জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় ভিজিএফের ৩ মেট্রিক টন চাল জব্দ
অনলাইন ডেস্ক: জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলায় কালোবাজারে বিক্রি করে দেওয়া প্রায় ৩ মেট্রিক টন ভিজিএফের চাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। গতকাল রোববার বিকালে মেলান্দহ উপজেলার চরবানিপাকুরিয়া ইউনিয়নের ভাবকি বাজার থেকে এই চাল জব্দ করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তামিম আল ইয়ামিন। মেলান্দহ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন,জব্দ করা প্রায় ৩ মেট্রিক টন চাল চরবানিপাকুরিয়া ইউপির ভিজিএফ বরাদ্দের চাল বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। জব্দ চাল মেলান্দহ পিআইওর জিম্মায় রাখা হয়েছে। এ ব্যপারে মেলান্দহ থানায় কোনও মামলা দায়ের হয় নাই। ইউএনও তামিম আল ইয়ামিন বলেন,গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আমি পুলিশ নিয়ে রবিবার (১৯ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে চরবানিপাকুরিয়া ইউনিয়নের ভাবকি বাজারে অভিযান চালাই। এ সময় ইউপি ভবনের কাছেই ভাবকি বাজারে একটি ঘর থেকে খোলা অবস্থায় প্রায় ৩ মেট্রিক টন চাল এবং সরকারি খাদ্য বিভাগের বেশ কিছু খালি বস্তা জব্দ করে উপজেলা পরিষদে আনা হয়। জব্দ চালগুলো মেলান্দহ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) আব্দুর রাজ্জাকের জিম্মায় রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ইউএনও জানান, যে ঘর থেকে চাল উদ্ধার করা হয়েছে। সে ঘরটিতে তালা মারা ছিল। তালা ভেঙে চালগুলো জব্দ করা হয়। মেলান্দহ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. রফিকুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য এ অভিযানে অংশ নেন।
খুলনার খালিশপুরে মেঘনা তেল ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২, দগ্ধ ৯
অনলাইন ডেস্ক: খুলনার খালিশপুরে মেঘনা তেল ডিপোতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ও অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। আজ সোমবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে মহানগরীর নতুন রাস্তা বিএল কলেজ সংলগ্ন ডিপোতে এ ঘটনা ঘটে। এতে দুইজন শ্রমিক ঘটনাস্থলে মারা যায়। প্রাথমিকভাবে তাদের নাম রাজু ও কামাল বলে জানা গেছে। অগ্নিকান্ডে দগ্ধ হয়েছেন আরও ৯ জন শ্রমিক। তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হচ্ছেন মোজাম্মেল হক (৩৫), আ. ওহাব (৪৫), আনোয়ার হোসেন (৪০), অনু (২৫), ইসমাইল (৫৫), রুবেলসহ (২৬) ৯ জন। ট্যাংলরি শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এনাম মুন্সি জানান, ডিপো থেকে ডিজেল ও অকটেন গাড়িতে লোড দেওয়ার সময় হঠাৎ করেই বিষ্ফোরণ ও অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ৫টি টিম প্রায় পৌনে ১ ঘন্টা চেষ্টার পর সাড়ে ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
বিশ্বাস মার্কেটে আগুন- পাবনায় ১৫ দোকান পুড়ে ছাই
অনলাইন ডেস্ক: পাবনার মধ্য শহরের বিশ্বাস মার্কেটে অগ্নিকান্ডে ব্যাংক বীমাসহ ১৫ দোকান পুড়ে গেছে। মার্কেটে আগুন লাগলে ভবন থেকে নামতে গিয়ে অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। সোমবার ভোর পৌনে ৫ টার দিকে ৬ তলা ভবনে এ অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়। আগুনে প্রায় ৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা দাবি করেছেন। এ ব্যাপারে পাবনা ফায়ার সার্ভিসের সহকারি পরিচালক এম সাইফুল ইসলাম জানান, প্রাথমকিভাবে ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক শট সার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৭টি ইউনিট প্রায় সাড়ে ৩ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। ভবনে থাকা এপেক্সের শো রুম, শ্যামলী কালার ল্যাব, বনলতা চাইনিজ রেষ্টুরেন্ট সম্পূর্ণরুপে পুড়ে গেছে। এ ছাড়া রুপালী ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, ইসলামী ফাস্ট সিকিউরিটি ব্যাংকসহ ১৫টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এতে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫ কোটি টাকা বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে, অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে পাবনা জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন ও পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন। আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে ভোর থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করেছে।
গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী পিকআপ ভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নদীতে- নিহত ১
অনলাইন ডেস্ক: গোপালগঞ্জে যাত্রীবাহী পিকআপ ভ্যান নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মধুমতি নদীতে পড়ে চিত্ত রঞ্জন দাস (৩২) নামে এক জুতা শ্রমিক নিহত হয়েছেন। সদর উপজেলার গান্ধিয়াশুর এলাকায় রবিবার রাতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত চিত্ত রঞ্জন দাস যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার প্রতাপপুর গ্রামের যুশি রঞ্জন দাসের ছেলে। এ সময় আহত হয়েছেন পিকআপ ভ্যানে থাকা অপর ১০ শ্রমিক। হতাহতদের মধ্যে ৩ জন জুতা কারখানার মালিক ও ১০ জন শ্রমিক বলে জানিয়েছেন বৌলতলী পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক সাজেদুর রহমান। খবর পেয়ে আজ সকালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন। অন্য শ্রমিকদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
জরুরী বিজ্ঞপ্তি
অনলাইন ডেস্ক: সকলের অবগতির জন্য জানানো যাইতেছে যে, বহুল প্রচারিত জনপ্রিয় অনলাইন দৈনিক নিউজ হবংিবশধঃঃড়ৎ.পড়স এর জনপ্রিয়তায় ইতি মধ্যে মুষ্ঠিমেয় কিছু অপরাধী চক্র নিউজ একাত্তর ডট কম এর নাম দিয়ে বিভিন্ন অনৈতিক কাজ করছেন মর্মে পত্রিকার সম্পাদক বিভিন্ন ভাবে অবগত হয়েছেন। সম্প্রতি নিহার কান্তি দাশ নামক ব্যক্তি নিউজ একাত্তর ডট কম পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে বিভিন্ন তদবীর,অপকর্ম চালাচ্ছেন বলেও জানাযায়। নিউজ একাত্তর ডট কম পত্রিকায় নিহার কান্তি দাশ নামে কোন সংবাদ দাতা আগেও ছিলনা এবং বর্তমানে ও নাই,শুধু তাই নয় নিউজ একাত্তর ডট কম পত্রিকার ষ্টিকার গাড়িতে লাগিয়ে ভিজিটিং কার্ড ব্যবহার করে গত কিছু দিন যাবত কিছু অপরাধী ব্যক্তি গন বিভিন্ন ব্যক্তির সাথে প্রতারনা করছেন বলেও কতৃপক্ষ অবগত হয়েছেন। এমতাবস্থায় জনপ্রিয় অনলাইন দৈনিক নিউজ একাত্তর ডট কম এর সকল লেখক ও পাঠকের সহ সকলের প্রতি অনুরোধ করা যাচ্ছে যে, নিহার কান্তি দাশ সহ যে কোন ব্যক্তি নিউজ একাত্তর ডট কম এর সাংবাদিক পরিচয় প্রদান করিলে তাদেরকে সংশ্লিষ্ঠ থানায় সোপর্দ্ব করীয়া প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহন করিবেন। নিউজ একাত্তর ডট কম এর প্রধিনিধি যাচাই করতে সম্পাদকের মোবাইল নং ০১৮২৪-২৪৫৫০৪ নাম্বারে ফোন করে নিশ্চিত হওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হইল। নিউজ একাত্তর ডট কম কোন অন্যায় অপরাধীকে প্রশ্রয় দেয় না এবং প্রচলিত আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। নিউজ একাত্তর ডট কম এর পরিচয়ে ভূয়া সাংবাদিকদের অপকর্মের দায় নিউজ একাত্তর ডট কমের নয়। নিউজ একাত্তর ডট কম এর যে কোন বিষয়ে উপরে দেওয়া সম্পাদকের নাম্বারে ফোন করে অথবা চট্টগ্রাম অফিস-১৯/২০/২১ বি, হানিমুন টাওয়ার ৩য় তলা,অলংকার মোড়,পাহাড়তলী,চট্টগ্রাম এ যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। নিবেদক মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন চৌধুরী সম্পাদক নিউজ একাত্তর ডট কম ০১৮২৪-২৪৫৫০৪
মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটসের ১৫ আগষ্টের আলোচনা সভায় বক্তারা,বঙ্গবন্ধু সাহসী ব্যক্তি ছিলেন
অনলাইন ডেস্ক: মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটস্ এন্ড জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) জেলা ও মহানগর কমিটির যৌথ উদ্দেগ্যে সংস্থার অলংকারস্থ চট্টগ্রাম কার্যালয়ে ১৫ আগষ্ট বিকেলে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলার চেয়ারম্যান মোঃ লোকমান আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার কেন্দ্রিয় চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন চৌধুরী,বিশেষ অতিথি ছিলেন আকবরশাহ্ থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাজী আলতাফ হোসেন। প্রধান অতিথি বলেন,বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ এক এবং অভিন্ন। বঙ্গবন্ধুর নির্মম হত্যাকান্ডে জাতি হিসেবে আমরা বিশ্বের কাছে খাটো হয়েছি। বঙ্গবন্ধু সাহসী ব্যক্তি ছিলেন এবং অংশীদারীত্বের গনতন্ত্রে বিশ্বাসী ছিলেন। বঙ্গবন্ধু ছাড়া স্বাধীন বাংলাদেশ অসম্ভব। উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সংস্থার জেলার সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক শেখ জয়নাল আবেদীন, মোঃ নূরুল আনোয়ার দুলাল,মৃদুল মজুমদার,মহিলা বিষয়ক সচিব সবিতা বিশ্বাস,মিসেস মিলি চৌধুরী,আব্দুল গফুর,সুজন আচার্য্য,হাজ্বী নুরুল আলম,মহানগর চেয়ারম্যান এম.এ. নুরন্নবী চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান ইদ্রিস মোঃ নূরুল হুদা, মহাসচিব মোঃ তছলিম কাদের চৌধুরী, উসমান গনি,মাহমুদা বেগম,মরিয়ম,নারগীছ আক্তার,বুলু আক্তার, প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে বঙ্গবন্ধু সহ ১৫ আগষ্টে নিহত সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মুনাজাত করা হয়।
গৃহবধূর ৬ মৃত সন্তান
অনলাইন ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একই দিনে ছয়টি মৃত সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। বুধবার বিকেলে আশুগঞ্জ উপজেলার বেসরকারি ক্লিনিক নূর মেডিকেল সেন্টারে সন্তানগুলোর জন্ম দেন তিনি। এর মধ্যে চারটি ছেলে ও দুইটি মেয়ে। ওই গৃহবধূর নাম মাহিনূর আক্তার (২৮)। তিনি সরাইল উপজেলার দেউবাড়িয়া গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী আবুল কালামের স্ত্রী। তবে বর্তমানে মাহিনূরের শারীরিক অবস্থা মোটামুটি ভালো রয়েছে বলে জানিয়েছেন ক্লিনিকের চিকিৎসক শাহীন আরা। মাহনূরের স্বজনরা জানান, প্রায় চার বছর আগে মাহিনূরের বিয়ে হয় সৌদি আরব প্রবাসী আবুল কালামের সঙ্গে। বিয়ের পর কোন সন্তান না হওয়ায় পরিবারের লোকজন সন্তানের জন্য মাহিনূরকে বিভিন্ন কবিরাজি ওষুধ খাওয়ান। এ সময় মাহিনূর সন্তান ধারণে সক্ষম হন। বুধবার সকালে তাকে নূর মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। এসময় চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানান, গর্ভে চারটি সন্তান থাকতে পারে। চিকিৎসক তাদের বাড়ি ফিরে যেতে বলেন। বিকেলে বাড়ি ফেরার পথে নৌকায় উঠতে গেলে মাহিনূরের প্রসব বেদনা ওঠে। এ সময় তিনি নৌকাতেই একটি সন্তান প্রসব করেন। পরে তাকে দ্রুত আবার নূর মেডিকেলে সেন্টারে আনা হয়। সেখানে চিকিৎসকের সহায়তায় একে একে আরো পাঁচটি সন্তান প্রসব করেন মাহিনূর। কিন্তু বাচ্চাগুলো কিছু সময়ের মধ্যে মারা যায়। এ ব্যাপারে ওই ক্লিনিকের চিকিৎসক শাহীন আরা জানান, কোন প্রকার অস্ত্রোপচার ছাড়াই শিশুগুলো ভূমিষ্ট হয়। তিনি বলেন, গর্ভধারণে নানা কারণে মাতৃগর্ভে একাধিক ভ্রুণের জন্ম হতে পারে। কিন্তু অপরিণত সময়ে অপরিপক্ক ভাবে জন্ম নেওয়ায় বাচ্চাগুলোর শারীরিক গঠনে পুর্ণাঙ্গতা পায়নি। ফলে তারা মৃত অবস্থায় ভূমিষ্ট হয়েছে।
মহেশখালির মাতারবাড়িতে আ-লীগ নেতাকে হাত-পা কেটে হত্যা
অনলাইন ডেস্ক: কক্সবাজারে জিয়াবুল হক নামে আওয়ামী লীগের এক নেতাকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হত্যা করেছে। এসময় সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে তার ১টি হাত ও দুইটি পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। বুধবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মহেশখালির মাতারবাড়ি বাজারে এঘটনা ঘটে। জিয়াবুল হক মহেশখালী উপজেলার মাতরবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন। মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, আশঙ্কাজনক অবস্থায় জিয়াবুলকে চট্টগ্রামে নেয়ার পথে রাত ১০টার দিকে তিনি মারা যান। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে বলেও জানান ওসি। নিহত আওয়ামী লীগ নেতা জিয়াবুলের ছোট ভাই ও স্থানীয় ইউপি সদস্য সরওয়ার কামাল জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল জিয়াবুল হককে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল। বিষয়টি মহেশখালী থানা ও মাতারবাড়ি পুলিশ ফাঁড়িকে কয়েক দফায় অবহিত করা হয়েছিল। ওই প্রভাবশালী সন্ত্রাসী গ্রুপটি প্রকাশ্য জনসম্মুখে তার ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করে বলে অভিযোগ তার।
বঙ্গবন্ধু একাডেমির জাতীয় শোক দিবসের সমাবেশে বক্তারা, বঙ্গবন্ধু বাঙালিদের শৃঙ্খলমুক্ত বাংলাদে
বঙ্গবন্ধু একাডেমি চট্টগ্রাম মহানগর আয়োজিত ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে “বাঙালির শোক ও বঙ্গবন্ধুর রক্তাক্ত বাংলাদেশ” শীর্ষক সমাবেশে চট্টগ্রাম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়–য়া প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেছেন বঙ্গবন্ধু শব্দটি এখন গবেষণার বিষয় উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, বিশ্বব্যাপী বঙ্গবন্ধুকে জাগ্রত রাখতে হলে বঙ্গবন্ধুর চেতনা ও আদর্শের পক্ষে কাজ করতে পরলেই তবেই একটি সুন্দর বাংলাদেশ নির্মাণ সম্ভব হবে। প্রধান বক্তার বক্তব্যে চবি’র কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সেকান্দর চৌধুরী বলেন, ইতিহাসে বঙ্গবন্ধু হাজার বছরের চিরঞ্জীব হয়ে থাকবেন। কারণ তিনি বাঙালিকে শৃঙ্খলমুক্ত স্বাধীনতা ও বাংলাদেশ দিয়েছেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম রেডিক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান ডা. শেখ শফিউল আজম বলেন, শেখ হাসিনার উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে যারা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায়, এরাই বাঙালির স্বাধীনতা চাইনি। শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্রয়োজন। চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ শ্রম বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম বলেন, জঙ্গিবাদ, কোটা বিরোধী ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে অনৈতিক আন্দোলনের নামে শেখ হাসিনা সরকারকে উখ্যাত করা যাবে। তিনি বলেন, সকল অপশক্তির ষড়যন্ত্র নসাৎ করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ অবশ্যই বাস্তবায়ন হবে। বঙ্গবন্ধু একাডেমির সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজল আহমদের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক সৈয়দ দিদার আশরাফী ও সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আহমেদ শাহিনের যৌথ সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন নাট্যজন সজল চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন জাসদ নেতা ভানুরঞ্জন চক্রবর্তী, সুযশ্ময় চৌধুরী, ১৪ দলীয় নেতা স্বপন সেন, কাতার বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী (সরোয়ার), লায়ন এ.কে. জাহেদ চৌধুরী, অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ সানাউল্লাহ, এড. আশুতোষ দত্ত নান্টু, কবি এহসান মাহমুদ আলম, মুক্তিযুদ্ধের সন্তান দীপঙ্কর চৌধুরী কাজল, শিল্পী দিপেন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধার চেতনা ও গবেষণা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হেফাজত ইসলাম চৌধুরী, প্রণবরাজ বড়–য়া, মৎস্যজীবী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোতালেব তালুকদার, মুক্তিযোদ্ধা শাহাব উদ্দিন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা এস.এম. আবু তাহের, মুক্তিযোদ্ধা রমিজ উদ্দিন আহমেদ, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা এম এ সালাম, মোঃ এজাহারুল হক, অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম খান, সাবেক ছাত্রনেতা বিপ্লব দাশ গুপ্ত, গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা মিনু রানী দাশ, অধ্যাপক শিব প্রসাদ, কাজী আইয়ুব, এস.এম. হাসান উদ্দিন, কবি ফেরদৌসী মুন, শিল্পী রায়হান সুলতানা নিহা, কবি জান্নাতুল ফেরদৌস সোনিয়া, রোজী চৌধুরী, হারুন উর রশিদ, মোঃ হোসেন, এড. মোঃ ছুরত জামাল, ইউনুচ মিয়া, দিলীপ হোড়, জামাল উদ্দিন কান্টু প্রমুখ।প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সারা দেশ পাতার আরো খবর