চাঁদের বুকে গাছের চারা গজিয়েছে চীন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চীনের মহাকাশ সংস্থা বলেছে, চাঁদের বুকে তাদের পাঠানো যানে একটি পাত্রে বোনা তুলোর বীজ থেকে চারা গজিয়েছে। চাঁদের বুকে এই প্রথম কোনো জৈব পদার্থের জন্ম হলো। চাঁদের যে উল্টো পিঠ- যা পৃথিবী থেকে দেখা যায় না, সেখানেই রয়েছে চীনা যন্ত্রযান চ্যাংঅ-৪ থেকে পাঠানো এক ছবিতে দেখা গেছে এ দৃশ্য। চীনের মহাকাশ সংস্থা এ খবর দিয়েছে। মনে করা হচ্ছে, দীর্ঘমেয়াদি মহাকাশ অভিযানের প্রেক্ষাপটে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। গত ৩ জানুয়ারি চাঁদে অবতরণ করে চ্যাংঅ-৪ নামের চন্দ্রযান। চাঁদের উল্টো পিঠে এটাই প্রথম কোনো মহাকাশযানের অবতরণ। এই যানে ছিল চাঁদের ভূতাত্ত্বিক গঠন বিশ্লেষণ করার যন্ত্রপাতি। এছাড়া ছিল মাটি, তুলা এবং আলুর বীজ, ফ্রুট ফ্লাই নামে এক ধরণের মাছির ডিম এবং খামি বা ইস্ট নামের ছত্রাক- যা দিয়ে পাউরুটি তৈরি হয়। তুলোবীজ থেকে গজানো গাছের চারা রাখা হয়েছে চন্দ্রযানের ভেতর একটি বন্ধ কনটেইনারে। এখানে একটা বায়োস্ফিয়ার তৈরি করা হবে- যার মানে এমন এক কৃত্রিম পরিবেশ যেখানে একটি গাছ নিজেই নিজের খাদ্য গ্রহণ করে বেঁচে থাকতে পারবে। এর আগে আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে গাছ গজানো হয়েছে। কিন্তু চাঁদের বুকে থাকা মহাকাশযানে কখনো করা হয়নি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চাঁদের বুকে তাপমাত্রা অত্যন্ত পরিবর্তনশীল- কখনো চরম ঠান্ডা কখনো তীব্র গরম। কখনো তাপমাত্রা নেমে যায় শূন্যের নিচে ১৭৩ ডিগ্রি পর্যন্ত, আবার কখনো তা উঠে যেতে পারে ১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসেরও ওপরে। এই পরিবেশে একটা আবদ্ধ জায়গাতেও গাছপালা গজানোর মতো স্বাভাবিক তাপমাত্রা, আর্দ্রতা, এবং মাটির পুষ্টিগুণ ধরে রাখা অত্যন্ত কঠিন কাজ। চাঁদের বুকে গাছের চারা গজানোর বিষয়টা দীর্ঘমেয়াদি মহাকাশ অভিযান- যেমন মঙ্গলগ্রহে অভিযানের ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ মঙ্গলগ্রহে যেতে সময় লাগবে প্রায় আড়াই বছর। চাঁদে যদি গাছপালা গজানো সম্ভব হয় তাহলে, নভোচারীরা হয়তো সেখানে তাদের নিজেদের খাদ্য নিজেরাই উৎপন্ন করতে পারবেন। তার রসদপত্র সংগ্রহের জন্য পৃথিবীতে ফিরে আসতে হবে না। জৈব পদার্থ নিয়ে এসব পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলে কি চাঁদ দূষিত হয়ে পড়বে? বিজ্ঞানীরা বলছেন, তেমন সম্ভাবনা কম। তাছাড়া মনে করিয়ে দেয়া দরকার যে, এ্যাপোলোর নভোচারীদের ফেলে আসা মলমূত্র ভর্তি পাত্র এখনও চাঁদের বুকে রয়ে গেছে। সূত্র: বিবিসি অনলাইন
প্রশংসিত বাংলাদেশ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায়
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা করেছেন জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল জিন পিয়ের ল্যাক্রিক্স। নেদারল্যান্ডস ও রুয়ান্ডার যৌথ আয়োজনে হেগে দুই দিনব্যাপী শান্তিরক্ষায় প্রস্তুতিমূলক সম্মেলনে শান্তি মিশনে বাংলাদেশের ভূমিকার এই প্রশংসা করেন বলে মঙ্গলবার হেগের বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে। বাংলাদেশ সফরের কথা স্মরণ করে আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ল্যাক্রিক্স বলেন, সৈন্য ও পুলিশ পাঠিয়ে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে। বার্তা সংস্থা ইউএনবির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলাদেশের রাজেন্দ্রপুর সেনানিবাসে অবস্থিত শান্তিরক্ষা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস সাপোর্ট অপারেশন ট্রেনিং (বিপসট)-এর মানসম্মত প্রশিক্ষণের প্রশংসাও করেন ল্যাক্রিক্স। এ ছাড়া শান্তিরক্ষা কার্যক্রমবিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ল্যাক্রিক্স বিভিন্ন দেশের বেসামরিক জনগণের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আরো বেশি মনোযোগ প্রদানের ইচ্ছে প্রকাশ করেন। এর আগে ডাচ পররাষ্ট্রমন্ত্রী স্টেফ ব্লক, ডাচ প্রতিরক্ষামন্ত্রী আঙ্ক বিজলিভেল্ড ও জিন পিয়ারি ক্যারাব্যারাঙ্গা, ন্যাদারল্যান্ডস ও স্মেইল চেরুগিতে নিযুক্ত রুয়ান্ডার রাষ্ট্রদূত, আফ্রিকান ইউনিয়নের শান্তি ও নিরাপত্তাবিষয়ক কমিশনার যৌথভাবে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। শান্তিরক্ষাবিষয়ক প্রস্তুতিমূলক এ সম্মেলনে বাংলাদেশসহ বিশ্বের প্রায় ৭০টি দেশ যোগ দেয়। আর সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলকে নেতৃত্ব দেন রাষ্ট্রদূত শেখ মোহাম্মাদ বেলাল। সম্মেলনে রাষ্ট্রদূত বেলাল জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় বাংলাদেশের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন। তিনি বিশ্ব শান্তি ও স্থিতিশীলতা জোরদারের জন্য জাতিসংঘের আহ্বানের প্রতিক্রিয়ায় সৈন্য ও পুলিশ পাঠিয়ে অবদান রাখার বিষয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত অঙ্গীকারের কথাও পুনর্ব্যক্ত করেন।
ব্রিটেনের ভাগ্য নির্ধারণী ব্রেক্সিট ভোট আজ
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অনেক তর্ক-বিতর্ক আর আলোচনা-সমালোচনার পর ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া, যা ব্রেক্সিট নামে পরিচিত, সেই প্রশ্নে খসড়া চুক্তিটি নিয়ে আজ সংসদে ভোট হতে যাচ্ছে। বিরোধী লেবার পার্টি তো বটেই, নিজ দল টোরির অনেক সংসদ সদস্যের বিরোধিতার মুখে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মের তৈরি করা ব্রেক্সিট চুক্তির ওপর আজ মঙ্গলবার ব্রিটিশ পার্লামেন্টের হাউস অব কমন্সে ভোটগ্রহণ হবে। এ নিয়ে গোটা ব্রিটেনে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। কী হবে ব্রিটেনের অবস্থান? বিলটি নিয়ে প্রচণ্ড চাপের মুখে থাকা ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী শেষ মুহূর্তেও ব্রেক্সিটের পক্ষে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। খসড়া এই চুক্তিটি পাস না হলে পার্লামেন্টে অচলাবস্থা তৈরি হবে, যা থেকে জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলেও এক বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন তিনি। গতকাল সোমবার বিকেলে শেষবারের মতো থেরেসা মে তাঁর এমপিদের ব্রেক্সিটের পক্ষে ভোট দিতে আহ্বান জানান, যেখানে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছেড়ে যাওয়া এবং ইইউর সঙ্গে ভবিষ্যৎ সম্পর্কের বিষয়ে আশ্বস্ত করা হয়েছে। এর আগে হাউজ অব কমন্সে থেরেসা মে বলেছিলেন, এটি নিখুঁত নয়, তবে যখন ইতিহাসের বইগুলো লেখা হবে, মানুষ এই হাউজের সিদ্ধান্তটি সম্পর্কে জানবে এবং জিজ্ঞেস করবে, আমরা কি দেশের স্বার্থে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ছাড়ার জন্য ভোট দিয়েছি? আমরা কি আমাদের অর্থনীতি ও নিরাপত্তা রক্ষা করেছি? নাকি আমরা আমাদের দেশের মানুষকে অবহেলা করেছি? ব্রিটেন এক্সিট নামটিকে সংক্ষেপে ব্রেক্সিট বলা হয়। যার অর্থ ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার একটি প্রক্রিয়া। ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৮টি দেশের মানুষ একে অন্যের দেশে যেতে পারেন। একসঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য করতে পারে। তা ছাড়া এই ইউনিয়নভুক্ত দেশের মানুষ এক দেশ থেকে অন্য দেশে গিয়ে বসবাসও করতে পারে।
কয়লা খনি ধসে ২১ শ্রমিক নিহত চীনে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চীনের উত্তরাঞ্চলে একটি কয়লা খনি ধসের ঘটনায় ২১ জন শ্রমিক নিহত হয়েছেন। সেই সঙ্গে ভূগর্ভে এখনো অন্তত ২১ জন শ্রমিক আটকা পড়ে আছেন বলে দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে। সংবাদ সংস্থা সিনহুয়া ও রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন আজ রোববার জানায়, শানঝি প্রদেশের শেনমু শহরে শনিবার এ ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। সেই সময় কয়লা খনিতে প্রায় ৮৭ জন শ্রমিক কাজ করছিল। দুর্ঘটনার পর নিহত ২১ শ্রমিকসহ মোট ৬৬ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। বাকি অন্তত ২১ জন এখনো ভূগর্ভে আটকে আছেন। তবে তাদের ভাগ্যে ঠিক কী ঘটেছে তা নিশ্চিত করতে পারেনি দেশটির কর্তৃপক্ষ। সংবাদে আরো বলা হয়, উদ্ধারকারীদের কাজে অগ্রগতি হয়েছে। তবে আটকা পড়াদের কবে নাগাদ উদ্ধার করা সম্ভব হবে সে সম্পর্কে কোনো ধারণা দেওয়া হয়নি। বিগত বছরগুলোতে চীনে প্রায়ই খনি দুর্ঘটনা, রাসায়নিক কারখানায় বা সংলগ্ন এলাকায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটছে। ফলে দেশটির জন্য এই দুর্ঘটনাগুলো এখন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
আরব আমিরাতে বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভার আয়োজন করে সংযুক্ত আরব আমিরাত রাস আল খাইমা বঙ্গবন্ধু পরিষদ। শুক্রবার UAE-এর স্থানীয় গ্রান্ড হোটেলে সভার আয়োজন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নিয়ে আলোচনা ছাড়াও সভায় বক্তারা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ায় শেখ হাসিনা সরকারের পরবর্তী উন্নয়ন পরিকল্পনায় শরিক হওয়ার বিষয়ে কথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে এবং মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদা মহিউদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাস আল খাইমা বাংলাদেশ ইংলিশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি আলহাজ পেয়ার মোহাম্মদ.
৪ ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের, বৈশ্বিক সন্ত্রাস সূচকে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইনস্টিটিউট ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড পিসের (আইইপি) তৈরি করা বৈশ্বিক সন্ত্রাস সূচকে (জিটিআই) ৫ দশমিক ৬৯৭ স্কোর লাভ করে চার ধাপ এগিয়ে ১৬৩ দেশের মধ্যে ২৫তম স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে সদর দপ্তর থাকা আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইপির তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ গত বছর ৬ দশমিক ১৮১ পয়েন্ট পেয়ে ২১তম স্থানে ছিল। প্রতি বছর প্রকাশিত সূচক অনুযায়ী, এবার দক্ষিণ এশিয়ার চার দেশ- বাংলাদেশ, ভুটান, নেপাল ও শ্রীলংকায় সন্ত্রাসী হামলা কমেছে এবং তারা নিরাপত্তায় উন্নতি দেখিয়েছে। জিটিআই প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৭ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মধ্যে ফিলিপাইন ও মিয়ানমারে সন্ত্রাসের কারণে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে। মিয়ানমার ১০-এর মধ্যে ৫ দশমিক ৯১৬ পয়েন্ট পেয়ে গত বছরের তুলনায় ১৩ ধাপ পিছিয়ে তালিকায় ২৪তম অবস্থানে রয়েছে। ২০১৭ সালে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সবচেয়ে মারাত্মক তিনটি সন্ত্রাসী সংগঠন ছিল আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা), নিউ পিপলস আর্মি ও আবু সায়াফ গ্রুপ। সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাসে আক্রান্ত ১০ দেশের মধ্যে আছে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও ভারত। এ কারণে জিটিআই স্কোরে দক্ষিণ এশিয়ার অবনতি হয়েছে।
কংগ্রেস নেত্রী হলেন নারীতে রূপান্তর হওয়া অপ্সরা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে এই প্রথম কোনো জাতীয় রাজনৈতিক দলে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেন রূপান্তরী নারী। তিনি হলেন পুরুষ থেকে নারী হওয়া অপ্সরা রেড্ডি। অপ্সরাকে কংগ্রেসের মহিলা শাখায় সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দিলেন রাহুল গান্ধী। এমন কি তার সাথে একটি ছবি তুলে এই ঘোষণা নিজেই দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তবে কংগ্রেসে যোগ দেয়ার আগে অপ্সরা তামিলনাডুর রাজনৈতিক দল এ আই এ ডি এম কে-র মুখপাত্র ছিলেন। জাতীয় মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী সুস্মিতা দেব বলেন, অপ্সরার সঙ্গে কয়েক মাস আগে কলকাতায় দেখা হয়। তার রাজনৈতিক চিন্তাভাবনা পছন্দ হওয়ায় তাকে কংগ্রেসে আসতে আহ্বান জানাই। পরে রাহুল গান্ধীর সাথেও তার ব্যাপারে কথা হয়। অপ্সরা রেড্ডি বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসসহ ভারতের বেশ কয়েকটি ইংরেজি পত্রিকায় সাংবাদিকতা এবং সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বলেন, অনেকেই বলেছে ভারতে এ ধরণের কাজ করা কঠিন। কিন্তু চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে এক দিকে যেমন সাংবাদিকতা চালিয়ে গেছি, তেমনই রূপান্তরকামীদের অধিকার নিয়ে সারা দেশে কাজ করেছি। তিনি আরও বলেন, রাহুল গান্ধী নতুন প্রজন্মের নেতা। তাই তিনি একটা সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছেন। আশা করব অন্য দলগুলোও এবার এই পথ অনুসরণ করবে। রূপান্তরীত নারী ও অ্যাক্টিভিস্ট রঞ্জিতা সিনহা বলেন, কংগ্রেসের মতো দলে তার এই পদ পাওয়া নিঃসন্দেহে রূপান্তরকামীদের কাছে একটা বড় পাওয়া। নীতি প্রণয়নের মতো গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলোতেও রূপান্তরকামীরা যে থাকতে পারে, নিজেদের গোষ্ঠীর জন্য লড়তে পারে, সেই ব্যবস্থাই করা উচিত সব দলের, সব সরকারের। সূত্র: বিবিসি
পাস হলো বিতর্কিত নাগরিকপঞ্জি বিল ভারতে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের লোকসভায় পাস হয়ে গেল জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বিল। কংগ্রেস, বামসহ বিরোধী দলগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও গতকাল মঙ্গলবার লোকসভায় পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল-২০১৬। এর ফলে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা অমুসলিম অনুপ্রবেশকারীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবেন। আজ বুধবার রাজ্যসভায় পেশ করা হবে বিলটি। মূলত এই বিল পাসের মাধ্যমে ভারতে অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে চাইছে কেন্দ্র। যদিও এই বিলের তীব্র বিরোধিতা করে বিরোধী দলগুলো দাবি করেছে, এই বিল ভারতীয় সংবিধানের মৌলিক অধিকারের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস সাংসদরা এই বিলের বিরোধিতায় লোকসভা কক্ষ থেকে ওয়াকআউট করেন। মঙ্গলবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বিলটি লোকসভায় পেশ করেন। এই নাগরিকপঞ্জি বিল অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যেসব অমুসলিম ভারতে এসেছেন, তাঁদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। শুধু হিন্দু নয়, এই বিলের মাধ্যমে খ্রিস্টান, জৈন, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষও এই সুবিধা পাবেন। তবে এই বিলের বিরোধিতা করে ভারতের বিরোধী দলগুলো জানিয়েছে, এই বিল পাস হয়ে আইনে পরিণত হলে ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের পর বাংলাদেশ থেকে বেআইনিভাবে যেসব হিন্দু ভারতে এসেছেন, তাঁরাও ভারতীয় নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন। যা ভারতের পক্ষে সুখের হবে না। তবে এই বিল প্রসঙ্গে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, গোটা দেশের কথা মাথায় রেখেই এই বিল আনা হয়েছে। এই বিলের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা মাথায় রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, এই বিলে খ্রিস্টানদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তার কারণ, দেশভাগের সময় তাঁরাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন। অন্যদিকে, এই বিলে লোকসভার স্পিকারের হস্তক্ষেপ দাবি করে তৃণমূল সংসদ সদস্য সৌগত রায় বলেন, এই বিলে মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দয়া করে এই বিলটিকে ধর্মনিরপেক্ষ করুন।
তালেবান হামলায় আফগানিস্তানে নিহত ২৬
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের দুটি অঞ্চলে আলাদা তালেবান হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ২১ সদস্যসহ অন্তত ২৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ১৭ জন। কর্তৃপক্ষ জানায়, সোমবার (৭ জানুয়ারি) তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে সীমান্ত সংলগ্ন পশ্চিমাঞ্চলীয় বাদঘিস প্রদেশের দুটি নিরাপত্তা চৌকিতে তালেবান জঙ্গিরা অতর্কিত হামলা চালালে ১৪ পুলিশ এবং সরকারি বাহিনীর ৭ সদস্য নিহত হয়। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে তালেবানের ১৫ সদস্য নিহত হয়, আহত হয় আরো ১০ জন। তালেবানের এক মুখপাত্র এক বিবৃতিতে দাবি করে, হামলায় সরকারি বাহিনীর ৩৪ সদস্য নিহত হয়েছে। এছাড়া বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। একই দিন দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় পাকটিকায় তালেবানের বোমা হামলায় অন্তত ৫ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৮ জন।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর