অবৈধ অভিবাসী ধরার অভিযান শুরু হচ্ছে শিগগির: ট্রাম্প
৬জুলাই২০১৯,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের অবৈধ অভিবাসীদের গণপ্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বেশ দ্রুতই শুরু হবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর আগে অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা কোনো এলাকায় এলে তাদের মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছিল অভিবাসীদের স্বার্থ রক্ষায় কাজ করা কয়েকটি সংস্থা। এরমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন ট্রাম্প। অবৈধ অভিবাসীদের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান নেওয়ার বিষয়টি ছিল ট্রাম্পের নির্বাচনী অঙ্গীকারনামায় অন্যতম ইস্যু। তবে অবৈধ অভিবাসীদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর অভিযান শুরুর তারিখটি ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর গতমাসে তা স্থগিত ঘোষণা করেন ট্রাম্প। কিন্তু গত সোমবার ট্রাম্প ঘোষণা করেন, ৪ জুলাই থেকে এ অভিযান শুরু হবে। তবে এ অভিযানকে ধরপাকড় বলতে নারাজ ট্রাম্প। গতকাল শুক্রবার হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন,বেশ শিগগির তাঁরা (আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী) কাজ শুরু করবেন। তবে আমি এটাকে ধরপাকড় বলছি না। বছরের পর বছর ধরে অবৈধভাবে এখানে আসা মানুষদের সরিয়ে দিচ্ছি আমরা। যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন ও শুল্ক বিভাগ (আইসিই) গত মাসে জানিয়েছিল, সাম্প্রতিক সময়ে যারা অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে এসেছে, তাদের জন্যই এ অভিযান। যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তে মধ্য আমেরিকা থেকে পরিবারসহ অনুপ্রবেশ ঠেকাতেই এ অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছিল অভিবাসন ও শুল্ক কর্তৃপক্ষ। আইসিই এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, অপরাধমূলক কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িতদের আটক করাই এ অভিযানের উদ্দেশ্য। এ ছাড়া যারা যুক্তরাষ্ট্রের আইন লঙ্ঘণ করবে, তাদেরও অভিযানে আটক করা হবে। এদিকে ট্রাম্প প্রশাসনের এমন ঘোষণার বিরোধিতা করছে অভিবাসীদের অধিকার সংরক্ষণ বিষয়ে কাজ করা সংস্থাগুলো। এসব সংস্থা আশঙ্কা করছে, ট্রাম্প প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্তের নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বিভিন্ন কমিউনিটি ও মার্কিন অর্থনীতির ওপর। কারণ ধরপাকড়ের ভয়ে প্রাপ্তবয়স্করা কাজে যাওয়া থেকে বিরত থাকবে। আর পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার ভয়ে স্কুলে যাবে না শিশুরা। মেক্সিকো থেকে আগত অভিবাসীদের স্বার্থ সংরক্ষণে কাজ করা একটি সংস্থার সংগঠক এলসা লোপেজ বলেন,ট্রাম্পের ঘোষণার অপেক্ষায় না থেকে আমাদের আগেই প্রস্তুত থাকতে হবে। কারণ ওরা প্রতিদিনই ধরপাকড় চালাচ্ছে। আইসিই কর্তৃপক্ষের লোকজন কোনো এলাকায় অভিযান চালানোর জন্য ঢুকলেই অভিবাসীদের মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সতর্ক করে দেয় এলসার সংস্থাটি।
ভারতে হিন্দু-মুসলিম সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা
৪ জুলাই২০১৯,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম:ভারতের রাজধানী দিল্লিতে একটি মন্দিরে ছোটখাট এক হামলার ঘটনায় সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারের উর্ধ্বতন মহল সচেষ্ট হয়েছে। শান্তির জন্য মুসলিম ও হিন্দু নেতারা বৈঠক করেছেন। তারা পদযাত্রা করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছেন। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বুধবার দিল্লি পুলিশের কমিশনারকে তলব করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ওই বৈঠকের পর দিল্লি পুলিশের প্রধান জানিয়েছেন মন্দিরে হামলাকারীদের কয়েকজনকে এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে বলা হয়েছে, পুরনো দিল্লির ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা হাউজ কাজি এলাকায় রোববার গভীর রাতে দুই হিন্দু ও মুসলিম প্রতিবেশীর মধ্যে বাড়ির সামনে মোটরসাইকেল পার্ক করাকে কেন্দ্র করে সামান্য কথা কাটাকাটি হয়। এর কয়েক ঘন্টা পরে স্থানীয় একটি দুর্গা মন্দিরে হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতি। কিন্তু এলাকাটিকে গঙ্গা-যমুনা তেহজিব বা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক পীঠস্থান বলে অভিহিত করেছেন স্থানীয় এমএলএ অলকা লাম্বা। তিনি বিবিসিকে জানিয়েছেন, মোটর সাইকেল পার্কিংকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার জেরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপে ম্যাসেজ ছড়িয়ে পড়ে যে, এলাকায় মব লিঞ্চিং চলছে। তিনি স্বীকার করেন দুর্গা মন্দিরে পাথর ছোড়া হয়েছে। তাতে কিছু কাচ ভেগে গেছে। মন্দিরেরও কিছু ক্ষতি হয়েছে। তবে মন্দিরে ভাঙচুর চালানো হয়েছে বা আগুন দেয়া হয়েছে বলে যেসব রটনা চলছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা। তিনি একে মিথ্যা বললেও তিনদিন ধরে সেখানে চলছে তীব্র সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা। বিবিসি লিখেছে, চাঁদনি চকের বিজেপি এমপি ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হর্ষবর্ধন এলাকা পরিদর্শন করে শান্তি বজায় রাখার আবেদনও জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনা যতই যন্ত্রণাদায়ক ও হৃদয়বিদারক হোক তারপরও মহল্লায় সৌহার্দ্য রক্ষা করতেই হবে। পাশাপাশি দোষীদের বিরুদ্ধেও কঠোরতম পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে বলে আমাকে জানানো হয়েছে। পুরনো দিল্লির ফতেহপুরী শাহী মসজিদের প্রভাবশালী ইমাম মুফতি মুকাররম আহমেদ আবার জানাচ্ছেন, প্রায় তিন দশক আগে লালকৃষ্ণ আদভানির রথযাত্রাও কিন্তু এই রাস্তা দিয়েই যাচ্ছিল। তখনও কিন্তু আমাদের মসজিদের ওপর ইটপাটকেল ছোড়া হয়েছিল, ইমামসাহেবকে আঘাত করা হয়েছিল ত্রিশূল দিয়ে। তবে আমরা ওই ঘটনায় তেমন কোনও ব্যবস্থা না নিয়ে আপোস করেছিলাম- কোনও মামলা হয়নি, কেউ গ্রেপ্তারও হয়নি। এবারেও মুসলিমরা প্রয়োজনে মন্দির পুনর্নিমাণে সাহায্য করবে বলে জানিয়ে এই মুফতি বিষয়টা আপোসে মিটিয়ে নেওয়ারই আবেদন জানাচ্ছেন। বিবিসি আরো লিখেছে, ড. সুরেখা নাঈমের মতো স্থানীয় বাসিন্দারাও একবাক্যে জানাচ্ছেন, এলাকার সম্প্রীতির পরিবেশ যে কোনও মূল্যে রক্ষা করতে হবে। তিনি বলেন, চাঁদনি চকের হিন্দু-মুসলিমরা যেভাবে একে অন্যের উৎসবে ও আনন্দে চিরকাল ভাগীদার হয়ে এসেছেন, সেই সংস্কৃতি তারা কিছুতেই নষ্ট হতে দেবেন না। পাশ থেকে সুধীর ত্রিপাঠীও যোগ করেন, খুব সম্ভবত বাইরের লোকেরা এসেই এই ধরনের অসামাজিক কাজ করে গেছে। কিন্তু আমাদের দুই সম্প্রদায়ের মুরুব্বিরাই একমত, তার জন্য নিজেদের মধ্যেকার এতদিনকার ভালবাসার সম্পর্ক নষ্ট করা চলবে না। হাউজ কাজি ধীরে ধীরে স্বাভাবিকতার দিকে এগোলেও বুধবার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ দিল্লি পুলিশের প্রধানকে দিল্লির নর্থ ব্লকে মন্ত্রণালয়ের সদর দফতরে তলব করেন। এর পর থেকেই এলাকায় নতুন করে নানা জল্পনা ও উত্তেজনা ছড়াতে থাকে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ব্রিফ করে আসার পর দিল্লির পুলিশ কমিশনার অমূল্য পটনায়ক জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। আমরা এর মধ্যেই চারজনকে গ্রেপ্তার করেছি, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বাকিদেরও আটক করার চেষ্টা চলছে। তবে দিল্লির ব্যবসা-বাণিজ্যের অন্যতম প্রধান কেন্দ্র চাঁদনি চকে বুধবারও সব দোকানপাট খোলেনি। সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার রেশ সেখানে যে এখনও পরিস্থিতি থমথমে করে রেখেছে তাতে কোনও সন্দেহ নেই।
আমিরাত শাসক পুত্রের লন্ডনে রহস্যজনক মৃত্যু
৩জুলাই২০১৯,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহের শাসকের পুত্র শেখ খালিদ বিন সুলতান আল কাসিমী লন্ডনে রহস্যজনকভাবে মৃত্যুবরণ করেছে। লন্ডন কর্তৃপক্ষ মৃত্যুর কারণ ব্যাখ্যা করেনি। গত সোমবার (১ জুলাই) লন্ডনে আকস্মিকভাবে মারা যান তিনি। আজ বুধবার (৩ জুলাই) আমিরাতে তাঁর জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন করা হয়। দেশব্যাপী ৩ দিনের জাতীয় শোক ঘোষণা করা হয়েছে। সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, শারজাহ শাসকের ৩৯ বছর বয়সী পুত্র একজন ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়েছিলেন। লন্ডনের ফ্যাশন সপ্তাহে তাকে দেখা গিয়েছিল। ১৯৭২ সাল থেকে তার পিতা শেখ সুলতান বিন মোহাম্মদ আল কাসিমী শরজাহ শাসন করেছেন। মঙ্গলবার (২ জুলাই) তিনি তার ইনস্টাগ্রাম একাউন্টে পোস্ট দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন এবং বলেছিলেন তাঁর পুত্র 'আল্লাহ্;র যত্নে' থাকবেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট ও আবুধাবির শাসক শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান শেখ সুলতান ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান। এক বিবৃতিতে, ফ্যাশন লেবেল কাসিমি বলেন, শেখ অপ্রত্যাশিতভাবে মারা গেছেন কিন্তু বাড়তি কোন তথ্য প্রদান করেননি। নাইটসব্রিজের একটি আবাসিক বাসভবনে আকস্মিক মৃত্যুর একটি প্রতিবেদন পেয়েছে বলে লন্ডন পুলিশ জানায়। মঙ্গলবার একটি পোস্টমার্টেম পরীক্ষা হলেও কোন আলামত প্রমাণিত হয় এবং পুলিশ আরও পরীক্ষার ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করছে।
ভারতে প্রবল বৃষ্টিপাতে ২৭ জনের প্রাণহানি
২জুলাই২০১৯,মঙ্গলবার,নিউজ একাত্তর ডট কম:ভারী বৃষ্টিপাতে বিপর্যস্ত ভারতের মুম্বাইসহ মহারাষ্ট্রের বিস্তীর্ণ এলাকা। প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট দুর্ঘটনায় ইতিমধ্যে অন্তত ২৭ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এছাড়া এতে আহত হয়েছে আরও অনেকে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার মুম্বাইয়ের মালাডে ভারী বৃষ্টির কারণে দেয়াল ভেঙে পড়ে অন্তত ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেয়াল ভেঙে পড়ার ঘটনায় আরো অনেকে আটকা পড়ে আছে বলে খবরে বলা হয়েছে। দেশটির উদ্ধার কর্মীরা উদ্ধার কাজ অব্যাহত রেখেছে। এছাড়া মুম্বাইয়ের একটি স্কুলের দেয়াল ধসে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে পুনে শহরের কাছে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে দেয়াল ধসে মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। টানা দুই দিনের তীব্র বৃষ্টিতে প্লাবিত হয়েছে মুম্বাইয়ের বিভিন্ন অঞ্চল। এ কারণে সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে ট্রেন চলাচলা ও বাতিল করা হয়েছে বিমান ফ্লাইট। খবরে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় মুম্বাইতে দশকের রেকর্ড পরিমাণে বৃষ্টিপাত হয়েছে। প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকার মুম্বাইতে সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে। ভারী বৃষ্টিপাতে বিপর্যস্ত মুম্বাই, নিহত ২৭ বাড়ি থেকে যেন এসময় কেউ বের না হয় এজন্য সরকারের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে বাসিন্দাদের। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবিস, প্রাণহানির ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন। একইসঙ্গে হতাহতদের পরিবারে ক্ষতিপূরণ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। দেশটির কেন্দ্রীয় রেলওয়ে একটি টুইটে জানায়, 'এটা প্রকৃতির ক্রোধ। এই মুহূর্তে তীব্র বৃষ্টির কারণে কারলা সুবর্বণ অঞ্চলে ট্রেন যোগাযোগ বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে। এ কারণে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সুবর্বণ এক্সপ্রেসের যাত্রা স্থগিত রাখা হলো। অসুবিধার জন্য আমরা গভীরভাবে দুঃখিত।' তারা আরও জানায়, তীব্র বৃষ্টি ও এর কারণে সৃষ্ট বন্যায় রেলওয়ের বিভিন্ন স্থানে আটকে পড়া যাত্রীদের ইতিমধ্যে উদ্ধার করেছে রেলওয়ে প্রটেকশন ফোর্সের সদস্যরা। তথ্য সূত্র: রয়টার্স, এনডিটিভি, হিন্দুস্তান টাইমস।
টেক্সাসে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ১০
১জুলাই ২০১৯,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে পাইলটসহ ১০ জন নিহত হয়েছেন। অ্যাডিসন বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের কিছুক্ষণের মধ্যেই বিমানটি বিধ্বস্ত হয়। স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের একজন কর্মকর্তা জানান, আকাশে ওঠার কিছুক্ষণ পরেই বিমানটি মাটিতে পড়ে বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গারে (বিমান রাখার স্থান) ঢুকে পড়ে বিস্ফোরিত হয়। বিমানবন্দরের উপপরিচালক ডারসি ন্যুজিল জানান, স্থানীয় সময় রোববার রাত ৯টায় ফ্লোরিডার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার জন্য উড্ডয়ন করে বিমানটি। বিস্ফোরণের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দেন জরুরি সেবা বিভাগের কর্মীরা। কিন্তু ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিমানের কাউকে জীবিত পাননি তাঁরা। নিহতদের আত্মীয়স্বজনকে খবর দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে নিহতদের পরিচয় গোপন রাখা হয়েছে। ডালাসের কাউন্টি বিচারক ক্লে জেনকিস এক টুইটে বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আমাকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় যেসব পরিবার প্রিয়জন হারিয়েছে, তাদের জন্য সবাইকে প্রার্থনা করার অনুরোধ করছি। এই পরিবারদের কাছে খবর পৌঁছানোর প্রক্রিয়া চলছে। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, বিমানবন্দরের হ্যাঙ্গার থেকে ঘন কালো ধোঁয়া উঠছে। এ সময় হ্যাঙ্গারের ভেতরে কেউ ছিল না বলে জানা গেছে। গণমাধ্যম সিবিএসের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, একটি অসমর্থিত সূত্র দাবি করেছে, ইঞ্জিন বিকল হয়ে ভূপতিত হয় বিমানটি। যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ যোগাযোগ ব্যবস্থার নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ বিষয়টি দেখভাল করার সরকারি বিভাগ এ ঘটনার তদন্ত করছে।
কিম খুবই আগ্রহী বৈঠকের ব্যাপারে: ট্রাম্প
৩০জুন২০১৯,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কোরীয় উপদ্বীপ বিভক্তকারী বেসামরিক এলাকায় (ডিএমজেড) কুশল বিনিময়ের জন্য উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং-উনকে আমন্ত্রণের একদিন পরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আজ রোববার বলেছেন, উন তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যাপারে অত্যন্ত আগ্রহী। সিঙ্গাপুর ও হ্যানয়ে বৈঠকের পরে তৃতীয় দফায় দুই নেতার সম্ভাব্য মুখোমুখি বৈঠক প্রসঙ্গে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, আমরা বিষয়টি দেখব। বৈঠকের ব্যাপারে তিনি অত্যন্ত আগ্রহী। আমরা সে লক্ষ্যে কাজ করছি। কিম আমন্ত্রণ গ্রহণ করলে মাত্র কয়েক মিনিটের জন্য দুই নেতার এ বৈঠক হতে পারে এ কথা উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন,এই বৈঠক অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত হবে। তবে এটিই যথেষ্ট। করমর্দন মানে অনেক কিছু। তিনি ব্যবসায়ী নেতাদের বলেন, ডিএমজেডে বৈঠকে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন তাঁর সঙ্গে থাকবেন। জাপানে জি২০ সম্মেলনে ট্রাম্প কিমকে আকস্মিক এই আমন্ত্রণ জানিয়ে টুইট করে জানান, দুই কোরিয়া বিভক্তকারী সীমান্তে সংক্ষিপ্ত এ বৈঠক কূটনৈতিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা হতে পারে।
ভারতে দেয়াল ধসে ১৭ জনের মৃত্যু
২৯জুন২০১৯,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের পুনেতে একটি আবাসিক এলাকার দেয়াল ধসে অন্তত ১৭ জন প্রাণ হারিয়েছে। পুনের কনধাওয়া এলাকায় তালাব মসজিদের কাছে একটি আবাসিক ভবনের ৬০ ফুট দেয়ালটি ধসে পড়লে এই প্রাণহানি ঘটে। কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, স্থানীয় সময় শনিবার রাত (শুক্রবার দিনগত রাত) ১টা ৪৫ মিনিটে দেয়ালটি ধসে পড়ে। এর পাশেই নির্মাণ শ্রমিকদের থাকার জন্য অস্থায়ী বাসস্থান তৈরি করা হয়েছিল। দেয়ালটি ধসে সেই বাসস্থানে পড়ায় এতো মানুষের মৃত্যু হলো। পুলিশ জানিয়েছে, অতিবৃষ্টিই এই দেয়াল ধসের কারণ। দুই-থেকে তিনজন শ্রমিক এখনও সেখানে আটকা পড়ে থাকতে পারে। উদ্ধার কাজ চলছে। উদ্ধার শেষ হলে বিস্তারিত জানাবে পুলিশ। ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে নয়জন পুরুষ, একজন নারী এবং চার শিশু আছে। তবে তাদেরকে চিহ্নিত করা যাচ্ছে না। এদিকে এই ঘটনায় কতজন আহত হয়েছে সে বিষয়ে জানায়নি কেউই।
রাস্তায় জুমআর নামাজের প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির আন্দোলন
২৬জুন২০১৯,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শুক্রবার রাস্তায় জুমআর নামাজের প্রতিবাদে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি পাল্টা আন্দোলন শুরু করেছে। এরই অংশ হিসেবে প্রতি মঙ্গলবার রাস্তা আটকে হনুমান চালিশা পাঠের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি। ইতোমধ্যেই গতকাল হাওড়ার বালিখালে রাস্তা আটকে হনুমান চালিশা পাঠও করেন দলীয় নেতাকর্মীরা। প্রতি শুক্রবার মসজিদে মসজিদে জুমআর নামাজ আদায় করেন মুসলমান ধর্মাবলম্বীরা। অনেক সময় মসজিদে জায়গা না হলে রাস্তায় বসেও নামাজ পড়ে ন মুসল্লি। এর জেরে রাস্তায় যানজট লেগে যায়। মানুষজনকে ব্যাপক ভোগান্তি পোহাতে হয়। তাই অনেকে রাস্তায় বসে নামাজের প্রতিবাদও করেছেন। আর এবার সেই বিষয়টিকেই ইস্যু করে মাঠ গরম করতে চাইছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শুক্রবারের নামাজে পাল্টা হিসেবে মঙ্গলবার রাস্তায় বসে হনুমান চালিশা পাঠ করবেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। কলকাতাসহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের হনুমান মন্দিরের সামনে বসেই হনুমান চালিশা পাঠ করবেন তারা। গতকাল হাওড়ার বালিখালের কাছে রীতিমতো রাস্তা আটকে হনুমান চালিশা পাঠ করেন বেশ কয়েকজন বিজেপি কর্মী সমর্থক। এ বিষয়ে হাওড়া জেলা বিজেপি যুব মোর্চার সভাপতি ওপি সিং বলেন, প্রতি শুক্রবার নামাজের জন্য গ্র্যান্ড ট্যাংক রোডসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা অবরুদ্ধ হয়ে যায়। রোগী মারা যাচ্ছেন। অফিস যাত্রীরা সময়মতো গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেন না। তা সত্ত্বেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির পক্ষ থেকে কোনও পদক্ষেপই নেয়া হয়নি। তাই এর প্রতিবাদে আমরা মঙ্গলবার কলকাতাসহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের হনুমান মন্দির লাগোয়া রাস্তায় বসে হনুমান চালিশা পাঠের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে একাধিক ইস্যুতে তৃণমূল-বিজেপি দ্বন্দ্বে রাজ্যের রাজনৈতিক ময়দান সরব হয়ে উঠেছে। অনেকেই বলছেন, এই বাদানুবাদে নতুন সংযোজন হচ্ছে রাস্তা আটকে নামাজ আদায়ে বিজেপির বিরোধিতা। আর মুসলিমদের ধর্মীয় রীতি নিয়ে বিজেপি রাজ্যে বিশৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে বলে অভিযোগ করেছে তৃণমূল।
সেই মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যায় গ্রেফতার ৫
২৫জুন২০১৯,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতে এক মুসলিম যুবককে পিটিয়ে হত্যার দায়ে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ছাড়া এ ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। খবর এনডিটিভি। ভারতের পূর্বাঞ্চলের প্রদেশ ঝাড়খণ্ডে ২৪ বছর বয়সী তাবরেজ আনসারি গত ১৮ জুন নির্যাতিত হওয়ার পর ২২ জুন মারা যান। গত কয়েক বছরে ঝাড়খণ্ডে বেশ কয়েকটি গণপিটুনির ঘটনা ঘটেছে। আর এসব গণপিটুনির শিকার হয়েছেন মুসলিমরা। তাবরেজ আনসারির বিরুদ্ধে মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগ এনে তাকে গণপিটুনি দেয়া হয়; যার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, এক ব্যক্তি তাবরেজকে একটি কাঠের লাঠি দিয়ে নৃশংসভাবে পেটাচ্ছেন। আক্রান্ত যুবক ছেড়ে দেয়ার আকুতি নিয়ে হাত জোড় করলেও তাতে কোনো ভ্রূক্ষেপ নেই নির্যাতনকারীর। অন্য আরেকটি ভিডিওতে দেখা যায়, জোর করে তাবরেজকে বলানো হচ্ছে- জয় শ্রী রাম ও জয় হনুমান। তাবরেজের স্বজনদের অভিযোগ, তাবরেজের সঠিক চিকিৎসার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করেও লাভ হয়নি। তার সঙ্গে কাউকে দেখাও করতে দেয়া হয়নি। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার বহু আগেই তাবরেজের মৃত্যু হয়েছিল বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা। বিবিসিকে তাবরেজের স্ত্রী শাহিস্তা পারভিন জানান, তার স্বামীকে সারারাত একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখা হয় এবং পর দিন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তিনি বলেন, হিন্দু দেবতাদের প্রশংসা করতে অস্বীকৃতি জানানোর পরই তাকে নির্যাতন করা শুরু হয়। তাবরেজের স্ত্রী আরও বলেন, ওকে নির্দয়ের মতো মারা হয়েছে। কারণ ও মুসলিম। আমার কেউ নেই। কোনো শ্বশুর-শাশুড়িও নেই। আমি কী করে বাঁচব? আমি ন্যায়বিচার চাই। তবে ঝাড়খণ্ডের পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর