সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ কালিহাতীতে
দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার সরাতৈল নামক এলাকায় বুধবার সকাল সোয়া ৭ দিকে তিনজন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো একজন। আহতকে উদ্ধার করে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টাঙ্গাইল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওই দুর্ঘটনার ফলে এলেঙ্গা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে সাময়িক সময়ের জন্য যানজটের সৃষ্টি হয়। বঙ্গবন্ধু সেতু থানার উপপরিদর্শক মো. নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, সকাল সোয়া ৭টার দিকে উত্তরবঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী একটি পাথরবোঝাই ট্রাক (কুষ্টিয়া-ট ১১-২০৭৮) মহাসড়কের টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার সরাতৈল এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি খালি ট্রাকের (ঢাকা মেট্রো ড-১২-০১১৪) সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই খালি ট্রাকের চালক ও হেলপার নিহত হন। আহত হয় আরো দুইজন। আহতদের উদ্ধার করে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো একজনের মৃত্যু হয়। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। নূরে আলম আরও জানান, দুর্ঘটনার ফলে মহাসড়কে যানজটের সৃষ্টি হলেও ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনাকবলিত ট্রাক দ্রুত অপসারণ করা হলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।
সিলেট হকার্স লীগ নেতা গ্রেপ্তার
সিলেট মহানগর হকার্স লীগ নেতা আব্দুর রকিবকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে নগরীর বন্দর বাজার ফাঁড়ি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে কোতোয়ালি মডেল থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফয়াজ উদ্দিন ফয়েজ জানান, সোমবার বিকেলে সড়কে বসতে না দেওয়ায় তার নেতৃত্বে সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) মেয়রের ওপর হামলার চেষ্টা ও নগর ভবনে হামলা করে হকাররা। ওই ঘটনায় পরের দিনই রকিবকে প্রধান করে সিটি করপোরেশনের আইন সহকারী শ্যামল রঞ্জন দেব বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাতে ফাঁড়ির পাশে ঘোরাঘুরি করছিল রকিব। এ সময় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়। এ মামলায় অজ্ঞাত আরো শতাধিক হকারকে আসামি করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। উল্লেখ্য, সোমবার বিকেলে বন্দরবাজার এলাকায় সড়কের প্রায় অর্ধেক পথ জুড়ে বসে হকাররা। এতে পথচারীদের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টির পাশাপাশি রাস্তায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সময় সিটি করপোরেশনের কয়েকজন কর্মী সেখানে গিয়ে তাদেরকে রাস্তা ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন। এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে হকাররা তাদের ওপর হামলা করলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী সেখানে গেলে তাকে লক্ষ্য করে হকাররা ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। একইসাথে তারা সিটি করপোরেশনেও হামলা চালায় বলে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। এ বিষয়ে সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, রকিবের নেতৃত্বে পরিকল্পিতভাবে হকাররা সিটি করপোরেশন কর্মীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এতে সিটি করপোরেশনের কর্মচারী আনসার আলী, সুমন আহমদ ও ইউসুফ মিয়া আহত হয়েছেন। এছাড়া, এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারে ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেন সিলেটের বিশিষ্টজনেরা। তারা বলেছেন, নগরীর বন্দরবাজার এলাকায় হকারদের তাণ্ডব, নগর ভবনে হামলা এবং মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর ওপর হামলার প্রচেষ্টা কোনোভাবেই বরদাশত করা হবে না। হামলাকারী যেই হোক, তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। সোমবার রাতে নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে নগরবাসীর ব্যানারে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতি, সিলেট চেম্বার, সিলেট প্রেসক্লাব, বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীবৃন্দসহ নগরীর বিশিষ্টজনেরা অংশ নেন। সভায় হকারদের তাণ্ডবের চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এ সময় তিনি হকার উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন। এর প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বিশিষ্টজনদের নিয়ে নগরীতে হকার উচ্ছেদে অভিযান চালান সিসিক মেয়র আরিফুল হক।
নুরুল আজিম রনির মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন
চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুুরুল আজিম রনির মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন কলেজ সমূহের উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার বেলা ২টায় নগরীর প্রেসক্লাব চত্বরে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওমর গণি এম ই এস কলেজ, চট্টগ্রাম কলেজ, হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ, সরকারি সিটি কলেজ, আশেকানে আউলিয়া ডিগ্রী কলেজ, ইসলামিয়া কলেজ ছাত্রলীগ এবং বিভিন্ন ওয়ার্ড ও থানা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মানববন্ধনে সমবেত হয়। চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল করিমের সভাপতিত্বে এবং চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা জাবেদুল ইসলাম জিতু ও মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মায়মুন উদ্দিন মামুনের যৌথ সঞ্চালনায় উক্ত মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ অর্থ সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবর তার বক্তব্যে বলেন, যেহেতু ছাত্রলীগ নেতা নুরুল আজিম রনি’র বিরুদ্ধে মাফিয়া ও জামায়াত শিবির পরিচালিত একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত শিক্ষা ফি আদায়কারীর দায়ের করা মিথ্যা মামলায় তাকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাই রনিকে আইনী প্রক্রিয়ার সাথে সাথে রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করে ষড়যন্ত্রের সমুচিত জবাব দেওয়া হবে। মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন শহীদ ছাত্রনেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর মা জাহিদা আমিন চৌধুরী। শহীদ জননী জাহিদা আমিন চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, “একটি মানুষখেকো মাফিয়া চক্রের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে দিয়াজ ইরফান যেমন মৃত্যুবরণ করেছেন ঠিক একই চক্র নুরুল আজিম রনিকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে। শুনেছি তাঁকেও মারার জন্য কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে”। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে এই মাফিয়া চক্রের হাত থেকে নুরুল আজিম রনিকে বাঁচাতে তাঁর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এ সময় সংহতি জানিয়ে বক্তারা বলেছেন- সৃজনশীল ও প্রগতিশীল ছাত্র রাজনীতিতে নুরুল আজিম রনি একজন আপোষহীন ছাত্রনেতা। শিক্ষা দুর্নীতি ও প্রতারকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায় রনিকে মিথ্যা সাজানো মামলা দিয়ে তার ভাবমূর্তি ক্ষুণœ করা হচ্ছে। চট্টগ্রামের এক মন্ত্রী ও মাফিয়া ব্যক্তিদের আশ্রয় পেয়ে শিক্ষা ব্যবসায়ী ও জামায়াত শিবির চক্র ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে ধ্বংস করতে চাই। তারা নুরুল আজিম রনির মত সৃজনশীল ছাত্র নেতাকে মুক্তি দেওয়ার দাবী জানান। উক্ত মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান মনসুর, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য গাজী জাফর উল্লাহ, আসহাব রসূল জাহেদ, প্রশান্ত চৌধুরী যীশু, খোরশেদ আহমেদ জুয়েল, শিবু প্রসাদ চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের উপদেষ্টা আকতার খান, বিধান বড়–য়া, মো: সাজ্জাদ হোসেন, মনোয়ার আলম নোভেল, হাবিবুর রহমান তারেক, আলী রেজা পিন্টু, আজিজ উদ্দিন চৌধুরী, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা এন কে আলম বাসেদ, মহানগর ছাত্রলীগের সহ সভাপতি একরামুল হক রাসেল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম সামদানি জনি, উপ দপ্তর সম্পাদক আশরাফ উদ্দিন টিটু, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, আবু হানিফ রিয়াদ, সদস্য সালাউদ্দিন বাবু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য আমিনুল করিম, ১০নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি শাহ আলম মুমিন, এমইএস কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আরিফ হোসেন, ইউসুফ তানভীর, মোজাম্মেল হক, পাঁচলাইশ থানা ছাত্রলীগ নেতা শাহজাদা চৌধুরী, নোমান চৌধুরী রাকিন, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মনিরুল ইসলাম, শরফুল ইসলাম মাহি, হাসমত খান আতিফ, মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা কাজী নাঈম, আনোয়ার পলাশ, হারুন অর রশিদ হৃদয়, মাঈন উদ্দিন সোহেল। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন মহানগর ছাত্রলীগ নেতা তুচ্ছাদেক নূর চৌধুরী তপু, রকিবুল ইসলাম সেলিম, শেখ তৌহিদুল ইসলাম আরদিন, চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল ইসলাম, খন্দকার নাঈমুল আজম, আমিরুল করিম, মিনার চৌধুরী, মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা শেফায়েত ফাহিম, মীর মোহাম্মদ রবি, আশেকানে আউলিয়া কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মো: সাগর, সিটি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা নেজাম উদ্দিন, কমার্স কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোরশেদ ইমন মেহেদী, ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা তানভীর মেহেদী মাসুদ, জোবাইদুল আলম আশিক, অর্পণ চক্রবর্ত্তী, প্রমুখ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সড়ক দূর্ঘটনায় আহত বাংলাদেশ ফটোজার্নালষ্টি এসোসিয়েশনের সদস্য হায়দার আলীর আশু সুস্থতা কামনা এবং
গতকাল রোববার রাত ১০টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর রিয়াজ উদ্দীন বাজার থেকে পেশাগত কাজ শেষে মোটর সাইকেলযোগে অফিসে ফেরার পথে কৃষ্ণকুমারী স্কুলের সামনে সৌদিয়া পরিবহনের একটি বাস বাংলাদশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের সদস্য ও দৈনিক পূর্বদেশের ফটো সাংবাদিক হায়দার আলীকে সামনাসামনি ধাক্কা দিলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন এবং গুরুত্বর আহত হয় । মোটর সাইকেলটি গাড়ী নিচে পড়ে ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান। কর্তব্যরত চিকিৎসক ওনার ডান পায়ে ৬টি সেলাই করেন। এ ঘটনায় বাংলাদেশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু ও সাধারণ সম্পাদক মো: মোস্তাফিজুর রহমান এক বিবৃতিতে ফটো সাংবাদিক হায়দার আলীর আশু সুস্থতা কামনা করেন। হায়দার আলীর চিকিৎসা ও গাড়ী ভাংচুরের জন্য সৌদিয়া পরিবহন কর্তৃপক্ষকে যথাভাবে ক্ষতিপুরনের ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সীতাকুণ্ডের মানুষ এখন শান্তিতে ঘুমায় :দিদারুল আলম এম পি
ভিশন-২০২১ বাস্তবায়ন জননেত্রী শেখ হাসিনার মূল লক্ষ্য। এ লক্ষ্য বাস্তবায়ন করতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। সোমবার (০৪ জুন) সীতাকুণ্ড উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে চট্টগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য দিদারুল আলম ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সরকারের ধারাবাহিকতার কারণে দেশ আজ সমৃদ্ধির পথে এগোচ্ছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা আজ শুধু বাংলাদেশের নেত্রী নন, বিশ্বনেত্রীদের একজন। আসুন সামনের নির্বাচনে দলমত নির্বিশেষে এই বিশ্বনেত্রীর ওপর আস্থা রেখে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে সাধারণ মানুষকে সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যায়। তিনি বলেন, আমি যখন এমপি নির্বাচিত হই। তখন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ছিল অশান্ত মহাসড়ক, প্রতিনিয়ত মহাসড়কে নাশকতাকারীরা অগ্নিসন্ত্রাস করতো। আমি উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও প্রশাসনকে নিয়ে অশান্ত সীতাকুণ্ডকে শান্তির সীতাকুণ্ডে পরিণত করি। সীতাকুণ্ডের মানুষ এখন শান্তিতে ঘুমায়। এভাবে শান্তিতে সব সময় ঘুমানোর জন্যই নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে হবে আমি, আপনি সবাইকে। আর নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে না পারলে শান্তিতে আর ঘুমানো সম্ভব হবে না। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. ইসহাকের সভাপতিত্বে যুগ্ম সম্পাদক ও বারৈয়াঢালা ইউপি চেয়ারম্যান রেহান উদ্দিন রেহানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা তারিকুল আলম, সহকারী কমিশনার ভূমি মো. কামরুজ্জামান, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. শাহ আলম, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মো. মহিউদ্দিন বাবলু, উপ-দপ্তর সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন সাবেরি, সদস্য মো. ইদ্রিস, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক চেয়ারম্যান মহসিন জাহাঙ্গীর, মো. হাসেম ভূঁইয়া, ইউপি চেয়ারম্যান মোরশেদ চৌধুরী, জাহেদ হোসেন নিজামী, নাজিম উদ্দিন, শওকত আলী জাহাঙ্গীর, উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুল আলম, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি দেলোয়ারা বেগম, সাধারণ সম্পাদক শাহীনূর আক্তার বিউটি, যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক জয়নব বিবি জলি।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
সরকার ভোটার শূণ্য একটি নির্বাচন নিশ্চিত করতেই বেগম জিয়াকে কারাগারে আটকে রেখেছে :ডা. শাহাদাত হোস
চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন। শহীদ জিয়ার স্বাধীনতা ঘোষনাই স্বাধীনতাকামী মানুষ যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল। ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সরকারের নির্দেশে আদালত কর্তৃক সাজা দিয়ে দিনের পর দিন কারাগারে বন্দী করে রেখেছেন। সরকারি বহু তালবাহানার পর সেই মামলায় বেগম খালেদা জিয়া উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেলেও সরকারি কারসাজিতে তার জামিন আটকে দেওয়া হয়েছে। হাইকোর্টের কোন মামলায় জামিন দেওয়ার পর আপিল বিভাগ কারো জামিন স্থগিত করে এমন নজির বাংলাদেশে আর একটিও নেই। ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়ার মামলাগুলো নিম্ন আদালতেই জামিনযোগ্য। অথচ এতে প্রমাণিত হয় সরকার সকল স্বাধীন প্রতিষ্ঠানকে নিজের কব্জায় এনে ক্ষমতার অপব্যবহার করছে। ডা. শাহাদাত আরো বলেন, ভোটারশূন্য একটি নির্বাচন নিশ্চিত করতেই দুইশ বছরের পুরানো একটি ধ্বংসাবশেষের মধ্যে বেগম খালেদা জিয়াকে বন্দী করে রাখা হয়েছে। স্যাতস্যাতে, জরাজীর্ণ, বালিধুলোর আক্রান্ত হয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সারাক্ষণ কাশি ও জ্বর আক্রান্ত হচ্ছে। হাত ও পায়ের প্রচন্ড ব্যথায় তার হাটাচলাতেও কষ্ট হচ্ছে। বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতা জেনেও তাঁর উপর এই অবৈধ সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসাকে লালন করে কারাগারে আটকে রেখেছে যা অমানবিক ও মানবতাবিরোধী। তিনি আজ ৪ জুন সোমবার বিকেলে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে কোতোয়ালী থানা বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি আলহাজ্ব আবু সুফিয়ান বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ১৯দফা কর্মসূচীর মাধ্যমে স্বনির্ভর একটি বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু দেশী বিদেশী ষড়যন্ত্রে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের সেই স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়নি। কোতোয়ালী থানা বিএনপির সভাপতি মঞ্জুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাকির হোসেন এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর বিএনপির সহ সভাপতি হারুন জামান, উপদেষ্টা আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, জাহেদুল করিম কচি, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ সভাপতি এম এ হাশেম, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, আরো বক্তব্য রাখেন গাজী মোহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক শিহাব উদ্দিন নবীন, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা: সরওয়ার আলম, শিল্প বিষয়ক সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক হাজী বেলাল, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন কায়সার লাবু, আবদুল হালিম স্বপন, এ কে এম পেয়ারু, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক ডা: লুসি খান, চকবাজার থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক নূর হোসেন, ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মুফিজ উল্লাহ, আলাউদ্দিন আলী নুর, আখতার খান, খন্দকার নুরুল ইসলাম, ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ছাদেকুর রহমান রিপন, সাব্বির আহমেদ, সৈয়দ আবুল বশর, আবু আহম্মদ মুহসিন, তৌহিদুর সালাম নিশাত, এম এ হালিম বাবলু, জসিম মিয়া, আবুল ফয়েজ প্রমুখ।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
চট্টগ্রামের ছাত্রলীগের নেতা রনি কারাগারে
চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষকে মারধর ও ১০ লাখ টাকা চাঁদাবাজির ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামি নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনিকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। সোমবার চট্টগ্রামের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. ওসমান গণির আদালত এ আদেশ দেন। এর আগে আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন রনি। আদালত তা না মঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন। গত ৩১ মার্চ নগরীর চকবাজার থানাধীন চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষ জাহেদ খানকে প্রকাশ্যে মারধর করেন রনি। তাকে কলার চেপে ধরে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে চড়-থাপ্পড় মারেন।
সাতকানিয়ার বাটা আজিজ গ্রেফতার
রোববার (০৩ জুন) রাতে সাত মামলার আসামি জামায়াত ক্যাডার আজিজুল হক প্রকাশ ওরফে বাটা আজিজকে (৪৬) সাতকানিয়ার থানার কেরানীহাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে সাতকানিয়া থানা পুলিশ। গ্রেফতার হওয়া আজিজ সাতকানিয়া উপজেলার ১০ নম্বর কেওচিয়া ইউনিয়নের কেওচিয়া ডেলিপাড়া সাকিন এলাকার কালু মিয়ার ছেলে। সাতকানিয়া থানার ওসি মো. রফিকুল হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে জামায়াতের কুখ্যাত এক ক্যাডারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। থানার এসআই মো. ইয়ামিন সুমনের নেতৃত্বে এসআই মো. সিরাজুল ইসলাম ও সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে এ অভিযান চালানো হয়। ওসি জানান, বাটা আজিজের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনসহ সাতকানিয়া থানায় সাতটি মামলা রয়েছে। এছাড়াও ২০১৩-১৪ সালে জামায়াত-শিবিরের দেশব্যপী তাণ্ডবকালে সাতকানিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অঘোষিত সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। আজ সোমবার (০৪ জুন) তাকে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলেও জানান তিনি।
দেশের শান্তি রক্ষায় যুবকদের এগিয়ে আসতে হবে: মিজানুর রহমান চৌধুরী
দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম ও লাভ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে এক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিল দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের নিজস্ব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের সহ-সম্পাদক রিমন বড়ুয়ার সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম, দৈনিক আমাদের বাংলা'র সম্পাদক ও প্রকাশক, লাভ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন-এর চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন হাফেজ মাহমুদুল হাসান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম চৌধুরী। উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মো. আজিজুল হক, এডভোকেট মো. আনিছ, মো. নুরুল আলম, একেএম আবু ইউসুফ, আনোয়ারা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আব্দুর নূর চৌধুরী, লাভ বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক বজলুল হক, অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি এম. আলী হোসেন, দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের চীফ রিপোর্টার আবুহেনা খোকন। প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, 'রমজান মাস হচ্ছে মুসলমানের জন্য আত্ম-পরিশুদ্ধির মাস, এই মাসে মুমিনরা ধৈর্য্যের মাধ্যমে নিজেদের জীবনকে পরিচালনা করে থাকে। তিনি মুসলমান যুবকদের একত্রিত হয়ে ধৈর্য্যধারণের মধ্য দিয়ে দেশের শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষা করার আহ্বান জানান।" ইফতার মাহফিলের সভাপতি তাঁর বক্তব্যে বলেন, মাগফেরাতের এই রমজান মাসে আল্লাহ দেশের সমগ্র মানুষকে মাগফেরাত কামনা করুক। তিনি বলেন, "মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব। আল্লাহ পাক মানুষকে অতি সুন্দর আকৃতি ও মেধা দিয়ে সৃষ্টি করেছেন। কিন্তু দুঃখের বিষয়, বর্তমান মানুষরা তাদের কাজ ও কর্মের মধ্য দিয়ে অমানবিকতার পরিচয় দিয়ে থাকে। তাই সর্বপ্রথম সবাইকে মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। দেশের শান্তি রক্ষায় যুবকদের এগিয়ে আসারও আহবান জানান তিনি। এতে অন্যান্যদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন আবছার রশিদ আইয়ুব, ইফতার মাহফিল বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক যায়িদ এম তারিখ, দৈনিক আমাদের চট্টগ্রামের স্টাফ রিপোর্টার ও লাভ বাংলাদেশের সমন্বয়ক এম. সাদ্দাম হোসাইন সাজ্জাদ, আবু সালেহ, হাবিব রহমান, মিজানুর রহমান, আরাফাত হোসাইন, মো. কামরুদ্দিন, শাহনেওয়াজ চৌধুরী, শওকত হোসেন, আতাউল করিম রাসেল, আবু বক্কর ছিদ্দিক, মীর মামুন, ফরহাদ মাহমুদ, আব্দুল মামুন ফারুকী, মো. তারেকুর রহমান, মিজানুর রহমান, রুবায়েত আদনান, মো. এহাসানুল হক প্রমুখ।প্রেস বিজ্ঞপ্তি