চুয়েট ভিসির সাথে শিক্ষক সমিতির সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময়
১৬মার্চ,সোমবার,মো.ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলমের সাথে চুয়েট শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ সৌজন্য সাক্ষাৎ ও মতবিনিময় করেছেন। ১৬ মার্চ মঙ্গলবার বিকালে প্রশাসনিক ভবন-০২ এর কনফারেন্স কক্ষে উক্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় শিক্ষক সমিতির সভাপতি এবং যন্ত্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. সজল চন্দ্র বনিক, সহ-সভাপতি এবং পুরকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল আচার্য, সাধারণ সম্পাদক এবং যন্ত্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. সানাউল রাব্বী, যুগ্ম-সম্পাদক এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ রাশিদুল হাসান, কোষাধ্যক্ষ এবং নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এটিএম শাহজাহান, প্রচার ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক এবং মানবিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাহিদা সুলতানা, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এবং মানবিক বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম এবং নির্বাহী সদস্য এবং যন্ত্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মিজানুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। সভায় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম চুয়েটের চলমান অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে একটা পরিবার হিসেবে কাজ করে যাওয়ার জন্য সম্মানিত শিক্ষকদের কাছে আহবান জানান।
২৭ ফুট উঁচু বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য তৈরি করছে চসিক
১৬মার্চ,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নতুন প্রজন্মকে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে পরিচিত করা সবার দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। সোমবার (১৬ মার্চ) দুপুরে নগরের টাইগারপাসে চসিকের অস্থায়ী প্রধান কার্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যের মাটির অনুকৃতি উন্মোচন অনুষ্ঠানে মেয়র এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, পোর্ট কানেকটিং রোডে স্থাপনের জন্য বেইজসহ সাড়ে ২৭ ফুট উঁচু বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যটি তৈরি করছে চসিক। ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। ফেস বাই ফেস এটি ডেভলপ হবে। এক মাস সময় লাগবে। বিউটিফিকেশনসহ মোট ব্যয় হবে ৮৮ লাখ টাকা। মুজিব শতবর্ষ উদযাপন অনেক বড় সৌভাগ্যের বিষয়। বঙ্গবন্ধু জীবনে আপস করেননি। বাঙালি জাতি বঙ্গবন্ধুর কাছে ঋণী। এটি দেশের সবচেয়ে বড় ভাস্কর্য। ডায়েস তৈরি করে সাদা সিমেন্টে ঢালাই হবে। এক প্রশ্নের উত্তরে মেয়র বলেন, গত বছর ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছে চসিক। আমাদের সামনে উন্নয়নের চ্যালেঞ্জ আছে। ড্রেন নালা ভরাট হচ্ছে। পানি জমে মশার প্রজনন ক্ষেত্র হয়েছে। মশার উপদ্রব বেড়েছে স্বীকার করি। তাই পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার বিশেষ কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। উন্নয়ন প্রকল্প যারা বাস্তবায়ন করছে তাদের সঙ্গে সাংবাদিকদের নিয়ে বসবো। করোনাভাইরাসের বিষয়ে সচেতন হলে প্রতিরোধ সম্ভব। ১ লাখ লিফলেট বিতরণ করেছি আমরা। আমরা সতর্ক আছি। আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। বাঙালি বীরের জাতি। সবার সহযোগিতায় ঐক্যবদ্ধভাবে সব সংকট মোকাবেলা করতে পারবো। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামশুদ্দোহা, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, ভাস্কর্য শিল্পী চবি চারুকলা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম, শায়লা শারমিন, নাট্যজন আহমেদ ইকবাল হায়দার প্রমুখ।
রক্ত দিয়ে জীবন বাঁচানোয় পুরস্কৃত হলেন আকবরশাহ থানার এসআই বদিউল
১৬মার্চ,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ১০অক্টোবর চট্টগ্রাম মহানগরীর আকবরশাহ থানাধীন কৈবল্যধাম রেললাইন সংলগ্ন রশিদের কলোনি এলাকায় গায়ে হলুদ অনুষ্ঠানের সাংস্কৃতির কার্যক্রমকে কেন্দ্র করে নির্মমভাবে ছুরির আঘাতে জসিম উদ্দিন(১৮) নামে একজন খুন হন। এ সংক্রান্তে আকবরশাহ্ থানায় মামলা নং-৩২(১০)১৯ রুজু হয়। এসআই(নিঃ) বদিউল আলম মামলার তদন্তভার প্রাপ্ত হয়ে হত্যাকান্ডের ১৬ ঘণ্টার মধ্যে হত্যার রহস্য উদঘাটন সহ হত্যার সাথে সরাসরি জড়িত ৬ জন ব্যক্তির মধ্যে ৫ জন (১) সাকিব, (২) জীবন, (৩) নুরুদ্দিন, (৪) জাহিদ, (৫) শহীদদের গ্রেফতার করেন। ধৃত ০৫ জন ব্যক্তি বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। কিন্তু ৩নং এজাহারনামীয় এমদাদ তাৎক্ষণিকভাবে আত্মগোপন করলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই(নিঃ) বদিউল আলম দীর্ঘ চার মাস ধরে তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রাখেন। পরবর্তীতে ১৪ মার্চ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তিনি জানতে পারেন, পলাতক আসামী এমদাদ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে অবস্থান করিতেছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, অফিসার ইনচার্জ, আকবরশাহ থানা এর নেতৃত্বে এসআই(নিঃ)বদিউল আলম, এসআই(নিঃ)/এমদাদ হোসেন চৌধুরী, এসআই/মোঃ সায়েম, এএসআই/নিখিল চন্দ্র দাস চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়োজিত নায়েক মোহাম্মদ আমির হোসেনের সহায়তায় অভিযান পরিচালনা করে উক্ত মামলার পলাতক আসামী এমদাদ হোসেন(২৩) কে গ্রেফতার করেন। জিজ্ঞাসাবাদে সে খুনের সাথে সরাসরি জড়িত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে এবং গত চার মাস ধরে গ্রেফতার এড়ানোর জন্য বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে ছিল। গ্রেফতারের দিন সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গোপনে তার অসুস্থ বাবাকে ০১ ব্যাগ ও পজিটিভ রক্ত ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য এসেছিল। আসামীর পিতার অসুস্থতা ও রক্তের প্রয়োজন কথাটি শুনে এসআই(নিঃ) বদিউল আলমের রক্তের গ্রুপ ও পজিটিভ হওয়ায় সে নিজেই আসামীর দায়িত্ব নিজের কাঁধে নিয়ে আসামীর পিতাকে রক্ত দান করেন এবং এমদাদ হোসেন(২৩) কে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন। পেশাদারিত্বের পাশাপাশি তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই(নিঃ) বদিউল আলম এর মানবিক বোধ বাংলাদেশ পুলিশের ভাবমূর্তিকে উজ্জ্বল করেছে। এ দায়িত্বশীল ভূমিকার স্বীকৃতি স্বরূপ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার জনাব মোঃ মাহাবুবর রহমান টিম আকবরশাহ থানাকে পুরস্কৃত করেন।
ফেনীতে ১ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab
১৬মার্চ,সোমবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেনী জেলার সোনাগাজী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫৪ বোতল ফেন্সিডিল ও ১ কেজি ৩০০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ মাদক ব্যবসায়ীকে কে আটক করেছে Rab-7। গতকাল শনিবার ১৪ই মার্চ রাত ১২.২০ মিনিটের সময় ফেনী জেলার সোনাগাজী থানাধীন উকিল বাড়ী এলাকার এছাকের মুদি দোকানের সামনে অভিযান চালিয়ে ১ মাদক ব্যবসায়ীকে ফেন্সিডিল ও গাঁজাসহ আটক করা হয় বলে জানান, Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এ এস পি মাহমুদুল হাসান মামুন। আটককৃত আসামী হল,মোঃ মিলন (২১) ফেনী জেলার সদর থানাধীন রেলওয়ে কলোনি (জাহাঙ্গীর মিয়ার বাসা)র মৃত ইসমাইল হোসেন এর ছেলে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক এসএসপি কাজি মোঃ তারক আজিজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী সিএন জি যোগে ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে ফেনী থেকে সোনাগাজির দিকে যাচ্ছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র্যািব-৭ এর একটি টহল দল জেলার সোনাগাজী থানাধীন উকিল বাড়ী এলাকার এছাকের মুদি দোকানের সামনে অভিযান চালিয়ে ১ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে Rab। পরে সিএনজিতে তল্লাশি চালিয়ে ৫৪ বোতল ফেন্সিডিল ও ১ কেজি ৩০০ গ্রাম গাঁজাকরা হয়। তিনি আরও জানান। উদ্ধারকৃত মাদকের আনুমানিক মুল্য ৬৪ হাজার টাকা এবং গ্রেপ্তারকৃ্ত আসামীকে সোনাগাজী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিনের পি.এইচ.ডি ডিগ্রি অর্জন
১৬মার্চ,সোমবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের অধীনে পি.এইচ.ডি ডিগ্রি অর্জন করেন। গত ১০ মার্চ অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটের ৫২৩ তম সভায় তাঁকে এই পি.এইচ.ডি ডিগ্রি প্রদান করা হয়। তার গবেষনা শিরোনাম হচ্ছে- Capital Structure Dynamics and Firm Value : Evidence from Bangladesh। তাঁর গবেষনা তত্ত্ববধায়ক ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. মুহাম্মদ শামীম উদ্দিন খান। ইতিপূর্বে তিনি একই বিভাগ থেকে এম.ফিল ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় চট্টগ্রামের ব্যবসায় প্রশাসন (ফাইন্যান্স) বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত। ড.মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সেমিনারে অংশ গ্রহণ করেন এবং আন্তর্জাতিক জার্নালে তাঁহার অনেক গবেষণা কর্ম প্রকাশিত হয়। তিনি চট্টগ্রাম জেলার আনোয়ারা উপজেলার পীরখাইন গ্রামের মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ ও রিজিয়া বেগমের জৈষ্ট্যপুত্র। অর্জিত জ্ঞান মানবতার কল্যাণে প্রয়োগ করার জন্য তিনি সকলের কাছে দোয়া প্রার্থী।
পানির উৎপাদন ৪২ কোটি লিটারে উন্নীত করার তাগিদ
১৫মার্চ,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ চট্টগ্রাম ওয়াসায় পানির উৎপাদন ৩৬ কোটি লিটার থেকে বাড়িয়ে ৪২ কোটি লিটারে উন্নীত করে নগরবাসীকে শতভাগ সুপেয় পানি প্রাপ্তি নিশ্চিত করার ওপর তাগিদ দিয়েছেন। চট্টগ্রাম ওয়াসার কর্মকর্তাদের সঙ্গে শনিবার (১৪ মার্চ) মতবিনিময় সভায় তিনি এ তাগিদ দেন। সভায় নগরীতে সুপেয় পানি সরবরাহ এবং বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে আলোচনা করা হয়। গত এক দশকে চট্টগ্রাম ওয়াসার উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম ওয়াসার প্রধান প্রকৌশলী মাকসুদ আলম। এছাড়া ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ চট্টগ্রাম ওয়াসার বর্তমান ও ভবিষ্যত প্রকল্পসমুহের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন এবং এগুলো বাস্তবায়নে সচিবের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ চট্টগ্রাম ওয়াসার সার্বিক কর্মকাণ্ডে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি পানির উৎপাদন এছাড়া আগামীতে মহানগরীর বিভিন্ন শিল্প এলাকায় পানি সরবরাহ এবং গ্রাহকের সুবিধার জন্য বিলিং সিস্টেমকে অটোমেশন করা, নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা, পুরনো পাইপলাইন রিপ্লেসমেন্ট প্রকল্প হাতে নেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। আসন্ন রমজান মাসকে সামনে রেখে গৃহীত পদক্ষেপসমূহে সন্তোষ প্রকাশ করে সচিব নগরীতে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহে আন্তরিকতার সঙ্গে সবাইকে কাজ করতে বলেন। চট্টগ্রাম ওয়াসার উপ-ব্যবস্থপনা পরিচালক গোলাম হোসেন এর সঞ্চালনায় সভায় চট্টগ্রাম ওয়াসার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
চোরাইকৃত কালো স্ল্যাজ তৈলসহ ৩ চোরাকারবারীকে আটক করেছে Rab
১৫মার্চ,রবিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন শাহ আমানত সংযোগ সড়ক এলাকায় অভিযান চালিয়ে চোরাইকৃত ১৪,০০০ লিটারকালো স্ল্যাজ তৈল উদ্ধারসহ ৩ জন চোরাকারবারীকে আটক করেছে Rab। গত বৃহস্পতিবার ১৩ই মার্চ ৪:৪৫ মিনিটের সময় নগরীর চান্দগাঁও থানাধীন শাহ আমানত সংযোগ সড়কের বাম পাশে স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টারের সামনে অভিযান চালিয়ে চোরাইকৃত কালো স্ল্যাজ তৈলসহ ৩ চোরাকারবারীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান Rab-7 এর সহকারী পরিচালক ( মিডিয়া) এ এস পি মাহমুদুল হাসান মামুন। আটককৃত আসামীরা হলেন, মহিউদ্দিন আলী (৩৫) চট্টগ্রাম জেলার ডবলমুরিং, থানাধিন বারেক বিল্ডিং, রশিদ বিল্ডিং (২য় তলা) এলাকার মৃত আলতাফ মিয়ার ছেলে ও মোঃ সুলতান বেপারী (৩৯) বরিশাল জেলার মেহেন্দীগঞ্জ থানার বেপারী বাড়ি (সিন্নিরতুর) গ্রামের সোবাহান বেপারীর ছেলে এবং মোঃ সালাউদ্দিন (৫৮) ড্রাইভার চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার দিগদাইর (মাইজের বাড়ি) গ্রামের মৃত আলী আকবরের ছেলে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক এসএসপি কাজি মোঃ তারক আজিজ জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি যে, কতিপয় চোরাকারবারী ব্যক্তি চোরাচালানকৃত কালো স্লাজ তেল (তৈল জাতীয় পদার্থ) ট্যাংক লরি গাড়িতে পরিবহন করে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ঢাকার দিকে যাচ্ছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে Rab-7 এর একটি টহল দল চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানাধীন শাহ আমানত সংযোগ সড়কের বাম পাশে স্কয়ার কমিউনিটি সেন্টারের সামনে একটি বিশেষ চেকপোস্ট বসিয়ে গাড়ি তল্লাশি করতে থাকে। এসময় চেকপোস্টের দিকে আসা একটি ট্যাংক লরি Rab এর উপস্থিতি টের পেয়ে চেক পোস্টের অদূরে গাড়ি থামিয়ে, গাড়ি থেকে ব্যক্তি দৌড়ে পালানোর চেষ্টাকালে ৩ জনকে আটক করে Rab-7। পরে আসামীদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে তাদের দেখানো ও সনাক্ত মতে ট্যাংক লরি হতে ১৪,০০০ লিটার চোরাইকৃত স্ল্যাজ তেল উদ্ধার করা হয় এবং একটি ট্যাংক লরি (নারায়ণগঞ্জ-ঢ-৪১-০০৬৫) জব্দ করা হয়। তিনি আরও জানান। উদ্ধারকৃত স্ল্যাজ তেল এর আনুমানিক মূল্য ১১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা এবং জব্দকৃত ট্যাংক লরির আনুমানিক মূল্য ১ কোটি টাকা। গ্রেপ্তারকৃ্ত আসামীকে চান্দগাঁও থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
চট্টগ্রাম ইপিজেডের চুরি যাওয়া ৬৪ লক্ষ টাকাসহ ১ জনকে আটক করেছে Rab
১৫মার্চ,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম ইপিজেড এলাকার জিহোং মেডিকেল প্রোডাক্ট বিডি লিঃ এর শ্রমিকদের বেতনের চুরি যাওয়া ৬৩,৭৬,৫০০ (তেষট্টি লক্ষ ছিয়াত্তর হাজার পাঁচ শত) টাকা উদ্ধারসহ ১ আসামীকে গ্রেফতার করেছে Rab-7। গত বৃহস্পতিবার ১৩ মার্চ সকাল ৮:৪০ মিনিটের সময় ঢাকা মহানগরীর মিরপুর থানাধীন মেরুন রোড এলাকার হোটেল লন্ডন প্লেসে অভিযান চালিয়ে চোরাইকৃত টাকাসহ ১ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানান, Rab-7 এর সহকারী পরিচালক(মিডিয়া) এ এস পি মাহমুদুল হাসান মামুন। আটককৃত আসামী হল, আসামী মোঃ তুষার মাহমুদ ওরফে রাসেল (২৬) বরগুনা জেলার তালতলী থানার মোঃ ছিদ্দিক পালওয়ার এর ছেলে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক এসএসপি কাজি মোঃ তারক আজিজ জানান, গত ১২ই মার্চ জিহোং মেডিকেল প্রোডাক্ট বিডি লিঃ এর ব্যবস্থাপক মোঃ মোফাজ্জল হোসেন (৩৭) Rab-7, চট্টগ্রাম এ অভিযোগ করেন যে, তাদের প্রতিষ্ঠানে স্টোর হেল্পার হিসেবে কর্মরত মোঃ তুষার মাহমুদ ওরফে রাসেল (২৬) উক্ত প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজমেন্ট অফিস কক্ষে রক্ষিত ৬৫,৩০,০০০ টাকা ভোল্ট ভেঙে নিয়ে পালিয়ে যায় যা শ্রমিকদের বেতন ও অন্যান্য খরচ মিটানোর উদ্দেশ্যে রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে এ ঘটনার প্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম মহানগরীর ইপিজেড থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়(যাহার মামলা নং ২৬/১১৪, তারিখ- ১২ মার্চ ২০২০ইং)। Rab-7 এ দাখিলকৃত অভিযোগের প্রেক্ষিতে Rab-7 চট্টগ্রাম এর একটি গোয়েন্দা দল চোরাইকৃত টাকা উদ্ধারের লক্ষ্যে ব্যাপক গোয়েন্দা নজরদারি এবং ছায়া তদন্ত শুরু করে। পরবর্তীতে Rab সদর দপ্তরের সার্বিক সহায়তায় এবং Rab-7, পতেঙ্গা এর একটি চৌকষ দল তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে জানতে পারে যে, টাকা চোর চক্রের সদস্য ঢাকা মহানগরীর মিরপুরের কোন এক জায়গায় অবস্থান করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে গত ১৩ মার্চ Rab-7 এর একটি দল ঢাকা মহানগরীর মিরপুর থানাধীন মেরুন রোড এলাকার হোটেল লন্ডন প্লেসে অভিযান চালিয়ে ১ জনকে আটক করে। পরে তার দেখানো ও সনাক্ত মতে উক্ত কক্ষের মধ্যে একটি কালো ব্যাগের ভিতর লুকানো অবস্থায় ৬৩,৭৬,৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয়। উল্লেখ্য যে, মোঃ তুষার মাহমুদ ওরফে রাসেল উক্ত প্রতিষ্ঠানের একজন অন্যতম পুরাতন কর্মচারী। জিজ্ঞাসাবাদে সে জিহোং মেডিকেল প্রোডাক্ট বিডি লিঃ এর ম্যানেজমেন্ট অফিস কক্ষে রক্ষিত টাকা চুরির কথা স্বীকার করে।
পোলিং এজেন্টদের সুরক্ষা দেওয়ার নির্দেশ সিইসির
১৪মার্চ,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে পোলিং এজেন্টদের সুরক্ষা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। শনিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে আয়োজিত রিটার্নিং অফিসার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, নির্বাচনে বড় অভিযোগ- ভোটকেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া। তবে কোনো পোলিং এজেন্ট নিজ দায়িত্বে যখন ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করবেন তখন তাদের নিরাপত্তা এবং সুরক্ষা দেওয়ার দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর। কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করেন না এজেন্টরা। এছাড়া গত দুই বছরে ভোটকেন্দ্র থেকে পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়ার কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন সিএমপি কমিশনার মাহাবুবর রহমান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন, চসিক নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান, সহকারী রিটার্নিং অফিসার মনির হোসেন খান প্রমুখ।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর