চট্টগ্রামে মহিউদ্দীন চৌধুরীর চশমা হিলের ভবনসহ নগরীর ৮ ভবন লকডাউন
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম নগরীতে নতুন করে ১১ জন করোনা রোগী শনাক্তের ঘটনায় প্রয়াত মেয়র বিএবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর নগরীর চশমা হিলের ভবনসহ বিভিন্ন এলাকার ৮টি ভবন লকডাউন করে দিয়েছে প্রশাসন। নগরীর ৮ ভবন লকডাউন করার বিষয়ে আজ দুপুরে গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন নগর পুলিশের বিশেষ শাখার (সিটিএসবি) উপ-কমিশনার আব্দুল ওয়ারিশ। তিনি জানান, প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ায় নগরীর চশমা হিলে তাদের ভবনটিও লকডাউন করে দেওয়া হয়। সোমবার ভোররাতে সেনাবাহিনী ও থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে নগর পুলিশের বিশেষ শাখার (সিটিএসবি) একটি দল ৮টি ভবন লকডাউন করেন। এখন থেকে লকডাউন হওয়া ৮টি ভবন সিটিএসবির হেফাজতে থাকবে নিশ্চিত করে সিটিএসবির উপ-কমিশনার বলেন, ভবনগুলো থেকে আগামি ১৪ দিন কেউ বাইরে যেতে পারবে না। আবার কেউ ভবনগুলোতে প্রবেশও করতে পারবে না। ভবনের বাসিন্দাদের কিছু প্রয়োজন হলে প্রশাসন তা দেখভাল করবেন। মহিউদ্দিনের জামাতা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আক্তার চৌধুরী বলেছেন, ‘সালেহীন স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে কিছুদিন ঢাকায় ছিলেন। সেখান থেকে ফেরার পর গত বৃহস্পতিবার তার জ্বর আসে। নমুনা পরীক্ষার জন্য বিআইটিআইডিতে পাঠালে সেখান থেকে ১০ মে রাতে পজিটিভ রেজাল্ট এসেছে। তাকে আপাতত বাসায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এখন জ্বর নেই। উপসর্গ বেশি দেখা না গেলে বাসায় রেখে চিকিৎসা দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
বাংলাদেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় সর্বোচ্চ আক্রান্ত, মৃত ১১
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশে করোনার সংক্রমণ ক্রমাগত বাড়ছেই। গেল ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে দেশে করোনায় মারা গেছেন ১১ জন। এ নিয়ে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৩৯ জনে। এদিন সর্বোচ্চ আক্রান্ত হয়েছে ১০৩৪ জন। করোনা ভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে সোমবার (১১ মে) এ তথ্য জানানো হয়েছে। গত ডিসেম্বরে চীনের উহানে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত হলেও তা মূলত প্রকাশ্যে আসে জানুয়ারিতে। ফেব্রুয়ারিতে চীনে যখন এটি ভয়াবহ রূপ নেয়, তখন ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোতে। সবাই প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা নেয়া শুরু করে। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও বিদেশ ফেরতদের ক্ষেত্রে স্ক্রিনিংসহ নানা পদক্ষেপ নেয়। তবে এত কিছুর পরও ৮ মার্চ দেশে প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে। এরপর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম ভাইরাসটির সংক্রমণে মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এরপর ক্রমেই বাড়তে থাকে এর প্রাদুর্ভাব। এপ্রিলে এসে ভাইরাসটি যেন মারাত্মক রূপ ধারণ করে। যার ফলশ্রুতিতে মৃতের সংখ্যা পেরিয়ে যায় দুই’শ। বিশ্বের অন্যান্য দেশ যখন এর করাল গ্রাসে দিশেহারা তখন অনেকটাই যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছিল চীন। অনেকদিন ধরে সেখানে মৃত্যুর তথ্যও পাওয়া যায়নি। এছাড়া ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল উহানে সংক্রমণের ঘটনা ঘটেনি অনেকদিন। কিন্তু রোববার (১০ মে) সেখানে আবার নতুন করে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া ভাইরাস দমনে অনেকটাই সফল জার্মানি লকডাউন শিথিল করে বিপাকে পড়েছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত লকডাউন শিথিল করার পর থেকে সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঘটনা ক্রমশ বাড়ছে। এরপর থেকে বারবার ঘুরে ঘুরে বিশেষজ্ঞদের সতর্ক বাণী সামনে আসছে। তারা বলেছিলেন, ভাইরাসের ভ্যাকসিন বা প্রতিষেধক যতদিন বাজারে না আসবে ততদিন লকডাউনই একমাত্র ভরাস। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী এ ভাইরাসটিতে সংক্রণের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে ৪১ লাখ ৮১ হাজার ২১৮ জনের শরীরে। এছাড়া এতে মারা গেছেন ২ লাখ ৮৩ হাজার ৮৭৭ জনের শরীরে। ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন ১৪ লাখ ৯৩ হাজার ৪৯২ জন।
কালবৈশাখী ঝড়ের পূর্বাভাস
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের বেশকিছু অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকবে। এছাড়া দুই-এক জায়গায় হানা দিতে পারে কালবৈশাখী ঝড়। সোমবার (১১ মে) এ তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। পাশাপাশি আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, কুমিল্লাসহ রাজশাহী, রংপুর, খুলনা, ঢাকা ও সিলেট বরিশাল বিভাগের দু এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। কিশোরগঞ্জ, সন্দ্বীপ, সীতাকুণ্ড, রাঙ্গামাটি, ফেনী, হাতিয়া, রাজশাহী এবং পাবনা অঞ্চলসহ খুলনা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সোমবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা চুয়াডাঙ্গা ২০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশকে ৬ কোটি টাকা প্রণোদনা
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বর্তমান করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশের ৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশকে ছয় কোটি টাকা প্রণোদনা দিচ্ছে সরকার। গ্রাম পুলিশের প্রত্যেক সদস্য ১৩০০ টাকা করে এই প্রণোদনা পাবেন। আজ সোমবার (১১ মে) স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে এ প্রণোদনার অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব তানভীর আজম সিদ্দিকী স্বাক্ষরিত বরাদ্দপত্র এরইমধ্যে জেলা প্রশাসকদের কাছে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় সূত্রমতে, বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের চার হাজার ৫৬৯টি ইউনিয়র পরিষদের অধীনে ৪৬ হাজার গ্রাম পুলিশ বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। গ্রামবাসীকে সচেনতামূলক মাইকিং করা, কেউ অসুস্থ হলে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা ইত্যাদি কাজে সহযোগিতা করেন এসব সদস্য। এজন্য জেলা প্রশাসকদের মাধ্যমে এসব গ্রাম পুলিশকে ১৩০০ টাকা করে প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম নিউজ একাত্তরকে বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের অসহায় ও দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সরকার। এছাড়া সরকার নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। তৃণমূলের সবচেয়ে নিম্ন গ্রেডের কর্মচারী গ্রাম পুলিশ। বর্তমান পরিস্থিতিতে তাঁরাও অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী এসব গ্রাম পুলিশের মানবিক দিক বিবেচনায় বিশেষ এ প্রণোদনা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।
দলীয় পরিচয়ে অনিয়ম করলে কঠোর ব্যবস্থা: কাদের
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশে করোনাকালে ত্রাণ কার্যক্রমে স্বচ্ছতা নিশ্চিতকরণে শেখ হাসিনা সরকার কঠোর অবস্থানে রযেছে। যারা দলীয় পরিচয়ে অনিয়ম করবে তাদের স্মরণ করিয়ে দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের শুদ্ধি অভিযান এখনো চলমান রয়েছে। সোমবার (১১ মে) তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনার বিস্তার রোধ করতে সরকার সক্ষমতা বাড়িয়েছে। তিনি বলেন, সম্মুখ সারিতে তারুণ্যের শক্তি হিসেবে নতুন ডাক্তার ও নার্স যুক্ত হওয়ায় করোনা প্রতিরোধ লড়াইয়ে নতুন গতির সঞ্চার হয়েছে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশ যখন করোনার করাল গ্রাসে বিপর্যস্ত, তখন জনগণের প্রত্যাশা ছিলো বিএনপি ত্রাণ নিয়ে অসহায় মানুষদের দাঁড়াবে। কিন্তু তারা তা না করে তাদের নেতাকর্মীদের ঈদ উপহার কিনে দিচ্ছেন, এই দুর্যোগে যা কোনোভাবেই প্রত্যাশা নয়।
যুক্তরাজ্যে আটকে পড়া ১১৪ বাংলাদেশী দেশে ফিরেছেন
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সরকার কোভিড-১৯ মহামারীজনিত কারণে ফ্লাইট স্থগিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে আটকে থাকা ১১৪ জন বাংলাদেশীকে আজ একটি বিশেষ বিমান করে লন্ডন থেকে দেশে ফিরিয়ে এনেছে। বিমানের উপ-মহাব্যবস্থাপক (পিআর) তাহেরা খোন্দোকার গণমাধ্যমকে বলেন, আমাদের বিশেষ বিমানটি আজ সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে লন্ডন থেকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে (এইচএসআইএ) অবতরণ করেছে। এদিকে, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে জারি করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ বিমান বিজি-৪০৪১ রোববার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিটে লন্ডন থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছে। এতে বলা হয়, প্রত্যাবর্তনকারী যাত্রীদের বেশিরভাগই বাংলাদেশ থেকে আসা শিক্ষার্থী। যারা করোনা ভাইরাসের কারণে ফ্লাইট স্থগিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে আটকা পড়েছিলেন। যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের হাই কমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম হিথ্রো বিমানবন্দরে প্রত্যাবর্তনরত যাত্রীদের সঙ্গে দেখা করেছেন। তিনি বলেন, আমরা অত্যন্ত বিনীতভাবে সন্তোষ প্রকাশ করছি যে, পবিত্র ঈদুল ফিতর উৎসবের আগেই যুক্তরাজ্যে আটকে থাকা বাংলাদেশী নাগরিকদের, বিশেষত শিক্ষার্থীদের, বাংলাদেশে তাদের পরিবারের সঙ্গে পুনরায় একত্রিত করতে পারলাম। এর আগে, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের অনুরোধে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিশেষ ফ্লাইটটি বাংলাদেশ বিমান বাহিনী কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষ থেকে পরিচালনা করেছে। লন্ডন হাই কমিশন ইতিমধ্যে সব যাত্রীকেই স্বাস্থ্য মূল্যায়নের ভিত্তিতে একটি স্বাস্থ্য সনদ সরবরাহ করেছে, যাতে তাদের কেবল হোম কোরেন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে, বিমানবন্দরে আসার পরে বাংলাদেশীরা যদি সুস্থতার মেডিকেল সনদপত্র প্রদর্শন করতে ব্যর্থ হতেন, তাহলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে তাদেরকে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ (এএফডি)-এর অধীনে পরিচালিত ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারান্টিনে প্রেরণ করা হতো। বাংলাদেশ এখন ভারত, অস্ট্রেলিয়া, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর এবং মিয়ানমার, যুক্তরাষ্ট্র ও মালয়েশিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশীদের শিগগিরই ফিরিয়ে আনার পরিকল্পনা করেছে। করোনা ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশ বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ গত ৫ মে টানা পঞ্চম বারের মতো বাড়িয়ে আগামী ১৬ মে পর্যন্ত করেছে। ফলে, এখন শুধু বিশেষ কিছু ফ্লাইট পরিচালিত হচ্ছে।
গণপরিবহন চালুর দাবি
১১মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে সীমিত আকারে গণপরিবহন চালু করার দাবি জানিয়েছে যাত্রী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। একইসঙ্গে গণপরিবহন চলাচলের জন্য ১১টি সুপারিশ করেছে সংগঠনটি। সোমবার (১১ মে) গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মেয়র এই দাবি জানান। এতে বলা হয়েছে, সারাদেশে ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি চলছে। ছুটিতে সারাদেশ কার্যত লকডাউন থাকার কথা। প্রথমদিকে সব বন্ধ থাকলেও গত কয়েকদিন পরিস্থিতি ভেঙে পড়েছে। দিনমজুর, গৃহকর্মীসহ শ্রমজীবী মানুষে রাস্তায় বেরিয়ে পড়ছে। পোশাক কারখানাসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। সে কারণে সীমিত আকারে ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহন চালুর করা দরকার। বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সামসুদ্দীন চৌধুরী বলেন, জীবন যেমন জরুরি তেমনি জীবিকাও দরকার। আর এ দুটোকে সমন্বয় করতে গেলে গণপরিবহন চালুর বিকল্প নেই। জীবিকার তাগিদে একটু একটু করে সবই চালু করতে হবে। তবে তা স্বাস্থ্যবিধি মেনে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহনে ৪০ সিটের গাড়িতে ২০ সিট পরিপূর্ণ করে এক আসন ফাঁকা রেখে যাত্রী বহন করলে ও গাড়িতে উঠার আগে স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করার ব্যবস্থা এবং প্রতি টিপ শেষে জীবাণুনাশক স্প্রে দিয়ে গাড়ি পরিষ্কার করলে করোনার সংক্রমণ থেকে যাত্রীদের রক্ষা করা সম্ভব। একইসঙ্গে ৭০ লাখ পরিবহন শ্রমিকদেরও রুটি রুজি শুরু হবে। সংগঠনটটি ১১টি সুপারিশ করেছে। এগুলো হচ্ছে- বাস স্টপেজ ও রেল স্টেশনে আসা যাত্রীদের তাপমাত্রা মাপার জন্য স্টেশনে ইনফ্রারেড থার্মোমিটার রাখতে হবে। যাত্রীদের চলাচলের স্থানগুলো পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে। বাস স্টপেজ ও রেলস্টেশনে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের অপেক্ষা করার স্থান, বাস কম্পার্টমেন্ট ও অন্যান্য এলাকা পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। যাত্রীদের মাস্ক ও হ্যান্ড গ্লাভস ব্যবহারে সচেতন করতে হবে। সিট কভারগুলোকে প্রতিনিয়ত ধোয়া, পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত করতে হবে। যাত্রীদের অনলাইনে টিকিট কেনার পরামর্শ দিতে হবে। গণপরিবহনের ওঠা ও নামার সময় শারীরিক দূরুত্ব বজায় রাখার জন্য যাত্রীদের সচেতন করতে হবে। গণপরিবহনের চালক-শ্রমিক ও পরিবহন সংশ্লিষ্টদের মাস্ক, হ্যান্ড গ্লাভস, পিপিই ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। যাত্রীদের স্বাস্থ্য সচেতন করার জন্য পত্রিকা, টেলিভিশন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অডিও, ভিডিও ও পোস্টারের মাধ্যমে সচেতনতামূলক বক্তব্য প্রদান করতে হবে। যুক্তিসঙ্গতভাবে পরিবহনের ধারণক্ষমতা সীমিত করে যাত্রী নিয়ন্ত্রণ ও যথাসম্ভব যাত্রীদের আলাদা বসার ব্যবস্থা করতে হবে। ফেরি বা নৌ টার্মিনাল এবং নৌযানগুলোকে পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত রাখতে হবে।
পুলিশের ১৫০৯ সদস্য করোনায় আক্রান্ত
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নোভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) দেশের মোট ১ হাজার ৫০৯ পুলিশ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে শুধু ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ৭০৮ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে জানা গেছে এ তথ্য। এদিকে করোনায় সাত পুলিশ সদস্য মারা গেছেন। বর্তমানে ২ হাজার ৮৭০ পুলিশ সদস্য কোয়ারেন্টাইনে আছেন এবং ৪৬৬ জন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। সেই সঙ্গে ১১০ পুলিশ সদস্য সুস্থ হয়ে উঠেছেন। করোনার সংক্রমণ রোধে দেশে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ, সশস্ত্র বাহিনী, Rab ও অন্যান্য সংস্থা যৌথভাবে কাজ করছে। করোনাভাইরাস আক্রান্ত বাহিনীর সদস্যদের চিকিৎসার জন্য রাজধানীর ইমপালস হাসপাতাল ভাড়া করেছে বাংলাদেশ পুলিশ। পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি-মিডিয়া) সোহেল রানা নিউজ একাত্তরকে বলেন, ২৫০ শয্যার হাসপাতালটিতে কেবল করোনাভাইরাস আক্রান্ত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসা দেয়া হবে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে নিশ্চিত করে ১৪ হাজার ৬৫৭ জন আক্রান্ত এবং ২১৮ জন মারা গেছেন। সরকার ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ ছুটির মেয়াদ ১৬ মে পর্যন্ত বাড়িয়েছে। কিন্তু রমজান ও ঈদুল ফিতরের কথা বিবেচনা করে কিছু ক্ষেত্রে মানুষের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রতিদিন বিকাল ৪টা পর্যন্ত দোকানপাট ও শপিংমল খোলা রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে।
বিশ্ব মা দিবস আজ
১০মে,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্ব মা দিবস আজ। জন্মদাত্রী মা, যার কল্যাণে পৃথিবীতে আলোর মুখ দেখা হয় সন্তানের। সেই মায়ের স্মরণে প্রতি বছর মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্ব মা দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। যদিও মাকে ভালোবাসা-শ্রদ্ধা জানানোর কোন দিনক্ষণ ঠিক করে হয় না- তবুও মাকে গভীর মমতায় স্মরণ করার দিন আজ। প্রাচীন গ্রিসে বিশ্ব মা দিবসের পালন করা হলেও আধুনিককালে এর প্রবর্তন করেন এক মার্কিন নারী। ১৯০৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রের আনা জারভিস নামের নারী মারা গেলে তার মেয়ে আনা মারিয়া রিভস জারভিস মায়ের কাজকে স্মরণীয় করে রাখার জন্য সচেষ্ট হন। ওই বছর তিনি তার সান ডে স্কুলে প্রথম এ দিনটি মাতৃদিবস হিসেবে পালন করেন। ১৯০৭ সালের এক রোববার আনা মারিয়া স্কুলের বক্তব্যে মায়ের জন্য একটি দিবসের গুরুত্ব ব্যাখ্যা করেন। ১৯১৪ সালের ৮ মে মার্কিন কংগ্রেস মে মাসের দ্বিতীয় রোববারকে ‘মা’ দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এভাবেই শুরু হয় মা দিবসের যাত্রা। এরই ধারাবাহিকতায় আমেরিকার পাশাপাশি মা দিবস এখন বাংলাদেশসহ অস্ট্রেলিয়া, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, রাশিয়া ও জার্মানসহ শতাধিক দেশে মর্যাদার সঙ্গে দিবসটি পালিত হচ্ছে। যদিও করোনার কারণে এবার দিবসটিতে কোন আনুষ্ঠানিকতা দেখা যাবেনা। তাই বলে ঘরে ঘরে মায়ের ভালবাসা কুড়াতে কার্পণ্য করবে না, কোন সুসন্তান।

জাতীয় পাতার আরো খবর