বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন পুরোপুরি বাস্তবায়ন করুন: সাংবাদিক কামরুল হুদা
২৫,জুলাই,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রবীণ সাংবাদিক কামরুল হুদা বলেছেন, বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন-১৯৯১ পুরোপুরি বাস্তবায়ন করুন। সব ভাড়াটিয়াদের বাড়ি ভাড়ার চুক্তিপত্র দিতে হবে। এলাকাভিত্তিক বাড়ি ভাড়া রেট কার্যকর করুন। স্বল্প ও মধ্য আয়ের মানুষের জন্য সরকারি খাস জমিতে হাউজিং প্রকল্প করে কিস্তির ভিত্তিতে বরাদ্দ দেয়ার ব্যবস্থা করুন। বাড়ি ভাড়ার রশিদও ব্যাংকের মাধ্যমে পরিশোধ করার ব্যবস্থা করাসহ ৪ দফা দাবিতে আজ ২৫ জুলাই শনিবার সকাল ১১ টায় চেরাগী মোড়ে ভাড়াটিয়া ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, সরকারি আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে বাড়ির মালিকরা ইচ্ছামতো ভাড়াটিয়াদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় করছে। প্রশাসনের নাকের ঢগায় এ ঘটনা ঘটছে। প্রশাসন দেখেও না দেখার ভান করে আছে। গ্রামের সহজ সরল মানুষ গ্রামে কর্মসংস্থানের অভাব হওয়ায় বেঁচে থাকার তাগিদে শহরমুখী হচ্ছে। এতে আবাসনের তুলনায় জনসংখ্যার চাপ বাড়ছে নগরীতে। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে বাড়িওয়ালারা ইচ্ছামত ভাড়া বাড়াচ্ছে। বিশিষ্ট কবি এমডি আবদুল হাকিম বলেন, করোনা ভাইরাসের কবলে সারা পৃথিবী এখন থমকে গেছে। এটা থামাতে আমাদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে যতটা সম্ভব কিছু করা উচিত। আমার উপার্যকদের আমি ৩০% মওকুফ করে দিয়েছি। সাংবাদিক কিরণ শর্মা বলেন, শহরে বসবাসকারী ভাড়াটিয়াদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। কারণ অর্থনীতির চাকা সচল থাকুক আর না থাকুক মাস শেষে ভাড়া পরিশোধ করতেই হবে। ভাড়াটিয়ার আয় থাকুক আর না থাকুক মাস শেষে ভাড়া দিতেই হবে। এমতাবস্থায় করোনার কারণে ব্যবসায়ী ও ভাড়াটিয়ারা নানা আতঙ্কে থাকলেও বাড়িওয়ালা ও দোকান মালিকদের চাপে দিশেহারা ভাড়াটিয়ারা। মো. নাসির উদ্দিন চৌধুরী বলেন, প্রতি বছরের ডিসেম্বর থেকে বাড়িভাড়া বাড়ানোর প্রবণতা থাকলেও এ বছর তা আগে থেকেই শুরু হয়েছে। ২৭ বছর আগে বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন করা হলেও সেটি কোনো বাড়ির মালিক মানছেন না। আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নতুন বছর ছাড়াও বিদ্যুৎ, গ্যাস ও নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ভাড়া বাড়ানো হয়, যা ভাড়াটিয়া জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলছে। সংগঠক জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে আর্থিক সংকটে জীবন-যাপন করছেন ব্যবসায়ী ও নিন্ম আয়ের মানুষ। এরমধ্যে চাপে আছেন বাসা ভাড়া ও দোকান ভাড়া নিয়ে। মালিকদের প্রতিনিয়ত ভাড়া চাওয়া নিয়ে দিশেহারা ব্যবসায়ী ও নিন্ম আয়ের মানুষ। সংগঠক কামাল উদ্দিন বলেন, মাসের শেষ এবং শুরুতে বাসা বদলের চিত্র নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর বছরের শুরুতে তো কথাই নেই। ইচ্ছে না থাকলেও বাড়িওয়ালার বাড়তি ভাড়ার চাপে ছেড়ে দিতে হয় বাড়ি। খুঁজতে হয় নতুন গন্তব্য। কিন্তু ভাড়াটিয়াদের যাওয়ার কোনো জায়গা নেই। নতুন যে বাড়িতে ওঠা হয় সেখানেও শুরু হয় একই বিড়ম্বনা। বাড়িভাড়ার এই নৈরাজ্য বন্ধ করা অত্যন্ত জরুরি। সবকিছু একটি নিয়মের মধ্যে চললে সবাই উপকৃত হবেন। প্রশ্ন হচ্ছে বিড়ালের গলায় ঘন্টা বাঁধবে কে? সংগঠক কামাল হোসেন বলেন, সারাদেশে বাড়ি ভাড়া দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। তদারকির কেউ নেই। ফলে আয়ের অধিকাংশই যাচ্ছে বাড়ি ভাড়ায়। বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণের জন্য আইন থাকলেও তা কার্যকর হচ্ছে না। চসিকর তালিকাও মানছে না কেউ। ভাড়াটিয়ার সঙ্গে চুক্তির নিয়ম ও দু বছরের মধ্যে ভাড়া বাড়ানোর নিয়ম না থাকলেও হরহামেশাই তা হচ্ছে। ৮০ শতাংশ বাড়িওয়ালারা বাড়ি ভাড়ার আয় দিয়ে চলেন। কোনো কিছুর দাম বাড়লেই ভাড়া বাড়ান বাড়ির মালিকেরা। বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ওসমান জাহাঙ্গির, কমল দাশ, মাস্টার এস এম কামরুল ইসলাম, ডা. মাহতাব হোসেন মাজেদ, মোজাফফর সিকদার, রোকন উদ্দিন, আমান উল্লাহ বাদশা, মনজু, মো. ইউসুফ, সুমন সেন, দেবাশীষ রাজা, মনিষা সেন, মো. রিয়াদ উল হক প্রমুখ।
হুইপ সামশুল হক চৌধুরীর অর্থায়নে পটিয়া হাসপাতাল আধুনিকায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন
২৪,জুলাই,শুক্রবার,পটিয়া প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় সংসদের হুইপ ও পটিয়া থেকে পরপর তিনবার বিপুল ভোটে বিজয়ী আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরীর নিজস্ব অর্থায়নে আজ পটিয়া উপজেলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্স আধুনিকায়নের উদ্বোধন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আধুনিকায়ন উদ্বোধন করেন হুইপ সামশুল হক চৌধুরী এমপি। এসময় তিনি করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য আইসোলেন ইউনিট সেন্টার উদ্বোধন ছাড়াও আইসোলেশন ইউনিটে সেন্ট্রাল অক্সিজেন স্থাপনের ওয়ার্ক ওর্ডার প্রদান করেন। এবং রোগীদের জন্য হাই-ফ্লো ন্যাসাল ক্যানুলা, অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর, অক্সিজেন সিলিন্ডার, এন-৯৫ মাস্কসহ বিভিন্ন চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যকর্মদের জন্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি পটিয়াবাসীকে আশ্বস্ত করে বলেন, আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি বিগত ১১ বছর পটিয়ার সার্বিক উন্নয়নে যে সময় ও অর্থ ব্যয় করেছি তা দেশের অন্য কোথাও হয়নাই। আমি পটিয়াকে নিয়ে আধুনিকতার স্বপ্ন দেখি। পটিয়া শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থান সব দিকে স্বয়ং সম্পন্ন হবে। সে লক্ষ্যে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ হয়েছে, হচ্ছে, ভবিষ্যতেও হবে। এখানে বিনা চিকিৎসায় কেউ মারা যাবেনা ইনশাআল্লাহ। অনুষ্ঠানে পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী, পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশীদ, পটিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা জাহান উপমা, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার জাবেদ, হুইপের পিএস হাবিবুল হক চৌধুরী, এ,এস,রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি সরোয়ার হায়দার, কাউন্সিলর গোফরান রানা সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
একে খান থেকে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক
২৪,জুলাই,শুক্রবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগরীর পাহাড়তলী থানাধীন একে খান এলাকায় অভিযান চালিয়ে এক হাজার ৩০ পিস ইয়াবাসহ দুই জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab-7। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যা ছয়টার দিকে একে খান মোড়ে অবস্থিত কুটুমবাড়ী রেস্তোরাঁর সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- নোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার নূর পাটারী হাটের মৃত দুলাল মিয়ার পুত্র মো. লিটন (২৮) এবং নগরী আকবর শাহ থানার ফিরোশাহের মো. সামছুল হকের পুত্র মো. বাবু (৩৬)। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান মামুন নিউজ একাত্তরকে জানান, তারা দীর্ঘ দিন ধরে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবীদের নিকট মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য প্রায় পাঁচ লাখ ২৫ হাজার টাকা।
ইসহাক মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে মেয়র নাছিরের শ্রদ্ধা
২৪,জুলাই,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা মো. ইসহাক মিয়ার ৩য় মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। শ্রক্রবার (২৪ জুলাই) নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে নাছির লেখেন- মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সাবেক গণপরিষদ সদস্য, সাবেক সংসদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য, বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা ইসহাক মিয়ার ৩য় মৃত্যুবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা। ২০১৭ সালের ২৪ জুলাই নগরের মেহেদিবাগের ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য রাজনীতিক মো. ইসহাক মিয়া। ১৯৭০ সালের গণপরিষদ সদস্য ইসহাক মিয়া সর্বশেষ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ছিলেন। ১৯৮৬ সালে তিনি বন্দর আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহধন্য ইসহাক মিয়া চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনের প্রিয়মুখ ছিলেন। বার্ধক্যেও রাজনীতির মাঠ ছেড়ে যাননি তিনি। আঞ্চলিক ও সাধু ভাষার মিশ্রণে ইসহাক মিয়ার রসমিশ্রিত বক্তব্য উজ্জীবিত করতো নেতাকর্মীদের। মুক্তিযুদ্ধে সংগঠকের ভূমিকা পালন করা ইসহাক মিয়ার বাংলাদেশের প্রতিটি গণআন্দোলনে অবদান আছে। আওয়ামী লীগ বিরোধীদলে থাকার সময় হরতাল-অবরোধে মুজিব কোট গায়ে দিয়ে, চোখে সানগ্লাস লাগিয়ে মিছিলের সামনের সারিতে থাকতেন ইসহাক মিয়া। দল ক্ষমতায় আসার পরও সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। বিগত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর সমর্থনে গঠিত নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন ইসহাক মিয়া।
ইসহাক মিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে নওফেলের শ্রদ্ধা
২৪,জুলাই,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও বর্ষীয়ান আওয়ামী লীগ নেতা মো. ইসহাক মিয়ার ৩য় মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। শ্রক্রবার (২৪ জুলাই) নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে নওফেল লেখেন- বিনম্র শ্রদ্ধা... মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর, সাবেক গণপরিষদ ও জাতীয় সংসদ সদস্য এবং আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মো. ইসহাক মিয়ার ৩য় মৃত্যুবার্ষিকীতে। ২০১৭ সালের ২৪ জুলাই নগরের মেহেদিবাগের ম্যাক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন বঙ্গবন্ধুর স্নেহধন্য রাজনীতিক মো. ইসহাক মিয়া। ১৯৭০ সালের গণপরিষদ সদস্য ইসহাক মিয়া সর্বশেষ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য ছিলেন। ১৯৮৬ সালে তিনি বন্দর আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্নেহধন্য ইসহাক মিয়া চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনের প্রিয়মুখ ছিলেন। বার্ধক্যেও রাজনীতির মাঠ ছেড়ে যাননি তিনি। আঞ্চলিক ও সাধু ভাষার মিশ্রণে ইসহাক মিয়ার রসমিশ্রিত বক্তব্য উজ্জীবিত করতো নেতাকর্মীদের। মুক্তিযুদ্ধে সংগঠকের ভূমিকা পালন করা ইসহাক মিয়ার বাংলাদেশের প্রতিটি গণআন্দোলনে অবদান আছে। আওয়ামী লীগ বিরোধীদলে থাকার সময় হরতাল-অবরোধে মুজিব কোট গায়ে দিয়ে, চোখে সানগ্লাস লাগিয়ে মিছিলের সামনের সারিতে থাকতেন ইসহাক মিয়া। দল ক্ষমতায় আসার পরও সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। বিগত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর সমর্থনে গঠিত নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক ছিলেন ইসহাক মিয়া।
করোনা: চট্টগ্রামে নতুন আক্রান্ত ১৪৮
২৩,জুলাই,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে ১ হাজার ৭৮টি নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১৪৮ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে৷ এনিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনায় আক্রান্ত ১৩ হাজার ৩৪৬ জন। বুধবার (২২ জুলাই) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাব এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ১৪১টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ৩৭০টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ১৬১টি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ১৮৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ২৯ জন, বিআইটিআইডি ল্যাবে ২২ জন এবং চমেক ল্যাবে ৩৯ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৭ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া যায়। অন্যদিকে, বেসরকারি শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১০০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জন এবং ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১১১টি নমুনা পরীক্ষা করে ২২জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৯টি নমুনা পরীক্ষা করে ২ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ মিলেছে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ১৪৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এইদিন নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৭৮টি। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১১৬ জন এবং উপজেলায় ৩২জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেছেন ১ জন, সুস্থ হয়েছেন ৬৩ জন।
সিএমপি সদস্যদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় ১০টি সার্জিকেল বেড, ৫০০ পিছ মাস্ক দিলো ইস্পাহানী গ্রুপ
২২,জুলাই,বুধবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সম্মুখযোদ্ধা চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সদস্যদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় ১০টি সার্জিকেল বেড, ৫০০ পিছ KN-95 মাস্ক প্রদান করেন ইস্পাহানী গ্রুপ অফ কোম্পানিজ লিমিটেড। আজ ২২ জুলাই চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম এর নিকট সার্জিকেল বেড ও মাস্কগুলো হস্তান্তর করেন এস.এম আব্দুল্লাহ আল মামুন, ম্যানেজার, কর্পোরেট এফেয়ার্স, এম. এম. ইস্পাহানী লিমিটেড। এসময় সেখানে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মোঃ আমির জাফর, উপ-পুলিশ কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক, বিপিএম, পিপিএম (বার) সহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
গ্রীণ এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট এর বৃক্ষরোপণ
২২,জুলাই,বুধবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গ্রীণ এনভায়রনমেন্ট মুভমেন্ট, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ ও চারা বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি এটিএম রকিবুল হাসান। পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক আবদুর রহিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কর্ণফুলী উপজেলা পরিষদের মো. ফারুক চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল হুদা তুষার, মো. রুবেল উদ্দিন, শাওন চৌধুরী, সাহেদ হোসেন, সাফায়েত হোসেন সৌরভ, তানভীর হাসান, জিসান, নাহিদুল ইসলাম তুহিন প্রমুখ।
সিইউজে নির্বাহী কমিটির সভা: ২৬ জুলাইয়ের মধ্যে ঈদুল আযহার বোনাস প্রদানের দাবি
২১,জুলাই,মঙ্গলবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: আগামী ২৬ জুলাইয়ের মধ্যে সংবাদকর্মীদের ঈদুল আযহার বোনাস প্রদানের জন্য গণমাধ্যম মালিকদের কাছে দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন-সিইউজে। মঙ্গলবার দুপুরে অনুষ্ঠিত সিইউজে নির্বাহী কমিটির সভায় এ দাবি জানানো হয়। সভায় বকেয়া বেতন ও বোনাসের দাবিতে আগামী ২৬ জুলাই সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে সমাবেশের কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে সংবাদকর্মীদের বেতন-ভাতা প্রদান না করায় ২৫ জুলাই সকাল ১১টায় সুপ্রভাত বাংলাদেশ পত্রিকার মালিকের বাড়ি ঘেরাও এর কর্মসূচী দেয়া হয়। চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক ম. শামসুল ইসলাম, সিনিয়র সহ সভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, সহ সভাপতি অনিন্দ্য টিটো, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ইফতেখারুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইফতেখার ফয়সল, নির্বাহী সদস্য মুহাম্মদ মহরম হোসাইন, সুপ্রভাত ইউনিট চিফ স. ম. ইব্রাহিম, টিভি ইউনিট চিফ মাসুদুল হক, প্রতিনিধি ইউনিট চিফ সাইদুল ইসলাম, ডেপুটি ইউনিট চিফ সরওয়ার সোহেল প্রমুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর