বাংলাদেশি নারীদের কান্না সৌদিতে
বাংলাদেশ থেকে গৃহকর্মী হিসেবে সৌদি আরবে যাওয়া নারীদের ভয়াবহ অবস্থা তুলে ধরে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিডলইস্ট আই। প্রকাশিত প্রতিবেদনে পত্রিকাটি জানিয়েছে, নিয়োগকারীদের দ্বারা যৌন ও শারীরিকভাবে নিপীড়নের শিকার হয়ে শত শত নারী কাজ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে, এসব নারীদের থাকার জন্য আশ্রয় কেন্দ্র (সেইফ হোম) খুলতে হয়েছে বাংলাদেশ সরকারকে। রিয়াদ থেকে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো ফাঁস হওয়া গোপনীয় কূটনৈতিক বার্তা থেকে এসব তথ্য জানা গেছে বলে দাবি মিডলইস্ট আইর। ঢাকার একজন কূটনীতিককে উদ্ধৃত করে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,পালিয়ে আশ্রয় কেন্দ্রে আসা নারীরা অভিযোগ করেন নিয়োগকর্তারা তাদের ওপর নানা ধরনের নিপীড়ন চালান। কেউ আবার অসুস্থ হয়েও আসেন।তাই তারা এখানে আশ্রয় নিতে চান। ২০১৫ সালে লেখা ওই কূটনৈতিক বার্তায় বলা হয়েছে, প্রতিদিন গড়ে ৩ থেকে ৪ জন নারী আশ্রয় কেন্দ্রে আসেন। অব্যাহতভাবে আশ্রয়কেন্দ্রে আসা নারীদের সংখ্যা বাড়তে থাকায় তাদের থাকার ব্যবস্থা করতে রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্মকর্তারা আশ্রয় কেন্দ্রে আরো আসন বৃদ্ধি ও সিসিটিভি-সিস্টেম পাঠানোর অনুরোধ করেছেন ওই বার্তায়। এছাড়া একজন কাউন্সেলর পাঠানোর অনুরোধ জানিয়ে বার্তায় আরো বলা হয়, আশ্রয় কেন্দ্রে আসা নারীদের সহযোগিতার জন্য দূতাবাসে কোনো নারী কূটনীতিক নেই। আশ্রয় নেয়া নারীরা দেশে ফিরে আসতে দূতাবাসের সহযোগিতা চেয়ে থাকেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, তাদের সঙ্গে পাসপোর্ট বা অন্যান্য কাগজপত্র থাকে না। মিডলইস্ট আইকে কয়েকজন নারী জানিয়েছেন, সৌদি আরবে পৌঁছার পর পরই গৃহকর্তারা তাদের কাছ থেকে সব ধরনের কাগজপত্র নিয়ে নেয়। এতে অনেকের পক্ষে সহজে দেশে ফিরে আসা সম্ভব হয় না। আবার কিছু ক্ষেত্রে ভুক্তভোগীদের বিরুদ্ধে মামলা করে তাদের দেশে ফেরার প্রক্রিয়াকে বিলম্বিত করেন নিয়োগকর্তারা। ফাঁস হওয়া কূটনৈতিক বার্তায় বলা হয়েছে, এমন ক্ষেত্রে ভুক্তভোগীর দেশে ফিরতে কখনো ১৫ দিন বা এক মাস আবার কখনো ৬ মাস পর্যন্ত সময় লেগে যায়। সৌদিতে এ ধরনের আশ্রয় কেন্দ্রের সংখ্যা কত তার কোনো নির্দিষ্ট তথ্য বার্তায় দেয়া হয়নি। তবে ২০১৭ সালের তথ্য অনুযায়ী, জেদ্দা এবং রিয়াদে অন্তত ২৫০ জন নারী আশ্রয় কেন্দ্রে ছিলেন। গত চার বছরে সৌদি আরবে নারী গৃহকর্মী যাওয়ার সংখ্যা নাটকীয়ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০০৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ৭ বছরে ৫ হাজারের কিছু বেশি নারী সৌদি গিয়েছিলেন। এরপর ২০১৫ সালে যান ২১ হাজার, ২০১৬-তে ৬৮ হাজার, ২০১৭-তে ৮৩ হাজার। আর চলতি বছরের প্রথম দুই মাসে গেছেন ১৬ হাজারের বেশি। উল্লেখ্য, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো মানবজমিনকে জানিয়েছে, সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের কূটনীতিকরা দেশটিতে নারী শ্রমিক পাঠানোর বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়ে আসছেন অনেক দিন ধরে। নারী শ্রমিকদের সুরক্ষায় সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি সরকারের সঙ্গে ঢাকার প্রতিনিধিদের আলোচনাও হয়েছে। সেগুনবাগিচার কূটনীতিকরা বলছেন, সৌদিতে নারী শ্রমিকদের ওপর নির্যাতন বন্ধে বাংলাদেশ অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে এখন বেশি তৎপর রয়েছে। সেই তৎপরতার সুফলও পাওয়া যাচ্ছে বলে দাবি ঢাকার কর্মকর্তাদের।
রাষ্ট্র ক্ষমতায় যেন স্বাধীনতা বিরোধীরা আসতে না পারে:সাহারা খাতুন
স্বাধীনতাবিরোধীরা যেন কোনোভাবেই রাষ্ট্রক্ষমতায় আসতে না পারে সেদিকে সবাইকেই লক্ষ রাখার আহ্বান জানিয়েছেন প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন। শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন নিজ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, এক শ্রেণির লোক আছে যারা অর্থের বিনিময়ে জামায়াত-শিবির ও বিএনপিকে আওয়ামী লীগে ঢোকানোর জন্য আদাজল খেয়ে মাঠে নেমেছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ওইসব বিএনপি-জামায়াতকে আওয়ামী লীগে ঢোকানোর কোনো দরকার নেই। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে এই দেশকে আর কেউ গরিব দেশ বলে ডাকবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি। আলোচনা সভায় চিত্রনায়ক মাসুম পারভেজ রুবেল বলেন, আওয়ামী লীগের কিছু সিনিয়র নেতার কারণে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে বিভাজনের সৃষ্টি হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ১৬ কোটি মানুষের। যেমন ভারতের মহাত্মা গান্ধী, রাশিয়ার লেলিন, চীনের মাও সেতুং, ঠিক তেমনই বাংলাদেশের জনক শেখ মুজিবুর রহমান। সংগঠনের সভাপতি মাসুম পারভেজ রুবেলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় কবি ও নাট্যকার কাজী রোজী, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মুকুল বোস, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পরিমল ঘোষ রঞ্জিত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
নিরাপত্তা এবং অর্থনৈতিক সকল সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ:স্পিকার
জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। সামাজিক নিরাপত্তা এবং অর্থনৈতিক সকল সূচকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। নারীর ক্ষমতায়ন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উপনীত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে। দারিদ্র্য দূর করে গড়ে তোলা হবে সমৃদ্ধ আলোকিত বাংলাদেশ। শনিবার হবিগঞ্জ জেলার শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। সাবেক সচিব অশোক মাধব রায় এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন, হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির, হবিগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব আলী, হবিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট আব্দুল মজিদ খান ও শায়েস্তাগঞ্জের পৌর মেয়র মো. খালেক মিয়া। শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বর্তমান শিক্ষার্থীদের মাঝেই তৈরী হচ্ছে ভবিষ্যতের নেতৃত্ব। জ্ঞান অর্জনের শ্রেষ্ঠ সময় শিক্ষা জীবন। এ সময়কে কাজে লাগিয়ে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত হতে তিনি শিক্ষার্থীদের প্রতি উদাত্ত্ব আহ্বান জানান। তিনি বলেন, মার্চ মাস গৌরব ও অহংকারের মাস। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দীর্ঘ নয় মাস সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে ৩০ লক্ষ শহীদ ও দুই লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময় বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা। অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশের সাবেক প্রধান বিচারপতি ও স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী বিচারপতি সৈয়দ জে আর মোদাচ্ছির হোসেন। এ সময় তিনি শতবর্ষ পূর্তি উৎসব স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করেন। এর আগে স্পিকার শায়েস্তাগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যমান একাডেমিক ভবন উর্ধ্বমূখী সম্প্রসারণ এবং শতবর্ষ স্বারক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।
চিরতরে বন্ধ করুন কোচিং সেন্টারগুলো:দুদক চেয়ারম্যান
দেশের সব কোচিং সেন্টারগুলোকে দুর্নীতির আখড়া আখ্যা দিয়ে এগুলো চিরতরে বন্ধ করার উদ্যোগ নিতে বলেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। শনিবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে সরকার, ছাত্র-শিক্ষক ও অভিভাবকদের প্রতি এ আহ্বান জানান তিনি। দুর্নীতি প্রতিরোধ সপ্তাহ উপলক্ষে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে সততা সংঘের সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ইকবাল মাহমুদ আরও বলেন, সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন- বাংলাদেশের সব কোচিং সেন্টারগুলো অবৈধ। আমরা বলতে চাই সব কোচিং সেন্টারগুলো শুধু অবৈধ নয়; দুর্নীতির আখড়াও। তাই আসুন সবাই মিলে এই অবৈধ ও দুর্নীতিগ্রস্ত কোচিং সেন্টারগুলো বন্ধ করার উদ্যোগ গ্রহণ করি। তিনি বলেন, আমাদের সন্তানরা সারা দিন কোচিং সেন্টারে ঘুরে বেড়াবে তা হতে পারে না। তাই যে কোনো মূল্যে সম্মিলিতভাবে প্রশ্নপত্র ফাঁস ও কোচিং বাণিজ্য চিরতরে বন্ধ করতে হবে। শিক্ষকদের উদ্দেশে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, আপনারাই জাতি গঠনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আপনাদের সুযোগ-সুবিধা, সামাজিক মর্যাদা, বেতন বৃদ্ধিসহ সব ধরনের উন্নয়নে আপনাদের পাশে থাকবে দুদক। আপনাদের প্রতি অনুরোধ- শ্রেণিকক্ষে এমন শিক্ষার ব্যবস্থা করুন, যাতে আমাদের সন্তানদের কোচিং সেন্টারে যেতে না হয়। এ সময় শিক্ষকদের বেতন-ভাতা ও মর্যাদা আরও বাড়াতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান ইকবাল মাহমুদ। দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সংস্থাটির কমিশনার নাসিরউদ্দীন আহমেদ, এএফএম আমিনুল ইসলাম, সচিব মো. শামসুল আরেফিন, মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) মো. জাফর ইকবাল।
বান্দরবানে বিজিবির গাড়ি উল্টে,আহত ৬
বান্দরবানের লাইমি পাড়ায় বিজিবির গাড়ি উল্টে খাদে পড়ে ছয় বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন। শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে বিজিবি ব্যাটালিয়নের ২৩ জন সদস্যকে বহনকারী একটি গাড়ি বান্দরবান থানচি উপজেলার বলিপাড়ায় বিজিবি ক্যাম্পে যাচ্ছিল। এ সময় ওই গাড়িটি সদরের লাইমি পাড়ার কাছে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে ছয় বিজিবি সদস্য আহত হন। আহতদের বান্দরবান সরকারি হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বান্দরবান সদর থানা পুলিশের (ওসি) গোলাম সরোয়ার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আহত বিজিবি সদস্যদের উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়।
নতুন বছর শুরু না হতেই কাল বৈশাখীর তাণ্ডব বাড়ার আশঙ্কা
নতুন বছর শুরু না হতেই শুক্রবার থেকে সারা দেশে শুরু হয়েছে কাল বৈশাখীর তাণ্ডব। অন্য বছরের চেয়ে এবার অধিক শিলাবৃষ্টি ও বজ্রপাত হতে পারে। যার কারণে এবারের কাল বৈশাখী নিয়ে সতর্ক থাকতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। এ ছাড়া এপ্রিল ও মে মাসে বঙ্গোপসাগরে এক থেকে দুটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এর মধ্যে অন্তত একটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, এপ্রিল থেকে মে মাস কালবৈশাখীর মৌসুম। এই সময়ের মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষিপ্তভাবে ঝড়-বৃষ্টি হয়ে থাকে। এতে এবার অন্য বছরের চেয়ে অধিক পরিমাণ শিলাবৃষ্টি ও বজ্রসহ ঝড়ের আশঙ্কা রয়েছে। আগামী তিন মাসের পূর্বাভাসে এমন কথা উল্লেখ করে ঝড়ের সময় খোলা স্থানে না থেকে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে পরামর্শ দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। উল্লেখ্য, শুক্রবার রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঝড় ও শিলাবৃষ্টিসহ বজ্রপাতের ঘটনায় অন্তত ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া ফসলহানি, ঘরবাড়ি ও বিভিন্ন অবকাঠামো বিধ্বস্ত হয়েছে।
আমরা কখনো বলিনি দেশ থেকে জঙ্গি পুরোপুরি নির্মূল হয়ে গেছে:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, আমরা কখনো বলিনি যে, দেশ থেকে জঙ্গি পুরোপুরি নির্মূল হয়ে গেছে। তবে বাংলাদেশে আর কখনো জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দিতে পারবে না। শনিবার সাতক্ষীরার দেবহাটায় নতুন থানা ভবন উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ দেশের মানুষ জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস পছন্দ করে না মন্তব্য করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা বসে নেই। তবে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী জঙ্গি দমনে যথেষ্ট সজাগ। বর্তমানে যে অভিযান চলছে তাতে তাদের মাথাচাড়া দেয়ার সুযোগ নেই। রোহিঙ্গা সমস্যা ১৯৭৮ সাল থেকে চলে আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কফি আনান কমিশন এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর পাঁচ দফা বাস্তবায়ন করতে হবে। তা করলেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সম্ভব হবে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের বৈঠক হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আদালতের নির্দেশে কারাগারে আছেন এবং তিনি সুস্থ আছেন। সেখানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে তিনি কিছু ক্রনিক রোগে ভুগছেন। জেল কোড অনুযায়ী প্রাপ্য সব সুযোগ তিনি লাভ করছেন। কোনোভাবেই মাদককে ছাড় দেয়া নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের সর্বাত্মক অভিযান অব্যাহত আছে। যারা মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত তাদের ছবি দিয়ে সংবাদপত্রে নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হবে। আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল আরও বলেন, সুন্দরবনে জলদস্যু দমনে কঠোর অভিযানের পাশাপাশি তাদের আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়া চলছে। রোববার আরও অনেক জলদস্যু বাগেরহাটে অস্ত্রসহ তার কাছে আত্মসমর্পণ করবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। থানা ভবন উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী দেবহাটা হাইস্কুল ময়দানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন। এরপর তিনি দেবীশহর ফুটবল ময়দানে এক জনসভায় ভাষণ দেন। এসব অনুষ্ঠানে মন্ত্রীর সঙ্গে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়বিষয়ক সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি, সাতক্ষীরা ১ , ২ ও ৪ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, এসএম জগলুল হায়দার, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য মিসেস রিফাত আমিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইফতেখার হোসেন, পুলিশ সুপার মো. সাজ্জাদুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধানমন্ত্রী চাঁদপুর সফরে যাচ্ছেন রোববার
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার চাঁদপুর সফরে যাবেন। সকাল সাড়ে ১০টায় তিনি তেজগাঁও বিমানবন্দর থেকে চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। প্রধানমন্ত্রী জেলায় বাংলাদেশ স্কাউটের ৬ষ্ঠ ন্যাশনাল কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট ক্যাম্পে (কমডেকা) অংশগ্রহণ করবেন। তিনি সকালে হেলিকপ্টারে জেলার হাইমচর উপজেলায় পৌঁছে সেখানে চরভাঙ্গায় ৬ষ্ঠ কমডেকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। বিকেলে তিনি জেলা সদরে যাবেন এবং চাঁদপুর স্টেডিয়াম থেকে ২৩টি উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন ও ২৪টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের প্রকল্পগুলো হচ্ছে- চাঁদপুর জেলা পরিষদের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য ৬ তলা ভিত্তির ওপর নির্মিত ৪ তলা স্টাফ কোয়ার্টার, চাঁদপুর পৌরসভায় পুরানবাজার ভূগর্ভস্থ পানি শোধনাগার ও উচ্চ পানি সংরক্ষণাগার, পুরানবাজার ইব্রাহিমপুর সাখুয়ায় মেঘনার ভাঙন থেকে চাঁদপুর সেচ প্রকল্পের সুরক্ষা প্রকল্প (প্রথম পর্যায়), মেঘনা নদীর (হাইমচর) ভাঙন থেকে চাঁদপুর সেচ প্রকল্প এলাকা সুরক্ষা ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলা সংরক্ষণ প্রকল্প (প্রথম পর্যায়), চাঁদপুর সরকারি কলেজের বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব গার্লস হোস্টেল, চাঁদপুর পুরানবাজার ডিগ্রি কলেজের ৪ তলা একাডেমিক ভবন। মতলব উত্তর সুজাতপুর ডিগ্রি কলেজের ৪ তলা একাডেমিক ভবন, মতলব উত্তর উপজেলার কলিপুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ৪ তলা একাডেমিক ভবন, কচুয়া উপজেলায় কচুয়া বঙ্গবন্ধু ডিগ্রি কলেজের ৪ তলা একাডেমিক ভবন, ফরিদগঞ্জ উপজেলার লাউতলীতে ড. রশিদ আহমেদ উচ্চ বিদ্যালয় ও ৪ তলা একাডেমিক ভবন, শোল্লা উচ্চবিদ্যালয় একাডেমিক ভবন, মতলব উত্তর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন। ফরিদগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, জেলার ৮ উপজেলায় ৬০ ভূমিহীন ও অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য আবাসন, হাইমচর থেকে চর ভিরিবি সড়ক উন্নয়ন, চাঁদপুর সদর উপজেলায় হোসেনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্প্রসারণ, আমিনুল হক পৌরসভা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্প্রসারণ, কদমতলা পৌর সুপার মার্কেট, ১৯৯০-এর স্বৈরাচার বিরোধী গণআন্দোলনে নিহত ছাত্রলীগ নেতা শহীদ জিয়াউর রহমান রাজু স্মরণে নির্মিত রাজু চত্বর চাঁদপুর মেরিন টেকনোলজি ইনস্টিটিউট ও ধনাগোদা নদীর ওপর মতলব সেতু। প্রধানমন্ত্রী যেসব প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করবেন সেগুলো হচ্ছে- মতলব দক্ষিণ উপজেলার গলিমখানে চাঁদপুর-কুমিল্লা সংযোগস্থলে বাউন্ডারি গেট নির্মাণ, কচুয়া উপজোর জগতপুর অংশে চাঁদপুর-কুমিল্লা সংযোগস্থলে বাউন্ডারি গেট নির্মাণ, ফরিদগঞ্জ উপজেলার চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর সংযোগস্থলের চরমান্দারিতে বাউন্ডারি গেট নির্মাণ, মতলব দক্ষিণ উপজেলা প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ফলক নির্মাণ, মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ফলক নির্মাণ, কচুয়া উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে মু্িক্তযুদ্ধের স্মৃতি নির্মাণ, হাইমচর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিফলক নির্মাণ। হাজিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিফলক নির্মাণ। কচুয়া পৌরসভায় আন্ডারগ্রাউন্ড ওয়ার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট নির্মাণ, চাঁদপুর জেলায় মেঘনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষায় হারুনা ফেরিঘাট ও কাটাখাল বাজার রক্ষা প্রকল্প, ফরিদগঞ্জ উপজেলার বাশারাও হাইস্কুল শিক্ষা ভবন নির্মাণ। ফরিদঞ্জ উপজেলার সাহেবগঞ্জ বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয় শিক্ষা ভবন নির্মাণ, মতলব দক্ষিণ উপজেলার হযরত শাহজালাল হাইস্কুল শিক্ষা ভবন নির্মাণ। মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁ দক্ষিণ ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় মতলব পৌর ভূমি অফিস নির্মাণ, মতলব দক্ষিণ উপজেলায় নারায়ণপুর ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ, চাঁদপুর সদর উপজেলার বালিয়া ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ, শাহরাস্তি উপজেলার রাগই ইউনিয়ন ভূমি অফিস উদ্বোধন, কচুয়া উপজেলার কচুয়া দক্ষিণ ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ, কচুয়া উপজেলার কাদলা ইউনিয়ন ভূমি অফিস নির্মাণ, হাইমচর উপজেলার স্নাবালা জিসি- শরিয়তপুর- চন্দ্রপুর আরঅ্যান্ডএইচ সড়ক উন্নয়ন, মতলব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১-শয্যা থেকে ৫০ শয্যয় উন্নয়ন এবং চাঁদপুর পরিবার পরিকল্পনা অফিস ও চাঁদপুর পৌর অফিস ভবন নির্মাণ। প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সভাপতি একই স্থান থেকে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন। প্রধানমন্ত্রীর চাঁদপুর সফর উপলক্ষ্যে জেলায় উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি ৮ বছর পর চাঁদপুর সফরে যাচ্ছেন। জেলা হাইমচর উপজেলার সড়কগুলো সুসজ্জিত করা হয়েছে। তোরণ, বিলবোর্ড ও ফেস্টুনে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার প্রতিকৃতির সঙ্গে বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড প্রদর্শিত হচ্ছে। এছাড়া আসন্ন সংসদ নির্বাচনে মনোয়ন প্রত্যাশী দলীয় নেতারাও অনেক তোরণ নির্মাণ করেছেন।