শনিবার, জুলাই ৪, ২০২০
করোনায় ইতালিতে একদিনে মৃত্যু ৯৭ জনের, আক্রান্ত ১৭৯৭ জন
১০মার্চ,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইতালিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৬৩। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ইতালিজুড়ে যে কোনও জনসমাগমের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। সোমবার (৯ মার্চ) প্রধানমন্ত্রী গুইসেপ কোঁতের নির্দেশনাক্রমে এই ঘোষণা দেয় সরকারের নাগরিক সুরক্ষা বিভাগ। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭৯৭ জন, আর মৃত্যু হয়েছে ৯৭ জনের। এই আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিয়ে ইতালির সর্বত্র আতঙ্ক বিরাজ করছে। আতঙ্কের মধ্যে লকডডাউন অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন ইতালি প্রবাসী বাংলাদেশিরাও। ইতালির জরুরি স্বাস্থ্যসেবা দানের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে। তুলনামূলক তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের পরেই সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা ইউরোপের এই দেশটির। এর মধ্যেই ইতালির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে নাগরিকদের আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে দাবি করা হয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৭২৪ জন ইতোমধ্যেই চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে নিয়মিত জীবনে ফিরে গেছেন। এদিকে ইতালি সরকার এর আগে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বেশ কিছু কঠোর পদক্ষেপ নেয়। তখন বলা হয়, মার্চের মাঝামাঝি পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সবগুলো স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়। এছাড়াও, ইতালিয়ান ফুটবুল লিগ সিরি এর ম্যাচগুলো রোববার (৮ মার্চ) পর্যন্ত বিশেষ ব্যবস্থায় দর্শকশূণ্য স্টেডিয়ামে আয়োজিত হয়েছে। ইতালি জুড়ে পাবলিক ইভেন্ট এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেয়া হয়েছে নাগরিকদের। একে অপরের মধ্যে ১ থেকে ২ মিটার দূরত্ব বজায় রেখে, যতটুকু সম্ভব আলিঙ্গন, হ্যান্ডশেক এবং চুম্বন এড়িয়ে চলতে বলেছে দেশটির নাগরিক সুরক্ষা দফতর। করোনাভাইরাসের প্রভাবে অর্থনৈতিকভাবে বেশ ক্ষতির মুখে ইতালি। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নয়ন না ঘটলে ব্যাপক অর্থনৈতিক ধসের ব্যাপারে সতর্ক করেছেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। ইতালিতে সব জনপ্রিয় এয়ারলাইন্সগুলো ফ্লাইট বাতিল করায় পর্যটন শিল্প মুখ থুবড়ে পড়েছে।
সৌদিতে রাজপরিবারের প্রভাবশালী তিন সদস্য আটক
০৭মার্চ,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক ,নিউজ একাত্তর ডট কম: সৌদি আরবে রাজপরিবারের তিন প্রবীণ প্রভাবশালী সদস্যকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে বর্তমান বাদশাহর ভাইও রয়েছেন। তবে তাদের আটকের কারণ জানা যায়নি। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এই খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি। আটকদের মধ্যে দুজনকে সৌদি আরবের খুবই প্রভাবশালী ব্যক্তি বলে ধরা হয়। তাদের আটকের সঙ্গে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সম্পর্ক রয়েছে। এর আগে ২০১৭ সালে ডজনখানেক রাজকীয় ব্যক্তিত্ব, মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে যুবরাজের নির্দেশে রিয়াদের রিজ-কার্লটন হোটেলে আটক করে রাখা হয়। নতুন করে আটক হওয়া ব্যক্তিরা হলেন বাদশাহর ছোট ভাই প্রিন্স আহমেদ বিন আবদুল আজিজ, সাবেক যুবরাজ মোহাম্মদ বিন নায়েফ ও প্রিন্স নাওয়াফ বিন নায়েফ। এর মধ্যে ২০১৭ সালে মোহাম্মদ বিন নায়েফকে মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশে গৃহবন্দী করা হয়। এর আগে তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানায়, গার্ডরা রাজকীয়দের মুখোশ ও কালো পোশাক পরে আটক হওয়া ব্যক্তিদের বাড়ি যায়। সেখানে তল্লাশি চালায়।
করোনামুক্ত ছাড়পত্র নিয়ে বাংলাদেশসহ ১০ দেশের নাগরিকদের ঢুকতে হবে কুয়েতে
০৫মার্চ,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস ইস্যুতে এবার নড়েচড়ে বসলো কুয়েত প্রশাসন। ৮ মার্চ থেকে বাংলাদেশসহ দশ দেশের নাগরিকদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে কুয়েতে প্রবেশ করতে হবে। দেশটির সিভিল অ্যাভিয়েশন জানায়, করোনাভাইরাস মুক্ত সার্টিফিকেট ছাড়া কেউ কুয়েতে প্রবেশের চেষ্টা করলে ফিরতি ফ্লাইটেই তাকে দেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে। বাংলাদেশসহ যে দশটি দেশ রয়েছে সেগুলো হলো- ফিলিপাইন, ভারত, মিশর, সিরিয়া, আজারবাইজান, তুরস্ক, শ্রীলঙ্কা, জর্জিয়া ও লেবানন। বিজ্ঞপ্তিতে পলিমারেজ চেইন রিঅ্যাকশন-পিসিআর পরীক্ষার মাধ্যমে কুয়েত গমনেচ্ছু ব্যক্তিকে করোনাভাইরাস মুক্ত নিশ্চিত করেই কুয়েতে প্রবেশের নির্দেশ দিয়েছে দেশটির সিভিল এভিয়েশন। বাংলাদেশিদের জন্য পিসিআর পরীক্ষাটি অবশ্যই কুয়েত দূতাবাস কর্তৃক অনুমোদিত মেডিকেল সেন্টার থেকে হতে হবে। করোনাভাইরাস মুক্ত সার্টিফিকেট ব্যতীত যারা কুয়েতে প্রবেশের চেষ্টা করবেন, তাদেরকে ফিরতি ফ্লাইটে দেশে পাঠিয়ে দেয়া হবে। কুয়েতের স্বাস্থ্য বিষয়ক মন্ত্রণালয় বলেছে, সেখানে নতুন করে কোন করোনাভাইরাস আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়নি। সেখানে মোট ৩১০০ মানুষের এই পরীক্ষা করা হয়েছে। তার মধ্যে ৫৬ জনকে আক্রান্ত পাওয়া গেছে। এর মধ্যে বেশির ভাগই ফিরেছেন ইরান থেকে। ওদিকে এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় বহুমুখী স্পোর্টস বিষয়ক টুর্নামেন্ট জিসিসি গেমস স্থগিত করেছে কুয়েত। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে চিড়িয়াখানা। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. বাসেল আল সাবাহ শেখ বলেছেন, আক্রান্ত এলাকা থেকে ফিরে যাওয়া লোকজনকে রাখার জন্য চতুর্থ একটি কোয়ারেন্টাইন প্রস্তুত করছে তারা। এখানে ১৪ দিন পর্যন্ত কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে লোকজনকে।
দ. আফ্রিকায় বাস খাদে, প্রাণ গেল ২৫ জনের
০৩মার্চ,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দক্ষিণ আফ্রিকার উপকূলীয় প্রদেশ ইস্টার্ন কেপে একটি বাস খাদে পড়ে ২৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ ঘটনায় আরও ৬২ জন আহত হয়েছেন। সোমবার ওই বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। বাসটি বাটারওর্থ শহর থেকে চেবে এলাকার দিকে যাচ্ছিল। খবর আল জাজিরার। দেশটির পরিবহনমন্ত্রী ফিকিলে বালুলা এক বিবৃতিতে বলেন, একটি মাত্র দুর্ঘটনায় এতজন মানুষের প্রাণহানির ঘটনা হৃদয়বিদারক ও দুঃখজনক। দুর্ঘটনার সময় বাসটিতে ৮০ জনের বেশি যাত্রী ছিল। এর মধ্যে অধিকাংশই বয়স্ক ব্যক্তি। দেশটির প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা বলেন, বাস দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে অধিকাংশই অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তি এবং কম বয়সী শিক্ষার্থী। এক বিবৃতিতে প্রেসিডেন্ট বলেন, এই দুর্ঘটনা আমাদের দেশকে গভীরভাবে শোকাহত করেছে। এই দুর্ঘটনা থেকে আমরা এটা দেখতে পাচ্ছি যে, আমাদের বয়স্ক ব্যক্তি ও শিশুদের প্রতি আরও বেশি সহানুভূতিশীল হওয়া উচিত। কারণ তারা অন্যদের ওপর নির্ভরশীল। ২০১৫ সালের পর কেপ প্রদেশে এটাই সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। সে বছর এক দুর্ঘটনায় ৩৫ জন প্রাণ হারায়। দ্য রোড ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট কর্পোরেশনের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে ১৪ হাজারের বেশি মানুষ দক্ষিণ আফ্রিকার বিভিন্ন সড়কে দুর্ঘটনার কারণে প্রাণ হারিয়েছে।
চলতি বছরেই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা
০২মার্চ,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি নিয়ে দুই দেশেরই আগ্রহ রয়েছে। এটা নিয়ে তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ চলছে। এই বছরের মধ্যেই তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার (০২ মার্চ) রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে বাংলাদেশ এবং ভারত: একটি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ভবিষ্যৎশীর্ষক এক সেমিনারে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন ও বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্রাটেজিক স্টাডিজ (বিস) এই সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারে তিনি আরও বলেন, ভারতের জাতীয় নাগরিক নিবন্ধন- এনআরসি একান্তই অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটা প্রতিবেশী দেশে প্রভাব ফেলবে না। ভারতের আদালতের নির্দেশনা অনুযায়ীই এনআরসি হচ্ছে। সেমিনারে বক্তব্য রাখেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ, বিসের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক কর্নেল শেখ মাসুদ আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী, বিস চেয়ারম্যান এম ফজলুল করিম প্রমুখ। হর্ষবর্ধন শ্রিংলা আজ সোমবার (০২ মার্চ) সকালে একটি বিশেষ ফ্লাইটে দুই দিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগামী ১৭ মার্চ ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। সেই সফর চূড়ান্ত করতেই ঢাকায় এসেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা। ঢাকা সফরকালে আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন শ্রিংলা। তিনি একই দিনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের সঙ্গেও বৈঠক করবেন। সফর শেষে আগামীকাল মঙ্গলবার (০৩ মার্চ) তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন। শ্রিংলার সফরে দুই দেশের মধ্যে কানেক্টিভিটি নিয়ে দুটি সমঝোতা স্মারক সইয়ের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা ঢাকায় দেশটির হাইকমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। গত বছর জানুয়ারিতে ঢাকার দায়িত্ব পালন শেষে যুক্তরাষ্ট্রে হাইকমিশনার হিসেবে যোগ দেন। সম্প্রতি ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে নিয়োগ পান শ্রিংলা। ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে এটিই তার প্রথম বাংলাদেশ সফর।
শপথ নিলেন মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দীন ইয়াসিন
০১মার্চ,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মুহিউদ্দিন ইয়াসিন। রোববার (১ মার্চ) সকালে শপথ নিয়েছেন তিনি। প্রধান বিচারপতি টেংকু মাইমুন তুয়ান মাত এবং সরকারের মুখ্য সচিব মোহাম্মদ জুকি আলীর সামনে শপথ গ্রহণের পর মুহিউদ্দীন নিয়োপত্রের দলিলে সই করেন। এর আগে শনিবার মালয়েশিয়ার প্রভাবশালী এই নেতাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন দেশটির রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুলতান আহমাদ শাহ। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি আকস্মিকভাবে পদত্যাগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। পরে প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ ও মন্ত্রিসভা গঠনের আগ পর্যন্ত তাকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছিলেন রাজা সুলতান আবদুল্লাহ সুলতান আহমাদ শাহ।
করোনাভাইরাসে ইরানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২১০
২৯ফেব্রুয়ারী,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস নামে পরিচিত কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে ইরানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১০ এ। যা দেশটির সরকারি তথ্যের চেয়ে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ছয় গুণ বেশী। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ইরানের সাবেক এক রাষ্ট্রদূত। আক্রান্ত হয়েছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীসহ আরও দুই আইনপ্রণেতা। ভাইরাস ঠেকাতে তিনদিন স্কুল বন্ধ রেখেছে ইরান। দক্ষিণ কোরিয়ায় শুক্রবার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯৪ জন। এ নিয়ে দেশটিতে সংক্রমিতের সংখ্যা প্রায় তিন হাজার। ইতালিতে ১৭ জনের মৃত্যু ছাড়াও আক্রান্ত রয়েছেন সাড়ে ৬শ জন। দেশটিতে ভ্রমণে নাগরিকদের সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। চীনে শুক্রবার মারা গেছেন আরও ৪৭ জন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন, ৪২৭। বিশ্বব্যাপী কভিড-১৯ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। শুক্রবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় সংস্থাটির সদরদপ্তরে এ সতর্কতা জারি করা হয়। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ৬০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী ভাইরাসটি। করোনার নেতিবাচক প্রভাবে ধস নেমেছে এশিয়া ও ইউরোপের পুঁজিবাজারে।
দিল্লিতে মৃত বেড়ে ৪২,আহত আরো ২০০ জন
২৮ফেব্রুয়ারী,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:দিল্লিতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) নিয়ে শুরু হওয়া সংঘর্ষ থেকে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় রূপ নেয়া সহিংসতায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪২ জনে পৌঁছেছে। এতে আহত হয়েছেন আরো ২০০ জন। পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে, বাড়িঘর, দোকানপাট ও যানবাহন। ভাংচুর করা হয়েছে মসজিদ, মাদ্রাসা ও স্কুলে। টানা কয়েকদিন উত্তেজনাকর পরিস্থিতির পর শহরটিতে অপেক্ষাকৃত শান্ত পরিবেশ বিরাজ করেছে। স্থানীয় মসজিদগুলোয় শান্তির আহ্বান জানানো হয়েছে। সংঘাতের সময় নিষ্ক্রিয়তার দায়ে অভিযুক্ত দিল্লি পুলিশ এদিন জনগণ ও সংবাদকর্মীদের প্রতি বক্তব্য দিতে আহ্বান জানিয়েছে। এ খবর দিয়েছে দ্য হিন্দু। খবরে বলা হয়, শুক্রবার দিল্লির উত্তরাংশের মসজিদগুলোয় শান্তি ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন ধর্মীয় নেতারা। এক ঘোষণায় মসজিদগুলো জনগণের প্রতি শান্তি রক্ষা করতে ও গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়েছে। এছাড়া, সন্দেহজন ব্যক্তিদের সম্পর্কে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে ঘোষণায়। এদিকে, গুরু তেজ হাসপাতালে শুক্রবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় দাঙ্গায় জখম হওয়া চার ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪২ জনে। গত এক সপ্তাহে হাসপাতালটি দাঙ্গায় নিহত হওয়া ২৫ জনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এছাড়া, আরো ১৩ জন আহত অবস্থায় ভর্তি হওয়ার পর মারা গেছেন। অন্যদিকে লোক নায়েক হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে এমন আরো তিন জনের। জাগ প্রকাশ হাসপাতালে মারা গেছেন একজন। শুক্রবার শহরজুড়ে কড়া নিরাপত্তা জারি রেখেছে পুলিশ ও আধাসামরিক বাহিনীগুলো। জুম্মার নামাজ উপলক্ষে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কিছু এলাকায় জীবনযাত্রা খানিকটা স্বাভাবিক হওয়া শুরু করলেও, বেশিরভাগ জায়গায়ই বন্ধ রয়েছে দোকানপাট। বিরাজ করছে চাপা উত্তেজনা। সোমবার নিরাপত্তা রক্ষায় মোতায়েন করা হয় ৭ হাজার আধাসামরিক সেনা। দিল্লির সহিংসতায় কর্তৃপক্ষের অবহেলা ও পুলিশের গাফিলতি তীব্রভাবে সমালোচিত হয়েছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে। এ নিয়ে দেয়া এক বিবৃতিতে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, এসব সমালোচনা ‘ভুল ও অসত্য’। বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্র সহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম ও সংগঠনগুলোকে দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য না করতে আহ্বান জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, সহিংসতার সময় দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয় থাকার ও কিছু ক্ষেত্রে দাঙ্গাকারীদের সঙ্গে সমম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ ওঠেছে। এই বাহিনীটি দেশের সবচেয়ে সমৃদ্ধ পুলিশ বাহিনী হিসেবে পরিচিত। এটি সরাসরি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে জবাবদিহিতা করে। সহিংসতা থামাতে পুলিশের নিষ্ক্রিয়তার জন্য সমালোচিত হয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সভাপতি অমিত শাহও। এছাড়া, দাঙ্গা নিয়ে অগ্রাহ্যতার অভিযোগে নিন্দিত হয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। এ সহিংসতা নিয়ে প্রথম মুখ খোলেন তিন দিন পর। ততদিনে প্রাণ হারিয়েছেন ২২ জন মানুষ। এসব কারণে সরকারের সমালোচনা করেছে ইউএস কমিশন ফর ইন্টারন্যাশনাল রেলিজিয়াস ফ্রিডম, যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক নেতা ও পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটি, অর্গানাইজেশন ফর ইসলামিক কোঅপারেশন, জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনারের কার্যালয়,
আইন নিজের হাতে তুলে নেয়ার অধিকার কারও নেই : আরএসএস
২৭ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দিল্লিতে শান্তি পুনর্স্থাপন নিশ্চিত করা সরকারের উচিত বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবকের (আরএসএস) সাধারণ সম্পাদক সুরেশ ভাইয়াজি। গত কয়েকদিনের টানা সহিংসতায় বিধ্বস্ত দিল্লি পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার এমন মন্তব্য করেছেন তিনি। যদিও উগ্র হিন্দুত্ববাদী এই সংগঠনের নেতা-কর্মীরা দিল্লির দাঙ্গায় নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে দেশটির কিছু গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে। দিল্লিতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে জোশি বলেছেন, আইন নিজের হাতে তুলে নেয়ার অধিকার কারও নেই। যেসব এলাকায় অশান্তি বিরাজ করছে; সেখানে শান্তি ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব সরকারের। রাজধানী নয়াদিল্লির উত্তরপূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন অংশে গত রোববার থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) ঘিরে বিক্ষোভ-সংঘাত সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় রুপ নেয়। আরএসএস ও স্থানীয় বিজেপির নেতা-কর্মীদের নেতৃত্বে সিএএ-বিরোধীদের বিরুদ্ধে হামলা চালানো হয়। এই দাঙ্গার সময় বেছে বেছে মুসলিমদের বাড়ি-ঘর, দোকানপাট ও মসজিদে হামলা ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠেছে। এতে এখন পর্যন্ত ৩৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে বলে ইন্ডিয়া ট্যুডের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। নাগরিকত্ব আইনবিরোধী বিক্ষোভকে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় রুপ দেয়া বিজেপি-আরএসএসের নেতা-কর্মী-সমর্থকদের হামলায় আহত হয়েছেন আরও দুই শতাধিক মানুষ। দেশটির জ্যেষ্ঠ এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেছেন, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ঘিরে উত্তরপূর্ব দিল্লির সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় আরও আটজনের প্রাণহানি ঘটেছে। দিল্লির তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এই আটজনকে নিয়ে মোট প্রাণহানির সংখ্যা ৩৫ জনে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, বুধবার রাত পর্যন্ত দাঙ্গায় নিহতের সংখ্যা ছিল ২৭; যাদের ২৫ জনই দিলশাদ গার্ডেনের জিটিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।- jagonews24

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর