কানাডায় গুলিতে নিহত ২-আহত ১৩
অনলাইন ডেস্ক: কানাডার টরন্টোতে গুলিতে দুইজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একজন বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। এছাড়া পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন হামলাকারীও। আহত হয়েছেন শিশুসহ অন্তত ১৩জন। খবর বিবিসির। রবিবার রাতে টরেন্টোর ড্যানফরথ এবং লোগান এভিয়েজ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। গোলাগুলির সময় ২৫টি গুলির শব্দ শোনা গেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। আহতদের অনেককে ঘটনাস্থলেই চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এছাড়া গুরুতর আহতদের নিকটস্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এখন পর্যন্ত হামলার কোনো কারণ জানতে পারেনি পুলিশ। ইতোমধ্যে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। প্রত্যক্ষদর্শী জন অ্যারাল্ডাসন জানান, রাতের ওই সময় এলাকাটি জমজমাট ছিল। সবগুলো রেস্টুরেন্টই ছিল মানুষে পরিপূর্ণ। রাস্তাটির পাশে একটি ফোয়ারা থাকায় ওই এলাকায় মানুষ হাঁটাচলা করছিল। এ সময় হঠাৎ গুলিবর্ষণ শুরু হলে তারা সবাই ছোটাছুটি শুরু করেন। খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ সেখানে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এদিকে আহতদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে অন্টারিওর মুখ্যমন্ত্রী ডাগ ফোর্ড ভুক্তভোগীদের সহায়তায় যারা এগিয়ে এসেছেন তাদের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
জাপানে তাপদাহে ৩০ জনের মৃত্যু, সতর্কতা জারি
অনলাইন ডেস্ক: জাপানজুড়ে তীব্র তাপদাহের ফলে দু’সপ্তাহে দেশটিতে অন্তত ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাপদাহজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন হাজারো নাগরিক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার আশঙ্কায় দেশজুড়ে সতর্কবার্তা জারি করেছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। স্থানীয় আবহাওয়া অধিদফতরের বরাত দিয়ে রবিবার (২২ জুলাই) আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানায়, এই সপ্তাহে জাপানের মধ্যাঞ্চলে তাপমাত্রা উঠে গেছে ৪০ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত, যা গত পাঁচ বছরে দেশটিতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। আর সাবেক রাজধানী কিয়োটো শহরে গত সাত দিনে টানা তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একনাগাড়ে এমন তীব্র তাপমাত্রা এর আগে ১৯ শতকের শুরুর দিকে দেখা গিয়েছিল জাপানে। দেশটির কর্মকর্তারা সাধারণ লোকজনকে হিটস্ট্রোক এড়ানোর জন্য পর্যাপ্ত পানি এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এলাকায় থাকার উপদেশ দিচ্ছেন। এদিকে ২০২০ সালে টোকিওতে অলিম্পিক গেমস অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তখনও এই রকম গরম অনুভূত হবে। এই রকম তাপমাত্রার পরিপ্রেক্ষিতে অলিম্পিক খেলা নিয়ে ভাবছেন দেশটির কর্মকর্তারা। অলিম্পিক পরিদর্শক দলের প্রধান জন কোটস গত সপ্তাহ টোকিওতে ছিলেন। তিনি বলেন, এই তাপমাত্রা হবে অলিম্পকিস সংগঠকদের জন্য একটা বড় রকমের চ্যালেঞ্জ। ওয়ান নিউজ বিডি
মিসৌরির নৌকাডুবিতে নিহতদের ৯ জনই এক পরিবারের
অনলাইন ডেস্ক: ঝড়ের কবলে পড়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরি অঙ্গরাজ্যে পর্যটকবাহী ছোট নৌকাডুবে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭ জন হয়েছে। এর মধ্যে একই পরিবারের শিশুসহ নয়জন বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) মিসৌরির একটি হ্রদে ধারণক্ষমতার বেশি ৩১ জন যাত্রী নিয়ে নৌকাটি ডুবে যায়। পরে ডুবুরি দল গিয়ে অভিযান চালিয়ে নিখোঁজদের উদ্ধার করে। মিসৌরি রাজ্য সরকার প্রধান মাইকেল পারসন বলেছেন, হ্রদে নৌকা ডুবে এ পর্যন্ত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওই নৌকার এক নারীর সঙ্গে কথা বলে তিনি জানতে পেরেছেন, নিহতদের মধ্যে নয়জনই তার (নারীর) পরিবারের সদস্য। তবে সৌভাগ্যক্রমে দুইজন বেচেঁ যান। এদিকে, নৌকায় কারও জন্য কোনো লাইফ জ্যাকেট ছিল না বলে সরকার প্রধানের কাছে অভিযোগ করেছেন ওই নারী। নারী বলেন, নৌকা যখন ডুবে যাচ্ছে তখন চালক লাইফ জ্যাকেট দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন। এছাড়া নৌকাটিতে তার ধারণ ক্ষমতা থেকে বেশি যাত্রী ওঠানো হয়েছিল। মিসৌরি হাইওয়ে চৌকি বলছে, দুর্ঘটনায় যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের বয়স এক থেকে ৭০ এর মধ্যে। এছাড়া যারা বেঁচে আছেন তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নৌকা চালকও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পর্যটন হ্রদে 'ডাক বোট' বা ছোট নৌকায় ওঠার শখ বেশি থাকে ভ্রমণপ্রিয়দের। আর তাতে মাঝে মাঝে ওভারলোড হয়ে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে।
ফ্লোরিডায় দুটি প্রশিক্ষণ বিমান মুখোমুখি সংঘর্ষে বিধ্বস্ত
অনলাইন ডেস্ক :যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের জলাভূমি এভারগ্লেইডসের মাঝ আকাশে দুটি প্রশিক্ষণ বিমান মুখোমুখি সংঘর্ষে বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে একজন ভারতীয়সহ চারজন মারা গেছেন বলে জানা গেছে। সেখানকার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন। মঙ্গলবার স্থানীয় সময় দুপুর একটার দিকে বিধ্বস্তের ঘটনাটি ঘটে বলে জানা যায়। খবর সিএনএন। মায়ামি দেইদ পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিস্ফোরণের ঘটনা দেখে প্রত্যক্ষদর্শীরা জরুরি সেবা ৯১১ এ ফোন দেয়। সিএনএন অধিভূক্ত টিভি স্টেশন ডাব্লিউএসভিএন এক প্রতিবেদনে জানায়, বিধ্বস্ত হওয়া একটি বিমান থেকে দুইজন নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়। তৃতীয় লাশটি পাওয়া যায় দ্বিতীয় আরেকটি বিমান থেকে। দুর্ঘটনাটি মায়ামি এক্সিকিউটিভ এয়ারপোর্ট থেকে নয় মাইল পশ্চিমে ঘটে থাকে বলে এফএএ সূত্রে জানা যায়। বিমান দুইটি পাইপার পিএ-৩৪ এবং সেসনা ১৭২ এয়ারক্রাফট মডেলের ছিল। মায়ামি দেইদের পুলিশ ডিটেকটিভ আলভারো জাবালেটা বলেন, মঙ্গলবার গভীর রাত পর্যন্ত খোঁজাখুজি চলছিল। গতকাল বুধবার নিখোঁজ আরও একজনের খোঁজে নতুন করে তল্লাশি শুরু হয়। তল্লাশি কাজ চলার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই চতুর্থ লাশটিকে উদ্ধার করা হয়। নিহত চারজন মায়ামি এক্সিকিউটিভ এয়ারপোর্ট ভিত্তিক একটি ফ্লাইট স্কুলের শিক্ষার্থী ও প্রশিক্ষক। নিহতরা হলেন কার্লোস আলফ্রেডো জানেত্তি স্কারপাতি (২২), হোর্হে সানচেজ(২২), র‌্যালফ নাইট এবং নিশা সেজওয়াল(১৯)। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফেডারেল এভিয়েশন এডমিনিস্ট্রেশন এবং ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্টেশন সেফটি বোর্ডের এজেন্টরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছিলেন। তবে বিধ্বস্তের ঘটনাটির সঠিক কারণ এখনও জানা যায়নি। চারজন নিহতের মধ্যে একজন লাইসেন্স প্রাপ্ত পাইলট ছিলেন না বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে কর্তৃপক্ষ মনে করছে, বিমান দুইটি সম্ভবত একটি প্রশিক্ষণ অনুশীলন পরিচালনা করছিল। প্রতিটি বিমানে একজন করে ছাত্র ও প্রশিক্ষক ছিলেন।
বাংলাদেশে নতুন মার্কিন রাষ্ট্রদূত হচ্ছেন মিলার
অনলাইন ডেস্ক :বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী রাষ্ট্রদূত হিসেবে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মনোনয়ন পেতে যাচ্ছেন আর্ল রবার্ট মিলার। সাড়ে তিন বছর ধরে বাংলাদেশে মার্কিন দূতাবাসের দায়িত্ব সামলে আসছিলেন রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেন্স ব্লুম বার্নিকাট। এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউজ বলেছে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মঙ্গলবার আর্ল রবার্ট মিলারকে ওই পদের জন্য মনোনীত করার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আনুষ্ঠানিক মনোনয়ন দেওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস অনুমোদন করলে শিগগিরই বার্নিকাটের জায়গায় দেখা যাবে মিলারকে। মার্কিন মেরিন কোরের সাবেক কর্মকর্তা মিলার পররাষ্ট্র দপ্তরের হয়ে কাজ করে আসছেন ১৯৮৭ সাল থেকে। আর ২০১৪ সাল থেকে তিনি আফ্রিকার দেশ বতসোয়ানায় রাষ্ট্রদূতের পালন করে আসছেন। মিলার ২০১১ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে যুক্তরাষ্ট্রের কনসাল জেনারেলের দায়িত্ব পালন করেন। নয়াদিল্লি, বাগদাদ ও জাকার্তায় মার্কিন দূতাবাসে আঞ্চলিক নিরাপত্তা কর্মকর্তা হিসেবেও তিনি কাজ করেছেন। মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করার পর মিলার যোগ দেন যুক্তরাষ্ট্রের মেরিন কোরে। ১৯৮১ থেকে ১৯৮৪ সাল পর্যন্ত তিনি মেরিন কোরে এবং ১৯৮৫ থেকে ১৯৯২ পর্যন্ত মেরিন কোর রিজার্ভে অফিসার পদে ছিলেন।
আমিরাতি প্রিন্সের কাতার পলায়ন
অনলাইন ডেস্ক: জীবননাশের হুমকির মুখে কাতারে পালিয়ে গেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের এক প্রিন্স। শেখ রশিদ বিন হামাদ আল-শার্কি নামের ওই প্রিন্স দোহার কাছে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছেন বলেও খবর বেরিয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি মনার্কির (রাজ্য) ফুজারিয়াহ আমিরের দ্বিতীয় সন্তান ৩১ বছর বয়সী শেখ রশিদ। গত ১৬ মে তিনি দোহা পৌঁছেছেন বলে খবরে বলা হয়েছে। জীবন হুমকির মুখে থাকায় তিনি দেশ ছাড়তে বাধ্য হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই প্রিন্স। মার্কিন গণমাধ্যম দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস রোববার এক প্রতিবেদনে এমন খবর দিয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম ডন। প্রসঙ্গত, সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি মনার্কি বা রাজ্যের মধ্যে আবুধাবি দেশটির রাজধানী এবং সবচেয়ে ধনী অঞ্চল। নিউ ইয়র্ক টাইমসকে শেখ রশিদ আমিরাতি শাসকদের ব্লাকমেইল ও অর্থপাচারের ব্যাপারে বলেছেন। তবে এ ব্যাপারে তিনি কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি। এ ছাড়া ইয়েমেন যুদ্ধ নিয়ে দেশটির এলিটদের মধ্যে যে উত্তেজনা বিরাজ করছে তাও ফাঁস করে দেন শেখ রশিদ। তিনি বলেন, ইয়েমেন যুদ্ধে প্রকাশ্যে ১০০ আমিরাতি সেনা নিহতের কথা বলা হলেও বাস্তবে আরো বেশি নিহত হয়েছে এবং অন্যান্য অঞ্চলের তুলনায় ফুজারিয়াহ মনার্কির সেনা বেশি নিহত হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপির পক্ষ থেকে এক আমিরাতি কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি। তবে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনোয়ার গারগাশ বলেছেন, এর কোনো ভিত্তি নেই, এগুলো রাজপরিবারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। উল্লেখ্য, কাতার সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন করছে এবং গাল্ফ অঞ্চলের অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করছে এমন অভিযোগ এনে ২০১৭ সালের জুন মাসে দেশটির সঙ্গে সব ধরনের সম্পর্ক চ্ছিন্ন করে সৌদি আরব, মিসর, বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। বিশ্বে তরল প্রাকৃতিক গ্যাস রফতানিতে প্রথম কাতার সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের ওই অভিযোগ শুরু থেকেই প্রত্যাখ্যান করে আসছে। নিউ ইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৪৭ বছরের ইতিহাসে এই প্রথম রাজপরিবারের কোনো সদস্য শাসকদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে মুখ খুলল।
৫ লাখ ডলার দান করবেন এমবাপ্পে
অনলাইন ডেস্ক: ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ে কিলিয়ান এমবাপ্পের দারুণ ভূমিকা নিয়ে দ্বিমত করার মতো লোক কমই আছে। তবে এবার ভিন্ন কারণে পাদপ্রদীপের আলোয় তিনি। স্পোর্টস ইলাস্ট্রেটেড ম্যাগাজিনের বরাতে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, বিশ্বকাপে যেই ৭ ম্যাচ খেলেছেন সেখানে প্রতি ম্যাচে এই ১৯ বছর বয়সী তারকা ২২৫০০ ডলার করে ফি আয় করেছেন। এছাড়া বিশ্বকাপ জয়ের পর বোনাস হিসেবে পেয়েছেন সাড়ে ৩ লাখ ডলার। এই হিসাবে বিশ্বকাপে মোট ৫ লাখ ডলারেরও বেশি আয় করেছেন তিনি। তবে এই অর্থের এক কানাকড়িও নাকি তিনি নিজে নেবেন না। এই অর্থ তিনি দান করবেন প্রিমিয়ের্স দ্য কোর্ডে নামে একটি দাতব্য সংস্থায়। এই সংস্থা হাসপাতালে ভর্তি ও প্রতিবন্ধী শিশুদের খেলাধুলার ব্যবস্থা করে থাকে। ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো এই সংস্থার সঙ্গে সম্পৃক্ত হন তিনি। সংস্থাটির ব্যবস্থাপক সেবাস্তিয়ান রাফিন এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে এমবাপ্পেকে অসাধারণ ব্যক্তি হিসেবে অভিহিত করেন। তিনি এমবাপ্পের দানের বিষয়ে বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে কয়েকদিন আগে এমবাপ্পে ও তার পরিবারের প্রতিনিধি এসে বিষয়টি অবহিত করেন। তবে আমরা প্রথমে সবাইকে জানাতে চাইনি। কারণ কেবল কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেই বোনাস পেতেন তিনি। তবে আমরা তার এই ব্যক্তিগত প্রচেষ্টায় ভীষণ আপ্লুত হয়েছি। আমরা কখনই আমাদের পৃষ্ঠপোষকদের কাছ থেকে আর্থিক সহযোগিতা চাই না। এমবাপ্পে নিজেই তা দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন।’ প্রসঙ্গত, বিশ্বকাপে মোট ৪ গোল করেছেন এমবাপ্পে। এছাড়া জিতে নিয়েছেন টুর্নামেন্টের সেরা তরুণ খেলোয়াড়ের খেতাব। ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর হয়ে খেলার সুবাদে প্রতি মাসে প্রায় ১৮ লাখ ডলার আয় করেন তিনি।
গ্রীনল্যান্ডের গ্রামের দিকে ভেসে আসছে বিশাল আইসবার্গ
অনলাইন ডেস্ক: গ্রীনল্যান্ডের পশ্চিমের একটি গ্রামের দিকে ভেসে আসছে বিশাল একটি আইসবার্গ বা সাগরে ভাসমান বরফখন্ড। এরফলে গ্রামটির কিছু বাসিন্দাকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে।- খবর বিবিসির। স্থানীয় কর্মকর্তারা বলছেন, তারা জীবনে এতো বড় আইসবার্গ দেখেননি। ১০০ মিটার উচুঁ এই আইসবার্গটি সমুদ্রতটের কয়েক মিটার সামনে থেমেছে এবং ধীরে ধীরে বরফ গলা শুরু হয়েছে। ইন্নারসুইট নামের ওই গ্রামটি কোণাকুণি পাথুরে জায়গার ওপর, যার তিনদিকেই সমুদ্র। আশংকা করা হচ্ছে, আইসবার্গটি যদি ভেঙে পড়ে তাহলে সাগরে যে ঢেউ তৈরি হবে, তা বাড়িঘর ভাসিয়ে নিয়ে যেতে পারে। ইন্নারসুইট গ্রামের বাসিন্দা ১৬৯ জন। যাদের বাড়ি সাগরের একেবারে তীরে এমন ৩৩ জনকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। বাকিদেরকে তাদের নৌকা আইসবার্গ থেকে দূরে রাখতে বলা হয়েছে। গ্রীনল্যান্ডের রাজধানী নুক থেকে ৬০০ মাইল উত্তরে অবস্থিত এই গ্রাম ইন্নারসুইট। এই গ্রামের অধিকাংশ বাসিন্দা শিকারি ও মৎস্যজীবী। গ্রামের কাউন্সিল সদস্য সুজান এলিয়াসেন স্থানীয় এক পত্রিকাকে বলেছেন, আইসবার্গটির গায়ে ফাটল দেখা যাচ্ছে, তাই আমরা ভয় পাচ্ছি যে এটি যে কোনো সময় ভেঙে পড়তে পারে। এছাড়া গ্রামটির বিদ্যুৎ কেন্দ্র জ্বালানি তেলের ডিপোও সাগরের কাছেই। সম্প্রতি বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে দিয়েছেন যে, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে আইসবার্গ দুর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে যাচ্ছে। জুন মাসেই বিজ্ঞানীরা একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন যাতে পূর্ব গ্রীনল্যান্ডে একটি হিমবাহ থেকে এক বিশাল আইসবার্গ আলাদা হয়ে যাবার দৃশ্য দেখা যাচ্ছে। গ্রীনল্যান্ড ঢেকে থাকা বরফের স্তরের আয়তন প্রায় ১৮ লাখ বর্গকিলোমিটার এবং বরফের স্তর গড়ে দেড় কিলোমিটারেরও বেশি পুরু। আলোকিত বাংলাদেশ
নওয়াজ শরীফ ও মেয়ে মরিয়ম কারাগারে
অনলাইন ডেস্ক: বিমানবন্দর থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজকে। স্থানীয় সময় রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে তাদের বহনকারী বিমানটি আবুধাবি থেকে লাহোরের আল্লামা ইকবাল ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করে। সেখান থেকেই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। খবর: দ্য ডন। গত শুক্রবার এভেনফিল্ডের দুর্নীতি সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে নওয়াজ ও তার মরিয়মকে দোষী সাব্যস্ত করেন আদালত। নওয়াজকে ১০ বছর এবং মরিয়মকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের জন্য বাবা নওয়াজ শরীফের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হলেও তাকে বাঁচাতে এটিকে ‘ষড়যন্ত্র’ বলে অবহিত করায় দোষী সাব্যস্ত করা হয় মেয়ে মরিয়মকেও। আদালতের দণ্ডাদেশ থাকা সত্বেও নওয়াজ ও মরিয়ম ঘোষণা দেন যে, তারা দেশে ফিরবেন এবং আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করবেন। কিন্তু দেশে নামার আগেই ন্যাশনাল অ্যাকাউন্ট্যাবিলিটি ব্যুরো (এনএবি) এবং পাঞ্জাব প্রদেশ সরকার বাবা-মেয়েকে কারাগারে নেয়ার সকল ব্যবস্থা করে রাখে। এজন্য হেলিকপ্টারও প্রস্তুত করে রাখা হয়। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, নওয়াজ ও তার মেয়েকে নিয়ে বিমানটি অবতরণ করার সাথে পুরা বিমানবন্দর আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা নিয়ন্ত্রণে নেয় এবং সেখানে অবস্থানরত অন্য যাত্রীদের সরিয়ে দেয়। স্থানীয় সময় বিকাল ৫টায় আবুধাবি থেকে একটি বিমানে করে তারা রওনা দেন। রাত ৮.৪৫টার দিকে পাকিস্তানে নামার পরপরই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। নিরাপত্তা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, ফেডারেল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সির (এফআইএ) তিনজন সদস্য তাদের দুইজনেরই পাসপোর্ট জব্দ করেছে। এর আগে তাদেরকে বহন করা ইত্তিহাদ এয়ারওয়েজের ফ্লাইটটি ৩ ঘণ্টা বিলম্ব করলে বিমানবন্দরে নেমেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন নওয়াজ শরীফ। এ ঘটনায় ফোনে বিস্ময় প্রকাশ করে সংবাদকর্মীদের তিনি বলেন, ‘যে ফ্লাইট কখনো দেরি করে না, সেটি কেন আজকে দেরি করল। বুঝে নেন, কেন কাদের নির্দেশে বিমান বিলম্ব করল।’ তিনি বলেন, ‘আমরা তো জানিই যে, আমাকে ১০ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে এবং আমার মেয়েকে ৭ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। এরপরেও আমরা দেশে ফিরেছি, দেশের গণতন্ত্রের প্রয়োজনে, আমাদের পরিবর্তন দরকার। তারা জানে, মানুষ জাগছে, গণমাধ্যম জাগছে; এতেই তারা ভীত।’ তাদের গ্রেফতার করা হচ্ছে এটা নিশ্চিত হওয়ার পর নওয়াজ শরীফ এর বিরুদ্ধে ভূমিকা রাখতে সংবাদকর্মীদের অনুরোধ করেন। সেইসাথে তারা যাতে কারও ভয়ে পিছপা না হন সে আহ্বান জানান। এদিকে নওয়াজ ও তার মেয়েকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে লাহোরের বিভিন্ন এলাকা থেকে জড়ো হওয়া বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী বিক্ষোভ প্রদর্শন করে বিমানবন্দরের সামনে। একইভাবে ভাই ও ভাতিজিকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানাতে গাড়িবহর নিয়ে উপস্থিত ছিলেন পিএমএল-এনের প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরীফ।