শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
নতুন প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ পৌঁছাতে হবে: আফছারুল আমীন
২৯আগস্ট,বৃহস্পতিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ডা. আফছারুল আমীন এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালির বৈষম্য ও বঞ্চনা গভীরভাবে অনুভব করেছেন। জনগণের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনই ছিল বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের একমাত্র দর্শন। আর তাদের মুক্তির জন্য আজীবন লড়াই-সংগ্রাম করেছেন। এমনকি শেষ পর্যন্ত আত্মোৎসর্গ করেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নতুন প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেয়ার আহ্বান জানান। পূর্ব নাসিরাবাদ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও ছাত্রলীগের যৌথ উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবসের এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। গত মঙ্গলবার নাসিরাবাদস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারের সামনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন নগর যুবলীগের সদস্য মশিউর রহমান দিদার। নাসিরাবাদ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অহিদ চৌধুরী মুক্তির পরিচালনায় এতে প্রধান বক্তা ছিলেন নগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন রবি, প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, সাবেক ছাত্রনেতা সুভাষ সিংহ রায়, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য জাহাঙ্গীর আলম, নগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক কে বি এম শাহজাহান। বক্তব্য রাখেন আতিকুর রহমান, বাহাউদ্দিন লতিফী, শেখ সরওয়ার্দী, হাসিনা জাফর, জসিম খন্দকার, নরুল আনোয়ার, এস এম আলম, আলী আকবর, জেসমিন পাভীন জেসী, কমল বড়ুয়া, মো. আলী, হাবিবুর রহমান তারেক, মোহাম্মদ মোহসীন, তৌহিদুল আনোয়ার, প্রিয় লাল গোস্বামী, আবুল বাশার, রিয়াজুল করিম বিলাশ, শাহীন মোল্লা, জাহেদ হোসেন টিটু, মো. সাদমান প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন গিয়াস উদ্দিন, হাসান মুরাদ বিপ্লব, মো. ইউনুচ, নাজমুল আহসান, ওয়াসিম উদ্দিন চৌধুরী, ওয়াহিদুল আলম শিমুল, প্রফেসর আজাদ, নরুল ইসলাম চৌধুরী, আবুল হাসেম সওদাগর, কবির আহমেদ, আবদুল হাকিম কন্ট্রাক্টর, আজিজুল হক চৌধুরী, আনোয়ারুল ইসলাম নওশাদ, ইলিয়াছ বাবল, শফিকুর রশিদ হাবিব, মনির হোসেন, গোপাল নাথ, মাইনুল হক মনা, আব্দুল মজিদ, হামিদুল হক বাবুল, শামসুল হক, সাইফুদ্দিন আহম্মেদ বাবু, আমজাদ হোসেন, নুর নাহার বেগম ফুলু, হোসনে আরা বাদশা, মাহফজুল আলম বাবুল, জাবেদ খান, ফিরোজ আহমেদ, মো. সেলিম, সোহেল রানা, ওয়াজেদ, আবু তাহের, মো. আকাশ, এরফানুল হক কনক, কাউসার, জিকু, সোহান প্রমুখ। সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বাঙালি জাতির জন্য বঙ্গবন্ধুর ত্যাগকে যেমনিভাবে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলা যাবে না, তেমনিভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকেও কেউ হত্যা পারবে না। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
শাহ আমানত বিমানবন্দরে ৮১৪ কার্টন সিগারেট আটক
২৮আগস্ট,বুধবার,স্টাফ রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম: শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুবাই থেকে আসা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের তিন যাত্রীর কাছ থেকে ৮১৪ কার্টন সিগারেট আটক করা হয়েছে। বুধবার (২৮ আগস্ট) সকাল ৭টা ২৫ মিনিটে বিজি ১৪৮ ফ্লাইটটি অবতরণ করে। কাস্টম হাউসের যুগ্ম কমিশনার নাহিদ নওশাদ মুকুল জানান, ঘোষণা বহির্ভূত ইজি ব্রান্ডের সিগারেটের একটি চালান আটক করেছে কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা। চোরাচালান, মিথ্যা ঘোষণা, রাজস্ব ফাঁকি ও আমদানি নিষিদ্ধ পণ্য প্রতিরোধে কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ নজরদারি ও গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানোর ফলে চালানগুলো ধরা পড়ছে। কাস্টম হাউসের সহকারী কমিশনার মো. মুসা খান জানান, আবদুল কাদের মোল্লা, মো. ইয়াসিন ও মো. আসাদ নামের তিন যাত্রীর কাছে সিগারেটের কার্টনগুলো পাওয়া যায়। তাদের সাময়িকভাবে আটক করা হয়েছে।
বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে বৃক্ষরোপণের বিকল্প নেই
২৮আগস্ট,বুধবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভবিষ্যত প্রজন্মের বাসযোগ্য পৃথিবীর জন্য বেশি বেশি বৃক্ষরোপন করার আহব্বান জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ আবদুচ ছালাম। তিনি বাংলাদেশ কৃষকলীগ মোহরা ওয়ার্ডের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ অভিযান ও চারা গাছ বিতরণ কর্মসূচিতে একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, ‘বিশ্ব জুড়ে যে বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি পেয়েছে তা রোধ করতে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে বৃক্ষ রোপনের কোন বিকল্প নেই। বৃক্ষ নিধনের ফলে পরিবেশ ভারসাম্য হারাচ্ছে। পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। যার ফলাফল বর্ষাকালে বৃষ্টি হচ্ছে না, আবার শীতের সময় প্রচুর বৃষ্টি হচ্ছে। পরিবেশের এ বিরূপ প্রভাব থেকে বাঁচতে হলে বেশি বেশি গাছ রোপন করতে হবে। কারণ মানবজীবনে বৃক্ষ হচ্ছে মানুষের সবচেয়ে ভালোবন্ধু। সতেজ অক্সিজেন কেবল বৃক্ষই দিয়ে থাকে। তাই ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য একটি বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে বেশি বেশি বৃক্ষ রোপনের বিকল্প নেই। এসময় অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন মোহরা ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা এস এম আনোয়ার মির্জা, মোহাম্মদ ফারুক, মহানগর কৃষক লীগের সহসভাপতি সুজাউদ্দিন বাবু, মো. নাছির উদ্দিন, শেখ আহম্মদ, মো. আলমগীর, আজম খান, যুবলীগ নেতা মো. হারুন, সৈয়দ আরিফ, মো. বাদশা, মো. সালাউদ্দিন, সাহেদ চৌধুরী, মহানগর ছাত্রলীগ সদস্য ইমাম উদ্দিন, চান্দগাঁও থানা ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন, মো. সাকিব, মোস্তফা কামাল, কায়সার উদ্দিন, তৈহিদুল ইসলাম প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং পোর্ট সিটির চার্টার নাইট অনুষ্ঠিত
২৮আগস্ট,বুধবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: লায়ন্স ক্লাব অব চিটাগাং পোর্ট সিটির চার্টার নাইট, ডিজিটিম রিসিপশন, নিউ মেম্বার ইনডাকশন, ঈদ পুর্নমিলনী ও ফাষ্ট প্রেসিডেন্ট অনারডে ক্লাব প্রেসিডেন্ট লায়ন মো. শাহজালালের সভাপতিত্বে, জোন চেয়ারম্যান লায়ন মো. ফজলুর রহমান মজুমদার স্বপনের সঞ্চালনায় চট্টগ্রাম লায়ন্স ফাউন্ডেশনের প্রকৃতি কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন ২য় ভাইস জেলা গভর্নর লায়ন আল-শাদাত দোভাষ। বক্তব্য রাখেন কেবিনেট সেক্রেটারী লায়ন জি.কে লালা, কেবিনেট ট্রেজ্যরার লায়ন এস. এম আশরাফুল আলম অরজু, জিএমটি কো-অডিনেটর লায়ন জাহিদুল ইসলাম চৌধুরী, বিজিয়ন চেয়ারপার্সন লায়ন আবু মোর্শেদ, জোন চেয়ারপার্সন লায়ন ফখরুদ্দিন আহমেদ, ডিষ্ট্রিক্ট চেয়ারপার্সন লায়ন আউয়াল হোসেন পাটোয়ারী, ক্লাব সেক্রেটারী লায়ন আমিরুল ইসলাম, ট্রেজারার লায়ন আলহাজ্ব মহিউদ্দিন মুন্সী, লায়ন ফরিদুল আলম, লায়ন নাহিদ মুরাদ মুন্না, লায়ন আনোয়ার হোসেন, লায়ন জেসমিন রহমান, লায়ন আমেনা বেগম, লায়ন শাহনাজ বেগম। জেলা গর্ভনর কেক কেটে ক্লাবের চার্টার নাইটের সূচনা করেন, ক্লাবের নতুন ৭ জন সদস্যকে শপথ গ্রহন করান এবং তাদেরকে পতাকা প্রদান করেন ও পিন পরিয়ে দেন। জেলা গভর্নর তার ডাক হাসির তরে সেবা এর সফল বাস্তবায়নে লায়নদেরকে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জন্য সেবার হাত প্রসারিত করার আহবান জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
বন্দর নগরীর ব্যাংক কলোনি এলাকায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, মামা গ্রেপ্তার
২৬আগস্ট,সোমবার,স্টাফ রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীতে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় নবম শ্রেণির এক ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ, যে সম্পর্কে ওই মেয়ের মামা। নগরীর বন্দর থানার ব্যাংক কলোনি এলাকার ডাস্টবিন গলিতে রোববার (২৫ আগস্ট) শিশুটিকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। আর রাতেই গ্রেপ্তার করা হয় ওই ছাত্রকে। নিহত শিশুটি (৯) বন্দর থানার মাইলের মাথা এলাকায় হালিমা চিশতি কিন্ডারগার্টেনে দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত। গ্রেপ্তার নবম শ্রেণির ছাত্র ওই শিশুর মায়ের চাচাত ভাই। সে বেগমজান উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র। দুই পরিবার পাশাপাশি ভবনে থাকে। বন্দর থানার ওসি সুকান্ত চক্রবর্ত্তী বলেন, মেয়েটির বাবা দিনমজুর আর মা একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। মাঝে মাঝে স্কুল থেকে ফেরার পর শিশুটি গ্রেপ্তার ওই ছাত্রের বাসায় গিয়ে তার বোনের পড়ত। ওসি বলেন, নিকটাত্মীয় হওয়ায় দুই পরিবারের সদস্যদের একে অন্যের বাসায় যাতায়াত ছিল। রোববার বিকালে মেয়েটি নিজের বাসায় একা থাকায় ওই কিশোর সেখানে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। নিপু বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দেওয়ার কথা বললে ওই কিশোর তাকে শ্বাসরোধে খুন করে লাশ ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রাখে। রাতে নিপুর বাবা মা বাসায় এসে বিষয়টি জানতে পারে উল্লেখ করে ওসি সুকান্ত বলেন, বিষয়টি থানায় জানানোর পর পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্নজনের সাথে কথা বলার সময় ওই কিশোরকে সন্দেহ হলে তাকে থানায় নিয়ে আসি রাতে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করে। এই ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান ওসি।
তৈয়্যব শাহ্ (রহ.) দ্বীন বাঁচাবার যে নির্দেশ দিয়েছেন তা আজ বড় বেশি প্রাসঙ্গিক: নওফেল
২৫আগস্ট,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবর বঙ্গবন্ধু হলে আওলাদে রাসুল, আল্লামা হাফেজ সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়্যব শাহ্ (রা)র ২৭তম সালানা ওরশ উপলক্ষে আয়োজিত &গাউসে জামান আল্লামা তৈয়্যব শাহ্ (রহ.)র জীবন-দর্শন-অবদান শীর্ষক মুক্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন, হুজুর কেবলা তৈয়্যব শাহ্ (রহ.)র নির্দেশ কাম করো, দ্বীনকো বাঁচাও, সাচ্ছা আলেম তৈয়ার কর আজ এটি বড় বেশি প্রাসঙ্গিক। তিনি সেদিন দেখতে পেয়েছিলেন, আমাদের প্রিয় দ্বীন-ইসলামকে ধ্বংস করার জন্য বাতেল ফেরকা কীভাবে চক্রান্ত করে যাচ্ছে, চক্রান্ত চলছে ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে। সূফি-আউলিয়াদের ইসলামে কোন হানাহানি নেই উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, তলোয়ারের শক্তিতে বিজয় আসেনি, বরং বিজয় এসেছে তাঁদের আর্দশের শক্তিতে। তাই আজ আউলিয়ায়ে কেরামের সেই শিক্ষার চর্চা করা এবং আল্লামা তৈয়্যব শাহ র নির্দেশিত পথে দ্বীনের জাগরণে কাজ করছে আনজুমান, জামেয়া ও গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ। তিনি আরও বলেন, তৈয়্যব শাহ্ হুজুরের সংস্কার জসনে জুলুসর আজ ইসলামি জজবার উজ্জল নিদর্শন। তাঁর জীবন-দর্শন-অবদান কালে-কালে বিশ্ব মানবতাকে মুক্তির দিশা দেবে উল্লেখ করে জীবনের সর্বস্তরে হুজুর কেবলার আদর্শ ও শিক্ষা বাস্তবায়নের আহ্বান জানান তিনি। গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশর উদ্যোগে গতকাল ২৪ আগস্ট চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব বঙ্গবন্ধু হলে অনুষ্ঠিত মুক্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল উপরোক্ত আহ্বান জানান। গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশর কেন্দ্রিয় চেয়ারম্যান আলহাজ পেয়ার মুহাম্মদ কমিশনারের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম-মহাসচিব এড. মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ারের সঞ্চালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন, জেমস ফিনলের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর আলহাজ্ব আহমদ কামরুল চৌধুরী, আনজুমান-এ রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টর সেক্রেটারি জেনারেল আলহাজ্ব মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। আলোচনায় অংশ নেন আল্লামা এম.এ মান্নান, দৈনিক আজাদীর চীফ রির্পোটার আলহাজ্ব হাসান আকবর, আঞ্জুমান প্রেস ও পাবলিকেশনস সেক্রেটারি প্রফেসর কাজি শামসুর রহমান, জামেয়ার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব প্রফেসর দিদারুল ইসলাম, সাউদার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাওলানা সৈয়দ জালাল উদ্দিন আল-আজহারী, গাউসিয়া কমিটি কেন্দ্রিয় ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ মুহাম্মদ আনোয়ারুল হক, আলহাজ্ব আবদুল হামিদ, মহাসচিব আলহাজ্ব শাহজাদ ইবনে দিদার, আলহাজ্ব মাহাবুবুল হক খান, সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব মাহাবুব এলাহি সিকদার, মহানগর গাউসিয়া কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবুল মনসুর, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাহবুবুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব সাদেক হোসেন পাপ্পু, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাবিব উল্লাহ প্রমুখ। বক্তারা বলেন, হুজুর কেবলার সমগ্র জীবন ছিল দ্বীনের পুনর্জীবনের এক মহামিশন। যে মিশনের যাত্রা শুরু হয়েছিল আটশো বছর আগে বড়পীর গাউসুল আযম জিলানী (রা)র হাতে। তিনি ত্বরিকতের সাথে শরিয়ত, দ্বীনি খেদমত ও সহীহ্ আক্বিদার সমন্বয় সাধনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেছেন। ইসলাম ও সূফিবাদের সহীহ্ ধারার জাগরণে তিনি ছিলেন চলমান হিজরি শতাব্দির অগ্রদূত এবং মহান সংস্কারক। শুধু তাই নয়, সমসাময়িক নির্ভরযোগ্য ওলামা-মাশায়েখ ও বুজুর্গগনের দৃষ্টিতে তিনি ছিলেন জামানার গাউস এবং মুজাদ্দিদ। পরিশেষে মাওলানা ইমরান হাসান কাদেরীর পরিবেশনে মিলাদ, কেয়াম ও মুনাজাত করা হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
আনন্দ মুখর পরিবেশে চিটাগাং সিনিয়রস ক্লাবের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত
২৫আগস্ট,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে আনন্দ মুখর পরিবেশে চিটাগাং সিনিয়রস ক্লাব লিমিটেডের ঈদ পুনর্মিলনী উৎসব গতকাল সন্ধ্যায় ক্লাব ইউসিবি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষ্যে সাংস্কৃতিক পরিবেশনা ও নৈশভোজের আয়োজিন করা হয়। এতে ক্লাবের সদস্যবৃন্দ এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা অংশগ্রহণ করে আয়োজনকে প্রাণবন্ত করে তুলে। ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী বলেন, আজকের এ ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সে স্বপ্ন পূরণে আনন্দ-বিনোদনে নিজেদের জীবন ও কর্মকে গতিশীল করতে চাই। চিটাগাং সিনিয়রস ক্লাব লিমিটেড চট্টগ্রামের মর্যাদাবান নাগরিকদের মহামিলনের মঞ্চ। এখানে আমরা নিজেদের পেশাগত, পারিবারিক, সামাজিক মর্যাদাকে সমুন্নত করে সমাজ ও দেশকে আলোকিত করতে চাই এবং মানবিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের প্রত্যেক সদস্য এ অঙ্গীকার পালনে ব্রতী হলে আজকের এ আয়োজন সার্থক হবে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে মন-মাতানো পরিবেশনা নিবেদন করেন আমন্ত্রিত শিল্পীবৃন্দরা। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ব্যবস্থাপনা কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট বেলায়েত হোসেন, সদস্য মোহাম্মদ আব্বাস, এম এ কবির মিল্কি, মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, গোপাল কৃষ্ণ লালা এবং ওয়ালিউল আবেদীন সাকিল, ক্লাবের সদস্য ও তাঁদের পরিবারবর্গ, এম এ মালেক, বদরুর রহিম চৌধুরী, গোলাম মোস্তফা কাঞ্চন, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, মো. আবুল বশর, ফিরোজ আহম্মদ, ইঞ্জিনিয়ার পরিমল কান্তি চৌধুরী, জহুর আহম্মদ, সৈয়দ সামশুল আলম, আবু বকর চৌধুরী, এম আর দে (এফসিএ), ডা. সরফরাজ খান চৌধুরী, নোয়েল জি. ম্যান্ডিস, জিয়াউদ্দিন আহম্মদ, রূপম কিশোর বড়ুয়া, মোরশেদুল আনোয়ার চৌধুরী, আবদুস সালাম, খায়রুল ইসলাম খান, নাসির উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাড. মনতোষ বড়ুয়া, মো. আবু তাহের, অঞ্জন শেখর দাশ, ছগির চৌধুরী, অশেষ কুমার উকিল, মির্জা মো. আকবর আলী চৌধুরী, মো. জাহেদুল ইসলাম মিরাজ, অলক দাশ, মো. সাহাবুদ্দিন চৌধুরী, পান্নালাল সেনগুপ্ত, এম এইচ চৌধুরী, কাজী মাহমুদ ইমাম বিলু, ডা. ললিত কুমার দত্ত, ড. অনুপম সেন, মোহাম্মদ মানিক বাবলু, আমান উল্লাহ আল-ছগির ছুট্টু, অশোক কুমার সাহা, সালেহ্ আহম্মদ, চিরঞ্জীব চৌধুরী, সিরাজুল হক আনসারী, হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, ডা. মোহাম্মদ সেলিম, মো. মুছা, ওবাইদুল হক আলমগীর, মো. আবুল বশর, মো. ছৈয়দ, মো. আজিজুর রহমান, অ্যাড. আবুল কাশেম চৌধুরী, এম. সাহাবুদ্দিন আলম, অ্যাড. কিশোর কুমার দাশ, মুহিতুল আলম, ফজলুল করিম ভূঁইয়া (টিপ)ু, মোহাম্মদ আবছার মিয়া, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মো. ছাবেদুর রহমান, শামসুল আলম চৌধুরী, মো. গোলাম মোরশেদ, মোরশেদ ইকবাল, সালাউদ্দিন আহম্মদ, আল-সাদাত দোভাষ সাগর, সৈয়দ মনোয়ার হাসান মনি, মো. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, নুরুল আফছার মজুমদার স্বপন, মহব্বত আলী চৌধুরী, আবুল হোসেন, মো. সাইফুল আলম চৌধুরী, ইউসুফ আলী হক, এরশাদ উল্লাহ, এম এন আজাদ চৌধুরী, মোহাম্মদ শফিকুল আলম জুয়েল, মোহাম্মদ আতিক হায়দার, মোহাম্মদ আবু আলম, মোহাম্মদ কামাল উদ্দিন, ইয়াকুব চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার প্রবীর কুমার সেন, মোহাম্মদ আবু জাফর, এএইচএম আজাদ চৌধুরী, অশোক চৌধুরী, তিলক কুমার মল্লিক, ইঞ্জিনিয়ার রবীন্দ্রনাথ ব্যানার্জি, দেবাশিষ পালিত, বিশ্বজিৎ ভট্টচার্য্য, মোহাম্মদ আকতারুজ্জামান, ডা. ইমরান বিন ইউনুস, নিখিল চন্দ্র চৌধুরী, প্রদীপ কুমার দাশ, ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, অজিত কুমার দাশ, এ কে এম আসাদুজ্জামান, ডা. মোহাম্মদ লিয়াকত আলী খান, মো. সিতোয়াত করিম, এ এস এম আজিম উদ্দিন প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
সমাজের অসঙ্গতিগুলো দূর করা সম্ভব সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে
২৫আগস্ট,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) বিজয় বসাক বলেছেন, সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে সমাজের অসঙ্গতিগুলো দূর করা সম্ভব। সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রিয় চট্টগ্রাম আয়োজিত ইভটিজিং ও মাদকবিরোধী সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। চট্টগ্রামের চান্দগাঁওস্থ সানোয়ারা ইসলাম বালক উচ্চ বিদ্যালয়ে গতকাল শনিবার বেলা ১১টায় আয়োজিত সচেতনতামূলক এ কর্মসূচিতে তিনি আরো বলেন, নিজ নিজ অবস্থান থেকে নাগরিক দায়িত্ব পালন করে প্রতিবাদের মাধ্যমে ইভটিজিং ও মাদকের মত সামাজিক সমস্যাগুলো নিরাময়ে প্রয়োজনে আইনের সাহায্য নিতে হবে। ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, শত দুষ্টামির পরও লেখাপড়া ঠিক রাখতে হবে, দেশকে ভালোবাসতে হবে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল মনছুর চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন মানবাধিকারকর্মী লায়ন ডা. মেসবাহ উদ্দিন তুহিন। সম্মিলিত সামাজিক সংগঠন পরিষদের সভাপতি লায়ন ওসমান ফারুকী হিমাদ্রী। প্রিয় চট্টগ্রামের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোরতাজা আহমেদ নঈমের সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন প্রিয় চট্টগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা ও সিনিয়র সভাপতি মুহাম্মদ মেহবুব আলী। কর্মসূচিতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রিয় চট্টগ্রামের অর্থ সম্পাদক মাহমুদুল ইসলাম রাজু, যুগ্ম অর্থ সম্পাদক এসকান্দর নবী, যুগ্ম প্রচার সম্পাদক ডা. খুবাইবুর রহমান আসিফ, শিক্ষা সম্পাদক আহসানুল ইসলাম আরাফাত, সদস্য জয়নাল আবেদীন তামীম, সাজিদ মির্জা, সাজ্জাদ বিন আলম, ইসমাম আহমেদ, জামশেদুল আলম, শওকতুল ইসলাম, শেখ মো. জালাল, আবু সিদ্দিক চৌধুরী রায়হান, আশরাফ মুন্না প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর