নদীতে ভাসছে অচল পণ্যবাহী জাহাজ
২০,অক্টোবর,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বেতন-ভাতার সুযোগ-সুবিধাসহ ১১ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে অনির্দিষ্টকালের জন্য নৌযান ধর্মঘট চলছে। ফলে শত শত অচল পণ্যবাহী জাহাজ ভাসছে কর্ণফুলী নদীতে। বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের ডাকা এ ধর্মঘটে আজ মঙ্গলবার সকাল ৭টার পর থেকে কোনো লাইটারেজ জাহাজ বহির্নোঙরে যায়নি। এমনকি আগে থেকে পণ্য খালাসে থাকা জাহাজগুলোও খালাস শেষ না করে ঘাটে ফিরে এসেছে। চট্টগ্রাম জেলা নৌশ্রমিক অধিকার সংরক্ষণ ঐক্য পরিষদের সহ-সভাপতি মো. নবী আলম বলেন, গত ১৩ অক্টোবর রাজধানীর বিজয়নগরে শ্রম অধিদফতরের সামনে নৌশ্রমিক অধিকার সংরক্ষণ ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন থেকে এই ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়। এর আগে সারাদেশে অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতি ঘোষণা করেছে নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। আমরা করোনার কারণে আমাদের দাবি নিয়ে কথা বলিনি। কিন্তু মালিকপক্ষ আমাদের শুষে নিচ্ছে। এভাবে হলে তো আমরা বাঁচবো না। নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন সূত্রে জানা গেছে, বিভিন্ন দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নের জন্য ২০১৫ সাল থেকে আন্দোলন করে আসছেন তারা। এগুলোর কয়েকটি দাবি পূরণ হলেও অমীমাংসিত ১১ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে ২০১৮ সালে শ্রম অধিদফতরে আবেদন করেন ফেডারেশন নেতারা। যার অনুলিপি নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, নৌযান মালিকদের বিভিন্ন সংগঠনসহ সংশ্নিষ্ট সব দপ্তরে দেয়া হয়। বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. শাহ আলম ভূঁইয়া জানান, ২০১৮ সালে প্রথমে ১১ দফা দাবি তোলা হয়। এরপর নৌযান শ্রমিকেরা গতবছর তিনবার এই দাবিতে কর্মবিরতি পালন করে। প্রতিবারই সরকার ও মালিকপক্ষ প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভঙ্গ করে। শ্রমিকরা বারবার আন্দোলন করলেও তাদের ভাগ্যে প্রতিশ্রুতি ছাড়া কিছুই জোটেনি।
নিউজ একাত্তর ডট কমে সংবাদ প্রকাশে সর্বত্র তোলপাড়,সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ভয়াবহ দূর্ঘটনার আশঙ্কা
১৯,অক্টোবর,সোমবার,মো.এনামুল হক লিটন,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ভয়াবহ দূর্ঘটনার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে, এলপিজি ডিলাররা। ৪২ বছরের পূরনো জীর্ণশীর্ণ গ্যাস সিলিন্ডার অবিলম্বে বাতিল করে নতুন ৫ লাখ সিলিন্ডার আমদানী এবং ডিলারদের বিনিয়োগকৃত সিলিন্ডারের টাকা ফেরত না দিয়ে বেসরকারি কোম্পানীকে বাল্কে লিকুইড বিক্রি বন্ধ করা না হলে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দিয়েছে ডিলার এসোসিয়েশন। ১৭ অক্টোবর নিউজ একাত্তর ডট কমে এই সংক্রান্তে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে, এনিয়ে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়। চট্টগ্রাম মহানগর এলপি গ্যাস ডিষ্ট্রিবিউটর ডিলার এসোসিয়েশনের সভাপতি আলহাজ্ব সাইফুল আলম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমরা এসোসিয়েশনের পক্ষথেকে বারবার এলপি গ্যাস সিলিন্ডার জরাজীর্ণ ও লিকেজ সমস্যা এবং বাল্কের মাধ্যমে লিকুইড গ্যাস বেসরকারি কোম্পানীকে টেন্ডারের মাধ্যমে দেয়ার প্রক্রিয়া বাতিলের দাবী জানিয়ে আসলেও কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোনো কর্ণপাত করছেনা। তবে পতেঙ্গা এলপি গ্যাস প্লান্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফজলুর রহমান ২৫ হাজার সিলিন্ডারের টেন্ডার করা হয়েছে এবং আরো ১ লাখ সিলিন্ডারের জন্য টেন্ডার করা হবে বলে জানান। অন্যদিকে খোলা আকাশের নীচে এলপিজি সিলিন্ডার রেখে বিক্রি এবং বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণভাবে এসব সিলিন্ডার বিতরণ করা হচ্ছে। ফলে যেকোন সময় ভয়াবহ দূর্ঘটনার আশঙ্কা করছেন অভিজ্ঞ মহল। জানতে চাওয়া হলে, চট্টগ্রামের প্রধান বিস্ফোরক কর্মকর্তা তোফাজ্জল আহমেদ এসব বিষয়ে অতিরিক্ত সাবধানতা অবলম্বনের কথা বলা হয়েছে এবং আমরা এ বিষয়টি কঠোর নজর দারিতে রেখেছি বলে মন্তব্য করেন।
ঝাউতলা-আমবাগানে রেলওয়ের অভিযানে ২শ স্থাপনা উচ্ছেদ
১৯,অক্টোবর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের আমবাগান মিন্টু কলোনি ও ঝাউতলা এলাকার লেভেল ক্রসিং উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেছে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল। অভিযানে প্রায় ১৮০ থেকে ২০০ দোকান ও বসতঘর উচ্ছেদ করা হয়। সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকাল ১০টা থেকে বিকাল পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয় ষোলশহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জাকির হোসেন ও রেলওয়ে সার্ভেয়ার আব্দুস সালাম তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ষোলশহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জাকির হোসেন বলেন, সকাল ১০ টা থেকে আমবাগান এলাকার মিন্টু কলোনিতে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে রেলওয়ে। এ সময় দোকান বসতঘরসহ বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। রেলওয়ে সার্ভেয়ার আব্দুস সালাম বলেন, আমবাগান এলাকায় অভিযান চালানোর পর ঝাউতালা এলাকার লেভেল ক্রসিং এ রেললাইনের পাশে অবৈধ উচ্ছেদ করা হয়। অভিযানে দোকান কলোনির ঘর, ঝুঁপড়িসহ বিভিন্ন স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। রেলওয়ের চালানো হচ্ছে অভিযানে, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের কর্মকর্তা-কর্মচারী, জিআরপি পুলিশ ও এপিবিএন পুলিশ বিভিন্ন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
টাইগারপাস মোড়ে ইয়াবাসহ নারী আটক
১৯,অক্টোবর,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস মোড় সংলগ্ন এলাকা থেকে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ এক নারীকে আটক করেছে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার সময় জমিলা প্রকাশ মুন্নিকে (১৯) আটক করা হয়। মহানগর গোয়েন্দা (দক্ষিণ) বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক বিশ্বজিৎ বর্মন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর কোতোয়ালী থানাধীন টাইগারপাস মোড় সংলগ্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ জমিলা প্রকাশ মুন্নিকে (১৯) আটক করা হয়। আটককৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।
পটিয়ায় অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেন:ধর্ষণ প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন হতে হবে
১৮,অক্টোবর,রবিবার,পটিয়া প্রতিনিধি,চট্রগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্রগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেন পিপিএম বলেছেন, দেশে নারীর প্রতি সহিংসতা আজ সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। এথেকে পরিত্রাণ পেতে হলে সবাইকে সচেতন হতে হবে। ধর্ষণ ও নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধে তিনি দেশব্যাপী পুলিশের সচেতনতা মূলক সমাবেশের অংশ হিসেবে পটিয়ায় বক্তব্য রাখছিলেন। তিনি বলেন, সমাজের সর্বস্তরে এই ম্যাসেজ পৌঁছাতে হবে যে ধর্ষনের আগের যাবজ্জীবন শাস্তি বাড়িয়ে এখন সরকার মৃত্যুদন্ডের আইন প্রণয়ন করেছে । তাই সাবধান, কোথাও যাতে নারীর প্রতি সহিংসতা, ইভটিজিং, ধর্ষন এবং নিপীড়নের ঘটনা ঘটতে না পারে সে জন্য সবাইকে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। পাশাপাশি এ ধরনের অপকর্ম করে কেউ যাতে পার না পায় সেজন্য সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে। তিনি গতকাল পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে বিট পুলিশিং এর উদ্যোগে নারী নির্যাতন ও ধর্ষন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত এসব কথা বলেন। পটিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারেক রহমানের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন পটিয়া সার্কেলের পুলিশ পরিদর্শক মনজুরুল আলম, পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: বোরহান উদ্দিন প্রমূখ।
শেরশাহ সড়ক-ফুটপাত পুনরুদ্ধারে চসিকের উচ্ছেদ অভিযান
১৮,অক্টোবর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি থানাধীন শেরশাহ কলোনি এলাকায় সড়ক ও ফুটপাত উদ্ধারে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। রোববার (১৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১১টায় শুরু হওয়া এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌস ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী। চসিক সূত্রে জানা গেছে, নগরীর বায়েজিদ বোস্তামি সড়কের শেরশাহ কলোনি এলাকার এ উচ্ছেদ অভিযানে প্রায় দেড় শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করা হচ্ছে। সকাল থেকে শুরু হওয়া এ উচ্ছেদ অভিযান পুরোপুরি উচ্ছেদ কার্যক্রম শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে। চলাকালে দোকানদাররা জানান, তারা হোল্ডি ট্যাক্স দেয়। তাদের ট্রেড লাইসেন্সও আছে। তাছাড়া তাদের বিদ্যুৎ ও গ্যাসের সংযোগ আছে। তাদের কোনো প্রকার উচ্ছেদের নোটিশ দেয়া হয়নি। হঠাৎ করে উচ্ছেদ করায় দোকানের সব মালামাল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী জানান, এ অভিযানে শেরশাহ কলোনির রাস্তার উভয় পাশে অবৈধ ভাসমান দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। অবৈধভাবে সড়ক ও ফুটপাত দখল করে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। অভিযানটির ব্যাপারে দোকান মালিকদের গতকাল অবগত করা হয়েছে। এ অভিযানের মাধ্যমে সড়ক ও ফুটপাত পুনরুদ্ধার করা হচ্ছে। অভিযানে সিটি কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী, Rab-7 এর একটি দল ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ সহায়তা করেন।
শেখ রাসেলের জন্মদিনে ১০০ ল্যাপটপ ও শিক্ষাবৃত্তি সাইফ পাওয়ারটেকের
১৮,অক্টোবর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মদিনে ১০০ ল্যাপটপ ও ১ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য ১ কোটি ৮০ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন সংগঠনের উপদেষ্টা সাইফ পাওয়ারটেকের কর্ণধার তরফদার মো. রুহুল আমিন। রোববার (১৮ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এসব অনুদান তুলে দেন। করোনা মহামারীর কারণে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক, দিকনির্দেশক প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি আয়োজকদের ধন্যবাদ দেওয়ার পাশাপাশি সংগঠন পরিচালনায় নানান পরামর্শ ও দিকনির্দেশনা দেন। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মো. রকিবুর রহমানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপদেষ্টা তরফদার মো. রুহুল আমিন ছাড়াও তথ্য ও যোগাযোগ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের মহাসচিব মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, উপদেষ্টা সিরাজুল ইসলাম মোল্লা এবং সংগঠনের সভাপতি কে.এম শহিদ উল্যা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ভাই শহীদ শেখ রাসেল। আদরের ছোট ভাইয়ের জন্মদিন সামনে রেখে নানান স্মৃতিচারণা করেন প্রধানমন্ত্রী। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকের বুলেটে সপরিবারের নিহত হন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ঘাতকরা শিশু শেখ রাসেলকেও নির্মমভাবে হত্যা করে। ভবিষ্যতে বাংলার মাটিতে এ ধরনের নির্মম হত্যাকাণ্ড যাতে না ঘটে সেজন্য সবাইকে দৃষ্টি রাখার পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, শিশুরা আগামীদিনের ভবিষ্যৎ। তাই তাদের প্রতি সহনশীল আচরণ এবং তাদের প্রকৃত শিক্ষা-দীক্ষায় মানুষের মতো মানুষ করে গড়ে তুলতে হবে। করোনা মহামারীতে স্কুল বন্ধু। তাই ঘরে বসেই শিশুদের পাঠদান চালিয়ে নেওয়ারও পরামর্শ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ রাসেলের জন্মদিন সামনে রেখে দাবা প্রতিযোগিতা ছাড়াও নানা ধরনের সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ বছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় জিপিএ-৫ অর্জনকারী মেধাবী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা স্মারক ও পুরস্কার তুলে দেওয়ার পাশাপাশি দাবা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানে সংগঠনের পক্ষ থেকে উপদেষ্টা তরফদার মো. রুহুল আমিনকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো হয়।
দুর্গোৎসব উপলক্ষে মনজুর আলমের বস্ত্র বিতরণ
১৮,অক্টোবর,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মোস্তফা-হাকিম ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে উত্তর কাট্টলী মোস্তফা-হাকিম কলেজ চত্বরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপুজা উপলক্ষে বস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১০টায় উত্তর কাট্টলী ৯ ও ১০ নম্বর ওয়ার্ডের দরিদ্রদের হাতে নতুন কাপড় তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক মেয়র এম মনজুর আলম। তিনি বলেন, আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজায় যাতে অসহায় দুঃস্থ সনাতন ধর্মাবলম্বীরা তাদের উৎসব সুন্দরভাবে পালন করতে পারে সেজন্য আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রয়াস। তিনি দুর্গাপুজা উপলক্ষে সবাইকে শারদীয় শুভেচ্ছা জানান। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উত্তর কাট্টলী মোস্তফা-হাকিম কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলমগীর, উপাধ্যক্ষ মাহফুজুল হক চৌধুরী, আকবরশাহ থানা আওয়ামীলীগ এর সহ সভাপতি লোকমান আলী, মোস্তফা হাকিম স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নেছার আহমদ, আকবরশাহ থানা পূজা উদযাপন কমিটির উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার তরুণ তপন দত্ত, তপন বিকাশ আচার্য, জগিশ দাস, রুপশ তালুকদার, জামিনি কুমার দে, দিলীপ দত্ত, মুনমুন দাস, দিপ্তী মজুমদার প্রমুখ।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে নদী বাঁচাই বাল্লাই সাম্পান খেলা গরিরদ্যে- আ জ ম নাছির উদ্দীন
১৭,অক্টোবর,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত সাম্পান খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন চট্টগ্রামের কথ্য ভাষায় বলেন, কর্ণফুলীর পাড়র প্রায় তিনশয়ের বেশি কারখানার শিল্প বর্জ্য, এই শহরর প্রায় ৬০ লাখ মানুষর মানব বর্জ্য ,পলিথিন,প্লাস্টিক প্রত্যেক দিন নদীত পড়ে (কর্ণফুলীর পাড়ের প্রায় তিন শতাধিক কারখানার শিল্প বর্জ্য,নগরের প্রায় ৬০ লাখ মানুষের মানব বর্জ্য,পলিথিন,প্লাস্টিক প্রতিদিন নদীতে পড়ছে)। বর্তমানে নদীর প্রায় ৭ মিটার গভীরতা নষ্ট হয়ে গেছে শুধু পলিথিনের কারণে (নদীর প্রায় ৭ মিটার গভীরতা নষ্ট হয়ে গেছে)। আঁরা জানি বা ন জানিয়ারে এই নদীরে গলা টিপে মারি ফেলাইর (আমরা জেনে বা না জেনে নদীটিকে গলা টিপে হত্যা করছি)। এই কর্ণফুলীসহ দেশর অন্য নদীরে বাঁচাই বাল্লাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নদী কমিশন গঠন গইরজ্যি (কর্ণফুলীসহ দেশের নদীগুলো বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নদী কমিশন গঠন করেছে)। কিন্তু সরকারর সঙ্গে আঁরা নদী পাড়র মাইনষ্যত্বেও সচেতন হন পড়িবু (সরকারের সাথে আমরা নদী পাড়ের নগরবাসীকেও সচেতন হতে হবে)। নইলে এই নদী সহসাৎ বরবাদ হই যাইবু (নাহলে এই নদী অচিরেই অস্তিত্ব হারাবে)। এই নদী বাঁচিলে চট্টগ্রাম বন্দর বাঁচিবু, বন্দর বাঁচিলে দেশের অর্থনীতি বাঁচিবু (কর্ণফুলী বাঁচলে চট্টগ্রাম বন্দর বাঁচবে,দেশের অর্থনীতি বাঁচবে)।এই হতাল্লাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কর্ণফুলী নদী রক্ষায় জনসচেতনতা সৃষ্টিতে সাম্পান উৎসব গরিরদ্যে( সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে কর্ণফুলী নদী রক্ষায় জনসচেতনতা সৃষ্টিতে এই সাম্পান উৎসব আয়োজন করা হয়েছে) শনিবার ১৭ অক্টোবর বিকালে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত দুই দিন ব্যাপী সাম্পান উৎসবের দ্বিতীয় পর্ব সাম্পান খেলা প্রতিযোগিতা নগরীর অভয়মিত্র ঘাট (নেভাল টু) এলাকায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। নদীর দক্ষিণ পাড় থেকে উত্তর পাড়ের অনুষ্ঠান স্থল (অভয়মিত্র ঘাট) ছিল সাম্পান খেলার মোট দূরত্ব। সাম্পান খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, কর্ণফুলী নদীকে দখল ও দূষণের কবল থেকে রক্ষা করতে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে এই সাম্পান খেলার আয়োজন করা হয়েছে। হাজার বছর ধরে নদীমাতৃক এই বাংলাদেশে নৌকাবাইচ,সাম্পান খেলা শুধু খেলা নয়, এই প্রতিযোগিতা সংগ্রামের প্রতীক হয়ে আমাদের জীবনে মিশে রয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত সাম্পান খেলা প্রতিযোগিতায় শিকলবাহা মোতোয়াল্লি শাহ ব্লক পাড় মাঝিরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। শাহ আহমদ মাঝির নেতৃত্বে ১০ জন মাল্লার দলটি প্রথম পুরস্কার হিসেবে একটি মোটর সাইকেল পেয়েছে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে শাহ আহমদ মাঝি ভোরের কাগজকে বলেন, আঁরাততে কি যে ভালা লাগের ইআন ভাষায় বুঝাইত ন পাইরগ্যম (আমাদের কি যে ভাল লাগছে তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।) বহুত দিন পর সাম্পান খেলাত ফাস্ট হই আঁরা (বহু দিন পর সাম্পান খেলায় আমরা প্রথম হয়েছি)। নাচিবাল্লাই মনে হর (নাচতে ইচ্ছে করছে)। ১০টি দল নিয়ে অনুষ্ঠিত এই সাম্পান খেলায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে ইছানগর বাংলাবাজার ঘাট সাম্পান মাঝি কল্যাণ সমিতি। তৃতীয় স্থান লাভ করেছে মাদার্সা পাড়া এক নম্বর গেইট চরপাথরঘাটার মাঝি দল। নগর আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মহানগর আওয়ামীলীগের শফর আলী,শেখ মোহাম্মদ ইসহাক, নোমান আল মাহমুদ, মসিউর রহমান, চন্দন ধর, এডভোকেট ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, মোহাম্মদ হোসেন, মো. ইসা, আবদুল মান্নান ফেরদৌস, আযোগিতার পৃষ্টপোষক নাজিম উদ্দিন,সাবেক কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব,শৈবাল দাশ সুমনসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর