রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৮, ২০২১
চসিক মেমন হাসপাতালে অটো সেনিটাইজার স্থাপন করেছেন সিটি মেয়র
১১মে,সোমবার,সৈয়দুল ইসলাম,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: সদরঘাটস্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মেমন মাতৃসদন হাসপাতালে স্থাপন করা হয়েছে অটো সেনিটাইজার। আজ সকালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন এই অটো সেনিটাইজারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন। এসময় মেমন হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা.প্রীতি বড়ুয়া, ইনচার্জ ডা. আশিষ মুখার্জি, ডা. বাবলি মল্লিক, ডা. সৈয়দ দিদারুল আলম রুবেল, ডা. শাহীন পারভীন, ডা. রোকসানা পারভিন, ডা. রাহেলা হোসেন, ডা. রাশেদুল ইসলাম, ডা. পঙ্কজ দেবনাথ ও ডা. নাসরিন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। এসময় সিটি মেয়র বলেন, করোনা মোকাবেলায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন জেনারেল হাসপাতালকে আমরা প্রথম থেকেই প্রস্তুত রেখেছিলাম। আমাদের লক্ষ্য ছিল প্রাথমিক সেবাটুকু নিশ্চিত করা। তিনি হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদেরকে মানবিক মূল্যবোধে বলীয়ান হয়ে রোগীসেবায় মনোনিবেশ করতে দিক নির্দেশনা দেন। একজন রোগীও যাতে সেবা থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে সজাগ থাকার জন্য মেয়র নির্দেশনা দেন। পরে মেয়র হাসপাতালে কর্মরত চতুর্থ শ্রেনীর কর্মচারীদের মাঝে ভোগ্যপন্য উপহার সামগ্রী প্রদান করেন।
কোতোয়ালি থানার ব্যতিক্রমী ভ্রাম্যমাণ ইফতার পার্টি!
১১মে,সোমবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: নানা কারণে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে নগরীর কোতোয়ালি থানা। এখন সিএমপির অন্য থানাগুলোর রোল মডেল বলা যায়। বাঘে ছুঁলে আঠেরো ঘা, আর পুলিশে ছুঁলে ছত্রিশ ঘা! পুলিশ সম্পর্কে মানুষের ভ্রান্ত ধারণাকে বদলে দিচ্ছে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) কোতোয়ালি থানার অনন্য পুলিশিং সেবা । ওসি মোহাম্মদ মহসীন যোগ দেয়ার পর থেকে এই থানাকে গড়ে তুলেছেন একটি মানবিক প্রতিষ্ঠান হিসাবে। নিয়িমিত সেবা দিয়ে যাচ্ছেন নগরবাসীকে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সব কিছুকে ছাপিয়ে গেছে পুলিশি সেবা। নানা মানবিক সেবা নিয়ে পৌঁছে গেছে মানুষের দোর গোঁড়ায় । নিজস্ব অর্থায়নে ত্রাণ বিতরণ, হাসপাতালে রোগী পৌঁছে দেয়া, বাসায় বাজার পৌঁছে দেয়া, রাতে বাসায় তৈরি খাবার পৌঁছে দেয়া, অসহায় মানুষের জন্য ইফতারের ব্যবস্থা, করোনা রোগীকে হোম কোয়ারান্টাইন পালনে উৎসাহ দিতে বাসায় ফল নিয়ে যাওয়া, নগরবাসীকে নিরাপদে ঘরে রাখতে, সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ওসি মহসিনের নেতৃত্বে টিম কোতোয়ালী। সব কিছুতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ওসি মহসিন ও টিম কোতোয়ালী। মোট কথা পুলিশ সম্পর্কে মানুষের ধারনাটাই বদলে দিয়েছে। আজ সিএমপির সকল থানা তথা বাংলাদেশের কম বেশি সকল থানা পুলিশ এক কাতারে এসে সামিল হয়েছে। সেবাই পুলিশের ধর্ম । পুলিশ জনগনের বন্ধু। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে পুলিশ তা করে দেখিয়েছে। মোট কথা জাতির ত্রাণ কর্তার ভুমিকা পালন করছে পুলিশ। জনগনের প্রকৃত বন্ধু আজ পুলিশ। কর্তব্য পালন করতে গিয়ে অনেক পুলিশ বাহিনীর বেশ কয়েকজন প্রাণ দিয়েছেন। আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় দেড় হাজারের বেশী। তবুও করোনার ভয়কে জয় করে সিএমপি তথা পুরো পুলিশ বাহিনী মাঠে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যদিয়ে দেশে গত ২৬ মার্চ শুরু হয়েছে রোজা এ যেন অন্য রকম রমজান। প্রতিবছর দেখা এমন দিনে দুপুর থেকেই ফুটপাতে ইফতারের পসরা সাজিয়ে শুরু হয় বেচা কেনা। এবার সেই চিরচেনা ইফতারের কোন আয়োজন নেই। করোনার কারনে এ বছর সরকারি নির্দেশনা মেনে ইফতারির বাজার নির্দিষ্ট সময়ের জন্য বসছে। কোন অবস্থায় নির্দিষ্ট দোকান ছাড়া ফুটপাতে ইফতারির বাজার বসতে দেওয়া হচ্ছে না। ফলে ফুটপাতগুলোতে নেই ইফতারের দোকান। ইতিমধ্যে বেশ কিছু লোক মারা গেছে আর সংক্রমনের সংখ্যা বেড়েই চলছে ক্রমাগত। এমন পরিস্থিতিতে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশবাসীকে ঘরে থাকার যে নির্দেশ সরকার দিয়েছে, এটাকে সফল করতে রমজানে ফুটপাতে বা দোকানে ইফতার সামগ্রী বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ। এই নিষেধাজ্ঞার কারণে কোথাও ইফতার সামগ্রী নিয়ে রাস্তায়, ফুটপাতে বা দোকানে বসতে দেখা যায়নি কাউকে। ফলে অনেকটাই বেকাদায় পড়েছে কম আয়ের ছিন্নমুল অসহায় মানুষ গুলো যারা ফুটপাত থেকে ইফতার কিনে রোজা সাড়ে। কিন্তু ফুটপাতে দোকান না বসাতে ও কর্মহীন হয়ে পড়ার কারনে অসহায় মানুষ গুলোর রোজা রাখা ও ইফতার করাটা অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল । আর এই অসহায় মানুষ গুলোর কথা চিন্তা করে কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসিন হাতে নিয়েছেন আরেকটি মানবিক কাজ। চালু করলেন ব্যতিক্রমি ভ্রাম্যমাণ ইফতার পার্টি। প্রতিদিন ইফতার নিয়ে হাজির হচ্ছেন এই অসহায় মানুষ গুলোর পাশে। যা মানবিকতার এক অনন্য নজির। ছবিটি দেখে মনে হবে এটা কোন হোটেল কিংবা রেস্টুরেন্ট এর চিত্র। বিপণনের জন্য খাবার প্রস্তুত করা হচ্ছে। না এটি কোতোয়ালী থানার রান্নাঘর! সিএমপির কোতোয়ালি থানায় প্রতিদিনই এভাবে তৈরি হচ্ছে ১০০ জনের জন্য ইফতার। আর সে ইফতার নিয়ে টিম কোতোয়ালী হাজির হচ্ছে অসহায়দের মাঝে। টিম কোতোয়ালীর নিজস্ব অর্থায়নে নিজেরাই প্রস্তুত করে ইফতার নগরীর রাস্তায় রাস্তায়, অলিতে গলিতে অসহায়দের মাঝে বিতরণ করছে। আর এই আয়োজনের নাম দিয়েছে 'ভ্রাম্যমাণ ইফতার পার্টি ।এটাকে ব্যতিক্রমী ইফতার পার্টি বলা চলে। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, প্রতিবছরই আমরা কোতোয়ালী থানার উদ্ধেগে ইফতার পার্টি করে থাকি। এবারও তার ধারাবাহিকতা রক্ষা করা হয়েছে তবে আয়োজনে এসেছে ভিন্নতা। অতিথি তালিকায় নেই কোন ভিএইপি, নেই কোন ব্যবসায়ী নেতা বা পুলিশ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কেউ। এবার আমরা ইফতার পার্টি করছি পথে পথে, অলিতে গলিতে, রাস্তার মোড়ে মোড়ে! নাম দিয়েছি ভ্রাম্যমান ইফতার পার্টি । পথই যাদের ঠিকানা মুলত তাদের জন্যই নিজেরা তৈরি করে ইফতার নিয়ে হাজির হচ্ছি অসহায় মানুষগুলোর পাশে।আমরাও তাদের সাথে ইফতার করছি। তিনি আরও বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতে প্রতিদিন ভ্রাম্যমাণ ইফতারের গাড়ি নিয়ে রোজাদার অতিথিদের খুঁজে নিবে টিম কোতোয়ালি। পৌঁছে দিবে তাদের হাতে ইফতার সামগ্রী। পুরো রমজান মাস জুড়ে ধারাবাহিকভাবে চলবে এই আয়োজন। রোজার প্রথম দিন থেকে এই সব অতিথির মাঝে ইফতার বিতরন করা হচ্ছে। পুলিশ জনতা, জনতাই পুলিশ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মানুষের জন্য কিছু করা এবং মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারাটাই আমাদের বড় পাওনা।
অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ দিলেন বিসিবি পরিচালক নাছির
১১মে,সোমবার,রাজিব দাশ, চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে অসহায়-দুস্থ মানুষের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে বিসিবি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সিটি কর্পোরেশন মেয়র ও বিসিবি পরিচালক আ জ ম নাছির ও আকরাম খান। সহায়তা কর্মসূচির অংশ হিসেবে গত কয়েকদিন ধরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি নিজ নিজ এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন বিসিবি কর্তারা। এবার চট্টগ্রামেও বোর্ডের ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হয় দুস্থ ক্রিকেটার, ক্লাব কর্তাসহ সাধারণ মানুষের মধ্যে। করোনার সময় ক্রিকেটাররা যাতে আর্থিক কষ্টে না থাকেন; সেজন্য শুরুতেই প্রণোদনা দেয় বিসিবি। শোনা যাচ্ছে, ঈদের আগে আরেক দফা আর্থিক প্রণোদনার ঘোষণা দেবে বোর্ড।
করোনায় চট্টগ্রামে মৃত বেড়ে ১৭,আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১৯ জনে
১০মে,রবিবার,রাজিব দাশ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে করোনায় মৃত বেড়ে দাড়িয়েছে ১৭ জনে। নতুন শনাক্ত হয়েছে আরো ১২ জন। এরমধ্যে ৬ জন পুলিশ সদস্য। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনা আক্রান্ত দাড়িয়েছে ২১৯ জনে। রবিবার সকালে এ তথ্য জানান চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি। তিনি জানান, শনিবার রাতে বিআইটিআইডিতে ২১৩ টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তম্মধ্যে ফলাফল পজিটিভ আসে ১৫ জনের। এরমধ্যে ১২ জন চট্টগ্রামের, তিনজন নোয়াখালী জেলার। চট্টগ্রামে আক্রান্তদের মধ্যে ১১ জন নগরীর, বাকি একজন সীতাকুন্ড উপজেলার কালুশাহ নগর এলাকার বাসিন্দা। ১১ জনের মধ্যে দামপাড়া পুলিশ লাইনের ঠিকানায় ৮ জন রয়েছেন। এরমধ্যে ৬ জন পুলিশ সদস্য। নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (জনসংযোগ) আবু বকর সিদ্দিক জানান, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে খুলশী থানার একজন এএসআই রয়েছেন। এছাড়া দামপাড়া পুলিশ লাইন্সের চারজন কনস্টেবলও আছেন। আক্রান্তের তালিকায় একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট ও তার স্ত্রী এবং ভাইও রয়েছেন। এদিকে নতুন আক্রান্তের তালিকায় নেভী হাসপাতাল গেইট এলাকার একজন, ঈদগাঁহ বড় পুকুর এলাকার একজন ও নয়াবাজার হালিশহর এলাকার একজন রয়েছেন। এছাড়া নয়াবাজার হালিশহর এলাকার ব্যক্তি বিআইটিআইডির আইসোলেশন ওয়ার্ডে শুক্রবার রাতে মারা গেছে একজন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে করোনায় মৃত বেড়ে দাড়িয়েছে ১৭ জনে। আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১৯ জনে।
বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট হলদিয়া ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে ইফতারসামগ্রী বিতরণ
১০মে,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনা রাউজান হলদিয়া ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে ০৯ মে শনিবার বিকালে হলদিয়া ইউনিয়নের প্রায় ১০০ মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে ইফতারসামগ্রী বিতরণ করা হয়। ইফতারসামগ্রীর মধ্যে ছিলো চনা, আলু, লবন, পিয়াজ, সয়াবিন, বিভিন্ন রকম সেমাই, চিড়া ও চিনি। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট রাউজান উপজেলা উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শামশুল আলম নঈমী, ইসলামী ফ্রন্ট হলদিয়া ইউনিয়ন সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ আলী ছিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ লুৎফর রহমান রুসু, যুবসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলা সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আলমগীর হোসাইন, সাবেক ছাত্রনেতা মুহাম্মদ ইলিয়াস রেজা, যুবনেতা মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম, যুবনেতা মুহাম্মদ পারভেজ, ছাত্রনেতা মুহাম্মদ মোশারফ, মুহাম্মদ হাসানুল করিম, মুহাম্মদ সাইফূল, মুহাম্মদ আকবর, মুহাম্মদ গিয়াস, মুহাম্মদ ফারহান, মুহাম্মদ আমজাদ প্রমুখ। বিতরণকালে নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনার কারণে অনেক সচ্ছল পরিবারও কষ্টে দিনাতিপাত করছে। একসময়ের সচ্ছল পরিবারগুলো বিপদের এ মুহুর্তে আত্মসম্মানবোধের কথা চিন্তা করে সাহায্যও চাইতে পারছেন না। তাই আমরা তাদের কথা চিন্তা করে আমাদের সহায়তা কার্যক্রম ডোর টু ডোর করছি। অপরিকল্পিত উপায়ে সহায়তা কার্যক্রমের কারণে কোন পরিবার বারবার পাচ্ছে আবার কিছু একেবারেই পাচ্ছে না বলে উল্লেখ করে নেতৃবৃন্দ বিত্তবানদের সহায়তা কার্যক্রমগুলো পরিকল্পিতভাবে পালন করার আহবান জানান।
২৫নং রামপুরা ওয়ার্ডে দরিদ্রদের মাঝে বিএনপির ত্রাণ বিতরণ
১০মে,রবিবার,প্রেস বিজ্ঞপ্তি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, জোনিং এর মাধ্যমে করোনা নিয়ন্ত্রণ করুন। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত সহ বিভিন্ন দেশে যেখানে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাকে রেড জোন কম ঝুঁকিপূর্ণ এলাকাকে গ্রীণ জোন হিসেবে চিহ্নিত করে লকডাউন সম্পূর্ণ কড়াকড়ি কিংবা শিতিলযোগ্য হিসেবে করোনা নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। সেখানে আমরা এখনও জোন ভাগ না করে সর্বক্ষেত্রে লকডাউন শীতল করে পুরো দেশের জনগণকে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছি। জোনিং ভাগ করলে হয়তো সমস্ত দেশের মানুষকে ত্রাণের আওতায় না এনে, ঝুকিঁপূর্ণ রেড জোনের সর্বসাধারণকে ত্রাণের আওতায় এনে কম বাজেটের মধ্যে সুফল পাওয়া যেত। সর্বসাধারণকে আধার কার্ডের মাধ্যমে ১০০০ টাকা প্রণোদনা দেয়া যেতে পারত। তিনি ৯ মে, শনিবার দুপুরে নিজ বাস ভবনস্থ বাদশা মিয়া রোডে ২৫নং রামপুরা ওয়ার্ড ও ৬নং পূর্ব ষোলশহর ওয়ার্ডের অসহায় দরিদ্রদের জন্য ৫শতাদিক পরিবারের জন্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ কালে এবং বিভিন্ন পেশার অসহায় দুঃস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কালে একথা বলেন। ডা. শাহাদাত আরো বলেন, দিন দিন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। তাই এই মুহূর্তে সবাইকে ঘর থেকে বাহির না হয়ে নিজেকে নিরাপদ রাখতে হবে। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চাকসু ভিপি নাজিম উদ্দীন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সহ-বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক কাউন্সিলর প্রার্থী হাসান লিটন, হালিশহর থানা বিএনপির সভাপতি মোশাররফ হোসেন ডেপ্টি, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, নগর বিএনপির সদস্য হাজী মহসিন, ২৫নং রামপুরা ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ শরীফ, সাধারণ সম্পাদক আলী হায়দার, বিএনপি নেতা আব্দুল গফুর বাবুল, মোহাম্মদ শফিক প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। এছাড়াও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপি’র সভাপতি ও বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন এর পক্ষ থেকে নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডে ম্যাক্স, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও করোনা সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ অব্যাহত রয়েছে।
সরকারি ত্রাণসামগ্রী, সেহেরী ও ইফতার সামগ্রী প্রদান
১০মে,রবিবার,স্বপন কুমার নাথ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: উত্তর কাট্টলীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত সরকারি ত্রাণসামগ্রী অসচ্ছল মানুষের মাঝে প্রদান করা হয়েছে। ৯ মে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রদত্ত উপহার উত্তর কাট্টলী নূর মোহাম্মদ এর বড়ীতে পৌছে দিলেন জননন্দিত প্যানেল মেয়র ড. নিছার উদ্দিন আহমেদ মন্জু , উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর পঞ্চায়েত কমিটির প্রতিনিধি হাজ্বী মোহাম্মদ সফি সহ আবদুল্লাহ হারুন, রাজু ভাই, সেলিম ও এলাকার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। 2/ এতিমখানায় রেজাউল করিম চৌধুরীর সেহেরী ও ইফতার সামগ্রী প্রদান : নগরীর ইমাম আবু হানিফা (রা:) এতিমখানার সদস্যদের জন্য সেহরী ও ইফতার সামগ্রী প্রদান করলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী। শনিবার ৯ মে সকালে নিজ বাড়ীতে এতিমখানার পরিচালক হাফেজ মো: আব্দুর রহিমের হাতে সেহেরী ও ইফতার সামগ্রী তুলে দেন তিনি। এসময় বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, দেশের দূর্যোগ মুহুর্তে শুধু নয়, যেকোন সময়ে মানুষের পাশে থাকা আমার চিরাচরিত স্বভাব। মানুষের জন্য আজীবন সাধ্যমতো করে যেতে চাই। করোনা মহামারি থেকে বাচঁতে সরকারী নিদের্শনা মেনে চলার পাশাপাশি সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করার জন্য তিনি উপস্থিত সকলের প্রতি আহবান জানান। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ শুরুর পর মানবতার সেবক হয়ে চট্টগ্রাম নগরীর গরীব, দু:স্থ, অসহায়, এতিম ও নিম্ন আয়ের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী। করোনার প্রকোপ শুরু থেকেই বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম. রেজাউল করিম চৌধুরী নিজ উদ্দ্যেগে নগরীর ৪১ ওয়ার্ডের গরীব, দু:স্থ, অসহায় ও নিম্ন আয়ের মানুষের মধ্যে মাস্ক, সাবান, হ্যান্ড সেনিটাইজারসহ খাদ্য সামগ্রী এবং রমজানে সেহেরী ও ইফতার সামগ্রী বিতরণ করে চলেছেন।
চমেকের কোভিড-১৯ টেস্ট ল্যাব উদ্বোধন করলেন মেয়র
০৯মে,শনিবার,স্বপন কুমার নাথ,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেকে) হাসপাতালে করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষার ল্যাব আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। মেয়র আজ সকালে চমেকের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগে এ ল্যাব উদ্বোধন করেন। আগামীকাল রবিবার থেকে করোনার নমুনা পরীক্ষা শুরু হবে। ল্যাব উদ্বোধনকালে মেয়র বলেন, ল্যাবে দায়িত্বপ্রাপ্ত সবাই নিষ্ঠার সঙ্গে অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন। চমেকের এই ল্যাব স্থাপনের জন্য যারা সহযোগিতা করেছেন মেয়র তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। অনেক প্রচেষ্টার পর এই পিসিআর ল্যাব স্থাপিত হয়েছে। পিসিআর ল্যাবে প্রতিদিন নমুনা টেস্ট করা হবে। জনবল ও অভিজ্ঞতা বাড়লে টেস্টের সংখ্যাও বৃদ্ধি করা হবে। নগরবাসীর উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, শুধু চিকিৎসকের পরামর্শ থাকলেই করোনা পরীক্ষা করতে আসবেন। সাধারণ অসুস্থতা নিয়ে অহেতুক ভিড় করবেন না। যত বেশি টেস্ট করা হবে, তত বেশি রোগী সনাক্ত ও চিকিৎসাসেবা দেওয়া সম্ভব। প্রয়োজন ছাড়া হাসপাতালে ভিড় করে অন্য রোগীদের ও চিকিৎসকদের অসুবিধার সৃষ্টি করবেন না। তিনি বলেন, শুরু থেকে চিকিৎসা সরঞ্জামাদি কিট, পিপিই, মাক্স, গ্লাভ্স সংকট ছিল এখন আর তেমন সংকট নাই নমুনা পরীক্ষাও কিছুদিনের মধ্যে সহজলভ্য হবে এজন্য সকলের ধৈর্য ধরে সংশ্লিষ্টদের পরামর্শ অনুসরণ করা জরুরি বলে তিনি মন্তব্য করেন। ডাক্তারদের উদ্দেশ্যে মেয়র বলেন, ডাক্তারসহ চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিতরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন। তাঁদেরও জীবন আছে, পরিবার আছে। তিনি বলেন, এখন রাজনীতির সময় নয়, এখন সবাই মিলে সমন্বয় করে কাজ করতে হবে। এসময় গুঞ্জন ও অপপ্রচার রোধে সংবাদ মাধ্যমকে সক্রিয় থাকতে অনুরোধ করেন তিনি। আজ থেকে এই ল্যাবে করোনাসহ সংশ্লিষ্ট অধিকাংশ টেস্টগুলো করা হবে বলে নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. শামীম হাসান। তিনি জানান, এটি এখন চট্টগ্রামবাসীর সেবা দিতে পুরোদমে প্রস্তুত। আগামীকাল থেকেই করোনা পরীক্ষা করতে সক্ষম হবে এই ল্যাব। উদ্বোধনকালে চট্টগ্রাম বিভাগের পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হাসান শাহরিয়ার কবির, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. এস এম হুমায়ুন কবির, চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি, বিএমএ চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. মোহাম্মদ মুজিবুল হক খান, সাধারণ সম্পাদক ডা. ফয়সল ইকবাল চৌধুরী, ডা. মনোয়ারুল হক শামীম উপস্থিত ছিলেন।
ফেনীতে সোয়া কোটি টাকার ইয়াবাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab-7
০৯মে,শনিবার,কমল চক্রবর্তী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন রামপুরস্থ ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী মহাসড়কের উপর অভিযান চালিয়ে ২৩,০২০ (তেইশ হাজার বিশ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab-7। এসময় ইয়াবা পরিবহনে ব্যবহৃত একটি কাভার্ডভ্যান (ঢাকা মেট্টো-ট-২২-১২৯০) জব্দ করা হয়। শনিবার ৯ মে সকাল ৭ঃ৩০ মিনিটের সময় ফেনী মডেল থানাধীন পশ্চিম রামপুরা Rab-7, ফেনী ক্যাম্পের সামনে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী পাকা রাস্তার উপর অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে বলে জানান Rab-7 এর সহকারী পরিচালক(মিডিয়া)এএসপি মাহমুদুল হাসান মামুন। গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন, মোঃ নুরুজ্জামান (৩২) রংপুর জেলার কাউনিয়া থানার শিবু কন্টিরাম গ্রামের মৃত. হাফিজ উদ্দিন শেখ এর ছেলে এবং মোঃ লিমন মিয়া নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা থানার লাউপুল গ্রামের মোঃ ওয়াজেদ আলী এর ছেলে। Rab-7 এর সহকারী পরিচালক, ফেনী ক্যাম্প কমান্ডার মোঃ নুরুজ্জামান জানান, গোপন সংবাদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি যে, চট্টগ্রাম হতে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি কাভার্ড ভ্যান যোগে পন্য পরিবহণের আড়ালে বিপুল পরিমাণ মাদকদ্রব্য নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে Rab-7 এর একটি টহল দল ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন পশ্চিম রামপুরা এলাকার Rab-7, ফেনী ক্যাম্পের সামনে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী পাকা রাস্তার উপর তল্লাশি চালিয়ে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়। পরে আটককৃত আসামীদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের দেখানো ও সনাক্ত মতে কাভার্ডভ্যানটি (ঢাকা মেট্টো-ট-২২-১২৯০) তলাশী করে কাভার্ডভ্যানের ভিতরে ড্রাইভিং সিটের পিছনে সুকৌশলে লুকানো ২৩,০২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয় এবং ইয়াবা পরিবহনে ব্যবহৃত কাভার্ডভ্যানটি জব্দ করা হয়। তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত চট্টগ্রাম হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে পন্য পরিবহনের আড়ালে বিভিন্ন কৌশলে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মাদক পাচার করে আসছে। উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্যের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ১৫ লক্ষ ১০ হাজার টাকা এবং জব্দকৃত কাভার্ডভ্যানের আনুমানিক মূল্য ৪০ লক্ষ টাকা। গ্রেফতারকৃত আসামীদেরকে ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর