চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত আরও ১৮১ জন
১৬নভেম্বর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে করোনা ভাইরাসে নতুন আক্রান্ত হয়েছেন ১৮১ জন। এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ২২ হাজার ৭২৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মৃত্যুবরণ করেনি কেউ। রোববার (১৫ নভেম্বর) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের ৮টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৫৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ১১৪টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ২৮৮টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৪৪৬টি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ৬২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ১৮ জন, বিআইটিআইডিতে ১৪ জন, চমেক ল্যাবে ৯৩ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ১১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৬ জন, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ৩৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ২২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে সবগুলো নমুনাই পজেটিভ আসে। অন্যদিকে কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৮টি নমুনা পরীক্ষা করে কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মেলেনি। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ১৮১ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১৬৯ জন এবং উপজেলায় ১২ জন।
রেলওয়ের জন্মদিনে যাত্রীরা পেলেন ফুল-চকলেট
১৫নভেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঘড়ির কাঁটা সকাল ৭ টা ছুঁই ছুঁই। চট্টগ্রাম রেলস্টেশন এলাকা সেজেছে বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুনে। মূলত গতরাত থেকেই সাজানো হচ্ছিল এসব। উদ্দেশ্য যাত্রীদের জানানো হবে অভ্যর্থনা। সেই সাথে কর্মকর্তাদের হাতে ফুল-চকলেট যাত্রীদের দেওয়ার জন্য। একে একে আসতে শুরু করে বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা। ফুল হাতে তুলে দিয়ে যাত্রীদের স্বাগতম জানান রেলের শীর্ষ কর্মকর্তারা। এতেই খুশিতে মেতেছে পুরো প্ল্যাটফরম। তবে শীর্ষ কর্মকর্তাদের কাছে পেয়ে অনেকে করে বসেছেন নানা অভিযোগ। রবিবার (১৫ নভেম্বর) বাংলাদেশ রেলওয়ের ১৫৮তম জন্মদিনকে ঘিরে এভাবে অভিমান আর ভালোবাসার উষ্ণতা ছড়িয়েছে চট্টগ্রাম রেলস্টেশনজুড়ে। দিবসটি প্রথমবারের মত পালিত হলেও করোনার কারণে আয়োজন ছিল সংক্ষিপ্ত। কিন্তু দিনটি ঘিরে আয়োজন যতই কম হোক না কেন ওই সময়টুকু মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে পূর্বাঞ্চল রেলওয়েতে কর্মরতদের জন্য। স্টেশনে আসা যাত্রীদের নিয়ে সবাই মেতে উঠেছেন খোশগল্পে। দায়িত্বশীলরা সচেতনামূলক নানা তথ্যও প্রচার করেছেন এই সুযোগে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানায়, প্রথমবারের মত আয়োজন হয়েছে এই দিবসটি। ছেড়ে যাওয়ার আগ মুহুর্তে প্রথমে রজনীগন্ধা ফুল উপহার দেওয়া হয় সুবর্ণ এক্সপ্রেসের যাত্রীদের। ট্রেনে চড়তে আসা শিশুদের দেওয়া হয়েছে চকলেট। কর্মকর্তারা বলছেন-রেলওয়ের জন্মদিনে যাত্রীদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নেওয়া হয়েছে এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) সরদার শাহাদাত আলী জানান, করোনা দুঃসময়ে দিবসটি প্রথমবারের মত শুরু হয়েছে। তাই কর্মসূচি সীমিত। আগামী বছর যদি পরিস্থিতি ভালো থাকে তাহলে বড় আকারে পালিত হবে দিবসটি। তিনি বলেন, দিবসটি ঘিরে বোঝা যায় আমরা একই প্ল্যাটফরমে কাজ করছি। তাই সবাই মিলেমিশে সততার সাথে কাজ করলে রেলকে অনেক দূরে এগিয়ে নেওয়া সম্ভব। যাত্রীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, রেল যাত্রীদের সম্পদ। আমরা এটাকে পরিস্কার-পরিছন্ন রাখার ব্যবস্থা করেছি। সাথে নতুন নতুন সংযোজন আসছে।' এর সবটুকুই রক্ষার জন্য যাত্রীরা সচেষ্ট থাকবে এই প্রত্যাশা করেন তিনি।
জানুয়ারীতে চসিক নির্বাচন, কাউন্সিলর প্রার্থীদের দৌঁড়ঝাপ : ভোটাররা নিস্ক্রিয়
১৫নভেম্বর,রবিবার,মো.এনামুল হক লিটন,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আগামী বছরের জানুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। বর্তমান প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজনের ১৮০ দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই স্থগিত হওয়া চট্টগ্রাম সিটির নির্বাচন করবে কমিশন। সম্প্রতি অনুষ্ঠিত নির্বাচন কমিশনের ৬৭তম বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান, কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর। এ সিটির স্থগিত হওয়া নির্বাচন করতে মূলত ১০ দিন সময় হলেই চলবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, প্রশাসকের মেয়াদ শেষ হওয়ার ৩০-৪০ দিন আগে নির্বাচন করা হবে। চলতি বছরের ২৯ মার্চ চসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার প্রকোপের কারণে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নির্বাচন সম্ভব না হওয়ায় ১৮০ দিনের জন্য প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন খোরশেদ আলম সুজন। অনিশ্চয়তার এই চসিক নির্বাচন অবশেষে জানুয়ারীতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এমন ঘোষনার প্রেক্ষিতে মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশী কাউন্সিলর প্রার্থীদের ব্যাপক দৌঁড়ঝাপ লক্ষ্য করা গেলেও ভোটাররা অনেকটা নিস্ক্রিয়। তবে সরকার দলীয় মনোনীত প্রার্থীদের চেয়ে সাবেক কাউন্সিলর ছিলেন এমন প্রার্থীদের তোড়জোড় বেশী চোখে পড়ছে। সূত্র মতে, কয়েকটি ওয়ার্ডে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থী হওয়া সাবেক কাউন্সিলরদের জনপ্রিয়তা অনেক বেশী। সুষ্ঠভাবে নির্বাচন হলে, তাঁরা আবারো কাউন্সিলর নির্বাচিত হবেন বলেও মন্তব্য করেন ওই সূত্রটি। এদিকে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ২নং জালালাবাদ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ও সমর্থন পুর্নবিবেচনার দাবি জানিয়েছেন, দলের সাধারণ নেতাকর্মী ও এলাকার জনসাধারণ। এ দাবিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পদস্থ নেতাকর্মীদের গণস্বাক্ষর সম্বলিত এলাকাবাসীর একটি আবেদন দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে পাঠানো হয়েছে। আবেদনে সদ্যবিদায়ি সাবেক কাউন্সিলর ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব সাহেদ ইকবাল বাবুকে কাউন্সিলর পদে পুনরায় দলীয় সমর্থন ও মনোনয়ন দেয়ার দাবি জানানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে সাবেক কাউন্সিলর মো. সাহেদ ইকবাল বাবু বলেন, আপনারা এলাকায় খোঁজ নিয়ে দেখলে, আমার জনপ্রিয়তার বিষয়ে সত্যতা পাবেন। অপরদিকে চসিক নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীদের তৎপরতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। স্ব-স্ব এলাকার প্রায় প্রতিটি অনুষ্ঠানে তাঁরা হাজির হয়ে ভোটারদের মন গলানোর চেষ্টা চালাচ্ছেন। করোনা ভাইরাস প্রকোপের কারণে এবারের চসিক নির্বাচনে জয় পরাজয়ের আগে কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি বাড়াতে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের সামনে এখন বড় চ্যালেঞ্জ। এ কারণে প্রার্থীরা নির্বাচনি প্রস্তুতি ও প্রচারণার পাশাপাশি তাঁরা জোর দিচ্ছেন মানুষকে কেন্দ্রমুখি ও সক্রিয় করার দিকে। তাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রার্থীরা নিস্ক্রিয় ভোটারদের মনোযোগী করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। প্রসঙ্গত: চট্টগ্রাম সিটিতে ভোটার সংখ্যা ১৯ লাখের বেশি। ২০১৫ সালের নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ছিল ৪৭ ভাগ। আর ২০১০ সালে ছিল ৫৫ ভাগ।
মৌলবাদী গোষ্ঠীর কাছে মাথা নত করবো না: নওফেল
১৫নভেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টকারী মৌলবাদী গোষ্ঠীর কাছে সরকার মাথা নত করবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। তিনি বলেছেন, এই বাংলাদেশে কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়া যেমনি আমরা সহ্য করবো না, তেমনি ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার নামে মানুষকে হেনস্থা করা, সামাজিকভাবে গুজব ছড়িয়ে সম্প্রদায়গুলোর মধ্যে ভীতি এবং শংকার পরিবেশ তৈরির অপচেষ্টা বরদাস্ত করবো না। শনিবার (১৪ নভেম্বর) রাতে শ্যামা পূজা উপলক্ষে নগরের গোলপাহাড় মহাশ্মশান পরিচালনা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপ-মন্ত্রী এসব কথা বলেন। সভায় উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী। নওফেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য সব ধর্মের সব অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার পাশাপাশি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে সচেষ্ট রয়েছে। ক্ষমতায় না থাকলেও রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগ সব সময় সনাতন ধর্ম থেকে শুরু করে সব ধর্মের মানুষের পাশে ছিলো। তিনি বলেন, এর আগে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার মতো নৃশংস ঘটনা ঘটানো হয়েছে। আমরা তার প্রতিবাদ করেছি। আমরা তা প্রতিহত করেছি। এখন আমাদের সরকার ক্ষমতায়। সুতরাং কারও কোনো সংকটের, কারও ভয়ের কোনো কারণ নেই। নওফেল বলেন, দু’একদিন আগে আমরা দেখলাম একটি খুবই ছোট মৌলবাদী দলের একজন নেতা মঞ্চে দাঁড়িয়ে মঞ্চ কাঁপাচ্ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ব্যাপারে কথা বলছিলেন। মঞ্চ কাঁপিয়ে, ভয়-ডর সৃষ্টি করে বড় গলায় যারা কথা বলছেন, তাদের উদ্দেশে বলতে চাই, মঞ্চ বেশি কাঁপাবেন না। মঞ্চ বেশি কাঁপালে পায়ের নিচের মাটিও নরম হয়ে যাবে। তিনি বলেন, আপনাদের হুমকি-ধমকি এগুলো বন্ধ করুন। বাংলাদেশের মানুষ গণতন্ত্রকে শ্রদ্ধা করে। গণতান্ত্রিক রাজনীতিতে আপনারা আছেন- কিন্তু মৌলবাদী কথা বলা, জনমনে শংকা এনে জাতীয় প্রতিষ্ঠান এবং জাতির পিতাকে নিয়ে কথা বলার ধৃষ্টতা দেখাবেন না। আপনারা বাড়াবাড়ি বন্ধ করুন। নওফেল বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগসহ বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের কাছে দ্বীনে ইসলাম সুরক্ষিত আছে। আপনাদের কাউকে ঠিকাদারি দেওয়া হয়নি। এই বাংলাদেশের মানুষ অসাম্প্রদায়িক মানুষ। বাংলার মুসলমান, বাংলার হিন্দু, বাংলার বৌদ্ধ, বাংলার খৃষ্টান অসাম্প্রদায়িক ধর্ম নিরপেক্ষ শান্তিপূর্ণ বাংলাদেশে বিশ্বাস করে। আলোচনা সভা শেষে সনাতন সম্প্রদায়ের অন্যতম বড় ধর্মীয় উৎসব শ্যামা পূজা উপলক্ষে পূজা মণ্ডপে আসা দর্শনার্থীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন শিক্ষা উপ-মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। মহাশ্মশান পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাইকেল দে’র সভাপতিত্বে এবং বিশ্বনাথ দাশ বিশু ও সুচিত্রা গুহ টুম্পার যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্বামী লক্ষী নারায়ণ কৃপানন্দ পূরী মহারাজ, সাবেক কাউন্সিলর মো. গিয়াস উদ্দিন, অধ্যাপক স্বদেশ চক্রবর্তী, মহাশ্মশান পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজল কান্তি দেব, সহ-সভাপতি সৌমিত্র চক্রবর্তী, জগন্নাথ মিত্র, দেবাশীষ নাথ দেবূ, কাউন্সিলর প্রার্থী পুলক খাস্তগীর, রুমকি সেন গুপ্ত, আঞ্জুমান আরা আঞ্জু, অমিত চৌধুরী প্রমুখ।
চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত আরও ৬৩ জন
১৫নভেম্বর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে ৯৮৬টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২২ হাজার ৫৪৫ জন। এইদিন চট্টগ্রামে করোনায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৪ নভেম্বর) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, এইদিন চট্টগ্রামে ৬টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়। এতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৪৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ৭৩৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় ৬ জন। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৫ জন করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। এইদিন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাব, ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাব এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের কোনো নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি। এছাড়া শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ৮০টি নমুনা পরীক্ষা করে ১১ জন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ২২টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ৬৩ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এইদিন নমুনা পরীক্ষা করা হয় ৯৮৬টি। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৫৬ জন এবং উপজেলায় ৭ জন।
কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য হলেন নিয়াজ মোর্শেদ এলিট
১৪নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সদ্য ঘোষিত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সিসি মেম্বার হিসেবে মনোনীত হয়েছেন তরুণ রাজনীতিক নিয়াজ মোর্শেদ এলিট। শনিবার (১৪ নভেম্বর) যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সন্ধ্যায় ঘোষিত যুবলীগের এই কেন্দ্রীয় কমিটিতে ঠাঁয় পেয়েছেন ২০১ জন। আর সিসি মেম্বার হিসেবে রাখা হয়েছে ২১ জনকে। নিয়াজ মোর্শেদ এলিট জানান, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে সিসি মেম্বার হিসেবে মনোনীত করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। তিনি বলেন, কমিটিতে জায়গা দিয়ে দেশের জন্য, দলের জন্য কাজ করার যে সুযোগ তারা দিয়েছেন- তা কাজে লাগিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে সচেষ্ট হবো। বঙ্গবন্ধু কন্যার হাতকে শক্তিশালী করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাবো। নগর ছাত্রলীগের সাবেক নেতা নিয়াজ মোর্শেদ এলিট রাজনীতির পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যবসায়িক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ১৯৮৩ সালের ১০ অক্টোবর চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার খৈয়াছরা ইউনিয়নের মসজিদিয়া গ্রামে মনিরুল ইসলাম ইউসুফ ও লুৎফুর নাহারের ঘরে জন্ম নিয়াজ মোর্শেদ এলিটের। তিনি ২০০০ সালে চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০২ সালে ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। ২০০৬ সালে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ডিগ্রি নেন।
চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে নতুন আক্রান্ত ১৪৬ জন
১৪নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে নতুন আক্রান্ত হয়েছেন আরও ১৪৬জন। এখন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ২২ হাজার ৪৮২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুবরণ করেনি কেউ। শুক্রবার (১৩ নভেম্ববর) রাতে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, চট্টগ্রামের ৮টি ল্যাবে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ৭৫টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ২৮৭টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৩৭৭টি এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ৮৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ১৬ জন, বিআইটিআইডিতে ১১ জন, চমেক ল্যাবে ৫৯ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৬৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ২১ জন, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১৫০টি নমুনা পরীক্ষা করে ২৯ জন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ২৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জন করোনা আক্রান্ত রোগী পাওয়া গেছে। এইদিন জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরি (আরটিআরএল) এবং কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের কোনো নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ১৪৬ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ১৩৫ জন এবং উপজেলায় ১১ জন।
মনসুরাবাদ পুলিশ লাইন্সের অস্ত্রাগার উদ্বোধন
১৪নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: হালিশহর থানাধীন উত্তর হালিশহর পুলিশ ফাঁড়ি এবং মনসুরাবাদ পুলিশ লাইন্সের অস্ত্রাগার উদ্বোধন করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের হালিশহর থানাধীন নবনির্মিত উত্তর হালিশহর পুলিশ ফাঁড়ি ও মনসুরাবাদ পুলিশ লাইন্সের অস্ত্রাগার উদ্বোধন করেন তিনি। নবনির্মিত এই পুলিশ ফাঁড়ি উদ্বোধনের ফলে এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নতির পাশাপাশি স্থানীয় জনসাধারণের পুলিশিং সেবা প্রাপ্তি আরও সহজতর ও গতিশীল হবে বলে আশা প্রকাশ করেন ড. বেনজীর আহমেদ। ফাঁড়ি উদ্বোধন শেষে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ মনসুরাবাদ পুলিশ লাইন্সের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড পরিদর্শন করেন এবং একটি বৃক্ষ রোপণ করেন। এসময় পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সালেহ্ মোহাম্মদ তানভীর, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) আমেনা বেগম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন) এস এম মোস্তাক আহমেদ খান, উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মো. আমির জাফর ও উপ-পুলিশ কমিশনার (পশ্চিম) মো. ফারুক উল হক উপস্থিত ছিলেন।
২০ হাজার ইয়াবাসহ দুই পাচারকারী আটক
১৩নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কর্ণফুলী টোল প্লাজা এলাকা থেকে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ দুই পাচারকারীকে আটক করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। কক্সবাজার থেকে মিনিট্রাকে করে ইয়াবাগুলো নিয়ে নারায়ণগঞ্জ যাচ্ছিলো দুই পাচারকারী। শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) ভোরে তাদের আটক করা হয়। আটক দুইজন হলো- মনির ও সুমন। তারা মিনিট্রাকের চালক ও সহকারী বলে জানা গেছে। সিআইডি চট্টগ্রামের পরিদর্শক ফজলুল কাদের চৌধুরী নিউজ একাত্তরকে বলেন, কর্ণফুলী টোল প্লাজা এলাকা থেকে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ মনির ও সুমন নামে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। পরিদর্শক ফজলুল কাদের চৌধুরী বলেন, আটক দুইজন জানিয়েছে- তারা কক্সবাজার থেকে খাদিজা নামে একজনের কাছ থেকে ইয়াবাগুলো নিয়ে নারায়ণগঞ্জে শাহজাহান নামে আরেকজনের কাছে নিয়ে যাচ্ছিলো। খালি মিনিট্রাক নিয়ে মনির ও সুমন নারায়ণগঞ্জ থেকে কক্সবাজার গিয়েছিল ইয়াবা নিয়ে আসার জন্য।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর