মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করার ঘোষণা দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ায় ১৩ ডিসেম্বর ঢাকায় মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করার ঘোষণা দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম। ওই দিন বেলা ১১টায় দূতাবাস ঘেরাও করা হবে বলে সমাবেশে জানানো হয়। শুক্রবার জুমার নামাজের পর রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তরগেটে আয়োজিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ ঘোষণা দেন হেফাজতের ঢাকা মহানগরের আমির মাওলানা নূর হোসেন কাসেমি। সমাবেশে মাওলানা নূর হোসেন কাসেমি বলেন, মুসলমানদের পবিত্র শহর আল কুদসকে (জেরুজালেম) ইহুদিবাদী ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। তিনি আরও বলেন, এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার হওয়ার আগ পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। আমরা ঘরে ফিরব না। অন্যদিকে জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার প্রতিবাদে ঢাকাসহ সারা দেশে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন ও সাধারণ মুসল্লিরা।
বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা না চাইলে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে বিএনপি :মির্
খালেদা জিয়াকে জড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীর দুর্নীতিসংক্রান্ত বক্তব্য বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি। শুক্রবার সকালে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বৃহস্পতিবার গণভবনে সংবাদ সম্মেলন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সৌদিতে খালেদা জিয়া ও তারেক জিয়ার বিশাল শপিংমল ও সম্পদ পাওয়ার খবর বিদেশ থেকে এসেছে। টাকা পাচার, মানিলন্ডারিং বিএনপি এবং খালেদা জিয়ার ছেলেরা করেছে। এসব বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা না চাইলে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবে বলে সংবাদ সম্মেলনে হুশিয়ারি দিয়েছে বিএনপি।
বিএনপির নির্বাচন ঠেকানোর কোনো শক্তি বা সামর্থ্য নেই :রাশেদ খান মেনন
আগাম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা নেই বলে মন্তব্য করেছেন বেসরকারি বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে মেহেরপুরের গাংনীতে ওয়ার্কার্স পার্টির কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। রাশেদ খান মেনন আরো বলেন, সংবিধানে যেভাবে আছে সেভাবেই নির্বাচন হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে যে সরকার আছে সেই সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। নির্বাচনের আয়োজন করবে নির্বাচন কমিশন। মন্ত্রী বলেন, বিএনপির নির্বাচন ঠেকানোর কোনো শক্তি বা সামর্থ্য নেই। পরে মেহেরপুর গাংনীর ভাটপাড়া জেলা প্রশাসক ইকোপার্কের শুভ উদ্বোধন করেন ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন মেহেরপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন দোদুল, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মকবুল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য কমরেড নূর আহম্মেদ বকুল, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড আবদুল মাবুদ।
বিসিআইএম করিডোর নির্মাণে চীনের সহযোগিতা চাই : ওবায়দুল কাদের
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বাংলাদেশ, চীন, ভারত, মিয়ানমার ইকোনমিক করিডোর নির্মাণের জন্য মিয়ানমারকে সহযোগিতা করতে রাজী করানোর জন্য চীনের সহযোগিতা চেয়েছেন। তিনি আজ দুপুরে রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ের সুরমা হলে সফররত চীনা কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিনিধিদলের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ সহযোগিতা চান। আওয়ামী লীগের আমন্ত্রনে চীনের এ প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে তিন দিনের সরকারী সফরে রয়েছে। চীনের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সহকারী মন্ত্রী ওয়াং ইয়াজুনের নেতৃত্বে প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন, চীনের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের মহাপরিচালক জাং সুয়ে, পরিচালক হু জিয়াওদং, তান উই ও মি এবং ফু উইরাং। ওবায়দুল কাদের বলেন,বাংলাদেশ, চীন, ভারত, মিয়ানমার (বিসিআইএম) ইকোনমিক করিডোর বাস্তবায়নের জন্য বাংলাদেশের দুকিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ করতে হবে। এ রাস্তা নির্মানের জন্য বাংলাদেশ সরকার আগ্রহী। কিন্তু এ রাস্তা নির্মানের জন্য মিয়ানমারের পক্ষ থেকে কিছু সহযোগিতা দরকার। তিনি বলেন, মিয়ানমার সরকার এ সহযোগিতা করছে না। বাংলাদেশ এ বিষয়ে চীনের সহযোগিতা চায়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগদানের সময় গলব্লাডারে অস্ত্রোপচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কয়েক দিন বেশি যুক্তরাষ্ট্রে থাকতে হয়েছে। একই সময়ে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা ইনফ্লাক্সকে মোকাবেলা করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তাকে দেশে থাকতে হয়। তিনি বলেন, তাই ইচ্ছা থাকা স্বত্বেও আমি চীনে সফর করা আওয়ামী লীগের দুটি সফরে অংশ গ্রহন করতে পারি নি। সমুদ্র ও পাহাড় সকলকেই আলোড়িত করে। কিন্তু পরিস্থিতির কারণে আমি যেতে পারিনি। কাদের বলেন, আমরা নিশ্চিত করছি যে, আমরা এক চীন নীতির সম্পূর্ণ পক্ষে। তিব্বত ও তাইওয়ান চীনের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে আমরা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি। ওবায়দুল কাদের একটি ভালো সময় দেখে চীন সফরে যাওয়ার আগ্রহ ব্যক্ত করেন এবং বিভিন্ন সময়ে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলের চীন সফরে সে দেশের আথিতিয়েতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদলের অন্য সদস্যরা হলেন, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অ্যাম্বেসেডর মোহাম্মদ জমির, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কর্ণেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যরিস্টার মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহমেদ, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যরিস্টার বিপ্লব বড়য়া ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য এডভোকেট রিয়াজুল কবির কাওছার। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের দেশের যোগাযোগ ক্ষেত্রে চীনের সহযোগিতার ব্যাপক প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশের দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে চীন সবচেয়ে বড় অংশীদার। তিনি বলেন, পদ্মা সেতু দেশের সবচেয়ে বড় মেগা প্রকল্প। এটা জাতির স্বপ্নের সেতু। বিশ্ব ব্যাংক বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে অর্থায়ন বন্ধ করে দেওয়ার পর অনেকে ভেবেছিল এ সেতু নির্মিত হবে না। এ সেতু নির্মাণ করার সঙ্গে সাহস এবং সামর্থের বিষয় জড়িত ছিল। কারণ প্রমত্তা পদ্মা নদীর ওপর বিশ্বের বৃহত্তম সেতুগুলোর মধ্যে অন্যতম সেতুটি নির্মিত হবে কিনা সন্দেহ দেখা দিয়েছিল। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল জল্পনা কল্পনার অবসান করে সাহসিকতার সঙ্গে নিজস্ব অর্থায়নে ত্রিশ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে এ সেতু নির্মাণ করার প্রকল্প গ্রহন করেন। চীনের চায়না মেজর ব্রীজ এবং চায়না সিনো হাইড্রো কোম্পানী এ সেতু নির্মানের কাজ পায়। কাদের বলেন, আমরা অত্যন্ত খুশি যে স্পেয়ারের ওপর স্প্যান স্থাপন করেছি। স্বপ্নের পদ্মা সেতু এখন বাস্তবতা। তিনি বলেন, ৮ম চায়না ব্রীজ নির্মানের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। ৯ম চায়না ব্রীজ নির্মানে চীনের সহযোগিতা পেতে যাচ্ছি। এ ব্রীজ দেশের উন্নয়নে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। সেতুমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে অনেক দেশের সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে চীনের মতো আর কোন দেশ এগিয়ে আসে নি। তিনি বলেন, চট্টগ্রামের কর্ণফূলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণের জন্য চায়নিজ এক্সিম ব্যাংক অর্থায়নে আগ্রহ প্রকাশ করেছে এবং ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ে নির্মাণে ইতোমধ্যে চীনের সাথে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। তিনি আরো বলেন, চীনের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক যেভাবে দৃঢ় হচ্ছে তাতে অচীরেই আওয়ামী লীগের সঙ্গে চীনা কমিউনিস্ট পার্টির পার্টি টু পার্টি সম্পর্ক আরো সম্প্রসারিত হয়ে বাংলীদেশী জনগনের সঙ্গে চীনা জনগনের সম্পর্ক গড়ে উঠবে।বাসস
অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কী না এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে :রিজভী
বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, নির্বাচনী মাঠে প্রচারণায় সকল প্রার্থীর সমান সুযোগ তৈরি হয়নি। ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে ভোটাররা এখনো ভয়ভীতির মধ্যেই রয়েছেন। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে কী না এ ব্যাপারে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। বিএনপির পক্ষ থেকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরির জোর দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনেরও জোর দাবি জানাচ্ছি। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নেতৃত্বে কমিশনের ঊর্ধ্বতন ব্যক্তিদের মানসিকতা স্বাধীন না হলে কমিশনের আইনি স্বাধীনতা কোনো কাজে আসে না। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, রংপুর সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি (নির্বাচন কমিশন) তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। সেখানে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী পরিবেশ এখনো করতে পারেনি ইসি। রুহুল কবির রিজভী আরো বলেন, আগামী ২১শে ডিসেম্বর রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে ১৯৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৩৩টিই ঝুঁকিপূর্ণ। নির্বাচন কমিশন দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বারবার আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও ইসি তাঁর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা গোটা এলাকায় ভয়ভীতি ছড়াচ্ছে বলেও প্রার্থীরা অভিযোগ করেছেন। এমনকি ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবে বিএনপি মনোনীত প্রার্থীকে শুরু থেকে যেভাবে হয়রানি করা হয়েছে, তাও নজিরবিহীন। আমরা আবারও নির্বাচন কমিশনকে বলতে চাই, ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীকে পেছনের দরজা দিয়ে জেতানোর কোনো চেষ্টা করলে জনগণ সেটির উপযুক্ত জবাব দেবে। সেখানে এখনো অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী পরিবেশ করতে পারেনি ইসি।
বিজয় দিবস উপলক্ষে ১০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি
বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১০ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ১৪ ডিসেম্বর সকালে মিরপুর বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ অর্পণ। দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া এ পুষ্পার্ঘ অর্পণ করবেন। এছাড়াও এ উপলক্ষে আলোচনা সভা করা হবে। বুধবার নয়াপল্টনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এসব কর্মসূচি ঘোষণা করেন। একইভাবে সারাদেশে বিএনপি ও এর অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনগুলো বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। বিজয় দিবসে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারা দেশে দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নেতাকর্মীদের নিয়ে সাভার স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবেন। এরপর তিনি নেতাকর্মীদের নিয়ে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানাবেন। সেখানে তিনি ফাতেহা পাঠ, দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেবেন। বিজয় দিবসে বিএনপির উদ্যোগে একটি আলোচনা সভা ও র‌্যালি বের করা হবে। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে ২৪ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ করা হবে। সমাবেশে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।
আগাম নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা ও পরিকল্পনা নেই :সেতুমন্ত্রী
আগাম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা ও পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বুধবার সচিবালয়ে সমসাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান। দেশে আগাম নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনা আছে কিনা জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আগাম নির্বাচনের কোনো সম্ভাবনাও নেই, পরিকল্পনাও নেই। আমি বলেছি, নির্বাচন যদি একমাস পরেও হয় আমরা প্রস্তুত। আমি বলেছি, নির্বাচন যদি তিন মাস পরেও হয় আমরা প্রস্তুত। তিনি বলেন, তবে যথাযথ সময়ের আগে নির্বাচন হবে এমন কোন পরিকল্পনা এখনও সরকারের নেই। আমরা দলীয়ভাবেও সেই চিন্তা-ভাবনা করছি না। তবে সবসময় জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি আমাদের আছে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে মেয়র নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগের মধ্য থেকে ও এমনকি দলের বাইরে থেকে প্রার্থী মনোনয়নের চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। গতাকল মঙ্গলবার সাধারণ মানুষের গাড়ি ভাঙচুরের মাধ্যমে বিএনপি ফের সহিংসতার দিকে যাচ্ছে বলেও মনে করছেন আওয়ামী লীগের এই নেতা।
নির্বাচন হতে হবে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ,ডিএনসিসি নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেইনি :মির্জা ফখরুল
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হকের অকাল মৃত্যৃতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ডিএনসিসি নির্বাচনে অংশ গ্রহণ নিয়ে বিএনপিতে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। বুধবার নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব একথা জানান। মির্জা ফখরুল বলেন, আনিসুল হকের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিল। তাকে ক্রিটিকাল রাজনীতিবিদ বলে মনে হয়নি। তিনি ব্যতিক্রমী রাজনীতি করার চেষ্টা করতেন। আমরা এখনও ডিএনসিসি নির্বাচনে অংশ নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেইনি। তবে স্থানীয় সব নির্বাচনেই আমরা অংশ নিয়েছি। বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকারের অধীনে যে সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি তা প্রমাণ হয়েছে। আপনারা দেখেছেন সকাল ১০টায় তারা ভোট কেন্দ্র দখল করেছিল। আগাম নির্বাচন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা নির্বাচন চাই। তবে আওয়ামী লীগ সরকারে থাকবে না। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রীর পদে থাকবেন না। নির্বাচন হতে হবে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ। সেই নির্বাচন কালকে হলে কালকেই চাই।
খালেদা জিয়ার বিবৃতি
সরকার পরিকল্পিতভাবে দেশের তরুণ সমাজকে ধ্বংস করার জন্য নানামুখী নীলনকশা প্রনয়ণ করে চলেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রোববার বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে দলের চেয়ারপারসন এ অভিযোগ করেন। ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসানকে গ্রেফতার করে কারান্তরীণ এবং বারবার মিথ্যা মামলায় পুলিশি রিমান্ডের নামে হয়রানী ও নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এই বিবৃতি দেয়া হয়। দেশের আদর্শবাদী তরুণ সমাজকে বর্তমান সরকার তাদের দুঃশাসনের প্রতিপক্ষ ভাবছে মন্তব্য করে খালেদা জিয়া বলেন, এ জন্যই আকরামুল হাসানসহ সারাদেশের হাজার হাজার ছাত্রদল নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে আটকে রাখা হচ্ছে। যাতে উদীপ্ত তারুণ্য বর্তমান দুঃশাসনের বিরুদ্ধে সাহসী সংগ্রামে এগিয়ে যেতে না পারে। তিনি বলেন, দেশের তরুণ সমাজকে ভয়াবহ দুঃশাসনের যাঁতাকলে পিষ্ট করে নিজেদের টিকিয়ে রাখতে অবৈধ ক্ষমতা কন্টকমুক্ত করাই সরকারের উদ্দেশ্য। গ্রেফতার করে রিমান্ডের নামে নজীরবিহীন জুলুম-নির্যাতনের মূল উদ্দেশ্যই হচ্ছে, তরুণ সমাজকে ভয় পাইয়ে দেওয়া। কিন্তু বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার জানেনা যে, অনাচার, অবিচার ও লুটপাটকারী সরকারকে পরাজিত করতে তারুণ্যকে কোনভাবেই দমন করে রাখা যায় না। অন্যায়ের বিরুদ্ধে চিরন্তন দ্রোহ হচ্ছে তরুণ সমাজ উল্লেখ করে বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ধ্বংস করতে সরকারের নীলনকশা বাস্তবায়ন করার গভীর ষড়যন্ত্র প্রতিহতের জন্য জনগণ এখন আরো বেশী ঐক্যবদ্ধ। গুম, খুন, অপহরণ, বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড এবং চাল-ডাল-তেল-পিঁয়াজ-লবনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতির পাশাপাশি দফায় দফায় গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধিতে জনরোষকে চাপা দেয়ার জন্যই দেশব্যাপী বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদেরকে পাইকারী হারে গ্রেফতার করে নির্যাতন করা হচ্ছে। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, আকরামুল হাসান সরকারের অত্যাচার-নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদমূখর বলেই সেও সরকারী আক্রোশের শিকার হয়েছে। তাকে গ্রেফতার করে বারবার রিমান্ডে নিয়ে নি:শেষ করা যাবে না। আকরামুল হাসানকে গ্রেফতার করে নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তিনি অবিলম্বে আকরামুল হাসানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান।

রাজনীতি পাতার আরো খবর