শীতার্ত হতদরিদ্রদের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে সকলকে এগিয়ে আসা উচিত:আবিদা আজাদ
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দিন দায়িত্ব গ্রহণের পর হতে মেয়রের সম্মানি খাত হতে সকল আয় মানব কল্যাণে সমাজের হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরণের অংশ হিসেবে সামাজিক দায়বদ্ধতার দায়িত্ব হিসেবে শীতার্ত হতদরিদ্র নগর বাসীদের মাঝে কম্বল বিতরণ করছেন। তারই অংশ হিসেবে ১০নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ডস্থ জয়তারা জোনাকী ক্লাবে ওয়ার্ডের দরিদ্র পূজার্থীদের মাঝে মাননীয় মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দিনের পক্ষে ৯ ১০ ও ১৩নং পাহাড়তলী ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর ও চট্টগ্রাম ওয়াসা পরিচালনা বোর্ডের সদস্য নারীনেত্রী আবিদা আজাদ শীতবস্ত্র বিতরণ করা করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বীরেন্দ্র লাল দে। এসময় উপস্থিত ছিলেন ১০নং উত্তর কাট্টলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক গিয়াস উদ্দিন জুয়েল, যুব নেতা টুনটু দাশ বিজয়, আওয়ামী লীগ নেত্রী সবিতা বিশ্বাস, সোমা দাশ, বেবী দাশ, ইঞ্জিনিয়ার কৃষ্ণ ভজন আচার্য্য, দীলিপ দাশ, যামিনী দে, উজ্জ্বল দে প্রমুখ।
আগামী বাংলাদেশ বর্তমান প্রজন্মের কাছে
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,ষ্টাফ রিপোর্টার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ Rapid Action Battalion (RAb) মহাপরিচালক ড.বেনজীর আহমেদ বলেন, এখনকার ছেলেমেয়েরা স্কুল কলেজের বাইরে কোন বই পড়তে চায় না। বই পড়তে হবে। আগামী বাংলাদেশ বর্তমান প্রজন্মের কাছে । ২০৪১সালে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয় থাকবে ১৬ হাজার ডলার। সে লক্ষ্যে সমাজের প্রত্যেকটা সেক্টরের উন্নয়ন করতে হবে। অতিমাত্রায় মাছ ধরা বন্ধ করতে হবে। যেহারে প্রতিনিয়ত মাছ ধরা হচ্ছে একসময় হাওরে লেকে আর মাছ পাওয়া যাবে না। কোন উন্নত দেশকে অনুসরণ করে নয়, নিজের কাছে যা আছে তা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হবে। মহাপরিচালক ড.বেনজীর আহমেদ আজ চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এন্ড এ্যানিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাস) আয়োজিত শিক্ষাবর্ষ সমারম্ভ ২০২০ অনুষ্টান এসব কথা বলেন। ড. বেনজীর বলেন, বিভিন্ন দেশ থেকে গবেষক আসছে এর মানে আমরা উন্নয়নের পথেই চলছি। যত কমে সুখ পাওয়া যায় তাতেই প্রকৃত সুখ।একারণে এদেশে অসংখ্য বাউল দার্শনিক গবেষক সঙ্গীত শিল্পীর জন্ম হয়েছে। একসময় বলা হতো, জনসংখ্যার কারণে বাংলাদেশের উন্নয়ন হবে না, কিন্তু জনসংখ্যাকে কিভাবে জনসম্পদে রুপান্তর করা যায় বাংলাদেশ পুরো বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, মাদকাসক্ত ব্যক্তিকে এড়িয়ে না চলে তার পুনর্বাসনে সহযোগীতা করতে হবে। তোমার ভেতরে যে শক্তি আছে, তা ভালো কাজে ব্যবহার কর। ব্যবহার করার চ্যালেঞ্জ নাও নিজেকে। উক্ত অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সিএমপির পুলিশ কমিশনার মো:মাহবুবর রহমান। বাংলাদেশ পুলিশ চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক । সভাপতিত্ব করেন সিভাসু উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন পরিচালক কল্যাণ প্রফেসর ড.মেজবাহ উদ্দিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাহাবুবর রহমান বলেন,আজকের শিক্ষার্থীরা যদি জঙ্গিবাদে জড়িয়ে না পড়ে, সন্ত্রাসবাদীতে জড়িয়ে না পড়ে, তাহলে তাদের জীবন উজ্জ্বল। অতএব সুন্দর জীবন গঠনে ভালো বিষয়গুলো জীবন পরিচালনায় গ্রহণ করতে হবে। খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, একসময় পুলিশকে ঠোলা বলত, এখন আর পুলিশকে ঠোলা বলা হয় না কারন পুলিশ বিভাগের অনেক উন্নয়ন ও পরিবর্তন হয়েছে। বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ন। আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো থাকলে সবকিছু ভালো থাকবে। যেকোন অন্যায়ের তথ্য শেয়ার করুন যেটা পুলিশের সাথে শেয়ার করা উচিত।
আইনের শাসন গণতন্ত্র মানবাধিকার উন্নয়নে আইনজীবীরা গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন
১৪জানুয়ারী,মঙ্গলবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চিটাগাং ল একাডেমী চট্টগ্রাম (সিএলএ)র প্রতিষ্ঠার এক যুগ পূর্তি উপলক্ষে ল একাডেমি পরিবারের মিলন মেলা আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান গত ১১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব বঙ্গবন্ধু হলে চিটাগাং ল একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট এস এম সিরাজদৌল্লাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ চট্টগ্রামের বিচারক মো. জামিউল হায়দার। এতে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সম্মানিত সদস্য ও চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. মো. দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. এ এস এম বদরুল আনোয়ার, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এড. মুহাম্মদ মুজিবুল হক, সাবেক সভাপতি এড. মোহাম্মদ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজী বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. সুকান্ত ভট্টাচার্য্য, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. আবদুর রশিদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. নাজমুল আহসান খান আলমগীর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. অশোক কুমার দাশ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. মুহাম্মদ এনামুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. মুজিবুর রহমান ফারুক, সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক এড. আবুল হোসেন মুহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, চন্দনাইশ আইনজীবী সংসদের সভাপতি এড. তুষার সিংহ হাজারী (মানিক), চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি এড. মোঃ মুজিবুর রহমান চৌধুরী, চন্দনাইশ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এড. আব্দুল হান্নান, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি চট্টগ্রাম জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাহাবউদ্দীন ডেকোরেটার্সর স্বত্বাধীকারী হাজী মো. সাহাব উদ্দীন, সাতকানিয়া বাজালিয়া ডিগ্রি কলেজের ইংরেজী বিভাগের অধ্যাপক এসএম শহীদুল্লাহ, এড. আব্দুল্লাহ মামুন, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মো. হাসান মুরাদ, চিটাগাং ল একাডেমির লেকচারার এড. ফিরোজ উদ্দিন তারেক, লেকচারার এড. মো. ফোরকান, লেকচারার এড. মো. জামাল উদ্দিন চৌধুরী, চন্দনাইশ সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জামাল উদ্দিন, এড. কামরুল আজম চৌধুরী টিপু, এড. নজরুল ইসলাম, এড. আশকর আলী সুজন, এড. আরিফুজ্জামান আরিফ, এড. জাকারিয়া আল গিয়াস উদ্দিন, এড. মাইনুল আলম টিপু, এড. শহীদুল ইসলাম সুমন, এড. হাবিব উল্লাহ রুমি, এড. রুনা কাশেম, এড. তানজিলা মান্নান যুথি, এড. রবিউল আলম, এড. রিদুওয়ানুল করিম, এড. ইমরুল হক মেনন, এড. আলী ইয়াছিন, এড. মুহাম্মদ শাহজাহান, এড. পিন্টু কুমার দে, এড. ফোরকান খোকন, এড. আলী হোসেন, এড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল, এড. সৈয়দ ইমতিয়াজ উদ্দিন সোহেল, এড. স্বদেশ শর্মা, এড. আইরিন আক্তার, রেবা বড়য়া, মোঃ মোশারফ উদ্দিন, নাজনীন জাহান চৌধুরী, বাবলী চক্রবর্তী, মোবিনুল হক, শিহাব উদ্দিন, নাজিম উদ্দিন, আইরিন সুলতানা, লিটন কান্তি দত্ত, রনি সিংহ, শারমিন ইয়াসমিন নিশু, সিরাজ উদ্দিন বাবলু, মো. এমদাদুল ইসলাম রুবেল, রুমা আক্তার, শাহজাদী মুক্তা, পারভীন আক্তার, মারুফুল হক চৌধুরী, তপন চন্দ্র ধর, সমীর কুমার আচার্য্য, আবুল কাশেম, মো. আজিজুর রহমান, নাজমুল হাসান খান, এড. সজরুল ইসলাম প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এড. গোলাম মাওলা মুরাদ এবং এড. রুজিনা পারভীন রোজি। এক যুগ পূর্তি উপলক্ষে প্রধান অতিথি কেক কেটে একযুগ পূর্তি অনুষ্ঠান উদ্যাপন করেন এবং একযুগ পূর্তিতে আইজান স্মরনিকা মোড়ক উম্মোচন করেন। অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি একাডেমীর শিক্ষার্থীদের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতি, পটিয়া আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে নির্বাচিত প্রতিনিধি এবং মহামান্য হাই কোর্টে তালিকাভুক্তি আইনজীবীদের ক্রেস্ট দিয়ে সংবর্ধিত করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বলেন, জাতি গঠনে শিক্ষার গুরুত্ব অপরিসীম। সময়ের প্রেক্ষাটে স্বাধীন ও চ্যালেঞ্জিং পেশাগুলোর মধ্যে আইন পেশা একটি অন্যতম পেশা। আইন শিক্ষার মাধ্যমে আইনের শাসন গণতন্ত্র মানবাধিকার উন্নয়নে আইনজীবীরা গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন। একযুগ পূর্তি অনুষ্ঠানের শুরুতে একটি বর্ণাঢ্য Railly জামাল খান হইতে চেরাগী পাহাড় মোড় পর্যন্ত শোভাযাত্রার আয়োজন করেন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রাম-৮ আসনে পুনর্নির্বাচনের দাবি বিএনপি প্রার্থীর
১৩জানুয়ারী,সোমবার,ষ্টাফ রিপোর্টার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ান। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে নির্বাচনের মধ্যেই সংবাদ সম্মেলন এ দাবি করেন তিনি। তবে, আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন চৌধুরীর দাবি, শান্তিপূর্ণভাবেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে নির্বাচন। এর আগে সকাল ৯টায় নগরী ও উপজেলার ১৭০টি কেন্দ্রে ইভিএমের মাধ্যমে শুরু হয় ভোটগ্রহণ। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে নির্বাচনী এলাকায় মোতায়েন রয়েছে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্য। বোয়ালখালী উপজেলা, মহানগরীর চান্দগাঁও ও বায়েজিদের কিছু অংশ নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম-৮ আসন। এখানে ভোটার সংখ্যা চার লাখ ৭৪ হাজার ৪৮৫ জন। গতবছরের ৭ নভেম্বর সংসদ সদস্য মঈনুদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।
চট্টগ্রাম-৮ আসনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে
১৩জানুয়ারী,সোমবার,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে। কুয়াশা উপেক্ষা করে ভোট দিতে কেন্দ্রে আসছেন ভোটাররা। নগরের কেন্দ্রগুলোতে দেখা গেছে ভোটারদের সারি। সোমবার (১৩ জানুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়, চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। মঈনুদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া এ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬ জন প্রার্থী। দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ নৌকা প্রতীক নিয়ে এবং বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়া বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) চেয়ারম্যান এস এম আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ এমদাদুল হক এ আসনের জন্য লড়ছেন। প্রার্থী ছয় জন হলেও বরাবরের মত আওয়ামী ও বিএনপি প্রার্থীর মধ্যে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বলেন, শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভোটকেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশে পাশাপাশি Rab, বিজিবি মোতায়েন থাকবে। এছাড়া পুলিশের মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্সও কাজ করবে। প্রসঙ্গত, নির্বাচনে মোট ১৭০টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। যার মধ্যে ৫৮টি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া নির্বাচনে পুলিশ, এপিবিএন, আনসার ব্যাটালিয়নের সদস্যের সমন্বয়ে ১৪টি মোবাইল ফোর্স, ৬টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, Rabর ৬টি টহল দল এবং ৫ প্লাটুন বিজিবি দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনী অপরাধ আমলে নিতে ১৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও দুইজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে রয়েছেন। পাশাপাশি নির্বাচনী পরিবেশ পর্যবেক্ষণে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে ভিজিল্যান্স ও অবজারভেশন টিমও রয়েছে। ১৭০টি ভোটকেন্দ্রের এক হাজার ১৯৬টি কক্ষে চার লাখ ৭৪ হাজার ৪৮৫ ভোটার ভোট প্রদান করবেন। ভোটগ্রহণে নিয়োজিত রয়েছেন তিন হাজার ৭৫৮ জন কর্মকর্তা।
পথশিশুদের সাথে মেয়রের একসন্ধ্যা
১৩জানুয়ারী,সোমবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য,একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারে না। ও বন্ধু কালজয়ী এই গান মানুষের পাশে দাঁড়াবার অনুপ্রেরণা দেয়। নাগরিক ব্যস্ততম শহরে দম ফেলার সময় কারো নেই। তখন কে কার খবর রাখে। বিশেষ করে নগরীর অবহেলিত পথ শিশুদের কথা। তারা আমাদের মতোই রক্ত মাংসের গড়া মানুষ। তারা বড় হচ্ছে অবহেলা আর অবজ্ঞায়। কখনো যদি কোনো পথশিশু এসে ভিক্ষা চেয়ে হাত বাড়িয়ে দেয়,তখন পকেট থেকে দু টাকা কিংবা পাঁচ টাকার কয়েন বাড়িয়ে দিই আমরা। তবে অনেক সময় এর ব্যতিক্রমও ঘটে। কখনো কখনো তাদের গায়ে হাত তুলতেও দ্বিধাবোধ করি না। কিন্তু সমাজে এমন মানুষও আছে যারা অবহেলিতদের কথা চিন্তা করে। তাদের মুখে এক টুকরো হাসি ফোটানোর স্বপ্ন দেখে। এই ধরণের একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান পথশিশুদের নিয়ে কাজ করছে। এই প্রতিষ্ঠানটি হচ্ছে- উপলদ্ধি। যাদের মাতা- পিতা নেই এরকম পথশিশুদের নিয়ে কাজ করছে সামাজিক সংগঠনের কর্ণধার শেখ ইজাবুুর রহমান। ফিরিঙ্গী বাজার মোড়ে অনুপ এন্ড ব্রাদার্স বিল্ডিংয়ের কার্যালয়। ৪র্থ, ৫ম ও ৬ষ্ট তলায় ভাড়া নিয়ে নগরীর কুড়িয়ে পাওয়া পথশিশুদের দেখভাল করছে প্রতিষ্ঠানটি। এখানে ৬৫ জন পথশিশু রয়েছে। তারা সবাই মাতা-পিতা ও ঠিকানাবিহীন পথশিশু। সামাজিক সংগঠন- উপলদ্ধি এসব পথশিশুদের পড়া লেখা,ভরণপোষনসহ সকল বিষয়ে দেখভাল করছে। গত শনিবার রাতে এই সংগঠনের কার্যক্রম দেখতে ফিরিঙ্গীবাজার অনুপ এন্ড ব্রাদার্স ভবনে যান সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। তিনি সেখানে বসবাসরত পথশিশুদের সাথে কিছুক্ষণ সময় অতিবাহিত করেন। তারা সিটি মেয়রকে পেয়ে আনন্দে উৎফুল্ল হয়ে পড়ে। এসময় সিটি মেয়র বলেন, বিশ্বের শিশুরা যেখানে অনিরাপদ সেখানে দাতা সংগঠনগুলো তাদের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসে। সকল সংগঠনকে আর্ত-মানবতার সেবায় এগিয়ে আসার আহবান জানান মেয়র। তিনি আরো বলেন, এ অবহেলিত-সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের পাশে আমি আছি এবং আগামীতেও থাকব। চসিক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে পথশিশুদের পড়া লেখার জন্য ভর্তি ফিসহ মাসিক বেতন মওকুফের ঘোষনা দেন সিটি মেয়র। সিটি মেয়র শিশুদের গাওয়া গান মনোযোগ সহকারে শুনেন এবং মোবাইলে শিশুদের সাথে সেলফি তুলেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন চসিক কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী, মেমন মাতৃসদন হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. প্রীতি বড়ুয়া, ডা. পলাশ, সংগঠনের প্রতিষ্ঠিতা সাধারণ সম্পাদক শেখ ইজাবুর রহমান, উপলদ্ধির ম্যানেজার শেলী রক্ষিত, তাজউদ্দীন রিজভী, সাইফুদ্দীন আহমেদ, জাহাঙ্গীর আলম, তারাপদ দাশ, হুমায়ুন মোর্শেদ শাকিল, মো. মাসুম, সামিউল হাসান রুমন, আলাউদ্দীন বাপ্পী, অনিন্দ্য দেব, সাহেদ, ইজাজুল হক প্রমুখ।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আগামীকাল চট্টগ্রাম-৮ আসনে উপ-নির্বাচন
১২জানুয়ারী,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাসদ নেতা মঈনুদ্দিন খান বাদলের মৃত্যুতে চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী ও চান্দগাঁও) সংসদীয় আসনে আগামীকাল ১৩ জানুয়ারি উপ-নির্বাচন হবে। ভোট গ্রহণের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। সোমবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ১ হাজার ২৫২টি কক্ষে ইভিএম মেশিনে একটানা ভোট গ্রহণ করা হবে। উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোসলেম উদ্দিন চৌধুরী এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবু সুফিয়ানের মধ্যে তীব্র ভোটযুদ্ধ হবে বলে ধারণা করছেন ভোটাররা। প্রার্থীরা হলেন-ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফ্রন্টের সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ আহমদ, ন্যাপের বাপন দাশগুপ্ত ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ এমদাদুল হক। চট্টগ্রামের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান জানিয়েছেন, চট্টগ্রাম-৮ আসনে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করতে যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। রোববার বিকেলে বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী সরঞ্জাম পাঠানো শুরু হয়েছে। রাতের মধ্যেই এ কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা প্রতিটি কেন্দ্রে সকাল থেকে দায়িত্ব পালন করবেন। নির্বাচনের জন্য প্রতিটি কেন্দ্রে চার-পাঁচজন পুলিশ সদস্য ও ১১ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। এদিকে, রোববার থেকে নির্বাচনী এলাকায় ৫ প্লাটুন বিজিবি ও ৬ প্লাটুন RAB সদস দায়িত্ব পালন করছেন। উপ-নির্বাচনের দিন ১৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং দুজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বিজিবির সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সঙ্গে টহলে থাকবেন। চট্টগ্রাম-৮ আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৮ জন। বোয়ালখালী উপজেলায় ভোটার ১ লাখ ৬৪ হাজার এবং শহরের চান্দগাঁও এলাকায় ভোটার ৩ লাখ ১১ হাজার ৯৮৮ জন। নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম মহানগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়ামে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। এখান থেকে কেন্দ্রভিত্তিক ফল ঘোষণা করা হবে।
আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই,জনগনের সেবাই আমার একমাত্র লক্ষ্যঃ কাউন্সিলর হাজী নুরুল হক
১২জানুয়ারী,রবিবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৩৫ নং বক্সির হাট ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর হাজী নুরুল হক এলাকার উন্নয়ন ও আগামী নির্বাচন নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। রবিবার ১২ই ডিসেম্বর সকালে তার নিজ কার্যালয়ে নিউজ একাত্তরকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি তার নানা কর্মকাণ্ড ,এলাকার উন্নয়ন চিত্র তথা আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি এলাকার উন্নয়নে কি কি কাজ করবেন তা তুলে ধরেন। তিনি জানান, তিনি ১৯৯৪-২০০৫ইং মেয়াদে দুই বার ও ২০১০-২০২০ইং মেয়াদে দুই বার মোট ৪ বার নির্বাচিত হয়েছেন।বিগত ৫ বছরের মেয়াদে তিনি এলাকার অনেক উন্নয়ন করেছেন, জনগন এর সুফল ভোগ করছে। কাউন্সিলর হাজী নুরুল হক জানিয়েছেন, তিনি আগামী নির্বাচনে আবারও নির্বাচন করবেন এবং তিনি আশাবাদী তার সময়ে এলাকায় যে উন্নয়ন হয়েছে তাতে এলাকার জনগন তাকে পুনরায় আবার নির্বাচিত করবে। সেইসাথে তিনি জনগনের সেবা করে যাবেন। আমার চাওয়া পাওয়ার কিছু নাই ।জনগনের সেবাই আমার একমাত্র লক্ষ্য। ব্যক্তিগত কোন সুবিধার জন্য কাউন্সিলর পদটিকে ব্যবহার করেন না। এমনকি পরিবারের কেউ না। তিনি আরো জানান, তার এলাকায় উল্লেখ যোগ্য বেশ কিছু উন্নয়ন তিনি করেছেন। তার মধ্যে এলাকার রাস্তা ঘাটের মেরামত, রাস্তার উপর এলইডি লাইট স্থাপন, নালা নর্দমা গুলো পরিচ্ছন্ন করা। জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনের পরিসর বাড়ানো হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কিছু ড্রেনের কাজ চলমান আছে যা আমি নিজে দাঁড়িয়ে থেকে কাজ করাচ্ছি। ময়লা আবর্জনা অপসারনের ডাস্টবিন বসানো হয়েছে । সেইসাথে ডোর টু ডোর ময়লা অপসারনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসন কল্পে চাক্তাই খাল পরিস্কারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী একটি প্রকল্প হাতে হিয়েছে। আমার এলাকার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি মোটামোটি ভালো। তিনি জানান, তার এলাকায় কোন সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজি নেই এটা বলা যাবে না। চাঁদাবাজি আছে, সরকারি দলীয় নামধারীরা চাঁদাবাজি করে। তাই চাঁদাবাজি বন্ধ করতে অনেকটা বেগ পেতে হচ্ছে। মাদকের সমস্যা কিছুটা আছে, তবে নির্মূলে তিনি বদ্ধ পরিকর। আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি পুরোপুরি মাদক নির্মূলে কাজ করে যাবেন। সেইসাথে জলাবদ্ধতা নিরসন কল্পে নানা প্রয়োজনীয় উদ্দেগ নিবেন। প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় ৩৫ নং বক্সির হাট ওয়ার্ডের কয়েকজন এলাকাবাসীর সাথে এখানে তাদের মতামত তুলে ধরা হলঃ ৩৫ নং বক্সির হাট ওয়ার্ডের বাজার এলাকার স্থানীয় এক বাসিন্দা মোঃ আবুল কালাম(৩৫) জানান, বর্তমান কাউন্সিলর এলাকায় অনেক উন্নয়ন করেছেন। রাস্তা ঘাটেরও বেশ উন্নয়ন করেছেন। তবে জলাবদ্ধতার সমস্যা থেকে আমরা মুক্তি পাই নাই। বেশির ভাগ সময় জোয়ারের পানিতে একাকার হয়ে যায়। এটাই আমাদের বড় সমস্যা। ব্যক্তি হিসাবে ওনি ভালো লোক। তাই আগামী নির্বাচনে আবার বিজয়ী হবেন এতে সন্দেহ নেই। ৩৫ নং বক্সির হাট ওয়ার্ডের বক্সির হাট মোড়ের ব্যবসায়ী কাঞ্চন দাশ জানান (৪৭) জানান, বর্তমান কাউন্সিলর মোটামুটি এলাকায় কাজ করেছেন। তিনি একাধারে দুই মেয়াদে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। আগামী নির্বাচনেও তিনি আবার নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ব্যক্তি হিসাবে ওনার ভালো গ্রহন যোগ্যতা আছে। আমাদের এলাকার মাদকের ব্যপারে বলতে পারবনা তবে ও চাঁদাবাজি হয়। সেইসাথে জলাবদ্ধতার সমস্যা তো আছেই। যানজট ও একটা বড় সমস্যা।
বিশ্বের ১১১টি দেশে ইনার হুইল ক্লাব কাজ করে যাচ্ছে
১২জানুয়ারী,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইনার হুইল ক্লাব ডে-২০২০ উপলক্ষে ইনার হুইল ক্লাব অব লুসাই হিলসর চার্টার প্রেসিডেন্ট বোরহানা কবির উদ্যোগে নগরীর একটি রেস্টেুরেন্টে বর্ণাঢ্য নানা কর্মসূচির মাধ্যমে পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে ইনার হুইল ক্লাব অব লুসাই হিলস, অনন্যা, ব্লেজিং স্টার, আগ্রাবাদ, গ্রীন হিল চিটাগাং ও কর্ণফুলী ৬ ক্লাবের অংশগ্রহণে Raillyর আয়োজন করা হয়। বোরহানা কবিরের সভাপতিত্বে ও মানসি দাশ তালুকদারের সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ফার্স্ট বোর্ড ডিরেক্টর অব ফাউন্ডার অব ডিস্ট্রিক ৩৪৫র দিলরুবা আহমেদ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ফাস্ট ন্যাশনাল রিস্পেজেন্টিব অব ফার্স্ট ডিস্ট্রিক্ট চেয়ারম্যান খালেদা আউয়াল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইনার হুইল ক্লাব আগ্রাবাদের প্রেসিডেন্ট জিনাত আজম। প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিলরুবা আহমেদ বলেন, বিশ্বের ১১১টি দেশে নারী নেতৃত্বের একমাত্র ইনার হুইল ক্লাব দীর্ঘদিন ধরে মানবতার কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। ইনার হুইল বন্ধুরা যার যার অবস্থান থেকে সমাজের হতদরিদ্রদের পাশে দাঁড়িয়ে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছেন। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে মানসী দাশ তালুকদারের সঞ্চালনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগঠনের বিভিন্ন ক্লাবের ইনার হুইল বন্ধুরা সংগীত, কবিতা আবৃত্তি, নৃত্য পরিবেশন করেন।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর