বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছেন ৪৫ ব্যক্তি ২ প্রতিষ্ঠান
২৩জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আজ মঙ্গলবার জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস। প্রতিবছর ২৩ জুলাই সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থা দিবসটি পালন করে। এবার বাংলাদেশে চতুর্থবারের মতো দিবসটি পালিত হচ্ছে। এ উপলক্ষে আজ জাতীয় পর্যায়ে ১১ ব্যক্তি, জেলা পর্যায়ে ৩৪ ব্যক্তি এবং উভয়পর্যায়ে একটি করে প্রতিষ্ঠানকে এ বছরের জনপ্রশাসন পদক দেওয়া হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে বেলা ৩টায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ জনসেবায় আস্থা অর্জনকারী এসব কমকর্তা ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধির হাতে পদক তুলে দেবেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন দোদুল। বিশেষ অতিথি থাকবেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আশিকুর রহমান চৌধুরী ও জনপ্রশাসন সচিব ফয়েজ আহাম্মদ। উল্লেখ্য, ২০১৬ সাল থেকে সরকার এ পদক চালু করেছে। এদিকে আজ পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষে গতকাল বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, জনগণের দোরগোড়ায় স্বল্প ব্যয় ও অল্প সময়ে সরকারি সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে নতুন নতুন উদ্ভাবনী ধারণাকে কাজে লাগিয়ে সেবা সহজীকরণের স্বীকৃতিস্বরূপ জনপ্রশাসন পদক-২০১৯ প্রদান একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। এ পদক প্রদান প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োজিত সব পর্যায়ের কর্মচারীদের জনগণকে উন্নত সেবা প্রদানে আরও উৎসাহিত করবে বলে আমার বিশ্বাস। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেন, একটি দক্ষ, প্রযুক্তিনির্ভর ও সময়োপযোগী কার্যকর জনপ্রশাসন গড়ে তোলার মাধ্যমেই অর্জন করা সম্ভব টেকসই উন্নয়নের অভীষ্ট লক্ষ্যমাত্রা। সরকারের নির্বাহী অঙ্গের অংশ হিসেবে পাবলিক সার্ভিসে নিয়োজিত কর্মচারীরা জনগণের সেবা ও কল্যাণে তথা দেশের অগ্রযাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এ বছর যেসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছে- সাধারণ শ্রেণি (জাতীয়) : সাধারণ ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত শ্রেণিতে জনপ্রশাসন পদক-২০১৯ পাচ্ছেন বগুড়ার শেরপুরের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. রায়হান। একই শ্রেণিতে দলগত পদক পাচ্ছেন নাটোরের সাবেক ডিসি শাহিনা আক্তার, বর্তমান ডিসি শাহরিয়াজসহ গোলাম রাব্বী, ড. মো. রাজ্জাকুল ইসলাম, হাসিনা মমতাজ ও নাজমুল আলম। এ ছাড়া সাধারণ ক্ষেত্রে প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণিতে এবারের জনপ্রশাসন পদক পাচ্ছে কক্সবাজার ডিসি অফিস। কারিগরি শ্রেণি (জাতীয়) : কারিগরি শ্রেণিতে ব্যক্তিগত ক্ষেত্রে পদক পাচ্ছেন ভোলার তমুজউদ্দিন উপজেলার প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. পলাশ সরকার। কারিগরি ক্ষেত্রে দলগত শ্রেণিতে জনপ্রশাসন পদক ২০১৯ পাচ্ছেন রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর-রহমান, রাজশাহীর এডিসি (রাজস্ব) আবু হায়াত মো. রহমতুল্লাহ, পবার এসিল্যান্ড নূরুল হাই মোহাম্মদ আনাছ। সাধারণ শ্রেণি (জেলা) : জেলাপর্যায়ে সাধারণ ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত শ্রেণিতে পুরস্কার পাচ্ছেন নরসিংদীর ডিসি সৈয়দা ফারহানা কাওনাইন। সাধারণ ক্ষেত্রে দলগত শ্রেণিতে পুরস্কার পাচ্ছে চারটি দল। চিড়িয়াখানার উন্নয়নের কারণে পুরস্কার পাচ্ছেন চট্টগ্রামের ডিসি ইলিয়াস হোসেন, সাবেক এডিসি মমিনুর রশিদ, হাটহাজারীর ইউএনও রুহুল আমীন, সাবেক এসি তৌহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর শাহাদাত হোসেন শুভ। দ্বিতীয় দল হিসেবে পুরস্কার পাচ্ছেন মৌলভীবাজারের ডিসি তোফায়েল ইসলাম, সাবেক এডিসি আশরাফুর রহমান, কলগঞ্জের সাবেক ইউএনও মোহাম্মদ মাহমুদুল হক, বর্তমান ইউএনও আশেকুল হক। খুলনা বিভাগে পদক পাচ্ছেন বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, ডিসি হেলাল হোসেন, রূপসার সাবেক ইউএনও ইলিয়াছুর রহমান। মুন্সীগঞ্জ জেলার সাবেক ডিসি সায়লা ফারজানা, সাবেক এডিসি হারুন অর রশিদ, সদর উপজেলার সাবেক ইউএনও সুরাইয়া জাহান, সাবেক এসিল্যান্ড হ্যাপি দাস, মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আলীও পুরস্কার পাচ্ছেন। এ ছাড়া সাধারণ ক্ষেত্রে প্রাতিষ্ঠানিক শ্রেণিতে পুরস্কার পাচ্ছে সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিস। কারিগরি শ্রেণি (জেলা) : কারিগরি ক্ষেত্রে দলগত শ্রেণিতে মোট চারটি দল পুরস্কার পাচ্ছে। সওজের বগুড়া সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সাদেকুল ইসলাম, রংপুর সার্কেলের মাহবুবুল আলম খান, গাইবান্ধার নির্বাহী প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান, বগুড়ার আশরাফুজ্জামান ও রংপুরের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী ফিরোজ আখতার। এ ছাড়া চাঁদপুরের সাবেক ডিসি আবদুস সবুর মণ্ডল, বর্তমান ডিসি মাজেদুর রহমান খান, পরিবার-পরিকল্পনার উপপরিচালক মো. ইলিয়াছসহ এমএ গফুর মিঞা ও গোলাম মোস্তফা এবার পদক পাচ্ছেন। কুমিল্লার ডিসি আবুল ফজল মীর, সিভিল সার্জন ড. মজিবুর রহমান, এডিসি মাঈন উদ্দিন এবার পুরস্কার পাচ্ছেন। আরও পুরস্কার পাচ্ছেন খুলনার ডিসি হেলাল হোসেন, এডিসি মাঈনউদ্দিন হাসান ও এডিসি সার্বিক জিয়াউর রহমান।
সার্জেন্ট কিবরিয়ার মৃত্যুতে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চাইলেন বাবা
২৩জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কাভার্ডভ্যানের চাপায় ট্রাফিক সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়ার মৃত্যুতে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেছেন তার বাবা ইউনুস আলী শিকদার। রিট দায়েরের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করে আইনজীবী মোহাম্মদ ফয়েজউল্লাহ জানান, গতকাল সোমবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করা হয়। আজ মঙ্গলবার রিট আবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করা হয়। আদালত রোববার শুনানির জন্য দিন রেখেছেন। ওইদিন বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে এ রিটের ওপর শুনানি হতে পারে। গত ১৫ জুলাই বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলেন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়া। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন জিরো পয়েন্ট এলাকায় কিবরিয়াকে একটি কাভার্ডভ্যান চাপা দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় কিবরিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় গত ১৬ জুলাই তিনি মারা যান। চাপা দেওয়ার ঘটনায় আটক কাভার্ড ভ্যানের চালক মো. জলিল মিয়ার বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা মামলা করা হয়।-আলোকিত বাংলাদেশ
আগামী ২৯ জুলাই রেলের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু
২৩জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হবে আগামী ২৯ জুলাই। অগ্রিম টিকিট বিক্রি চলবে ২ আগস্ট পর্যন্ত। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) রাজধানীর রেলভবনে আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে রেলওয়ের প্রস্তুতি বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন এ কথা জানান। রেলের ফিরতি টিকিট বিক্রি ৫ আগস্ট শুরু হয়ে ৯ আগস্ট পর্যন্ত চলবে বলেও জানান মন্ত্রী। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১২ বা ১৩ আগস্ট দেশে মুসলমানদের দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদ উদযাপিত হবে। তবে আগামী ১২ আগস্ট ঈদ ধরে রেলওয়ের কর্মপরিকল্পনা সাজানো হয়েছে।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নজরদারির নির্দেশ
২২জুলাই২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:ছেলেধরার গুজব বন্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব এবং ব্লগগুলো নজরদারির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ছেলেধরা-সংক্রান্ত বিভ্রান্তিকর পোস্ট দিলে বা শেয়ার করলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। সোমবার পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-অপারেশন্স) সাঈদ তারিকুল হাসান সারাদেশের পুলিশের ইউনিটকে এই বার্তা পাঠান। বার্তায় উল্লেখ করা হয়, ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, ব্লগ এবং মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছেলেধরা-সংক্রান্ত বিভ্রান্তিমূলক পোস্টে মন্তব্য বা গুজব ছড়ানোর পোস্টে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নিতে হবে। বার্তায় মোট চারটি উপায়ে ছেলেধরার গুজব ও গণপিটুনি প্রতিরোধে পুলিশের ইউনিটগুলোকে কাজ করার নির্দেশনা দেয়া হয়। এতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি, স্কুলে অভিভাবক ও গভর্নিং বডির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময়, ছুটির পর অভিভাবকরা যাতে শিক্ষার্থীকে নিয়ে যায় সে বিষয়ে নিশ্চিত করার জন্য স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা, প্রতিটি স্কুলের ক্যাম্পাসের সামনে ও বাইরে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন, মেট্রোপলিটন ও জেলা শহরের বস্তিতে নজরদারি বৃদ্ধির নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও বার্তায় গুজব বন্ধে জনসম্পৃক্ততামূলক কাজ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে, উঠান বৈঠকের মাধ্যমে গুজববিরোধী সচেতনতা সৃষ্টি, এলাকায় মাইকিং- লিফলেট বিতরণ, মসজিদের ইমামদের ছেলেধরা গুজববিরোধী আলোচনার নির্দেশনা। এই চিঠির প্রেক্ষিতে পুলিশের কোন ইউনিট কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা আগামী তিন কার্যদিবসের মধ্যে পুলিশ সদরদপ্তরে ফ্যাক্সের মাধ্যমে জানাতে বলা হয়েছে। পুলিশ সদর দফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা বলেন, চিঠিতে গুজব বন্ধে পুলিশের ইউনিটগুলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে সারাদেশের পুলিশ সদস্যরা গুজব ও গণপিটুনি বন্ধে কাজ শুরু করেছে।
ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে মামলা
২২জুলাই২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: হিন্দু ধর্ম নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করার অভিযোগে আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের বিরুদ্ধে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন গৌতম কুমার রায় নামে এক ব্যক্তি। সোমবার (২২ জুলাই) বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালে বিচারক আস-শামস জগলুল হোসেনের আদালতে এ মামলাটি করেন তিনি। তাকে আইনগত সহায়তা করেন হিন্দু আইনজীবী পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুমন কুমার রায়। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী সঞ্চয় কুমার দে দুর্জয়। ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের বিরুদ্ধে পৃথক আইনে মামলার প্রস্তুতির কথা গতকালই (রোববার) জানান সুমন কুমার রায়। ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজেই বিষয়টি জানান। পরে এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, মামলা করা একটি সাংবিধানিক অধিকার। যে কেউ কারো বিরুদ্ধে মামলা করতে পারে। এটাই বাংলাদেশের নিয়ম হওয়া উচিত।
রাস্তার ওপর ও রাস্তার আশেপাশে যেন পশুর হাট না বসে: ওবায়দুল কাদের
২২জুলাই২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঈদুল আজহাতে যত্রতত্র পশুর হাট বসানোর কারণে রাস্তায় সমস্যা হয় জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সেটা করা যাবে না, এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানানো হয়েছে। হাইওয়ের পাশে যেন পশুর হাট না বসে, রাস্তার ওপর ও রাস্তার আশেপাশে। ঢাকা সিটিতেও সিটি করপোরেশন পশুরহাট বসানোর ব্যাপারে যাতে শৃঙ্খলার মধ্যে থাকে, জনদুর্ভোগ না হয়, সে ব্যাপারে তাদেরকে লক্ষ্য রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। আশা করি তারা গতবারের মতো এবার বিষয়টি দেখবেন। সোমবার সচিবালয়ে ঈদে সড়ক বিভাগের প্রস্তুতি ও সমসাময়িক বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। সড়কের অবস্থা নিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, মহাসড়কের অবস্থা ভালো, আগের যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো। সড়কের কারণে যানজটের কারণ সৃষ্টি হবে না।
এরশাদের মৃত্যুতে সমবেদনা জানাতে বিরোধী দলের উপনেতার বাসায় স্পিকার
২২জুলাই২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও বিরোধী দলের নেতা হুসেইন মুহম্মদ সমবেদনা জানাতে তার সহধর্মিণী ও বিরোধী দলের উপনেতা রওশন এরশাদের বাসায় দেখা করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী। বৃহস্পতিবার সন্ধা সাড়ে সাতটায় দিকে বিরোধী দলের উপনেতার গুলশানের বাসভবনে এক ঘন্টার বেশি সময় কাটান তিনি। এসময় তিনি বিপদের সময় রওশন এরশাদকে ধৈর্য্যধারণ করার জন্য অনুরোধ করেন এবং পরিবারের সবার প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেন। স্পিকারের পক্ষ থেকে বিরোধী দলের উপনেতাকে পাশে থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন। এসময় এরশাদের জেষ্ঠপুত্র রাহগির আল মাহে সাদ এরশাদ উপস্থিত ছিলেন। বিরোধী দলীয় উপনেতার একান্ত সহকারি সচিব মামুন হাসান জানান, সাবেক রাষ্ট্রপতি, বিরোধী দলের নেতা হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মুত্যুতে সমবেদনা জানোর জন্য স্পিকার স্যার বিরোধী দলীয় উপনেতা রওশন এরশাদের স্যারের বাসায় এসেছিলেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর