শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
৫ দিনের রিমান্ডে রিপন
০৩জুন২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের ইট দিয়ে অমিত মুহুরী নামের এক আসামীকে খুনের ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় রিপন নাথকে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। অমিত মুহুরী খুনের ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত আসামি রিপন নাথকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিলেন। সোমবার শুনানি শেষে অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মহিউদ্দিন মুরাদের আদালত ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. কামরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। উল্লেখ্য, গত বুধবার (২৯ মে ) রাতে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের ৩২ নম্বর সেলে বন্দী অবস্থায় রিপন নামের এক কয়েদির ইটের আঘাতে খুন হন অমিত মুহুরী। এ ঘটনায় রিপন নাথকে আসামি করে কোতোয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার নাশির আহমেদ।
দক্ষিণ চট্টগ্রামে ঈদ আগামীকাল
০৩জুন২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে আগামীকাল দক্ষিণ চট্টগ্রামের ৬০টি গ্রামে ঈদ-উল-ফিতর পালিত হবে। প্রতি বছরের মত এবারও চন্দনাইশ উপজেলার কাঞ্চন নগর জাহাগিরিয়া মমতাজিয়া দরবার ও মির্জা খীল দরবারের অনুসারীরা একদিন আগে ঈদের নামাজ আদায় ও উৎসব পালন করবে। মঙ্গলবার (৪ জুন) সকাল ৯টায় জাহাগিরিয়া মমতাজিয়া দবরারের মাঠ প্রাঙ্গণে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া উপজেলার এলাহাবাদ, বরকল, বরমা শেভন্দী, হাশিমপুর দোহাজারী, সাতবাড়িয়া, জোয়ারা এলাকায় উক্ত তরিকতের অনুসারীরা ঈদের নামাজ আদায় করবেন বলে জানিয়েছেন দরবারের সাহেবজাদা মতি মিয়া মনসুর।
ঈদ জামায়াতের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার
০৩জুন২০১৯,সোমবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: আজ ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগরীর জামিয়াতুল ফালাহ জামে মসজিদে ঈদের জামায়াতের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন করলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম মহোদয়। এসময় পুলিশ কমিশনার মহোদয় উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, পবিত্র ঈদ উল ফিতর উপলক্ষে নিরাপত্তার স্বার্থে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলবৎ থাকবে। ঈদের জামায়াতে প্রবেশ ও বাহিরের পথে আর্চওয়ে গেইট, মেটাল ডিটেকটর মজুদ থাকবে। পোশাক পরিহিত পুলিশের সাথে বোম্ব ডিসপোজাল, সোয়াট, কাউন্টার টেরোরিজম ও সাদা পোশাক পরিহিত গোয়েন্দাসহ পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যেসকল নগরবাসী ঈদ উপলক্ষে শহর ছেড়েছেন তাদের বাসাবাড়ির নিরাপত্তার জন্য বিশেষ মোবাইল টিম মোতায়েন থাকবে। নগরীর প্রধান ঈদ জামায়াত জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদে ঈদের জামায়াতে সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে নজরদারি বহাল থাকবে। সর্বপরি সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সর্বোচ্চ সতর্ক থাকবে। যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় সিএমপির সামর্থ্য রয়েছে। নগরবাসীর আতংকিত হওয়ার কোন কারণ নাই। এ সময় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) আমেনা বেগম, বিপিএম-সেবা, সকল উপ-পুলিশ কমিশনার, অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাগণ ও সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
ক্ষুদে বার্তায় ছুটি মঞ্জুর ইতিহাস গড়লেন সিএমপি কমিশনার
০২জুন২০১৯,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ পুলিশে কল্যান মূলক পুলিশিং কার্যক্রমে এক নতুন মাত্রা যোগ করলেন পুলিশ কমিশনার জনাব মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম । এ বছর ঈদ-উল-ফিতর এর ০৮দিন পূর্বেই চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে কর্মরত ৪৩৫ জন ফোর্সের প্রত্যেকের মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে ঈদের ০৮ দিন্ পূর্বেই ছুটি নিশ্চিত করেন সিএমপি কর্তৃপক্ষ। গত ২০/০৫/২০১৯খ্রিঃ চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাসিক কল্যান প্যারেড এ পুলিশ কমিশনার মাহাবুবর রহমান, বিপিএম, পিপিএম ফোর্সের ঈদের প্রাপ্য ছুটি যথাসময়ে মোবাইল এসএমএস এ নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে নির্দেশ প্রদান করেন। যেই কথা সেই কাজ। বছরের পর বছর নিয়মের বেড়াজালে ছুটির আবেদন বিভিন্ন টেবিল হয়ে ঘুরে ৮/১০ দিন লেগে যেতো ছুটি মঞ্জুরে। এবার আবেদনের পরবর্তীতে দ্রুত সময়ে যেসব ফোর্সরা ছুটি পেয়েছেন তাদের মোবাইলে ছুটি মঞ্জুরের ক্ষুদে বার্তা প্রেরণ করে ছুটি প্রাপ্তি নিশ্চিত করা হয়। শুধু তাই নয় যারা ছুটি পায়নি তাদেরকে দ্রুত সময়ে মেসেজে জানানো হয়। কনস্টেবল নাদিম। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ লাইনে কর্মরত। চোখে মুখে আনন্দের ছাপ নিয়ে বলেন আমার ৮ বছরের চাকুরী জীবনে এই প্রথম ছুটি মঞ্জুরে অন্য রকম অনুভূতি লাগছে। মোবাইলে ছুটি মঞ্জুরের মেসেজ পেয়ে আমরা খুবই খুশি। কনস্টেবল নাদিম এর মতো আরও অনেক ফোর্স মোবাইল ফোনে ছুটির মেসেজ পেয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। এ সর্ম্পকে সিএমপির পুলিশ কমিশনার বলেন, অন্যান্য বছর কোন কনস্টেবল ঈদের ছুটির আবেদন করার জন্য বিভিন্ন ধাপ অতিক্রিম করতে হতো। এবার ছুটির আবেদন পাওয়ার সাথে সাথে ছুটি মঞ্জুরের আদেশ দেওয়া হয় এবং তা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছুটি নিশ্চিত করণ মেসেজ প্রেরণ করা হয়। এসংক্রান্তে একটা মোবাইল অ্যাপস্ তৈরী করার কথা ও তিনি ভাবছেন বলে জানান। তিনি আরও বলেন এ রকম ডিজিটাল উদ্যোগ বাংলাদেশ পুলিশ এর অন্যান্য ইউনিট এবং সরকারী ও বেসকারী প্রতিষ্ঠান সমূহ গ্রহণ করার সুযোগ রয়েছে।সুত্র সিএমপি ওয়েব।
নগরীর একে খান মোড়ে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার দায়ে তিন পরিবহনকে জরিমানা
১জুন,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঈদে ঘরেফেরা মানুষের কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া নেওয়ার দায়ে তিনটি পরিবহনকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। শুক্রবার (৩১ মে) বিকালে চট্টগ্রাম নগরীর একে খান মোড়ে অভিযান চালিয়ে এসব পরিবহনকে জরিমানা করেন বিআরটিএ-এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম মনজুরুল হক। তিন পরিবহন কোম্পানির মধ্যে চট্টগ্রাম-লক্ষ্মীপুর রুটে চলাচলকারী শাহী সার্ভিসকে ২৫ হাজার, একই রুটের জোনাকী পরিবহনকে ২৫ হাজার টাকা এবং কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ রুটের মামুন এন্টারপ্রাইজকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এস এম মনজুরুল হক বলেন, ঈদকে কেন্দ্র করে একে খান এলাকায় দূরপাল্লার বাস কাউন্টারগুলোতে যাত্রীদের কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে এমন অভিযোগ পেয়ে বিকালে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়। এসময় লক্ষ্মীপুরগামী শাহী সার্ভিসের কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায়, নিয়মিত ভাড়া ৩৩০ টাকার পরিবর্তে প্রতিটি টিকিট ৫০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে এখানে। একইভাবে পাশের জোনাকী সার্ভিসও লক্ষ্মীপুরের টিকিটের দাম রাখছে ৫০০ টাকা। এজন্য ওই দুটি পরিবহনকে ২৫ হাজার টাকা করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তিনি আরও বলেন, একই সময় ওই এলাকার কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহগামী মামুন এন্টারপ্রাইজের বাস কাউন্টারে গিয়ে দেখা যায়, তারা প্রতিটি টিকেট বিক্রি করছে ১২শ টাকায়; যেখানে কুষ্টিয়ার ভাড়া ৭৫০ টাকা। এ ঘটনায় মামুন এন্টারপ্রাইজকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
বেপরোয়া কাভার্ড ভ্যানের চাপায় ঝরে গেল ৩ প্রাণ
২৯মে,বুধবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর আকবর শাহ থানাধীন কর্নেলহাট এলাকায় একটি বেপরোয়া কাভার্ড ভ্যানের চাপায় ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও ৭ জন। গতকাল মঙ্গলবার রাত এগারোটার সময় কর্নেলহাট সিডিএ ১ নম্বর সড়কের মুখে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে একজন রাস্তার সবজি বিক্রেতা, একজন রিকশাচালক ও অপরজন সিএনজি ট্যাক্সির চালক। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রাত এগোরাটার দিকে এন কে ট্রেডিং অ্যান্ড ট্রান্সপোর্ট এজেন্সির একটি কাভার্ড ভ্যান (চট্টগ্রামেট্রো-ট-১১-৮৭৯৬) বেপরোয়া গতিতে ওই স্থানে পৌছাঁলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। এ সময় গাড়িটি পথচারীদের চাপায় দেয়। এতে প্রথম দুইজন নিহত হন, আহত হন কয়েকজন। এর পর ওখানে দাঁড়িয়ে থাকা একটি সিএনজি ট্যাক্সিকে (চট্টগ্রাম-থ-১২-৮৮৭০) চাপায় দেয়। এতে ট্যাক্সিটির চালকও ঘটনাস্থলে নিহত হন। আহতদের উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনাস্থল থেকে রাত ১২টায় প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিক মো. শফিকুল ইসলাম খান জানান, ঘটনার পর আকবর শাহ থানা পুলিশ গিয়ে কাভার্ডভ্যানের চালককে আটক করে, গাড়িটি জব্দ করা হয়। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। শফিকুল ইসলাম খান আরও জানান, সিডিএ ১ নম্বর সড়কের মুখে যেখানে দুর্ঘটনা ঘটেছে এটি একটি জনবহুল এলাকা, এখানে সব সময় মানুষজনের জটলা থাকে, এখান থেকেই যাত্রী নিয়ে সিএনজি ট্যাক্সি বিশ^ কলোনির দিকে যাতায়াত করে থাকে। এ কারণে দুঘটনায় ঘটনাস্থলে এত হতাহতের ঘটনা ঘটে।
কাউন্সিলর সাবের আহমেদ কারাগারে
২৮মে,সুজন আচার্য্য,আদালত প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একত্তর ডট কম: গণপিটুনিতে নিহত আওয়ামী লীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল হত্যার ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি কাউন্সিলর সাবের আহমেদকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। এ আসামী হাইকোর্ট থেকে জামিনে ছিলেন এতোদিন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আদালতে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। তার পক্ষে ফের জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবীরা। পরে মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধার আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানান মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. ফখরুদ্দীন চৌধুরী। তিনি বলেন, আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেছিলেন সোহেল হত্যা মামলার আসামি সাবের আহমদ। আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, গত ৭ জানুয়ারি পাহাড়তলী বাজারে গণপিটুনির ঘটনায় নিহত হন তুরন আওয়ামীলীগ নেতা মহিউদ্দিন সোহেল। তখন স্থানীয় ব্যবসায়ী ও পুলিশের পক্ষ থেকে মহিউদ্দিন সোহেলকে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ হিসেবে দাবি করা হয়। কিন্তু ৮ জানুয়ারি বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলন করে মহিউদ্দিন সোহেলের পরিবারের দাবি মহিউদ্দিন সোহেলকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।
মানবিক এক পুলিশ অফিসার পাহাড়তলী থানার ওসি মোঃ মইনুর রহমান
২৮মে,নিজেস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: জনগণের বন্ধু বাংলাদেশ পুলিশ। পুলিশের মূল কাজই হচ্ছে মানুষের সেবা করা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত বাংলাদেশ পুলিশের অবদান,ত্যাগ কোনো অংশে কম নয়। জনগণের নিরাপত্তায় সর্বদা বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করে যাচ্ছেন। ১৯৭৫ সালের ২০ শে আগষ্ট ও ১৯৭৫ সালের ৮ ই নভেম্বরের ঘোষনা অনুসারে এবং তদসূত্রে প্রাপ্ত সকল ক্ষমতাবলে তৎকালিন রাষ্ট্রপতি চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ অধ্যাদেশ ১৯৭৮ প্রণয়ন করার মধ্যদিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ ( সিএমপি) র যাত্র শুরু হয়। ঠিক তখনি প্রাচ্যের রানী হিসেবে খ্যাত পাহাড়ের পাদদেশে ১৯৭৮ সালের ৩০ নভেম্বর ৬ টি থানা নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের মধ্যে অন্যতম থানা হচ্ছে পাহাড়তলী থানা। পাহাড়তলী থানা এলাকার ইতিহাস রয়েছে অনেক, তৎমধ্যে উল্লেখ যোগ্য একটি ঘটনা হচ্ছে,মাষ্টারদা সূর্যসেন ও তাঁর দল বিটিশ বিরোধী আন্দোলনের সময় পাহাড়তলী থানায় অবস্থিত তৎকালিন আসাম বেঙ্গল রেলওয়ের চট্টগ্রাম কোষাগার লুন্ঠন করেন, ১৯৩২ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর সূর্যসেনের অন্যতম সহযোগী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার উক্ত থানা এলাকার ইউরোপিয়ান ক্লাবে সফল আত্রুমণ পরিচালনা করে গ্রেফতার এরানোর জন্য পটাসিয়াম সায়ানাইট খেয়ে আত্মাহুতি দেন। বিভিন্ন ঋষি, মনীষী,রাজনীতিবিধের পদচারনাকৃত এই পাহাড়তলী থানাকে নিয়ে ইতি মধ্যে লেখালেখি কম হয়নি। কখনো মাদক,কখনো নিরাপত্তা ,কখনো চুরি,ডাকাতি,খুন ,মারামারী সহ অনেক ঘটনা নিয়ে এই পাহাড়তলী থানা পুলিশের বিরুদ্ধে অনেক লেখালেখী হয়েছে খবরের কাগজে। কিন্তু চলিত বছরের ১২ মার্চ চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহাবুবর রহমানের জারীকৃত অফিস আদেশ অনুযায়ী নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মোঃ মইনুর রহমানকে পাহাড়তলী থানার ওসি হিসেবে পদায়ন করা হলে ওসি মইনুর উক্ত থানার দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে থানা এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বিভিন্ন উদ্যেগ গ্রহন করেন। শুধু তাই নয় তিনি এক মা ও তার নবজাতক শিশুকে বাচিয়ে এক মানবিক পুলিশ অফিসার হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সম্প্রতি ধামরাইয়ের গ্রাফিক্স টেক্্রটাইলস লিঃ এর ১৬০০০ পিস টি শার্ট নিয়ে বন্দরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা কাভার্ড ভ্যানের ড্রাইভার মো: মহিন সহ অপরাপর অপরাধীরা উক্ত টি শার্ট চুরি করে পালিয়ে গেলে,অভিযোগ পেয়ে পাহাড়তলী থানার ওসি মঈনুরের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম দ্রুত সময়ের মধ্যে আসামী গ্রেফতার করে ৩৫ লাক্ষ টাকা মূল্যের টি শার্ট উদ্দার করেন। প্রতি শুক্রবার এলাকার বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে জুমার সময় গিয়ে মাদক,সন্ত্রাস,অপরাধীদের বিরুদ্ধে জনসচেতন সৃষ্টির লক্ষ্যে ওসি মঈনুর গণসংযোগ করেন এবং বক্তব্য রাখেন। গাড়িতে নারী যাত্রীরা যৌন হয়রানীর শিকার হওয়া থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার উদ্দেশ্যে উক্ত থানাধীন অলংকার মোড়ে শহর এলাকা ও দূরপাল্লার গাড়িতে ওসি মঈনুর নিজে নারী যাত্রীদের সহিত ভালো আচরণ করার জন্য গাড়ির ড্রাইভার,হেলপার,কন্ট্রাক্টরদের অনুরোধ জানিয়ে প্রচার পত্র বিলি করেন। পরবর্ত্তীতে ১৬ এপ্রিল ওসি মঈনুর তার ফেইজবুকে ছবি সহ একটি মানবিক ঘটনার চিত্র তুলে ধরেন। চিত্রটি হচ্ছে,এক নারী যখন তার সদ্য প্রসবকৃত সন্তান নিয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে গিয়ে খরচ দিতে না পারায় হাসপাতাল কতৃপক্ষ তাকে সদ্যজাত শিশু সহ হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়,তখন পুলিশ খবর পেয়ে মা ও শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করান। এই মা ও শিশুর মুখের হাসিটাই আমার জন্য অনেক বড় উপহার। বর্তমানে চট্টগ্রাম নগরীর অতি ব্যস্ততম ও শিল্প এলকায় অবস্থিত পাহাড়তলী থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মো: মঈনুর রহমান ও অফিসার তদন্ত মো: ইমাম হাসানের নেতৃত্বে উক্ত থানা এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ,মাদক,জঙ্গিবাদ,সন্ত্রাস সহ সকল ধরনের অপরাাধ নিয়ন্ত্রণে উদ্যেগ নিয়েছেন যা ইতি মধ্যে পাহাড়তলী থানা এলাকায় ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। এই ধরনের মানবিক পুলিশ অফিসার দেশের সকল থানায় প্রয়োজন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর