চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত আরও ৬৮ জন
২৯নভেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জনের। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৪ হাজার ৮৬০ জন। শনিবার (২৮ নভেম্বর) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের ৪টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৭২৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৫ জন, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১৩০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৪ জন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাব, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাব, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাব এবং বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি। তাছাড়া জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৩১টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৮টি পজিটিভ আসে। অন্যদিকে, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৯৪টি নমুনা পরীক্ষা করে একজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ৬৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৬৩ জন এবং উপজেলায় ৫ জন।
শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং সেন্টার উদ্বোধন করলেন প্রতিমন্ত্রী পলক
২৮নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও এলাকায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। শনিবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে চান্দগাঁও সিএন্ডবি এলাকায় এই আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন তিনি। এই সময় শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, চসিক প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজনসহ সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এসময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার চট্টগ্রামবাসীর জন্য প্রধানমন্ত্রীর এক অনন্য উপহার। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক মাননীয় উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদের ব্রেইন চাইল্ড এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে একদিকে যেমন বেকারত্ব দূর হবে, অন্যদিকে তথ্যপ্রযুক্তিতে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনে উল্লম্ফন সৃষ্টি হবে। শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণকাজের উদ্বোধন শেষে জুনাইদ আহমেদ পলক প্রকল্প এলাকায় আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেন।উল্লেখ্য, গত আগস্ট মাসে এ সেন্টার নির্মাণে সিটি করপোরেশন থেকে ১ দশমিক ৭১ একর জায়গা বুঝে নেয় হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। চুক্তির খসড়া থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, হাইটেক পার্ক নির্মাণে সম্পূর্ণ অর্থ ব্যয় করবে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। তিন বছরের মধ্যে শেষ হবে নির্মাণ কাজ। লভ্যাংশ চসিক ও হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ৫০ শতাংশ করে পাবে। ২০১৭ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন (দ্বিতীয় সংশোধিত) প্রকল্পের অনুমোদন দেয় একনেক। ৪৬ কোটি ৭৬ লাখ টাকায় চট্টগ্রামে শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণে হোসেন কনস্ট্রাকশন প্রাইভেট লিমিটেড কে নির্মাণে চূড়ান্ত করা হয়। প্রকল্পের মেয়াদ আছে ২০২১ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে আইটি বিষয়ে বছরে চট্টগ্রামের প্রায় ২ হাজার শিক্ষার্থী বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ পাবেন।
দু দিনের সফরে চট্টগ্রাম আসছেন মন্ত্রী তাজুল ইসলাম
২৭নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দুইদিনের সফরে চট্টগ্রামে আসছেন স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো.তাজুল ইসলাম। আজ শুক্রবার সন্ধা সাড়ে ৬ টায় তিনি বিমানযোগে চট্টগ্রামে পৌঁছাবেন। স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো.হায়দার আলী এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আগামীকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০ টায় নগরীর আগ্রাবাদে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে চট্টগ্রামের উন্নয়ন, শিল্পায়ন কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি যোগদান করবেন। দুপুর আড়াইটার দিকে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা কর্তৃক বাস্তবায়িত এ্যাডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদার পৌর অডিটরিয়ামের শুভ উদ্বোধনী অনুষ্টানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করবেন। সন্ধ্যা পৌনে ৭ টায় চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম ত্যাগ করবেন স্থানীয় সরকার,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো.তাজুল ইসলাম।
মামুনুল হককে ঠেকাতে অক্সিজেন মোড়েও ছাত্রলীগের অবস্থান
২৭নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য দেওয়া হেফাজতে ইসলামের নেতা মাওলানা মামুনুল হককে ঠেকানোর ঘোষণা দিয়ে নগরের অক্সিজেন মোড়েও অবস্থান নিয়েছে ছাত্রলীগ। শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) দুপুর ২টা থেকে অক্সিজেন মোড় চত্বরে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আরশেদুল আলম বাচ্চুর নেতৃত্বে শতাধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী সড়কে অবস্থান নেন। পরে নগর ছাত্রলীগ সভাপতি ইমরান আহম্মেদ ইমুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীরের সঞ্চলনায় বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে আরশেদুল আলম বাচ্চু বলেন, সকাল থেকে জিইসি মোড়, দুই নম্বর গেইট ও দুপর থেকে অক্সিজেন মোড় চত্বরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। এই ধর্ম ব্যবসায়ী মামুনুল হক চিহিৃত জামায়াত-শিবিরের কর্মী। তিনি উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে জাতির দুশমন হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন। আমরা জানতে পেরেছি জঙ্গি কায়দায় ফেনী হয়ে গোপনে হাটহাজারীতে এসেছেন কুলাঙ্গার মামুনুল হক। প্রশাসনের কাছে দাবি জানাই, এই জামায়াত কর্মীকে গ্রেফতার করুন। হাটহাজারী উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রুহুল আমীন বলেন, সকাল ১১টায় মাহফিল আয়োজক কমিটির সঙ্গে বৈঠক করেছি। তারা জানিয়েছেন, মামুনুল হক এখনও হাটহাজারীতে এসে পৌঁছেনি। আমরা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মাঠে কাজ করছি। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। অবস্থান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বখতিয়ার সাঈদ ইরান, কাউন্সিলর প্রার্থী হাজী ইব্রাহিম, সাবেক ছাত্রনেতা সেলিম উদ্দিন জয়, মেজবাহ উদ্দিন মোরশেদ, মোসলেম উদ্দিন সিবলি, আবু সাঈদ সুমন, রাজিব হাসান রাজন, আশিকুন নবী চৌধুরী, মোহাম্মদ সেলিম, শওকত আলম, নগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি তারেব আলী, ইয়াছিন আরাফাত কচি, একরামুল হক রাসেল, উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানভীর হোসেন তপু, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম, চান্দগাঁও থানা ছাত্রলীগের সভাপতি নুরুন নবী সাহেদ, ডবলমুরিং থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিব হায়দার, বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুজ্জামান বাবু, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম, পতেঙ্গা থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেরাজ তোসিফ, আকবরশাহ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি জুয়েল সিদ্দিকী, এমএইচ কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল মাহমুদ প্রমুখ।
চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত আরও ২০৬ জন
২৭নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ২০৬ জনের। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৪ হাজার ৬০৪ জন। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৭৮০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ৯৮টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৯৪০টি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ৩৫১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ৩৭ জন, বিআইটিআইডিতে ২৬ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৮৩ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৯৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪২ জন, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১১৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ৮ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। তবে এইদিন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাব ও চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়নি। জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ১০টি নমুনা পরীক্ষা করে ৯টি নমুনা পজিটিভ আসে। অন্যদিকে, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১৭০টি নমুনা পরীক্ষা করে একজনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ২০৬ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১৭৪ জন এবং উপজেলায় ৩২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেনি কেউ।
শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে আগামী ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধ ও উন্নত দেশে রুপান্তরিত হবে
২৫নভেম্বর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি। চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির অডিটরিয়ামে (২৫ নভেম্বর) বৃধবার কেক কেটে জাতির জনকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করা হয়। এসময় তথ্য মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক এ্যাডভোকেট সৈয়দ মোক্তার হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ভার্চুয়ালি সংযুক্ত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু সমন্বয় পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ বার কাউন্সিরের সাবেক সভাপতি আবদুল বাসেত মজুমদার, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রার্থী মো. রেজাউর করিম চৌধুরী, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি উফতেখার সাইমুম চৌধুরী বক্তব্য করেন। জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম জিয়াউদ্দিন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, চট্টগ্রামের আইনজীবী ভবন তার আবেগের ও অনুভুতির জায়গা। তাঁর বাবা এ্যাডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকাদরও একজন আইনজীবী ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ছিলেন। তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী সারা বছরব্যাপী দেশবাসী পালন করছে। কারণ জাতির জনক বাঙ্গালিকে একটি জাতিসত্তা দিয়েছেন। বহু বাঙ্গালি স্বাধীনতার চেষ্টা করেছেন। কেউ পারেননি। জাতির জনক পেরেছেন। তাই বাংলাদেশেই নয় বিশ্বের অন্যান্য দেশও মুজিববর্ষ পালন করছে। জাতির জনক হাজার বছরের ইতিহাসে হাজার বছরের ঘুমন্ত বাঙ্গালিকে জাগ্রত করেছেন। বাঙ্গালিকে তিঁনি এমনভাবে উদ্দীপ্ত করেছেন যা পৃথিবীতে কোন রাষ্ট্র প্রধান অথবা সরকার প্রধান করতে পারেন নি। এজন্য জাতির জনক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ। নিপিড়িত মানুষের নেতা মুজিব উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাঙ্গালির স্বাধীনতা অর্জণ হয়েছে রক্তের বিনিময়ে। ৭১ সালে বাংলাদেশী ১ কোটি মানুষ ভারতে আশ্রয় নিয়েছেন। বাংলাদেশে ২ কোটি মানুষ গৃহছাড়া হয়েছেন। জাতির জনক তাঁদের আশ্রয় দিয়েছেন। জাতির জনককে হত্যা না করলে সিঙ্গাপুর বা মালয়েসিয়ার আগে বাংলাদেশের উন্নয়ন সমৃদ্ধির গল্প শুনতো বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, যারা বাসন্তিকে দিয়ে ষড়যন্ত্র করেছে তারা বাসন্তিকে কাপড় কিনে দেয়নি। বাসন্তিকে কাপড় কিনে দিয়েছেন তাকে দেখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আরো বলেন, জাতির জনকের শাসনামলে ৭.৪ শতাংশ প্রবৃদ্ধি ছিল। ৪১ বছর পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সে রেকট ভঙ্গ করতে পেরেছেন। অতীতে কোন সরকার তা করতে পারে নি। মানবিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক সকল সূচকে বাংলাদেশ ভারত পাকিস্তানকে অতিক্রম করেছে কয়েক বছর আগে। দেশের নানা উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ঢাকা বিমান বন্দরে অথবা চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরে কোন বিমান চক্কর দেওয়ার সময়ে নিচের দিকে তাকালে কেউ বলতে পারবে না এটা বাংলাদেশ। তখন ভাবতে পারে যে বিমান ভুল করে হয়তো সিঙ্গাপুর চলে আসছে। কুড়িল ফ্লাইওভার, আক্তারুজ্জামান ফ্লাইওভার বিমান থেকে এমনই মনে হয়ে। এ উন্নয়ন এমনিতেই হয়নি। এটা সম্বব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষতা নেতৃত্বের জন্য। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলে আগামী ২০৪১ সালের আগেই বাংলাদেশ সমৃদ্ধ ও উন্নত দেশে রুপান্তরিত হবে বলে মন্তব্য করেন তথ্যমন্ত্রী।
চকবাজারে দুই কোচিং সেন্টারকে জরিমানা
২৫নভেম্বর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে নগরীর চকবাজার এলাকার কোচিং সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে এ অভিযান পরিচালন করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক। অভিযানে চকবাজার গুলজার মোড়ে বিসিএস হেল্প লাইনকে ৫ হাজার টাকা ও ওরাকল কোচিংকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসময় ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক বলেন, চট্টগ্রামে হঠাৎ করে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে চকবাজার কোচিং সেন্টারগুলোতে অভিযান চালানো হয়েছে। অভিযানে দুটি কোচিং সেন্টার খোলা পাওয়া গেছে। যারা ছাত্র জড়ো করে বিপদজ্জনক পরিস্থিতি তৈরি করছে। এ কারণে বিসিএস হেল্প লাইনকে ৫ হাজার টাকা ও ওরাকল কোচিংকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
সাংবাদিক এস এম শোয়েব খান আর নেই
২৫নভেম্বর,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দৈনিক পূর্বকোণ এর সাবেক সিনিয়র সহ সম্পাদক, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সিনিয়র সদস্য এস এম শোয়েব খান ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন )। বুধবার (২৫ নভেম্বর) সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় নগরের সিএসসিআর হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। মরহুমের নামাজে জানাযা বাদ যোহর চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন সিইউজের সাধারণ সম্পাদক ম. শামসুল ইসলাম। তিনি বলেন, গত দুই সপ্তাহ ধরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন সাংবাদিক এস এম শোয়েব খান। জানাযা শেষে মরদেহ গ্রামের বাড়ি ফটিকছড়িতে নিয়ে যাওয়া হবে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৬তম ব্যাচের লোকপ্রশাসন বিভাগের ছাত্র ছিলেন এসএম শোয়েব খান। ১৯৯০ সাল থেকে সাংবাদিকতায় যুক্ত হন। তার বাড়ি ফটিকছড়ির বাবুনগরে। তিনি স্ত্রী, এক পুত্র ও এক কন্যাসহ অনেক গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা। এদিকে সাংবাদিক শোয়েব খানের ইন্তেকালে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। এক বিবৃতিতে তিনি প্রয়াতের আত্মার শান্তি কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। তথ্যমন্ত্রী শোকবার্তায় মরহুমের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান এবং দৈনিক পূর্বকোণসহ বেতার ও টেলিভিশনে তার কর্মময় জীবনের কথা স্মরণ করেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর