চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রীর ছবি ও আলীগ কার্যালয় ভাঙচুর
চট্টগ্রামের হাটহাজারীর নাঙ্গলমোড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর করেছে দুবৃর্ত্তরা। শুক্রবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। নাঙ্গলমোড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল আজিম জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ছাত্রলীগের ১৫ থেকে ২০ জন নেতাকর্মী বসে ছিলেন দলীয় কার্যালয়ে। এ সময় হঠাৎ দলীয় কার্যালয়ে বৃষ্টির মত ইট-পাথর নিক্ষেপ করে কে বা কারা! তিনি জানান, দলীয় কার্যালয়ে ইট-পাথর নিক্ষেপ সন্দেহে বিএনপি সমর্থিত আবুল হাসেম নামের সিএনজি অটোরিকশা চালককে গণধোলাই দেয় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এতে অটো চালক আবুল হাসেমের মাথা ও নাক ফেটে যায়। আবুল হাসেম স্থানীয় ইসমাইল দফাদারের ছেলে। নুরুল আজিম জানান, আবুল হাসেমকে মারধরের ঘটনায় হয়তো বিএনপি সমর্থিত লোকজন রাতে এসে দলীয় কার্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভাঙচুর করেছে। জেলার হাটহাজারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো: বেলালউদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, এই বিষয়ে থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ভয়াবহ আগুনে পুড়ল ২০ দোকান কুমিল্লায়
কুমিল্লা মহানগরীর চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। প্রায় তিন ঘণ্টাব্যাপী জ্বলতে থাকা আগুনে ২০টি দোকানের কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট আড়াই ঘণ্টারও অধিক সময় চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে বাজারের তেরিপট্টি এলাকার বাঁশবাজারের একটি দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয় বলে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার দুপুরে কুমিল্লা মহানগরীর চকবাজার তেরেপট্টিতে বাঁশ বাজারের দক্ষিণ পাশের একটি দোকানে হঠাৎ করেই আগুনের লেলিহান শিখা জ্বলে উঠে। দখিনা বাতাসে মুহূর্তেই আগুনের শিখা আশপাশের দোকানগুলোতে ছড়াতে থাকে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। কিন্তু বাজারের সরু গলি, আগুনের অতিরিক্ত তীব্রতা ও বাতাসের কারণে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের বেগ পেতে হয়। পরে খবর পাঠিয়ে ফায়ার সার্ভিসের আরো দু’টি ইউনিট চকবাজারে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিয়নের দীর্ঘ আড়াই ঘণ্টারও অধিক সময়ের চেষ্টায় দুপুর তিনটায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কুমিল্লা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের কর্মকতা আলমগীর হোসেন জানান, বাজারের সরু গলি আর বাতাসের কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হয়েছে। এছাড়াও উৎসুক মানুষজন গলির ভেতরে ভিড় জমানোর কারণে আগুন নেভাতে আসা গাড়িগুলোকে ভেতরে আনতে কষ্ট হয়েছে বলে জানান তিনি। আলমগীর হোসেন বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকেই আগুনের সূত্রপাত। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণ করা সম্ভব হয়নি।
খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ট্রাকের ভেতরে চালকের লাশ
খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলায় ট্রাকের ভেতর থেকে মো. দেলোয়ার হোসেন নামে এক ট্রাক চালকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার সকালে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে মাটিরাঙ্গা থানার পুলিশ ট্রাক চালকের লাশ উদ্ধার করে। নিহত দেলোয়ার হোসেন মাটিরাঙ্গার আদর্শগ্রাম এলাকার মো. নুরুল ইসলামের ছেলে। তিনি স্থানীয় আমিন মিয়ার ট্রাকের চালক ছিলেন। পুলিশ জানায়, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ট্রাকের সামনের অংশের লক ভেঙে দেলোয়ার হোসেনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তার পেটে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সৈয়দ মো. জাকির হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হত্যা নাকি আত্মহত্যা সে রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত করছে। মৃতদেহের ময়নাতদন্তের জন্য লাশ খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
চট্টগ্রামে জব্দকৃত ইয়াবা আত্মসাতের অভিযোগে এসআই বরখাস্ত, ৪ পুলিশ ক্লোজড
চট্টগ্রামে জব্দ ইয়াবা ট্যাবলেট আত্মসাতের অভিযোগে পুলিশের এক উপ-পরিদর্শক(এসআই)কে সাময়িক বরখাস্ত ও আরেক উপ-পরিদর্শক(এসআই)সহ তিন কনস্টেবলকে ক্লোজড করা হয়েছে। পুলিশের দায়িত্বশীল সূত্রে জানা যায়, গত ৮ মে চট্টগ্রামের বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. মহিউদ্দিনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই অভিযোগে চট্টগ্রামের বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক আদম আলী এবং কনস্টেবল মামুন, ইমাম হোসেন ও মোস্তফাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। জানা গেছে, গত ৭ মে বিকেলে চট্টগ্রামের বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি দল মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করছিলেন। রাত ৩টার দিকে উপজেলার মাদাম বিবির হাট এলাকায় ঢাকামুখী শ্যামলী পরিবহন (চট্টমেট্টো ব ৫১-২১৫৫) বাসে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় ২১ হাজার ৮০০ পিস ইয়াবাসহ মো. মোস্তাকিম (৩৬) নামের এক ব্যক্তিকে যুবককে আটক করা হয়। পরে ইয়াবাগুলো রেখে ছেড়ে দেয়া হয় তাকে। এদিকে পূর্ব থেকে ওৎপেতে থাকা ইয়াবা পাচারকারী মোস্তাকিমকে পর্যবেক্ষণ করছিলেন গোয়েন্দা পুলিশের একটি টিম। হাইওয়ে পুলিশের কাছ থেকে ছাড়া পাওয়া ওই বাসটি ঢাকার কাছেই তল্লাশি করে গোয়েন্দা পুলিশ। তবে মোস্তাকিমের কাছে ইয়াবা না পেয়ে তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। হাইওয়ে পুলিশ ইয়াবা রেখে তাকে ছেড়ে দিয়েছে বলে মোস্তাকিম গোয়েন্দা পুলিশকে জানান। এ তথ্য নিশ্চিত হয়ে গোয়েন্দা পুলিশ বিষয়টি তদন্তের জন্য কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অনুরোধ করেন। গোয়েন্দাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে পাচারকারী মোস্তাকিমকে নিয়ে চট্টগ্রামের বার আউলিয়া হাইওয়ে থানায় আসেন কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি আতিকুল ইসলাম, কুমিল্লার এসপি নজরুল ইসলামসহ পুলিশের কর্মকর্তারা। সেখানে মোস্তাকিম আর বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের মুখোমুখি করা হয়। এরপর এসআই মহিউদ্দিনকে প্রত্যাহার করে কুমিল্লা হাইওয়ে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়। আটক ইয়াবার মূল্য ৬৬ লাখ টাকা। মোস্তাকিম গাজীপুর জেলা সদরের বারান্ডা গ্রামের তসলিম উদ্দিন খোন্দকারের ছেলে। হাইওয়ে পুলিশের কুমিল্লার পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম জানান, এসআই মহিউদ্দিনকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। অভিযুক্ত এসআই আদম আলী ও ৩ কনস্টেবলের বিরুদ্ধে ৩ দিন ধরে তদন্ত শেষে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তাদেরকে হাইওয়ে থেকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে পাঠানো হয়েছে। বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের অফিসার ইনচার্জ আহসান হাবিব বলেন, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তাদের প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।
১৭ লাখ টাকার ভারতীয় পণ্য জব্দ,কুমিল্লায় আটক ৪
কুমিল্লায় ভারতীয় মাদক, শাড়ি-থ্রিপিসসহ ১৭ লাখ টাকার পণ্য জব্দ করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে এসব পণ্য জব্দ করা হয়। এসময় ৪ জনকে আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন ১০ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক মো. শহীদুল আলম। বিজিবি সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার কুমিল্লার লক্ষ্মীপুর পোস্ট বিওপির টহল দল যশপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশাসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। আটকেরা হলেন দক্ষিণ উপজেলার রামমালা গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে শহীদুল ইসলাম (২৫) ও একই উপজেলার ঢুলিপাড়া গ্রামের মৃত মালেক মিয়ার ছেলে বাছির মিয়া (৩০। আটক দু জনকে কুমিল্লা সদর দক্ষিণ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। লক্ষ্মীপুর বিওপির টহল দল অভিযান চালিয়ে ১০ বোতল ফেনসিডিল ও একটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ দুই যুবককে আটক করেছে। তারা হলেন কুমিল্লা মহানগরীর পশ্চিম রেইসকোর্স এলাকার মৃত খোকন মিয়ার ছেলে নুরুল হাসান তপু (২৭) ও সদর উপজেলার হালিমা নগর গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে আব্দুল কাদের (২৬)। আটকদের কুমিল্লাকে সদর দক্ষিণ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজিবি। এছাড়া বিজিবি জেলার বিভিন্ন সীমান্ত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৭ বোতল হুইস্কি, ১০০ বোতল ফেনসিডিল, ২ লাখ স্টেরয়েড ট্যাবলেট, ২৫টি শাড়ি, ৭৪টি থ্রিপিস, ৬০০ কসমেটিক্স সামগ্রী, ৩৪ প্যাকেট ট্যাং ও ৬৩৮ প্যাকেট বিস্কুট মালিকবিহীন আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন ১০ বিজিবির অতিরিক্ত পরিচালক মো. শহীদুল আলম। তিনি জানান, আটক মাদকদ্রব্য এবং অন্যান্য মালামালের আনুমানিক মূল্য ১৭ লাখ ৩৯ হাজার ১২০ টাকা। আটক এসব মাদক মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এবং অন্যান্য মালামাল কাস্টম অফিসে জমা করা হয়েছে।
লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে কালবৈশাখীর ঝড়ে বিধ্বস্ত বিদ্যালয়
লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে কালবৈশাখীর ঝড়ে দক্ষিণ চর মার্টিন চৌধুরী বাজার উচ্চ বিদ্যালয় বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। ভেঙে গেছে শ্রেণিকক্ষ, বাতাসের তোড়ে উড়ে গেছে টিনের চালা। শনিবার এমন পরিস্থিতিতে পাঠদান বন্ধ রাখা হয়েছে। এর আগে শুক্রবার বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রচণ্ড ঝড়ে বিদ্যালয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানান, 'ঝড়ে তাদের বিদ্যালয়ের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিদ্যালয় ভেঙে পড়ায় তারা শ্রেণিকক্ষে যেতে পারছেন না। দ্রুত তারা বিদ্যালয়ের মেরামত চান। দক্ষিণ চর মার্টিন চৌধুরী বাজার উচ্চ বিদ্যালয় ৪৫০জন শিক্ষার্থী রয়েছে। কালবৈশাখীর কবলে পড়ায় তাদের পাঠদান অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, বিদ্যালয় ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার খবর পেয়েছি। শিক্ষার্থীদের যাতে পাঠদান বন্ধ না হয় সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে উপজেলার চর মার্টিন, চর লরেন্স, তোরাবগঞ্জ, হাজিরহাট ও মেঘনা উপকূলীয় ফলকন, সাহেবেরহাট ও চর কালকিনিসহ উপজেলার প্রায় সব কয়েকটি ইউনিয়নে কম-বেশি ঝড় ও বৃষ্টি হয়েছে। ঝড়ে বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক কাঁচা ঘরবাড়ি ভেঙে পড়েছে, উড়ে গেছে বসতঘরের টিনের চালা। ভেঙে পড়েছে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৫ শতাধিক গাছ। এ ছাড়া শিলাবৃষ্টিতে সয়াবিন, বাদাম, মরিচ, শাক-সবজিসহ ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
ছুরিকাঘাতে যুবক খুন চট্টগ্রামে
ছুরিকাঘাতে আহত আবুল কাশেম (২০) নামের এক যুবক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। শুক্রবার দিনগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি মারা যান। এর আগে নগরের বায়জিদ থানা এলাকার চা-বোর্ডের অদূরে মাজারে পাশে রাত সাড়ে ৯টার দিকে অজ্ঞাত দুষ্কৃতিকারীদের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন তিনি। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (চমেক) পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম জানান, ছুরিকাঘাতে আহত যুবকটিকে রাত দশটার দিকে কিছু লোক উদ্ধার করে চমেকে নিয়ে আসেন। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি রাত সাড়ে দশটার দিকে মৃত্যুবরণ করেন। নিহতের বাড়ি চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে বলে জানা গেছে।
যানজটে দিনে ক্ষতি শত কোটি টাকা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে
ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাড়কের ফেনী বাইপাস অংশের ফতেহপুরে নির্মাণাধীন রেলওয়ে ওভারপাস এর কারণে সৃষ্ট যানজটে প্রতিদিন কোটি টাকার বাণিজ্যিক ক্ষতি হচ্ছে। ঢাকার সাথে চট্টগ্রামের যোগাযোগ ৬-৭ ঘন্টার ক্ষেত্রে ১৫-১৬ ঘন্টা এমনকি কোন কোন সময় তা ২০ ঘন্টাও ছাড়িয়ে যাচ্ছে। ফেনী শহরের মহিপাল থেকে ফতেহপুর কিংবা মোহাম্মদ আলী থেকে মহিপাল ৬ কিলোমিটার পাড়ি দিতে ৩ থেকে ৬ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লাগছে। এতে করে কেবল যাত্রীদের কর্মঘণ্টাই নষ্ট নয়, কোটি টাকার লোকসান গুনছেন পরিবহন মালিকরাও। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১২ সালে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স শিপো পিবিএল ওভারপাসটি নির্মাণের দায়িত্ব পায়। একপর্যায়ে চাঁদাবাজীর মুখে পড়ে তারা কাজটি শেষ না করে পালিয়ে যায়। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর ২০১৭ সালের শেষের দিকে সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কনস্ট্রাকশনকে ওভারপাসটি নির্মাণের দায়িত্ব দেয়া হয়। ৬০ কোটি ৫১ লাখ ১৮ হাজার টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হচ্ছে। ওভারপাসটি চালু হলে রাজধানী ঢাকা আর বন্দরনগরী চট্টগ্রামের গাড়িগুলো দ্রুত গন্তব্যে চলে যেতে পারবে। শহরের মহিপালে নির্মিত দেশের বৃহৎ ৬ লেনের ফ্লাইওভারেরও সুফল মিলবে। কিন্তু ওভারপাস নির্মাণকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি মহাসড়ক যানজটে স্থবির হয়ে পড়ে। এতে করে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের অন্তঃহীন দুর্ভোগের পাশাপাশি কাঁচামাল সহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য গন্তব্যে পৌঁছতে বিলম্ব হওয়ায় ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। ঢাকা থেকে গার্মেন্টস পণ্যও যথাসময়ে বন্দরে পৌঁছতে না পারায় রফতানীর শিডিউল বিপর্যয় ঘটছে। প্রতিদিন চট্টগ্রাম বন্দর থেকে মহাসড়কে ৩ হাজারেরও অধিক ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য আমদানী-রপ্তানী করে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ফতেহপুরে আটকে থাকা ঢাকাগামী কভার্ডভ্যানের (ঢাকা মেট্টো-ট-১১-৫৫৩৮) চালক নাজমুল ইমন জানান, চট্টগ্রাম থেকে সকাল ৮টায় মহিপাল পৌঁছেছি। মহিপাল থেকে ফতেহপুর পৌঁছতে ৬ ঘন্টা সময় লেগেছে। এর আগে কয়েকদিন চট্টগ্রামগামী গাড়ীগুলো কুমিল্লা দিয়ে লাকসাম, সোনাইমুড়ী হয়ে চৌমুহনী দিয়ে মহিপাল পার হয়েছে। এতে যাত্রীরা যেমন ভোগান্তির শিকার হয়েছে তেমনি পরিবহন মালিকরাও আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন। বাংলাদেশ পণ্য পরিবহন মালিক ফেডারেশনের মহাসচিব আবু মোজাফফর জানান, ফতেহপুুরে ঘন্টার পর ঘন্টা যানজটের কারনে কাঁচামাল পৌছতে দেরি হয়। ঢাকা থেকে শিল্প পণ্যও চট্টগ্রাম বন্দরে সময়মতো পৌঁছানো যায় না। কোন দিন ৫-৬ ঘন্টার যাতায়াতের পথে পুরো দিনও কেটে যায়। দীর্ঘক্ষণ মানবশক্তি বসে থাকায় চালক-হেলপারদের শারিরীক অসুস্থতাও হচ্ছে। ফেনী জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম নবী জানান, ফেনী থেকে ঢাকা রুটে মহাসড়কে বাস-ট্রাক-কাভার্ডভ্যান সহ শতশত গাড়ী চলাচল করে। এসব গাড়ীর মালিককে দৈনিক অন্তত ৫ হাজার টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে। স্টার লাইন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক জাফর উদ্দিন জানান, যানজটের কারণে গাড়ীর ট্রিপ কমে গেছে। অতিরিক্ত তেল, যান্ত্রীক খরচ, চালক-হেলপার খরচ বেড়েছে। একদিকে আয় কমলেও অন্যদিকে আগের তুলনায় গাড়ী প্রতি অন্তত ৬ হাজার টাকা খরচ বেড়ে গেছে। ফেনী চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি ও মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান একেএম সাহেদ রেজা শিমুল জানান, ভয়াবহ যানজটের কথা শুনে তিনি ফেনী আসতে রেলের টিকিট কেটেছেন। অর্থনৈতিক ক্ষতির পরিমান নিরুপন না করা গেলেও যানজটের ফলে প্রতি শত শত কোটি টাকার ক্ষতি হচ্ছে বলে তিনি জানান। মহাসড়কে প্রতিনিয়ত পণ্য আমদানী-রপ্তানী করে রাজধানীর এহসান গ্রুপ। কোম্পানীর পরিচালক মো. এনামুল হক জানান, ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম বন্দরে গাড়ী ভাড়া ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা খরচ হতো। এখন তা বেড়ে ২৫ হাজার টাকায় দাঁড়িয়েছে। মঙ্গলবার ভোর ৪টায় ঢাকা থেকে পণ্য নিয়ে রওয়ানা হয়ে বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় গাড়ীটি বন্দরে পৌঁছেছে। এদিকেও ট্রাফিক ও হাইওয়ে পুলিশ ভয়াবহ এ যানজটে বিরামহীন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। এক পুলিশ সদস্য জানান, বিকল্প সড়ক (ড্রাইভারশন) না করে ওভারপাস নির্মাণ কাজ করা যানজটের প্রধান কারন। এছাড়া বিকল্প সড়ক পুরাতন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটি ব্যবহার করলেও বর্তমানে সড়কটির অবস্থা খুবই নাজুক। ফলে ওই সড়ক দিয়েও যান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। অপরদিকে ওই সড়ক দিয়ে শহরের উপর দিয়ে গাড়ী চলাচল করলে যানজটের প্রভাবে পুরো শহর অচল হয়ে পড়ে। দিনের বেলায় সাধারণত বিসিক শিল্প নগরী সড়ক দিয়ে গাড়ীগুলো পার করা হয়। কিছুদিন গাড়ী চলায় ওই সড়কটিও খানাখন্দে ভরে গেছে। এতে করে মহাসড়কের ফেনী বাইপাস অংশ এখন যাত্রী ও পরিবহনের কাছে অনেকটা আতংকের নাম। বিষয়টি স্বীকার করে ট্রাফিক পুলিশের ইনচার্জ মীর গোলাম ফারুক বলেন, যানজট নিরসনে পুলিশ সদস্যরা রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন। অন্যদিকে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্প্রতি ফতেহপুর ওভারপাসের নির্মাণকাজের পরিদর্শনকালে বলেছিলেন, ‘ওভারপাসটির কাজ অর্ধেক শেষ হয়েছে। মে মাসে এটি অর্ধেক বা দুই লেন খুলে দেওয়া হবে। তখন যানজট কমে যাবে।
মুক্তিযোদ্ধা মীর হারুনুর রশীদের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন
গতকাল ০৯ মে রোজ বুধবার বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর হারুনুর রশীদ বিকাল ৫টায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন (ইন্না-রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১। তিনি সাত ছেলে, তিন মেয়ে ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে মারা যান। বাদ এশা ইয়াসিন খয়রাতি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণের মরহুমের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। তিনি মহান নেতা বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। জানাযা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদার গাড অব অনার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মহানগর কমান্ডার মোজাফর আহমদ, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেড নওশের ইবনে আলীম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম, মরহুমের বড় ছেলে মীর হাসিবুল হাসান, মো: মুহিত। পুলিশের একটি চৌকস দল মো: আখতার হোসেনের নেতৃত্বে গাড অব অনার প্রদানকালে চান্দগাঁও থানার পুলিশ কর্মকর্তা ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। জানাযা পরিচালনা করেন মো: আলমগীর। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সারা দেশ পাতার আরো খবর