শেষ মুহূর্ত হলেও নিরপেক্ষ নির্বাচন করার আহ্বান: মির্জা ফখরুল
অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে উদ্ভূত পরিস্থিতি প্রসঙ্গে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচন আর কতটুকু সুষ্ঠু হবে, এ ব্যাপারে জনমনে আজকে অত্যন্ত বড় রকমের একটা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। আমরা এ বিষয়ে আগামীকাল বসছি আমাদের ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ। এবং সেখানেই আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত নেব। আজ বুধবার ঢাকা থেকে বগুড়া যাওয়ার পথে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এ কথা বলেন মির্জা ফখরুল। শেষ মুহূর্তে হলেও নিরপেক্ষ নির্বাচন করার ব্যাপারে সরকার ও নির্বাচন কমিশনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। চলমান পরিস্থিতিতে ঐক্যফ্রন্ট শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে কি না জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, আমরা শেষ পর্যন্ত আছি, আমরা চেষ্টা করছি থাকার জন্য। এটা সম্পূর্ণভাবে নির্ভর করবে নির্বাচন কমিশনের ওপরে। আমরা এখনো আহ্বান জানাব নির্বাচন কমিশনকে, সরকারকে যে তারা তাদের এই ভয়াবহ যে কর্মকাণ্ড, তার থেকে তারা বিরত থাকুক। নির্বাচনটাকে শেষ মুহূর্তে হলেও তারা নিরপেক্ষ করার চেষ্টা করুক, বলেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র।
বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে নির্বাচনে ১১টি পর্যবেক্ষক সংস্থা সম্পৃক্ত : এইচ টি ইমাম
অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১১টি পর্যবেক্ষক সংস্থা বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে সম্পৃক্ত বলে তাদের অনুমতি বাতিলের দাবি জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মিডিয়া সেন্টারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দলটির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম এই দাবি জানিয়েছেন। সংস্থাগুলোর মধ্যে রয়েছে, ডেমোক্রেসি ওয়াচ, খান ফাউন্ডেশন, লাইট হাউজ, বাংলাদেশ মানবাধিকার সমন্বয় পরিষদ, জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন, নবলোক, কোস্ট ট্রাস্ট, শরীয়তপুর ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি এবং নোয়াখালী রুরাল ডেভেলপমেন্ট সোসাইটি। এ সময় এইচ টি ইমাম বলেন, ডেমোক্রেসি ওয়াচ তালেয়া রহমানের। তালেয়া রহমান শফিক রেহমানের স্ত্রী। শফিক রেহমান হচ্ছেন বিএনপির উপদেষ্টা। একরম একটি প্রতিষ্ঠানকে অনুমোদন দেয়া ৯১-সি ধারার লঙ্ঘন। খান ফাউন্ডেশন মইন খান সাহেবের স্ত্রী চালান। সেটি কিভাবে নিরপেক্ষ হবে। তেমনি লাইট হাউজের প্রতিষ্ঠাতা তারেক রহমান নিজেই। আমরা আরপিও ৯১-সি ধারার আলোকে এই ১১টি সংস্থার অনুমতি বাতিলের দাবি জানাচ্ছি। এছাড়া তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত অথবা তাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশের প্রতি সমর্থনকারী ও অনুভূতিশীল ১১টি স্থানীয় সংস্থাকে নির্বাচন পর্যবেক্ষণের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এসব সংস্থা মোট ১৪০টি সংসদীয় আসনে প্রায় ৬ হাজার ৫৮৫ জন পর্যবেক্ষক পাঠাচ্ছে। এদের প্রায় সবাই বিএনপি-জামায়াতের সক্রিয় কর্মী। তিনি আরো বলেন, আমরা দুই বার লিখিতভাবে ইসিকে জানিয়েছি আমাদের আপত্তির কথা।
মানিকগঞ্জ-২ আসনে মমতাজের সমর্থনে সরে দাঁড়ালেন বিকল্পধারার মিলন
অনলাইন ডেস্ক: মানিকগঞ্জ-২ আসনে নৌকা প্রার্থীকে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে নৌকাকে সমর্থন জানালেন 'বিকল্পধারা বাংলাদেশ'র প্রার্থী গোলাম ছারোয়ার মিলন। মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেল ৫টার দিকে মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলায় নিজ বাড়িতে-গোলাম ছারোয়ার মিলন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগমের হাতে বিকল্পধারার প্রতীক 'কুলা' তুলে দেন। একইসঙ্গে মিলনের হাতে নৌকা প্রতীক তুলে দেন মমতাজ। এ সময় জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও বিকল্পধারার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী মমতাজ বেগম বলেন, আওয়ামী লীগের যুদ্ধ, দেশে যারা শান্তি ও উন্নয়ন চায় না তাদের বিরুদ্ধে। এরআগে সিংগাইর পৌরসভা এলাকায় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালান মমতাজ।
প্রাণহানি ও নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে বিএনপি-জামায়াত : আবদুর রহমান
অনলাইন ডেস্ক: হেরে যাবে বুঝতে পেরে বিএনপি-জামায়াত পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইর নীলনকশায় প্রাণহানি ও নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগের সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন আবদুর রহমান। আবদুর রহমান বলেন, বিএনপি-জামায়াত অশুভ জোট সব সময় আমাদের আত্মমর্যাদার অনন্য স্মারক বা সেনাবাহিনীকে বিতর্কিত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থেকেছে। এখনো বিএনপি-জামায়াত-ঐক্যফ্রন্টের নেতারা আমাদের সেনাবাহিনী নিয়ে মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। আবদুর রহমান আরো বলেন, একটা ষড়যন্ত্র চলছে। যে ষড়যন্ত্রের পেছনে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই কাজ করে যাচ্ছে। তারা নীলনকশা তৈরি করছে, যাতে করে এই নির্বাচনে প্রাণহানি ঘটে, সহিংসতা হয় এবং এ নির্বাচন যাতে ভণ্ডুল হয়। পরাজয় নিশ্চিত জেনেই বিএনপি নেতারা ফোনে দলের কর্মীদের সহিংসতার নির্দেশনা দিচ্ছেন, ফোনালাপ এরই মধ্যে প্রকাশ হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন আবদুর রহমান। তাদের এই চক্রান্তকে নস্যাৎ করেই জনগণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে আবারও বিজয়ী করবে বলেও বিশ্বাস তাঁর। ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিএনপি-জামায়াত সেনাবাহিনীকে নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে বলেও এ সময় অভিযোগ করেন আবদুর রহমান।
আ.লীগ ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করেনি পেছনের দরজা দিয়ে: কাদের
অনলাইন ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন,২১ বছর আমরা ক্ষমতায় ছিলাম না। আন্দোলন করেছি, সংগ্রাম করেছি। পেছনের দরজা দিয়ে কোনোদিনও ক্ষমতায় আসার চেষ্টা আওয়ামী লীগ করেনি। আজ মঙ্গলবার দুপুরে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলা চৌরাস্তায় আয়োজিত নির্বাচনী পথসভায় এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। নোয়াখালী-৩ আসনে নৌকার প্রার্থী মামুনুর রশীদ কিরণের পক্ষে নির্বাচনী পথসভায় বক্তব্য দেন ওবায়দুল কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ যতবারই ক্ষমতায় এসেছে নির্বাচনের মাধ্যমে এসেছে, গণতন্ত্রের মাধ্যমে এসেছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এই ৬৯ বছর বয়সে আওয়ামী লীগ যতবারই ক্ষমতায় এসেছে, আমরা নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছি। আমরা বন্দুকের নল উঁচিয়ে ক্ষমতায় আসিনি। আমরা ক্ষমতায় এসেছি সংগ্রাম করে, আন্দোলন করে। আওয়ামী লীগ জনগণকে বিএনপির মতো ভুয়া বা মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেয় না দাবি করে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি সব সময় দেশের জনগণকে ধোঁকা দিয়ে আসছে। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ যতবারই নির্বাচিত হয়েছে, দেশে উন্নয়ন হয়েছে। বর্তমানে দেশে গণতন্ত্র আছে বলেই এত উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. এ বি এম জাফর উল্লাহ, চৌমুহনী পৌরসভার মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সল ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ উল্লাহসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
নির্বাচন বর্জন করবো না :ফখরুল
অনলাইন ডেস্ক :একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকল প্রার্থীর জন্য ‘সমান সুযোগ’ চেয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে (ইসি) বৈঠক বসেছিল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা। তবে সভা শুরুর কিছুক্ষণ পরই বেরিয়ে যান তারা। এ সময় ফখরুলসহ ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের ক্ষুব্ধ দেখা যায়। মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নেতৃত্বে কমিশনারদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা। ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, সারা দেশে যে হামলা হচ্ছে এসব হামলার অভিযোগ করতে আমরা ইসির সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলাম। কিন্তু সিইসির যে আচরণ করেছেন তাতে আমরা বাকরুদ্ধ। এর প্রতিবদে আমরা সভা থেকে বেরয়ে আসি। এ সময় তিনি বলেন, আমাদের ওপর হামলা করে নির্বাচন থেকে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু আমরা শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকব। নির্বাচন বর্জন করবো না। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. মঈন খান, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, গণফোরামের প্রেসিডেয়াম সদস্য মোস্তফা মহসিন মন্টু, ড. জাফুরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।
প্রধানমন্ত্রীর জামাতা ও নাতনিরা নৌকার প্রচার-প্রচারণায়
অনলাইন ডেস্ক: ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের পক্ষে ভোট চাইতে মাঠে নেমেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জামাতা ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মাশরুর হোসেন মিতু, প্রধানমন্ত্রীর নাতনি আলীজে হোসেন ও আমরিন হোসেন। সোমবার সকাল থেকে আলীজে হোসেন ও আমরিন ফরিদপুর সদর আসনের একাধিক এলাকায় আয়োজিত পথসভায় নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে প্রচারণা শুরু করেন। এসব পথসভায় আলীজে হোসেন ও আমরিন হোসেন বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে সবার কাছে ভোট প্রার্থনা করেন। এ সময় তাঁদের সঙ্গে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ঝর্ণা হাসান, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের ছোট বোন ওয়াহিদা বেগম, ছোট মেয়ে খন্দকার শাহারিন হোসেন পিংকি প্রমুখ। এদিকে, বেশ কিছুদিন ধরে নৌকার পক্ষে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর জামাতা ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মাশরুর হোসেন মিতু। নৌকার পক্ষে এ আসনে বিভিন্ন পথসভাসহ হাটবাজারে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন তিনি। এসব পথসভায় তিনি শেখ হাসিনা সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক চিত্র তুলে ধরছেন। খন্দকার মাশরুর হোসেনের সঙ্গে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী বরকত ইবনে সালাম, ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. ইমতিয়াজ হোসেন রুবেলসহ আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী।

রাজনীতি পাতার আরো খবর