ভালুকায় শেফার্ড গ্রুপে জীবাণুনাশক স্প্রে গেইট
০৯মে,শনিবার,মো.মোকছেদুর রহমান মামুন,ভালুকা প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভালুকায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শেফার্ড গ্রুপের কর্মচারী, কর্মকর্তাদের নিরাপত্তার জন্য স্বয়ংক্রিয় জীবাণুনাশক ডিজিটাল সিকিউরিটি স্প্রে গেইট স্হাপন করলেন ভালুকা শেফার্ড গ্রুপের ডি,জি,এম শ্রমিকবান্ধব শিল্প কর্মকর্তা মোকলেসুর রহমান। গত ২৯ এপ্রিল জীবাণুনাশক স্প্রে গেইট টি স্হাপন করা হয়।এটি উদ্বোধন করেন ডি,জি,এম মোকলেসুর রহমান।এই গেইট দিয়ে প্রবেশ করার সাথে সাথেই স্বয়ংক্রিয় ভাবে জীবাণুনাশক স্প্রে করবে এবং প্রবেশকারীকে জীবাণুমুক্ত হবে। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়,ভালুকার শেফার্ড গ্রুপের ডি,জি,এম মোকলেসুর রহমান ফ্যাক্টরীর কর্মচারী,কর্মকর্তাদের জন্য ব্যাপক সর্তকতা মুলক পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন।১৫০০ শ্রমিকের হাত ধোয়ার ব্যাবস্হা এবং ফ্যাক্টরীর সকলকে মাস্ক,স্যানিটাইজার ও সচেতনামূলক ফেষ্টুন,লিফলেট, পোষ্টার দিয়ে সচেতন করেছেন। ভালুকা শেফার্ড গ্রুপের শ্রমিক তোফাজ্জল হোসেন বলেন,প্রবেশের সময় হাত ধোয়ার পাশাপাশি জীবানুমুক্ত গেইট দিয়ে প্রবেশ করায় পা থেকে মাথা পর্যন্ত জীবাণুমুক্ত হচ্ছে।এখন আমরা আগের মত আতংকিত নয়। এই বিষয়ে ভালুকা শেফার্ড গ্রুপের ডি,জি এম মোকলেসুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে,তিনি বলেন,বিশ্বব্যাপি প্রানঘাতী করোনা ভাইরাসের জন্য সাধারন মানুষ যেমন আতংকিত ঠিক তেমনি ফ্যাক্টরীর শ্রমিকরাও আতংকিত।শ্রমিকরা ফ্যাক্টরিতে আসতে ভয় পায়।করোনা ভাইরাসের কারনে সৃষ্ট এই সংকটকালে জীবাণুনাশক ছিটানো গেইটটি স্হাপনের মধ্য দিয়ে শ্রমিক,কর্মচারী,কর্মকর্তাদের জীবাণুমুক্ত করার চেষ্টা করছি।
ভালুকায় প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের কৃষকের জমির ধান কেটে দিলো ছাত্রলীগ
০৯মে,শনিবার,মো.মোকছেদুর রহমান মামুন,ভালুকা প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা পরিস্থিতির কারণে শ্রমিক না পাওয়ায় এ বছর বোরো ফলন সংগ্রহ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন কৃষকরা। তার উপর রয়েছে বৈরী আবহাওয়ার শঙ্কা। তবে সংকটময় সময়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার হক সজীবের উদ্যোগে এক ঝাকঁ তরুন উধ্যমী ছাত্রলীগের কর্মী বাহিনী নিয়ে উপজেলার উথুরা ইউনিয়নের প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা'র আশ্রয়ন প্রকল্পে বসবাসকারী দরিদ্র কৃষক মোঃ শহীদ মিয়ায় ৪০শতাংশ জমির ধান কেটে, বাড়ীতে পৌছিয়ে মাড়াই করে দিলেন। এতে সহযোগিতা করেন উথুরা ইউনিয়নের ছাএলীগের নেতাকর্মীরা। কৃষক মোঃশহিদ জানান, আমি মানুষের বাড়ীতে কাজ করে নিজের সংসার চালাই। নিজের পরিবারের বছরের চাল সংগ্রহের জন্য এই জমি টুকু আবাদ করি। কিন্তু শ্রমিক সংকট ও আমার কাছে টাকা না থাকায় ক্ষেতের ধান কাটতে পারছি না। এ সংবাদ সজীব ভাই কারও মাধ্যমে জানতে পারেন এবং নিজে এসে তার নেতাকর্মীদের নিয়ে আমার ধান কেটে দিলেন। এতে আমার অনেক উপকার হয়ছে। আল্লার কাছে তাঁর জন্য দোয়া করি। ভালুকা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার হক সজীব জানান,করোনা পরিস্থিতির কারণে দেশজুড়ে ধান কাটা শ্রমিকের মজুরি তুলনামূলকভাবে বেশি হওয়ায়ার কারণে বেশ কিছু অঞ্চলে কৃষকেরা পাকা ধান কাটতে হিমশিম খাচ্ছেন। এমতাবস্থায় বাংলার দুঃখী অসহায় মানুষের শেষ ঠিকানা কৃষিবান্ধব নেত্রী, দেশ রত্ন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী নিয়ে স্বেচ্ছাশ্রমে ধান কেটে দিচ্ছি। এবং আমাদের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।মানবতার পাশে ছাত্রলীগ। এই স্লোগান কে সামনে রেখে, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগরে নির্দেশনায় আমরা কাজ করছি
ফেনীতে আগুনে পুড়ল ৮টি ঘর
০৯মে,শনিবার,তামজীদ হোসাইন,ফেনী প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফেনীর আলোকদিয়ায় একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তিনটি বসতসহ ৮টি ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। ক্ষতিগ্রস্তদের দাবি, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৩০ লক্ষাধিক টাকা। স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানায়, রাত ১২টার দিকে ফেনীর কালিদহ ইউনিয়নের আলোকদিয়া চৌধুরী বাড়ীর জয়নাল আবেদীনের পরিত্যক্ত রান্না ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এতে মুহূর্তের মধ্যেই আগুনের লেলিহান শিখায় প্রবাসী মহি উদ্দিন, নূর হোসেন ও অহিদের রহমান মাস্টারের বসত ঘরসহ ৮টি ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। এ সময় বিকট শব্দে রান্নায় ব্যবহৃত ২টি গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফারিত হলে জনমনে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রণে নেয়ায় পাশের আরও ১০টি ঘর রক্ষা হয়। ক্ষতিগ্রস্ত নূর হোসেন ঘটনাটি রহস্যজনক দাবি করে জানান, জয়নাল আবেদীন পরিবার নিয়ে ফেনী শহরে বসবাস করেন। যেখান থেকে আগুনের সূত্রপাত সেই রান্না ঘর ব্যবহার হয় না। সেখানে বিদ্যুতও নেই। ফেনী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার রাশেদ বিন খালিদ জানান, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। ফেনী মডেল থানার পুলিশও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তদন্ত করছে।
করোনায় পুলিশের ঝুঁকি কমাতে সুরক্ষা সামগ্রী উপহার
০৭মে,বৃহস্পতিবার,কামরুজ্জামান মিন্টু,ময়মনসিংহ ব্যুরো,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস মোকাবিলায় রাতদিন মাঠে কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। সম্প্রতি পুলিশের করোনাভাইরাসে সংক্রমণের হার বেড়ে গেছে। সদা মানুষের জীবন ও সম্পদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকা এই পুলিশ সদস্যদের সুরক্ষিত রাখতে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশকে সুরক্ষা সামগ্রী উপহার দিয়েছেন মহানগর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক রাসেল পাঠান। আজ (৭ই মে) বৃহস্পতিবার বিকেলে ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক সৌজন্য স্বাক্ষাতে পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামানের হাতে এই উপহার সামগ্রী তুলে দেন। উপহার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ২৩শ মাস্ক, ১৫ বক্স গ্লাভস, ৪০লিটার হ্যান্ড সেনিটাইজার ও ১০ পিস পিপিই। এসময় পুলিশ সুপার মোহাঃ আহমার উজ্জামান বলেন, করোনা মোকাবিলায় মানুষকে ঘরে রাখাতে মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম চালাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। এক্ষেত্রে পুলিশ সদস্যরাও আক্রান্ত হচ্ছে। তবে আপনাদের দেয়া এ সুরক্ষা সামগ্রী আমাদের বিশেষ কাজে লাগবে। পুলিশের প্রতি এমন ভালোবাসার জন্য ধন্যবাদ জানান এসপি। মহানগর যুবলীগ নেতা রাসেল পাঠান বলেন,করোনা মোকাবেলায় পুলিশ, চিকিৎসক ও সংবাদকর্মীরা মাঠ পর্যায়ে সরাসরি ঝুকি নিয়ে কাজ করছেন। বিশেষ করে পুলিশ সদস্যদের সুরক্ষা নিরাপত্তা তেমন নেই। মুলত বর্তমান সময়ে পুলিশের কাজে উৎসাহ দেয়ার জন্য আমার এই ছোট্ট উপহার।
দিনাজপুরে ১৯৩ বোতল ফেনসিডিলসহ ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab
০৭মে,বৃহস্পতিবার,আব্দুল আউয়াল,দিনাজপুর প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: দিনাজপুরে ১৯৩ বোতল ফেনসিডিল ও মাদক বিক্রির কাজে ব্যবহৃত ২ টি মোটর সাইকেলসহ ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে Rab। Rab কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট আবদুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে গতকাল বুধবার (০৬ মে) মধ্যরাতে জেলার নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাগলপুর বাজার এলাকায় Rab এই অভিযান চালিয়ে তাদের মাদকদ্রব্যসহ গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত মো. মাসুদ রানা ও মো. শাহিনুর ইসলামের বাড়ি বিরামপুর উপজেলা দিনাজপুর এবং মো. মমিনুর ইসলাম মিঠাপুকুর রংপুর জেলায়। Rab জানিয়েছে, তারা দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ মাদক ব্যবসায় জড়িত এবং দিনাজপুর সীমান্তবর্তী এলাকা হতে মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করে। Rab বাদী হয়ে ধৃত আসামিদের বিরুদ্ধে আজ বৃহস্পতিবার দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জ থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে।
উখিয়ায় বন্দুকযুদ্ধে মানবপাচারকারী রোহিঙ্গা নিহত
০৭মে,বৃহস্পতিবার,মুনির উদ্দিন,কক্সবাজার প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজারের উখিয়ায় বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। বিজিবির দাবি, বন্দুকযুদ্ধে নিহত ব্যক্তি মাদক পাচারকারী। ঘটনাস্থল থেকে ৩০ হাজার ইয়াবা, একটি দেশীয় বন্দুক ও ৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার ভোরে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের উখিয়ার রহমতের বিল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মো: সাদেক (২২) উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরের ক্যাম্প-৮ ব্লক-৭৪ এর মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে। কক্সবাজারস্ত বিজিবি ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ নিউজ একাত্তরকে বলেন, মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা প্রবেশ করতে পারে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবির একটি টহল দল সীমান্তের শূন্য রেখা হতে আনুমানিক ৬৫০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে রহমতের বিল বেড়িবাঁধ এলাকায় অবস্থান নেয়। পরে ভোরে ৪/৫ জনের একটি দল রহমতের বিল বেড়িবাঁধ দিয়ে বাংলাদেশে দিকে আসতে দেখে বিজিবি তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করে। কিন্তু ওই দলটি অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে বিজিবির টহলকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এসময় বিজিবিও পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে টহল দল ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ গুরুতর আহত অবস্থায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করে চিকিৎসা জন্য উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার নাম ও ঠিকানা পাওয়া যায়। নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য, চলতি বছরে বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়ন ১ জানুয়ারি হতে ৬ মে পর্যন্ত ১২ লাখ ৬৫ হাজার ৪৮৩ পিস ইয়াবাসহ ২৬৪ জন আসামীকে আটক করে। আর বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মারা যান ১৩ মাদক ব্যবসায়ী।
খুলনায় সাংবাদিক রফিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা
০৫মে,মঙ্গলবার,খুলনা প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: খুলনা টিভি রিপোর্টাস এসোসিয়েশনের সদস্য ও মাই টিভির সাবেক খুলনা প্রতিনিধি মো. রফিকুল ইসলামের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ও চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। এ সময় রফিকের ছেলে-মেয়েকেও মারধোর করা হয়। গত রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে নগরীর ১১/৩ মুসলমানপাড়া রোডের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনি পরিবারের নিরাপত্তা ও সন্ত্রাসী হামলার তদন্ত চেয়ে খুলনা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযুক্তরা হলেন-নগরীর ১১/৩ মুসলমানপাড়া রোডস্থ আকরাম ফকির লেনের আব্দুল লতিফ হাওলাদারের দুছেলে মেহেদী হাসান রানা ওরফে বোমারু রানা (৩৫) ও মেহেদী হোসেন রলি (৩২) এবং মৃত মকবুল হোসেন বকু মোল্লার ছেলে রিয়াজুল ইসলাম বাবু (৩৭)। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রফিকুল ইসলাম ছেলে-মেয়ে নিয়ে নগরীর ১১/৩ মুসলমানপাড়া রোডের নিজ বাড়িতে বসবাস করেন। ৩ মে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে পূর্ব শত্রুতার জেরে অভিযুক্তরা রফিককে গালিগালাজ করতে থাকে। এ সময় রফিক প্রতিবাদ করলে তাকে মারধোর করা হয়। তার ছেলে-মেয়ে এগিয়ে আসলে তাদেরও মারধোর করা হয়। অভিযোগে আরো জানা যায়, অভিযুক্তরা এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ও চিহ্নিত সন্ত্রাসী। তাদের নামে থানায় একাধিক অস্ত্র, বোমাবাজি, চাঁদাবাজি ও ছিনতাই মামলা রয়েছে। এখন তারা প্রাণে শেষ করে ফেলার হুমকি দিচ্ছে। রফিক ও তার ছেলে- মেয়েকে মারধোরের ঘটনার তদন্ত পূর্বক অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রফিক খুলনা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।
ত্রাণ চুরি করায় আরো ১ ইউপি চেয়ারম্যান ও ৬ মেম্বার বরখাস্ত
০৫মে,মঙ্গলবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ত্রাণ নিয়ে অনিয়মসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও ৬ ইউপি সদস্যকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়। মঙ্গলবার (০৫ মে) স্থানীয় সরকার বিভাগ হতে এ সংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হবার পর এ নিয়ে মোট ৪৯ জন জনপ্রতিনিধিকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। তাদের মধ্যে ১৮ জন ইউপি চেয়ারম্যান, ২৯ জন ইউপি সদস্য, ১ জন জেলা পরিষদ সদস্য এবং ১ জন পৌরসভার কাউন্সিলর। আজ সাময়িকভাবে বরখাস্ত হলেন- মাদারীপুর জেলার সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার। এছাড়া সাময়িকভাবে বরখাস্তকৃত ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যরা হলো বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলার পেড়িখালী ইউপি'র ১নং ওয়ার্ডের রুবেল ইজারাদার ওরফে বাবুল মেম্বার,নড়াইল জেলার সদর উপজেলার মাইজপাড়া ইউপি'র ৮ নং ওয়ার্ডের মো. সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, শরীয়তপুর জেলার জাজিরা উপজেলার বিলাসপুর ইউপি'র ৯নং ওয়ার্ডের মো. সেলিম মোল্লা, ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার সুবিদপুর ইউপি'র ৮নং ওয়ার্ডের রেজাউল করিম খান সোহাগ, মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার কালাপুর ইউপি'র ৩ নং ওয়ার্ডের মুজিবুর রহমান এবং ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের সদস্য সাহিদা বেগম রূপা। প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, মাদারীপুর জেলার সদর উপজেলার শিরখাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে বিনা অনুমতিতে ইতালি গমন করেছেন এবং সেখানে অবস্থান করছেন। পৃথক প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, বাগেরহাট জেলার পেড়িখালী ইউপি সদস্য রুবেল ইজারাদার ওরফে বাবুল মেম্বার করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সময় সরকারি দায়িত্ব পালনরত চিকিৎসকদের দায়িত্বপালনে বাধা প্রদান ও শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে গ্রেফতার হয়ে জেল-হাজতে রয়েছেন। বরখাস্তকৃত অন্য সদস্যরা সরকারের খাদ্য-বান্ধব কর্মসূচির চাল আত্মসাৎসহ ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম করেছেন বলে তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে এবং কেউ কেউ গ্রেফতার হয়ে জেল-হাজতে আছেন। উল্লেখিত, চেয়ারম্যান ও সদস্য কর্তৃক সংঘটিত অপরাধমূলক কার্যক্রমের পরিপ্রেক্ষিতে তাদের দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয় মর্মে সরকার মনে করে। কাজেই স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন ২০০৯ এর ৩৪(১) ধারা অনুযায়ী, তাদের স্বীয় পদ হতে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো। একইসময় পৃথক পৃথক কারণ দর্শানো নোটিশে কেন তাদেরকে চূড়ান্তভাবে তাদের পদ থেকে অপসারণ করা হবে না তার জবাবপত্র প্রাপ্তির ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রেরণের জন্য অনুরোধ করা হয়।
মোংলায় অসাধু ব্যবসায়ীদের জরিমানা
০৪মে,সোমবার,আব্দুল আল শফি,মোংলা প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: রমজানে মোংলায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য বেশি দামে বিক্রির দায়ে মোংলায় কয়েক ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। সোমবার (৪ মে) দুপুরে বাজারের মুদি ব্যবসায়ীদের এই অর্থদন্ড দেয়া হয়। এছাড়া বাটখারায় ওজনে কম থাকায় মাছ ব্যবসায়ীকেও অর্থদন্ড দেওয়া হয় এসময়। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ রাহাত মান্নান। ইউএনও মোঃ রাহাত মান্নান সাংবাদিকদের বলেন, কিছু অসাধু ব্যবসায়ী নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য বেশি দামে বিক্রি করে সাধারণ মানুষদের ঠকাচ্ছেন। এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। এছাড়া তিনি আরও বলেন, কাঁচা বাজারে যেসব ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট তৈরী করে পণ্য বিক্রি করছেন তাদেরকেও আইনেরও আওতায় এনে জরিমানা করা হবে।

সারা দেশ পাতার আরো খবর