মরহুমা সাফিনাজ মাহতাব একজন আলোকিত নারী হিসেবে সমাজউন্নয়নে ভূমিকা রেখেছেন :লায়ন কামরুন নাহার মা
ডাঃ নুরুন নাহার জহুর স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীনের সহধর্মিনী, সাবেক মহিলা কাউন্সিলর, জাতীয় মহিলা সংস্থা চট্টগ্রামের সাবেক সহ সভানেত্রী মরহুমা সাফিনাজ মাহতাবের ৫ম মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে এক স্মরণ আলোচনা, মিলাদ, দোয়া মাহফিল, কোরআন শরীফ ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠান গত ১৩মে বিকেল ৪টায় পরিষদের সভাপতি শরফুদ্দীন আহমদ চৌধুরী রাজুর সভাপতিত্বে নগরীর বাওয়া ডিলড্রেন হোম মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা লায়ন্স ৩১৫-বি এর ১ম গভর্ন, চট্টগ্রাম ওমেন চেম্বারের সাবেক সভাপতি লায়ন কামরুন নাহার মালেক এম,জে,এফ। সংগঠক আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহিলা সমিতি স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মিসেস আনোয়ারা বেগম, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ, বাওয়া চিলড্রেন হোমের সাধারণ সম্পাদিকা আবিদা মোস্তাফা, বাওয়া স্কুল এন্ড কলেজ প্রাক্তন ছাত্রী সমিতির সভানেত্রী জেরিনা পারভিন, ফুলকলির মহাব্যবস্থাপক এম,এ,সবুর, শিক্ষিকা আয়েশা সুলতানা, মরহুমার কন্যা জুনায়রা চৌধুরী, চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের সহ সভাপতি ডাঃ মোঃ জামাল উদ্দীন, তানিশা চৌধুরী, সুবানা চৌধুরী। মিলাদ, দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বাওয়া চিলড্রেন হোমের তত্ত্বাবধায়ক মাওলানা আবদুল কাদের পাটোয়ারী। কোরআন তেলওয়াত করেন এতিমখানার ছাত্র মোঃ দিদারুল ইসলাম। সভায় প্রধান অতিথি লায়ন কামরুন নাহার মালেক বক্তব্যে বলেন চট্টগ্রামে সাবেকমন্ত্রী জহুর আহমদ চৌধুরীর পরিবার একটি ঐতিহ্যবাহী ও ত্যাগী পরিবার। যে পরিবারের প্রায় সদস্যরা চট্টগ্রামের উন্নয়নে জড়িত। তিনি বলেন সমাজসেবা করতে টাকার চেয়ে মন-মানসিকতা বেশি দরকার। আজকের আয়োজনে এতিম ছাত্রদের মাঝে কোরআন শরীফ মাঝে খাতা, কলম বিতরণ একটি অনুকরণীয় কাজ। যে কাজটি জহুর আহমদ চৌধুরীর পরিবার আগেও অনেকবার করেছে। তিনি বলেন মরহুমা সাফিনাজ মাহতাব শ্বশুর সাবেকমন্ত্রী জহুর আহমদ চৌধুরী ও স্বামী মাহতাব উদ্দীন চৌধুরীর মতই সমাজসেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছিলেন। মহিলা কমিশনারসহ বিভিন্ন জনগুরুত্বপুর্ণ দায়িত্বপুর্ণ দায়িত্ব অত্যন্ত আন্তরিককা ও সফলতার সাথে পালন করেছেন। যার রেখে যাওয়া অপুর্ণ সামাজিক কাজগুলো তাঁরই প্রজন্ম সম্পর্ণ করবে। প্রধান অতিথি আরো বলেন আসুন আমরা সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের কল্যাণে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে মহতি কাজে নিজেকে সামর্থ্য অনুযায়ী এগিয়ে আসি। আজ মরহুমা শাফিনাজ মাহতাবসহ যারা আমাদের মাঝ থেকে চলে গেছেন তাদের সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। তিনি বলেন আপনারা যারা একটু সামর্থ্যবান আপনারা সকলে সময় সুযোগে এই এতিম ছাত্রদের কল্যাণে আপনাদের আয়ের ক্ষুদ্র একটি অংশ এখানে দান করে নিজেরা সওয়াবের ভাগিদার সাথে সাথে এই এতিম ছাত্রদের ভবিষ্যৎ সুন্দর জীবন গড়তে সহায়তা করবেন। আমি নিজে এই প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র সহ সভানেত্রী হিসেবে সামর্থ্য অনুযায়ী ভুমিকা রাখার চেষ্ঠা করে যাচ্ছি। সভা শেষে প্রধান অতিথি এতিম ছাত্রদের মাঝে কোরআন শরীফ ও শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
২ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ২ মৌলভীবাজারে
অনলাইন ডেস্ক: মৌলভীবাজারে পরিত্যক্ত পতিত জমি নিয়ে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে দুজন নিহত হয়েছেন। শনিবার সকাল ১১টার দিকে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার খলিলপুর ইউনিয়নের কম্মদপুর গ্রামের বড়হাওরে ঘটনাটি ঘটেছে। এ সময় সংঘর্ষে উভয়পক্ষের নারী-পুরুষ মিলিয়ে কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত আটজনকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সংঘর্ষে নিহতরা হলেন- খলিলপুর ইউনিয়নের লামুয়া গ্রামের ওয়ারিছ মিয়ার ছেলে আব্দুল মালিক (৫০) ও কম্মদপুর গ্রামের মুরাদ মিয়ার ছেলে শফিকুর রহমান (২০)। প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা সূত্রে জানায়, খলিলপুর ইউনিয়নের কম্মদপুর গ্রামের তোতা মিয়া পক্ষ ও ফকির বাড়ির পক্ষের মধ্যে পরিত্যক্ত পতিত জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। শনিবার সকালে এই দুই পক্ষের লেবাস মিয়া ও মনর মিয়ার মধ্যে বাক-বিতণ্ডার এক পর্যায়ে উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় আব্দুল মালিক মিয়ার বুকে লাঠি দিয়ে আঘাত করলে এবং শফিকুর রহমান বুকে চাকুর আঘাতে ঘটনাস্থলে দুজন মারা যায়। এ সময় উভয়পক্ষের সংঘর্ষে আউয়াল মিয়া (৩৪), রুমান মিয়া (২৭), রায়হান (২৫), সুফি মিয়া (৬০), মহরুপ রহমান (৩০), রাজীব আহমদ (৩৩), আহতাব হোসেন (১৭), রেজিয়া (২৮), জমসেদ মিয়া (৫৫), ফখরুল ইসলাম (৪৬), ইমন মিয়া (৩০), তাহের মিয়া (৩৩), জয়নাল মিয়া (৪০), মো. সুয়েব (২৪), রুনা বেগম (১৭), হুছনা বেগম (৪০), ইকরা মিয়া (৪০), সেলিম মিয়া (২৭), রুহেনা বেগম (২৮), হালিমা বেগম (২৩), মিনহাজ মিয়া (৩৩), মহসীন মিয়া (২৮), উমেদ মিয়া (২৩), সুহেল মিয়া (৩৫), লিয়াকত মিয়া (৩০), মিনারা (৬০), মধুমালাসহ (৬৭) আরো কয়েকজন আহত হয়েছে। এ বিষয়ে মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহমেদ দুজন মারা যাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পুলিশ চারজনকে আটক করেছে। লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।
কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার ৫
অনলাইন ডেস্ক: নগরের চকবাজার জঙ্গিশাহ মাজার গেট এলাকা থেকে বাসায় ঢুকে এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় পাঁচ যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৩ জুলাই) ভোররাতে জঙ্গিশাহ মাজার গেট এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে বাংলানিউজকে জানান চকবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ। গ্রেফতার পাঁচ যুবক হলেন মো. মহিউদ্দিন (২২), সাইফুল ইসলাম সাকিব (২২), আশিক ইমরান (২৪), রাজবীর হোসেন নয়ন (২২) ও মোশাররফ হোসেন আকাশ (২২)। ওসি আবুল কালাম আজাদ, চট্টগ্রাম কলেজের এক ছাত্রীকে তার বাসায় ঢুকে ধর্ষণের অভিযোগ পেয়ে মহিউদ্দিন, সাকিব, আশিক, রাজবীর ও আকাশ নামে পাঁচ বখাটেকে গ্রেফতার চকবাজার থানা পুলিশ। ওসি জানান, ৭ জুলাই রাতে ওই ছাত্রীর বাসায় তার প্রাইভেট শিক্ষক আসলে স্থানীয় ৫-৬ জন বখাটে বাসায় ঢুকে প্রথমে চাঁদা দাবি করে। ওই ছাত্রীর শিক্ষক ও তার আরেক বন্ধুকে মারধর করে তাদের কাছ থেকে টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। পরে তাদের জিম্মি করে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেয়। ওই ছাত্রীর অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে কয়েকবার এসব বখাটেরা এলাকায় এ রকম অপকর্ম করলেও তাদের ভয়ে কেউ পুলিশের কাছে অভিযোগ করেনি বলে জানান ওসি।
বৃক্ষরোপণে জাতীয় পুরস্কার পাচ্ছে ২৫ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান
অনলাইন ডেস্ক :বৃক্ষরোপণে প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় পুরস্কার ২০১৭ এর জন্য ৯টি শ্রেণিতে ২৫ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে চূড়ান্তভাবে মনোনীত করেছে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবতর্ন মন্ত্রণালয়। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দীপক কুমার চক্রবতীর্ সিনিয়র সহকারী সচিব শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিটি শ্রেণিতে পুরস্কারপ্রাপ্তরা সনদ, ক্রেস্ট ও চেক পাবেন। প্রথম পুরস্কারের জন্য ৩০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় পুরস্কারের জন্য ২০ হাজার টাকা ও তৃতীয় পুরস্কারের জন্য ১৫ হাজার টাকা দেয়া হবে। প্রাথমিক বিদ্যালয়/উচ্চ বিদ্যালয়/এবতেদায়ি মাদ্রাসা/সিনিয়র মাদ্রাসা শ্রেণিতে মুন্সীগঞ্জের পয়সা উচ্চ বিদ্যালয় প্রথম, কুমিল্লার চান্দিনা ডা. ফিরোজা পাইলট বালিকা উচ্চবিদ্যালয় দ্বিতীয় ও নড়াইলের লোহাগড়ার ৪ নম্বর নলদী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় তৃতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছে। কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয় শ্রেণিতে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় হয়েছে যথাক্রমে মৌলভীবাজারের শাহ নিমাত্রা সাগরনাল ফুলতলা কলেজ, কুমিল্লার চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ও মৌলভীবাজারের তৈয়বুন্নেছা খানম একাডেমি ডিগ্রি কলেজ। ইউনিয়ন পরিষদ/উপজেলা পরিষদ/পৌরসভা/সিটি করপোরেশন শ্রেণিতে চট্টগ্রামের রাউজান উপজেলা পরিষদ প্রথম, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ দ্বিতীয় ও সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলা পরিষদ তৃতীয় পুরস্কারের জন্য নিবাির্চত হয়েছে। অধিদপ্তর/ পরিদপ্তর/সেক্টর কপোের্রশন/প্রতিষ্ঠান শ্রেণিতে প্রথম পটুয়াখালী জেলা প্রশাসন ও দ্বিতীয় পুরস্কার পাবে গোপালগঞ্জের শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব চক্ষু হাসপাতাল ও প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান। ব্যক্তিগত পযাের্য় বৃক্ষরোপণ শ্রেণিতে প্রথম পুরস্কার পাচ্ছেন দিনাজপুরের নতুন ভূষির বন্দরের পায়েল দেবী আগরওয়ালা। এই শ্রেণিতে দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার পাচ্ছেন যথাক্রমে নওগঁা পোরশার আব্দুস ছালাম মETH;ল, লীপুর সদরের দত্তপাড়ার জাহানারা শফিক। ব্যক্তি মালিকানাধীন নাসাির্র ক্যাটাগরিতে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় পুরস্কার পাচ্ছে সাভারের আশুলিয়ার হোসেন নাসাির্র (মালিক হাসিনা বেগম), খুলনার পাইকগাছার ডালিয়া নাসাির্র (মালিক তানিয়া খাতুন) ও বগুড়া সদরের গোকুল বাঘোপাড়ার সৌখিন নাসাির্র (মালিক মো. আতিকুল ইসলাম)। বাড়ির ছাদে বাগান সৃজন শ্রেণিতে ফরিদপুর কমলাপুরের হান্না শুক্তি কনা প্রথম, রাজশাহী রাজপাড়ার তহমিনা খাতুন দ্বিতীয় ও দিনাজপুর সদরের মধ্য বালুবাড়ীর সুলতানা ফেরদৌসী তৃতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। বন বিভাগ কতৃর্ক সৃজিত বাগান শ্রেণিতে প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় মনোনীত হয়েছে বরিশাল সামাজিক বন বিভাগ, নোয়াখালীর উপকূলীয় বন বিভাগের চরবাটা রেঞ্জ ও নোয়াখালীর উপকলীয় বন বিভাগের চর আলাউদ্দিন রেঞ্জ। এ ছাড়া বৃক্ষ গবেষণা/সংরক্ষণ/উদ্ভাবন মূল্যায়ন ক্যাটাগরিতে চট্টগ্রামের বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের ডিভিশনাল অফিসার রফিকুল হায়দার প্রথম ও সাতক্ষীরা সদরের বলাডাঙ্গা তুজুলপুরের মো. ইয়ারব হোসেন দ্বিতীয় পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন।
মুজিব চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবীতে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ
সাতকানিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান চেয়ারম্যান এর মুক্তির দাবীতে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ আজ বিকেলে দোস্ত বিল্ডিং দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। দক্ষিণ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি এনামুল হক এনামের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি, সাবেক মন্ত্রী জাফরুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন যুগ্ম-সম্পাদক আব্দুল গফ্ফার চৌধুরী, জেলা বিএনপির সিনিয়র সদস্য মোশারফ হোসেন, সাতকানিয়া পৌর বিএনপির সভাপতি হাজী রফিকুল আলম, লোকমান মাষ্টার, এড. আবু তাহের, মঈনুল আলমম ছোটন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মাদ আজগর, সিনিয়র যুগ্ন-সম্পাদক মোজাম্মেল হক, সাংগঠনিক শওকত ওসমান, জেলা স্বেচ্ছেসেবক দলের সভাপতি সাইফুউদ্দিন সালাম মিঠু, উপজেলা বিএনপি নেতা জামাল উদ্দিন, আব্দুল মান্নান তালুকদার, মোহাম্মদ সরওয়ার, আবুল হোসেন বাবুল, এড. নুরুল আলম, এড. আবুল মনসুর, মোহাম্মদ আবুল হোসেন, হামিদুর রহমান পেয়ারু, মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন, রবিউল আলম মেম্বার, মোহাম্মাদ ইলিয়াছ, সাদেক, ওবাইদুল হক রিকুসহ জেলা, উপজেলা বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।প্রেস বিজ্ঞপ্তি
বাগেরহাটে ১ লক্ষ ৫৮ হাজার শিশুকে ভিটামিন প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে
বাগেরহাটে ১ লক্ষ ৫৮ হাজার ৭শ ৮৬ জনশিশুকেভিটামিন এ প্লাসক্যাপসুলখাওয়ানোহবে। শনিবার (১৪ই জুলাই) বাগেরহাটজেলার ৯ উপজেলা ও ৩ পৌরসভার ৬ থেকে ৫৯ মাসবয়সীশিশুদের এ ক্যাপসুলখাওয়ানোহবে। বাগেরহাট স্বাস্থ্য বিভাগেরআয়োজনেবুধবার (১১ জুলাই) বাগেরহাট প্রেসক্লাবেঅনুষ্ঠিত সাংবাদিকদেরওয়ারিয়েন্টেশনকর্মশালায়এসব তথ্য জানানোহয়। বাগেরহাট ডেপুটিসিভিলসার্জনডা. পুলককুমার দেবনাথেরসভাপতিত্বে অনুষ্ঠিতকর্মশালায়প্রধানঅতিথির বক্তৃতাকরেন জেলাপ্রশাসকতপনকুমারবিশ্বাস। এসময় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক (রাসজ) মামুনউলহাসান, প্রেসক্লাবেরসভাপতিআহাদ উদ্দিনহায়দার, সেক্রেটারীতালুকদারআব্দুলবাকী, প্রেসক্লাবেরসাবেকসভাপতি মোজাফফর হোসেন, এবিএম মোশাররফ হোসেন, বাবুলসরদারপ্রমুখ। কর্মশালায়প্রজেক্টরের মাধ্যমে ভিটামিন এ ক্যাপসুলখাওয়ানোরউপকারিতা ও প্রক্রিয়াসম্পর্কে তুলেধরেনডা. প্রদীপকুমারবকশী। তিনিবলেন, ভিটামিন এ ক্যাপসুলএকটিসর্বোৎকৃষ্টমানেরভিটামিন। এর কোনপার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। ৬ থেকে ৫৯ মাসবয়সি যেকোনশিশু এ ভিটামিন খেতে পারবে। তবে গুরুত্বর অসুস্থ্য অবস্থায় কোনশিশু এ ভিটামিন খেতে পারবেনা।প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সারা দেশ পাতার আরো খবর