চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত
২১জানুয়ারী,মঙ্গলবার,ষ্টাফ রিপোর্টার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: দামপাড়া পুলিশ লাইন্সস্থ মাল্টিপারপাস সেডে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম এর সভাপতিত্বে কল্যাণ সভা জানুয়ারী ২০২০ অনুষ্ঠিত হয়। সভায় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) এস. এম. মোস্তাক আহমেদ খান বিপিএম, পিপিএম (বার), অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) শ্যামল কুমার নাথ, সকল উপ-পুলিশ কমিশনার, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার, সকল থানার অফিসার ইনচার্জ সহ বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় কমিশনার বিভিন্ন স্তরের পুলিশ সদস্যদের সমস্যার কথা শুনেন এবং তাৎক্ষনিক সমাধানের ব্যবস্থা করেন। সভায় সিএমপির সেবা তহবিল হতে ৩৪ জন পুলিশ সদস্য ও সিভিল স্টাফদেরকে নগদ ১০ লক্ষ ৭২ হাজার টাকা প্রদান করেন। পুলিশ কমিশনার সদ্য বিদায়ী পুলিশ সদস্য জুলকু মিয়ার হাতে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে বিদায়ী সম্মাননা স্মারক ও উপহার সামগ্রী তুলে দেন।
লালদীঘিতে শেখ হাসিনার সভায় গুলিতে ২৪ জনকে হত্যায় পাঁচ জনের মৃত্যুদণ্ড
২০জানুয়ারী,সোমবার,আদালত প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: তিন দশক আগে চট্টগ্রামের লালদীঘি মাঠে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার জনসভার আগে গুলি চালিয়ে ২৪ জনকে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় পাঁচ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের বিশেষ জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল হোসেন চার আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডিতরা হলেন- চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কোতোয়ালি অঞ্চলের তৎকালীন পেট্রোল ইনসপেক্টর জে সি মণ্ডল, কন্সটেবল মোস্তাফিজুর রহমান, প্রদীপ বড়ুয়া, শাহ মো. আবদুল্লাহ ও মমতাজ উদ্দিন। প্রথম জন পলাতক আছেন। এছাড়া বিপজ্জনক অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আঘাত সৃষ্টির দায়ে দণ্ডবিধির ৩২৬ ধারায় পাঁচ আসামির প্রত্যেককে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। ১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি বন্দরনগরীর লালদীঘি মাঠে আওয়ামী লীগের জনসভার দিন বেলা ১টার দিকে শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রাক আদালত ভবনের দিকে এগোলে নির্বিচার গুলি ছোড়া শুরু হয়। আইনজীবীরা আওয়ামী লীগ সভানেত্রীকে ঘিরে মানববেষ্টনি তৈরি করে তাকে নিরাপদে আইনজীবী সমিতি ভবনে নিয়ে যাওয়ায় তিনি রক্ষা পান। ওই ঘটনায় মো. হাসান মুরাদ, মহিউদ্দিন শামীম, স্বপন কুমার বিশ্বাস, এথলেবার্ট গোমেজ কিশোর, স্বপন চৌধুরী, অজিত সরকার, রমেশ বৈদ্য, বদরুল আলম, ডি কে চৌধুরী, সাজ্জাদ হোসেন, আব্দুল মান্নান, সবুজ হোসেন, কামাল হোসেন, বি কে দাশ, পঙ্কজ বৈদ্য, বাহার উদ্দিন, চান্দ মিয়া, সমর দত্ত, হাসেম মিয়া, মো. কাসেম, পলাশ দত্ত, আব্দুল কুদ্দুস, গোবিন্দ দাশ ও শাহাদাত হোসেন নিহত হন। নিহতদের কারও লাশ পরিবারকে নিতে দেয়নি স্বৈরশাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সরকার; সবাইকে বলুয়ার দীঘি শ্মশানে পুড়িয়ে ফেলা হয়। এরশাদের পতনের পর ১৯৯২ সালের ৫ মার্চ আইনজীবী মো. শহীদুল হুদা বাদী হয়ে এঘটনায় মামলা দায়ের করলেও বিএনপি সরকারের সময়ে মামলার কার্যক্রম এগোয়নি। এরশাদের পতনের পর ১৯৯২ সালের ৫ মার্চ আইনজীবী মো. শহীদুল হুদা বাদী হয়ে এঘটনায় মামলা দায়ের করলেও বিএনপি সরকারের সময়ে মামলার কার্যক্রম এগোয়নি। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর মামলাটি পুনরুজ্জীবিত হয়। দুই দফা তদন্ত শেষে ১৯৯৮ সালের ৩ নভেম্বর আট পুলিশ সদস্যকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় সিআইডি। অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিদের মধ্যে পাঁচজন এখন জীবিত আছেন। মৃত আসামিরা হলেন- সিএমপির কমিশনার মীর্জা রকিবুল হুদা এবং কনস্টেবল আব্দুস সালাম ও বশির উদ্দিন। মামলায় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, শেফালী সরকার, সাংবাদিক অঞ্জন কুমার সেন ও হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, সুভাষ চন্দ্র লালা, অশোক কুমার বিশ্বাস, হাসনা বানু, মাঈনুদ্দিন, আবু সৈয়দ এবং অশোক বিশ্বাস অন্যদের মধ্যে সাক্ষ্য দেন। গত ১৪ জানুয়ারি ৫৩তম সাক্ষী আইনজীবী শম্ভুনাথ নন্দীর সাক্ষ্য দেওয়ার মধ্য দিয়ে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। ওইদিন আদালত যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ১৯ জানুয়ারি দিন ঠিক করেন। রোববার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী যুক্তি উপস্থাপন শেষে পাঁচ আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন। পরে আদালত আসামি পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের জন্য সোমবার দিন রেখেছিলেন। কিন্তু আসামিপক্ষ যুক্তি উপস্থাপন না করায় এদিনই আদালত রায় ঘোষণা করেন।
শিক্ষার্থীদের মূল্যবোধ ও নৈতিকশিক্ষা দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ
২০জানুয়ারী,সোমবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মূল্যবোধ ও নৈতিকশিক্ষা দেওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি গতকাল রবিবার সকালে টায়গারপাসস্থ চসিক সম্মেলন কক্ষে চসিক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভায় সভাপতির বক্তব্যে একথা বলেন। এ সময় কাউন্সিলর গোলাম হায়দার মিন্টু, মোঃ আজম, মোঃ আবুল হাসেম, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল সোহেল আহমদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়য়া, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাসেম, লামা বাজার এস এ সিটি কর্পোরেশন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহাদাত হোসেন মাহমুদ, অভিভাবক সদস্য জাহেদ রাজা, সদস্য শেলী আকতার, শিক্ষক প্রতিনিধি নুরুল কবির, আতিক উল্লাহ চৌধুরী, গোলজার বেগম সিটি কর্পোরেশন মুসলিম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক প্রতিনিধি মো. খসরু হোসেন, মো. আজজুল হক, রোকসানা আকতার, শিক্ষক প্রতিনিধি রশ্নি আকতার, আমাত হোসেন, প্রধান শিক্ষক মো. সাইফুল্লাহ, কাপাসগোলা সিটি কর্পোরেশন মহিল কলেজের অধ্যক্ষ ও সদস্য সচিব মনোয়ার জাহান বেগম, মো. ইব্রাহিম, মাওশি এস এম শহিদুল ইসলাম, অভিভাবক প্রতিনিধি সদস্য মো. আবুল কালাম, হাজী মো. মুসা, বিনা মল্লিক, শিক্ষক প্রতিনিধি সদস্য নুর বানু চৌধুরী, সমিরন কুমার শীল, এনামুল হক, পূর্ব বাকলিয়া সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ ও সদস্য সচিব মো. আবু তালেব আবদুল করিম, অভিভাবক সদস্য কাজী শাহিনা সুলতানা, শিক্ষক প্রতিনিধি চিত্রা চন্দ, মো. আসিফুর রহমান ফারুকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় সিটি মেয়র বলেন, চসিক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের ফলাফল শিক্ষাবোর্ডের ফলালের দিক থেকে পাশের হার বেশি হলেও মানের দিক থেকে এখনো পিছিয়ে আছে। শিক্ষার মান বৃদ্ধিতে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শিক্ষকদের অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। শিক্ষকরা যদি তাদের দায়িত্বের প্রতি অনুগত থেকে নিষ্ঠার সাথে কাজ করেন তাহলে শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবে। শিক্ষকরাই পারে শিক্ষার্থীদের কাউন্সিলিং করে সঠিক গাইডলাইন্সের মাধ্যমে তাদের গড়ে তুলতে। সিটি মেয়র আরো বলেন শিক্ষকতা পেশাটি একটি মহৎ ও মহান পেশা। সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা হল এই পেশা। সমাজে শিক্ষকের মর্যাদা অনেক উপরে। সে মহৎ ও সম্মানজনক পেশাকে অক্ষুন্ন রাখতে প্রতিষ্ঠান প্রধান,শিক্ষক ও অভিভাবক সমন্বয়ে শিক্ষার মানোন্নয়নে আন্তরিকতা সাথে কাজ করার আহবান জানান মেয়র। তিনি বলেন একজন শিক্ষার্থী জীবনে নৈতিক শিক্ষার প্রভাব খুবই সহায়ক ভূমিকা পালন করে।এ প্রজম্মের শিক্ষার্থীরা যাতে বিপদগামী না হয়,ভাল আর মন্দের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে পারে,তারা যেন আগামী দিনের সুনাগরিক হিসেবে তৈরী হতে পারে সেজন্য নৈতিকশিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে পথপ্রদর্শক হিসেবে শিক্ষকদের কার্যকরী ভূমিকা রাখার প্রতি তাগিদদেন মেয়র। মেয়র পরিচালনা কমিটির সকলকে সততা, আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সাথে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মান উন্নোয়ন ও প্রসার,সুনাম-সুখ্যাতি বৃদ্ধি জন্য নিরলসভাবে দায়িত্ব পালন করার আহবান জানান। সভার শুরুতে ম্যানেজিং কমিটি ও গভর্নিং বডির সদস্যরা মেয়রকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
রেডিসন ব্লু চট্টগ্রামের পরিবেশবান্ধব কাচের বোতল
১৯জানুয়ারী,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: আবহাওয়া, জলবায়ু ও পারিপার্শ্বিক পরিবেশের কল্যাণের উদ্দেশ্যে ব্যবসায়িক বিভিন্ন ক্ষেত্রে পরিবর্তনকে আপন করে নিতে সদা প্রস্তুত রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ। এরই অংশ হিসেবে ১৮ জানুয়ারি হোটেলটি এর সকল রুম, রেস্টুরেন্ট এবং হল থেকে সরিয়ে নিয়েছে সকল ধরনের প্লাস্টিক বোতল এবং ব্যবহার করছে পরিবেশবান্ধব কাচের বোতল। ইতিমধ্যেই হোটেলটি সকল প্রকার প্লাস্টিক স্ট্র সরিয়ে নিয়েছে সকল রেস্টুরেন্ট থেকে এবং ব্যবহার করছে পরিবেশবান্ধব স্ট্র। হোটেলটির এ ধরনের কর্মকাণ্ডের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউর ব্যবস্থাপনা পরিচালক রবিন এডওয়ার্ডস বলেন, রেডিসন হোটেল গ্রুপের মূলমন্ত্রকে সামনে রেখে পৃথিবীকে পরবর্তী প্রজন্মের জন্য আরো উত্তম উপায়ে গড়ে তুলতে এর সকল হোটেলই সারা পৃথিবীজুড়ে এ ধরনের কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে থাকে। আমরা বিশ্বাস করি হোটেল এবং পর্যটন ব্যবসায়ের সাথে জড়িত সকল ছোট বড় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান যদি একত্রিত হয়ে সমাজের এবং পরিবেশের কল্যাণে কাজ করতে পারে তবে আমাদের আশপাশের পরিবেশের উল্লেখযোগ্য কল্যাণ সম্ভব। দেশজুড়েই হোটেল এবং পর্যটন ব্যবসায় আরও বৃহত্তর কাঠামোয় রুপান্তরিত হচ্ছে যাকে কাজে লাগিয়ে পরিবেশে ইতিবাচক পরিবর্তন আনা সম্ভব। বিগত বছরগুলতেও রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ অগণিত সমাজসেবামূলক কাজের মাধম্যে সমাজ ও পরিবেশের কল্যাণে ইতিবাচক ভূমিকা রাখার চেষ্টা করছে।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রামে ২৬২ কার্টন সিগারেট জব্দ
১৮জানুয়ারী,শনিবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক যাত্রীর কাছ থেকে ২৬২ কার্টন সিগারেট জব্দ করা হয়েছে। এরপর সিগারেটগুলো জব্দ করে বিমানবন্দর কাস্টমসকে পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য হস্তান্তর করা হয়। শুক্রবার রাত পৌনে ১০টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিমানবন্দর কাস্টমস, কাস্টমস ইন্টেলিজেন্সের সহায়তায় চালানটি জব্দ করে এনএসআই টিম। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গেছে, শারজাহ থেকে এয়ার এরাবিয়ার জি৯-৫২৩ ফ্লাইটে হাটহাজারীর বাসিন্দা আমিনুল হক চট্টগ্রাম আসেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার ব্যাগেজ তল্লাশি করে ২৬২ কার্টন ইজি লাইট ব্রান্ডের সিগারেট পাওয়া যায়।
অদ্বৈতানন্দ গুরুগৃহে শ্রীশ্রী শিব-রাস উৎসব পালন
১৭জানুয়ারী,শুক্রবার,কমল চক্রবর্তী, বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া থানাধীন উত্তর বেতাগী গ্রামে অবস্থিত শ্রীশ্রী অদ্বৈতানন্দ গুরুগৃহে শ্রীমৎ স্বামী পূর্ণানন্দ পুরী মহারাজের ১৮ তম তিরোধান দিবস উপলক্ষে শ্রীশ্রী শিব-রাস উৎসব পালিত হচ্ছে। ১৭ই জানুয়ারী থেকে ১৯শে জানুয়ারী পর্যন্ত তিন দিন ব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠান মালার মধ্যে রয়েছে শ্রীশ্রী চণ্ডীযজ্ঞ, শ্রীমদ্ভগবত পাঠ, মহতী ধর্মসভা, ঋষি সন্মেলন ও অষ্ট প্রহর ব্যাপী নামযজ্ঞ। আজ শুক্রুবার ১৭ই জানুয়ারী মঙ্গল আরতি ও ঊষাকীর্তনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় দিনের অনুষ্ঠান মালা। সন্ধ্যায় শ্রীশ্রী শিব-রাস উৎসব ও মহানামযজ্ঞের শুভঅধিবাস।এতে পুরোহিত্ব করেন শ্রী শ্রী অদ্বৈতানন্দ গুরুগৃহের প্রতিষ্ঠাতা শ্রীমৎ স্বামী জীবনানন্দ পুরী মাহারাজ। উক্ত অনুষ্ঠানে ঋষি মঞ্চে আশীর্বাদক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ঋষিধাম বাঁশখালীর মোহান্ত মহারাজ শ্রীমৎ স্বামী সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজ, প্রধান অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বোয়ালখালীর মেধস আশ্রম এর অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী বুলবুলানন্দ ব্রহ্মচারী মহারাজ। মহান অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, বাঙ্গালহালিয়ার সনাতন ঋষি আশ্রমের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী সনাতন ঋষি মহারাজ, বাঙ্গালহালিয়ার জ্যোতিশ্বর বেদান্ত মঠ ও মিশন এর অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী অভেদানন্দ ব্রহ্মচারী মহারাজ, চন্দ্রঘোনার জ্যোতিশ্বরানন্দ রক্ষাকালী মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা শ্রীমৎ স্বামী গুরুকৃপানন্দ ব্রহ্মচারী। প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অধ্যাপক শ্রী স্বদেশ চক্রবর্তী । সন্মানিত আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ডঃ শ্রী রণজিৎ কুমার সুত্রধর ও চুয়েটের সেকশন অফিসার শ্রী কিরন শীল (শ্রী কৃষ্ণকৃপালব্ধ)। বিশেষ অথিতি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ৭নং বেতাগী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুতুবুল আলম, এশিয়াটিক ইভেন্টস মার্কেটিং লিঃ এর এসোসিয়েট এক্সজিকিউটিভ ডিরেক্টর শ্রী মানস পাল, বাংলাদেশ রেলওয়ে টি, টি,ই ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রাক্তন সভাপতি শ্রী পীযূষ কান্তি দত্ত প্রমুখ। অনুষ্ঠানের আয়োজক শ্রীমৎ স্বামী শিবানন্দ পুরী ব্রহ্মচারী জানান, এই শিব-রাস উৎসব বাংলাদেশে প্রথম হচ্ছে। উক্ত অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ হিসাবে আছে নানা দেব দেবীর প্রতিমা প্রদর্শন। দূর দুরান্ত থেকে বহু ভক্তের সমাগম ঘটেছে। ১৮ই জানুয়ারী অষ্ট প্রহরব্যাপী মহানাম যজ্ঞ চলবে এবং ১৯শে জানুয়ারী শ্রীশ্রী শিব-রাস উৎসব ও মহানামযজ্ঞের পূর্ণাহুতির মধ্য দিয়ে শেষ হবে তিন দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানমালার।
১১ মামলার আসামী মাদক সম্রাজ্ঞী সহযোগীসহ RAB এর হাতে আটক
১৭জানুয়ারী,শুক্রবার,কমল চক্রবর্তী, বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: সীতাকুন্ড থানাধীন কুমিরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৯৬৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ১১৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ১১ মামলার আসামী মাদক সম্রাজ্ঞী মিনুয়ারা আকতার মিনু ও তার সহযোগী মোঃ জামাল হোসেন (৫০)কে গ্রেফতার করেছে RAB-7। শুক্রবার ১৭ই জানুয়ারি সকাল ৭ টার সময় RAB এর একটি টহল দল সীতাকুন্ড থানাধীন কুমিরা উত্তর সোনাইছড়ি, সোনারপাড়া মিনু আকতারের বাড়ি্তে অভিযান চালিয়ে ৯৬৭ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং ১১৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধারসহ ১১ মামলার আসামী মাদক সম্রাজ্ঞী মিনুয়ারা আকতার মিনু ও তার সহযোগী মোঃ জামাল হোসেন (৫০)কে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানান RAB-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. মাহমুদুল হাসান মামুন। গ্রেফতারকৃতরা হল মিনুয়ারা আকতার মিনু (৫২) সীতাকুন্ড থানার সোনার পাড়া,উত্তর সোনাইছড়ি গ্রামের ফজলুল হক এর স্ত্রী এবং মোঃ জামাল হোসেন (৫০) সীতাকুন্ড থানার রহমত পুর গ্রামের মৃত মোঃ আমিন এর ছেলে। RAB-7 এর সহকারী পরিচালক এএসপি কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ জানান, এক গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারি যে, চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানাধীন কুমিরা উত্তর সোনাইছড়ি, সোনারপাড়া মিনু আকতারের বাড়ির ভিতর কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক দ্রব্য ক্রয় বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে RAB এর একটি টহল দল অভিযান চালিয়ে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। এসময় আসামীদের দেহ তল্লাশি করে তাদের হাতে থাকা শপিং ব্যাগের ভিতরে সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৯৬৭ পিস ট্যাবলেট এবং সহযোগী মোঃ জামাল হোসেন এর হাতে থাকা প্লাস্টিকের শপিং ব্যাগের ভিতরে কাগজে মোড়ানো বস্থায় ১১৫০ কেজি (৫০০ পুরিয়া) গাঁজা উদ্ধার করা হয়। তিনি আরো জানান,আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী এবং মাদক সেবীদের কাছে মাদকদ্রব্য ক্রয় বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ৪ লক্ষ ৯৫ হাজার টাকা বলেও জানান। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের সীতাকুন্ড থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। উল্লেখ্য যে, মাদক সম্রাজ্ঞী মিনুয়ারা আকতার মিনুর বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম জেলার সীতাকুন্ড থানায় এর আগে ১১ টি মামলা রয়েছে।
পটিয়ার শান্তিরহাটে দুটি বাসের সংঘর্ষে নিহত ২
১৭জানুয়ারী,শুক্রবার,পটিয়া প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের শান্তিরহাট এলাকায় একটি লোকাল বাস ও শ্যামলী বাসের সাথে সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। আজ শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আরো অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন পটিয়া হাইওয়ে থানার ইনচার্জ বিমল চন্দ্র ভৌমিক। বিমল চন্দ্র ভৌমিক নিউজ একাত্তরকে বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। আহত পাঁচ থেকে ছয়জনকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল হক ভুইঁয়া নিউজ একাত্তরকে জানান, শান্তিরহাট এলাকায় দুটি বাসের দুর্ঘটনায় দু্ইজন নিহত হয়েছেন। আহত অবস্থায় আহত কয়েকজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাদের মধ্যে দুইজনকে মৃত ঘোষণা করেন।
নগরীতে ১৫ কোটি টাকা মূল্যের কোকেইনসহ ১ জন আটক
১৬জানুয়ারী,বৃহস্পতিবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৫ কোটি টাকা মূল্যের ৮২০ গ্রাম কোকেইনসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে Rab-7। বৃহস্পতিবার ১৬ই জানুয়ারি দিবাগত রাত ১:৩০ মিনিটের সময় Rab এর একটি টহল দল নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস এলাকায় পলোগ্রাউন্ড বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উত্তর পাশে টাইগারপাস হতে নিউমার্কেট গামী পাকা রাস্তার পাশে ফুটপাতের উপর অভিযান পরিচালনা করে ৮২০ গ্রাম কোকেইনসহ ১ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. মাহমুদুল হাসান মামুন। গ্রেফতারকৃত মোঃ বখতেয়ার হোসেন (৩২) রাউজান থানার ঝুইপাড়া (সফি মেম্বারের বাড়ি)এলাকার জাফর আহম্মেদ এর ছেলে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক এএসপি কাজী মোহাম্মদ তারেক আজিজ জানান, এক গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারি যে, নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস এলাকায় কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক দ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় এর উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে Rab এর একটি টহল দল নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস এলাকায় পলোগ্রাউন্ড বঙ্গবন্ধু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উত্তর পাশে টাইগারপাস হতে নিউমার্কেট গামী পাকা রাস্তার পাশে ফুটপাতের উপর অভিযান চালিয়ে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে । এসময় আসামীর দেহ তল্লাশী করে তার ডান হাতে থাকা ১ টি লাল রংয়ের শপিং ব্যাগের ভিতর সাদা পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় ৮২০ গ্রাম কোকেইন উদ্ধার করা হয়। তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, সে দীর্ঘদিন যাবত চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন পাইকারী মাদক ব্যবসায়ীর কাছ থেকে কম মূল্যে কোকেইন সহ বিভিন্ন অবৈধ মাদকদ্রব্য ক্রয় করে পরবর্তীতে চট্টগ্রাম সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অধিক মূল্যে বিক্রয় করে আসছে। উদ্ধারকৃত কোকেইন এর আনুমানিক মূল্য ১৫ কোটি টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামীকে কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হবে। Rab-7 এর অপারেশন অফিসার এএসপি মো. মাশকুর রহমান জানান, নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস এলাকায় Rab এর একটি টহল দল অভিযান চালিয়ে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। এসময় আসামীর দেহ তল্লাশী করে তার ডান হাতে থাকা ১ টি লাল রংয়ের শপিং ব্যাগের ভিতর সাদা পলিথিনে মোড়ানো অবস্থায় ৮২০ গ্রাম কোকেইন উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা শেষে কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হবে।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর