মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে এন.ডি.এম এর সদরঘাট থানা কার্যালয়ে সভা অনুষ্ঠিত
জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন এন.ডি.এম অদ্য ১৯/০২/২০১৮ ইং সদরঘাট, চট্টগ্রাম থানা কার্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম জেলা যুগ্ম আহবায়ক আবুল বশর চৌধুরী। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা আহবায়ক গণতন্ত্রের অতন্ত্র প্রহরী গণমানুষের এন.ডি.এম নেতা জননেতা জনাব, খোকন চৌধুরী। প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম আহবায়ক চট্টগ্রাম জেলা জনাব, মোঃ কামাল উদ্দিন। বিশেষ বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম আহবায়ক চট্টগ্রাম জেলা জনাব, ডাঃ মোঃ মহসিন। আরো উপস্থিত ছিলেন বন্দর থানা আহবায়ক জনাব, গোলাম কিবরিয়া, সদরঘাট থানা আহবায়ক জনাব, মোঃ রাকিব হোসেন সেলিম, ই.পি.জেড থানা আহবায়ক জনাব, মোঃ ইব্রাহিম, ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম এর সদস্য সচিব জনাব, শাহীন আলম, যুগ্ম আহবায়ক তানভির হোসেন। সকলে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্বরণে ১ মিনিট নীরবতা পালন করেন। প্রধান অতিথি সর্বস্তরে বাংলা ভাষার প্রচলন করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। বাংলা ভাষা আমাদের মাতৃভাষা। ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলাকে মাতৃভাষা করার দাবিতে কিছু ছাত্রজনতা আন্দোলন করলে ঐ আন্দেলনে পুলিশের গুলিতে কয়েকজন তরুণ শহীদ হন। তাই এই দিনটি শহীদ দিবস হিসাবে চিহ্নিত হয়ে আছে। ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারীতে যারা বাংলা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছিলেন সেই সকল ভাষা শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানায়। ২১শে ফেব্রুয়ারী আমাদের বাঙ্গালিদের জন্য একটি গৌরব উজ্জ্বল দিন। ইতিহাসের এই দিনেই মাতৃভাষার জন্য রাজপথে জীবন দিতে হয়ে ছিল সালাম, বরকত, জব্বার ও রফিকসহ নাম না জানা আরও অনেকেই। তাদের জন্য আজ আমরা মন খুলে বাংলা বলছি ও লিখছি। বিশ্বের ইতিহাসের বুকে মাতৃভাষার জন্য বীরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলাম আমরা এই বাঙ্গালীরাই। আর তাই এই দিনটি আজ শুধু বাংলাদেশ স্মরণ করে না এর পাশাপাশি সার বিশ্বও স্মরণ করে। পরিশেষে আমি সকল শহীদদের নফসের মাগফিরাক কামনা করি।
রেকর্ড ভাঙ্গা উষ্ণতম সময় আসছে বাংলাদেশে
গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের প্রভাবের সঙ্গে এল-নিনোর দাপটে বাংলাদেশে চলতি বছরটি উষ্ণতম বছর হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এক মাস আগেই ৫০ বছরের রেকর্ড ভেঙে হাড় কাঁপানো শীত বয়ে গেছে বাংলাদেশের ওপর দিয়ে। সামনে আসছে অসহনীয় তাতানো গরমের সময়। প্রচণ্ড গরমে অস্থির হয়ে পড়তে পারে জনজীবন। জাতিসংঘের বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা (ডব্লিউএমও) বলছে, গত দশ মাসে বায়ুমণ্ডলের গড় তাপমাত্রা দীর্ঘমেয়াদী গড়ের চেয়ে শূন্য দশমিক ৫৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি। জলবায়ুর পরিবর্তন হচ্ছে এবং বৈশ্বিক উষ্ণতা কোনো নিশ্চল অবস্থায় নেই। এ ধারা অব্যাহত থাকলে বার্ষিক গড় তাপমাত্রা অতীতের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে। যা ইতোমধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় ঘটছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রশান্ত মহাসাগরের এল-নিনোর প্রভাবে জলতলের তামপাত্রাও বেড়ে গেছে। ফলে ভারত মহাসাগর, আরব সাগর ও বঙ্গোপসাগরে জলীয় বাষ্পের জোগানে টান পড়েছে। বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর তাদের ফেব্রুয়ারি থেকে আগামী এপ্রিল পর্যন্ত ত্রৈমাসিক প্রতিবেদনে পূর্বাভাস দিয়ে বলেছে, এপ্রিল মাসে তীব্র তাপপ্রবাহ, সামুদ্রিক ঘূর্ণিঝড় আর কালবৈশাখী ও বজ্রঝড়ের দাপট থাকবে। এপ্রিল মাসটি বাংলাদেশের জন্য এক ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ সময় হয়ে আসছে। তাপমাত্রার তীব্রতা এপ্রিলে চরমভাবাপন্ন থাকতে পারে, বিশেষ করে দেশের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে। ওই অঞ্চলে একটি তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে; যার তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র দু-এক দিন মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বইতে পারে; যার তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছুঁতে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, বৈশ্বিক উষ্ণায়নের ফলে জলবায়ুর বিরূপ প্রতিক্রিয়া বাংলাদেশের ওপর বেশ কয়েক বছর ধরে দেখা যাচ্ছে। ২০১৫ সাল থেকে এল-নিনোর প্রভাবে পুড়েছে পুরো উপমহাদেশ, সেটা চলে ২০১৬ সালের জুন-জুলাই পর্যন্ত। এর পর থেকে প্রতিবছরই প্রকৃতির বিরূপ আচরণের মুখোমুখি হতে হয়েছে বাংলাদেশকে। গত বছরও দেশ দেখেছে প্রকৃতির বৈরী আচরণ। রেকর্ড হয়েছে ৩৫ বছরের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের। এ রকমই বৈরী আচরণের দেখা মিলতে পারে আগামী এপ্রিল মাসে। তবে মার্চ জুড়ে প্রকৃতির আচরণ স্বাভাবিক থাকবে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। তারপর থেকেই তাপমাত্রা অসহনীয় হতে থাকবে। মার্চের শেষ থেকে এপ্রিল মধ্যভাগ জুড়েই তীব্র কালবৈশাখী এবং তীব্র বজ্রঝড়ের আশঙ্কা রয়েছে। প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, এপ্রিল মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বেশি বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। এ মাসেই বঙ্গোপসাগরে দু-একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে, যার একটি রূপ নিতে পারে ঘূর্ণিঝড়ে। দেশের উত্তর থেকে মধ্যাঞ্চল পর্যন্ত দু-তিনদিন বজ্রসহ মাঝারি অথবা তীব্র কালবৈশাখী বইতে পারে। দেশের অন্যত্র চার-পাঁচ দিন হালকা থেকে মাঝারি কালবৈশাখী বয়ে যেতে পারে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমেদ এ প্রসঙ্গে বলেন, আবহাওয়ার তারতম্য ঘটছে। উষ্ণতার হার ব্যাপকভাবে বাড়ছে। আবার শীতও তীব্র হচ্ছে। এ দিকে আগামী বাহাত্তর ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, পশ্চিমা লঘুচাপের বর্ধিতাংশ হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও তত্সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও তত্সংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ এখন বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। প্রসঙ্গত যে, জলবায়ুর পরিবর্তনের প্রভাব চলতি বছর থেকে ভয়ঙ্কর রূপ পরিগ্রহ করেছে। বিশ্বের এক প্রান্তে তীব্র তাবদাহ আর অপর প্রান্তে তীব্র শীত। জানুয়ারিতে পৃথিবীর দক্ষিণ-পূর্বের দেশ অস্ট্রেলিয়া ও উত্তর-পশ্চিমের দেশ কানাডায় সম্পূর্ণ বিপরীত অবস্থা চলেছে। অস্ট্রেলিয়ায় অসহ্য গরম আর কানাডায় হাড় কাঁপানো শীতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। অন্যদিকে তপ্ত সাহারা মরুভূমির বুকেও বরফ শীতল তুষার জমে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আর একই সময়ে সিঙ্গাপুরে অতীতের রেকর্ড ভেঙে বৃষ্টিপাত হয়। তখন বাংলাদেশের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা ২ ডিগ্রিতে নেমে আসে। শীত বিদায় নিয়েছে। সামনে আসছে নির্ঘাতের দিন। ইতোমধ্যেই সারা দেশের রাত ও দিনের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করেছে। গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায় ৩১.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটস্ এর চট্টগ্রাম জেলা কমিটি গঠন
মিলেনিয়াম হিউম্যান রাইটস্ এন্ড জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) এর চট্টগ্রাম জেলা কমিটি গঠন কল্পে এক আলোচনা সভা সংস্থার স্থায়ী কার্যালয়ে চট্টগ্রাম জেলা কমিটির মহাসচিব ফয়সাল হাসান এর সঞ্চালনায় ১৯শে ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হয়। সংস্থার চট্টগ্রাম জেলা কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ লোকমান আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আকবরশাহ্ থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, চেয়ারম্যান এনায়েত হোসেন নয়ন, হাবিবুর রহমান হাবিব, এম এ নুরুন নবী চৌধুরী, নুরা বেগম, সাইফুল ইসলাম ও মিজানুর রহমান ভুইয়া উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সভায় সকলের সম্মতি ক্রমে ২০১৮ সালের চট্টগ্রাম জেলা কমিটিতে মোঃ লোকমান আলীকে চেয়ারম্যান ও ফয়সাল হাসানকে মহাসচিব মনোনীত করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট চট্টগ্রাম জেলা কমিটি অনুমোধন প্রদান করেন সংস্থার কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব সাংবাদিক মোঃ নাছির উদ্দিন চৌধুরী। উক্ত কমিটিতে আলহাজ্ব দিদারুল আলম এম.পি, প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব নিছার উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, কাজী মোঃ আলতাফ হোসেন, এনায়েত হোসেন নয়নকে উপদেষ্টা ও এম.এ নুরুন নবী চৌধুরী এবং মোঃ হাবিবুর রহমান হাবীবকে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, মোছাম্মৎ নুরা বেগম, মোঃ জমির উদ্দিন মাসুদ, এমদাদুল হক চৌধুরী রানা, মোঃ মিজানুর রহমান ভুইয়াকে ভাইস চেয়ারম্যান, মোঃ ওসমান সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব, সাইফুল ইসলাম, শেখ জয়নাল আবেদিন, মোঃ ফজলুল ইসলাম ভুইয়া কে যুগ্ম মহাসচিব, জুয়েল বড়–য়া সাংগঠনিক সচিব, জহিরুল আলম সিনিয়র যুগ্ম সাংগঠনিক সচিব, আবু নছর চৌধুরী যুগ্ম সাংগঠনিক সচিব, আলহাজ্ব মোঃ নুরুল আনোয়ার (দুলাল) কে অর্থ সচিব, বাবলু বড়–য়াকে দপ্তর সচিব, মোঃ হারুন রশিদকে সহ দপ্তর সচিব, এডভোকেট জিয়া উদ্দিনকে আইন বিষয়ক সচিব, নিহার কান্তি দাশ কে সমাজ কল্যান সচিব, সবিতা রাণী বিশ্বাস কে মহিলা বিষয়ক সচিব, সুজন আশ্চার্য কে প্রচার ও প্রকাশনা সচিব, সৈয়দ মামুনুল ইসলাম কে ক্রীড়া বিষয়ক সচিব, মোঃ শরীফ উল্যাহ কে ধর্ম বিষয়ক সচিব, মোঃ সালা উদ্দিন কে নির্বাহী সদস্য হিসাবে মনোনীত করা হয়। উক্ত কমিটি আগামী কয়েক দিনের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক ও পুলিশ কমিশনারের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।
চট্টগ্রামে এএসআই গুলিবিদ্ধ
চট্টগ্রাম নগরীতে একটি তল্লাশি চৌকিতে থামতে বলার পর এক পুলিশ কর্মকর্তাকে গুলি করেছে মটরসাইকেল আরোহীরা। শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে এ ঘটনায় পাঁচলাইশ থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক আব্দুল মালেক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নগর পুলিশের উত্তর জোনের উপ-কমিশনার আবদুল ওয়ারিশ বলেন, বিকালে নগরীর দুই নম্বর গেট এলাকার চেকপোস্টে একটি মটরসাইকেলকে থামানোর নির্দেশ দেয় পুলিশ সদস্যরা। তল্লাশি চালানোর আগেই এএসআই আব্দুল মালেককে লক্ষ করে মটরসাইকেল আরোহীরা গুলি করে। ঘটনাস্থল থেকে ওই দুই মটরসাইকেল এবং হামলাকারীদের একজনকে আটক করেন সেখানে দায়িত্বরত অন্য পুলিশ সদস্যরা। তবে হামলাকারী কতজন ছিল, তারা কারা এবং কয় রাউন্ড গুলিবর্ষণ করেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেননি পুলিশ কর্মকর্তা ওয়ারিশ। আব্দুল মালেকের হাঁটুর উপরে গুলি লেগেছে বলে চট্টগ্রাম মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানিয়েছেন।
চট্টগ্রাম সিটি গেইট এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড
চট্টগ্রামে ফার্নিচার দোকানে আগুনক্ষতি প্রায় ৩০ কোটি টাকার চট্টগ্রাম নগরীর সিটি গেট-কর্নেল হাট এলাকায় ফার্নিচারের দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৫০টি দোকান পুড়ে যায়। শুক্রবার সকাল সোয়া আটটার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স জানায়, আগুন লাগার খবর পাওয়ার পর আগ্রাবাদ, বন্দর, নন্দনকানন ও কুমিরা স্টেশনের ১০টি গাড়ি আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। তবে ফার্নিচারের দোকানে দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন নেভাতে সময় লাগায় ক্ষতির পরিমাণ বেশি হয়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক পরিচালক মো. জসীম উদ্দিন বলেন, কাট্টলীর কর্নেল হাট-সিটি গেট এলাকার ফার্নিচারের দোকান ও কারখানা আগুনে পুড়ে যায়। আগুনের সূত্রপাত হয়েছে একটি ফার্নিচার কারখানা থেকে। আগুনের লেলিহান শিখা থেকে দোকানের আসবাব সরিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নিয়ে আসেন অনেকে। আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।
শুক্রবার আংশিক সূর্য গ্রহণ
আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার আংশিক সূর্য গ্রহণ ঘটবে। ওইদিন ১২টা ৫৬ মিনিট বিএসটিতে গ্রহণ শুরু হয়ে ০৪টা ৪৭ মিনিট বিএসটিতে শেষ হবে। তবে বাংলাদেশে গ্রহণটি দেখা যাবে না। আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর, জলবায়ু মহাশাখার বরাত দিয়ে আজ এথ্য জানিয়েছে। আইএসপিআর আরও জানায়, সর্বোচ্চ গ্রহণ ০২টা ৫১ মিনিট ২৪ সেকেন্ড বিএসটিতে ঘটবে। গ্রহণের সর্বোচ্চ মাত্রা হবে ০.৫৯৮। আইএসপিআর জানিয়েছে, অ্যান্টার্কটিকার সয়া স্টেশনের উত্তর-পূর্বে দক্ষিণ মহাসাগরে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় মান সময় ভোর ৪টা ৩৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ডে গ্রহণ শুরু হয়ে আর্জেন্টিনার রোকে পেরেজ শহরের উত্তর-পূর্বে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় মান সময় সন্ধ্যা ০৬টা ৪৯ মিনিট ৫৭ সেকেন্ডে শেষ হবে। অ্যান্টার্কটিকার ন্যুমায়ের স্টেশনের উত্তর-পশ্চিমে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় মান সময় রাত ০৯টা ২৭ মিনিট ২৪ সেকেন্ডে সর্বোচ্চ গ্রহণ ঘটবে। শুধুমাত্র এস্থানেই গ্রহণের সর্বোচ্চ মাত্রা হবে ০.৫৯৮।
কাঠালিয়ায় সাংবাদিকদের মানবন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান
সাংবাদিকদের নিপিড়নকারী ৩২ ধারা বাতিল, পেশাদার সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়নসহ ১৪ দফা বাস্তবায়নের দাবীতে ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (১১ ফেব্রুয়ারী) উপজেলা পরিষদের সামনে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম (বিএমএসএফ) কাঠালিয়া শাখার উদ্যোগে বেলা ১১টা থেকে ১২ টা পর্যন্ত ঘন্টাব্যপি এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানবন্ধনে উপস্থিত ছিলেন প্রেস ক্লাবের সভাপতি সিকদার মোঃ কাজল, সিনিয়র সহসভাপতি ও উপজেলা বিএমএসএফ’র আহবায়ক ফারুক হোসেন খান, মাসুদুল আলম, যুগ্ন আহবায়ক মোঃ শহীদুল আলম, অধ্যক্ষ মোঃ ওবায়েদুল হক, জাহিদুল ইসলাম, মোঃ মাসুম বিল্লাহ, এইচএম নাসির উদ্দিন আকাশ, জাকির হোসাইন, মোঃ মহসিন মিয়া, সাকিল মিয়াজী, মোছাদ্দেক হোসেন, শফিকুল ইসলাম রাসেলসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। এসময় সু-শাসনের জন্য নাগরিক কমিটি সুজন কমিটির সদস্যরা সাংবাদিকদের দাবীর প্রতি সমর্থন জানিয়ে সাংবাদিকদের সাথে ও মানবন্ধনে অংশ নেন। মানবন্ধন শেষে ৩২ ধারা বাতিলের দাবীতে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম কাঠালিয়া শাখার নেতৃবৃন্দ স্মারকলিপি প্রদান
কালিগঞ্জ রোকেয়া মনসুর মহিলা কলেজে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতা
কালিগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ রোকেয়া মনসুর মহিলা কলেজের আয়োজনে ৮দলীয় ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ১০টায় অত্র কলেজ ক্যাম্পাসে কলেজের ছাত্রীদের অংশ গ্রহণে ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগীতায় কলেজের প্রভাষক নাসির উদ্দীন বাদশার সঞ্চলনায় সভাপতিত্ব করেন কলেজের অধ্যক্ষ এ,কে,এম জাফরুল আলম বাবু। উক্ত খেলায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম, কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ডাঃ মিলন কুমার ঘোষ, কলেজের সহকারী অধ্যাপক আবেনুর রহমান, স,ম,মোন্তাজুর রহমান, ইন্দ্রজিৎ কুমার মন্ডল, ওলিউর রহমান, কালিগঞ্জ উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাজেদুল হক সাজু সহ কলেজের ছাত্রীবৃন্দ। উক্ত খেলায় চ্যাম্পিয়ন হয় কলেজের এইচ,এস,সি ২য় বর্ষের ছাত্রী আঁখি ও নাসরিন, রানার্সআপ হয় কলেজের অনার্স ২য় বর্ষের ছাত্রী তিথী ও এইচ,এস,সি ১ম বর্ষের ছাত্রী সুরভী। খেলায় চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ দলের পুরস্কার প্রদান করা হয়। সমগ্র খেলাটি পরিচালনা করেন কলেজের ক্রীড়া শিক্ষক সৈয়দ মাহমুদুর রহমান।

সারা দেশ পাতার আরো খবর