পাহাড়তলী থানা পুলিশের ব্যতিত্রুমী প্রচারণা
১২মে,নিজেস্ব প্রতিবেদক,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাম্প্রতিককালে যানবাহনে নারী যাত্রীদের সাথে অশালীন আচরণ সহ ধর্ষণের মতো ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। দূর পাল্লা আর স্বল্প দূরত্বের গাড়ীর ড্রাইভার, হেলপার, কনডাক্টর, নারী ও পুরুষ যাত্রীদের মধ্যে এই অপরাধের বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মঈনুর রহমান স্যার অফিসার ফোর্সদেরকে নিয়া থানার এলাকার বিভিন্ন জায়গায় প্রচারণা চালান। উক্ত প্রচারনা চালানোর সময় মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের সর্বস্তরের লোকজন বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করেন।গাড়িতে নারীযাত্রীদের উপর যৌন হয়রানি ও হত্যার মত জঘন্য ঘটনার প্রতিবাদ এবং জনসচেতনতার লক্ষে চট্টগ্রাম নগরীর পাহাড়তলী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মঈনুর রহমানের নেতৃত্বে আজ ১২ ই মে পাহাড়তলী থানাধীন অলংকার মোড়ে বিভিন্ন গাড়িতে যাত্রী ও গাড়ির ড্রাইভার,হেলপার,সুপারভাইজার সহ সকলের মধ্যে জনসচেতনা মূলক প্রচার পত্র বিলি করেন। প্রচারপত্রে লেখা ছিল সম্মানিত যাত্রীগণ: আপনারা নারী সহযাত্রীদের সাথে ভালো ব্যবহার করুন। গাড়ীর ড্রাইভার,হেলপার ও কনডাকটর ভাই: নারী যাত্রীদের সাথে অশালীন আচরন করবেন না। প্রচারে: অফিসার ইনর্চাজ,পাহাড়তলী থানা, সিএমপি, চট্টগ্রাম।
রাজধানীর রাসেল হত্যাকাণ্ডে জড়িত দুই অভিযুক্তকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেফতার
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:রাজধানীর কদমতলী এলাকায় রাসেল হত্যাকাণ্ডে জড়িত আরো দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা মেট্রো-উত্তর। গ্রেফতারকৃতদের নাম- জহিরুল হক ওরফে সানু (২৮) ও পিংকি আক্তার (২৫)।১১ মে, ২০১৯ রাত ১২.২০ টায় সিএমপি চট্টগ্রাম এর ইপিজেড থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে পিবিআই ঢাকা মেট্রো (উত্তর) এর একটি বিশেষ টিম।উল্লেখ্য, রাসেলের গ্রামের বাড়ি খুলনার রূপসা থানা এলাকায়। চাকরির সন্ধানে ঢাকায় এসে গত ১০ অক্টোবর, ২০১৫ রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে কদমতলী থানাধীন বড়ইতলা মোড়ে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে খুন হন। উক্ত ঘটনায় ভিকটিমের মা রাশিলা বেগম গত ১৩ অক্টোবর, ২০১৫ কদমতলী থানায় একটি মামলা রুজু করেন।মামলাটি প্রথমে তদন্ত করে কদমতলী থানা পুলিশ। পরবর্তী সময়ে বিজ্ঞ আদালতের আদেশে পিবিআই মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে। মামলাটি তদন্তকালে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে সজল ওরফে পিচ্চি সজল, মোঃ হোসেন বাবু ওরফে হুন্ডা বাবু ও সজল এই তিনজনকে গ্রেফতার করে পিবিআই। গ্রেফতারকৃত এই ৩ জন হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। জবানবন্দিতে তারা উক্ত হত্যাকাণ্ডে পিংকি ও তার স্বামী জহিরুল হক ওরফে সানুর জড়িত থাকার কথা প্রকাশ করে।তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল (১১ মে, ২০১৯) চট্টগ্রামের মেট্রোপলিটন পুলিশর ইপিজেড থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে জহিরুল হক ওরফে সানু ও পিংকি আক্তারকে গ্রেফতার করে পুলিশ।গ্রেফতারকৃত পিংকি ও তার স্বামী জহিরুলের বিরুদ্ধে কদমতলী থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্যান্য সহযোগীদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে।ডিএমপি নিউজ ।
বাকলিয়ায় গৃহবধূ হত্যার প্রধান আসামি শাহ আলম বন্দুকযুদ্ধে নিহত
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ায় গৃহবধূকে গুলি করে হত্যার প্রধান আসামি শাহ আলম পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। রোববার (১২ মে) ভোরে উপজেলার বজ্রঘোনার কাছাকাছি কল্পলোক আবাসিক এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধ হয়। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মুহাম্মদ আবদুর রউফ এসব তথ্য জানান। তিনি জানান, বাকলিয়া থানার বলিরহাট এলাকায় গৃহবধূ বুবলি আক্তার (৩৫) হত্যার প্রধান অভিযুক্ত শাহ আলম বজ্রঘোনার কল্পোলক আবাসিক এলাকায় অবস্থান করছে এমন গোপন খবরে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। টের পেয়ে শাহ আলম ও তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এতে বাকলিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিনসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে তারা পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলে শাহ আলমকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাৎক্ষণিক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার হওয়া পিস্তলটি দিয়ে বুবলি আক্তারকে গুলি করা হয় বলে জানান তিনি। তিনি আরও জানান, বুবলি হত্যার ঘটনায় জড়িত দুই আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলেন- নিহত শাহ আলমের ভাই নুরুল আলম ও সহযোগী মো. নবী। জানা যায়, বুবলি আক্তারের ভাই রুবেলের সঙ্গে স্থানীয় শাহ আলমসহ কয়েকজন যুবকের সঙ্গে পূর্ব শত্রুতা ছিল। শনিবার রাতে নগরীর বলিরহাট এলাকায় শাহ আলম ও তার লোকজন রুবেলকে মারতে আসে। তখন তারা রুবেলকে না পেয়ে বুবলিকে গুলি করে হত্যা করে।
ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলার প্রজেক্ট ফায়ারম্যান সম্পন্ন
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ১০ বছরে দেশব্যাপী প্রায় ১৬০০০ অগ্নি দুর্ঘটনায় ১৫৯০ জন মানুষ প্রাণ হারায়। দিন দিন এই প্রাণহানির সংখ্যা বেড়েই চলেছে। একটু সচেতনতা ও সঠিক প্রশিক্ষণই পারে আমাদের বড় কোন ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে। এই উদ্দেশ্যেই গত শুক্র ও শনিবার দুই দিনব্যাপী ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ (ভিবিডি) এর উদ্যোগে, ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলা ও বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, চট্টগ্রাম বিভাগীয় অফিসের সার্বিক সহযোগিতা ও তত্ত্বাবধানে স্বেচ্ছাসেবকদের জন্য প্রজেক্ট ফায়ারম্যান শীর্ষক একটি প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। দুই দিনের এই প্রশিক্ষণে স্বেচ্ছাসেবকগণ আকস্মিক অগ্নিকান্ডের সময় করণীয় বিষয়সমূহ, অগ্নি-নির্বাপন পদ্ধতি ও আত্মনিরাপত্তা, ভূমিকম্পে করণীয় বিষয়সমূহ ও পূর্বপ্রস্তুতি, দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে করণীয় উদ্ধারকাজ ও আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান সম্পর্কে ব্যবহারিক জ্ঞান লাভ করে। ভিবিডি চট্টগ্রাম জেলার ৫০এর অধিক স্বেচ্ছাসেবকগণ এই প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করে। বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, চট্টগ্রামের ওয়্যার হাউজ ইন্সপেক্টর ওমর ফারুক ভুঁইয়া এবং স্টেশন অফিসার মো. শফিকুল ইসলাম দুই দিনের এ প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন। ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ চট্টগ্রাম বিভাগের প্রেসিডেন্ট সোমেন বড়ুয়া পান্ডু, চট্টগ্রাম জেলার প্রেসিডেন্ট মো. জিয়াউল হক সোহেল, পাবলিক রিলেশন অফিসার সুকান্ত মিত্র, হিউম্যান রিসোর্স অফিসার সৌরভ বড়ুয়া, প্রজেক্ট অফিসার গোলাম ইসহাক খান। শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক পূর্ণ চন্দ্র মুৎসুর্দ্দী। বাংলাদেশ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের এই প্রশিক্ষণ, ভবিষ্যতে অনাকাঙ্ক্ষিত কোন দুর্ঘটনাজনিত কাজে সহায়তা করার জন্য ভিবিডির স্বেচ্ছাসেবকদের অনুপ্রাণিত করবে বলে আশা করা যায়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ ৪জন পুলিশ সদস্য আহত
১২মে,রবিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: শনিবার রাতে বাকলিয়া থানাধিন বলীরহাট বজ্রঘোনা এলাকায় ভাইকে বাঁচাতে সন্ত্রাসীর গুলিতে নিহত হয় বোন বুবলী। শাহ আলম নামে এলাকার এক সন্ত্রাসী বুবলীদের বাসায় তাদের এক আত্মীয় হাসান কে খুঁজতে আসে। হাসান কে না পেয়ে সে বুবলীর ভাই রুবেলের দিকে অস্ত্র তাক করে হুমকি দিতে থাকে। এ সময় বুবলী তাকে আটকাতে গেলে গুলিবর্ষণ করে শাহ আলম। গুলিবিদ্ধ হয়ে বুবলী (৩২) গতরাতেই নিহত হয়।এদিকে রাত সাড়ে তিনটায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুবলীকে গুলি বর্ষণকারী শাহ আলমকে গ্রেপ্তারে বলিরহাট নদীর পাড়ে অভিযান পরিচালনা করতে যায় বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নেজাম উদ্দীনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ। এসময় সেখানে লুকিয়ে থাকা শাহ আলম ও তার সঙ্গীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুঁড়লে শাহ আলম গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহ চারজন পুলিশ সন্ত্রাসীদের হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলেও জানা যায়।নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহ মোঃআব্দুর রউফ বলেন, ঘটনাস্থল থেকে বুবলী হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত বিদেশী পিস্তল ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে নুরুল আলম ও নুর নবী নামে শাহআলমের দুই সহযোগীকেও আটক করা হয়েছে।
কাপড়ের রং এবং পোড়া তেল দিয়ে ইফতার তৈরি
১১মে,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম:হাটহাজারী পৌরসভার বিভিন্ন হোটেলে ভেজালবিরোধী অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।এ সময় পরটা-বেগুনি ফোলাতে ক্ষতিকর অ্যামোনিয়া, জিলাপি-পেঁয়াজু তৈরিতে বিষাক্ত কাপড়ের রং এবং পোড়া তেল দিয়ে ইফতার সামগ্রী তৈরির দায়ে এক বিক্রেতাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।শনিবার (১১ মে) দুপুরে পরিচালিত এ অভিযানে নেতৃত্বে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. রুহুল আমিন।মো. রুহুল আমিন জানান, পৌরসভার চৌধুরী হোটেলে প্রবেশ করতেই হোটেল কর্মচারীরা দ্রুত কিছু জিনিস বাইরে ডাস্টবিনে ফেলে দেন। পরে ডাস্টবিন থেকে সেগুলো নিয়ে দেখি সেখানে ক্ষতিকর অ্যামোনিয়া, সোডা, কাপড়ের রঙ এবং পোড়া তেল রয়েছে।তিনি বলেন, এসব নিয়ে কর্মচারীদের জিজ্ঞাসাবাদ করতেই তারা জানায় পরটা-বেগুনি ফোলাতে ক্ষতিকর অ্যামোনিয়া, জিলাপি-পেঁয়াজু তৈরিতে কাপড়ের রং এবং পোড়া তেল দিয়ে ইফতার সামগ্রী তৈরি করা হয়। ইফতার সামগ্রীকে আকর্ষণীয় করতেই তারা এ কাজ করেন। এ জন্য দোকান মালিককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
সত্যজিৎ ঘোষের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন
১১মে,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: উত্তর কাট্টলী মাদক সেবী ও মাদক ব্যবসায়ী সত্যজিৎ ঘোষের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে উত্তর কাট্টলীর সর্বস্থরের নারী ও পুরুষ উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা বলেন,উক্ত এলাকায় মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ইতি মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্ঠির পাশাপাশি বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হলেও আকবরশাহ্ থানা পুলিশের এই বিষয়ে নিরব ভূমিকার কারনে মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা যায়নী। যার কারনে একই এলাকায় গত রাতে মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ী সত্যজিৎ ঘোষের দায়ের কোপে সন্ধা রানী দাশ (৬০) নামক একজন বৃদ্ধ মহিলা নিহত হন এবং আহত হন আরো চার জন। আহতরা বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আহতদের মধ্যে সকলের অবস্থা আশংকা জনক। এই নির্মম ঘটনার জন্য দোষী সত্যজিৎ ঘোষের ফাঁসির দাবিতে আজ ১১ ই মে উত্তর কাট্টলীর বাদামতল এলাকায় এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
বাকলিয়া থানা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান,গ্রেফতার ১২ জন
১১মে,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাকলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ-জনাব মোহাম্মদ নিজাম উদ্দীন-পিপিএম নেতৃত্বে বাকলিয়া থানা কর্তৃক গত ২৪ ঘন্টায় থানা এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করিয়া বিভিন্ন এলাকা হইতে ১২ জন আসামীকে মাদকদ্রব্য সহ গ্রেফতার করা হয়। তাহাদের বিরুদ্ধে বাকলিয়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ০৮ (আট)টি নিয়মিত মামলার রুজু করা হয়েছে।গ্রেফতারকৃত আসামীদের নাম ও ঠিকানাঃ ১। মোঃ সাদেক হোসেন খোকা(২৪), পিতা- বদি আলম মাঝি, মাতা- নেনুয়ারা বেগম, সাং- গোয়াখালী, পোষ্ট- পেকুয়া, থানা- পেকুয়া, জেলা- কক্সবাজার, বর্তমানে- কাদের মাঝির কলোনী, বাস্তুহারা, মসজিদ গলির আগে, থানা- বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম, ২। মোঃ আব্দুল করিম(৩০), পিতা- মোহাম্মদ হোসেন, সাং- গোদারবিল, হোসেনের বাড়ী, থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার, বর্তমানে-মইজ্যারটেক, টোলপ্লাজার পশ্চিম পাশে, শরিফ কলোনী, থানা- কর্ণফুলী, জেলা- চট্টগ্রাম, ৩। তামীম মান্নান(২৬), পিতা- হাজী আঃ মান্নান, মাতা- জেসমিন আক্তার, সাং- কাপাশগোলা, টুপিওয়ালা পাড়া, শুক্কুর ভিলা, থানা- চকবাজার, জেলা- চট্টগ্রাম, বর্তমানে- মিয়াখান নগর আলী ষ্টোর বিল্ডিং, ইয়ার আলী খাঁ বাড়ী, থানা-বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম, ৪। নুরুল ইসলাম(৪৫), পিতা- মৃত মুসলিম মাতব্বর, সাং- দক্ষিন শিমুলিয়া, জিল্লু তালুকদার বাড়ী, থানা- দোহার, জেলা- ঢাকা, ৫। মোঃ জাহাংগীর আলম(১৯), পিতা- আব্দুল আমিন, মাতা- নুর আয়েশা বেগম, সাং- জাদি মুড়া, পশ্চিম পাড়া, নীলা ইউপি, ৯নং ওয়ার্ড, থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার, ৬। মোঃ আবু ছৈয়দ(১৯), পিতা- আব্দুল আমিন, মাতা- দ্বীলছোফা বেগম, সাং- জাদি মুড়া, পশ্চিম পাড়া, নীলা ইউপি, ৯নং ওয়ার্ড, থানা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার, ৭। নুরুল আফসার শাহীন(৩৮), পিতা- নুরুল আলম, সাং- সাদেকনগর, রাজানগর ইউপি, ১৩নং ওয়ার্ড, মোরালী বাড়ী, পোষ্ট- ঠান্ডাছড়ি, থানা- রাঙ্গুনীয়া মডেল থানা, জেলা- চট্টগ্রাম, ৮। রেহেনা বেগম রীনা(৩২), স্বামী- মিলন মিয়া, সাং- নবীয়াবাদ, জাহাঙ্গীর মেম্বার এর বাড়ী, থানা- মুরাদনগর, জেলা- কুমিল্লা, বর্তমানে- সাতপাড়া, সেকান্দর এর বাড়ি, থানা- সদরঘাট, জেলা- চট্টগ্রাম, বর্তমানে- বলোয়ার দীঘির পাড়, শফিক সাহেবের কলোনী, শশানঘাট, থানা- কোতয়ালী, জেলা- চট্টগ্রাম, ৯। পারভীন আক্তার(৩৭), স্বামী- মৃত জামাল, সাং- ইসাকের পুল, আব্দুল করিম বাই লেইন, জামাল সওদাগর এর বাড়ি, থানা- বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম, ১০। মোঃ মফিজুর রহমান মানিক প্রকাশ ভাগিনা মানিক (২৬), পিতা- আব্দুল মিয়া, মাতা- মমতাজ বেগম, সাং- বুরুম ছড়া, মকবুল ফকিরের বাড়ী, থানা- আনোয়ারা, জেলা- চট্টগ্রাম, বর্তমানে- ডিপুটি রোড, প্রাক্তন কাউন্সিলর, দোস্ত মোহাম্মদ এর টিন শেড ঘর এর ৫নং রুম, থানা- বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম, ১১। সোহাগি বেগম(২০), স্বামী- মোঃ মফিজুর রহমান মানিক প্রকাশ ভাগিনা মানিক, সাং- বুরুম ছড়া, মকবুল ফকিরের বাড়ী, থানা- আনোয়ারা, জেলা- চট্টগ্রাম, বর্তমানে- ডিপুটি রোড, প্রাক্তন কাউন্সিলর, দোস্ত মোহাম্মদ এর টিন শেড ঘর এর ৫নং রুম, থানা- বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম. ১২। মোঃ জসিম(৩৩), পিতা- রবিজ প্রকাশ রবি সওদাগর, মাতা- আয়েশা বেগম, সাং- নতুন ব্রীজ সংলগ্ন, সিরাজের কলোনী, থানা- বাকলিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম।
চট্টগ্রামে সাদা পোশাকে অভিযানে নেমেছে পুলিশ ও RAB সদস্যরা
১১মে,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঈদকে সামনে রেখে চট্টগ্রামে তৎপর হয়ে উঠেছে অপরাধীরা। তারা বাজারে ছড়াচ্ছে জাল টাকা। বাস ও রেল স্টেশনে সক্রিয় ছিনতাইকারী, অজ্ঞান পার্টি, মলমপার্টি ও গামছা পার্টির সদস্যরা। এসব অপরাধীদের ধরতে সাদা পোশাকে অভিযানে নেমেছে পুলিশ ও RAB সদস্যরা।চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) সূত্রে জানা গেছে, ঈদ ও রমজানে কেনাকাটা, ব্যবসা বাণিজ্য, অর্থের লেনদেন বেড়ে যায়। সেইসঙ্গে চুরি, ছিনতাই, দস্যুতাসহ মলম ও অজ্ঞান পার্টির তৎপরতাও বৃদ্ধির শঙ্কা থাকে। তাই অর্থ বহন ও উত্তোলনে সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশনা দিয়েছে সিএমপি।এরই অংশ হিসেবে রমজান উপলক্ষে ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে নগদ টাকা পরিবহনকালে মানি এস্কর্ট সেবা দিচ্ছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ। সংশ্লিষ্ট ডিভিশনের ডেপুটি পুলিশ কমিশনার ও নিজ নিজ থানার অফিসার ইনচার্জের সঙ্গে যোগাযোগপূর্বক নগদ টাকা পরিবহনকালে পুলিশ এস্কর্ট গ্রহণ করা যাবে।এর আগে নগরের কোনো মার্কেট বা শপিংমলে রমজানে চাঁদাবাজি হলে তার দায় ওই এলাকার সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান। চাঁদাবাজি হলে তাৎক্ষণিক মৌখিক বা ফোনে অভিযোগ জানাতে ব্যবসায়ীদের আহ্বান জানান তিনি।জানা গেছে, জাল টাকা তৈরির সঙ্গে জড়িত চক্র ঈদের বাজারে বড় টার্গেট নিয়ে মাঠে নামে। কতিপয় ব্যাংক কর্মকর্তার যোগসাজশে ব্যাংকে লেনদেন ও এটিএম বুথেও জাল টাকা ছড়িয়ে দেয়া হয়। তাই টাকা লেনদেনে গ্রাহকদের আরও সতর্ক থাকার পাশাপাশি পুলিশকে এ ধরনের চক্রের খবর দিতে আহ্বান জানিয়েছে সিএমপি।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর