শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
সময় ও চাহিদা সামনে নিয়ে ফার্নিচার শিল্প এগিয়ে চলছে :সিটি মেয়র
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, সময় ও চাহিদা সামনে নিয়ে ফার্নিচার শিল্প এগিয়ে চলেছে। তিনি অদ্য সকাল ১০টায় নগরীর জিইসি কনভেনশন হলে বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগ আয়োজিত ২২-২৭শে জানুয়ারি ৬ দিনব্যাপী ১০ম চট্টগ্রাম ফার্নিচার মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের দৈনন্দিন জীবিকা বদলে গেছে, এ দিন বদলের ক্রান্তিলগ্নে বাঙালি সমাজ একটি সুন্দর আগামীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছে। আপামর জনসাধারণের সুন্দর ভবিষ্যৎ বিনির্মাণে পথ দেখিয়ে যাচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার। নানা উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশ বিশ্বে উল্লেখযোগ্য স্থান করেছে। রপ্তানি খাতে বেড়েছে আমাদের আয়। খাদ্য, পোশাক ও ঔষধ শিল্পের সাথে তাল মিলিয়ে ফার্নিচার শিল্প ও রপ্তানি খাতে নিজের অবস্থান সুদৃঢ় করেছে। বাংলাদেশের মানুষের উন্নত জীবন-জীবিকা এবং বৈশ্বিক চাহিদাকে সামনে রেখে ফার্নিচার শিল্পে আসছে পরিবর্তন। ডিজাইনে এসেছে নতুনত্ব। এই শিল্পের প্রসারে আমাদেরকে স্ব স্ব অবস্থান থেকে কার্যকরী ভূমিকা রাখতে হবে। বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের সভাপতি সৈয়দ এ.এস.এম. নুর উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এর সভাপতি মাহবুবুল আলম। তিনি বলেন, হাটি হাটি পা পা করে ফার্নিচার শিল্প এগিয়ে চলেছে। এক সময় বিদেশী ফার্নিচার এ শিল্পকে গ্রাস করতে বসেছিল। কিন্তু আমাদের দেশের ফার্নিচার শিল্প উদ্যোক্তাদের ঐক্যবদ্ধতার কারণে এ শিল্প এখন গার্মেন্টস্ শিল্পের মতো প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় মহাসচিব ইলিয়াছ সরকার বলেন, গার্মেন্টস্ শিল্পের ন্যায় ফার্নিচার শিল্পও অদূর ভবিষ্যতের আন্তর্জাতিক বাজার করবে। সভাপতির বক্তব্যে সৈয়দ এ.এস.এম. নুর উদ্দিন বলেন, ফার্নিচার শিল্পকে এগিয়ে নিতে হলে সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা জরুরী। এ শিল্পের জন্য আলাদা ফার্নিচার জোন করতে হবে। তবেই ফার্নিচার শিল্পের বিকাশ ঘটবে। মেলা কমিটির আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান বলেন, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে ফার্নিচার শিল্পের জন্য আলাদা স্পেস তৈরী করে দিতে হবে। বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি চট্টগ্রাম বিভাগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম.এন. আযম খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, মেলা কমিটির সদস্য সচিব সাইফুদ্দিন চৌধুরী দুলাল, চিটাগাং ইভেন্টস্ এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাহাব উদ্দিন, বাংলাদেশ ফার্নিচার শিল্প মালিক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মোল্লা সদরউদ্দিন পিটু। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের চট্টগ্রাম বিভাগের সহ- সভাপতি এম. নাছের, সৈয়দ আই.এম. ইফতেখার উদ্দিন, বলিরহাট ইউনিট সভাপতি জসিম উদ্দিন, চিটাগাং ইভেন্টস্ এর এমডি আয়েশা বেগম, সিইও মো: মনজুরুল ইসলাম রায়হান, ইভেন্ট এক্সিকিউটিভ মো: রাসেল, মো: ইরফান, মো: মেহেদী ও মো: ফারুক প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
নারী উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই
চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এর উদ্যোগে এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ৫ দিনব্যাপী কাটিং, সুইং এন্ড প্যাটার্ন মেকিং শীর্ষক প্রশিক্ষণ কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্প্রতি চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আবিদা মোস্তফা প্রধান অতিথি ছিলেন। প্রধান অতিথি বলেন, নারী উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। প্রশিক্ষণের সাথে সাথে আমাদেরকে লক্ষ্য ঠিক করে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি চট্টগ্রাম অঞ্চলের নারীদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের ধারাবাহিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে আমরা উদ্যোক্তা নারীদের নিয়ে এগিয়ে যাব এবং দেশের অর্থনীতির উন্নয়নে অবদান রাখতে চেষ্টা করব। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চেম্বার পরিচালক ফেন্সী ইসমাইল, ফেরদৌস ইয়াসমিন খানম ও কোর্সের প্রশিক্ষক দিলরুবা হুসনা। চট্টগ্রামের ৩০ জন নারী উদ্যোক্তা এই প্রশিক্ষণ কোর্সে অংশগ্রহণ করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সিএমপি ও মহানগর কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সমাবেশ
আগ্রাবাদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ও চট্টগ্রাম মহানগর কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির উদ্যোগে গত ২২ জানুয়ারি মুক্তিযুদ্ধের গল্প শোন তারুণ্যের ভাবনা ও অঙ্গীকার শিরোনামে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি-বন্দর) এস.এম. মোস্তাইন হোসেন, বিপিএম, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (সিএসবি) শাকিলা সোলতানা মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমেদ, মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার, সহকারী পুলিশ কমিশনার (ডবলমুরিং জোন) মোঃ আশিকুর রহমান, অহিদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন, সদস্য সচিব, মহানগর কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি, কৃষ্ণ কুমার দত্ত, প্রিন্সিপাল, আগ্রাবাদ মহিলা কলেজ, সালমা আক্তার, প্রধান শিক্ষক, আগ্রাবাদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
দেশকে এগিয়ে নিতে তৃণমূল কর্মীদের আরো শক্তিশালী করতে হবে:ডা. আফছারুল আমীন
চট্টগ্রাম-১০ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ডাঃ আফছারুল আমীন বলেছেন, একটি রাজনৈতিক দলের জন্য নির্বাচন যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমনি চ্যালেঞ্জিং । নিবেদিত ও নিষ্ঠাবান কর্মী বাহিনীর কারণে দল যে কোন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে পারে। তৃণমূল কর্মীরা সবসময় নির্দেশের অপেক্ষা করে, কাজকে ভালবাসে। তার প্রমাণ ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আমাদের জন্য একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। সে চ্যালেঞ্জ দলের তৃলমূলের কর্মীরা মোকাবেলা করে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে চতুর্থবারের মত প্রধানমন্ত্রী করে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এনেছেন। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে তৃণমূল কর্মীদের আরো শক্তিশালী করতে হবে। তিনি গতকাল সোমবার নাসিরাবাদ সিএন্ডবি কলোনী সম্মুখস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাসিরাবাদ সরকারি বালক-বালিকা ও মহিলা কলেজ কেন্দ্রে নির্বাচন পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। অনুষ্ঠানে ডাঃ আফছারুল আমীন এম.পি সিটি কর্পোরেশন এলাকায় নিজের সীমাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করে বলেন, চট্টগ্রাম-১০ আসনের উন্নয়নে অনেক চেষ্টা করেছি, অনেক উন্নয়ন করেছি। কিন্তু সে উন্নয়নের কথা জনগণের কাছে পৌঁছায় নি। তাই নির্বাচনের আগে বুথকেন্দ্রীক যে কাজ করেছি সেটা অব্যাহত থাকবে। তাহলেই উন্নয়নের সুফল জনগণের ঘরে ঘরে পৌঁছাবে। তিনি নির্বাচনে যে সকল নেতাকর্মীসহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে আন্তরিকতার সাথে সহযোগিতা করেছে তাদের প্রতি অসীম কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন । নাসিরাবাদ মহিলা কলেজ কেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ সদস্য মশিউর রহমান দিদারের সভাপতিত্বে ও নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বালক বিদ্যালয়ে কেন্দ্র-১ এর আহ্বায়ক অহিদ চৌধুরী মুক্তির সভায় বক্তব্য রাখেন শুলকবহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আতিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শেখ সরওয়ার্দী, নাসিরাবাদ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্র-১ এর সদস্য সচিব ইলিয়াছ বাবলু, কেন্দ্র-২ এর আহ্বায়ক এস এম আলম, কেন্দ্র-২ এর সদস্য সচিব হাবিবুর রহমান তারেক, কেন্দ্র-৩ এর আহ্বায়ক বাহাউদ্দিন লতিফী, সদস্য সচিব কমল বড়ুয়া, কেন্দ্র-৪ এর আহ্বায়ক মো: আলী চৌধুরী, সদস্য সচিব আবদুল মুজিব চৌধুরী, কেন্দ্র-৫ এর ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মহিউদ্দিন খসরু, সদস্য সচিব সাইফুদ্দিন খালেদ বাবু। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন আবুল হাশেম সওদাগর, হাজী কবির আহমেদ, আবদুল হাকিম, আজিজুল হক চৌধুরী, মো: ইসমাইল, শফিকুর রশিদ হাবিব, আবদুর রব সোহেল, মো: মহসিন, মো: সোহেল রানা, সেলিম উদ্দিন, ফিরোজ আহমেদ, শাহীন মোল্লা, মনির হোসেন, আমজাদ হোসেন, নুরুল ইসলাম, গোপাল নাথ, জাহিদ হোসেন টিটু, হোসনে আরা বাদশা, মমতাজ ইকবাল, কায়সার বিন হোসেন, সাজ্জাদ হোসেন টিপু, সাখাওয়াত হোসেন অপু, নুরুল আবছার রাফি, শাকিল খান নিশান প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রামের কোতোয়ালী হতে ৩৯ লাখ টাকার ইয়াবাসহ সাবেক বিমানবালা আটক
অনলাইন ডেস্ক: ইয়াবা ট্যাবলেটসহ স্মৃতি আক্তার নামে এক সাবেক বিমানবালাকে আটক করেছে Rab। এসময় তার সাথে থাকা মোঃ জুবাইর উদ্দিন নামে আরেকজনকে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধারকৃদত ৭,৮৭০ পিস ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৩৯ লক্ষ ৩৫ হাজার টাকা। Rab-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মোঃ মাশকুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি গণমাধ্যমকে জানান, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে চট্টগ্রাম হতে ঢাকা যাওয়ার উদ্দেশ্যে চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন রোডস্থ মেসার্স ফেনী ট্রেডার্স নামীয় দোকানের সামনে অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে (২১ জানুয়ারি ২০১৯ ইং) রাতে Rab একটি দল অভিযান পরিচালনা করলে Rabর উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় তাদের আটক করা হয়। সহকারী পরিচালক জানান, গ্রেপ্তারকৃত আসামি স্মৃতি আক্তার (২৪) রিজেন্ট এয়ার লাইন্সের সাবেক একজন বিমানবালা। তারা দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার হতে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে পরবর্তীতে বিভিন্ন কৌশলে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে আসছেন। পরে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিদের সাথে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করে ৭,৮৭০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। তিনি জানান, আটক মোঃ জুবাইর উদ্দিন কক্সবাজারের দক্ষিণ খরুলিয়ার মোঃ মনির আহমরদর ছেলে। স্মৃতি আক্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্চারামপুরের মোঃ আল আমিন সরকারের মেয়ে। তাদের উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চট্টগ্রাম মহানগরীর কোতোয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।
চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ে ঘুমন্ত স্বামীকে করাত দিয়ে জবাই, স্ত্রী আটক
অনলাইন ডেস্ক: চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ থানার দেওয়ানপুর গ্রামে সোমবার দিবাগত রাতে ঘুমন্ত স্বামীকে করাত দিয়ে জবাই করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্ত্রীর বিরুদ্ধে। নিহত ব্যক্তির নাম সনাতন মজুমদার প্রকাশ সনক (৪৫)। তিনি উপজেলার জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের দেওয়ানপুর গ্রামের অনু মিকার বাড়ির ভবরঞ্জনের পুত্র। জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ মঙ্গলবার সকালে স্ত্রী লাকী মজুমদারকে (৩০) আটক করেছে। পুলিশ জানায়, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। পুলিশ সনকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ইফতেখার উদ্দিন জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে রাতে ঘুমন্ত স্বামীকে প্রথমে কাঠ দিয়ে মাথায় আঘাত করে এবং পরে করাত দিয়ে জবাই করে হত্যা করেছেন স্ত্রী। আমরা তাকে গ্রেপ্তার করেছি। জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।-ইউএনবি
নগরীর ৪১ ওয়ার্ডে ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তা তৈরি করবে
চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি ও দি হিমালয়া ড্রাগ কোম্পানি যৌথভাবে চট্টগ্রাম মহানগরের ৪১টি ওয়ার্ডে ডোর টু ডোর উইম্যান এন্ট্রারপ্রিনিয়ার্স ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের আওতায় ক্ষুদ্র নারী উদ্যোক্তা তৈরি করবে। গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বার ও দি হিমালয়া ড্রাগ কোম্পানির মাঝে এই সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। চট্টগ্রাম উইম্যান চেম্বারের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আবিদা মোস্তফা এবং দি হিমালয়া ড্রাগ কোম্পানির রিজিওনাল বিজনেস হেড আংকিত মহাজন স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন। সমঝোতা স্মারকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উইম্যান চেম্বারের পরিচালক নুজহাত নূয়েরী কৃষ্টি, সদস্য দিলরুবা হুসনা, সাদিয়া মাহমুদ তৃষা, সম্পা চৌধুরী, ফারজানা বেগম ও শিরীন আক্তার শিল্পী। দি হিমালয়া ড্রাগ কোম্পানির মার্কেটিং ম্যানেজার আফরোজ হোসাইন আরেফিন, অ্যাসিসটেন্ট ব্র্যান্ড ম্যানেজার ফয়সাল আলম। অনুষ্ঠানে উইম্যান চেম্বারের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আবিদা মোস্তফা বলেন, নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টিতে হিমালয়ার উদ্যোগ ও সহযোগিতা আমাদের নারীদেরকে সামনে এগিয়ে যেতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। আশা করি অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও আমাদেরকে এইভাবে সহযোগিতার হাত বাড়াবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে কাজ করতে হবে:দিল নওসিন
আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন রোটারী ইন্টারন্যাশনাল ৩২৮২ জেলা গভর্ণর রোটারিয়ান দিল নওসিন মহসিন বলেছেন, দুস্থ মানুষের সেবায় আমাদের ব্রত। সমাজের অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর কোন বিকল্প নেই। গত শনিবার নগরীর উত্তর কাট্টলীর মুন্সিপাড়া ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর কমপ্লেক্সে চট্টগ্রাম প্রগ্রেসিভ ট্রাস্ট, রোটারী ক্লাব অব রোজ গার্ডেন, রোটার ক্লাব অব খুলশী, শাহানা মেটারনিটি ক্লিনিক ও ইউনাইটস থিয়েটার ফর সোশ্যাল অ্যাকশন (উৎস)-এর যৌথ উদ্যোগ দিনব্যাপী ফ্রি হেলথ ক্যাম্প-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় রোটারী জেলা গভর্ণর রোটারিয়ান দিল নওশিন মহসিন উপরোক্ত কথা বলেন। চট্টগ্রাম প্রগ্রেসিভ ট্রাস্ট এর চেয়ারম্যান বিশিষ্ট সাংবাদিক মো. ইসকান্দর আলী চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ ও কাউন্সিল অধ্যাপক ড. নিছার উদ্দিন আহমদ মঞ্জু, লায়ন্স চ্যারিটেবল চক্ষু হাসপাতালের চেয়ারম্যান লায়ন নজমুল হক চৌধুরী, আর.আই ৩২৮২ জেলার কর্ণফুলী জোনের কো-অর্ডিনেটর রোটারিয়ান রিজোয়ান শাহিদী। চট্টগ্রাম প্রগ্রেসিভ ট্রাস্ট-এর নির্বাহী পরিচালক সাংবাদিক সিরাজুল করিম মানিক এ অনুষ্ঠান সঞ্চালন করেন। এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন দিনব্যাপী ফ্রি হেলথ ক্যাম্পের আহব্বায়ক ও ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. শাহানা বেগম, পরিচালক (স্বাস্থ্য) প্রকৌশলী শেখ এহছানুল হক চৌধুরী, রোটারী জেলা এ্যাসিসটেন্ট গভর্ণর মো. আকবর হোসেন, উৎসের নির্বাহী পরিচালক মোস্তফা কামাল যাত্রা, নারীনেত্রী রোকেয়া হক, রোটারী ক্লাব অব রোজ গার্ডেনের সভাপতি ড. বিপ্লব বড়ুয়া, রোটারী ক্লাব অব খুলশী সভাপতি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন। প্রধান অতিথি রোটারিয়ান দিল নওশিন মহসিন বলেন আমাদের দেশে চিকিৎসা ক্ষেত্রে নারীরা এখনও অবহেলিত। দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা নারী। তাদের অবহেলা করার কোন সুযোগ নেই। তিনি সচেতন নারীদের ঘুরে দাঁড়ানোর আহব্বান জানান। তিনি বলেন মানুষ মানুষের জন্য। সমাজের অসহায়, দুস্থ ও নিপীড়িত নারীদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দেশের সকল স্তরের সেবাকর্মীদের এগিয়ে আসার আহব্বান। তিনি বলেন, এদেশ আমাদের আমরা দেশটাকে ভালোবাসি। সরকারের পাশাপাশি আমাদেরকেও বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডে আমাদেরকে এগিয়ে আসতে হবে। এতে দেশ উন্নত হবে। একটি সমাজব্যবস্থা নিশ্চিত হবে। এক্ষেত্রে আমাদেরকে নাগরিক দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট হওয়া উচিত বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন। প্রধান অতিথি রোটারী ইন্টারন্যাশনালে বিভিন্ন কর্মকান্ডে তুলে ধরে বলেন আজ আমরা দেশে দেশে পোলিও মুক্ত সমাজ গড়ে তুলেছি। পোলিও নির্মুলে ক্ষেত্রে রোটারী ক্লাবের অবদান সবচেয়ে বেশি। দিনব্যাপী ফ্রি হেলথ ক্যাম্পে লায়ন্স চ্যারিটেবল চক্ষু হাসপাতাল, লায়ন মোখলেছুর রহমান হেলথ কেয়ার, চট্টগ্রাম নার্সিং ইনস্টিটিউট, শাহানা মেটারনিটি ক্লিনিক, উৎসের চিকিৎসক, নার্স ও স্বেচ্ছাসেবক টিম অংশ নেন। এছাড়াও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হাসপাতাল, চট্টগ্রাম লায়ন্স ফাউন্ডেশন, ফাতেমা (রা:) ক্লিনিক-এর চিকিৎসকবৃন্দ অংশ নেন। ক্যাম্পে সাগরিকা শিল্পাঞ্চলে বিপুল সংখ্যক চাকরীজীবী মহিলা অংশ নেন। এ ক্যাম্পে প্রায় চার শতাধিক দুস্থ মহিলা ও পুরুষ চিকিৎসাপত্র ও ঔষুধ গ্রহণ করেন এবং ২০ জন মুসলিম শিশুর খতনা করা হয়।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চক্ষু হাসপাতালে শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ
ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন অপটোমেট্রি কোর্সের ১০ তম ব্যাচের নবীন বরণ অনুষ্ঠান সম্প্রতি চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ইমরান সেমিনার হলে অনুষ্ঠিত হয়। হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব কমিউনিটি অফথালমোলোজি (আইসিও)’র উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠান মাওলানা হাফিজ আহমেদ ভূঁইয়ার কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে সূচনা হয়। আইসিও’র পরিচালক অধ্যাপক ডা. খুরশীদ আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন, হাসপাতালের ম্যানেজিং ট্রাস্টি উপমহাদেশের প্রখ্যাত চক্ষু বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. এ এস এম মোশতাক আহমেদ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ইউরোলোজী ডিপার্টমেন্টের এসোসিয়েট প্রফেসর ডা. মনোয়ারুল হক শামীম, চট্টগ্রাম চক্ষু হাসপাতালের মেডিকেল ডিরেক্টর ডা. মো. কামরুল ইসলাম, আইসিও’র অধ্যাপক ডা. মনিরুজ্জামান ওসমানী, হাসপাতালের কনসালটেন্ট এন্ড ফ্যাকো সার্জন ডা. রাজীব হোসেন। আইসিও’র জুনিয়র রিসার্স অফিসার মিস তানজিলা মোহনার উপস্থাপনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইসিও’র লেকচারার জুয়ের দাস গুপ্ত। অনুষ্ঠানে ব্যাচেলর অব সায়েন্স ইন অপটোমেট্রি কোর্সের ১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষের সমাপনী পরিক্ষায় প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী ৯ জন মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীকে বৃত্তি ও শিক্ষা সনদ প্রদান করা হয়। হাসপাতালের কনসালটেন্ট ডা. মর্তুজা নুর উদ্দিন,কনসালটেন্ট ডা. শামস নোমান, ডা. সাহেলা বেগমসহ অতিথিবৃন্দ এদের হাতে বৃত্তির অর্থ ও সনদ তুলে দেন। সারাদেশে চক্ষু সোবার পরিধি বাড়ানোর লক্ষ্যে দক্ষ অপটোমেট্রিস্ট ব্যাপক ভূমিকা রাখতে পারে উল্লেখ করে হাসপাতালের ম্যানেজিং ট্রাস্টি অধ্যাপক ডা. রবিউল হোসেন বলেন, উন্নত বিশ্বে অপটোমেট্রি বহুল প্রচলিত নাম হলেও আমাদের দেশে এটি একেবারে নতুন। এখানে অপটোমেট্রি গ্রেজুয়েশন কোর্স শুরু হয়েছে ১০ বছর আগে। একমাত্র এই চক্ষু হাসপাতালে দেশের প্রথম কোর্সটি চালুর পর থেকে দিন দিন চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। যার ফলে আমরা চাচ্ছি অপটোমেট্রি বিভাগকে আরো স¤প্রসারিত করতে। অনুষ্ঠানে আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতাল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. এ এস এম মোশতাক আহমেদ নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, পড়ালেখায় মনোযোগী হয়ে নিজেকে সুশিক্ষিত ও দক্ষ অপটোমেট্রিস্ট হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। তাহলে দেশ ও জাতি উপকৃত হবে। অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্যে আইসিও’র পরিচালক অধ্যাপক ডা. খুরশীদ আলম নবাগত শিক্ষার্থীদের পরিচিতির পাশাপাশি পেশাগত উৎকর্ষতা অর্জনের জন্য বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দেন।প্রেস বিজ্ঞপ্তি

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর