মিরসরাইয়ে আটক ৫ নারী ছিনতাইকারী
০৭নভেম্বর,শনিবার,মিরসরাই প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ছিনতাইয়ের সময় পাঁচ নারী ছিনতাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হল- কহিনুর আক্তার, সৈয়দা বেগম, রোজিনা বেগম, রুনা আক্তার ও তাছলিমা আক্তার। শনিবার (৭ নভেম্বর) উপজেলার বারইয়ারহাট পৌরবাজারে এক মহিলার চেইন ছিনতাইয়ের সময় স্থানীয়রা তাদের আটক করে। পরে তাদের জোরারগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। জোরারগঞ্জ থানার পরিদর্শক (এসআই) হেলাল উদ্দিন ফারুকী জানান, আটককৃত পাঁচ নারী ছিনতাইকারী দলের সদস্য। উপজেলার বারইয়ারহাট পৌরবাজারে এলাকায় এক নারীর গলার চেইন ছিনতাই করার সময় স্থানীয় লোকজন এক ছিনতাইকারীকে আটক করে। পরে তার দেয়া তথ্যমতে অপর চারজনকে আটক করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে স্থানীয়রা তাদের পুলিশে সোপার্দ করে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী নারী বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
রাজনীতির বাতিঘর বাদলকে হারানোর দিন
০৭নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্বপ্ন দেখতেন, স্বপ্ন দেখাতেন। স্বপ্ন দেখতেন একটি স্বাধীন, দারিদ্র্যমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের। লাল-সবুজের ক্যানভাসে আঁকতেন একটি সৃজনশীল ও রুচিশীল সমাজের ছবি। যেখানে থাকবে না কোনো হিংস্রতা, শত্রুতা, লুটপাট, দুর্নীতি, বিচারহীনতা। তার চিন্তা মননে ছিল না সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প কিংবা জঙ্গিবাদের আখ্যান। তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা মইন উদ্দিন খান বাদল। দেশের রাজনীতির একজন বাতিঘর। রাজনীতির ঐতিহাসিক ঘটনাগুলোর অন্যতম সাক্ষী। কোনো বাধাই তাকে দাবিয়ে রাখতে পারেনি। আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রসর হতেন সাহসিকতার সঙ্গে। এগিয়ে এসেছেন দেশের নানা সঙ্কটেও। স্বাধীনতার পক্ষকে ঐক্যবদ্ধ রাখতে কাজ করে গেছেন আমৃত্যু। বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম-৮) আসনের প্রয়াত সংসদ সদস্য মইন উদ্দিন খান বাদলের আজ প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। চট্টগ্রামের অধিকার ও উন্নয়ন নিয়ে আমৃত্যু লড়ে যাওয়া বর্ষীয়ান এ নেতা গেল বছরের ৭ নভেম্বর ভারতের বেঙ্গালোর দেবী শেঠীর নারায়াণ হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুকে বরণ করেন। যদিও বা বোয়ালখালীবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি কালুরঘাট সেতু তৈরি না হওয়ার আক্ষেপ নিয়েই চিরবিদায় নিতে হয়েছিল বাদলকে। যে সেতুর জন্য তিনি সংসদে দাঁড়িয়ে পদত্যাগেরও ঘোষণা দিয়েছিলেন। বোয়ালখালী উপজেলার সারোয়াতলীতে প্রয়াত সাংসদের কবর প্রাঙ্গণে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে আজ শনিবার বিকেলে তাকে স্মরণ করা হবে। এর মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ জাসদ বোয়ালখালী উপজেলা কমিটির উদ্যোগে বিকেল ৩টায় খতমে কোরআন, দোয়া মাহফিল ও স্মৃতিচারণ। ছাত্রলীগের রাজনীতি থেকে উঠে আসা বাদল ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন। বাঙালিদের ওপর আক্রমণের জন্য পাকিস্তান থেকে আনা অস্ত্র চট্টগ্রাম বন্দরে সোয়াত জাহাজ থেকে খালাসের সময় প্রতিরোধের অন্যতম নেতৃত্বদাতা ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর মৌলভী সৈয়দের সঙ্গে কাজ করেছেন। মুক্তিযুদ্ধ-পরবর্তী সমাজতান্ত্রিক রাজনীতির প্রতি আকৃষ্ট হন বাদল। জাসদ, বাসদ হয়ে পুনরায় জাসদে ফিরেন। আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে ১৪ দল গঠনেও তার ভূমিকা ছিল উল্লেযোগ্য। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি বোয়ালখালীর সারোয়াতলী গ্রামে জন্ম মইন উদ্দিন খান বাদলের। চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চাঁন্দগাও) আসন থেকে মইন উদ্দিন খান বাদল ২০০৮ সাল থেকে টানা তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ছিলেন একাদশ জাতীয় সংসদের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) একাংশের কার্যকরী সভাপতির দায়িত্বও পালন করেছেন। সংসদ সদস্য মইন উদ্দিন খান বাদল ছিলেন জাতীয় সংসদ অধিবেশনের প্রাণ। তথ্যবহুল, জোরালো ও যুক্তি-নির্ভর বক্তব্য নিয়ে সংসদ অধিবেশনে উপস্থিত হতেন। দেশের রাজনীতিতে তত্ত্ব ও উদ্ধৃতি দিয়ে নিজের বক্তব্য উপস্থাপনের ভিত্তি রচনা করতেন, যা স্পর্শ করত মানুষের মর্মকে। সংসদে ও সংসদের বাইরে টকশোতেও অনলবর্ষী বক্তা হিসেবে সুখ্যাতি ছিল প্রয়াত এ রাজনীতিকের। গত বছরের ১৮ অক্টোবর বাংলাদেশ-ভারত-পাকিস্তান পিপলস ত্রিদেশীয় কমিটির সেক্রেটারি জেনারেল হিসেবে কমিটির সভায় যোগ দিতে বাদল কলকাতা যান। এর এক সপ্তাহের মাথায় অর্থাৎ ২৫ অক্টোবর চেকআপ করাতে যান বেঙ্গালুরু নারায়ণা হৃদয়ালয়ে। সেখানে এনজিওগ্রামের পরে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো ব্রেন স্ট্রোক করেন এবং তার নিউমোনিয়া ধরা পড়ে। তখনই তাকে আইসিইউতে রাখা হয়। পরে ৭ নভেম্বর ভোরে মারা যান। মুক্তিযোদ্ধা, বর্ষীয়ান রাজনীতিক ও পার্লামেন্টারিয়ান মইন উদ্দিন খান বাদলের হাত দিয়েই ঐতিহ্যবাহী বোয়ালখালী উপজেলার আধুনিকতার ছোঁয়া। দীর্ঘদিন সাংসদ থাকার সুবাদে নিজ এলাকার আমূল উন্নয়ন করেছেন। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সড়ক, সেতু, নতুন সড়কের উন্নয়ন, মাদ্রাসা, মসজিদ, সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের উন্নয়নে বোয়ালখালীকে করেছেন সমৃদ্ধ। তার সংসদীয় আসনের আংশিক শহরাঞ্চল। এই অংশে পাঁচলাইশের আশেকানে আউলিয়া ডিগ্রি কলেজ সরকারিকরণ, ষোলশহরে টেক্সটাইল অ্যান্ড জুট ইনস্টিটিউট করা, মোহরায় ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা ব্যয়ে বঙ্গবন্ধু মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হয় তার হাত ধরেই। এ ছাড়াও চান্দগাঁওতে ১ হাজার কর্মজীবী নারীর বাসস্থান নির্মাণ ও অত্যাধুনিক সরকারি গুদাম নির্মাণ হয়েছে। পাশাপাশি মসজিদ, মন্দির, মাদ্রাসায় দেওয়া হয়েছিল ব্যাপক অনুদান। টানা ১১ বছর সংসদ সদস্য থাকা অবস্থায় বোয়ালখালীতে প্রায় ২১৩ কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরণ করেছিলেন সাংসদ মইন উদ্দিন খান বাদল। তার আমলে প্রায় ৫০টির মতো প্রাইমারি স্কুল পাকা করা হয়। বোয়ালখালীতে প্রথমবারের মতো ৮০ কোটি টাকা ব্যয়ে কর্ণফুলী সংলগ্ন এলাকার ভাঙন রোধে বাঁধ নির্মাণ হয়। অগ্নিদুর্ঘটনা রোধে বোয়ালখালীতে ফায়ার স্টেশন ও এলাকার প্রত্যেকটি হাইস্কুলে পাকা ভবন করা হয়েছে। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য মুক্তিযুদ্ধ কমপ্লেক্স নির্মাণ ও কধূরখীল উচ্চ বিদ্যালয়কে সরকারীকরণ করা হয়েছে বাদলের হাত ধরেই। ডিসেম্বরের মধ্যে কালুরঘাট রেল কাম সড়ক সেতু নির্মাণ না হলে সংসদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছিলেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মইন উদ্দিন খান বাদল। তাকে আর সে সময় পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়নি সেতুও যেমন নির্মাণ হয়নি তেমনি তিনিও এই দুনিয়ার সব হিসাব চুকিয়ে চলে যান পরপারে। তবে তিনি এখনো চট্টগ্রামের চান্দগাঁও-বোয়ালখালীবাসীর মন মন্দিরে রয়েছেন সযত্নে।- সিভয়েস
চট্টগ্রামে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের গণঅবস্থান
০৭নভেম্বর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ধর্ম অবমাননার অভিযোগে লালমনিরহাট ও কুমিল্লায় সংখ্যালঘুদের আক্রমণ, অগ্নিসংযোগ, শিক্ষার্থীদের ছাত্রত্ব বাতিলের প্রতিবাদে এবং জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠনের দাবিতে চট্টগ্রামে গণঅবস্থান কর্মসূচি পালন করছে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। শনিবার (৭ নভেম্বর) সকাল পৌনে ১০টায় চট্টগ্রাম নগরের নিউমার্কেট মোড় এলাকায় গণঅবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন তারা। এদিকে সবধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় সতর্ক অবস্থানে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ইতোমধ্যে নিউমার্কেট এলাকায় হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের হাজার খানেক নেতাকর্মী গণঅবস্থান কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছেন। সরেজমিনে দেখা গেছে, রাস্তায় অবস্থান নিয়েছেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রাণা দাশগুপ্তসহ সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা। তারা ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার, ৭২ এর সংবিধান ফিরিয়ে দাও, সাম্প্রদায়িক শক্তির কালো হাত ভেঙে দাও গুঁড়িয়ে দাও ইত্যাদি স্লোগান দিচ্ছেন। গত মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রাণা দাশগুপ্ত এ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। সেদিন তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ফ্রান্সের ঘটনাকে পুঁজি করে সাম্প্রদায়িক শক্তি বাংলাদেশের ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত অভিসন্ধির বাস্তবায়ন করছে। দেশের সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠীর পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। তাই সেখান থেকে ফিরে আসতেই এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।
করোনামুক্ত হলেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ
০৬নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রায় এক মাস কোভিড-১৯ এর সাথে লড়াই করে অবশেষে সুস্থ হলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমিপ। ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চতুর্থবারের মত দেয়া তার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে বলে শুক্রবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে বিষয়টি নিউজ একাত্তরকে নিশ্চিত করেছেন ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের এপিএস মোহাম্মদ নূর খান। তিনি আরও জানান, গত ৭ অক্টোবর চট্টগ্রাম বিআইটিআইডি হাসপাতালে প্রথমবারের মত করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের। এরপর প্রথমে চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকলেও পরে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছায় ঢাকা সিএমএইচ এ তাকে ভর্তি করানো হয়। এখানে ভর্তি থাকা অবস্থায় চার দফা কোভিড-১৯ পরীক্ষার জন্য নমুনা নেয়া হয়। পরপর তিনবার ফলাফল পজেটিভ আসলেও চতুর্থবারের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল আসে নেগেটিভ। শুক্রবার সকালে সিএমএইচ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে জানায় এবং সহসা হাসপাতাল থেকে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বাসায় গিয়ে নির্দিষ্ট মেয়াদে কোয়ারাইন্টাইনে থাকবেন বলেও নূর খান নিউজ একাত্তরকে নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া কোভিড-১৯ মুক্ত হওয়ায় ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ, দলের নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্খদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।
ফটিকছড়িতে অস্ত্রসহ ৪ সন্ত্রাসী আটক
০৬নভেম্বর,শুক্রবার,ফটিকছড়ি প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফটিকছড়ি বিবিরহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে Rapid Action Battalion (Rab)। তাদের কাছ থেকে একটি বিদেশি অস্ত্র ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (৬ নভেম্বর) Rab এর পক্ষ থেকে তাদের আটকের বিষয়টি জানানো হয়। আটক চারজন হলো- মো. মোহসিনুল করিম ইরফান (২০), আব্দুর রহিম জিহান (২৩), মো. শাওন (১৮) ও মো. মঈনুল হাসান হারেছ (১৮)। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান মামুন নিউজ একাত্তরকে বলেন, বিবিরহাট এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৪ সন্ত্রাসীকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে একটি বিদেশি অস্ত্র ও ছয় রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের ফটিকছড়ি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
চট্টগ্রামে সবজির বাজারে কমেনি উত্তাপ
০৬নভেম্বর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে গত একমাস ধরে লাগামহীন সবজি সহ নিত্যপণ্যের বাজার। এসেছে শীতকালীন সবজিও। কাঁচাবাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়েও নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না মূল্যের ঊর্ধ্বগতি। শুক্রবার (০৬ নভেম্বর) নগরের রেয়াজউদ্দিন বাজার ও চকবাজার এবং অভিজাত কাঁচাবাজার হিসেবে পরিচিত কাজির দেউড়ি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সবজি বিক্রি হচ্ছে চড়া দামেই। বাজারে আলু বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৪৫ টাকায়। মিষ্টি কুমড়া ৫০ টাকা, তিতকরলা ৮০ টাকা, ঝিঙ্গা ৯০ টাকা, টমেটো ১০০ টাকা, শসা ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৯০ টাকা, পটল ৮০ টাকা, লাউ ৫০ টাকা, বেগুন ৭০-৮০ টাকা, বরবটি ৮০-১০০ টাকা, গাজর ১০০ টাকা, কাঁচা পেঁপে ৪০ টাকা, ছোট কচু ৬০-৭০ টাকা, ফুলকপি ৮০ টাকা, বাঁধাকপি ৬০ টাকা, মুলা ৬০ টাকা, শিম ১০০-১১০ টাকা, কাঁচামরিচ ১৫০ টাকা। এদিকে মাছের বাজারে রুই প্রতিকেজি ১৫০-২০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৩০ টাকা, কাতাল ১২০ টাকা, চিংড়ি আকার ভেদে ৪০০-৫০০ টাকা, রূপচাঁদা ৬০০ টাকা, কোরাল ৫০০ টাকা, লইট্যা ১১০ টাকা, পাবদা ৪৫০ টাকা, কই ৪৫০ টাকা, শিং ৫০০ টাকা, পোপা ২৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। মাংসের বাজারে খাসির মাংস ৮০০ টাকা, হাড় ছাড়া গরুর মাংস ৬৫০ টাকা এবং হাড়সহ গরুর মাংস ৫০০ টাকা, ব্রয়লার মুরগি ১২০ টাকা, লেয়ার মুরগি ২২০ টাকা, সোনালী মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৯০-২০০ টাকায়।
ভোগান্তিতে ওয়ার্ডবাসী, সহসা চসিক নির্বাচনের পক্ষে মত জোরালো হচ্ছে
০৫নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,মো.এনামুল হক লিটন,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার প্রকোপের কারণে স্থগিত থাকা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচন সহসা অনুষ্ঠানের পক্ষে মত জোড়ালো হচ্ছে। সামনে করোনা পরিস্থিতি বেড়ে গেলে চসিক নির্বাচন আবারো পিছিয়ে যেতে পারে এমন আশঙ্কায় সহসা নির্বাচনের পক্ষে মত দিচ্ছেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। চলতি বছরের ২৯ মার্চ চসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনার প্রকোপের কারণে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নির্বাচন সম্ভব না হওয়ায় ১৮০ দিনের জন্য প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন খোরশেদ আলম সুজন। নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে চসিক প্রশাসক ও বর্ষীয়ান এই আওয়ামী লীগ নেতা নাগরিক সেবা নিশ্চিত ও নগর উন্নয়নে ব্যাপকভাবে কাজ করে প্রসংশিত হয়েছেন সর্বমহলে। তার কর্মকান্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সন্তোষ বলে দলের নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে। তবে নগর সেবায় প্রশাসকের তৎপরতা লক্ষ্যনীয় হলেও ওয়ার্ডের বাসিন্দারা নির্বাচিত এবং তাদের মনোনীত কাউন্সিলর বা জনপ্রতিনিধি না থাকায় নানা রকম ভোগান্তিতে পড়ছে বলে মত প্রকাশ করেছেন। চসিক নির্বাচন বিলম্বের কারণে ওয়ার্ডবাসীর ভোগান্তি বাড়ছে মন্তব্য করে ২নং জালালাবাদ ওয়ার্ডের বাসিন্দা হারুন মিয়া বলেন, তাদের সমস্যার কথা তারা কাউকে জানাতে পারছেন না। প্রশাসক হিসেবে খোরশেদ আলম সুজন নিয়োগ পাওয়ার পর তিনি নগরীর ৪১টি ওয়াডর্কে তিন ভাগে বিভক্ত করে তিনজন কর্মকর্তার মাধ্যমে ৪১টি ওয়ার্ডের কার্যক্রম তদারকির কাজ চালাচ্ছেন। ফলে তিনজন কর্মকর্তা দিয়ে পরিচালিত ৪১টি ওয়াডের নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না বলে মনে করছেন নগরবীদরা। এ অবস্থায় বিভিন্ন ওয়ার্ডের বাসিন্দারা সাবেক কাউন্সিরদের বাসা-বাড়িতে গিয়ে ভীড় করতে দেখা যাচ্ছে। সরেজমিনে গতকাল চসিক ৩৬ নং গোসাইডাঙ্গা নিমতলা ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কার্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, ওয়ার্ডের সেবাপ্রার্থী জনসাধারনের কোনো ভীড় নেই। ওয়ার্ড কার্যালয়ের ১টি রুমে সচিব ও অপর ১টি রুমে পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা রয়েছেন। কাজ করতে তাদের তেমন কোনো সমস্যা না হলেও জন্মনিবন্ধন ও সার্টিফিকেট সংক্রান্ত বিষয়ে কিছু-কিছু সমস্যার কথা জানালেন ওয়ার্ড সচিব জাহাঙ্গীর আলম। তবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাবেক কাউন্সিলরের সহযোগীতা চাইলে, সাড়া পান বলে জানান ওই কর্মকর্তা। অপরদিকে সাবেক কাউন্সিল হাজ্বী জাহাঙ্গীর আলমের ব্যক্তিগত অফিস ও বাসায় গিয়ে সেবাপ্রার্থী ওয়ার্ডবাসীদের ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। জানতে চাওয়া হলে, সাবেক কাউন্সিলর ও আসন্ন চসিক নির্বাচনে আবারো দলীয় মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী এ প্রতিবেদক এনামুল হক লিটনকে জানান, আমি এ ওয়ার্ডের চার-চার বারের নির্বাচিত কাউন্সিলর ছিলাম। এবারো দলথেকে আমাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আমার কাছে তো ওয়ার্ডবাসী আসবেই। যতটুকু পারছি ব্যক্তিগতভাবে তাদের সহযোগীতা করছি। এসব ব্যাপারে বিরক্ত নন, আরো খুশী বলে মন্তব্য করে তিনি সহসা চসিক নির্বাচন (অর্থাৎ) প্রশাসকের ১৮০ দিনের মধ্যেই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়ে গেলে ওয়ার্ডবাসীদের সুবিধা হবে বলে জানান। অপরদিকে ৭নং পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ড ও ২নং জালালাবাদ ওয়ার্ড অফিসে গিয়েও একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। ৭নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও আসন্ন নির্বাচনে দলীয় মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী আলহাজ¦ মো. মোবারক আলীকে তাঁর ব্যক্তিগত অফিসে ওয়ার্ডবাসীদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে আলাপ-আলোচনা করতে দেখা গেছে। এছাড়া নির্বাচনী প্রস্তুতি নিয়েও মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মাঠে-ময়দানে সরব উপস্থিতি চোখে পড়ছে। প্রসঙ্গত: করোনা ভাইরাস প্রকোপের কারণে আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে জয় পরাজয়ের আগে মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের সামনে এখন বড় চ্যালেঞ্জ কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি বাড়ানো। এ কারণে প্রার্থীরা নির্বাচনি প্রচারণার পাশাপাশি তারা জোর দিচ্ছেন মানুষকে কেন্দ্রমুখি করার দিকে। তাই বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রার্থীরা ভোটারদের মনোযোগী করতে ব্যস্ত। চট্টগ্রাম সিটিতে ভোটার সংখ্যা ১৯ লাখের বেশি। ২০১৫ সালের নির্বাচনে ভোট পড়ার হার ছিল ৪৭ ভাগ। আর ২০১০ সালে ছিল ৫৫ ভাগ।
সঠিক বিনিয়োগের মাধ্যমে নিজের এবং সরকারের লাভবান হওয়া সম্ভব
০৫নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস চট্টগ্রাম এবং জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয় চট্টগ্রামের যৌথ উদ্যোগে অনিবাসী বাংলাদেশীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করণসভা অনুষ্ঠিত হয়। আজ বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসের সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তর বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক শাহানারা বেগম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এসময় জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি, অফিস চট্টগ্রামের উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সঞ্চয় অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জাবেদ ইসলাম, সুদীপ্তা চৌধুরী, অপর্ণা সূত্রধর, জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি দপ্তরের জনশক্তি জরিপ কর্মকর্তা আনার কলিসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে জানিয়েছেন, প্রবাসীদের উপার্জনের টাকা জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে বিনিয়োগ করতে পারেন। এতে প্রবাসী নিজেও লাভবান হবেন। অপরদিকে সরকারও লাভবান হবেন। তিনি বলেন, অনেক সময় প্রবাসীরা কষ্টার্জিত টাকা সঠিকভাবে বিনিয়োগ করতে পারেন না। সঠিক বিনিয়োগের মাধ্যমে নিজের এবং সরকারের লাভবান হওয়া সম্ভব। সভাপতির বক্তব্যে জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি, অফিস চট্টগ্রামের উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার জানিয়েছেন, বর্তমানে ১ কোটি ৩০ লক্ষ প্রবাসী রয়েছেন। প্রবাসীরা গত অর্থবছরে ১৮ কোটি বিলিয়ন ইউএস ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। এবছর ২০ কোটি বিলিয়ন ইউএস ডলার রেমিট্যান্সের টার্গেট রয়েছে। প্রবাসীরা বাংলাদেশের বেকাত্বের সমস্যা দূর করার পাশাপাশি অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতেও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছেন। উপপরিচালক মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার জানিয়েছেন, বৈধপথে বিদেশ গমনের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক পন্থা না জানার কারনেই অনেকে যাত্রপথে বিপদগ্রস্থ হয় এবং অভিবাসনের প্রক্রিয়াটি থাকে ত্রুটিপূর্ণ। এতে কর্মীর পাশাপাশি দেশও বঞ্চিত হয় মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন থেকে। সে লক্ষ্যে সরকার প্রবাসীদের বিদেশ গমনের পূর্বে তিন দিনের অরিয়েন্টেশন কর্মশালার আয়োজন করে থাকে। এ কর্মশালায় প্রবাসীদের সঞ্চয়ের বিষয়ে জোরালো আহ্বান জানানোর আহ্বান জানানো হয়। প্রবাসীদের সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করা প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের একটি কাজ উল্লেখ করে উপপরিচালক আরো জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরের প্রবাসী কল্যাণ ডেক্স রয়েছে। দায়িত্বরত কর্মকর্তাগণ প্রবাসীদের পাঠানো অর্থের একটি অংশ সরকারের জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে বিনিয়োগের পরামর্শ দিবেন বলে মন্তব্য করেন। মোহাম্মদ জহিরুল আলম মজুমদার আরো জানিয়েছেন, প্রবাসী কর্মীবান্ধব সরকার অভিবাসনে স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নিশ্চিতকল্পে ১৬ টি অভিবাসনপ্রবণ দেশের সার্ভিজ চার্জ কমিয়ে বিদেশ গমোনেচ্ছুদের সাধ্যের মধ্যে রেখেছেন।
চট্টগ্রাম জেলার চার থানার ওসিকে বদলি
০৫নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম জেলার চার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) বদলি করা হয়েছে। ওসি বদলি হওয়া চার থানা হলো-হাটহাজারী, ফটিকছড়ি, পটিয়া ও আনোয়ারা। বুধবার (৪ নভেম্বর) পুলিশ সদর দফতরের এক আদেশে তাদের বদলি করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক। বদলি হওয়া চার ওসি হলেন- হাটহাজারী থানার ওসি মাসুদ আলম, ফটিকছড়ি থানার ওসি মো. বাবুল আকতার, পটিয়া থানার ওসি মো. বোরহান উদ্দিন ও আনোয়ারা থানার ওসি দুলাল মাহমুদ। পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক বলেন, পুলিশ সদর দফতর থেকে হাটহাজারী, ফটিকছড়ি, পটিয়া ও আনোয়ারা থানার ওসিদের বদলির আদেশ হয়েছে। তাদের বিভিন্ন ইউনিটে বদলি করা হয়েছে।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর