রোববার আ.লীগের মনোনয়ন ফরম নেবেন মাশরাফি-সাকিব
অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার মাঝি হতে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনবেন দুই তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা ও সাকিব আল হাসান। রোববার (১১ নভেম্বর) সকালে ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে গিয়ে তারা ফরম সংগ্রহ করবেন। আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া শনিবার (১০ নভেম্বর) সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মাশরাফি বিন মুর্তজা নড়াইল আর সাকিব আল হাসান মাগুরা থেকে মনোনয়নপত্র নিতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। গত ২৯ মে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ওয়ানডে ম্যাচের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ও বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান নির্বাচন করতে পারেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি তখন বলেন, তারা যদি নির্বাচনে আসেন, তাহলে তাদের ভোট দেবেন। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দুটি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহের মধ্যে দিয়ে শুক্রবার সকালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রির কার্যক্রম শুরু হয়। আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা অফিসে মনোনয়ন ফরম বিক্রির জন্য খোলা হয়েছে আট বিভাগের আটটি বুথ। মনোনয়নপ্রত্যাশীরা তাদের কর্মী-সমর্থক নিয়ে ভিড় জমিয়েছেন সেখানে।
রুদ্ধদ্বার বৈঠক ২০ দলীয় জোটের
অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে কি না- সেই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর ২৩ দলীয় জোটের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসেছেন দলটির নেতারা। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পরে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ বৈঠক শুরু হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান সংবাদমাধ্যমকে বলেন, প্রথমে সন্ধ্যায় বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির সদস্যরা চেয়ারপারসনের গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠক করেন। এখন ২৩ দলের বৈঠক চলছে। বিএনপির জরুরি বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, জমিরউদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ। বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ জাতীয় দল, পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ ও মাইনোরিটি জনতা পার্টি বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে যোগ দেয়। ওইদিন জোটের বৈঠকের পর সংবাদ ব্রিফিংয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, আজকে ২০ দলে সৈয়দ এহসানুল হুদার নেতৃত্বাধীন জাতীয় দল, জননেতা মশিয়ুর রহমান যাদু মিয়ার মেয়ে রিটা রহমানের নেতৃত্বাধীন পিপলস পার্টি অব বাংলাদেশ এবং সুপ্রীতি কুমার মণ্ডলের নেতৃত্বাধীন মাইনোরিটি জনতা পার্টি আনুষ্ঠানিকভাবে ২০ দলের যুক্ত হলেন। ফলে ২০ দল বেড়ে ২৩ দল হলো।
নীল নকশার নির্বাচন ফলপ্রসূ হবে না: বিএনপি
অনলাইন ডেস্ক: নীল নকশার নির্বাচন ফলপ্রসূ হবে না বলে জানিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় রাজধানীর গুলিস্তানস্থ শহীদ নূর হোসেন চত্বরে বিএনপির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে একথা বলেন তিনি। তিনি বলেন, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড না করলে বিরোধী দল কেমনে প্রচার প্রচারণা চালাবে। তারা যদি নীল নকশার নির্বাচন করতে চায়, তাহলে সেটা কতোটুকু ফলপ্রসূ হবে, তা-ও প্রশ্ন রাখেন বিএনপির এই নেতা। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপ শেষ না করেই তাদের নীল নকশা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন (ইসি) তফসিল দিয়েছে। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড না করলে বিরোধী দল কেমনে প্রচার প্রচারণা চালাবে। তারা যদি নীল নকশার নির্বাচন করতে চায়, তাহলে সেটা কতোটুকু ফলপ্রসূ হবে, তাও প্রশ্ন রাখেন বিএনপির এই নেতা। খোকন বলেন, যেই অর্থে শহীদ নূর হোসেন জীবন উৎসর্গ করেছেন, সেই অর্থে কার্যত কোনো গণতন্ত্রই দেশে বিদ্যমান নেই। নূর হোসেনের জীবন থেকে শিক্ষা নিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলন বেগবান করতে হবে। শীর্ষ নিউজ
চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণার আগে আজ ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে বসছে বিএনপি
অনলাইন ডেস্ক: চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণার আগে আজ শনিবার বিকাল ৫টায় বিএনপির স্থায়ী কমিটি ও সন্ধ্যায় ২০ দলীয় জোট গুলশানে পুনরায় বৈঠকে বসছে। বিএনপির বৈঠকে আগামী নির্বাচনি পরিকল্পনা তৈরি করবেন দলটির নেতারা। সন্ধ্যা ৭টায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ২০ দলীয় জোটের বৈঠকে নির্বাচন, মনোনয়ন ও আগামী দিনের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হবে। একই ইস্যুতে রাতে ড. কামাল হোসেনের বেইলি রোডের বাসায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টেরও বৈঠক আছে। বিএনপি, ২০ দল ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মতামত নিয়ে আগামীকাল রোববার বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারাগারে দেখা করতে পারেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়া লন্ডনে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গেও আরেক দফা কথা বলবেন বিএনপির দায়িত্বপ্রাপ্তরা। সব আলোচনা শেষে দু-এক দিনের মধ্যেই আসবে নির্বাচনে অংশ নেয়া না নেয়া সংক্রান্ত ঘোষণা। বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে, নির্বাচনে অংশ নিতে হলে জোটগতভাবে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়ার প্রয়োজন আছে। কেননা, জোটগতভাবে প্রার্থী দিতে হলে তিন দিনের মধ্যে তা জানাতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। তাই আজকের উভয় জোটের বৈঠকে এ বিষয়টিও আলোচনায় আসবে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, বিএনপি এবং ২০ দলীয় জোট সূত্র জানিয়েছে, ঘোষিত তফসিলে নির্বাচনে অংশ নেয়া এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের পথে কী কী প্রতিবন্ধকতা আছে, তা নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ চলছে বিএনপির থিংক ট্যাংক বা বিশেষজ্ঞ মহলে। উভয় জোটের পক্ষ থেকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে সরকার, নির্বাচন কমিশন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কার্যক্রম।
দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে: ড. কামাল
অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, এক তরফা নির্বাচনের জন্য তড়িঘড়ি করে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। রাজশাহীর ঐতিহাসিক মাদ্রাসা মাঠে শুক্রবার বিকেলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে তিনি মোবাইল ফোনে একথা বলেন। শারীরিক অসুস্থতার কারণে ড. কামাল হোসেন এই সমাবেশে যোগ দিতে পারেননি। ড. কামাল হোসেন বলেন, ১৬ কোটি মানুষের অধিকার আদায়ের জন্যই ঐক্যফ্রন্ট আন্দোলন করছে। অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। তিনি বলেন, সংলাপে শেখ হাসিনার কাছে ৭ দফা দাবি উত্থাপন করেছি। তিনি আমাদের কোনো দাবিই মানেননি। বরং তড়িঘড়ি করে তফসিল ঘোষণা করিয়েছেন। যা মানুষের ভোটাধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। ড. কামাল হোসেন জানান, অসুস্থতার কারণে তিনি রাজশাহীতে আসতে পারেনি। পরবর্তীতে রাজশাহীতে আসবেন। এর আগে দুপুর আড়াইটায় পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে এ সমাবেশ শুরু হয়। ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহী বিভাগের সমন্বয়ক বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির স্থায়ী কমিটি সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, এলডিপির চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানুল্লাহ আমান, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু প্রমুখ। দুপুর আড়াইটায় সমাবেশ শুরু হলেও জুমার পর থেকে নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সমাবেশস্থলে জড়ো হতে থাকেন। প্রসঙ্গত, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি আদায়ে নবগঠিত জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজশাহীতে এটি চতুর্থ সমাবেশ। এর আগে গত মঙ্গলবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। তার আগে ২৪ অক্টোবর সিলেটে ও ২৭ অক্টোবর চট্টগ্রামে সমাবেশ করে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।শীর্ষনিউজ
ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে যাচ্ছেন না ড. কামাল হোসেন
অনলাইন ডেস্ক :রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ সফল করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এরইমধ্যে মঞ্চ তৈরির কাজও শেষ করেছেন আয়োজকরা। শারীরিক অসুস্থতার কারণে আজ বৃহস্পতিবার (০৯ নভেম্বর) রাজশাহী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশে যাচ্ছেন না ড. কামাল হোসেন। এদিকে, দুপুরের পর থেকেই শুরু হবে সমাবেশের কার্যক্রম। তিন দফা পিছিয়ে পুলিশের ১২ শর্ত মেনেই সমাবেশ করতে যাচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডির সভাপতি অ স ম আব্দুর রব ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ অন্যান্য নেতারা। সমাবেশকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকেও নেয়া হয়েছে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
নেত্রীর চিকিৎসা শেষ না করে আবারও কারাগারে নিয়ে গেছে :রিজভী
অনলাইন ডেস্ক :বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতাল থেকে আবারও কারাগারে নেওয়াকে ভয়ঙ্কর নীল নকশা বলে মন্তব্য করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বৃহস্পতিবার (০৮ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেছেন। এর আগে বেগম খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে নেওয়া হয়েছে। বেলা ১১টা ২০ মিনিটে তাকে হাসপাতাল থেকে বের করে কালো রঙের একটি গাড়িতে করে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে বের করা হয়। ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে কারাগারে ঢোকে খালেদাকে বহনকারী গাড়ি। রুহুল কবির রিজভী বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা শেষ না হলেও জোর করে তাকে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেওয়া হয়েছে। তার চিকিৎসা শেষ না হওয়া পর্যন্ত বিএসএমএমইউ হাসপাতালে রাখার দাবি জানাচ্ছি। তিনি বলেন, নেত্রীর চিকিৎসা শেষ না করে আবারও কারাগারে নিয়ে গেছে। এটা একটা ভয়ঙ্কর নীল নকশা। ভয়ঙ্কর অশুভ পরিকল্পনা।
খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি বুধবার
অনলাইন ডেস্ক :বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি আগামী বুধবার(১৪ নভেম্বর) পর্যন্ত মুলতবি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) পুরান ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে অভিযোগ গঠনের আংশিক শুনানি হওয়ার পর বিচারক এ আদেশ দেন। শুনানি শেষে খালেদা জিয়াকে কারাগারে নেয়া হয়েছে। এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা খালেদা জিয়াকে বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) বেলা পৌনে ১২টার দিকে নাজিমউদ্দিন রোডের কারাগারে স্থাপিত আদালতে তোলা হয়। বেলা ১১টা ২০ মিনিটে বিএনপি প্রধানকে বিএসএমএমইউ থেকে বের করে কালো রঙের একটি গাড়িতে করে কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। ১১টা ৩৫ মিনিটের দিকে কারাগারে ঢোকে খালেদাকে বহনকারী গাড়িটি।
ঐক্যফ্রন্টের রোডমার্চ স্থগিত
অনলাইন ডেস্ক :রাজশাহী অভিমুখে আগামীকাল বৃহস্পতিবার পূর্বঘোষিত রোডমার্চ স্থগিত করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বুধবার রাতে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বঙ্গবীর আব্দুল কাদের সিদ্দিকীর সঙ্গে বৈঠক শেষে এ কথা জানান ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আগেই বলা হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিতীয় দফার সংলাপ সফল না হলে রাজশাহী অভিমুখে রোডমার্চ করা হবে। দুপুরে গণভবনে সংলাপ শেষে বেইলী রোডে ঐক্যফ্রন্ট সভাপতি ড. কামাল হোসেনের বাসায় সংবাদ সম্মেলনে সংলাপ সফল হয়েছে কিনা তা পরিস্কার করেনি ঐক্যফ্রন্ট। এসময় মির্জা ফখরুল বলেন, তারা আন্দোলনের মধ্যেই আছেন এবং আগামীকালের রোডমার্চ হবে। তবে ওই ঘোষণার কয়েক ঘন্টা পরই রোডমার্চ স্থগিতের সিদ্ধান্ত জানালেন তিনি।বিএনপি নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সংলাপ নিয়ে বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করবেন, এছাড়া সিইসি ভাষণ দেবেন। সেগুলো পর্যবেক্ষণ করে সিদ্ধান্ত নিতে রোড মার্চ স্থগিত করা হয়েছে।উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে প্রথমদফায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে কোনো সমাধান না হওয়ায় বুধবার দ্বিতীয়দফায় সংলাপে বসেন নেতারা।সংলাপে ধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৪-দলীয় জোটের প্রতিনিধিদলে ছিলেন ১১ জন। তারা হলেন- আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, শেখ সেলিম, মতিয়া চৌধুরী, ওবায়দুল কাদের, অ্যাডভোকেট আনিসুল হক, অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, শ ম রেজাউল করিম, হাসানুল হক ইনু ও রাশেদ খান মেনন।অন্যদিকে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ১১ সদস্য প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন ড. কামাল হোসেন। প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও মওদুদ আহমদ, জাসদের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম রব ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও এসএম আকরাম এবং সুলতান মোহাম্মদ মনসুর।

রাজনীতি পাতার আরো খবর