শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক করোনায় আক্রান্ত
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) বাবলু কুমার সাহা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। রোববার (১৭ মে) সকালে তার নমুনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মাসুম আরেফিন। প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, রোববার অসুস্থ হয়ে পড়ায় মহাপরিচালক নমুনা পরীক্ষা করান। রাতে টেস্টের রেজাল্ট পজিটিভ আসে। তিনি সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর জানায়, এখন পর্যন্ত ৬ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে আছেন, উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ বিভাগ) আতিয়া সুলতানা, সহকারী পরিচালক (তদন্ত) শাহনাজ সুলতানা, সহকারী পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও প্রচার) রজবী নাহার রজনী, গাড়িচালক মিলিয়া খানম। প্রসঙ্গত, নিত্যপণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের প্রতিদিনের বাজার তদারকি, ট্রাকসেল তদারকিতে নিজে অংশ নিতেন বাবলু কুমার সাহা। অভিযানের পাশাপাশি মাঠে থেকে অতিরিক্ত মূল্যে পণ্য বিক্রি না করতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
করোনায় সরকারি সহায়তা পেয়েছেন যারা
১৮মে,সোমবার,আহাম্মদ হোসেন ভুইয়া,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা ভাইরাসের মতো দুর্যোগে সারাদেশের সাধারণ মানুষের কষ্ট লাঘবে ত্রাণ সহায়তা অব্যাহত রেখেছে সরকার। এ পর্যন্ত সারাদেশে এক কোটিরও বেশি পরিবারের ৫ কোটি মানুষকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে সরকার। নগদ টাকা সাহায্য পেয়েছেন ৩ কোটি ৩ লাখ ৩৮ হাজার ব্যক্তি। আজ সোমবার এক তথ্য বিবরণীতে বলা হয়, ৬৪ জেলা প্রশাসন থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী গতকাল পর্যন্ত সারাদেশে জিআর চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে এক লাখ ৬৩ হাজার এক মেট্রিক টন এবং বিতরণ করা হয়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা ১ কোটি ১৪ লাখ। উপকারভোগী লোকসংখ্যা পাঁচ কোটি এক লাখ ৪৩ হাজার। নগদ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ৯১ কোটির বেশি টাকা। বিতরণ করা হয়েছে ৫৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকা। ৬৮ লাখ ৬৯ হাজার পরিবারের কাছে এ টাকা পৌঁছে দেয়া হয়েছে। শিশু খাদ্য সহায়ক হিসেবে বরাদ্দ ১৯ কোটি ১৪ লাখ টাকা এবং এ পর্যন্ত বিতরণ করা হয়েছে ১৪ কোটি ৬৯ লাখ ২১ হাজার ৯৮৮ টাকা। এতে উপকারভোগী পরিবার সংখ্যা চার লাখ ৬২ হাজার ২৩৮ এবং লোখ সংখ্যা ১০ লাখ ১৩ হাজার ১৪৪। সূত্র: বাসস
দেশে সর্বোচ্চ ২১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত আরও ১৬০২
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে আরও ২১ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মোট ৩৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন আরও এক হাজার ৬০২ জন। এতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২৩ হাজার ৮৭০ জনে। সোমবার (১৮ মে) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা ভাইরাস বিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। বুলেটিন উপস্থাপন করেন অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তে আরও নয় হাজার ৯৩৩টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় নয় হাজার ৭৮৮টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো এক লাখ ৮৫ হাজার ১৯৬টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও এক হাজার ৬০২ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজার ৮৭০ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ২১ জন। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৪৯ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ২১২ জন। সবমিলিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন চার হাজার ৫৮৫ জন। করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয় বুলেটিনে। গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস এখন গোটা বিশ্বকেই কাঁপিয়ে চলেছে। এ ভাইরাসে বিশ্বজুড়ে আক্রান্তের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ৪৮ লাখ ১৫ হাজার। মৃতের সংখ্যা তিন লাখ ১৭ হাজার প্রায়। তবে সাড়ে ১৮ লাখের বেশি রোগী ইতোমধ্যে সুস্থ হয়েছেন। বাংলাদেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। তারপর দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। লম্বা হচ্ছে মৃত্যুর মিছিলও।
১১ জুন বাজেট পেশ, বিশেষ বৈঠকে থাকবেন ১১ মন্ত্রী
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় সংসদে আগামী ১১ জুন ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে বাজেট উপলক্ষে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে মাত্র ১১ জন মন্ত্রীকে অংশ নিতে বলা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে ওই বৈঠকে সবাইকে ডাকা হয়নি। গত ১৪ মে জাতীয় সংসদের উপ-সচিব মনিরা বেগম স্বাক্ষরিত এক চিঠি থেকে এ তথ্য জানা গেছে। মন্ত্রিপরিষদ সচিবসহ ১০ জন সিনিয়র সচিব/সচিব উপস্থিত বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। সেভাবেই প্রস্তুতি নিচ্ছে সংসদ সচিবালয়। সংসদ সচিবালয় সূত্র জানিয়েছে, এই বিশেষ বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল ছাড়াও স্বাস্থ্যমন্ত্রী, বাণিজ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, খাদ্যমন্ত্রী, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী, পররাষ্ট্রী থাকবেন। ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটের মূল আকার দাঁড়াতে পারে সাড়ে ৫ লাখ কোটি টাকা। ২০২০-২১ অর্থবছরে বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) জন্য ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকার খসড়া প্রস্তাব ইতোমধ্যেই অনুমোদন করেছে পরিকল্পনা কমিশন। যা চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের এডিপির তুলনায় ৬ শতাংশ বেশি। উন্নয়ন বরাদ্দের মধ্যে সরকারের নিজস্ব অর্থ ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৪৩ কোটি টাকা এবং বিদেশি সাহায্যের পরিমাণ ধরা হয়েছে ৭০ হাজার ৫০২ কোটি টাকা। আসন্ন বাজেটে করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি পুনরায় দাঁড় করানোর কর্মপরিকল্পনার পাশাপাশি অধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে মেগা প্রকল্পগুলোতে। এ বিষয়ে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া বলেন, ‘করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এবারের বাজেট অধিবেশন হবে সীমিত পরিসরে। সংসদে প্রবেশের সময় সবার তাপমাত্রা মাপা হবে। ব্যবহার করতে হবে স্যানিটাইজার।
ঘূর্ণিঝড় আম্ফান : সরাসরি বাংলাদেশ ভূখণ্ডে আঘাতের পূর্বাভাস
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: অবশেষে অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়- আম্ফান সরাসরি বাংলাদেশ ভূখণ্ডে আঘাত হানতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। তারা বলছে, খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে আগামী মঙ্গলবার (১৯ মে) শেষরাত থেকে বুধবার (২০ মে) বিকেল অথবা সন্ধ্যার মধ্যে বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। সোমবার (১৮ মে) ভোর ৬টার তথ্য বিশ্লেষণ করে বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর এসব তথ্য জানিয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়- আম্ফান উত্তর দিকে অগ্রসর হয়ে বর্তমানে পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে। এটি আজ (১৮ মে) সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ১৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে এবং পরবর্তীতে দিক পরিবর্তন করে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী অঞ্চল দিয়ে ১৯ মে (মঙ্গলবার) শেষরাত থেকে ২০ মে (বুধবার) বিকেল অথবা সন্ধ্যার মধ্যে বাংলাদেশের উপকূল অতিক্রম করতে পারে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১১০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে, যাতে স্বল্প সময়ের নোটিশে নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে পারে। সেই সাথে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।
করোনায় আক্রান্ত হলেন হাইকোর্টের এক বিচারপতি
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি শশাঙ্ক শেখর সরকার। সোমবার (১৮ মে) সুপ্রিম কোর্টের একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সূত্রটি জানায়, বিচারপতি শশাঙ্ক শেখর সরকার গত ৮ মে করোনায় আক্রান্ত হন। শুরুর দিকে সামান্য জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন। গত ১০ মে বিচারপতিদের নিয়ে ভিডিও কনফারেন্স ছিল। কিন্তু, অধিক জ্বর ও অসুস্থতার কারণে তিনি সেই কনফারেন্সে যোগ দিতে পারেননি। এরপর গত ১১ মে তিনি করোনা টেস্ট করাতে দিলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এ সময় তিনি বাসাতেই অবস্থান করছিলেন। তবে গত ১৩ মে অবস্থার অবনতি হলে তাকে মুগদার করোনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর সেখান থেকে তাকে সিএমইএইচ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি সিএমএইচ-এ ভর্তি আছেন। প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ৩০ মে রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে আইন মন্ত্রণালয়ের এক পরিপত্রের মাধ্যমে হাইকোর্টে ১৮ জন বিচারপতিকে নিয়োগ দেওয়া হয়। ওই ১৮ বিচারপতির মধ্যে শশাঙ্ক শেখর সরকার একই বছরের ৩১ মে হাইকোর্টের অস্থায়ী বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন। এর আগে তিনি ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসাবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেছেন।
করোনায় আরও এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু
১৮মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মহামারি আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসে প্রাণ হারালেন আরও এক পুলিশ সদস্য। তিনি স্পেশাল ব্রাঞ্চের (এসবি) উপ-পরিদর্শক (এসআই) মুজিবুর রহমান। সোমবার সকাল ৮ টা ৫০ মিনিটে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশলাইন্স হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি মারা যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশলাইন্স হাসপাতালের পরিচালক ডিআইজি হাসানুল হায়দার। তিনি জানান, সোমবার সকাল ৮ টা ৫০ মিনিটে আইসিইউতে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি মারা যান। এ নিয়ে ৯ পুলিশ সদস্য করোনা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গ করলেন। এর আগে ডিএমপির কনস্টেবল জসিম উদ্দিন (৪০), এএসআই মো. আব্দুল খালেক (৩৬), ট্রাফিক বিভাগের কনস্টেবল মো. আশেক মাহমুদ (৪৩), পিওএমের এসআই সুলতানুল আরেফিন, পুলিশের বিশেষ শাখার এসআই নাজির উদ্দীন (৫৫) এবং পিওএমের এএসআই শ্রী রঘুনাথ রায়, জালাল উদ্দিন খোকা (৪৭), নঈমুল হক (৩৮) করোনার লড়াইয়ে প্রাণ হারান। এছাড়া গতকাল রোববার প্রাণঘাতি করোনা প্রতিরোধে মাঠের সম্মুখযোদ্ধা পুলিশের নতুন করে ২৪১ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৩৮২ জনে দাঁড়িয়েছে। জানা গেছে, আক্রান্তরা অধিকাংশই মাঠপর্যায়ের পুলিশ সদস্য। যেখানে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশেরই (ডিএমপি) এক হাজার ৪১ সদস্য। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন ৩৬১ পুলিশ সদস্য। করোনা আক্রান্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের দেখভালে উচ্চপদস্থ পরিদর্শন টিম গঠন করেছেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। তারা নিয়মিত পুলিশ সদস্যদের খোঁজখবর রাখছেন।
করোনায় মারা গেলেন ব্যাংক কর্মকর্তা
১৮ মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন আরেক ব্যাংক কর্মকর্তা। রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার (পিও) মাহবুব এলাহী গতকাল রোববার রাতে কুমিল্লায় মারা যান। এক সপ্তাহে আগে তার শরীরে করোনা সনাক্ত হয়। এ নিয়ে তিনিসহ ৪ জন ব্যাংকার মারা গেলেন। সোনালী ব্যাংক সূত্র জানায়, সোনালী ব্যাংকের মতিঝিলে লোকাল অফিসে কর্মরত ছিলেন মাহবুব এলাহী। করোনার লক্ষণ দেখা দেয়ায় গত ৭ই মে ছুটি নিয়ে কুমিল্লায় নিজবাড়ী চলে যান। পরে ১০ই মে টেস্টে করোনা পজিটিভ আসে। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি হয়ে কয়েকদিন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ী চলে যান। গতকাল রাতে তিনি নিজ বাসাতেই মারা যান। উল্লেখ্য, সোনালী ব্যাংকের ৩০ জন করোনা সংক্রমণিত হয়েছেন। অন্যান্য ব্যাংকের সংক্রমণ আছে। তিনিসহ ৪ জন মারা গেছেন। এরমধ্যে সিটি ব্যাংকের দুইজন এবং রুপালী ব্যাংকের ১ জন কর্মকর্তারা। এর বাইরে করোনা লক্ষণ নিয়ে চট্টগ্রামের মারা গেছেন আরও ২ ব্যাংক কর্মকর্তা।
সাগর উত্তাল,ঘূর্ণিঝড় আম্ফান আঘাত হানতে পারে আগামীকাল
১৮ মে,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। ঘুর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূল থেকে একহাজার ৫০ কিলোটার দূরে অবস্থান করছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আগামীকাল মধ্যরাতের পর এটি খুলনা ও চট্টগ্রামের মধ্যবর্তী উপকূলীয় এলাকায় আঘাত হানতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থাকার নির্দেশনা দিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ। এদিকে, আম্ফানের ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় উপকূলীয় জেলাগুলোতে কাজ শুরু করেছে স্থানীয় প্রশাসন। আশ্রয়কেন্দ্রগুলো প্রস্তুত রাখার পাশাপাশি উপকূলের বেড়িবাঁধের ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টগুলো সার্বক্ষণিক তদারকি করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। চালু করা হচ্ছে কন্ট্রোল রুমও।

জাতীয় পাতার আরো খবর