ইরান আলোচনায় বসতে চায়, দাবি ট্রাম্পের
১৩সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আবারও দাবি করেছেন যে, ইরান তার সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়। তিনি বৃহস্পতিবার রাতে হোয়াইট হাউজে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইরানি কর্মকর্তারা আমার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আগ্রহী। ট্রাম্প প্রায়ই মিথ্যা ও কল্পনাপ্রসূত বক্তব্য দিয়ে থাকেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এর আগের দিন বুধবার ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, ইরান তার সঙ্গে আলোচনায় বসে একটি নয়া পরমাণু চুক্তি সই করতে চায়। তবে ইরানের পক্ষ থেকে এমন কোনও কিছু নিশ্চিত করা হয়নি। পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, পাশ্চাত্যের সঙ্গে ইরানের স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে গিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। নিজের ভুলের সংশোধনের জন্যই তিনি এখন ইরানের সঙ্গে আগ বাড়িয়ে আলোচনা করতে চান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পাশাপাশি তার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত কয়েক মাসে অসংখ্যবার প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্ভাব্য আলোচনা সম্পর্কে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী তার দেশের নীতি-অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছেন। তিনি গত ২৬ জুন এক ভাষণে বলেছেন, বিশ্বব্যাপী ইরানের শক্তিমত্তা ও প্রভাব কমিয়ে তেহরানকে নিরস্ত্র করে ফেলার লক্ষ্যে ওয়াশিংটন ইরানের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চায়। তিনি আরও বলেন, ইরানের সামরিক শক্তির কারণে মার্কিনিরা এদেশের বিরুদ্ধে আগ্রাসন চালাতে ভয় পাচ্ছে; তাই তারা আলোচনায় বসে এই শক্তি খর্ব করতে চায় যাতে ভবিষ্যতে তারা ইরানকে নিয়ে যা খুশি তাই করতে পারে। এ কারণে আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় কোনও আলোচনা হবে না বলে স্পষ্ট ভাষায় ঘোষণা করেছেন।
ভারতে লুঙ্গি পরে ট্রাক চালালে দুই হাজার রুপি জরিমানা
১০সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দীর্ঘ সময় ধরে গাড়ি চালাতে হয় বলে ট্রাক চালকদের কাছে লুঙ্গি বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু ভারতের উত্তরপ্রদেশের সরকার সেখানকার ট্রাক চালকদের পোশাকে পরিবর্তন আনতে চাইছে। তাই এখন থেকে কেউ লুঙ্গি পরে ট্রাক চালালে তাকে দুই হাজার রুপি জরিমানা দিতে হবে। সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের বিধানসভায় নতুন মোটরযান আইনের সঙ্গে একটি অতিরিক্ত সংশোধনী জুড়ে দেয়া হয়েছে। এই সংশোধনী অনুযায়ী ফুলপ্যান্টের সঙ্গে শার্ট বা টিশার্ট পরেই ট্রাক চালাতে হবে। আর পায়ে স্যান্ডেলের পরিবর্তে থাকতে হবে জুতা। নতুন এই আইন স্কুল ভ্যান ও সরকারি গাড়ির চালকদের মধ্যেও চালু করা হয়েছে। এ বিষয়ে লখনৌর এএসপি (ট্রাফিক) পূর্ণেন্দু সিং বলেন, ১৯৮৯ সাল থেকেই পোশাক বিধি লঙ্ঘন করলে ৫০০ রুপি জরিমানা করার রীতি চালু ছিল। এখন সেই জরিমানার পরিমাণ বাড়িয়ে দুই হাজার রুপি করা হয়েছে। আগেও এই পোশাক বিধি ছিল। তবে তা কখনও সরকারিভাবে প্রয়োগ করা হয়নি। মূলত গেঞ্জি ও লুঙ্গি পরা ট্রাকচালকদের আটকাতেই এই আইন চালু করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, ভারতজুড়েই ট্রাক চালকদের পছন্দের পোশাক লুঙ্গি। আসলে দিনের পর দিন গাড়িতেই কাটাতে হয় চালক ও সহকারীদের। আর এজন্যই তাদের পছন্দের পোশাক হচ্ছে লুঙ্গি ও গেঞ্জি।
৯/১১ হামলার আগে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করেছিলেন পুতিন
০৮সেপ্টেম্বর,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: যুক্তরাষ্ট্রে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর কথিত সন্ত্রাসী হামলার দুদিন আগে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশকে আসন্ন এ ধরনের হামলার ব্যাপারে সতর্ক করেছিলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ'র সাবেক একজন বিশ্লেষক এ তথ্য জানিয়েছেন। জর্জ বিবি নামে বুশ আমলের সিআইএ'র বিশ্লেষক একটি বইয়ে পুতিনের এই সতর্কবার্তা সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরেছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, হামলার দুদিন আগে প্রেসিডেন্ট পুতিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশকে টেলিফোন করেন এবং তিনি রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টকে সতর্ক করেন যে এ ধরনের একটি সন্ত্রাসী হামলা খুবই নিকটবর্তী। দীর্ঘ প্রস্তুতির পর এ হামলা আফগানিস্তান থেকে আসতে পারে বলে গোয়েন্দা তথ্যে সতর্ক করা হয়। জর্জ বিবি বলছেন, প্রেসিডেন্ট পুতিন ব্যক্তিগতভাবে বুশকে লক্ষ্য করে এই যে সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন। তিনি বলেন, এর অর্থ হচ্ছে এটি শুধু গোয়েন্দা সংস্থা পর্যায়ের সীমাবদ্ধ ছিল না। যুক্তরাষ্ট্রের অনেক সরকারি কর্মকর্তা বলে থাকেন- নাইন ইলেভেনের হামলায় আল-কায়েদার ১৯ জন সন্ত্রাসী অংশ নিয়েছিল। তবে অনেক বিশেষজ্ঞ মার্কিন এ তথ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তারা মনে করেন, মার্কিন সরকারের ভেতরে দুষ্টচক্রের অস্তিত্ব ছিল তারাও এতে জড়িত। এর মধ্যে সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ডিক চেনি রয়েছেন যিনি এই হামলাকে পুঁজি করে ইহুদিবাদীদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য আমেরিকাকে যুদ্ধের ভেতরে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন। রাশিয়ার পাশাপাশি ব্রিটিশ গোয়েন্দা সংস্থা যুক্তরাষ্ট্রকে এ ধরনের হামলার ব্যাপারে সতর্ক করেছিল। এমনকি মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাও সরকারকে সতর্ক করেছিল। তবে কেন মার্কিন সরকার এসব গোয়েন্দা তথ্যকে আমলে নেয়নি সে ব্যাপারে আজও রহস্য থেকে গেছে।
জার্মানিতে এবছরের প্রথম ৬ মাসে অভিবাসীদের ওপর ৬০৯টি হামলা ঘটেছে
০৬সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জার্মানি পুলিশ চলতি বছরের প্রথম ৬ মাসে অভিবাসীদের ওপর হামলার যে ৬০৯টি অপরাধ লিপিবদ্ধ করেছে তা ঘটিয়েছে চরম ডানপন্থীরা। অভিবাসীদের ওপর সবচেয়ে বেশি হামলার ঘটনা ঘটে জার্মানির পূর্বাঞ্চল ব্রানডেনবার্গে। সেখানে ১২৪টি হামলার ঘটনা ঘটে। মৌখিকভাবে তিরস্কর থেকে শুরু করে শারীরিকভাবে আঘাত এমনকি হামলায় আগুণের ব্যবহারও করা হয়েছে। শরণার্থী শিবিরগুলোতে ৬০টি আঘাতের ঘটনা ঘটে। আরো ৪২টি ঘটে জার্মানির বিভিন্ন স্থানে সাহায্যদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোতে। ডেইলি সাবা অভিবাসীদের ওপর এসব হামলায় আহত হয়েছেন ১০২ জন। বামদল ডাই লিঙ্ক পার্টি সংসদে জার্মান সরকারের কাছে এ বিষয়ে তথ্য চাইলে এধরনের উপাত্ত বেরিয়ে আসে। তবে জার্মানির উত্তরাঞ্চলের প্রদেশ হামবুর্গে ব্রানডেনবার্গের সমান জনসংখ্রা থাকলেও সেখানে তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে মাত্র ৬টি। অথচ হামবুর্গের চেয়ে ব্রানডেবার্গে অভিবাসী রয়েছে খুবই কম। জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে দেশটির সকল অধিবাসী ও রাজনীতিকদের এমন দায়িত্বশীল আচরণ রাখা উচিত যাতে অভিবাসীদের ওপর এধরনের হামলার ঘটনা না ঘটে। কারণ সংখ্যালঘুদের ওপর জার্মান সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। অভিবাসীদের ওপর গত বছর রাজনৈতিক মতাদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে হামলার ঘটনা দাঁড়ায় ৮৭৮টি। ২০১৫ সাল থেকে ১৪ লাখ অভিবাসী জার্মানিতে প্রবেশ করেছে। যাদের বেশিরভাগই সিরিয়া ও ইরাক থেকে এসেছে।
ভারতে আতশবাজি কারখানায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩
০৫সেপ্টেম্বর,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতে আতশবাজি কারখানায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩ জনে পৌঁছেছে। এর আগে ১৭ জনের নিহতের খবর নিশ্চিত করেছিল দেশটির গণমাধ্যম। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পাঞ্জাবের গুরুদাসপুরে আতশবাজি কারখানায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৩ জনে পৌঁছেছে। এছাড়া আহত হয়েছেন ২৭ জন। এর মধ্যে ৭ জনের অবস্থা গুরুতর। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, এখনও বিস্ফোরণস্থলে আগুন নেভানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। কারখানাটিতে বারুদ ঠাসা থাকায় বিস্ফোরণের তীব্রতা ছিল অনেক বেশি। এ কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়েও পড়ে। ক্ষতিগ্রস্ত হয় ওই কারখানার আশপাশের বাড়িঘরও। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং জানান, ডিসট্রিক্ট কালেক্টরেট ও পুলিশের সিনিয়র সুপারিন্টেন্ড (এসএসপি) উদ্ধারকাজে তদারকি করছেন। বিস্ফোরণে একসঙ্গে এতজন নিহতের ঘটনায় দুঃখপ্রকাশও করেন মুখ্যমন্ত্রী। ঘটনায় ম্যাজিস্ট্রেট পর্যায়ের তদন্তেরও নির্দেশ দিয়েছেন। গুরদাসপুরের সাংসদ সানি দেওলও এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, গুরুদাসপুরের বাটালা অঞ্চলে বাজি কারখানায় প্রাণহানির ঘটনায় আমি ব্যথিত। স্থানীয় প্রশাসন ছাড়াও এনডিআরএফের একটি টিম যৌথভাবে সেখানে উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
কাশ্মীর ইস্যুতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফোন
০৪সেপ্টেম্বর,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের ফোনালাপ করেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাখদুম শাহ মেহমুদ কুরেশি। গতকাল মঙ্গলবার পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রচারিত বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিরোধপূর্ণ জম্মু ও কাশ্মীরের অবস্থান পরিবর্তন করে ভারত অবৈধভাবে এবং একতরফা যে পদক্ষেপ নিয়েছে, তা বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন কুরেশি। গত ৩০ দিন ধরে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে মানবাধিকার ও মানবিক পরিস্থিতির অবনতিসহ চরম খাদ্য এবং জীবন রক্ষাকারী ওষুধ সংকট, যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতা ও পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণের কথা উল্লেখ করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এসময় জোর দিয়ে বলেন, অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মীরে ভারতের নেয়া পদক্ষেপ এই অঞ্চলের শান্তি ও নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলবে। এদিকে পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়েছে, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংলাপ ও আলোচনার মধ্য দিয়ে বিরোধ নিরসনের গুরুত্বের ওপর জোর দিয়েছেন। উভয় দেশের মন্ত্রী যোগাযোগ রক্ষার বিষয়ে সম্মত হয়েছে বলেও দাবি করা হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।
মার্কিন স্যাটেলাইট চ্যানেলের লাইসেন্স স্থগিত করেছে ইরাক
০৩সেপ্টেম্বর,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইরাকের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে কটাক্ষ করে প্রতিবেদন প্রচার করায় দেশটিতে আরবি ভাষায় প্রচারিত একটি মার্কিন টিভি চ্যানেলের লাইসেন্স তিন মাসের জন্য বাতিল করা হয়েছে। পার্সটুডের এক প্রতিবেদনে একথা জানানো হয়। ইরাকের মিডিয়া কমিশন গতকাল (সোমবার) আমেরিকা-ভিত্তিক আলহুরা টিভি চ্যানেলের বাগদাদ অফিস তিন মাসের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে। ওই কমিশন বলেছে, ইরাকের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলো সম্পর্কে আলহুরায় প্রচারিত প্রতিবেদনে পেশাদারিত্ব, ভারসাম্য ও নির্ভরযোগ্য দলিলের অভাব রয়েছে। কমিশন আরও বলেছে, প্রতিবেদনটিতে অজ্ঞাত সূত্রকে ব্যবহার করে ইরাকি জনগণের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা হয়েছে। ইরাকের মিডিয়া কমিশন আরও বলেছে, আলহুরা যতক্ষণ পর্যন্ত তাদের অবস্থান পরিবর্তন না করবে এবং আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা না চাইবে ততক্ষণ পর্যন্ত চ্যানেলটির সম্প্রচার বন্ধ রাখার নির্দেশ বলবৎ থাকবে। এছাড়া যে অপরাধ তারা করেছে তার পুনরাবৃত্তি হলে এর পরবর্তী শাস্তি হবে আরও কঠিন। আলহুরা জানিয়েছে, তারা শিগগিরই ইরাক সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের ব্যাপারে তাদের প্রতিক্রিয়া জানাবে। সম্প্রতি আলহুরা টিভি এক প্রতিবেদনে ইরাকের সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ঢালাওভাবে দুনীতির অভিযোগ উত্থাপন করে। এতে কোনও দলিল-প্রমাণ উপস্থাপন ছাড়াই ইরাকের ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ ও প্রতিষ্ঠানগুলোর ভাবমর্যাদা ক্ষুণ্ন করা হয়। ইরাকের পার্লামেন্ট স্পিকার মোহাম্মাদ আল-হালবুসি ওই প্রতিবেদনের নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, ইরাকের স্বাধীনতা, অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ধর্মীয় নেতা ও প্রতিষ্ঠানগুলোর গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। ইরাকের অন্য অনেক রাজনৈতিক নেতা মার্কিন টিভি চ্যানেলের ওই প্রতিবেদনের নিন্দা জানিয়েছে।
নিজের মৃত্যুর জন্য ছুটি চেয়ে স্কুলছাত্রের আবেদন!
০২সেপ্টেম্বর,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্কুল থেকে ছুটি নিতে শিশুরা নিত্য-নতুন কত বাহানাই না করে! পেটব্যথা, জ্বর, মাথাব্যথা, ডায়রিয়া থেকে শুরু করে আত্মীয়-স্বজনের মৃত্যুর অজুহাত অহরহই পাওয়া যায় দরখাস্তগুলোতে। তাই বলে, নিজের মৃত্যুর কারণে স্কুল থেকে ছুটি চাওয়াটা ব্যতিক্রমই বটে! সম্প্রতি এ অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়েছে ভারতের অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্র। রোববার (১ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, গত মাসে কানপুর স্কুলের প্রিন্সিপালের কাছে আধাবেলা ছুটি চেয়ে আবেদন জানায় এক ছাত্র। ছুটির কারণ হিসেবে সে নিজের মৃত্যুর কথা উল্লেখ করেছিল। কিন্তু, তা খেয়াল করেননি প্রিন্সিপাল। দরখাস্ত না পড়েই ছুটি অনুমোদনে সই করে দেন তিনি। গত ২০ আগস্ট এ ঘটনা ঘটলেও তা দীর্ঘদিন চাপা ছিল। কিন্তু, কয়েকদিন আগে ওই ছাত্র তার বন্ধুদের এ ঘটনা জানালে ধীরে ধীরে তা ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। এ বিষয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষ কোনো মন্তব্য না করলেও কয়েকজন শিক্ষক প্রিন্সিপালের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তারা জানান, দরখাস্ত না পড়েই সই করে দেওয়ার অভ্যাস আছে প্রিন্সিপালের। আর তারই সুযোগ নিয়েছে ওই ছাত্র।
বরিস জনসনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ব্রিটেনজুড়ে বিক্ষোভ
০১সেপ্টেম্বর,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পার্লামেন্ট স্থগিত করার বরিস জনসনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ব্রিটেনজুড়ে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষোভে অংশ নিয়ে ম্যানচেস্টার, লিডস, ইয়র্ক ও বেলফাস্টের রাস্তা নেমে আসেন হাজার হাজার মানুষ। বিক্ষোভের কারণে সেন্ট্রাল লন্ডনে অনেক জায়গা স্থবির হয়ে যায়। এসময় বিক্ষোভকারী, বরিস জনসন, ধিক্কার জানাই। তবে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সমর্থনে মিছিল করে ওয়েস্টমিনিস্টারে জড়ো হয় ছোট একটি গ্রুপ। বরিস জনসন বুধবার পার্লামেন্ট স্থগিত করার ঘোষণা দেয়ার পর এমপি ও বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়েছেন তিনি। যদি বরিস জনসন তার পরিকল্পনায় সফল হন, তাহলে ২৩ কর্মদিবস বন্ধ থাকবে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট। তবে ৩১ অক্টোবর ব্রেক্সিট ডেডলাইনের আগে বরিস জনসনের বিতর্কিত এই সিদ্ধান্তের কারণেই মূলত সমালোচকদের তোপের মুখে পড়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। এদিকে বরিস জনসনের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এডিনবার্গ, বেলফাস্ট, ক্যামব্রিজ, এক্সটার, নটিংহ্যাম, লিভারপুল, ম্যানচেস্টার ও বার্মিংহ্যামসহ যুক্তরাজ্যের ৩০টি টাউন ও শহরে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। লন্ডনে হোয়াইটহল এবং ওয়েস্ট এন্ডে ট্র্যাফিক আটকে দেয় বিক্ষোভকারীরা। ট্রাফালগার স্কয়ারে অবস্থান কর্মসূচিও করেন বিক্ষোভকারীরা। পরে তারা কার গণতন্ত্র? আমাদের গণতন্ত্র চিৎকার করতে করতে বাকিংহ্যাম প্যালেস অভিমুখে যাত্রা করে। মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, তারা তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। কিন্তু এর চেয়ে বেশি কিছু জানায়নি পুলিশ। তবে গ্রিন পার্টি জানিয়েছে, আটককৃতদের মধ্যে লন্ডন অ্যাসেম্বলির সদস্য ক্যারোলিন রাসেলও রয়েছেন। গ্রিন পার্টির কো-লিডার সিয়ান বেরি পরে এক টুইট বার্তায় বলেন, গণতন্ত্রের পক্ষে দাঁড়ানোয় তিনি ক্যারোলিনের জন্য গর্বিত। এদিকে লন্ডনে ডাউনিং স্ট্রিটের সামনে বিক্ষোভের অন্যতম আয়োজক লরা পার্কার বলেন, আমাদের গণতন্ত্রকে কুক্ষিগত করার সুযোগ একজন অনির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীকে দেবো না। প্রধানমন্ত্রী আমাদের পদ্ধতিকে ধ্বংসের চেষ্টা করছেন। কিন্তু আমরা জানি আপনি (বরিস জনসন) কোথায় থাকেন।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর