আজ সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২৩তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন
আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বাংলাদেশ আজ বিশ্বে মর্যাদাশীল রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২৩তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্য সম্প্রসারণে নতুন নতুন বাজার সৃষ্টিতে কাজ করতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের উন্নয়ন প্রকল্পগুলির ৯০ ভাগ নিজস্ব অর্থায়নে ব্যয় করছি। যে সব পণ্য আমদানি করা হয় তার ৭৫ শতাংশ নিজস্ব অর্থায়নে করার সক্ষমতা অর্জন করেছি। কারো কাছে হাত পেতে ভিক্ষা চেয়ে চলতে হচ্ছে না।' তিনি আরো বলেন, 'আর্থ সামাজিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বে রোল মডেল। বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে বিস্ময়। প্রাইস ওয়াটার হাউজ কুপার্স বলছে নেক্স ইলেভেনের প্রথমে থাকা বাংলাদেশের অর্থনীতি ২০৫০ সালে পশ্চিমা দেশগুলোকেও ছাড়িয়ে যাবে। তবে আমাদের আরো সামনে এগিয়ে যেতে হবে। কি কি পণ্য আমরা আরো রফতানি করতে পারি এছাড়া বিশ্বে কি কি পণ্যের বাজার রয়েছে তা আমাদের খুঁজে বের করতে হবে।'
ফের পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ
পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ ঘন কুয়াশার কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে সাময়িকভাবে ফেরি চলাচল বন্ধ রেখেছে কর্তৃপক্ষ। সোমবার ভোর সাড়ে ৬ টা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। এ অবস্থায় মাঝ নদীতে যানবাহন ও যাত্রী নিয়ে ৪টি, পাটুরিয়া ২টি এবং দৌলতদিয়া ঘাটে ১১টি ফেরি যানবাহন বোঝাই করে নৌরুট পারের অপেক্ষায় রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে পাটুরিয়া ফেরিঘাট শাখা বাণিজ্য বিভাগের সহকারী মহাব্যবস্থাপক নাসির হোসেন বলেন, কুয়াশা কমে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ফেরি চলাচল শুরু করা হবে। জানা যায়, ভোর ৬ টার দিকে ঘন কুয়াশায় ফেরির মার্কিং বাতির আলো অস্পষ্ট হয়ে গেলে নৌরুটে দুর্ঘটনা এড়াতে সাময়িকভাবে ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়।
কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে ইংরেজি পুরনো বছরকে বিদায় ও নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে দেশবাসী
কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে ইংরেজি পুরনো বছরকে বিদায় ও নতুন বছরকে স্বাগত জানিয়েছে দেশবাসী। রাত ১২টা বাজার সঙ্গে সঙ্গে আকাশে ঝলকে ওঠে প্রচুর আতশবাজি। উড়তে দেখা যায় প্রচুর ফানুসও। তবে নিরাপত্তা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে কঠোরতার কারণে গতকাল রবিবার রাত ১২টার আগেই রাজধানীর সড়কগুলো তুলনামূলক ফাঁকা হয়ে যায়। নিরাপত্তা বড়ই কড়া। তাই গত বছরের মতো এবারও রাজধানীবাসীকে ঘরের ভেতরে থেকেই খ্রিষ্টীয় নববর্ষ ২০১৮কে স্বাগত জানাতে হলো। এবার ছাদের ওপর উৎসবেও নিষেধাজ্ঞা ছিল। আর চার দেয়ালের ভেতরে উৎসব করলেও পুলিশকে জানাতে বলা হয়েছিল। সব মিলিয়ে গতকাল রবিবার রাত ১২টার আগেই রাজধানীর সড়কগুলো ছিল তুলনামূলক ফাঁকা। আর উৎসব উদ্যাপনের কেন্দ্রস্থল হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও গুলশান এলাকায় কেবল বিপুলসংখ্যক র্যাব-পুলিশ আর গণমাধ্যমকর্মীদেরই দেখা গেছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর এই কড়া নিরাপত্তাব্যবস্থায় নগরে নতুন বছরকে স্বাগত জানানো নিয়ে অপ্রীতিকর কোনো ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। রাতের ঢাকা পাহারা দিতে মহানগর পুলিশ নামিয়েছে সোয়াট আর বোমা অপসারণকারী দলকেও। রাতের আকাশ থেকে সার্চলাইট ফেলে টহল দিতে দেখা গেছে র্যাবের হেলিকপ্টারকে। ছিল প্রচুর তল্লাশিচৌকি আর বাড়তি টহল। এরপরও রাত ১২টা বাজার সঙ্গে সঙ্গে আকাশে ঝলকে ওঠে প্রচুর আতশবাজি। প্রচুর ফানুসও উড়তে দেখা যায়। গতকাল সন্ধ্যা থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব প্রবেশপথ আটকে চলাচল কঠোর নিয়ন্ত্রিত করে পুলিশ। বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয় টিএসসি, শাহবাগসহ আশপাশের এলাকায়। রাত সোয়া নয়টার দিকে বিপুলসংখ্যক পুলিশ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস পরিদর্শনে আসেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। ক্যাম্পাসে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সম্প্রতি বিভিন্ন দেশে যে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা হয়েছে, সেগুলো বিবেচনা করে জনগণের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। রাত আটটার দিকে গুলশান ২ নম্বর গোলচত্বরে র্যাব নতুন বছরের নিরাপত্তা নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে। সেখানে র্যাবের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক কর্নেল আনোয়ার লতিফ খান বলেন, সারা রাত ধরে র্যাবের হেলিকপ্টার টহল দেবে। তবে তিনি বলেন, সুনির্দিষ্ট কোনো ঝুঁকি কিংবা হুমকি নেই। তবে নিরাপত্তা রক্ষায় সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।
বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে দেশের দক্ষিণাঞ্চলে
এছাড়া আজ অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘন্টায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ কথা জানানো হয়েছে। এতে বলা হয় মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে কোথাও কোথাও মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা এবং অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। এছাড়াও, সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। পূর্বাভাসে বলা হয়, শনিবার সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতা ছিল ৯৮ শতাংশ। আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ ভারতের বিহার ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।
কক্সবাজারে মহেশখালীতে প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত
বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুটি প্রশিক্ষণ বিমান বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে কক্সবাজারের মহেশখালীর উপকূলে বিধ্বস্ত হয়েছে। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) মুখপাত্র বাসসকে জানান, বিমান দুটির ৪ পাইলট অক্ষত রয়েছেন। আইএসপিআরর সহকারী পরিচালক মো. নুর ইসলাম বলেন, বিমান বিধ্বস্তের কারণ নিরূপণ করা হচ্ছে এবং উদ্ধার অভিযান চলমান রয়েছে। তিনি জানান, বিমান বাহিনীর এই প্রশিক্ষণ বিমান দুটি চট্টগ্রামের জহুরুল হক বিমান ঘাটি থেকে সন্ধ্যা ৬টায় উড্ডয়ন করেছে। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বিমানটি বিধ্বস্ত হয়ে স্থানীয় বাটা মাঝির বসতবাড়ির বেশির ভাগ অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এসময় বাড়িসহ বিমানটিতে আগুন লেগে যায়। বিমানটি বিধ্বস্তের পর পরই স্থানীয়দের মাঝে আতংকের সৃষ্টি হয়। বর্তমানে মহেশখালী ফায়ার সার্ভিস আগুণ নিয়ন্ত্রণে আনে।
শাহজালালে বিমান চলাচল সাময়িক বন্ধ
ঘন কুয়াশার করনে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমান চলাচল উড্ডয়ন ও অবতরণ সাময়িকভাবে বন্ধ ছিল। আজ (বৃহস্পতিবার/২৮ ডিসেম্বর) ভোর সোয়া ৪টার পর থেকে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রাখা হয়। এর ফলে সকাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ রুটের মোট ১১টি ফ্লাইট ডিলে হয়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে ফ্লাইটের যাত্রীদের। যাত্রীরা প্লেন চলাচল স্বাভাবিক হওয়ার অপেক্ষায় বিমানবন্দরেই অপেক্ষা করছেন বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করে সিভিল এভিয়েশনের দায়িত্বরত সিকিউরিটি অফিসার, ইন্সপেক্টর (এপিবিএন) জাহিদ আরিফ বলেন, অত্যাধিক কুয়াশার করণে ভোর সোয়া ৪টা থেকে সব ফ্লাইট ওঠা নামা বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রায় ৫ ঘন্টা পর অবস্থা স্বাভাবিক হলে প্লেন চলাচল ফের স্বাভাবিক হয় ।
ইউপি ভোট গ্রহণ চলছে
দেশের নয়টি পৌরসভা ও ১১৫টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) স্থগিত ও উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলছে। বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) সকাল ৮টায় স্থানীয় সরকারের এসব প্রতিষ্ঠানে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ইসি সূত্র জানা গেছে, বন্যা, মামলাসহ বিভিন্ন জটিলতার কারণে এসব এলাকায় নির্বাচন হয়নি। সে নির্বাচনগুলোই এখন সম্পন্ন করা হচ্ছে। এদিকে এ ভোট সুষ্ঠুভাবে করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়ার কথা বলেছে কে এম নূরুল হুদা নেতৃত্বাধীন নির্বাচন কমিশন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও রয়েছে মাঠে। ইসির সিনিয়র সহকারী সচিব ফরহাদ হোসেন জানান, নয়টি পৌরসভা (ছয়টি সাধারণ, তিন উপনির্বাচন); ১১৫টি ইউপি (৩৭টি সাধারণ ও স্থগিত নির্বাচন, ৭৮টি উপনির্বাচন) এবং জেলা পরিষদের দুটি ওয়ার্ডে সাধারণ ও একটি উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন হচ্ছে। যেসব জায়গায় ভোট হচ্ছে পৌরসভা: বোদা, বনপাড়া, আলফাডাঙ্গা, বকশিগঞ্জ, বাঘা ও বিরলে সাধারণ নির্বাচন হচ্ছে। মাধবদী, চুয়াডাঙ্গা ও শেরপুর পৌরসভায় হচ্ছে উপনির্বাচন। ইউনিয়ন পরিষদ: জোয়ারী, মাঝগাঁও, রাজারামপুর, ঘুরিদহ, উথলী, কেডিকে, মনোহরপুর, আলফাডাঙ্গা, বুড়াইচ, গোপালপুর, মূলনা, জিন্নাগড়, নীলকমল, আমিনাবাদ, রণগোপালদী, নূরপুর, ব্রাহ্মণডোরা, ফুলতলা, বাকই দক্ষিণ, মুদাফফরগঞ্জ উত্তর, দৌলখাড়া, রায়কোর্ট উত্তর, রায়কোর্ট দক্ষিণ, আদ্রা উত্তর, আদ্রা দক্ষিণ, জোড্ডা পূর্ব, জোড্ডা পশ্চিম, বটতলী, ইলিয়টগঞ্জ, বারপাড়া, দৌলতপুর, বাকই উত্তর, নোয়ান্নই, নোয়াখালী, ধর্মপুর, চর আলেকজান্ডারে হচ্ছে সাধারণ নির্বাচন। অপরদিকে উপনির্বাচন হচ্ছে পাঁচগাছী, উমরজিদ, বলদিয়া, রসুলপুর, পদুমশহর, গাড়াগ্রাম, মোহনপুর, রাইকালী, চারঘাট, ভারশো, মশিদপুর, ধারাবারিষা, পূর্ণিমাগাতী, নওগাঁ, তাড়াশ, লাহিড়ীপারা, গোবিন্দপুর, নশিপুর, জলমা, নাটুদহ, সিংহঝুলি, পলাশবাড়িয়া, পোরাহাটি, গাবুরা, নুরনগর, প্রতাপনগর, হামিদপুর, সাতলা, রানাপাশা, রামনা, বদলখালী, কুকুয়া, চিকনিকান্দি, স্বদেশী, রাঙ্গামাটিয়া, কাচিনা, কাদিরজঙ্গল, পূর্ব অষ্টগ্রাম, লোহাজুরী, ভাওড়া, পাইস্কা, অর্জুনা, চরশেরপুর, হাতিভাঙ্গা, নুরুন্দি, নায়েকপুর, দুওজ, স্বরমুশিয়া, বাহাদুরসাদী, কুমারভোগ, কোলা, মেহেরপারা, মুছাপুর, চরভদ্রাসন, বহুগ্রাম. নিজামকান্দি, বেথুড়ী, খানগঞ্জ, বোয়ালিয়া, রামপাশা, জলসুখা, নিজামপুর, করগাঁও, আলীনগর, পায়রগাছা, দোল্লাই, কেরণখাল, নবীপুর, বড়াইল, গোকর্ত, মহামায়া, দরবারপুর, আমিরাবাদ, সোনাপুর, মীরসরাই, রূপসীপাড়া ও পাইকগাছায়।
চট্টগ্রামে টেম্পো চলাচলের রুটের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্রকরে সংঘর্ষে আহত দুই
চট্টগ্রাম নগরীতে টেম্পো চলাচলের রুটের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দুই সংগঠনের সংঘর্ষে দুজন শ্রমিক আহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হালিশহর থানার বিশ্বরোড নয়াবাজার হাক্কানি পেট্রোল পাম্পের সামনে চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়ন ও চট্টগ্রাম অটো রিকশা-অটো টেম্পো শ্রমিক লীগের শ্রমিকদের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হচ্ছেন চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটস্ এন্ড জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশন এর পাহাড়তলী থানার (প্রচার ও প্রকাশনা) সচিব মো. শফিক। মো. হাসানকে গুলি করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা। আহত দুজনকে মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটস্ এন্ড জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশন এর পক্ষ হতে গতকাল রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দেখতে যান মহানগর কমিটির মহা সচিব জনাব মৃদুল মজুমদার এবং সাংগঠনিক সচিব জনাব তসলিম কাদের চৌধুরী। ঘটনার প্রতিবাদে ধর্মঘট আহ্বান করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন। সংগঠনটির আহ্বানে আজ বুধববার নগরী ও জেলার সকল রুটে অটো টেম্পো চলাচল বন্ধ থাকবে। এছাড়া আগামীকাল বৃহস্পতিবার বৃহত্তর চট্টগ্রামের ৫ জেলায় (চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি) সকল রুটে বাস, মিনিবাস, কোচ, অটো টেম্পো, অটো রিকশাসহ সকল যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির নেতারা। তবে সকল পণ্যবাহী গাড়িকে ধর্মঘটের আওতামুক্ত রাখা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৩ নম্বর রুটের (বিশ্বরোড নিমতলী থেকে বড়পুল, সাগরিকা, অলংকার হয়ে সিটি গেট পর্যন্ত) নিয়ন্ত্রণ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল দুই শ্রমিক সংগঠনের মধ্যে। এর মধ্যে চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের দাবি, ওই রুটে তাদের সংগঠনের যান চলাচলের অনুমতি রয়েছে। ওই রুটে সংগঠনটির সদস্যভুক্ত ১২০টি গাড়ি চলাচল করে। সংগঠনটি বিভিন্ন পরিবহনের বিপরীতে নির্ধারিত চাঁদাও আদায় করে থাকে। এদিকে একই রুটে নিয়ন্ত্রণ নিতে চায় চট্টগ্রাম অটো রিকশা-অটো টেম্পো শ্রমিক লীগ। সংগঠনটির দাবি, রুট সরকারের। কোনো সংগঠন রুটে যান চলাচলের অনুমতি দিতে পারে না। শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে অভিযোগ করা হয়, শ্রমিক লীগের নেতারাও ১৩ নম্বর রুট থেকে চাঁদা দাবি করে। এদিকে গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হক্কানী পেট্রোল পাম্পের সামনে চট্টগ্রাম অটো রিকশা-অটো টেম্পো শ্রমিক লীগের নাম ভাঙিয়ে একদল যুবক শ্রমিকদের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করছিল। এসময় শ্রমিক ইউনিয়নের প বাঁধা দেয়। তখন দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। সংঘর্ষে লাইনম্যানের দায়িত্ব পালনকারী চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. শফিককে ছুরিকাঘাত করা হয়। এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসার সময় সংগঠনের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো. হাসানকে গুলি করা হয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি খলিলুর রহমান বলেন, আমাদের সংগঠনটি রেজিস্ট্রার্ড সংগঠন। ১০, ১১, ১২ এবং ১৩ নম্বর রুটে চলাচলের রুট পারমিট আছে আমাদের। কিন্তু ১২ নম্বর রুটে এখনো আমরা সার্ভিস চালু করিনি। রুট পারমিট না থাকলেও ১৩ নম্বর রুট (আফতাব মোটর থেকে নিমতলী) গত দুই মাস ধরে দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছে চট্টগ্রাম অটো রিকশা-অটো টেম্পু শ্রমিক লীগ। সকাল ১১টার দিকে তারা দলবদ্ধভাবে এসে নয়াবাজারে লাইনম্যান শফিকে মারধর করে। অন্যান্য শ্রমিকদেরও মারে। খবর পেয়ে হাসান একটি টেম্পোতে করে ঘটনাস্থলে যাওয়ার পথে গাড়ি থেকে নামিয়ে তার হাতে গুলি করে। হামলাকারীরা বিভিন্ন সময় চাঁদার দাবি করতেন। গত রাত সাড়ে ৯টায় এ প্রতিবেদন লেখার সময় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি। ঘটনার জন্য অভিযুক্ত সংগঠন চট্টগ্রাম অটো রিকশা-অটো টেম্পো শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন বলেন, আমি শুনেছি মারামারি হয়েছে। নিজেদের মধ্যে চাঁদাবাজির দ্বন্দ্বে ঘটনা ঘটেছে। এখন উল্টো আমাদের দায়ী করা হচ্ছে। ওরা শ্রমিক ইউনিয়নের নাম ভাঙিয়ে চাঁদা দাবি করছে। ওই রুটে আমারও ১৫০ শ্রমিক আছে। বিরোধকৃত ১৩ নম্বর রুটের পারমিট চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড অটো টেম্পো শ্রমিক ইউনিয়নের কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, চট্টগ্রামে ১৬টি রুট আছে। রুটের মালিক সরকার। কেউ জোর করে তো রুটে চলাচলে বাধ্য করতে পারবে না বা সদস্যও করতে পারবে না। তাছাড়া সদস্যদের কাছ থেকে ১০ টাকার বেশি চাঁদা নেওয়ার নিয়ম নেই। ওরা আমাদের শ্রমিকদের কাছ থেকে ৬০ থেকে ৭০ টাকা পর্যন্ত নিয়েছে। এসব বিষয় নিয়ে শ্রম অধিদপ্তর, আকবর শাহ থানা এবং হালিশহর থানায় অভিযোগও আছে। ওসব অভিযোগেরও কোনো সুরাহা হয়নি। হালিশহর থানার ওসি মাহফুজুর রহমান বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে গণ্ডগোল হয়েছে। একজন আহত আছেন। আহতরা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হবে। কোন দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, যতদূর শুনেছি মালিক এবং শ্রমিক পক্ষের মধ্যে হয়েছে। রুট নির্ধারণ নিয়েই এ ঘটনা ঘটেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক মো. হামিদ বলেন, সংঘর্ষে আহত দুজনকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। আহতদের একজনের হাতে এবং অন্যজনের পেটে ছুরির আঘাত আছে। এদিকে ঘটনার প্রতিবাদে ঘর্মঘট আহ্বান করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটি। সংগঠনটির সভাপতি মোহাম্মদ মুছা বলেন, চট্টগ্রাম-সীতাকুণ্ড রুট আছে। ওই রুটে অন্যান্য পরিবহনের পাশাপাশি অটোটেম্পোও চলে। ওই রুটে দলীয় ব্যানারে স্থানীয় কিছু যুবক দখলে নেওয়ার চেষ্টা করেছে। তারা অতর্কিত এসে হামলা চালায়। হামলাকারীরা শফিকুর রহমানকে ছুরিকাঘাত করে এবং মো. হাসানকে গুলি করে আহত করেছে। ঘটনার প্রতিবাদে ২৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মহানগরী ও জেলায় সকল রুটে অটো টেম্পো চলাচল বন্ধ থাকবে। ২৮ ডিসেম্বর বৃহত্তর চট্টগ্রামের ৫ জেলায় (চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি) সকল রুটে বাস, মিনিবাস, কোচ, অটোটেম্পো, অটো রিকশাসহ সকল যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকবে। হামলার জন্য দায়ী কারা? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ওরা তো চিহ্নিত। ওরা দলের নাম ভাঙালেও দলের কেউ না। বহিরাগত। হামলাকারীরা কোন সংগঠনের ব্যানারে রুট দখল নিতে চায়? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আন রেজিস্ট্রার্ড সংগঠন। তাই একেক সময় একেক নাম দেয়। ওদের জন্য গাড়ি চালাতে পারে না। গাড়ি চালাতে গেলে চাঁদা দাবি করে। সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভা : ঘটনার প্রতিবাদে করণীয় নির্ধারণে গতকাল বিকাল ৪টায় বিআরটিসি মার্কেট সংগঠন কার্যালয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটি জরুরি সভা করে। এতে সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের সভাপতি মোহাম্মদ মুছা। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন পূর্বাঞ্চল কমিটির সভাপতি মৃণাল চৌধুরী, বিভাগীয় কমিটির সভাপতি হাজী রুহুল আমিন, আঞ্চলিক কমিটির কার্যকরী সভাপতি রবিউল মওলা, সাধারণ সম্পাদক অলি আহামদ, হাজী আবদুস ছবুর, শফিকুর রহমান, বোরহানুল হক, হারুনুর রশিদ, মো. ইউসুুফ, নুরুল হক, মো. হারুন, মো. শফি, নজরুল ইসলাম, মো. জাফর, নুর হোসেন, জাহেদ হোসেন, জানে আলম, নুরুল ইসলাম, মো. ইয়াসিন, মো. রফিক, নুর মোহাম্মদ, মো. ফরিদ, নাসির উদ্দিন, মো. বাবু, ওমর ফারুক, আবদুর রহিম প্রমুখ। সভায় পরিবহন শ্রমিক সংগঠন দখলবাজদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়। এছাড়া ধর্মঘটের বিষয়টি চূড়ান্ত হয়।