রবিবার, জুলাই ১৫, ২০১৮
স্কেল সমস্যা সমাধানকল্পে মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান
চট্টগ্রামের ব্যবসা বাণিজ্যের সাথে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের বৈষম্য সৃষ্টিকারী বড় দারোগা হাট ও দাউদকান্দি ওজন পরিমাপক স্কেল সমস্যা সমাধানকল্পে খাতুনগঞ্জ ট্রেড এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ এসোসিয়েশনসহ চট্টগ্রামের আরও ২৭টি ব্যবসায়ী সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে অদ্য ১৫ জুলাই সকাল ১০ টায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে মাননীয় মেয়র বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। উক্ত স্মারকলিপিতে বক্তারা বলেন, ওজন নিয়ন্ত্রন স্কেল প্রথা যদি থাকতে হয় তাহলে এটা সারা দেশব্যাপী থাকতে হবে, শুধু ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কে থাকলে হবে না। চট্টগ্রামের বড় দারোগা হাটে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে ওজন পরিমাপক যন্ত্র স্থাপন করার কারণে পণ্য পরিবহনে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের ১৩ টনের অধিক কোনো মাল পরিবহন করতে দেয়া হচ্ছে না। পূর্বে যেখানে এক গাড়ীতে ২৫,২০,৩০ টন পর্যন্ত পন্য বহন করা সম্ভব হতো সেখানে এখন দুই গাড়িতে করে পণ্য বহন করতে হচ্ছে। এর ফলে প্রবল যানজট সৃষ্টি হয়ে ব্যবসা-বাণিজ্যের ব্যয় বৃদ্ধিসহ গণপরিবহন চলাচলে দুঃসহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে। এক্ষেত্রে চট্টগ্রামের আমদানি-রপ্তানীকারকগণদের দ্বিমুখী (চট্টগ্রাম-ঢাকা-চট্টগ্রাম) দ্বিগুণ ভাড়া গুণতে হচ্ছে। যার ফলে চট্টগ্রামে উৎপাদিত পণ্য বাইরে যেতে পারছেনা, ঢাকা থেকে চট্টগ্রামেও আনতে পারছে না এবং অসম প্রতিযোগিতার কারণে বাজার হারাচ্ছে। অপরদিকে গ্রাহক বা সাধারণ ডিলার বা পাইকারগণ চট্টগ্রাম থেকে উৎপাদিত পণ্য সামগ্রী বাজারজাত করতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন। একদিকে পরিবহণ খরচ বেশি অন্যদিকে সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে নানা জটিলতা সৃষ্টি হচ্ছে। বাংলাদেশ আর কোথাও এ ধরণের গাড়ীর ওজন পরিমাপক যন্ত্র ব্যবহার করা হচ্ছে না বিধায় ঢাকা বা আশেপাশের শিল্পাঞ্চল সমূহের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী স্বাচ্ছন্দ্যে ৩০টন, ৩৫ টন বা ৪০ টন পরিবহন করছে যার দরুণ চট্টগ্রামের উৎপাদিত পণ্য অসম প্রতিযোগিতায় মার খাচ্ছে বা পেছনে পড়ে যাচ্ছে। অথচ দেশের অন্য কোন জেলার মহাসড়ক এভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে না যার ফলে বৈষম্য আরও তীব্রতর রূপধারণ করছে। বিগত প্রায় ৪ মাস পুর্বে মাননীয় সেতু মন্ত্রী উক্ত সমস্যা সমাধান করার প্রতিশ্র“তি প্রদান করলেও বিগত ৮ মাসের এ সমস্যা সমাধান করেননি। আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে সমস্যা সমাধান না হলে ব্যবসায়ী সংগঠনসহ সকল সংগঠন আরও কঠিন কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে। স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভাপতি মাহবুবুল আলম, সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ছগির আহমদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অনিল চন্দ্র পাল সহ সকল সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
ডটসিলিকনের বিরুদ্ধে ভোরের বাণী সম্পাদকের ১৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের লিগ্যাল নোটিশ
অনলাইন ডেস্ক :ওয়েব সাইট কোম্পনী ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসানের বিরুদ্ধে ভোরের বাণী সম্পাদক ও প্রকাশক নাসির উদ্দীন বুলবুল ১৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছেন। লিগ্যাল নোটিশ প্রদান করেন,বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবী আলহাজ্ব এম এ মজিদ। জানাযায়,গাজীপুরের টঙ্গী থেকে প্রকাশিত বিশিষ্ট সাংবাদিক, জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটির প্রকাশনা সম্পাদক,ঢাকা সাব এডিটরস কাউন্সিলের সাবেক কার্য নির্বাহী সদস্য, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য, বাংলাদেশ অন লাইন মিডিয়া এসোমিয়েশন ( বোমা )'র সদস্য নাসির উদ্দীন বুলবুল'র সম্পাদিত প্রকাশিত জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল ভোরের বাণী এর ওয়েব সাইট ( ডোমেইন প্যানেল ও হোস্টিং ) একটি সুনির্দিষ্ট নীতিমালার আলোকে ও চুক্তিপত্রের ভিত্তিতে ২০১৪ সালের ৩০ জুন ডটসিলিকনের কাছ থেকে ক্রয় করে পরিচালনা করে আসছে। ডটসিলিকনের সার্ভিস এক বছর পূর্ব পর্যন্ত মোটামোটি ভাল থাকলেও গত এক বছর ধরে ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসান নানা টালবাহানা ও ছলচাতুরীর মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অজুহাতে অধিক অর্থ গ্রহণ করছে।কিন্ত কোন কারণ না জানিয়ে ভোরের বাণী অনলাইন পত্রিকার ওয়েব সাইট গত ২৯-০৬-২০১৮ তারিখ থেকে বন্ধ করে দিয়েছে । এ ব্যাপারে ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসানের সাথে মোবাইল ফোনে অসংখ্যবার যোগাযোগ করা হলে রাশিদুল ফোন কেটে দেয়, অন্য কোন নাম্বার থেকে কল দিলে ভোরের বাণী সম্পাদক ও প্রকাশক নাসির উদ্দীন বুলবুল'র কন্ঠস্বর শোনামাত্রই লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেয়।এছাড়াও রাশিদুলকে ওয়েব সাইট ও ই-মেইলে ভোরের বাণী ওপেন করার জন্য বহুবার অনুরোধসহ তাগাদা প্রদান করেও কোন উত্তর পাওয়া যায়নি। ভোরের বাণী অনলাইন পত্রিকাটি বিশ্বজুড়ে অসংখ্য পাঠক রয়েছেন , গত ২৯-০৬-২০১৮ তারিখ থেকে অনলাইনে পত্রিকাটি পাঠ করতে না পেরে ভোরের বাণী'র সম্পাদককে ই-মেইল ও মোবাইলে পত্রিকার পাঠক, বিজ্ঞাপনদাতা, গোয়েন্দা বিভাগসহ বিভিন্ন দপ্তর প্রতিনিয়ত পত্রিকাটি ভোরের বাণী দেখতে না পাওয়ার কারণ জানতে চাচ্ছে। কিন্ত ভোরের বাণী'র সম্পাদক তাদেরকে কোন সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারছে না। ভোরের বাণী'র ওয়েব সাইটটি আর কয়েকদিন বন্ধ থাকলে নিউজ পোর্টাল ভোরের বাণী অগনিত পাঠক হারাবেন। র্দীর্ঘদিন ওয়েব সাইটটি বন্ধ থাকার কারণে 'ভোরের বাণী' ওয়েব সাইটটি স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে গেলে অগনিত সম্মানীত পাঠক হারাবেন, যার ফলে 'ভোরের বাণী' সম্পাদক ও প্রকাশক নাসির উদ্দীন বুলবুল অপূরণীয় ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। দেশ ও বিদেশে ভোরের বাণী'র সাংবাদিকদের বেতন ভাতা এবং অফিস খরচ বাবদ বিশাল অংকের অর্থ ডটসিলিকনের অবৈধ ও বে-আইনি হটকারী সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। রাজধানীর ফার্মভিউ সুপার মার্কেটে ডটসিলিকনের অফিসটি দীর্ঘদিন অফিস তালা মারা অবস্থায় রয়েছে। অফিসটি বন্ধের কারণ দরজায় বা দেয়ালে কোন নোটিশও টাঙ্গানো নেই। আশেপাশের লোকজনদের জিজ্ঞাসা করলে তারা ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসানের সর্ম্পকে টাউট -বাটপারসহ আরো অনেক বাজে মন্তব্য করেন। ডটসিলিকনের বিরুদ্ধে পেরিত লিগ্যাল নোটিশে উল্লেখ করা হয়,নোটিশ প্রাপ্তির ২৪ ঘন্টার মধ্যে ভোরের বাণী অনলাইন পত্রিকার ওয়েব সাইট চালু না করলে ওয়েব সাইট কোম্পনী ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসানের বিরুদ্ধে প্রতারণা, জালিয়াতি, অবৈধভাবে অর্থ আত্মসাৎ, বিশ্বাস ভঙ্গক্রমে ভোরের বাণী অন লাইন পত্রিকার ক্ষতি সাধনের জন্য ফৌজদারী এবং সুনাম ও সম্মান হানীর জন্য ১৫ (পনের) কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের জন্য দেওয়ানী আদালতে মোকদ্দমা দায়ের করা হবে, যার সকল দায় ও দায়িত্ব ডটসিলিকনের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশিদুল হাসানের বহন করতে হবে।
চসিক মেয়রকে স্মারকলিপি দিয়েছে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা
অনলাইন ডেস্ক :ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা এবং সীতাকুণ্ডে ওজন স্কেল অপসারণের দাবিতে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন কার্যালয় ঘেরাও করে মেয়রকে স্মারকলিপি দিয়েছে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা। রোববার (১৫ জুলাই) সকালে মিছিল নিয়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন কার্যালয়ের সামনে সমবেত হন চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ ও আসাদগঞ্জের কয়েক হাজার ব্যবসায়ী। পরে সেখানে মানববন্ধনে অংশ নেন তারা। সকালে চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ, আসাদগঞ্জের অন্তত ৫ হাজার ব্যবসায়া প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীরা মিছিল নিয়ে করপোরেশন কার্যালয়ের সামনে সমবেত হন। পরে সেখানে মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধনের শেষ পর্যায়ে সিটি মেয়র আ জ ম নাসির সেখানে উপস্থিত হলে ব্যবসায়ীরা তার হাতে স্মারকলিপি তুলে দেন। এ সময় ব্যবসায়ী অভিযোগ করেন, ওজন স্কেল বসানোর কারণে ঢাকা- চট্টগ্রাম মহাসড়ক এখন আর ১৩ মেট্রিক টনের বেশি পণ্য পরিবহন করতে পারে না। আগে, তারা এ সড়কে অন্তত ২০ টন পণ্য পরিবহন করতে পারতো। দেশের অন্যান্য মহাসড়ক বাদ দিয়ে শুধুমাত্র ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ ধরনের ওজন স্কেল বসানোর কারণে চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে।
ঝিনাইদহে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সু-সম্পন্ন
ঝিনাইদহে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সকালে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু, সিভিল সার্জন ডা: রাশেদা সুলতানা, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সাজ্জাদ আহম্মেদসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। দিনব্যাপী জেলার ৬ টি উপজেলায় ১৭শ ৬৭ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৬ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ২ লাখ ৩৬ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত
শীর্ষ স্থানীয় বেসরকারী সাহায্য সংস্থা আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির ১০৯তম সভা গত ১৪ জুলাই ২০১৮ইং সন্ধ্যা ৭টায় চান্দগাঁও রূপালী আবাসিক এলাকাস্থ ফাউন্ডেশনের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়। আল্লামা ফজলুল্লাহ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম-১৫ (সাতকানিয়া-লোহাগাড়া) আসনের সাংসদ প্রফেসর ড. আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুদ্দিন নদভী এমপির সভাপতিত্বে কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের মহাসচিব, জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমের ভারপ্রাপ্ত খতিব মাওলানা মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক শফিউল্লাহ কুতুবী, অর্থ সচিব কামরুল আলম চৌধুরী, সাংগঠনিক গবেষণা ও প্রকাশনা সচিব অধ্যাপক ড. আবুল আলা মুহাম্মদ হোছামুদ্দিন, প্রকল্প সচিব আবুল আতা মুহাম্মদ এমাদুদ্দিন, মহিলা, শিশু ও স্বাস্থ্য বিষয়ক সচিব ও নির্বাহী পরিচালক মিসেস রিজিয়া রেজা চৌধুরী, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সচিব অধ্যাপক মুহাম্মদ মহিউদ্দিন, দপ্তর সচিব আরমান বাবু রুমেল, সমাজসেবা সচিব আ.ন.ম সেলিম চৌধুরী, প্রচার সচিব অধ্যাপক শাব্বির আহমদ, সদস্য সর্বজনাব আলহাজ শফিক উদ্দিন, মিসেস সিতারা গাফ্ফার, এরফানুল করিম চৌধুরী, এম. ছালামত উল্লাহ। প্রেস বিজ্ঞপ্তি
মাইজভা-ারী গাউসিযা হক কমিটির ঈদ পুনর্মিলনী ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা অনুষ্ঠান
মাইজভা-ারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার ব্যবস্থাপনায় ঈদ পুনর্মিলনী ২০১৮সালের এস,এস,সি পরীক্ষায় কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আজ ১৪জুলাই জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সংবর্ধনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর শাহেদা ইসলাম। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সরকারী সিটি বিশ^বিদ্যালয় কলেজ এর অধ্যক্ষ প্রফেসর ঝরনা খানম, এনায়েত বাজার মহিলা কলেজ এ অধ্যক্ষ প্রফেসর তহুরিন সবুর ডালিয়া, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ প্রফেসর আনোয়ারা বেগম। গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি এম. মাকসুদুর রহমান হাসনুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফুজ্জামান আশরাফ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাগত বক্তব্য রাখেন মহানগর সহ-সভাপতি নুরুল করিম নুরু, এস.এম শাহাবুদ্দিন, আবদুল বাতেন, নাজিম উদ্দিন, শওকত হোসাইন, মেজবাহ উদ্দিন, মোহাম্মদ আশরাফ উদ্দিন সিদ্দিকি, মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম, মোহাম্মদ ওমর ফারুখ, কামাল উদ্দিন, মো: নাছির, মো: ইসমাইল, মো: নুরুল ইসলাম, মো: ইদ্রিস কমান্ডার, মো: ওসমান, আবুল বশর, মো: বদী, আবদুল হালিম আল মাসুদ ও বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তাবৃন্দ। সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে প্রফেসর শাহেদা ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীরা আলোর দিশারি, তাদের জ্ঞানের আলোকে আরো উজ্জ্বীবিত করতে চেষ্টা থাকতে হবে, যেমন শিক্ষকদের তেমনি অভিভাকদের ভূমিকা এক্ষেত্রে অনন্য। তাদের উৎসাহ যেন সমাজ হিতৈষী সংগঠন ও মহিয়ান ব্যক্তিবর্গগণ। সুশিক্ষার মাধ্যমে তাদের মেধার বিকাশ ছড়িয়ে পড়ক সারা জগতময়। সভাশেষে কৃতি শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট ও সম্মাননা স্মারক দিয়ে সংবর্ধিত করা হয়। সভাশেষে দেশ ও জাতির কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ দোয়া মুনাজাত করা হয়।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
নারায়ণগঞ্জে ৪ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হলো ভিটামিন এ
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা :ভিটামিন এ এর অভাবজনিত অপুষ্টি ও শিশুমৃত্যুর হার কমানোর লক্ষ্যে শনিবার ১৪ জুলাই সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জের ১৪০৫টি কেন্দ্রে ৬ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৪ লাখ ২৭ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়েছে। যার মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ৫৬ হাজার ১৩ জন শিশুকে নীল রঙের ভিটামিন এ ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৩ লাখ ৭১ হাজার ১৫৯ জন শিশুকে লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হয়। শনিবার সকালে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভিটামিন এ পাস ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জসিমউদ্দিন হায়দার। এসময় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোঃ এহসানুল হক, নারায়ণগঞ্জ পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক ডা: জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসনে আরা বেগম বীনা, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. চৌধুরী মোহাম্মদ ইকবাল বাহার, পরিবার পরিকল্পনা সহকারী কর্মকর্তা সদানন্দ রায়, উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডা. সেলিমা বেগম, জেলা স্বাস্থ্য তত্বাবধায়ক স্বপন দেবনাথ, স্বাস্থ্য পরিদর্শক মোঃ জাফর।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
নাগঞ্জে বর্ণাঢ্য সাজে জগন্নাথ দেবের বিশাল রথযাত্রা
নারায়ণগঞ্জ সংবাদদাতা :সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় পর্ব শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উৎসব শনিবার (১৪ জুলাই) থেকে শুরু হয়েছে। আগামী ২২ জুলাই উল্টো রথযাত্রার মধ্য দিয়ে এ উৎসব সমাপ্তি ঘটবে। এ উপলক্ষে হিন্দু ধর্মালম্বী সংগঠন মন্দির নানা মাঙ্গলিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। আন্তজার্তিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ (ইস্কন) রথ যাত্রা উপলক্ষে ৯ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। গত ৬ বছরের মত এবারও রথযাত্রা উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেওভোগ আকরায়। শনিবার সকালে বিভিন্ন মাঙ্গলিক আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শুরু হয় রথযাত্রার অনুষ্ঠান। এর মধ্যে ছিল হরিনাম সংকীর্তন, বিশ্ব শান্তি ও মঙ্গল কামানায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞ, মহাপ্রসাদ বিতরণ, আলোচনা সভা, পদাবলী কীর্তন, আরতি কীর্তন, ভাগবত কথা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শ্রীমদ্ভাগবত গীতা পাঠ ও ধর্মীয় নাটক মঞ্চায়ন। আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) সকালে ইসকন মঙ্গল কামনায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞের মাধ্যমে রথ উৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে। এ উপলক্ষে দুপুরে নারায়ণ জিউর মন্দির ইসকন এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন। বিশিষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণঞ্জ পুলিশ সুপার জনাব মঙ্গনুল হক । অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন জনাব সমির বোস এবং তত্বাবধান করেন জনাব শ্যামল মহারাজ। আলোচনা সভা শেষে মঙ্গল প্রদীপ জ্বলিয়ে রথযাত্রা উৎসবের উদ্বোধন করেন র সি আই পি শ্রী অমল পোন্দার। পরে বিকালে ইসকন নারায়ণ জিউর মন্দির থেকে বর্ণাঢ্য সাজে বিশাল রথে জগন্নাথ দেব, শুভদ্রা ও বলরামের প্রতিকৃতিসহ বিশাল শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক, সলিমুল্লাহ সড়ক, সিরাজুদৌল্লাহ সড়ক প্রদর্শন করেন। রথযাত্রা উপলক্ষে আখড়া মন্দিরে মেলা প্রাঙ্গনসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে নানা ধর্মীয় অনুষ্ঠান ও মেলা শুরু হয়েছে। সেক্রেটারি জীবন কৃষ্ণ সাহা বলেন, হিন্দু ধর্ম্বাবলম্বীদের প্রাচীন ঐতিহ্য রক্ষার্থে, সার্বিক কল্যাণ সাধন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিপূর্ণ সহাবস্থান এবং শান্তিপূর্ন সমাজ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সমন্বিতভাবে শ্রী শ্রী জগন্নাথ বলদেব মহারানীর রথযাত্রা উৎসবটি পালন করেন।প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সারা দেশ পাতার আরো খবর