এটিএম শামসুজ্জামানকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান
১৩মে,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চিকিৎসার জন্য অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানকে অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে রাজধানীর পুরান ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বরেণ্য এ অভিনেতার চিকিৎসার দায়িত্বও নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আজ সোমবার সকালে হাসপাতালে এটিএম শামসুজ্জামানের মেয়ে কোয়েল আহমেদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ১০ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর করেন তার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া। এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বাবার জন্য সবার কাছে দোয়া চান কোয়েল। এ সময় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন, সংগীত শিল্পী রফিকুল ইসলামসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গত ২৬ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টায় পেট ফাঁপা, বারবার বমি ও কোষ্ঠকাঠিন্যজনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন এটিএম শামসুজ্জামান।
বিরোধীতাকারীরা শাস্তি পাবেই: হানিফ
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, স্থানীয় নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যেসব এমপি কাজ করেছেন, তাদের তালিকা নেত্রীর কাছে রয়েছে। আগামীতে তারা নৌকার মনোনয়ন পাবেন না। কর্মীরা প্রায়ই বলেন কই কিছুই তো হয় না। কিন্তু নৌকার বিরোধিতাকারীরা একদিন না একদিন এর ফল পাবেই।তিনি আজ রবিবার বিকেলে যশোর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে জেলা আয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় বক্তব্য দেন। বর্ধিত সভায় আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়। দলের খুলনা বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এ তারিখ নির্ধারণ করেন। এরপর অনুষ্ঠানের সম্মানিত অতিথি আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ ২৬ সেপ্টেম্বর জেলা সম্মেলনের আগে উপজেলা ও ইউনিয়ন কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন।অনুষ্ঠানে মাহবুব-উল আলম হানিফ আরও বলেন, শেখ হাসিনা সংসদ নির্বাচনে যাকেই নৌকা প্রতীক দেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা মেনে নেয়। কিন্তু স্থানীয় সরকার নির্বাচনে এমপির পছন্দের বাইরে তৃণমূলের কেউ নৌকা পেলে তিনি (এমপি) নাখোশ হবেন, বিরোধিতা করবেন, এটা হবে না।অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য তৃণমূলকে ঐক্যবদ্ধ থেকে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন, অ্যাড. আমিরুল ইসলাম মিলন ও পারভীন জামান কল্পনা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, সংসদ সদস্য আফিল উদ্দিন, নাসির উদ্দিন, কাজী নাবিল আহমেদ, রণজিৎ কুমার রায় ও ইসমাত আরা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারসহ বিভিন্ন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ।
সেই বাবাকে চাকরি দিলো স্বপ্ন
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: তিন মাস ধরে চাকরি নেই। বেতন নেই। ঘরে ছোট বাচ্চা। দুধ কেনার টাকা নেই। নিরুপায় হয়ে সন্তানের ক্ষুধার যন্ত্রণা সইতে না পেরে দুধ চুরি করেন এক বাবা। শেষপর্যন্ত পুলিশের মধ্যস্থতায় অসহায় সেই বাবাকে চাকরি দিয়েছে সুপারশপ স্বপ্ন।রবিবার দুপুরে রাজধানীর খিলগাঁও জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনারের (এসি) কার্যালয়ে তাকে ডেকে এনে তার হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেওয়া হয়।সহকারী কমিশনার (এসি) জাহিদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, ওই ব্যক্তিকে স্বপ্ন কর্তৃপক্ষ তাদের অফিসে নিয়ে গেছে। সেখানে তার একটি ইন্টারভিউ হবে। এরপর যোগ্যতা অনুযায়ী পদ ও বেতন নির্ধারণ করবে স্বপ্ন কর্তৃপক্ষ।গত শুক্রবার রাতে সুপারশপ স্বপ্নর খিলগাঁও শাখা থেকে ওই ব্যক্তি একটি দুধের প্যাকেট চুরি করেন বলে অভিযোগ উঠে। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।
অবশেষে ফেনীর এসপিও প্রত্যাহার
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বহুল আলোচিত মাদরাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডের পর সোনাগাজী থানার ওসিকে বাঁচাতে চিঠি লিখে আলোচনায় আসা ফেনীর সেই এসপি এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারকে ফেনী থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছে। রোববার (১২ মে) বিকেলে পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সারাদেশে আলোচিত নুসরাত হত্যাকাণ্ডের পর ইতোমধ্যে সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করে রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডে এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারকেও শাস্তির আওতায় আনা হবে বলে গুঞ্জন ছিল। শিগগিরই তাকে বরখাস্ত করা হবে এমন কথাও শোনা যাচ্ছিল। পুলিশের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, নুসরাত হত্যার পর পুলিশ সদরদপ্তরের উচ্চপর্যায়ের কমিটির প্রতিবেদনে কিছু বিচ্যুতি ও দায়িত্ব অবহেলার বিষয় উঠে আসে। এসব বিষয়ে এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকারের জবাব সন্তোষজনক না হলে তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। উল্লেখ্য, সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসা নুসরাত জাহান রাফিকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গত ২৭ মার্চ ওই মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলাকে আটক করে পুলিশ। এরপর ৬ এপ্রিল সকালে নুসরাত পরীক্ষা দিতে মাদরাসায় যান। সে সময় মাদরাসার এক ছাত্রী তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের ওপর কেউ মারধর করছে- এমন সংবাদ দিলে তিনি ওই বিল্ডিংয়ের চতুর্থ তলায় যান। সেখানে মুখোশ পরা চার-পাঁচজন তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ দৌলার বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে চাপ দেয়। রাফি অস্বীকৃতি জানালে তারা তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। গত ১০ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় নুসরাত। ওই ঘটনায় রাফির মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন। পরবর্তীতে সোনাগাজী থানায় অভিযোগ নিয়ে যাওয়া নুসরাতের সঙ্গে ওসি মোয়াজ্জেমের কথোপকথনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। নুসরাতের মৃত্যুর পরদিন নুসরাতের পরিবারকে অসহযোগিতার অভিযোগে' প্রত্যাহার করা হয় ওসিকে। এরপর পুলিশ সদরদপ্তরের উচ্চপর্যায়ের কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী দায়ী চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করা হয়।
বিশেষ ভাতা পাবেন হাওর অঞ্চলের সরকারি চাকরিজীবীরা
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের হাওর অঞ্চলের সরকারি চাকুরেদের জন্য হাওর ভাতা চালু করলো সরকার। গত ৫ মে এই সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করে অর্থ মন্ত্রণালয়। অতরিক্ত সচিব মো. শাহজাহান কর্তৃক স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন বলা হয়, প্রজ্ঞাপন জারির থেকে এই বিশেষ ভাতা কার্যকর হবে। বিশেষ এই ভাতার আওতায় ২০তম গ্রেডে বেতনপ্রাপ্তরা পাবেন মাসিক ১৬৫০ টাকা। অন্যদিকে ৭ ও তদুর্ধ্ব গ্রেডপ্রাপ্তরা পাবেন ৫ হাজার টাকা। জানা গেছে, কয়েক বছর ধরেই হাওরপ্রবণ জেলার ডিসিরা দুর্গম এলাকা হিসেবে হাওর খাতা চালুর প্রস্তাব করে আসছেন। সর্বশেষ গত বছরের ডিসি সম্মেলনে কিশোরগঞ্জের তৎকালীন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. আজিমুদ্দিন বিশ্বাস হাওর ভাতা চালু করার জন্য একটি প্রস্তাব পাঠান মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে। ডিসিদের দীর্ঘদিনের এ দাবির পরিপ্রেক্ষিতে হাওর এলাকায় কর্মরত সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এ ভাতা প্রদানের উদ্যোগ নেয় সরকার। বাংলাদেশের হাওর ও পাহাড়ি এলাকা অন্যান্য এলাকার চেয়ে অনেক বেশি অনুন্নত। দুর্গম এসব এলাকায় নাগরিক সুবিধা বলতে কিছুই নেই। তবে বিদেশি সংস্থাগুলোর কড়া নজরদারির ফলে পাহাড়ি এলাকায় এখন শিক্ষার আলোসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা কিছুটা বেড়েছে। শিক্ষা, চাকরি ও ভূমিসহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া পাহাড়িরা আদায় করে নিয়েছেন। কিন্তু হাওর অঞ্চলের মানুষ এখনও এসব সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। ফলে এ সুযোগ হাওরেও সম্প্রসারণের দাবি দীর্ঘদিনের। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট একজন কর্মকর্তার দাবি, হাওর ভাতা চালু হলে দেশের সাতটি জেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা এ ভাতা পাবেন। সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, কিশোরগঞ্জ ও নেত্রকোনা জেলাকে হাওর অঞ্চল হিসেবে ধরা হয়। হাওর মূলত বিস্তৃত প্রান্তর, অনেকটা গামলা আকৃতির জলাভূমি, যা প্রতি বছর মৌসুমি বৃষ্টির সময় পানিপূর্ণ হয়ে ওঠে। বর্ষাকালজুড়ে হাওরের পানিকে সাগর বলে মনে হয় এবং এর মধ্যে অবস্থিত গ্রামগুলোকে দ্বীপ বলে প্রতীয়মান হয়। বাংলাদেশে প্রায় ৪০০ হাওর রয়েছে। হাওরগুলোকে তিন ভাগে ভাগ করা হয়। পাহাড়ের পাদদেশে বা পাহাড়ের কাছাকাছি অবস্থিত হাওর, প্লাবিত এলাকার হাওর, গভীর পানিতে প্লাবিত এলাকার হাওর। বিশেষে ভাতার আওতায় ১৬ উপজেলা হলো: কিশোরগঞ্জের ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম। চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া, নোয়াখালীর হাতিয়া, সিরাজগঞ্জের চৌহালী, কুড়িগ্রামের রৌমারী ও চররাজিবপুর, পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী এবং ভোলার মনপুরা। এ ছাড়া সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা, শাল্লা ও দোয়ারাবাজার, হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ এবং নেত্রকোনার খালিয়াজুরী উপজেলাকে হাওর, দ্বীপ বা চর উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করে সরকার।
খাদ্যে ভেজাল রোধে প্রয়োজনে মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হবে: খাদ্যমন্ত্রী
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে প্রয়োজনে নিরাপদ খাদ্য আইন সংশোধন করে শাস্তির মাত্রা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন বা মৃত্যুদণ্ডের বিধান করা হবে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। রোববার (১২ মে) সচিবালয়ের ২ নম্বর গেটে নিরাপদ খাদ্য ও সচেতনতামূলক কর্মসূচির উদ্বোধনের সময় এসব কথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী। সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ভেজাল প্রতিরোধে প্রয়োজনে যাবজ্জীবনসহ মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে আইন সংশোধন করা হবে। তবে কেবল আইন করলেই হবে না, সচেতনতাও বাড়াতে হবে। জনগণ সচেতন থাকলে এই আইনের প্রয়োজন হবে না। তবে এখন আর আগের মতো খাদ্যে ভেজাল নেই জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, খাদ্যে ভেজাল দেওয়ার প্রবণতা অনেকটা কমে এসেছে। মানুষের মধ্যে সচেতনতাও বাড়ছে। এসময় সাধন চন্দ্র মজুমদার খাদ্যে ভেজাল প্রতিরোধে সারা বছর অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।
জেলেদের বীমার আওতায় আনার সুপারিশ স্থায়ী কমিটির
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:জেলেদের বীমা সহায়তার আওতায় আনার উদ্যোগ নিতে মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করেছে জাতীয় সংসদের মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি।আজ সংসদ ভবনে কমিটির সভাপতি ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সুপারিশ করা হয়।বৈঠকে বলা হয়, বাংলাদেশের অর্থনীতিতে জেলেদের অবদান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। জেলেরা সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে অনেকে নিখোঁজ হন, মারা যান, ক্ষতিগ্রস্ত হন এবং অনেককে জলদস্যুরা ধরে নিয়ে যাওয়ার ফলে এই জেলে পরিবারের সদস্যরা অসহায় হয়ে পড়েন।এ পরিপ্রেক্ষিতে জেলেদের বীমা সহায়তা প্রদানের বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করার জন্য মন্ত্রণালয়কে উদ্যোগ গ্রহণের সুপারিশ করা হয় বলে বৈঠক শেষে জানানো হয়।কমিটি সদস্য মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু, মো. শহিদুল ইসলাম (বকুল), মোছাঃ শামীমা আক্তার খানম এবং কানিজ ফাতেমা আহমেদ বেঠকে অংশগ্রহণ করেন।কমিটি মা-ইলিশ রক্ষা ও জাটকা নিধন বন্ধে জেলেদের মাছ ধরা থেকে বিরত রাখার জন্য সরকার গৃহীত কার্যক্রম কঠোরভাবে পরিচালনার সুপারিশ করে।মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যানসহ মন্ত্রণালয় ও জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।বাসস ।
ওয়াসার পানি নিরাপদ করতে সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:ওয়াসার পানি নিরাপদ করতে সরকারকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ওয়াসার পানি নিয়ে অ্যাডভোকেট তানভীর এক রিট দায়ের করেন। রিটের জবাবে রোববার (১২ মে) হাইকোর্ট এ নির্দেশ দিয়েছেন।বেশ কিছু দিন ধরে ওয়াসার পানি কতটা সুপেয় তা নিয়ে উঠেছে নানা বিতর্ক। রাজধানী ঢাকায় ওয়াসার পানি নিয়ে মাঝে মধ্যেই বিভিন্ন ধরণের অভিযোগ দেখা যায় গণমাধ্যমগুলোতে। চলতি বছরের এপ্রিলে ওয়াসার এমডি এক বক্তব্যে বলেছিলেন ওয়াসার পানি শতভাগ সুপেয়। এর প্রতিবাদে ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার ওয়াসার এমডিকে সুপেয় পানির তৈরি শরবত খাওয়ানোর জন্য কারওয়ানবাজারে ওয়াসা ভবনের সামনে হাজির হয়েছিলেন ঢাকার জুরাইনের কয়েকজন বাসিন্দা।গণমাধ্যমের কল্যাণে এ অভিনব প্রতিবাদের ঘটনা সারা দেশের আলোচনার বস্তুতে পরিণত হয়। রাজধানীর বিভিন্ন স্থান থেকে নাগরিকরা প্রতিবাদ করা শুরু করেন। সম্প্রতি অ্যাডভোকেট তানভীর আদালতে ওয়াসার পানির মান নিয়ে রিট করলে আদালত ওয়াসার পানির মান সম্পর্কে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছে মতামত চান। সে রিটের ফলাফল হিসেবেই সরকারকে এ নির্দেশ প্রদান করেন আদালত।

জাতীয় পাতার আরো খবর