গাইবান্ধার পলাশবাড়ির মহেশপুর এলাকায় বাস খাদে, নিহত ১৬
গাইবান্ধার পলাশবাড়ির মহেশপুর এলাকায় একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ১৬ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও বেশ কয়েকজন। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। শনিবার (২৩ জুন) ভোর পৌনে ৫টার দিকে রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের এ দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি বলে জানান ওসি মাহমুদুল। পলাশবাড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম জানান, ‘আলম এন্টার প্রাইজ নামে একটি যাত্রীবাহী বাস পঞ্চগড়ের উদ্দেশে যাচ্ছিল। বাসটি রংপুর-ঢাকা মহাসড়কের পলাশবাড়ির মহেশপুর নামক এলাকায় পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৯ জন নিহত হন। এ সময় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান আরও ৬ জন। গুরুত্বর আহতদের উদ্ধার করে পলাশবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, রংপুর মেডিকেল কলেজ ও বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজসহ বিভ্ন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
চট্টগ্রামে ১০ হাজার ইয়াবাসহ আটক ২
চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার দোহাজারী হাইওয়ে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে। এ সময় ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। আটক ব্যক্তিরা হল ফরিদুল আলম (৩৩) ও ইমাম হোসেন(২৪)। গত ২১ জুন বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় সাতকানিয়া উপজেলাধীন চট্টগ্রাম-ককসবাজার মহাসড়কের কালিয়াইশ ইউনিয়নের সোহাগ কমিউনিটি সেন্টারের সামনের এলাকার মহাসড়কে একটি পিকআপে তল্লাশী করে ইয়াবাগুলো উদ্ধার করা হয়। দোহাজারী হাইওয়ে থানার ওসি মো. মিজানুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এ অভিযান চালানো হয়। এ সময় হাইওয়ে পুলিশের একটি ফোর্স চট্টগ্রামমুখী (চট্টমেট্রো মেট্রো-ন-১১-৬৬৭৬) নাম্বারের একটি পিকআপে তল্লাশী চালিয়ে চালকের পিছনের সিটে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ১০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করে। এ সময় পিকআপটি জব্দ করা হয়। এ ব্যাপারে সাতকানিয়া থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হবে বলে ওসি নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ককটেল বিষ্ফোরণ
বাগেরহাটের শরণখোলায় পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার রাজৈর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, জামায়াত-বিএনপির কর্মীরা ডিউটিরত পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ৪-৫টি ককটেল নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৫টি তাজা ককটেল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই ছাত্রদল কর্মীকে আটক করা হয়েছে। আটকরা হলেন, উপজেলার পাঁচরাস্তা সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা শাহ আলম আকনের ছেলে অপূর্ব হাসান রনি (২৫) ও কামাল চৌকিদারের ছেলে মো. ইমরান হোসেন (১৮)। এরা দুজন উপজেলা ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী বলে পুলিশ জানিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী কলেজ ছাত্র আ. রহিম (১৮), সোলায়মান (২০) ও ইমরান (১৯) জানান, তাদের সামনেই ৭-৮ জন অজ্ঞাত লোক বোমা ফাটিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যায়। শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. কবিরুল ইসলাম জানান, বিএনপির কর্মসূচী উপলক্ষ্যে পুলিশি টহল চলাকালে পুলিশের গাড়ি লক্ষ্য করে ৪-৫টি ককটেল নিক্ষেপ করা হয়। সব ককটেল গাড়ির কাছাকাছি বিষ্ফোরণ ঘটে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযানে নেমেছে। উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মো. ফরিদ উদ্দিন মানিকের নেতৃত্বে এ ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়েছে। ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ওসি জানান।
মাইজভান্ডার দরবার শরিফ জেয়ারতে চবি উপাচার্য
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে গত ১৯ জুন ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখারউদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে অবস্থিত মাইজভান্ডার দরবার শরিফ জেয়ারত করেন। এসময় তিনি গাউসুল আজম হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ্ মাইজভান্ডারী (কঃ)' এর রওজা শরিফ, হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ গোলামুর রহমান বাবা ভান্ডারী (কঃ),র রওজা শরিফ, অছি-এ গাউসুল আজম হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (কঃ)'র রওজা শরিফ ও বিশ্বঅলি শাহানশাহ হযরত মাওলানা শাহসূফী সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারী (কঃ)'র রওজা শরিফ জেয়ারত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উম্মুল আশেকীন মুনাওয়ারা বেগম এতিমখানা ও হেফজখানার সিনিয়র শিক্ষক মাওলানা হাফেজ আবুল কালাম, শাহানশাহ হক ভান্ডারী (কঃ)'র রওজা শরিফের খাদেম মাওলানা মোহাম্মদ সেলিম উল্লাহ, মোহাম্মদ সাহাবুদ্দীন, চবি কর্মকর্তা চন্দন, ডা. বরুণ কুমার আচার্য বলাই সহ আশেকানে মাইজভান্ডারীগণ। পরিশেষে উপাচার্য মহোদয় গাউসিয়া আহমদিয়া মনজিলের মোন্তাজেম, সাজ্জাদানশীন ডা. হযরত সৈয়দ দিদারুল হক মাইজভান্ডারী (মঃজিঃআঃ) ও গাউসিয়া হক মনজিলের সাজ্জাদানশীন, রাহবারে আলম, মওলা হুজুর হযরত সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভান্ডারী (মঃজিঃআঃ) এর সাথে সাক্ষাত করেন।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
পটিয়ায় জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এনাম, দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে বেগম জিয়াকে মুক্ত করা হবে
প্রতিবার পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের সময় নেতা কর্মীদের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়, রসালো খাবারের আয়োজন ও ঈদ পুনমিলনী অনুষ্ঠান করতেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এনামুল হক এনাম। তবে এবার আয়োজন ছিল একদম সাদামাটা এবং ভিন্ন। বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা এবং মুক্তির জন্য ঈদের দ্বিতীয় দিন দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন তিনি। দোয়া মাহফিলের প্রারম্ভে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, যে কোন কিছুর বিনিময়ে আমাদের প্রিয়নেত্রী দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়াকে এই অবৈধ সরকারের অন্ধকার কারাগার থেকে মুক্ত করতে হবে। তার জন্য যে আন্দোলনের ডাক আসবে সেই আন্দোলনে সবাইকে শরীক হওয়ার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে প্রয়োজনে নিজের জীবন বাজি রাখতে কার্পন্য করবেন না। তাই সবাইকে সকল ভেদাভেদ ভুলে যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য ঐক্যবদ্ধ থাকার অনুরোধ করেন। দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন, হাজী নুরুল আলম, আবদুল মান্নান তালুকদার, মাহবুবুল আলম, আবুল হোসেন বাবুল, নুরুল আলম, ফজলুল কাদের জুলু, জসীম উদ্দিন, মোহাম্মদ ফিরোজ, গাজী নজরুল ইসলাম, আকতার হোসন সিকদার, জসীম উদ্দিন, রবিঊল আলম রবি মেম্বার, বাদশা মেম্বার, জাহাঙ্গীর, ওবাইদুল হক রিকু, সেকান্দর হোসেন নয়ন, মাকসুদুল হক রিপন, রেজাউল করিম, শাহাদাত হোসেন, নাজিম, তারেক, শাহাব উদ্দিন মনির, সরওয়ার, আরমান প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সন্ধ্যার পর বাইরে আড্ডা্ দিতে দেখলে গ্রেফতার
সুজন / রাজিব,চট্টগ্রাম :সন্ধ্যার পর কোনো কিশোর বা শিক্ষার্থীকে বাইরে আড্ডা্ দিতে দেখলে গ্রেফতারের ঘোষণা দিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) আমেনা বেগম। বুধবার (২০ জুন) বিকেলে সিএমপি সদর দফতরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন। নগরের হালিশহর আর্টিলারি রোডে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ১০ জনের বিষয়ে জানাতে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়। রোববার (১৭ জুন) রাতে নগরের হালিশহর আর্টিলারি রোডে সিনেমা দেখে ফেরার পথে দুর্বৃত্তরা মোহাম্মদ সুমন (১৭) ও তার বন্ধুদের মোবাইলসহ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে তাদের সঙ্গে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে সুমনকে ছুরিকাঘাত করে। রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান সুমন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৯ জুন) রাত ও বুধবার ভোরে হালিশহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ১০ কিশোরকে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। সাম্প্রতিক সময়ে নগরে কিশোর অপরাধ বৃদ্ধির বিষয়ে অতিরিক্ত কমিশনার আমেনা বেগম বলেন, পরিবারে সন্তানদের নিয়ন্ত্রণ না থাকায় বাড়ছে কিশোর অপরাধ। ছোট বিষয় নিয়ে বড় ঘটনার সৃষ্টি হচ্ছে। পরিবারের উচিত তাদের সন্তানদের নিয়ন্ত্রণ করা, সন্তানদের কাজ মনিটরিং করা। তিনি বলেন, সিএমপির প্রতিটি থানায় নির্দেশ দেওয়া হয়েছে এখন থেকে সন্ধ্যার পর কিশোর বা শিক্ষার্থীরা বাইরে আড্ডা দিলে তাদের গ্রেফতার করা হবে। সংবাদ সম্মেলনে নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (বন্দর) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার এএএম হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আবু বক্কর ছিদ্দিক, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার অলক বিশ্বাস, সহকারী কমিশনার আসিফ মহিউদ্দিন, সহকারী কমিশনার আশিকুর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
চট্টগ্রামে ছোরাসহ গ্রেফতার ৫
সুজন / রাজিব,চট্টগ্রাম :চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানা এলাকা থেকে তিনটি ছোরাসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ৩টার দিকে নতুন রেলওয়ে ষ্টেশনের পূর্ব পাশ থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানিয়েছেন। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মো. সবুজ প্রকাশ সবুজ মিয়া (২৪), মো. শামসুল হক প্রকাশ শামছুল (২৩), মো. জহিরুল ইসলাম জহির (২৫), মো. শাহাদাৎ হোসেন প্রকাশ সাহাদাত (১৯) ও হৃদয় প্রকাশ রুবেল (২২)। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালীসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা আছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, গ্রেফতারকৃতরা পেশাদার অপরাধী চক্রের সদস্য। ছিনতাই ও ডাকাতি তাদের একমাত্র আয়ের উৎস। ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে স্টেশন এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নেয়ার সময় ধরা পড়েছে বলে তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে। এই পাঁচজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালী থানার এসআই মো. ইমদাদ হোসেন চৌধুরী বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন বলেও জানান ওসি।
বন্দুকযুদ্ধে ১৪ মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ
রাজধানীর মোহাম্মদপুরে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ফালু নামে ১৪ মামলার এক আসামি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পুলিশের দাবি, গুলিবিদ্ধ ফালু মাদক বিক্রেতা। তার বিরুদ্ধে মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধে ১৪ মামলা রয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে মোহাম্মদপুরের বছিলার ৪০ ফিট এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযানে এ ঘটনা ঘটে। মোহাম্মদপুর থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) নয়ন মিয়া বলেন, মোহাম্মদপুরের বছিলার ৪০ ফিট এলাকায় মাদক উদ্ধার অভিযানে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এ সময় ফালু গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে আহতাবস্থায় পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তারা বর্তমানে রাজারবাগ পুলিশলাইনস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
পটিয়ায় পাহাড়ি ঢল ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের বিজিএমইএ নাছিরের অনুদান
পাহাড়ি ঢল ও বন্যায় পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নে বেড়িবাঁধ ভেঙে ক্ষতিগ্রস্থ ৭ পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ, শাড়ি, লুঙ্গি বিতরণ করেছেন বিজিএমইএ সহ-সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনা উপ-কমিটির সদস্য মোহাম্মদ নাছির। মঙ্গলবার (১৯ জুন) বিকেলে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মোঃ জসিম, সামশুল আলম, ছকিনা বেগম, ছেনুয়ারা বেগম, ওবাইদুল হক, রহিমা বেগম ও বুলু আকতারকে অনুদান প্রদান করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক একেএম আবদুল মতিন চৌধুরী, জেলা আ’লীগের সদস্য সেলিম নবী, পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নাছির, আ’লীগ নেতা আশীষ তালুকদার, উপজেলা যুবলীগ নেতা শামশেদ হিরু, ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার গিয়াস উদ্দিন, ছনহরা ইউনিয়ন আ’লীগের প্রচার সম্পাদক কাজী মামুন, ১নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক পেয়ার মোহাম্মদ সিকদার, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম জুয়েল, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আবদুল কাদের, আবদুর রহিম চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা মো. আরমান, ফাহিম সুফিয়ান, ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা নুরুল আমিন, আমির হামজা, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম, সহ-সভাপতি আসিফ, ইউনিয়ন ছাত্রনেতা হাশেম, কামাল, মোরশেদ, আবু তাহের, শাকিল, জালাল, সাইফু, সোহেল, অসীম, শয়ন, জসিম প্রমুুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সারা দেশ পাতার আরো খবর