রবিবার, জুলাই ১৫, ২০১৮
বিএসটিআই আইনের সাজা বাড়ল
বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড আইনকে (বিএসটিআই) সংশোধন করে শাস্তি বাড়ানো হয়েছে। আইনে অনধিক দুই বছর কারাদণ্ড ও এক লাখ জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। তবে ন্যূনতম জরিমানা পঁচিশ হাজার টাকার নিচে নয়। এছাড়া লাইসেন্স ছাড়া বিএসটিআইয়ের স্ট্যান্ডার্ড মার্ক ব্যবহার, নিবন্ধন না করে ব্যবসা ও পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে বাজেয়াপ্ত করার বিধান রাখা হয়েছে আইনে। এছাড়া আইনের সবক্ষেত্রেই শাস্তি ও জরিমানা বাড়ানো হয়েছে। আইনের কোনো ধারায় কাভার না করলে কিন্তু অপরাধ হলে এক লাখ টাকা বা সর্বনিম্ন পচিশ হাজার টাকা জরিমানা করা যাবে। একই অপরাধ দুই বার করলে শাস্তি দ্বিগুণ রাখার বিধান রয়েছে ওই আইনে। সোমবার (২৮ মে) মন্ত্রিপরিষদের বৈঠক শেষে মন্ত্রি পরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম এ তথ্য জানান। এছাড়া বৈঠকে পাটনীতির খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সংজ্ঞা চিহ্নিত করা হয়েছে। কৌশলগত অগ্রাধিকার চূড়ান্ত করা হয়েছে। এতে মিশন-ভিশন যুক্ত করা হয়েছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভারত সফর নিয়ে কথা বলেছেন। ভারত সফরকালে তিনি রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে কথা বলেছেন। এ সংকট সমাধানে তিনি ভারতের সহায়তা চেয়েছেন।
বিদেশি পতাকা উড়ানো বন্ধে রিট
রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে বিদেশি পতাকা অননুমোদিতভাবে উড়ানো বন্ধের নির্দশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমদের ডিভিশন বেঞ্চে এ আবেদনের শুনানি হবে। মুক্তিযোদ্ধা মুহাম্মদ নুরুল আমিন নামে এক ব্যাক্তি এ রিট করেন। আবদনে বলা হয়েছে, অতীতে দেখা গেছে ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালে বাংলাদেশে বিভিন্ন দলের সমর্থকরা সে দেশের পতাকা বিভিন্ন স্থানে উড়ান। বাংলাদেশের পতাকা বিধিমালা, ১৯৭২-এর বিধান অনুযায়ী, বাংলাদেশে অবস্থিত বিদেশি কূটনৈতিক মিশনসমূহ ছাড়া অন্য কোনো স্থানে অন্য রাষ্ট্রের পতাকা উত্তোলনের সুযোগ নেই। আর যদি করা হয় তাহলে সরকারের বিশেষ অনুমোদন নিতে হবে।
পাকিস্থানের সাথে বিএনপির মিল অাছে
বিএনপি নেতাদের কাছে প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের প্রতিবেশী দেশ ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক গভীর হলে আপনাদের বুকটা কাঁপে কেন? সোমবার (২৮ মে) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের তৃতীয় তলার কনফারেন্স লাউঞ্জে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত 'ভারতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ডক্টর অব লিটারেচার (ডি-লিট) ডিগ্রি প্রদান করায় শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ প্রশ্ন রাখেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক হলে আপনাদের বুক কাঁপে এইজন্য যে আপনারা (বিএনপি) এখনও পাকিস্থানি ভাবধারার চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসতে পারেননি। তাই ভারতের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক গভীর হলেই পাকিস্থানের যেমন বুক কাঁপে বিএনপিরও বুক কাঁপে। সুতরাং এক্ষেত্রে পাকিস্থানের সাথে বিএনপির মিল অাছে। ‘প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচনে জয়লাভের নিশ্চয়তা বিধান করতে ভারত সফর করেছেন’ সাম্প্রতিক বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, নির্বাচনে ভারত এসে ভোট দিবে না, ভোট দিবে দেশের জনগণ। আমরা জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করি, আমরা অন্য কারো ক্ষমতায় বিশ্বাস করিনা। আওয়ামী লীগ সব সময় জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে ক্ষমতায় গেছে ও জনগণের ক্ষমতায় ক্ষমতাবান হয়ে দেশ পরিচালনা করেছে। আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রনি, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অভিনেত্রী অরুণা বিশ্বাস প্রমুখ।
ইপিজেডে পরিবেশের মান রক্ষায় কঠোর হওয়ার নির্দেশ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রফতানি পণ্য উৎপাদনকারী বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে শিল্প-কারখানা স্থাপনের ক্ষেত্রে পরিবেশের মান ও আইনগত বাধ্যবাধকতা কঠোরভাবে নিশ্চিত করার জন্য বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন। বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বেপজা’র ৬ষ্ঠ গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে বক্তব্যকালে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) এ ব্যাপারে নির্দিষ্টভাবে কিছু নিদের্শনা দেন।’ তিনি জানান, বেজা’র গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনা সকল অর্থনৈতিক অঞ্চলে জলাধার ও বৃক্ষ রোপণের মাধ্যমে সবুজ বেষ্টনি গড়ে তোলার বিধান রাখার জন্যও কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঘূর্ণিঝড়, সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষায় শিল্পাঞ্চলের চারদিকে বিশেষ করে দক্ষিণাঞ্চলের সমুদ্র অববাহিকতায় কৃত্রিম ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল সৃষ্টির জন্যও কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। শেখ হাসিনা বলেন, সরকার মিরসরাই থেকে চট্টগ্রাম পর্যন্ত মেরিন ড্রাইভওয়ে নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে। বৈঠকে বেপজা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী রেগুলারেটরি বডির কার্যক্রম এবং ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত ৫ম গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে গৃহীত বিভিন্ন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের বিষয় উপস্থাপন করেন। বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল উপস্থিত ছিলেন।
খালেদা জিয়া ছয় মাসের জামিন পেয়েছেন
কুমিল্লায় হত্যা ও নাশকতার অভিযোগে করা দুটি পৃথক মামলায় ছয় মাসের জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এছাড়া নড়াইলে করা একটি মানহানী মামলা উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। আজ সোমবার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি জে বি এম হাসানের হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ রায় দেন। এর আগে এসব মামলার শুনানি শেষে আজ রায়ের জন্য দিন নির্ধারণ করেছিলেন আদালত। কুমিল্লায় বাসে অগ্নিসংযোগ করে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিন আবেদনের ওপর শুনানি গত বৃহস্পতিবার শেষ হয়। গতকাল রোববার নাশকতার অপর মামলা এবং নড়াইলে মানহানির মামলার শুনানি হয়। শুনানি শেষে আজ সোমবার আদেশের সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল। গত ২০ মে কুমিল্লা ও নড়াইলের তিন মামলায় জামিন চেয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আবেদন করেন। গত ২২ মে আদালতের অনুমতি নিয়ে জামিন আবেদন দায়ের করার পর বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ কুমিল্লার নাশকতার মামলা ও নড়াইলে মানহানির মামলায় শুনানির জন্য গতকাল রোববার (২৭ মে) দিন ধার্য করেন। এর আগে গত ১৬ মে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে দেয়া হাইকোর্টের জামিন বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। কুমিল্লার মামলা : ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের হায়দার পুলের চৌদ্দগ্রামে একটি কাভার্ড ভ্যানে অগ্নিসংযোগ ও আশপাশের বেশ কিছু গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। পরে এ ঘটনায় ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি চৌদ্দগ্রাম থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে নাশকতার অভিযোগে মামলা হয়। মামলাটি বর্তমানে কুমিল্লার বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১এ চলমান। ২০১৭ সালের ৯ অক্টোবর এ মামলায় অভিযোগ আমলে নেন আদালত। গত ২৩ এপ্রিল এ মামলায় জামিন চেয়ে আবেদন করা হয়। কিন্তু আদালত আবেদনটির পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী ৭ জুন দিন ধার্য রাখেন। এ অবস্থায় শুনানি না করে এ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আপিল আবেদন করা হয়েছে। নড়াইলে মানহানি মামলা : ২০১৫ সালের ২১ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধাদের সংখ্যা নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করার অভিযোগ ওঠে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় একই বছরের ২৪ ডিসেম্বর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নড়াইলে মানহানির মামলা করা হয়। স্থানীয় এক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রায়হান ফারুকি ইমাম বাদি হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতে বলা হয়েছে দণ্ডবিধির ৫০০, ৫০১ ও ৫০২-এর অধীনে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। এ মামলাটি জামিনযোগ্য। উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর কারাদণ্ডের আদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। এরপর থেকে খালেদা জিয়া ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন। ওই রায়ের পর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন বেগম খালেদা জিয়া। শুনানি শেষে গত ১২ মার্চ হাইকোর্ট খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেন। পরে অর্থাৎ গত ১৬ মে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ খালেদা জিয়াকে হাইকোর্টের দেয়া জামিন আদেশ বহাল রাখেন। কিন্তু আরো কয়েকটি মামলায় গ্রেফতার দেখানোয় তিনি কারাগার থেকে বের হতে পারছেন না।
রাষ্ট্রপতির ইফতারে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, প্রধান বিচারপতি
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আজ রোববার বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, প্রধান বিচারপতি, মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, সংসদ সদস্য ও বিদেশী কূটনীতিক, বিশিষ্ট নাগরিক এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্তকর্তাদর সম্মানে ইফতার পার্টির আয়োজন করেন। রাষ্ট্রপতি ভবনের দরবার হলে আয়োজিত ইফতার পার্টিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্পিকার ড. শিরিন শারমীন চৌধুরী, প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, সাবেক রাষ্ট্রপতি এইচ এম এরশাদ এবং সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ যোগ দেন। রাষ্ট্রপতির সহধর্মিনী রাশিদা খানম এবং পরিবারের সদস্যরাও ইফতারে অংশ নেন। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গভবনে পৌঁছলে রাষ্ট্রপতি তাঁকে স্বাগত জানান। মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, ডেপুটি স্পিকার, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, বিদেশী কূটনীতিক, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, সুপ্রিম কোর্টের বিচারক, মন্ত্রিপরিষদ সচিব, তিন বাহিনীর প্রধান, সংসদ সদস্য, অ্যাটর্নি জেনারেল, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, আইনজীবী, সম্পাদক ও সিনিয়র সাংবাদিক, উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বিশিষ্ট নাগরিক এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ এতে যোগ দেন। রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং তাদের খোঁজখবর নেন। ইফতারের পূর্বে দেশ ও জনগণের অব্যাহত শান্তি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যবৃন্দ এবং ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে যারা তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। বঙ্গভবন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ সাইফুল কবির মোনাজাত পরিচালনা করেন।-বাসস
পোশাক শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের অনুরোধ ১০ জুনের মধ্যে
পোশাক শ্রমিকদের বেতন ও বোনাস আগামী ১০ জুনের মধ্যে পরিশোধ করতে পোশাক কারখানা মালিক ও তাদের সংগঠন বিজিএমইএর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক বৈঠক থেকে এ অনুরোধ জানানো হয়। বৈঠক শেষে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ৭ জুনের মধ্যে বেতন পরিশোধ করার জন্য আমরা সরকারের পক্ষ থেকে পোশাক কারখানা মালিক ও তাদের সংগঠন বিজিএমইএর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছি। একই সঙ্গে আগামী ১০ জুনের মধ্যে বোনাস পরিশোধ করতে অনুরোধ জানিয়েছি। আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সারা দেশের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা ছাড়াও বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১৬ বা ১৭ জুন দেশে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হবে। পোশাক কারখানায় ১৩, ১৪ ও ১৫ জুন পর্যায়ক্রমে ছুটি দেয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, মহাসড়কে যানজটের তীব্রতা কমানোর জন্য আমরা এই রিকোয়েস্টটা করেছি। বিজেএমইএ ও বিকেএমইএ আমাদের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন। যদিও তারা বলেছেন, জুন-জুলাই মাসটা হলো তাদের সিজন। তারপরও চেষ্টা করবেন যাতে ছুটিটা ভাগে ভাগে দেয়া যায়। তিনি বলেন, গার্মেন্টের বিভিন্ন অনাকাঙ্ক্ষিত সমস্যা সমাধানের জন্য বিজিএমইএ, বিকেএমইএ, শ্রম মন্ত্রণালয়, জেলা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের সমন্বয়ে একটি কমিটি করে বিশেষ আলোচনা হয়েছে। এটা ক্রাইসিস মোমেন্টের জন্য, ঈদের আগের কয়েক দিনের জন্য। আসাদুজ্জামান খান বলেন, রাজধানীসহ সারাদেশের বড় ঈদের জামাতগুলো সিসি ক্যামেরার আওতায় নিয়ে আসব। আর্চওয়ে মেটাল ডিটেক্টর ও চেকপোস্টের ব্যবস্থা থাকবে। মার্কেটগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বিশেষ করে স্বর্ণের দোকানে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। বড় মার্কেটগুলোতে যাতে জাল টাকা লেনদেন না হয় সেজন্য মেশিন সরবরাহ করা হচ্ছে। অজ্ঞান বা মলম পার্টি, ছিনতাই প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, পহেলা রমজান থেকে ৭২ জন অজ্ঞান পার্টির সদস্য ও ৩৬ জন ছিনতাইকারী ধরা হয়েছে। ঢাকার প্রবেশ ও বহির্গমন পথে যানজট রোধে প্রচেষ্টা থাকবে। মহাসড়কেও যানজট নিরসনে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হবে। কাঁচপুর ও চন্দ্রা এলাকায় পুলিশ কন্ট্রোল রুম থাহাসড়কে নির্দিষ্ট কিছু স্থানে আনসার নিয়োগ করা হবে। পবিত্র ঈদে নাশকতা রোধে গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করা হবে। বাস, লঞ্চ ও ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা যাবে না জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, টিকিট কালোবাজারি নিয়ন্ত্রণে গোয়েন্দা তৎপরতা থাকবে। রাস্তায় চাঁদাবাজি রোধে হাইওয়ে পুলিশের সঙ্গে জেলা পুলিশ ও রযাবের টহল থাকবে। মন্ত্রী বলেন, ১৪ জুন সরকারি ছুটির দিন। ওই দিন যাতে শিল্প এলাকাগুলোতে যেখানে গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রি ও অন্যান্য ইন্ডাস্ট্রি রয়েছে ও মার্কেট রয়েছে সেসব এলাকায় ব্যাংক খোলা রাখার ব্যবস্থা করা হবে। সভায় জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, পুলিশের মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ জাবেদ পটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, বিজিএমইএর (তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতি) সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
সড়ক দুর্ঘটনায় ২ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত মধ্য আফ্রিকায়
মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্রে (সিএআর) জাতিসংঘ মিশনে থাকা দুই বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুজন। আভিযানিক দায়িত্ব পালনকালে শনিবার (২৬ মে) দেশটির ইয়ালোক নামক স্থানে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিট এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সৈনিক আরজান হাওলাদার (৩৪ ই বেঙ্গল-ফরিদপুর) ও সৈনিক (টিএ) মো. রিপুল মিয়া (৩৫ ডিভ লোকেটিং ব্যাটারি আর্টিলারি (রংপুর)। আহতরা হলেন- সৈনিক মো. জামাল উদ্দিন মোল্লাহ (৩৪ ই বেঙ্গল-ফরিদপুর) ও সৈনিক মো. মজাহিদুল ইসলাম (৩৬ এডি রেজিমেন্ট আর্টিলারি-নওগাঁ)। রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর)। এতে বলা হয়, বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা সামরিক ও অসামরিক যানবাহনের একটি কনভয়ের নিরাপত্তায় নিয়োজিত ছিলেন। পথিমধ্যে দেশটির ইয়ালোক নামক স্থানে কনভয়ের কাঠ বহনকারী একটি ভারী যানবাহন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে দুর্ঘটনাটি হয়। নিহত এবং আহতদের সবাই জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োজিত বাংলাদেশ ব্যাটালিয়ন-৪ (ব্যানব্যাট-৪) এর সদস্য। উল্লেখ্য বাংলাদেশ ব্যাটালিয়ন ২০১৪ সালের অক্টোবর থেকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিয়োজিত রয়েছেন। আহতদের উন্নত চিকিৎসার জন্য মধ্য অফ্রিকান প্রজাতন্ত্রের রাজধানী বাঙ্গুইতে স্থানান্তর করা হয়েছে। ওই দেশে নিয়োজিত অন্য বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা নিরাপদে আছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।