বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯
পাগলা মিজানের বিরুদ্ধে ২ মামলা
১২অক্টোবর,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলমান ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে আটক ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমান মিজানের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করেছে Rapid Action BAttalion (Rab)। আজ শনিবার মোহাম্মদপুর থানায় মানি লন্ডারিং আইনে ও শ্রীমঙ্গলে অস্ত্র আইনে মামলা দুটি করা হয়। Rab -২ এর অধিনায়ক (সিও) লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে গতকাল শুক্রবার সকালে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থেকে হাবিবুর রহমানকে আটক করা হয়। আটক হাবিবুর রহমান ডিএনসিসির ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এবং মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। ঢাকায় ক্যাসিনো বিরোধী শুদ্ধি অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে লুকিয়ে ছিলেন তিনি। শ্রীমঙ্গল সীমান্ত হয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন হাবিবুর। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করে Rab। মোহাম্মদপুরের অনেকে এই ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে চেনেন পাগলা মিজান হিসেবে।
সব দাবি মানার পরও বুয়েটে আন্দোলন অযৌক্তিক: প্রধানমন্ত্রী
১২অক্টোবর,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সব দাবি মেনে নেয়া নেয়ার পরও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার কোনো যৌক্তিকতা নেই। আজ শনিবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে জাতীয় মহিলা শ্রমিক লীগের দ্বিতীয় সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি। আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, বুয়েটে হত্যাকাণ্ডের পর কারো আন্দোলনের জন্য অপেক্ষা করি নাই, প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থাই নেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নারীর ক্ষমতায়নে সরকার নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এছাড়াও নারীদের উন্নয়নে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।
পাঁচ দফা দাবি মেনে নিল বুয়েট
১২অক্টোবর,শনিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আবরার হত্যার প্রতিবাদে দাবিতে শিক্ষার্থীদের ৫ দাবি মেনে নিয়ে নোটিশ প্রকাশ করেছে বুয়েট প্রশাসন। শনিবার (১২ অক্টোবর) বুয়েট প্রশাসন থেকে একটি নোটিশে এ তথ্য জানানো হয়। শুক্রবার (১১ অক্টোবর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে উপাচার্যের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠকের পর শিক্ষার্থীরা এখনই বাস্তবায়নের জন্য পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন। দাবি না মানা হলে বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা স্থগিত করার কথাও জানানো হয়। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, ১০ দফা দাবির বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে। ভিসি স্যারের অনুরোধ ও সারা দেশের ভর্তিচ্ছুদের কথা চিন্তা করে পাঁচ দফা দাবি বাস্তবায়নের শর্ত দেয়া হয়েছে। তাদের দেয়া পাঁচ দফা দাবি - পাঁচ শর্ত ১. আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সবাইকে এখনই সাময়িক বহিষ্কার করতে হবে। যাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট হবে, তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে মর্মে বুয়েট প্রশাসন থেকে নোটিস জারি করতে হবে। ২. আবরার হত্যা মামলার সব খরচ বুয়েট প্রশাসন বহন করবে এবং তার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বাধ্য থাকবে, সেটাও নোটিসে লেখা থাকবে। ৩. বুয়েটে সাংগঠনিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করে সকল হল থেকে অবৈধ ছাত্র উৎখাত করতে হবে। অবৈধভাবে হলের সিট দখলকারীদের উৎখাত করতে হবে। সাংগঠনিক ছাত্র সংগঠনগুলোর অফিস রুম সিলগালা করতে হবে। সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের পর ভবিষ্যতে কেউ যদি এ রকম সাংগঠনিক কার্যক্রমে জড়িত হয় কিংবা কোনো রকম ছাত্র নির্যাতনে জড়িত হয়, তাহলে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা নেবে- তা বিস্তারিত জানিয়ে নোটিস জারি করতে হবে। পরবর্তীতে এটি যে অর্ডিন্যান্সে অন্তর্ভুক্ত থাকবে, তা নোটিসে উল্লেখ থাকতে হবে। পাশাপাশি, এ ধরনের কার্যক্রম তদারকির জন্য একটি কমিটি করতে হবে এবং কমিটি গঠনের বিষয়টিও নোটিসে উল্লেখ করতে হবে। ৪. বুয়েটে পূর্বে ঘটে যাওয়া সকল ছাত্র নির্যাতন, হয়রানি, র‌্যাগিংয়ের ঘটনা এবং ভবিষ্যতে এরকম ঘটনা প্রকাশের জন্য বিআইআইএস অ্যাকাউন্টে একটি কমন প্ল্যাটফর্ম থাকতে হবে। বিষয়টি মনিটরিংয়ের মাধ্যমে শাস্তি বিধানের জন্য একটি কমিটি থাকতে হবে। বিষয়টি নোটিসের মাধ্যমে নিশ্চিত করতে হবে। ৫. প্রত্যেক হলের সকল ফ্লোরের দুই পাশে সিসি ক্যামেরা যুক্ত করতে হবে এবং এই সিসিটিভি ফুটেজ সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে- এই মর্মে নোটিস আসতে হবে। এই পাঁচ শর্ত তুলে ধরে শিক্ষার্থী প্রতিনিধি বলেন, আমরা চাই না ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে বুয়েটে ১৯ ব্যাচের যে শিক্ষার্থীরা আসবে, তারা একটি অসুস্থ অ্যাক্যাডেমিক কালচারের অংশ হোক। শনিবারের (১২ অক্টোবর) সড়ক অবরোধ করে তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন। আগামী ১৪ অক্টোবর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষা হওয়ার কথা। কিন্তু তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ খুন হওয়ার পর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে সেই পরীক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়। গত রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আবরার ফাহাদকে শেরে-ই-বাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল। আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের লেভেল-২ এর টার্ম ১ এর ছাত্র ছিলেন। তিনি শের-ই-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে। কুষ্টিয়া জেলা স্কুলে তিনি স্কুলজীবন শেষ করে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।
মিরপুর ১৩র ফ্ল্যাট থেকে মা-বাবা-ছেলের লাশ উদ্ধার
১০অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মিরপুরে একটি ফ্ল্যাট থেকে বাবা, মা ও ছেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মিরপুর-১৩ এলাকায় সেকশনের বি ব্লকের ৫ নম্বর সড়কের ১০ নম্বর বাড়ির একটি ফ্ল্যাট থেকে এই লাশ উদ্ধার করা হয়। জানা যায়, ওই ফ্ল্যাটে বায়েজিদ নামের এক ব্যক্তি তার স্ত্রী ও কলেজে পড়ুয়া ছেলে নিয়ে থাকতেন। কেন ও কিভাবে এ ঘটনা ঘটেছে সেই সম্পর্কে পুলিশ কিছু না জানালেও এর সত্যতা নিশ্চিত করেছে কাফরুল থানা পুলিশ। লাশ ও ঘটনার আলামত সংগ্রহ করতে বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) দুপুরে বাসাটিতে প্রবেশ করেছে সিআইডির ক্রাইমসিন ইউনিট।
আবরারের রুমমেট মিজান আটক
১০অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় তার রুমমেট মিজানকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বুয়েটের শেরে-ই-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর রুম থেকে তাকে তুলে নিয়ে যায় ডিবি পুলিশ। আটক মিজান বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াটার রিসোর্চ অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী। শের-ই-বাংলা হলের প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল কাদের জানান, আবরারের মরদেহ উদ্ধারের পর ১০১১ নম্বর রুমটা একদিন বন্ধ ছিল। এরপর আবরারের বাকি রুমমেটরা সেখানে থাকতে শুরু করেন। আজ দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ডিবি পুলিশ এসে ওই রুমের মিজানকে তুলে নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে জানতে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া ও পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমানের মোবাইল ফোনে কল দেয়া হলেও রিসিভ করেননি তিনি। এদিকে আজ সকালে ঢাকার সবুজবাগ থেকে আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আলোচিত ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহাকে আটক করেছে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অমিতকে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। পরে যদি আবরার হত্যার ঘটনায় সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায় তাহলে এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হবে। রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত মধ্যরাতে বুয়েটের সাধারণ ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফাহাদকে শেরে-ই-বাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। সোমবার (৭ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল। আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের লেভেল-২ এর টার্ম ১ এর ছাত্র ছিলেন। তিনি শের-ই-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে। কুষ্টিয়া জেলা স্কুলে তিনি স্কুলজীবন শেষ করে নটরডেম কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন।
দ্রুততম সময়ে আবরার হত্যার অভিযোগপত্র : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
১০অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের বিচার কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করতে দ্রুততম সময়ে অভিযোগপত্র দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয় কতৃর্পক্ষের সঙ্গে আলাপ করে হলগুলোতে তল্লাশি চালানো হবে। একইসঙ্গে শুধু শুদ্ধি অভিযান নয়, দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হবে। বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে জানিয়ে গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনো রাজনৈতিক পরিচয় দেখা হচ্ছে না, অপরাধী যেই হোক কেউ ছাড় পাবে না। বুধবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে গণভবনে সাম্প্রতিক যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত সফর নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ভিসি কথা না বললে বুয়েটের সব ভবনে তালা ঝুলানোর হুঁশিয়ারি
১০অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আগামীকাল শুক্রবারের মধ্যে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম কথা না বললে বুয়েটের সব ভবনে তালা ঝুঁলিয়ে দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি করেছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের জেরে আজ বৃহস্পতিবার চতুর্থদিনের মতো আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। এরই এক পর্যায়ে বেলা সাড়ে ১১টায় সংবাদ সম্মেলনে করে তারা শিক্ষার্থীদের কথা বলার জন্য উপাচার্যকে এ আল্টিমেটাম দেন।একই সঙ্গে সোমবার থেকে আন্দোলন চালিয়ে আসা শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের ১০ দফা দাবি পূরণ না হলে ভর্তি পরীক্ষাসহ বুয়েটের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হবে।প্রসঙ্গত, রবিবার দিবাগত গভীর রাতে বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহ বুয়েটের শেরে-বাংলা হল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযোগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের মারধরে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় আবরারের বাবা ১৯ জনকে আসামি করে রাজধানীর চকবাজার থানায় মামলা করেন। এখন পর্যন্ত এ মামলায় ১৩ জন রিমান্ডে আছে।
আবরার হত্যা : ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা আটক
১০অক্টোবর,বৃহস্পতিবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক অমিত সাহাকে আটক করেছে ডিবি পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সবুজবাগ থেকে বেলা ১১টার দিকে তাকে আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিবির জয়েন্ট কমিশনার মাহাবুব আলম। জানা যায়, ফাহাদকে যে কক্ষে হত্যা করা হয় সেই ২০১১ কক্ষের বাসিন্দা অমিত। গেল রোববার দিবাগত রাত তিনটার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের একতলা থেকে দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ১০ জনকে মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করলে আদালত ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এদিকে আবরার ফাহাদের হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলনে চালিয়ে যাচ্ছে বুয়েট শিক্ষার্থীরা। সব দাবি না মানা পর্যন্ত বুয়েট শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। আগামী ১৫ অক্টোবরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানানো হয়েছে। গতকাল বুধবার (৯ অক্টোবর) আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানিয়েছিলেন, আবরারের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিসহ ১০ দফা দাবি সময়সীমার মধ্যে না মানা হলে বুয়েটের সব ধরনের একাডেমিক কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

জাতীয় পাতার আরো খবর