আবেদন কেন্দ্র। যমুনা ফিউচার পার্কে নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্র একটি মডেল ভিসা কেন্দ্র হবে। ১৮ হাজার ৫শ বর্গফুট বাণিজ্যিক এলাকায় অবস্থিত এ ভিসা আবেদন কেন্দ্রে থাকবে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত টোকেন ভেন্ডিংমেশিন (প্রত্যাশিত প্রতীক্ষা সময় নির্দেশিত হবে, আরামদায়ক বসার ব্যবস্থা ও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অপেক্ষার স্থান, কফি ও কোমল পানীয় ভেন্ডিং মেশিন, খাবার দোকান ও আবেদন জমা দেওয়ার জন্য ৪৮টি কাউন্টার। জ্যেষ্ঠ নাগরিক, নারী, মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসা ভিসা আবেদনের জন্য আলাদা কাউন্টার থাকবে। একটি বিশেষ সহায়তা ডেস্ক ও প্রিন্টিং, ফটোকপি ইত্যাদি সেবাগুলির জন্য কাউন্টার থাকবে যেখানে মূল্য পরিশোধ করে সেবাগুলো পাওয়া যাবে। একটি প্রশস্ত ও নিরাপদ বিপণীকেন্দ্রে নতুন ভিসা আবেদন কেন্দ্র হওয়ায় আবেদনকারীদের আরামদায়ক ও নিরবচ্ছিন্ন ভিসা সেবা সম্ভব হবে এবং আবেদনের জন্য অপেক্ষা করার সময়ও কমবে। যমুনা ফিউচার পার্কে ভিসা আবেদনসেবা সমন্বয় ও সুযোগ-সুবিধাগুলো ভারতীয় ভিসা আবেদন প্রক্রিয়া আরও সুদৃঢ় করতে এবং ভারত ও বাংলাদেশের মানুষের সম্পর্ক শক্তিশালী করার জন্য ভারতীয় স্টেট ব্যাংকের সহযোগিতায় ভারতীয় হাইকমিশনের অব্যাহত প্রচেষ্টারই প্রতিফলন এই ভিসা সেন্টার। উল্লেখ্য, তিনদিনের সফরে শুক্রবার (১৩ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টায় একটি বিশেষ ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং।
শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ তৈরি করছে ঢাবি
অনলাইন ডেস্ক: দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন স্থগিত থাকার পর ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে এক রায়ে এ নির্বাচন দিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ডাকসু নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করেছে। ইতোমধ্যে নির্বাচনের জন্য শিক্ষার্থীদের অনলাইন ডাটাবেজ তৈরি করা হচ্ছে। হাইকোর্টের রায়ে বলা হয়েছে, আদালতের আদেশ রিসিভ করার পর ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে, প্রয়োজনে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাহায্য নিতে হবে। জানা গেছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অফিস ৪ এপ্রিল আদালতের আদেশ রিসিভ করে। সে অনুযায়ী অক্টোবরের ১০ তারিখের মধ্যে নির্বাচন করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে জাতীয় নির্বাচনসহ পরিস্থিতি বিবেচনায় এই সময় বৃদ্ধির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবেদন করেছে, যেটি এখনও শুনানি হয়নি। আদালতের রায়ের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভোস্ট কমিটির সভায় ডাকসু নির্বাচনের বিষয়ে বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেখানে ২০১৯ সালের মার্চে নির্বাচন করার জন্য প্রস্তাব করা হয়। আর ভোটার তালিকা ও নির্বাচনের নমুনা ফরম তৈরি করার জন্য একটি কমিটিও গঠন করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ডাকসু নির্বাচনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন থেকে এখনও কোনো চিঠি দেওয়া হয়নি। শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ হলে রয়েছে। যেকোনো সময় সেটি তৈরি করা হবে। আবার অনেক হলে নিজ উদ্যোগে শিক্ষার্থীদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। অন্যদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিস থেকেও শিক্ষার্থীদের তথ্য হলগুলোতে দেওয়া হচ্ছে। সবগুলো সমন্বয় করার কাজ শুরু হবে শিগগিরই। তাছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল ও ফজলুল হক মুসলিম হলে এ সংক্রান্ত নোটিস দেওয়া হয়েছে। সেখানে হল অফিসে শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় তথ্য দিতে বলা হয়েছে। জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক অসীম কুমার সরকার বলেন, আমরা প্রস্তুতি নিয়ে এগিয়ে থাকতে শিক্ষার্থীদের তথ্য সংগ্রহ করছি। পরবর্তীতে ভোটার তালিকা হালনাগাদ করা হবে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের এক কর্মকর্তা বলেন, এটি একটি দীর্ঘমেয়াদী প্রক্রিয়া। বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন-চারটি সেকশন ডাকসু দেখাশোনা করে। এখনও অফিসিয়ালি কোনো কিছু প্রস্তুত হয়নি। হলগুলোতেও চিঠি দেওয়া হয়নি। জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এনামউজ্জামান এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল বলেন, ভোটার তালিকা হালনাগাদের কাজ চলছে। অনলাইন ডাটাবেজ করার কারণে সময় লাগছে। সেটি তৈরি হলে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সক্রিয় ছাত্র সংগঠনগুলোকে নিয়ে বসবো। আর মার্চে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, ডাকসু নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। ডাটাবেজের ফরম্যাট অনুমোদনের পর হলগুলোতে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সেটি প্রতিদিন হালনাগাদ হবে। সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, ডাকসু নির্বাচনের লক্ষ্যে ভোটার তালিকা তৈরির কাজ চলছে। আদালতের নির্দেশনা বিবেচনায় নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান। অালোকিত বাংলাদেশ
জেদ্দার উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে এ বছরের প্রথম হজ ফ্লাইট
অনলাইন ডেস্ক: হজপ্রত্যাশীদের নিয়ে সৌদি আরবের জেদ্দার উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে এ বছরের প্রথম হজ ফ্লাইট। ৪১৯ জন যাত্রী নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে শনিবার (১৪ জুলাই) সকাল পৌনে ৮টায় হজ ফ্লাইটটি ছেড়ে যায়। বাংলাদেশ থেকে এ বছর মোট ১ লাখ ২৬ হাজার ৭৯৮ জন হজ পালনে সৌদি আরব যাবেন। এরমধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬ হাজার ৭৯৮ জন, আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ২০ হাজার জন হজ পালনে সৌদি আরব যাবেন। এবার বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫২৮টি হজ এজেন্সি হজের কার্যক্রম পরিচালন করছে। যাত্রীদের বহনের জন্য আগেই ঠিক করে রাখা হয়েছে বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি এয়ারলাইনস। এর মধ্যে বিমান বাংলাদেশ ১৮৭টি ফ্লাইটে ৬৪ হাজার ৯৬৭ জন এবং সৌদি এয়ারলাইনসের ১৮৮টি ফ্লাইটে ৬১ হাজার ৮৩১ জন যাত্রী পরিবহন করবে। হজের শেষ ফ্লাইট ঢাকা থেকে ছেড়ে যাবে ১৫ আগস্ট। হজ পালন শেষে ২৭ আগস্ট প্রথম ফিরতি ফ্লাইট জেদ্দা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করবে। হজ ক্যাম্পে সার্বিক সহযোগিতায় পুলিশ কন্ট্রোল রুমের পাশাপাশি পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, রোভার স্কাউট সদস্য, আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামসহ ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সদস্যরা। ১১ জুলাই আশকোনায় হজ অফিসে হজের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
ঢাকা পৌঁছেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক :ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং ঢাকা পৌঁছেছেন। বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের আমন্ত্রণে তিন দিনের সরকারি সফরে শুক্রবার (১৩ জুলাই) বিকেলে তিনি ঢাকায় পৌঁছান। তার সফরসঙ্গী হিসেবে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা রয়েছেন। ঢাকা পৌঁছানোর পর তিনি সরাসরি হোটেল প্যান প্যাসেফিক সোনারগাঁওয়ে যাবেন। সেখানে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ডিনারের আয়োজন করা হয়েছে। ডিনার শেষে ভারতীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী একটি সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। প্রস্তাবিত সূচি অনুযায়ী, ভারতীয় স্বারষ্ট্রমন্ত্রী শনিবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এদিন সকাল সাড়ে ১১টায় যমুনা ফিউচার পার্কে ইন্ডিয়ান ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার উদ্বোধন করবেন। ওইদিন বেলা আড়াইটা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বিকাল সোয়া ৪টা থেকে পৌনে ৫টা পর্যন্ত ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে অবস্থান করবেন। সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় তিনি বিজিবি সদর দফতরে যাবেন। সেখানে নৈশভোজে অংশ নেবেন। পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। রাজনাথ সিং রোববার সকাল পৌনে ৯টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ঢাকেশ্বরী মন্দিরে অবস্থান করবেন। এদিন একটি বিশেষ এয়ারক্রাফটে সকাল ১০টা ২০ মিনিটে তিনি রাজশাহীতে পৌঁছবেন। সকাল সাড়ে ১০টার পর তিনি রাজশাহীর সারদায় অবস্থিত বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে আইটি এবং ফরেনসিক ল্যাব উদ্বোধন করবেন। বেলা দেড়টায় রাজশাহী বিমানবন্দর থেকে বিশেষ এয়ারক্রাফটে নয়াদিল্লির উদ্দেশে রওনা দেবেন। সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশে অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং বিজিবি কর্মকর্তাদের সঙ্গে পৃথক বৈঠকে সন্ত্রাস দমনবিষয়ক সহযোগিতা, তরুণদের উগ্রপন্থায় দীক্ষিত করতে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর চেষ্টা এবং রোহিঙ্গাসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করবেন। বৈঠকগুলোতে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে অবৈধ চলাচল, গবাদিপশু, অস্ত্রশস্ত্র, গোলাবারুদ, মাদকদ্রব্য ও অন্যান্য সামগ্রীর চোরাচালান প্রতিরোধে বিদ্যমান ব্যবস্থা শক্তিশালী করা নিয়ে আলোচনা হবে।
শাহজালালে স্বর্ণের বারসহ আটক ২
অনলাইন ডেস্ক :রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুই যাত্রীর কাছ থেকে ৪৬৪ গ্রাম ওজনের চারটি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের একটি দল। যার বাজার মূল্য প্রায় ২৩ লাখ ২০ হাজার টাকা। শুক্রবার (১৩ জুলাই) চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় আসা একটি ফ্লাইটের দুই যাত্রীর কাছ থেকে এ স্বর্ণ জব্দ করা হয়। এ বিষয়ে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চট্টগ্রাম থেকে আসা ফ্লাইটটির ছয় যাত্রীকে তল্লাশি করা হয়। এসময় দু’জনের প্যান্টের কোমরের অংশে বিশেষ কায়দায় লুকোনো অবস্থায় স্বর্ণের বারগুলো পাওয়া যায়। ওই যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তারা দাবি করেন, স্বর্ণের বারগুলো তাদের নয়। দুবাই থেকে চট্টগ্রামে আসা এক যাত্রীর এ স্বর্ণের বার কিছু অর্থের বিনিময়ে তারা বহন করেছেন। এ বিষয়ে শুল্ক আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয় প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।
আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ এগিয়ে থাকবে
অনলাইন ডেস্ক :আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনসমর্থনেন দিক দিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এগিয়ে থাকবে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান বিএমআই রিসার্চ। শুক্রবার (১৩ জুলাই) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানানো হয়। দুইশর বেশি দেশে রাজনৈতিক ঝুঁকি নিরূপণে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার ভর্তুকি, কৃষি ও পল্লী উন্নয়ন খাতে বরাদ্দের পরিমাণ আগের বছরের তুলতায় যথাক্রমে ২৭.৯, ২৪.৮ ও ৮.৯ শতাংশ বাড়িয়েছে। এটা ভোটারদের সমর্থন আদায়ে ভূমিকা রাখবে। বিএনপির রাজনৈতিক কার্যক্রম আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে প্রভাব ফেলতে পারবে না দাবি করে বলা হয়, বিএনপি নেতাকর্মীরা গত কয়েক মাস ধরে অনশন, মানববন্ধনের মত যেসব রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করে আসছেন, তাতে চলতি বছরের শেষ দিকে অনুষ্ঠেয় একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ওপর তেমন কোনো প্রভাব পড়বে বলে মনে হয় না। এ গবেষণা সংস্থার বিশ্লেষকদের ধারণা, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গত ফেব্রুয়ারিতে দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজায় কারাগারে যাওয়ার পর দলটির শক্তি অনেকাংশে হ্রাস পেয়েছে। ফলে দুর্বল নেতৃত্বের বিএনপি আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সামনে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়তে পারবে না। প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিদেশে এবং দেশে বহু নেতা গ্রেপ্তার থাকায় বিএনপির নেতৃত্বে শক্তিশালী নেতার সঙ্কট তৈরি হয়েছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের অবস্থা এর উল্টো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সাল থেকে দলটির নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন, কয়েক মেয়াদে তিনি সরকারপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন। আর গত মে ও জুন মাসে খুলনা ও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বড় জয়ের মধ্যেও বিএনপির সমর্থন কমার আভাস দেখতে পাচ্ছে বিএমআই রিসার্চ। তাদের স্বল্পমেয়াদী রাজনৈতিক সূচকে বাংলাদেশের স্কোর এবার একশর ভেতরে ৫৮.১। তবে নির্বাচন ঘিরে আগের মত সহিংসতার সম্ভাবনা বিএমআই রিসার্চ উড়িয়ে দিচ্ছে না। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ২০১৪ সালের মত এবারও বিএনপির নির্বাচন বর্জনের সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। নির্বাচনের আগে-পরে তাদের সহিংস আন্দোলনের সম্ভবনাও আমরা নাকচ করতে পারছি না। বিএমআই রিসার্চ বলছে, রাজনৈতিক বাস্তবতার পাশাপাশি ভোটের বছরের বাজেটে গ্রামের কৃষিজীবী মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য যেসব সুবিধা দেওয়া হয়েছে, তার ফলও আওয়ামী লীগ নির্বাচনে পাবে।
দেশে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রায় নিরবচ্ছিন্ন
অনলাইন ডেস্ক :পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী ইমাজ উদ্দিন প্রামানিক বলেছেন, বর্তমান সরকারের উল্লেখযোগ্য সাফল্য হচ্ছে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। সরকারের সেই লক্ষ্য সাফল্যজনকভাবে অর্জিত হয়েছে। মানুষের ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সরবরাহ প্রায় নিশ্চিত হয়েছে। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নওগাঁর মান্দা উপজেলায় ৯টি গ্রামে নতুন বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী এ কথা বলেছেন। মান্দা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মুশফিকুর রহমান। পল্লীবিদ্যুত সমিতি প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে। এই প্রকল্পে মোট ব্যায় হয়েছে ২ কোটি ২০ লাখ ৬ হাজার টাকা। অনুষ্ঠানে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সহকারি জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) আবু তালহা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোল্লা এমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক স ম জসিমুদ্দিনসহ উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।ইত্তেফাক
বাংলাদেশে ৮৮ ভাগ মানুষ এখন নিরাপদ পানির আওতায় এসেছে
অনলাইন ডেস্ক :স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন জাতিসংঘে কমিউনিটিভিত্তিক পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা বিষয়ে বাংলাদেশের সাফল্য তুলে ধরে বলেছেন, সরকারের ব্যাপক প্রচার ও পদক্ষেপের ফলে উন্মুক্ত স্থানে পয়ঃনিষ্কাশনের হার মাত্র ১ শতাংশে নেমে এসেছে। বাংলাদেশে ৮৮ ভাগ মানুষ এখন নিরাপদ পানির আওতায় এসেছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতরে জাতিসংঘের হাই-লেভেল পলিটিক্যাল ফোরামের সভায় বাংলাদেশ ডেটা বিপ্লব ও পয়ঃনিষ্কাশনবিষয়ক দুটি সাইড ইভেন্টে উদ্বোধন ও সমাপনী বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। গত ৯ জুলাই থেকে শুরু হওয়া ডেটা বিপ্লবে পেছনে পড়ে থাকবে না কেউই এবং পয়ঃনিষ্কাশনে অংশগ্রহণমূলক দৃষ্টিভঙ্গি : বাংলাদেশ থেকে শেখা শীর্ষক সাইড ইভেন্ট দুটিতে জাতিসংঘের সদস্যরাষ্ট্রসমূহ, থিংঙ্কট্যাংক, নীতিনির্ধারক, বিষয় বিশেষজ্ঞ ও গবেষকসহ আন্তর্জাতিক অঙ্গনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। বাংলাদেশে এসডিজি বাস্তবায়নবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ এবং জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন ইভেন্ট দুটির মডারেটর ছিলেন। বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের মধ্যে ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খান, স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এমিরেটাস ড. ফিরোজ আহমেদ, ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী তাকসিম এ খান, গণস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী মো. রাশিদুল হক।

জাতীয় পাতার আরো খবর