আরব আমিরাতে বঙ্গবন্ধু পরিষদের আলোচনা সভা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভার আয়োজন করে সংযুক্ত আরব আমিরাত রাস আল খাইমা বঙ্গবন্ধু পরিষদ। শুক্রবার UAE-এর স্থানীয় গ্রান্ড হোটেলে সভার আয়োজন করা হয়। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নিয়ে আলোচনা ছাড়াও সভায় বক্তারা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হওয়ায় শেখ হাসিনা সরকারের পরবর্তী উন্নয়ন পরিকল্পনায় শরিক হওয়ার বিষয়ে কথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে এবং মোহাম্মদ ইব্রাহিমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদা মহিউদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন রাস আল খাইমা বাংলাদেশ ইংলিশ স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি আলহাজ পেয়ার মোহাম্মদ.
৪ ধাপ উন্নতি বাংলাদেশের, বৈশ্বিক সন্ত্রাস সূচকে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইনস্টিটিউট ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড পিসের (আইইপি) তৈরি করা বৈশ্বিক সন্ত্রাস সূচকে (জিটিআই) ৫ দশমিক ৬৯৭ স্কোর লাভ করে চার ধাপ এগিয়ে ১৬৩ দেশের মধ্যে ২৫তম স্থান অর্জন করেছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে সদর দপ্তর থাকা আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইপির তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশ গত বছর ৬ দশমিক ১৮১ পয়েন্ট পেয়ে ২১তম স্থানে ছিল। প্রতি বছর প্রকাশিত সূচক অনুযায়ী, এবার দক্ষিণ এশিয়ার চার দেশ- বাংলাদেশ, ভুটান, নেপাল ও শ্রীলংকায় সন্ত্রাসী হামলা কমেছে এবং তারা নিরাপত্তায় উন্নতি দেখিয়েছে। জিটিআই প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৭ সালে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মধ্যে ফিলিপাইন ও মিয়ানমারে সন্ত্রাসের কারণে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে। মিয়ানমার ১০-এর মধ্যে ৫ দশমিক ৯১৬ পয়েন্ট পেয়ে গত বছরের তুলনায় ১৩ ধাপ পিছিয়ে তালিকায় ২৪তম অবস্থানে রয়েছে। ২০১৭ সালে এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সবচেয়ে মারাত্মক তিনটি সন্ত্রাসী সংগঠন ছিল আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা), নিউ পিপলস আর্মি ও আবু সায়াফ গ্রুপ। সবচেয়ে বেশি সন্ত্রাসে আক্রান্ত ১০ দেশের মধ্যে আছে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও ভারত। এ কারণে জিটিআই স্কোরে দক্ষিণ এশিয়ার অবনতি হয়েছে।
কংগ্রেস নেত্রী হলেন নারীতে রূপান্তর হওয়া অপ্সরা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতে এই প্রথম কোনো জাতীয় রাজনৈতিক দলে গুরুত্বপূর্ণ পদ পেলেন রূপান্তরী নারী। তিনি হলেন পুরুষ থেকে নারী হওয়া অপ্সরা রেড্ডি। অপ্সরাকে কংগ্রেসের মহিলা শাখায় সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দিলেন রাহুল গান্ধী। এমন কি তার সাথে একটি ছবি তুলে এই ঘোষণা নিজেই দিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তবে কংগ্রেসে যোগ দেয়ার আগে অপ্সরা তামিলনাডুর রাজনৈতিক দল এ আই এ ডি এম কে-র মুখপাত্র ছিলেন। জাতীয় মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী সুস্মিতা দেব বলেন, অপ্সরার সঙ্গে কয়েক মাস আগে কলকাতায় দেখা হয়। তার রাজনৈতিক চিন্তাভাবনা পছন্দ হওয়ায় তাকে কংগ্রেসে আসতে আহ্বান জানাই। পরে রাহুল গান্ধীর সাথেও তার ব্যাপারে কথা হয়। অপ্সরা রেড্ডি বিবিসি ওয়ার্ল্ড সার্ভিসসহ ভারতের বেশ কয়েকটি ইংরেজি পত্রিকায় সাংবাদিকতা এবং সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বলেন, অনেকেই বলেছে ভারতে এ ধরণের কাজ করা কঠিন। কিন্তু চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে এক দিকে যেমন সাংবাদিকতা চালিয়ে গেছি, তেমনই রূপান্তরকামীদের অধিকার নিয়ে সারা দেশে কাজ করেছি। তিনি আরও বলেন, রাহুল গান্ধী নতুন প্রজন্মের নেতা। তাই তিনি একটা সাহসী পদক্ষেপ নিয়েছেন। আশা করব অন্য দলগুলোও এবার এই পথ অনুসরণ করবে। রূপান্তরীত নারী ও অ্যাক্টিভিস্ট রঞ্জিতা সিনহা বলেন, কংগ্রেসের মতো দলে তার এই পদ পাওয়া নিঃসন্দেহে রূপান্তরকামীদের কাছে একটা বড় পাওয়া। নীতি প্রণয়নের মতো গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রগুলোতেও রূপান্তরকামীরা যে থাকতে পারে, নিজেদের গোষ্ঠীর জন্য লড়তে পারে, সেই ব্যবস্থাই করা উচিত সব দলের, সব সরকারের। সূত্র: বিবিসি
পাস হলো বিতর্কিত নাগরিকপঞ্জি বিল ভারতে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের লোকসভায় পাস হয়ে গেল জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বিল। কংগ্রেস, বামসহ বিরোধী দলগুলোর বিরোধিতা সত্ত্বেও গতকাল মঙ্গলবার লোকসভায় পাস হয়ে গেল নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল-২০১৬। এর ফলে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে আসা অমুসলিম অনুপ্রবেশকারীরা ভারতীয় নাগরিকত্ব পাবেন। আজ বুধবার রাজ্যসভায় পেশ করা হবে বিলটি। মূলত এই বিল পাসের মাধ্যমে ভারতে অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে চাইছে কেন্দ্র। যদিও এই বিলের তীব্র বিরোধিতা করে বিরোধী দলগুলো দাবি করেছে, এই বিল ভারতীয় সংবিধানের মৌলিক অধিকারের বিরুদ্ধে। কংগ্রেস সাংসদরা এই বিলের বিরোধিতায় লোকসভা কক্ষ থেকে ওয়াকআউট করেন। মঙ্গলবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বিলটি লোকসভায় পেশ করেন। এই নাগরিকপঞ্জি বিল অনুযায়ী, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে পর্যন্ত বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে যেসব অমুসলিম ভারতে এসেছেন, তাঁদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। শুধু হিন্দু নয়, এই বিলের মাধ্যমে খ্রিস্টান, জৈন, বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের মানুষও এই সুবিধা পাবেন। তবে এই বিলের বিরোধিতা করে ভারতের বিরোধী দলগুলো জানিয়েছে, এই বিল পাস হয়ে আইনে পরিণত হলে ১৯৭১ সালের মার্চ মাসের পর বাংলাদেশ থেকে বেআইনিভাবে যেসব হিন্দু ভারতে এসেছেন, তাঁরাও ভারতীয় নাগরিকত্ব পেয়ে যাবেন। যা ভারতের পক্ষে সুখের হবে না। তবে এই বিল প্রসঙ্গে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, গোটা দেশের কথা মাথায় রেখেই এই বিল আনা হয়েছে। এই বিলের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা মাথায় রাখা হয়েছে। তিনি বলেন, এই বিলে খ্রিস্টানদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তার কারণ, দেশভাগের সময় তাঁরাও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিলেন। অন্যদিকে, এই বিলে লোকসভার স্পিকারের হস্তক্ষেপ দাবি করে তৃণমূল সংসদ সদস্য সৌগত রায় বলেন, এই বিলে মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দয়া করে এই বিলটিকে ধর্মনিরপেক্ষ করুন।
তালেবান হামলায় আফগানিস্তানে নিহত ২৬
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আফগানিস্তানের দুটি অঞ্চলে আলাদা তালেবান হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর ২১ সদস্যসহ অন্তত ২৬ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ১৭ জন। কর্তৃপক্ষ জানায়, সোমবার (৭ জানুয়ারি) তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে সীমান্ত সংলগ্ন পশ্চিমাঞ্চলীয় বাদঘিস প্রদেশের দুটি নিরাপত্তা চৌকিতে তালেবান জঙ্গিরা অতর্কিত হামলা চালালে ১৪ পুলিশ এবং সরকারি বাহিনীর ৭ সদস্য নিহত হয়। এ সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে তালেবানের ১৫ সদস্য নিহত হয়, আহত হয় আরো ১০ জন। তালেবানের এক মুখপাত্র এক বিবৃতিতে দাবি করে, হামলায় সরকারি বাহিনীর ৩৪ সদস্য নিহত হয়েছে। এছাড়া বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। একই দিন দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় পাকটিকায় তালেবানের বোমা হামলায় অন্তত ৫ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৮ জন।
শর্ত মেনেই সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কিছু শর্ত মেনে তবেই সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। ইসরায়েল ও তুরস্ক সফরে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি। সিরিয়া প্রসঙ্গে জন বোল্টন আরো বলেন, সেখান থেকে সেনাদের ফিরিয়ে আনার বিষয়টি এখন কিছুটা ধীরগতিতে এগোচ্ছে। এ ছাড়া সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত কুর্দিরা যাতে নিরাপদে থাকতে পারে, সে বিষয়টি নিশ্চিত করার জন্য তুর্কি সরকারের দৃষ্টিতে আনেন। একই সঙ্গে তথাকথিত ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) নির্মূল করার বিষয়টিও উল্লেখ করেন যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা। সপ্তাহ দুয়েক আগে সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়ে সবার সমালোচনার মুখে পড়েন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
কাটছে না যুক্তরাষ্ট্রে অচলাবস্থা
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র সরকারের একাংশের অচলাবস্থা নিরসনে সফলতার মুখ দেখেনি রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধিদের বৈঠকটি। শনিবার এক টুইট বার্তায় খবরটি জানিয়েছে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, বৈঠক শেষে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মাইক পেন্স জানিয়েছেন ডেমোক্র্যাটদের সাথে হওয়া বৈঠকটি কার্যত কোন অগ্রগতি হয় নি। তাই স্থানীয় সময় রোববার আবারো বৈঠকে বসবেন রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধিরা। তবে দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের মধ্য দিয়ে সমস্যার সমাধানের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন ট্রাম্প। এরইমধ্যে, প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি জানিয়েছেন, সরকারের নির্দিষ্ট কিছু সংস্থা পুনরায় খুলে দেয়ার ব্যাপারে তার দল বিল উত্থাপনের পরিকল্পনা করছে।
শবরিমালা মন্দির ঘিরে উত্তাল কেরালা, গ্রেপ্তার ৭৫০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ভারতের কেরালায় শবরিমালা মন্দিরে দুই নারী প্রবেশের ঘটনায় রাজ্যজুড়ে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়েছে। এসব ঘটনায় এযাবৎ ৭৫০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য পুলিশ। গত বুধবার ভোররাতে বিন্দু ও কনকদুর্গা নামে দুই নারী ধর্মীয় নিষেধ সত্ত্বেও শবরিমালা মন্দিরে প্রবেশ করলে প্রতিবাদে ফেটে পড়ে কেরালার বিভিন্ন অঞ্চলের হিন্দুত্ববাদী মানুষ। রণক্ষেত্রে রূপ নেয় তিরুঅন্তপুরমসহ অনেক এলাকা। এদিকে, ওই ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল বৃহস্পতিবার একাধিক হিন্দু গোষ্ঠী হরতাল ও বিক্ষোভের ডাক দিলে রাস্তায় বোমা ও লাঠি নিয়ে নেমে পড়ে তাদের সমর্থকরা। তারই সূত্র ধরে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে। শবরিমালা কর্মসমিতি ও আন্তরাষ্ট্র হিন্দু পরিষদের নেতৃত্বে গতকাল রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বেশ কিছু গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। ভাঙচুর করা হয় অনেক দোকানপাট। সে সময় ছবি তুলতে গিয়ে বিক্ষোভকারী বিজেপি কর্মীদের হাতে হামলার শিকার হন নারী চিত্রসাংবাদিক সাজিলা আলি ফাতিমা। বিক্ষোভকারীরা কোঝিকোড়, কান্নুর, মালাপুরম, পালাকাড ও তিরুঅনন্তপুরম এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সে সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ে মারতে থাকে তারা, পরিস্থিতি সামলাতে শেষমেশ বাধ্য হয়ে জলকামান ও লাঠিচার্জ করে পুলিশ। ওই সব সহিংসতায় রাজ্যজুড়ে প্রায় ৩০ পুলিশকর্মী আহত হন। হামলার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয় ৭৫০ জনকে। বিক্ষোভকারীদের মোবাইল বাজেয়াপ্ত করে ডিজিটাল পরীক্ষার জন্য এরই মাঝে সংশ্লিষ্ট তদন্ত বিভাগে পাঠানো হয়েছে। চলমান এ বিক্ষোভ ঠেকাতে অপারেশন ব্রোকেন উইন্ডো নামে একটি বিশেষ অভিযানও পরিচালনা করছে পুলিশ। ছবিসহ সহিংসতায় মদদদাতাদের একটি তালিকাও তৈরি করা হয়েছে। এ ছাড়া হাতে নেওয়া হয়েছে সন্দেহভাজন হামলাকারীদের বাড়ি বাড়ি অভিযান চালিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের উদ্যোগ।
নির্বাচনকে ইতিবাচক অগ্রগতি হিসেবে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র
আন্তর্জাতিক ডেস্ক: একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে ইতিবাচক অগ্রগতি হিসেবে দেখছে যুক্তরাষ্ট্র। নির্বাচন সফল করার জন্য বাংলাদেশিদের প্রশংসা করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার (১ জানুয়ারি) স্টেট ডিপার্টমেন্টে এক বিবৃতি দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-মুখপাত্র রবার্ট পালদিনো। বিবৃতিতে তিনি জানান, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ ও গণতান্ত্রিক উন্নয়নে পর্যাপ্ত বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। পালদিনো বিবৃতিতে আরো বলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বিদেশি বিনিয়োগকারী যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া অনেক বাংলাদেশিও মার্কিন নাগরিকত্ব পেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন বলেও উল্লেখ্য করেন তিনি। একই সঙ্গে, নির্বাচনের আগে এবং পরবর্তী সহিংসতার অভিযোগ খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কমিশনকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর