বুধবার, এপ্রিল ১, ২০২০
রংপুরে রওশন এরশাদের বিরুদ্ধে ঝাড়ুমিছিল
০৬সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতীয় পার্টিতে চেয়ারম্যান পদ নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্ব কোন্দলে বেগম রওশন এরশাদের ভূমিকায় ফুঁসে উঠেছে রংপুর জাতীয় পার্টি। শুক্রবার বিকেলে স্বঘোষিত চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ প্রত্যাখ্যান করে তার বিরুদ্ধে ঝাড়ুমিছিল করেছে দলের মহিলা পার্টির নেতা-কর্মীরা। আজ বিকেলে রংপুর মহানগরীর সেন্ট্রাল রোডস্থ জাতীয় পার্টির দলীয় কার্যালয় থেকে ঝাড়ুমিছিল বের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ সময় মিছিল থেকে রওশনের প্রতি ঘৃণা প্রদর্শন করে বিদ্রুপমূলক শ্লোগান দেন মহিলা পার্টির নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা। পরে মিছিল শেষে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে পার্টির নেতারা দলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এরশাদ ঘোষিত বর্তমান চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেন। একই সাথে দলের ভিতরে কোন্দল, বিশৃঙ্খলা, দ্বন্দ্ব ও ভাঙন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার অভিযোগে বেগম রওশন এরশাদ ও আনিসুল ইসলাম মাহমুদ আনিসকে বহিষ্কারের দাবি জানান। এতে রংপুর মহানগর মহিলা পার্টির আহ্বায়ক জেসমিন আকতারসহ বক্তব্য রাখেন, সদস্য সচিব জোৎসনা বেগম, যুগ্ম আহবায়ক হালিমা বেগম, সুলতানা প্রমুখ। উল্লেখ্য, জাতীয় সংসদের বিরোধি দলীয় নেতা নির্ধারণকে কেন্দ্র করে স্পিকারকে জিএম কাদের চিঠি দেয়ায় আপত্তি আনেন রওশন এরশাদ। এ দ্বন্দ্ব থেকে দলীয় চেয়ারম্যান পদ নিয়ে নতুন করে পাল্টাপাল্টি দাবি করছেন জিএম কাদের ও রওশন এরশাদ।-আলোকিত বাংলাদেশ
নোয়াখালীর হাতিয়ায় ডাকাত গ্রেপ্তার
০৬সেপ্টেম্বর,শুক্রবার,অনলাইন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নোয়াখালীর হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাত ইরাককে গ্রেপ্তার করেছে কোস্ট গার্ড। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় উদ্ধার করা হয়েছে একটি পিস্তল, গুলি ও রামদা। শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে বাহিনীটি। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কোস্ট গার্ডের দক্ষিণ জোনের হাতিয়া বিসিজি স্টেশনের লে. মাহমুদ সাব্বিরের নেতৃত্বে নিঝুমদ্বীপ এলাকায় বিশেষ আভিযান চালানো হয়। অভিযানে কোস্ট গার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত ইরাক বাহিনীর সদস্যরা পালিয়ে যায়। এসময় বাহিনীটির প্রধান ইরাককে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাদের আস্তানায় তল্লাশি চালিয়ে একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি, তিনটি রামদা উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তার ইরাককে হাতিয়া সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। জননিরাপত্তায় জলদস্যুতা, বনদস্যুতা ও ডাকাতি দমনে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
পাবনার চাটমোহরে ৬ ফুট লম্বা অজগর, পিটিয়ে মারলো গ্রামবাসী
০৪সেপ্টেম্বর,বুধবার,পাবনা প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: পাবনার চাটমোহরে ছয় ফুট লম্বা ও ১৫ কেজি ওজনের একটি অজগর গতকাল রাত ১১টার দিকে লোকালয়ে ঢুকে পড়ে। এতে আতঙ্কিত গ্রামবাসী সাপটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে। মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের চকউথুলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে ফেসবুকসহ মানুষের মুখে মুখে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে সাপটিকে একনজর দেখতে ভিড় জমায় আশেপাশের কয়েকটি গ্রামের সাধারণ মানুষ। স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার রাতে চকউথুলী গ্রামের পাশে একটি বিলে মাছ ধরতে যায় জুয়েল, আজমির ও জাহাঙ্গীর। জমির মধ্যে দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় আইলের পাশে একটি সাপ শুয়ে থাকতে দেখে তারা ভয় পান। পরে তাদের চিৎকারে গ্রামবাসী ছুটে এসে সাপটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে। মূলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের দুই নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আজহার আলী বলেন, মূলত ভয় পেয়ে মানুষ সাপটিকে মেরে ফেলেছে। পরে অজগরটিকে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।
টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা ডাকাত সর্দার নুর মোহাম্মদ নিহত
০১সেপ্টেম্বর,রবিবার,টেকনাফ প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী ও ওমর ফারুক হত্যার প্রধান আসামি নুর মোহাম্মদ (৩৪) নিহত হয়েছেন। এসময় ঘটনাস্থল থেকে ৪টি এলজি, ১টি থ্রি কোয়াটার, ১৮ রাউন্ড গুলি, ২০ রাউন্ড গুলির খালি খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। আজ রোববার (১ সেপ্টেম্বর) ভোরে তাকে নিয়ে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমোড়া ২৭ নম্বর ক্যাম্পের পাহাড়ি এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারে গেলে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত নুর মোহাম্মদ জাদিমোরা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মৃত কালা মিয়ার ছেলে। পুলিশ জানায়, ওমর ফারুক হত্যাসহ একাধিক মামলার আসামি ও আরসা বা আল ইয়াকিনের অন্যতম নেতা নুর মোহাম্মদকে আটক করা হয়েছে। তাকে দীর্ঘ সময় জিজ্ঞাসাবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, তার গড়ে তোলা নিজস্ব বাহিনীর আস্তানায় বিপুল সংখ্যক অস্ত্র মজুদ রয়েছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে ওসি তদন্ত এবিএস দোহার নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা নুর মোহাম্মদ ছিনিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে। এতে ওসি তদন্ত, কনস্টেবল রাশেদল, অন্তর চৌধুরী আহত হলে পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। বেশ কিছু সময় গুলি বিনিময় হওয়ার পর ঘটনাস্থল থেকে নুর মোহাম্মদকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বলেন, ভোর ৫টা ৫০ মিনিটের দিকে বন্দুকযুদ্ধে সন্ত্রাসী নুর মোহাম্মদ নিহত হন। তার বিরুদ্ধে সরকারি অস্ত্র লুট, হত্যা ও ইয়াবার মামলা রয়েছে। সম্প্রতি ২২ আগস্ট স্থানীয় যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যার প্রধান আসামি তিনি। ওইদিন থেকে তাকে পুলিশ খুঁজছিল। তার মরদেহ পোস্টমর্টেমের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
সাতকানিয়ায় পিকনিকের বাসে ২ কোটি ৯০ লাখ টাকার ইয়াবা
৩১আগস্ট,শনিবার,স্টাফ রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সাতকানিয়া কেরানীহাট এলাকায় একটি পিকনিকের বাসে অভিযান চালিয়ে ৫৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে Rab। Rab জানায়,উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ৯০ লাখ টাকা। শুক্রবার (৩০ আগস্ট) বিকেলে Rab-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্প কমান্ডার মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে এই ইয়াবার চালানটি উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় বাসের চালক ও হেলপারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে ইয়াবা বহনকারী বাসটিও। Rab-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাশকুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজারের উখিয়া থেকে রাঙামাটি অভিমুখী একটি পিকনিকের বাসে অভিযান চালিয়ে বিশেষ কৌশলে বাসে লুকিয়ে রাখা ৫৮ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এই ঘটনায় বাসের চালক মোহাম্মদ রহিম (২৯) এবং হেলপার মোহাম্মদ রফিককে (২৭) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে পিকনিকের বাসটিও। এ ঘটনায় সাতকানিয়া থানায় মামলা হবে। তিনি আরও জানান, উদ্ধারকৃত ইয়াবাগুলোর আনুমানিক মূল্য ২ কোটি ৯০ লাখ টাকা এবং জব্দকৃত বাসের আনুমানিক মূল্য ১ কোটি টাকা।
যৌন হয়রানির অভিযোগে এক পুলিশকে গণপিটুনি
৩০আগস্ট,শুক্রবার,রাজশাহী রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম:রাজশাহীতে নারীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে এক পুলিশ কনস্টেবলকে গণপিটুনি দিয়েছে এলাকাবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে খবর পেয়ে নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকা তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে। গণপিটুনির শিকার ওই পুলিশ সদস্যের নাম সাব্বির হোসেন। তিনি রাজশাহীর পবা থানায় কর্মরত। তবে তিনি লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন। রাজপাড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হায়দার আলী খান জানান, পুলিশ কনস্টেবল সাব্বিরকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাব্বির রাত দশটার দিকে লক্ষীপুর কাঁচাবাজার এলাকায় গিয়ে একজন নারীর শরীরে হাত দেন। এ সময় ওই নারী গরমের কারণে বাইরে ঘুরাফেরা করছিলেন। কিন্তু সাব্বির তার শরীরে হাত দেন।এরপর ওই নারী চিৎকার শুরু করেন। এক পর্যায়ে আশেপাশের নারী ও পুরুষরা জড়ো হয়ে সাব্বিরকে ধরে বেধড়ক পেটাতে শুরু করেন। খবর পেয়ে রাজপাড়া থানা পুলিশ সাব্বিরকে উদ্ধার করে। পরে তাকে নগরীর পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে একজন চিকিৎসকের কাছে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। সেখান থেকে সাব্বিরকে রাজপাড়া থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।
পতিতাবৃত্তির অপরাধে ৪নারীসহ ৬জনকে দণ্ড
৩০আগস্ট,শুক্রবার,স্টাফ রির্পোটার,নারায়ণগঞ্জ,নিউজ একাত্তর ডট কম:নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকার অপরাধে ৪নারীসহ ৬জনকে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কর্মকর্তা(ভূমি) তরিকুল ইসলাম এ দণ্ড প্রদান করেন। ভোলাব উপ-পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম জানান, উপজেলার কাঞ্চন পৌরসভার কাঞ্চন জামাইপাড়া এলাকার রতনের ভাড়াবাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে স্থানীয় বেপারীপাড়া এলাকার সেলিম মিয়ার স্ত্রী রেখা বেগম অসামাজিক কার্যকলাপ (পতিতাবৃত্তি)করে আসছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সেই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে রেখা বেগম(৪০), তার মেয়ে মীম আক্তার(১৮), সিলেটের গোয়াইঘাট থানাধীন আলমনগর এলাকার মনিরের মেয়ে লিপি আক্তার(১৮), কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী থানাধীন ভির্নিভাড়া এলাকার সাগরের স্ত্রী আরিফা আক্তার(২২), রেখার স্বামী সেলিম সিকদার(৪৪) ও কুড়িগ্রামের থানাধীন কাচারীপাড়া এলাকার সাইফুর রহমানের ছেলে শফিকুল ইসলাম(২৭)কে গ্রেপ্তার করেন। গ্রেপ্তারকৃতদের রাতে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করলে সকলে নিজেদের দোষ স্বীকার করেন। এসময় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট প্রত্যেককে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। শুক্রবার সকালে গ্রেপ্তারকৃতদের নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে প্রেরন করা হয়েছে।
চট্টগ্রাম ও চুয়াডাঙ্গায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২
৩০আগস্ট,শুক্রবার,স্টাফ রির্পোটার,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রাম ও চুয়াডাঙ্গায় Rab ও পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক জলদস্যু ও ১০ মামলার আসামি নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকাল ও বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম: জেলার বাঁশখালীতে Rabর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক জলদস্যু নিহত হয়েছেন। শুক্রবার সকাল সোয়া আটটার দিকে পূর্ব চাম্বল এলাকায় এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম মো. ইরান। তার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। Rabর দাবি তার বিরুদ্ধে খুন, ডাকাতি, অস্ত্র আইনে ১০টি মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তলসহ ১৩টি অস্ত্র, বিপুল পরিমাণ গুলি এবং বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। Rab-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান জানান, পূর্ব চাম্বল এলাকায় ইরান ও তার সহযোগীরা জড়ো হয়ে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। Rabর টহল দল দেখে তারা গুলি চালায়। এ সময় Rab ও পাল্টা গুলি চালালে অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে ইরানের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় পুলিশসহ দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার জয়রামপুর কাঁঠালতলা গ্রামের একটি বাঁশবাগানের মধ্যে এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম রোকনুজ্জামান রোকন (৩৫)। তিনি দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা দক্ষিণ চাঁদপুরের আবু বক্কর সিদ্দিকীর ছেলে। পুলিশের দাবি রোকন মাদক ব্যবসায়ী ও ডাকাতিসহ একাধিক মামলার আসামি। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় এলজি (আগ্নেয়াস্ত্র), দুইটি কার্তুজ, এক বস্তা ফেনসিডিল ও দুইটি রাম দা উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটার দিকে কাঁঠালতলা গ্রামের করিম মণ্ডলের বাঁশবাগানে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। খবর পেয়ে পুলিশের একটি টহল দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের দুটি পক্ষই পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। শুরু হয় পুলিশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে ত্রিমুখী বন্দুকযুদ্ধ। প্রায় আধা ঘণ্টাব্যাপী গুলিবিনিময়ের পর মাদক ব্যবসায়ীরা পিছু হটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে রোকনুজ্জামান নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মশিউর রহমান মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। দামুড়হুদা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই দল মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত রোকন নিহত হয়েছেন। নিহত রোকনুজ্জামানের নামে দামুড়হুদা মডেল থানায় পুলিশের ওপর হামলা, মামলা, মাদক, চোরাচালান, ডাকাতি ও অপহরণসহ ১০টি মামলা রয়েছে।

সারা দেশ পাতার আরো খবর