প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন
২৬,মার্চ,শুক্রবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপিত হয়েছে। শুক্রবার (২৬ মার্চ) নগরের জিইসি মোড়ে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. অনুপম সেন। অধ্যাপক ড. অনুপম সেন বলেন, শত শত বছর ধরে বাংলাকে অনেক শাসক শাসন করেছেন। ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটলে বাঙালিরা মনে করেছিল, তারা স্বাধীন হয়েছে। কিন্তু আসলে তারা নতুন করে পশ্চিম পাকিস্তানিদের কাছে পরাধীন হয়। তিনি বলেন, এরপর শুরু হয় ভাষা আন্দোলন। এই আন্দোলনের সূত্র ধরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শুরু করেছিলেন বাঙালির অধিকার আদায়ের কঠোর সংগ্রাম। ১৯৬৬ সালে ছয় দফা ঘোষণা করে পরবর্তীতে তিনি এনে দিয়েছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা। ছয় দফা ছিল বাঙালির অর্থনৈতিক মুক্তির সনদ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার অধ্যাপক একেএম তফজল হক, কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম, প্রকৌশল ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. তৌফিক সাঈদ, ব্যবসা শিক্ষা অনুষদের সহকারী ডিন এম. মঈনুল হক প্রমুখ।
ওয়াসিকা আয়শা খান এমপির শোক প্রকাশ
২৬,মার্চ,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক উপকমিটির সম্মানিত সদস্য ইউসুফ খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। ওয়াসিকা আয়শা খান মরহুম ইউসুফ খানের রুহের মাগফেরাত কামনা এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজন ও শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। উল্লেখ্য, কেরানীগঞ্জের শাক্তা ইউনিয়নের কৃতি সন্তান ইউসুফ খান আজ শুক্রবার ভোরে আকস্মিক হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)।
চট্টগ্রামে শ্রদ্ধার ফুলে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের স্মরণ
২৬,মার্চ,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধার ফুল নিবেদন করে তাদের স্মরণ করেছেন চট্টগ্রামের বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন। শুক্রবার (২৬ মার্চ) ভোর থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, পাহাড়তলী ও হালিশহর নাথপাড়া বধ্যভূমি সহ বিভিন্ন এলাকার শহীদ মিনারের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানানো হয়। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর এই দিনটিতে দেশপ্রেমিক মানুষের মনে একদিকে যেমন আনন্দ, অন্যদিকে করোনার সংক্রমণের ভয়ও তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে। তাই কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অন্যান্য বছরগুলোর মতো তেমন ভিড় নেই। দূরত্ব রেখে সবাইকে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে দেখা গেছে।
উত্তর কাট্টলীর বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দিল সাবেক মেয়র এম মনজুর আলম
২৫,মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মোস্তফা হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত উত্তর কাট্টলী আলহাজ্ব মোস্তফা-হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবস্থাপনায় ও সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এম মনজুর আলমের উদ্যোগে গতকাল ২৫ মার্চ, সকাল ১০টায় কলেজ চত্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে উত্তর কাট্টলীর ২২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এম মনজুর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমেদ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ডেপুটি কমান্ডার শহিদুল হক। সভায় প্রধান অতিথি বলেন, মনজুর আলম ২০০৭ সালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র থাকাকালীন চট্টগ্রামের লালদিঘীর ময়দানে সর্ব প্রথম চট্টগ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এরি ধারাবাহিকতায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে উত্তর কাট্টলীর ২২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা দেয়া হলো। এটি অত্যন্ত একটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। আমরা তাঁর উদ্যোগকে সম্মান জানাই। সভায় মনজুর আলম বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান। ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ এই মহানায়কের জন্ম হয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর জন্ম হয়েছিল বলে আজ আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেয়েছি। পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশ নামে একটি দেশের নাম স্থান পেয়েছে। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে আমরা আজ তাঁকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। তিনি ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে বলিষ্ঠ কন্ঠে বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতার জন্য উজ্জীবিত করেছিলেন, তাঁর অবদানেই আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। বর্তমান প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস, বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর অবদান সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান অর্জন করার জন্য আমি সকলের প্রতি উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি। যেসব বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে- বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. সেলিম উল্লাহ, মো. নুর উদ্দিন, এডভোকেট আনোয়ারুল কবির চৌধুরী, সাহাবুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, মোহাম্মদ হোসেন, ইমাম হোসেন, নেজামত উল্লাহ, নুরুল আজিম, বশির আহমেদ, মো. লোকমান, আকতার উদ্দিন, মো. সাহাবুদ্দিন, জাকির হোসেন, আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, কবির আহমেদ, হারুনুর রশিদ, নুরুল আবছার চৌধুরী মরণোত্তর, আজম চৌধুরী, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, মো. ইলিয়াছ, মো. আবুল কালাম আজাদ ও মো. মাহবুবুল আলম। অধ্যাপক কাজী মাহাবুবুর রহমান ও অধ্যাপক লায়লা নাজনীন রবের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উত্তর কাট্টলী আলহাজ্ব মোস্তফা-হাকিম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলমগীর, উপাধ্যক্ষ মাহফুজুল হক চৌধুরী, সাবেক উপাধ্যক্ষ বাদশা আলম, আকবরশাহ থানা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি লোকমান আলী, সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ আজম খান, অধ্যাপক আবু ছগির প্রমুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
পরিকল্পিত উন্নয়নের ওপর গুরুত্ব দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু: জেলা প্রশাসক
২৫,মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পরিকল্পিত উন্নয়নের ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুর ১ টায় চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম মাঠে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ উপলক্ষে চট্টগ্রামে জেলা প্রশাসন আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। জেলা প্রশাসক বলেন, বাংলাদেশে পরিকল্পিত অর্থনীতির ভিত নিহিত আছে সংবিধানের ১৫ নম্বর অনুচ্ছেদে। সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার আওতায় ৭৪ লাখ মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে। ব্যাপক শিল্পায়নের ফলে জিডিপিতেও শিল্প খাতের অবদান ১১.৫ শতাংশ হতে ২৯.১৯ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভলপমেন্ট পলিসি (সিডিপি) কর্তৃক ত্রিবার্ষিক মূল্যায়নের পর স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের সুপারিশ লাভ করেছে। তিনটি সূচকের ভিত্তিতে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উত্তরণের বিষয়টি পর্যালোচনা করা হয়। বিষয়গুলো হলো- মাথাপিছু আয়, মানবসম্পদ, জলবায়ু ও অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচক। ২০১৮ সালে জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভলপমেন্ট পলিসির (সিডিপি) মূল্যায়নে তিনটি সূচকেই বাংলাদেশ নির্দিষ্ট মান অর্জন করেছিল। এবার ২০২১ সালের মূল্যায়নেও বাংলাদেশ তিনটি সূচকেই প্রত্যাশিত মান অর্জন করে উত্তরণের সুপারিশ লাভ করেছে। জেলা প্রশাসক বলেন, বাংলাদেশের ধারাবাহিক উন্নয়ন জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে প্রতিফলিত হয়েছে। বিগত একযুগ ধরে আমরা গড়ে ৭ শতাংশের ওপরে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছি। বাংলাদেশের জিডিপির আকার বর্তমানে ৩২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মাঝে সবচেয়ে ভালো প্রবৃদ্ধি (৫ দশমিক ২৪ শতাংশ) অর্জন করেছে। গত অর্থবছরে দেশ ১৯.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিটেন্স অর্জন করেছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ প্রায় ৪৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। অর্থনৈতিক অগ্রগতির পাশাপাশি সামাজিক সকল খাতে বাংলাদেশের অর্জন ঈর্ষণীয়। এমডিজির সফল বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় এসডিজি তথা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাতেও আমরা ভালো ফল লাভ করছি। তিনি বলেন, শিশু ও মাতৃমৃত্যুর হার হ্রাস, গড় আয়ুষ্কাল বৃদ্ধি, জন্মহার, উন্নত পয়োঃনিষ্কাশন সুবিধাসহ বিভিন্ন সামাজিক সূচকে সার্ক দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান দ্বিতীয়। সার্ক দেশগুলোর মধ্যে কেবলমাত্র শ্রীলংকা সামাজিক সূচকে আমাদের চেয়ে এগিয়ে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব দেশকে এই মর্যাদার আসনে আসীন করেছে। পদ্মা সেতু, মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর প্রকল্প, এমআরটি-৬ প্রকল্প, এলএনজি টার্মিনাল, পায়রা সমুদ্রবন্দর, রূপপুর নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট, রামপাল কয়লা-বিদ্যুৎ প্রকল্প, মাতারবাড়ি কয়লা-বিদ্যুৎ ইত্যাদি মহাপ্রকল্প বাস্তবায়নাধীন। এসব প্রকল্পের সফল বাস্তবায়ন এগিয়ে চলছে মহাকর্মযজ্ঞের মধ্য দিয়ে। বিগত এক দশকে দারিদ্র্য বিমোচন ও মানবসম্পদ উন্নয়নে বাংলাদেশ অভাবনীয় উন্নতি লাভ করেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, জাতিসংঘের হিসেবে মাথাপিছু আয় ১২২২ মার্কিন ডলার, মানবসম্পদ সূচকে ৬৬ পয়েন্টের ওপরে এবং অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচকে ৩২ পয়েন্টের নিচে অর্জিত হলে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উত্তরণের জন্য সুপারিশ করা হয়। বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় বর্তমানে ২০৬৪ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশ মানবসম্পদ সূচকে ৭৫.৪ পয়েন্ট এবং অর্থনৈতিক ভঙ্গুরতা সূচকে ২৫.২ পয়েন্ট অর্জন করেছে। বাংলাদেশের গৌরবময় এই অর্জনকে স্মরণীয় করে রাখতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নগরের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়াম মাঠে শনি ও রোববার (২৭ ও ২৮ মার্চ) দুইদিনব্যাপী মেলা ও অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিব শতবর্ষের মাহেন্দ্রক্ষণে অর্জিত এ অর্জন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের নতুন প্রজন্মকে উৎসর্গ করেছেন। গৌরবান্বিত অর্জনটি উদযাপনে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীঃ স্বপ্লোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ শিরোনামে সকল সরকারি বেসরকারি দফতরের অংশগ্রহণে এ মেলা অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশের এক অনন্য অর্জন, স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে শতাধিক সরকারি দফতর একই প্রাঙ্গণে সরকারের অর্জন প্রদর্শন করবে। এছাড়া চলমান কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় সামাজিক দূরত্ব এবং স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে রোড শো, তথ্যচিত্র ও ভিডিও প্রদর্শনী, কুইজ, সেমিনার, উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।
আত্মত্যাগের পথ ধরেই সোনার বাংলা গড়তে হবে: রেজাউল
২৫,মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: একাত্তরের অগ্নিঝরা পঁচিশে মার্চ বাঙালি জাতি তথা বিশ্ববাসী দেখেছিল ইতিহাসের বিভীষিকাময় ভয়াল ও নৃসংশতম বর্বরতা। মধ্যরাতে গণহত্যার নীলনকশা অপারেশন সার্চলাইট নামে পাকিস্তানি দানবরা মেতে উঠেছিল নির্বিচারে স্বাধীনতাকামী বাঙালি নিধনযজ্ঞে। বাঙালি বুকের তাজা রক্ত দিয়ে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ে এবং দীর্ঘ ৯ মাস সশস্ত্র লড়াই শেষে একাত্তরের ডিসেম্বরে পূর্ণ বিজয় অর্জন করে। বাঙালির সেই আত্মদান ও আত্মত্যাগের পথ ধরে আগামীর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে। গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) টাইগারপাসের চসিক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরী এসব কথা বলেন। চসিকের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোহাম্মদ নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন প্যানেল মেয়র মো. গিয়াস উদ্দীন, আফরোজা জহুর, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, মো. ওয়াসিম উদ্দীন চৌধুরী, মো. ইলিয়াছ, শেখ জাফরুল হায়দার চৌধুরী, রুমকি সেনগুপ্ত, আনজুমান আরা, জাহেদা বেগম পপি, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল সোহেল আহমেদ, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম, আঞ্চলিক প্রধান নির্বাহী আফিয়া আখতার, স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট জাহানারা ফেরদৌস, রাজস্ব কর্মকর্তা শাহিদা ফাতেমা চৌধুরী, শিক্ষা কর্মকর্তা সালমা ফেরদৌস, উপ-সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপু, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সুদীপ বসাক, নির্বাহী প্রকৌশলী ফরহাদুল আলম, বিপ্লব দাশ, মির্জা ফজলুল কাদের, আশিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মোর্শেদুল আলম চৌধুরী, নগর পরিকল্পনাবিদ আব্দুল্লাহ আল ওমর প্রমুখ। এর আগে চসিকের পক্ষ থেকে সকালে জাকির হোসেন সড়কে বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন মেয়র ও কাউন্সিলররা। এ ছাড়া চসিক সম্মেলন কক্ষে আয়োজন করা হয় মিলাদ মাহফিল।
করোনা: চট্টগ্রামে একদিনেই আক্রান্ত ২০৮ জন
২৫,মার্চ,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২০৮জন। এসময়ে নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৮৭২টি। করোনায় এদিন একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৬টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়। এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট করোনা আক্রান্ত ৩৮ হাজার ৫০০ জন। সর্বমোট মৃত্যু ৩৮৪ জন। সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ২০৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১৭৪ জন এবং উপজেলায় ৩৪ জন। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও মাস্ক ব্যবহারের তাগিদ দিয়েছেন।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যাণ ও অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত
২৪,মার্চ,বুধবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আজ ২৪ মার্চ দামপাড়া পুলিশ লাইন্সস্থ মাল্টিপারপাস সেডে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ফেব্রুয়ারী ২০২১ এর মাসিক কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর, পিপিএম। ২০২১ ফেব্রুয়ারী মাসে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন, ওয়ারেন্ট তামিল, অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, মামলার রহস্য উদঘাটন, আসামী গ্রেফতার ও ভাল কাজের জন্য বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন স্তরের ৪০ (চল্লিশ) জন পুলিশ সদস্যকে নগদ ১ লক্ষ ৬৮ হাজার টাকা পুরস্কার ও সম্মাননা সনদ প্রদান করা হয়। এছাড়াও পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদের আবেদনের প্রেক্ষিতে চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে সিএমপি'র সেবা তহবিল হতে নগদ ৬,০০,০০০ টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। ফেব্রুয়ারী- মাসে শ্রেষ্ঠ বিভাগ ও শ্রেষ্ঠ মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী বিভাগ হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মেহেদী হাসান, বিপিএম(বার), পিপিএম (বার), শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন সহকারী পুলিশ কমিশনার (পাঁচলাইশ জোন) মোঃ শহীদুল ইসলাম, শ্রেষ্ঠ থানা হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন অফিসার ইনচার্জ, বাকলিয়া থানা, মোঃ রুহুল আমিন, শ্রেষ্ঠ উপ-পরিদর্শক হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন এসআই/মোবারক হোসাইন, কর্ণফুলী থানা, শ্রেষ্ঠ সহকারী উপ-পরিদর্শক হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন এএসআই/জয়নুল আবেদীন, কোতোয়ালী থানা ও শ্রেষ্ঠ সহকারী উপ-পরিদর্শক (ওয়ারেন্ট তামিলকারী) হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন এএসআই/রনেশ বড়ুয়া, কোতোয়ালী থানা। এছাড়াও আজ দামপাড়াস্থ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইন্স সদর দপ্তরের কনফারেন্স হলে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, পিপিএম এর সভাপতিত্বে সিএমপির ফেব্রুয়ারী-২০২১ মাসের মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(ক্রাইম এন্ড অপারেশন) মোঃ শামসুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) শ্যামল কুমার নাথ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার(প্রশাসন ও অর্থ) সানা শামীনুর রহমান, উপ-পুলিশ কমিশনার(সদর) মোঃ আমির জাফর সহ অন্যান্য উপ-পুলিশ কমিশনার, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার সহ সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ ও বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
সেদিন জনগণ স্বাধীন, অসাম্প্রদায়িক দেশ গঠনে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সংকল্পবদ্ধ হয়েছিল: মোছলেম
২৪,মার্চ,বুধবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশ স্মরণকালের এক ভয়াবহ ধ্বংসস্তুপের মধ্য থেকে জেগে উঠেছিল, পকিস্তান সৃষ্ঠির ১ বছর না পেরোতেই গণতন্ত্র চর্চার অভাব, ক্ষমতাসীনদের কর্তৃত্ববাদী রাজনীতি, ষড়যন্ত্র করে বারবার ক্ষমতার হাত বদল, অর্থনৈতিক বৈষম্য, বাঙালিদের প্রতি নিপীড়ন, নির্বাচনের রায়ের প্রতি অশ্রদ্ধা প্রভৃতি কারনে এমন একটা পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছিল যাতে করে পাকিস্তানের পক্ষে ভোট দিয়ে ৪৬ সালে যারা এক হয়েছিল তারাই মোহভঙ্গ হয়ে শেখ মুজিবের প্রতি বিশ্বাস নিয়ে তার পাশে এসে দাঁড়াল। শুধু ধর্মের নামেই একটি রাষ্ট্র তৈরী করা যায়না, এই ধারনা পাল্টে সেদিন জনগণ স্বাধীন, অসাম্প্রদায়িক দেশ গঠনে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সংকল্পবদ্ধ হয়েছিল। তিনি ২৬ মার্চ সকাল সাড়ে ৯টায় সংগঠন কার্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন, সেদিনের বৈরী পরিবেশেও বঙ্গবন্ধু সকল শ্রেণী পেশা ধর্মের মানুষকে একত্রিত করতে পেরেছিলেন। অপ্রাপ্তি দূর করে জাতির পূর্ণতা আনতেই প্রথমে স্বাধীনতা ও পরে অর্থনৈতিক মুক্তির কর্মসূচী নিয়ে বঙ্গবন্ধু এগিয়ে গিয়েছিলেন। সা¤্রাজ্যবাদী, সাম্প্রদায়িকগোষ্ঠী তা হতে দেয়নি, আজো সা¤্রাজ্যবাদ আমাদের অগ্রগতির অন্তরায় হয়ে আছে। সভায় বক্তব্য রাখেন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সাবেক এম পি চেমন আরা তৈয়ব, সাংগঠনিক সম্পাদক এড: জহির উদ্দিন, আইন বিষয়ক সম্পাদক এড: মির্জা কছির উদ্দিন, দপ্তর সম্পাদক আলহাজ্ব আবু জাফর, কৃষি সম্পাদক এড: আবদুর রশিদ, বন সম্পাদক এড: মুজিবুল হক, ধর্ম সম্পাদক আবদুল হান্নান চৌধুরী মঞ্জ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য চেয়ারম্যান নাছির আহমদ, মোস্তাক আহমদ আঙ্গুর, আওয়ামী লীগ নেতা কায়সারুজ্জামান খান ফারুক, মুক্তিযোদ্ধা মো: ইদ্রিস, মহিলা নেত্রী কল্পনা লালা, নাসির উদ্দিন, যুবলীগ নেতা শফিউল আজম শেফু, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা তাতী লীগ আহবায়ক দিদারুল আলম, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুব মহিলা লীগ যুগ্ম আহবায়ক ও চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান এড: কামেলা খানম রূপা, এড: ফখরুল আবেদীন কায়সার, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সহ সম্পাদক রাশেদুল আরেফিন জিসান, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ প্রচার সম্পাদক আবু বকর জীবন, নাসরিন, স¤্রাট প্রমুখ। সভার পূর্বে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর