শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২০
আমরা চাই আমাদের নিবেদিত এই কর্মীরা প্রানোচ্ছল থাকুক:মেয়র আ জ ম নাছির
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,সৈয়দুল ইসলাম,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আজ মঙ্গলবার সকালে নগরীর ৩৬ নং গোসাইলডেঙ্গা, ৩৭ নং মুনির নগর ও ৩৮ নং দক্ষিণ মধ্যম হালিশহর ওয়ার্ডের নেতা কর্মীদের মাঝে ভোগ্যপন্য উপহার হিসেবে বিতরণ করেছে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। এসময় মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুক, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক লায়ন মোহাম্মদ হোসেন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাজী জহুর আহাম্মদ, শ্রম সম্পাদক আবদুল আহাদ, বন্দর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল আলম, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. ইলিয়াছ, প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব আবদুল খালেক চৌধুরী, মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহবুবুল হক চৌধুরী এটলি, ৩৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের আহবায়ক মো. ইলিয়াছ, যুগ্ম আহবায়ক সাইফুল আলম চৌধুরী, আলহাজ্ব মোরশেদ আলী, ৩৭ নং ওয়ার্ডের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হোসেন মুরাদ, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান, ৩৮ নং ওয়ার্ডের সভাপতি হাজী হাসান মুরাদ, সাধারণ সম্পাদক হাজী মোহাম্মদ হাসানসহ সংশ্লিষ্ট ইউনিট আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। উপহার সামগ্রী বিতরণকালে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, দলের কঠিন মুহূর্তে অকাতরে প্রাণ বিলিয়ে দেওয়া এই কর্মীরাই আওয়ামীলীগের মূল ভিত্তি। দল যখন ক্ষমতায় থাকে তখন এইসব নেতাকর্মীদের আর কেউ খবর রাখে না। আমাদের দলীয় সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মাঠ পর্যায়ের নেতা কর্মীদের মূল্যায়ন করে যাচ্ছেন। আমরা তাঁর আদর্শের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। আমরা সেই জায়গাটা উপলব্ধি করে নেতাকর্মীদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছি। আমরা চাই আমাদের নিবেদিত এই কর্মীরা প্রানোচ্ছল থাকুক।ইউনিট আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা সরাসরি এলাকার মানুষের সাথে সম্পৃক্ত, তাই সরকারি ত্রান পৌছে দিতে এবং তালিকায় নাম অন্তুর্ভুক্তি করতে তাদেরই দায়িত্বটা বেশি নিতে হবে। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, এই সংকটময় পরিস্থিতিতে আমাদের জীবন এবং জীবিকা দুটোই গুরুত্বপুর্ণ। তাই সরকার দুটোই যাতে সচল থাকে তার ব্যবস্থা করছেন। শুধুমাত্র সরকারি সাহায্যের দিকে না তাকিয়ে যার যতটুকু সামর্থ আছে উপার্জনের চাকাকে সচল রাখার ব্রত নিয়ে কাজ করতে হবে। মেযর বলেন পুরো মানবজাতি এখন এক সংকটের মুখোমুখি। আমাদের অর্থনীতি, রাজনীতি ও সংস্কৃতিও নির্ভর করছে আমাদের নিজেদের উপর। আগামী ইতিহসে আমরা যাতে মানবিক হিসেবে জায়গা করে নিতে পারি সেজন্য আমি সংগঠনের প্রত্যেককে স্ব স্ব অবস্থান থেকে মানবতার কাজে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।
পটিয়ায় মেয়াদোত্তীর্ণ বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করার অপরাধে অর্থদণ্ড
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,মো.ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: পটিয়ায় কামাল বাজার এলাকায় বিভিন্ন দোকানে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য সহনশীল রাখার লক্ষে বাজার মনিটরিং করেন জনাব ফারহানা জাহান উপমা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট, পটিয়া, চট্টগ্রাম। বাজার মনিটরিং কালে ভেজাল ঘি, অতিরিক্ত দামে আদা বিক্রি ও মেয়াদোত্তীর্ণ বিভিন্ন পণ্য বিক্রি করার অপরাধে আল-মক্কা ট্রের্ডাসের মালিককে ৪০,০০০/- টাকা, আল-মদিনা স্টোরের মালিককে ২০,০০০/- টাকা, বিসমিল্লাহ স্টোরের মালিককে ১০,০০০/- টাকা, মিলন স্টোরের মালিককে ১০,০০০/- টাকা ও নিউ আল-মদিনা স্টোরের মালিককে ১০,০০০/- টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয় এবং জব্দকৃত বিভিন্ন কোম্পানীর ভেজাল ঘি বিনষ্ট করা হয়। এছাড়া সরকারি নির্দেশ অমান্য করে জনসমাগম করে দোকান খোলা রাখায় পটিয়া আদালত রোড, সবুর রোড ও স্টেশন রোডের বিভিন্ন দোকান ও মার্কেট সমূহ বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয় এবং দোকান খোলার রাখার অপরাধে ০৪ দোকানীকে ১,৬০০/- টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।
কর্ণফুলী উপজেলায় প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,শারমিন আকতার,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: কর্ণফুলী উপজেলায় প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত রোগী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর গ্রামের কর্ণফুলী ডকইয়ার্ডের সংলগ্ন বাড়ির বাসিন্দা ৬৫ বছর বয়সী একজন নারী।গতকাল সোমবার (২৭ এপ্রিল) রাতে চট্টগ্রামের ফৌজদারহাটে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তকরণ পরীক্ষায় ওই নারীর শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। রাতে আক্রান্ত রোগীকে বাড়ি থেকে নিয়ে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং তাঁর বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কর্ণফুলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও) মো. নোমান হোসেন বলেন, কর্ণফুলীর ওই নারী আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকাকালীন করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা নেয়া হয়। ফৌজদারহাট বিআইটিআইডি হাসপাতালে কোভিড-১৯ রোগ শনাক্তকরণ পরীক্ষার পর তিনি ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন।কর্ণফুলী থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, আক্রান্ত নারীর বিষয়ে সিএমপি হেডকোয়ার্টার থেকে জানানো হলে মঙ্গলবার ভোর চারটার দিকে এ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। আক্রান্ত রোগীর বাড়িসহ আশপাশের ২০ বাড়ির ৬৫ পরিবারকে লকডাউন করা হয়েছে। এদিকে, একটি ডকইয়ার্ড ও একটি ব্যাটারিচালিত রিকশার গ্যারেজও লকডাউন করা হয়েছে।
সিএমপির তৎপরতায় নিশ্চিত মূত্যুর হাত থেকে বেঁচে গেলেন এক পথচারী
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর বাকলিয়া থানা এলাকায় বালুর ট্রাকের ধাক্কায় একজন পথচারী রাস্তা পারাপারের সময় গাড়ি চাকার নিচে পড়ে গুরুতর আহত হন। এসময় উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের প্রচেষ্টায় চাকার নিচে আটকে পড়া আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়। এতে করে নিশ্চিত মূত্যুর হাত থেকে বেঁচে গেলেন এক বৃদ্ধ পথচারী। গতকাল ২৭ শে এপ্রিল সোমবার সকালে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পাশে বাকলিয়া থানাধীন লিজা গার্ডেন এর সামনের রাস্তায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহত মোহাম্মদ আজম (৫৫) বাকলিয়া এলাকার কালা মিয়া বাজারের বাদশাহ মিয়া বাড়ির বাসিন্দা ও লিজা গার্ডেনের দারোয়ান। এ সময় ঘটনাস্থলে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হচ্ছিলো। হঠাৎ বেপরোয়া গতিতে আসা বালুর ট্রাকটি এক পথচারীকে চাপা দিলে বৃদ্ধ লোকটি গুরুতর আহত হয়। তার শরীরে মারাত্মক জখম হয়।পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এগিয়ে যায় এবং ঘাতক ট্রাকের ড্রাইভারকে আটক করে। এসময় ট্রাকটি জব্দ করে বাকলিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোঃ জহিরুল হক ভুঁইয়া জানান, আহত ব্যক্তির শারীরিক অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক এবং তিনি বর্তমানে চমেক হাসপাতালের ২৮ নং ওয়ার্ডের ২০ নং বেডে চিকিৎসাধীন আছেন। এদিকে ভিকটিমের কোন নিকটাত্মীয় না থাকায় এ ঘটনায় পুলিশ বাদী মামলা করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নেজাম উদ্দিন পিপিএম।
জিন্নাত আর নেই
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ কক্সবাজারের জিন্নাত আলী আর নেই। সোমবার দিনগত রাত ৩টায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) মারা যান তিনি। মঙ্গলবার সকালে এ তথ্য জানান চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক জহিরুল হক ভুঁইয়া। তিনি জানান, জিন্নাত আলীকে রোববার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোলজি বিভাগে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার মস্তিষ্কে টিউমার ধরা পড়ে। সোমবার তাকে নিউরো সার্জারিতে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন তিনি অজ্ঞান ছিলেন। এরপর তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে কৃত্রিম শ্বাস প্রশ্বাস দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে তার মৃত্যু ঘটে। জিন্নাত আলী কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের আমির হামজার ছেলে। তার উচ্চতা ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি। ১৯৯৬ সালে জন্মগ্রহণ করা জিন্নাত বাংলাদেশের সবচেয়ে লম্বা মানুষ। তার বড় ভাই ইলিয়াস আলী জানান, ১০ বছর বয়স থেকে জিন্নাত আলীর শরীরের অস্বাভাবিক উচ্চতা বৃদ্ধি শুরু হয়। সেটি একসময় বেড়ে ৮ ফুট ৬ ইঞ্চিতে গিয়ে দাঁড়ায়। জন্ম থেকে হরমোনজনিত নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছিল জিন্নাত।
আপন চাচী রেশমা নিজ হাতে ছুরি দিয়ে খুন করে দিহানকে
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফটিকছড়িতে পারিবারিক শত্রুতার জের ধরে ৪ বছরের শিশু দিহানকে ছুরিকাঘাতে নির্মমভাবে খুন করে আপন চাচী রেশমা আক্তার। ঘটনার পর রোববার রাতে সন্দেহজনকভাবে চাচিকে আটক করার পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেন তিনি। ফটিকছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বাবুল আক্তার জানান, নিহত শিশু দিহানের আপন চাচী রেশমা আক্তার নিজ হাতে ছুরি দিয়ে ১৬টি আঘাত করেন। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর সব রক্ত তিনি নিজ হাতে পানি দিয়ে পরিষ্কার করে বাচ্চাটিকে কলাপাতা মুড়িয়ে ঘরের পাশে পরিত্যক্ত লাকড়ির ঘরে লুকিয়ে রাখে। ওসি বলেন, ঘটনায় নিহত শিশুর মা জনি আক্তার বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে চাচি রেশমা আক্তারকে (২৫) সন্দেহজনকভাবে গ্রেপ্তার করা হয়। চাচীর স্বীকারোক্তিতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ছুরিটিও উদ্ধার করা হয়েছে। একটি সবজি কাটার ছুরি দিয়ে খুন করা হয় শিশু দিহানকে। উল্লেখ্য, গতকাল ২৬ এপ্রিল দুপুরে উপজেলার পাইন্দং ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইন্দং কালু বাপের একটি লাকড়ির ঘর থেকে নাড়িভুঁড়ি বের হওয়া অবস্থায় দিহানের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত দিহান পাইন্দং কালু বাপের বাড়ীর দিদারুল আলমের ছেলে।
তথ্যমন্ত্রীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে দ্বিতীয় পর্যায়ের পাঁচ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এরআগে করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সঙ্কটে প্রথম পর্যায়ে তিন হাজার পরিবারে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন তথ্যমন্ত্রী। আজ সোমবার (২৭ এপ্রিল) সকালে রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা প্রাঙ্গণে তথ্যমন্ত্রীর পারিবারিক প্রতিষ্ঠান এন এন কে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এসব খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করা হয়। এন এন কে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এবং তথ্যমন্ত্রীর ছোটভাই খালেদ মাহমুদ ও রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র মো. শাহজাহান সিকদার উপস্থিত থেকে করোনা ভাইরাসের কারণে সমস্যাগ্রস্থ পরিবারের হাতে এসব খাদ্য সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক জসিম উদ্দিন তালুকদার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এমরুল করিম রাশেদ, পৌরসভার কাউন্সিলর মো. সেলিম, নুরুল আবছার, শিক্ষক রঞ্জন বড়ুয়া প্রমুখ। এনএনকে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ জানান, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের ব্যক্তিগত উদ্যোগে পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে এনএনকে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আজ রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা, মরিয়মনগর ও চন্দ্রঘোনা কদমতলি ইউনিয়নে দ্বিতীয় পর্যায়ের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। প্ ইউনিয়ন পর্যায়ে এসব ত্রাণ সামগ্রী নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে বিতরণ করা হচ্ছে। করোনার কারণে সৃষ্ট সঙ্কটে রাঙ্গুনিয়ার মানুষের জন্য তথ্যমন্ত্রীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ পুরো রমজান মাস জুড়ে অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।
পটিয়ায় ইয়াবাসহ গ্রেফতার দুজন
২৮এপ্রিল,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পটিয়ায় দুই হাজার ইয়াবাসহ দুজনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছেন। তারা হলেন কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার মামুনুর রশিদ প্রকাশ আশিক (২৬) ও একই উপজেলার মোশারফ হোসেন প্রকাশ মুছা (৩২)। সোমবার দুপুর পৌনে ২টায় উপজেলার কমলমুন্সির হাট এলাকা থেকে পটিয়া থানা পুলিশ ইয়াবাসহ দুজনকে গ্রেফতার করেন। পুলিশ জানান, করোনাভাইরাসের সুযোগ নিয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার আরকান মহা সড়কে বিভিন্নভাবে ইয়াবা পাচার চলছে। পাচারকারীরা একের পর এক গাড়ি পাল্টে তাদের গন্তব্যে যাচ্ছে। সোমবার দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পটিয়া থানার উপ-পরিদর্শক মো. শাখাওয়াতসহ একদল পুলিশ অভিযান চালায়। এসময় দুই ইয়াবা পাচারকারীর শরীর থেকে দুই হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। তাদের মধ্যে মোশারফের বিরুদ্ধে আগেও মাদকদ্রব্য আইনের মামলা রয়েছে। পটিয়া থানার উপ-পরিদর্শক আবদুল খালেদ জানিয়েছেন, গোপন সংবাদে খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়েছে। এ ব্যাপারে এসআই শাখাওয়াত বাদি হয়ে পটিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর