বিইসিপির বসন্ত উৎসবে কামরুন মালেক: সুবিধাবঞ্চিতদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য কাজ করতে হবে
১৬,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দিনব্যাপী জাঁকজমক পূর্ণ আয়োজনের মধ্য দিয়ে অনলাইন ভিত্তিক সংগঠন বেস্ট কমার্স প্ল্যাটফর্মের এডমিন প্যানেল তানিয়া লিপু রোকসানার সভাপতিত্বে অ্যাডভোকেট মো. জাফর হায়দারের সঞ্চলনায় নগরীর একটি রেস্টুরেন্টে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বসন্ত উৎসব ও পণ্যপ্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনালের সদ্য বিদায়ী জেলা গভর্নর লায়ন কামরুন মালেক। উদ্বোধক ছিলেন স্যোশ্যাল ইমপ্রুপমেন্ট অ্যান্ড হিউম্যান রাইটস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অ্যাড. মো. শফিউল্লাহ চৌধুরী, প্রধান বক্তা ছিলেন ছকিনা বিল্ডার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু বক্কর চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন শাহরিয়ার এন্টারপ্রাইজের প্রোপ্রাইটর মো. জাহেদ হোসেন, এসএস কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাব্বির হান্নান, সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পী ফরিদা করিম। অনুষ্ঠানে প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী উদ্যোক্তাদের মাঝে সনদ বিতরণকালে প্রধান অতিথি বলেন, অবহেলিত নারীদের জন্য তিনি ২০১৩ সালে চিটাগাং উইম্যান চেম্বারের প্রেসিডেন্ট থাকাকালে সহজ শর্তে ঋণের ব্যবস্থা করেছিলেন। সমাজের কম ভাগ্যবানদের একটু সুখের জন্য, তাঁদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ভাগ্যবানদের কাজ করতে হবে। এটা বিধাতা প্রদত্ত দায়িত্ব, একজন প্রকৃত মানুষের এই দায়িত্ব এড়ানোর সুযোগ নেই। বর্তমান প্রজন্মকে পশ্চিমা সংস্কৃতি পরিহার করে দেশীয় সংস্কৃতি লালনের জন্য এই আয়োজন। করোনাত্তোর নবজীবনের গতিসঞ্চার করতে মানব-মানবীকে ভালবাসার শক্তিতে জাগ্রত হতে প্রেরণা যোগাবে এই জাতীয় আয়োজন। পণ্যপ্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান ও ইট-হ্যাপি, সানজিদাস এক্সোলসিভ এট্রি, জালাল ফুড প্রোডাক্টস, হারমাসালা ভিডা, ফুড বক্স-বিডি, ডাইনুডিন, হাউজ অফ ট্রেন্ড-হটস, সিসটার প্রোমেট কিচেন।- প্রেস বিজ্ঞপ্তি।
চট্টগ্রামে ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা আক্রান্ত ৫৭
১৬,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৭ জনের। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৪ হাজার ২৭ জন। চট্টগ্রামে করোনা টিকা কার্যক্রমে গত একদিনে টিকা নিয়েছেন ২১ হাজার ৪৮৭ জন। এখন পর্যন্ত ৯৬ হাজার ৩৯০ জন টিকা নিয়েছেন। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি ) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানা যায়। গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামের ৭টি ল্যাবে ১ হাজার ৮৮৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৫৬ টি, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (বিআইটিআইডি) ল্যাবে ১ হাজার ১৮৪ টি, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৩৭৪ টি, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ৭৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে চবি ল্যাবে ২ জন, বিআইটিআইডি ল্যাবে ১২ জন, চমেক ল্যাবে ১৭ জন এবং সিভাসু ল্যাবে ৩ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এছাড়া, বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৩১ টি নমুনা পরীক্ষা করে ৯ টি, শেভরন ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ১৪৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০টি এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) কোনো নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি। আবার কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১১ টি নমুনা পরীক্ষা করে কারো শরীরে করোনা ভাইরাসের অস্তিত্ব মেলেনি। চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১ হাজার ৮৮৩ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ৫০জন এবং উপজেলায় ৭ জন। তিনি বলেন, করোনা টিকা কার্যক্রমে সর্বশেষ একদিনে টিকা নিয়েছেন ২১ হাজার ৪৮৭ জন। এর মধ্যে সিটি করপোরেশন এলাকায় ১০ হাজার ৫৪ জন এবং উপজেলা ১১ হাজার ৪৩৩ জন।
দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতি এ শহরে চাই না: নওফেল
১৫,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সন্ত্রাস, দুর্নীতি, দুর্বৃত্তায়নের রাজনীতি আমরা এ শহরে চাই না। আমরা শান্তিতে বসবাস করতে চাই। আমরা চাই যিনি নগরপিতা হিসেবে দায়িত্ব নেবেন তার কাছে অপরাজনৈতিক শক্তি ও যারা সন্ত্রাস করে, তাদের স্থান হবে না। সন্ত্রাসমুক্ত চট্টগ্রাম চাই। সোমবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র মো. রেজাউল করিম চৌধুরীর দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এসব কথা বলেন। নওফেল বলেন, জাতির পিতার জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বীর মুক্তিযোদ্ধাকে মেয়র হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। এর আগে মুক্তিযোদ্ধা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী মেয়র ছিলেন। রেজাউল করিম চৌধুরী সবার মতামতের ভিত্তিতে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন সবাইকে সাথে নিয়ে, সমন্বয়ের মাধ্যমে কোনো ধরনের আমাদের প্রতিযোগিতার প্রয়োজন নেই, বিবাদের প্রয়োজন নেই, বিরোধের প্রয়োজন নেই, সব সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, এ শহরের সব নাগরিক, সব জনপ্রতিনিধি সবাইকে সাথে নিয়ে আমরা নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে পারি। মানুষের চাহিদা সীমিত। যদি সবাই সহযোগিতা করেন তাহলে শতভাগ প্রত্যাশা পূরণ হবে। সংবর্ধনা নয় মতামত গ্রহণের জন্য সমাবেশের আয়োজন করেছেন নতুন মেয়র। সমন্বয় সুন্দরভাবে হলে নাগরিকরা সুবিধা পাবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা ব্যাপক উন্নয়নকাজ উপহার দিয়েছেন। নগরপিতার মাধ্যমে এসব উন্নয়নের খবর মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবো। সমাবেশে চসিকের বিদায়ী প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন বলেন, আমি ৬ মাস সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি। যতদিন আইন করে সিটি করপোরেশনের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা না হবে ততদিন প্রত্যাশা থাকবে বেশি, কাজ হবে কম। মহাসমস্যা চসিকের আয়। যে প্রতিষ্ঠান লাভবান হচ্ছে তাদের কাছ থেকে সারচার্জ আদায় করতে হবে। নগরবাসী ২০ শতাংশ ব্যবহার করে, বাকি অংশ ব্যবহার করে বন্দর, কাস্টম, ইপিজেড, বড় বড় কারখানা। তারা করিমুদ্দিন আলিমুদ্দিনের মতো ট্যাক্স দিলে হবে? চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, রেজাউল করিম পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ। চট্টগ্রাম বাংলাদেশের অর্থনীতির হৃৎপিণ্ড। প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়ন নিজের হাতে নিয়েছেন। কর্ণফুলী টানেল, মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দরসহ অনেক কিছু করছেন। রেজাউল করিম কথা রাখার চেষ্টা করেছেন সুধী সমাবেশ করে। চট্টগ্রামে সমস্যার শেষ নেই। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড গতিশীল রাখতে হবে। এ নগরকে সুন্দর, সচল ও ব্যবসাবান্ধব করতে হবে। স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার জন্য বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধি নিয়ে পরিষদ গঠন করতে পারেন। তাকে কিশোর গ্যাং ও মাদক নির্মূল করতে হবে। সেবা সংস্থাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করতে হবে। চট্টগ্রামের উন্নয়ন মানে দেশের উন্নয়ন। মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য দেন নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম চৌধুরী, সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন আহমদ, চবির সাবেক উপাচার্য ড. আনোয়ারুল আজিম আরিফ, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, সাবেক মেয়র মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, চুয়েট উপাচার্য ড. রফিকুল আলম, বঙ্গবন্ধু প্রকৌশল পরিষদের সভাপতি মোহাম্মদ হারুন, নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিন, রেড ক্রিসেন্টের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. শেখ শফিউল আজম, আইইবির সভাপতি প্রবীর কুমার সেন, চবির সাবেক উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, নগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, কাউন্সিলর সাইয়্যেদ গোলাম হায়দার মিন্টু। স্বাগত বক্তব্য দেন চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক।
ফটিকছড়িতে গৃহহীন পরিবারের মাঝে দলিল হস্তান্তর
১৫,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,সজল চত্রুবর্ত্তী,ফটিকছড়ি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ২৬ টি গৃহহীন পরিবারের নিকট ঘরের দলিল হস্তান্তর করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ বার্ষিকী উপলক্ষে সারা দেশে ১লক্ষ গৃহহীন পরিবারকে সেমিপাকা ঘর দেওয়া হচ্ছে। সোমবার(১৫ ফেব্রুয়ারি)সকালে উপজেলার পাইন্দং ইউনিয়নের ডলু এলাকায় এসব ঘরের দলিল,শীতবস্ত্র ও ফলবৃক্ষের চারা তুলে দেন চট্টগ্রাম-২ ফটিকছড়ি আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশন (বিটিএফ) এর চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী। ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সায়েদুল আরেফিন জানান, উপজেলার পাইন্দংয়ে ২৬ টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর ও ঘরের দলিল, দুুইটি করে কম্বল ও একটি ফলজগাছের চারা তুলে দেয়া হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুসাইন আবু তৈয়ব, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সায়েদুল আরেফিন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন নাহার মুক্তা, ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট ছালামত উল্লাহ চৌধুরী শাহিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিসান বিন মাজেদ, উপজেলা প্রকৌশলী এম হেদায়াত আলী, পি আই ও আবুল হোসেন,ফটিকছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ মো: রবিউল ইসলাম, পাইন্দং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এ কে এম ছরওয়ার হোসেন স্বপন প্রমুখ।
তরুণ উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষে স্টার্ট আপ চট্টগ্রাম ও সেবা উদ্যোক্তার যৌথ চুক্তি স্বাক্ষর
১৫,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তরুণ উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষে যৌথ ভাবে কাজ করবে আইসিটি ডিভিশান আইডিয়া প্রজেক্ট এর কমিউনিটি পার্টনার স্টার্ট আপ চট্টগ্রাম ও মোবিসেবা কমিউনিকেশানস লিমিটেড এর উদ্যোক্তা প্রজেক্ট সেবা উদ্যোক্তা। এ লক্ষে আজ স্টার্ট আপ চট্টগ্রাম ও সেবা উদ্যোক্তার মধ্যে এক যৌথ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। উক্ত চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্টানে স্টার্ট আপ চট্টগ্রামের পক্ষে স্টার্ট আপ চট্টগ্রামের ফাউন্ডার ও সিইও আরফাতুল ইসলাম আকিব ও মোবিসেবা কমিউনিকেশানস লিমিটেড এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইফতেখার সাইমুন নিজ নিজ প্রতিষ্টানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন। এ সময় সেবা উদ্যোক্তার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন হেড অফ মার্কেটিং সৈকত চৌধুরি ও হেড অফ অপারেশান মিঠুন দাশ। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে তরুনদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে স্টার্ট আপ চট্টগ্রামের সাথে প্রতিটি স্টার্টআপকে ডিজিটাল সার্ভিস সহায়তা প্রদান করবে সেবা উদ্যোক্তা।
পটিয়ায় আইয়ুব বাবুল জয়ী
১৫,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দক্ষিণ চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আইয়ুব বাবুল। তিনি নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে ভোট পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩৬টি। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ নিয়ে বিএনপির প্রার্থী নুরুল ইসলাম সওদাগর পেয়েছেন ১ হাজার ৪৯৪ ভোট। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রার্থী শামসুল আলম মাস্টার লাঙল প্রতীকে দুপুরে ভোট বর্জন করলেও তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ১১৭ ভোট এবং ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী আলী হোসাইন মোমবাতি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৮৫৬ ভোট। রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে উপজেলা হল রুমে অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার মো. তারিফুজ্জামান ও উপজেলা নির্বাচন কমিশনার আরাফাত আল হোসাইনী নির্বাচনের বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করেন। এর আগে রোববার সকাল থেকে পটিয়া পৌরসভার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। চলে বিকেল চারটা পর্যন্ত। পৌরসভা নির্বাচনে চারজন মেয়রসহ কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ৪৬ জন। পৌরসভার মোট ভোটার ছিল ৩৯ হাজার ৭৮৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২০ হাজার ৯২৫ জন ও নারী ভোটার ১৮ হাজার ৮৬২ জন। ভোটকেন্দ্র ছিল ১৮টি, বুথের সংখ্যা ছিল ১১৬টি। এবারের পৌরসভা নির্বাচনে ৪৬ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এদিকে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা হলেন- ১ নম্বর ওয়ার্ডে মোহাম্মদ নাছির, ২ নম্বর ওয়ার্ডে রুপক কুমার সেন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে গিয়াস উদ্দিন আজাদ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে গোফরান রানা, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে জসিম উদ্দিন (বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায়), ৬ নম্বর ওয়ার্ডে শফিউল আলম, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে কামাল উদ্দিন বেলাল, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সরওয়ার কামাল রাজিব ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে শেখ সাইফুল ইসলাম। সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে (১, ২, ৩) নম্বর ওয়ার্ডে বুলবুল আকতার, (৪, ৫, ৬) নম্বর ওয়ার্ডে ইয়াছমিন আকতার চৌধুরী ও (৭, ৮, ৯) নম্বর ওয়ার্ডে ফেরদৌস বেগম নির্বাচিত হয়েছেন।
পটিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় নিহত ১ : আহত ১২
১৪,ফেব্রুয়ারী,রবিবার,পটিয়া প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের সময় প্রতিপক্ষের চুরিকাঘাতে আবদুল মাবুদ (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। তিনি ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মান্নানের ছোট ভাই। বিভিন্ন কেন্দ্রে বিক্ষিপ্ত ঘটনায় আরো ১২ জন আহত হয়। ২ কাউন্সিলর প্রার্থী আটক ও ১ কাউন্সিলর প্রার্থী নিখোঁজ হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পটিয়ার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ গোবিন্দারখীল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। এছাড়াও সকালে পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল খালেক মসজিদ থেকে ফজরের নামাজ শেষে শাহ্ আশরাফ আউলিয়ার মাজার জেয়ারত করে বাড়ী ফেরার পথে নিখোঁজ হয় বলে তার ভাই নজরুল ইসলাম অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, সাদা পোশাকধারী একদল সন্ত্রাসী তার ভাইকে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছেন। তার পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে পটিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানান। এ ব্যাপারে পটিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিক রহমান জানান, এ সংক্রান্তে একটি অভিযোগ আমরা পেয়েছি। তিনি বিষয়টি গুরুত্বের সাথে নিয়ে তাকে উদ্বারের চেষ্টা চালাচ্ছেন বলে জানান। সরেজমিন পরিদর্শন ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, চতুর্থ ধাপের পৌর নির্বাচনের এ পর্যায়ে আজ রবিবার সকাল থেকে ৮ নং ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর প্রার্থী সরওয়ার কামাল ও আবদুল মান্নানের সমর্থকদের মধ্যে ভোট দেওয়া নেওয়া নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুপুর সাড়ে ১২ টা নাগাদ দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, অগ্নিসংযোগ ও গোলাগুলি শুরু হলে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মান্নানের ছোট ভাই আব্দুল মাবুদ (৪৫) নিহত হন। এরপর কেন্দ্রের পাশ্বর্বতি আনসার ভিডিপি ক্লাব ও একটি দোকানে অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষুব্ধরা। এ ঘটনায় এ ওয়ার্ডের দুই কাউন্সিলর প্রার্থী যথাক্রমে আবদুল মান্নান ও সরোয়ার কামাল রাজিবকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল মান্নানের কন্যা লাভলী আকতার বলেন, আমার চাচা আবদুল মাবুদ ভোট কেন্দ্রে গেলে তাকে চুরিকাঘাতে মারাত্মক ভাবে আহত করা হয়। এ সময় তাকে পটিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বিভিন্ন কেন্দ্রে আহতরা হলেন জালাল উদ্দিন (২৫), আশেক (২৪), নান্টু দাশ (২৫), আবদুল খালেক (৪০), মো: ইউনুছ (১৬), আবুল কাশেম (২৫), রাজিব (২১), মো: হাসান (২৩), হাসিনা আকতার(৩৫), ফেরদৌস বেগম (৪৮), মমতাজ বেগম (৩২)। এছাড়াও দুপুর দেড়টায় বাহুলী কেন্দ্রে ও আড়াইটায় পাইকপাড়া কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থীদের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। জানা যায়, আজ রবিবার সকাল ৮ টায় পটিয়া পৌরসভা নির্বাচন ১৮ টি কেন্দ্রে একযোগে শুরু হয়। এতে প্রত্যেকটি কেন্দ্রে বিপুল সংখ্যক পুরুষ ও মহিলা ভোটার লাইন ধরে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। বেলা ২ টায় এ নির্বাচনে জাপার মনোনিত প্রার্থী শামসুল আলম মাষ্টার নির্বাচনে সরকার দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে ভোট বর্জনের ঘোষনা দেন এবং পুন: নির্বাচনের দাবি করেন। এছাড়াও বিএনপি প্রার্থী নুরুল ইসলাম এবং ইসলামী ফ্রন্ট প্রার্থী আলী হোসাইনও নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচনে তারা সমান সুবিধা পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ আনলেও শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে ছিলেন। পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ গোবিন্দারখীল কেন্দ্রের বাইরে ১ জন নিহত ও বিভিন্ন কেন্দ্রে বিক্ষিপ্ত ঘটনায় কয়েক জন আহত হন।
চট্টগ্রামে ঋতুরাজ বসন্তবরণ
১৪,ফেব্রুয়ারী,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রাম- নিবিড় অন্তরতর বসন্ত এলো প্রাণে শিরোনামে চট্টগ্রাম থিয়েটার ইন্সটিটিউটে ও পাহাড়তলী আমবাগান রেলওয়ে জাদুঘর সংলগ্ন শেখ রাসেল পার্কে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করছে নানান আয়োজনে। এছাড়া সিআরবি শিরীষতলা মুক্তমঞ্চে প্রমা আবৃত্তি সংগঠনের আয়োজনে চলছে বসন্ত উৎসব। নগরের বিভিন্ন এলাকায় সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোও বসন্ত বন্দনায় মেতে উঠেছে। রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টায় বোধন আবৃত্তি পরিষদ টিআইসিতে বসন্ত আবাহন, আবৃত্তি, সঙ্গীত, যন্ত্রসঙ্গীত, নৃত্য, শোভাযাত্রা, পিঠাপুলির সমারোহে দিনব্যাপী এ উৎসব উদযাপন করছে, যা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত। এ বছর এই উৎসব ১৬ বছরে পদার্পণ করছে। বোধনের সভাপতি আবদুল হালিম দোভাষ জানান, উৎসবে সকালে ভায়োলিনিষ্ট চট্টগ্রামের পরিবেশনায় যন্ত্রসংগীত ও দলীয় সংগীত পরিবেশন করে সদারঙ্গ উচ্চাঙ্গ সঙ্গীত পরিষদ বাংলাদেশ, অভ্যুদয় সঙ্গীত অঙ্গন, গীতধ্বনি ও উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে ওডিসী অ্যান্ড টাগুর ড্যান্স মুভমেন্ট সেন্টার, নৃত্যম একাডেমি, রুমঝুম নৃত্যকলা একাডেমি, স্কুল অব ওরিয়েন্টাল ডান্স, নৃত্য নিকেতন, অদিতি সঙ্গীত নিকেতন, সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠ, সঞ্চারী নৃত্যকলা একাডেমি, নটরাজ নৃত্যাঙ্গন একাডেমি, ঘুঙুর নৃত্যকলা একাডেমি। বিকালে দলীয় আবৃত্তি পরিবেশন করবে বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রাম ও বোধন আবৃত্তি স্কুল চট্টগ্রাম। এছাড়া রয়েছে দেশের স্বনামখ্যাত শিল্পীদের পরিবেশনায় একক ও দ্বৈত সংগীত, একক আবৃত্তি, ঢোলবাদন ও বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। এদিকে শেখ রাসেল পার্কে বসন্ত উৎসবের অনুষ্ঠানমালায় একক ও বৃন্দ আবৃত্তির পাশাপাশি বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনসমূহের শিল্পীদের পরিবেশনায় দলীয় সংগীত ও দলীয় নৃত্য পরিবেশন করা হচ্ছে। এছাড়া রবীন্দ্র, নজরুল, আধুনিক ও লোকগান পরিবেশন করবেন প্রথিতযশা সংগীতশিল্পীরা। বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রাম এর আরেক অংশের সভাপতি সোহেল আনোয়ার জানান, বিকেল ৩টায় থাকছে উৎসব অঙ্গন থেকে বর্ণিল সাজে বসন্তবরণ শোভাযাত্রা। বসন্তের আগমনী বার্তায় ছন্দময় আবহ ছড়িয়ে দিতে রয়েছে ঢাক ঢোলকের মুন্সিয়ানা পর্ব। সিআরবির শিরীষতলা মুক্তমঞ্চে প্রমার বসন্ত উৎসব সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। ঢোলবাদন, আবৃত্তি, সংগীত, নৃত্য, কবিতা পাঠ ও যন্ত্রসংগীতের মধ্য দিয়ে রাত ৯টা পর্যন্ত সংগঠনটি বসন্তকে বরণ করে নেবে ভালোবাসায়।
চট্টগ্রামে তিন পৌরসভা নির্বাচন রোববার
১৩,ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চতুর্থ ধাপে চট্টগ্রামের তিন পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে রোববার (১৪ ফেব্রুয়ারি)। পটিয়ায় সবকটি কেন্দ্রে ইভিএমে এবং চন্দনাইশ ও সাতকানিয়া পৌরসভায় ব্যালটের মাধ্যমে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ। পটিয়া পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ড ও ৩টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড। ১৮টি কেন্দ্রে ১১৬টি বুথে ভোটগ্রহণ হবে। ভোটার সংখ্যা ৩৯ হাজার ৭৮৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২০ হাজার ৯২৫ জন এবং নারী ভোটার ১৮ হাজার ৮৬২ জন। মেয়র পদে চারজন প্রার্থী অংশ নিচ্ছেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে আইয়ুব বাবুল, ধানের শীষের প্রতীক নিয়ে নুরুল ইসলাম সওদাগর, লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে সামশুল আলম মাস্টার, মোমবাতি প্রতীক নিয়ে আলী হোসাইন নির্বাচন করছেন। চন্দনাইশ পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে ভোটার ২৮ হাজার ৯৯৭ জন। পুরুষ ভোটার ১৫ হাজার ১৯৯ জন ও মহিলা ভোটার ১৩ হাজার ৭৯৮ জন। ১৬টি ভোটকেন্দ্রে ভোটকক্ষ ৮৩টি। নির্বাচনে চারজন মেয়র প্রার্থী, ৪৭ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের ৯ জন নারী কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন। মেয়র পদে প্রার্থীরা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত বর্তমান মেয়র মাহাবুবুল আলম খোকা, বিএনপি মনোনীত মাহাবুবুল আলম চৌধুরী, এলডিপি মনোনীত এম. আইনুল কবির ও ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত ফারুক বাহাদুর। সাতকানিয়া পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মোহাম্মদ জোবায়ের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপির মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থী এ জেড এম মঈনুল হক চৌধুরী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় মোহাম্মদ জোবায়ের বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। এ ছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৮ জন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। সাতকানিয়া পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে মোট ৩৭ হাজার ৫৪০ জন ভোটার। এরমধ্যে ১৯ হাজার ৬২২ জন পুরুষ ও ১৭ হাজার ৯১৮ জন মহিলা ভোটার।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর